বৈশ্য সাহা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বৈশ্য সাহা বাঙালি হিন্দুর একটি ব্যবসায়িক জাতি। ধৰ্ম্মানন্দ মহাভারতী মহাশয় সিদ্ধান্ত সমুদ্র ষষ্ঠ খণ্ডে এবং কৃষ্ণনাথ ঘোষ মহাশয় কুলপ্রতিভা গ্রন্থের তৃতীয় খণ্ডে সাহাজাতিকে পরশুরাম সংহিতায় উল্লিখিত পঞ্চ বণিকের অন্তর্গত মণিবণিক বলে উল্লেখ করেছেন।[১]

মূলত এরা মুদিখানা দোকান, কাপড়ের দোকান সহ নানা জিনিসের ব্যবসা করেন। আবার অনেকে মহাজনী ব্যবসা ও চাষাবাদও করেন। এরা অনেকে সাহা পদবি ব্যবহার করেন। অনেকে সাহা পদবি ছাড়াও ভৌমিক, চৌধুরী, দাস, মজুমদার, রায়, মল্লিক, পোদ্দার, রায় চৌধুরী, সরকার, শিকদার ইত্যাদি পদবীও ব্যবহার করেন।[২]

ভারতীয় বাঙালি বিজ্ঞানী মেঘনাদ সাহা বৈশ্য সাহা ছিলেন। তিনি তার ছাত্রাবস্থায় বৈশ্য উন্নয়ন সমিতির থেকে বিদ্যালাভের নিমিত্তে আর্থিক সাহায্য পেতেন।

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  1. "পাতা:শ্রীহট্টের ইতিবৃত্ত - পূর্বাংশ.pdf/৮২ - উইকিসংকলন একটি মুক্ত পাঠাগার"bn.wikisource.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৩ 
  2. হীরালাল বালা (২০১২)। "সাহা"ইসলাম, সিরাজুল; মিয়া, সাজাহান; খানম, মাহফুজা; আহমেদ, সাব্বীর। বাংলাপিডিয়া: বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্বকোষ (২য় সংস্করণ)। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলাপিডিয়া ট্রাস্ট, বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটিআইএসবিএন 9843205901ওএল 30677644Mওসিএলসি 883871743