বেইজিং-সাংহাই উচ্চগতির রেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
বেইজিং-সাংহাই উচ্চগতির রেল পথ
ChinaRailwayHighspeed.svg
CRH2B near Houshan,Wuxi.JPG
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
ধরন উচ্চগতির রেল
অবস্থা সক্রিয়
সেবাগ্রহণকারী অঞ্চল বেইজিং, হেবেই, তিয়ানজিন, শানডং, জিয়াংসু, আনহুই, সাংহাই
বিরতিস্থল বেইজিং দক্ষিণ
সাংহাই হোংকিও
বিরতিস্থলসমূহ ২৪
যাত্রীসংখ্যা ১৩০ মিলিয়ন প্রতি বছরে (২০১৫)[১]
ক্রিয়াকলাপ
উদ্বোধনের তারিখ ৩০ জুন ২০১১
মালিক চীনা রেলওয়ে
পরিচালনাকারী উচ্চগতির চীনা রেলওয়ে
রেলগাড়ির সংখ্যা সিআরএইচ৩৮০এএল সিআরএইচ৩৮০বিএল সিআরএইচ৩৮০সিএল সিআর৪০০এএফ সিআর৪০০বিএফ
প্রযুক্তিগত
রেললাইনের মোট দৈর্ঘ্য ১,৩১৯ কিলোমিটার (৮২০ মা)
চালন গতি ৩৫০ কিলোমিটার/ঘন্টা
পথের মানচিত্র
Beijing-Shanghai Line.png

বেইজিং-সাংহাই উচ্চগতির রেলপথ চীনের দুই বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চলকে যুক্ত করেছে। এই রেলপথের উত্তর প্রান্তবিন্দুতে রয়েছে চীনের রাজধানী বেইজিংবোহাই অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং দক্ষিণ প্রান্তবিন্দুতে রয়েছে দেশটির প্রধানতম বাণিজ্যিক নগরী সাংহাই[২] এই রেলপথের মোট দৈর্ঘ্য ১৩১৯ কিলোমিটার। এই উচ্চগতির রেলপথের নির্মাণ ১৮ এপ্রিল ২০০৮ সালে শুরু হয়, [৩] এবং রেল লাইন পাতার কাজের সমাপ্তি চিহ্নিত করার জন্য একটি অনুষ্ঠান ১৫ নভেম্বর ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত হয়। [৪] ৩০ শে জুন, ২০১৩ সালে রেলপথটিকে বাণিজ্যিক পরিষেবায় যুক্ত করতে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। [৫] এটি একটি একক পর্যায়ে নির্মিত বিশ্বের দীর্ঘতম উচ্চ গতির রেলপথ[৬][৭][৮] এটা ২০১৫ সালে নীট ¥৬.৬ বিলিয়ন ইউয়ান মুনাফা লাভের রিপোর্ট করে, যা চীনের সবচেয়ে লাভজনক উচ্চ গতির রেলপথ[১]

রেলের প্রাক্তন মন্ত্রী লিউ জিজিনের অধীনে, রেলপথটির বাণিজ্যিক পরিষেবার ক্ষেত্রে ৩৮০ কিলোমিটার/ঘন্টার সর্বোচ্চ গতির জন্য নকশা করা। বেইজিং দক্ষিণ থেকে সাংহাই হোংকিয়াও পর্যন্ত ১,৩০৫ কিলোমিটার পথ গড়ে ৩২৯ কিলোমিটার/ঘন্টার (২০৪ মাইল) গতিতে ৩ ঘণ্টা এবং ৫৮ মিনিটে [৯] যাত্রা শেষ হওয়ার কথা ছিল, যা সমান্তরালে প্রচলিত রেলপথের উপর চলমান দ্রুততম ট্রেনের ৯ ঘণ্টার এবং ৪৯ মিনিটের তুলনায় অনেক বেশি দ্রুততম।[১০] কিন্তু ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারিতে লিউ জিজিনের বরখাস্তের পর কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন ঘোষণা করা হয়। প্রথমত, ট্রেন ৩০০ কিলোমিটার/ঘণ্টার (১৮৬ মাইল) গতিসম্পন্ন হবে, পরিচালনা খরচ হ্রাস পাবে। এই গতিতে, উচ্চগতির ট্রেনগুলির ৪ ঘন্টা ৪৮ মিনিট লাগবে নানজি সাউথে একবার থেকে বেইজিং দক্ষিণ থেকে সাংহাই হোংকিয়াও যাওয়ার জন্য। [১১] উপরন্তু, ২৫০ কিলোমিটার/ঘণ্টা (১৫৫ মেগাওয়াট) গতিতে চলতে থাকা ট্রেনগুলির একটি ধীরগতির শ্রেণী হিসাবে চালিত হবে, বেশ কিছু স্থানে থামবে এবং কম ভাড়া নেওয়া হবে যাত্রীদের থেকে। ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে, বেইজিং ও সাংহাইয়ের ভ্রমণের সময় উচ্চগতির নির্ধারিত ট্রেন প্রায় ৪ ঘণ্টা ৩০ মিনিট সময় নেয়, যা চীনের স্ট্যান্ডার্ডাইজেড ইএমইউ দ্বারা পূর্ব নির্ধারিত ৩৫০ কিলোমিটার/ঘন্টার গতি পুনরুদ্ধার করা হয়। [১২][১৩]

বিশেষ উল্লেখ[সম্পাদনা]

বেইজিং-সাংহাই হাই-স্পিড রেলওয়ে কোং লিমিটেডের নির্মাণ কাজে ছিল। এই প্রকল্পটি ¥২২০ বিলিয়ন ইউয়ান (প্রায় $৩২ বিলিয়ন) খরচ হবে বলে আশা করা হয়েছিল। আনুমানিক ২২০,০০০ জন যাত্রী প্রতিদিন এই উচ্চগতির ট্রেন ব্যবহার করতে বলে আশা করা হয়। [২] বর্তমানে ক্ষমতার দ্বিগুণ হারে যাত্রী চালচল করছে।[১৪] ব্যবস্ত সময়ে, ট্রেন প্রতি পাঁচ মিনিট চালানো উচিত। [১৪] ১,১৪০ কিলোমিটার বা ৮৭% রেলপথকে উন্নত করা হয়। লাইন বরাবর ২৪৪ টি ব্রিজ রয়েছে। ১৬৪ কিলোমিটার দীর্ঘ ড্যানিয়েং-কুনশান গ্রান্ড সেতু বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ সেতু, [১৫] লংফ্যাং এবং কুইংক্সিয়ানের মধ্যে ১১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ বিদু্যত সেতু বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং বেইজিং-এর ৪ র্থ রিং রোডের মধ্যে কাংডে গ্র্যান্ড ব্রিজ এবং ল্যাংফং পঞ্চম দীর্ঘতম। এই লাইনটিতে ২২ টি টানেল রয়েছে, যা মোট ১৬.১ কিমি (১০.০ মাইল) দীর্ঘ। দৈর্ঘ্যের ১,২৬৮ কিলোমিটার (৭৮৮ মাইল) রেল ট্র্যাক নুড়ি বা পাথর বিহীন।

চীনের হাই-স্পিড রেল নেটওয়ার্কের উপ-প্রধান ডিজাইনার ঝাং শুউয়াংয়ের মতে, পরিকল্পিত ক্রমাগত পরিচালনার গতি ৩৫০ কিলোমিটার/ঘণ্টা (২০১৭ মাইল) এবং ৩৮০ কিলোমিটার (২৩৬ মাইল) পর্যন্ত সর্বোচ্চ গতির। বেইজিং থেকে সাংহাইতে গড় বাণিজ্যিক গতি ৩৩০ কিলোমিটার (২০৫ মাইল) করার পরিকল্পনা ছিল, যা ট্রেনে ভ্রমণের সময় ১০ ঘণ্টার থেকে কমিয়ে ৪ ঘন্টা করবে।[১৬] এই রেলপথটিতে ব্যবহৃত রোলিং স্টকটি প্রধানত সিআরএইচ৩৮০ ট্রেনগুলির মধ্যে রয়েছে। সিটিএক্স-৩ ভিত্তিক ট্রেন কন্ট্রোল সিস্টেম রেলপথটিতে ব্যবহার করা হয়, যা ৩৮০ কিলোমিটার/ঘন্টার সর্বাধিক গতি এবং ৩ মিনিটের অন্তর ট্রেন চালনোর জন্য অনুমতি দেয়। ২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ খরচ এবং প্রায় ১,০৫০ জন যাত্রী সহ, বেইজিং থেকে সাংহাই যাওয়ার জন্য প্রতি যাত্রীর পিছু ৮০ কিলোওয়ার্ট বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

চীনারা দেশের রেলব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন করার লক্ষ্যে এবং চীনদেশের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির সঙ্গে তাল মেলাতে উচ্চগতির রেলপথ স্থাপনের কথা ভাবতে শুরু করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল চীনের প্রথম উচ্চগতির রেলপথ বেইজিং-সাংহাই উচ্চগতির রেলপথের নির্মাণকাজ শুরু হয় এবং ২০১০ সালের ১৫ই নভেম্বর রেলপথটির নির্মাণকাজ শেষ হয়ে পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু হয়। ২০১১ সালের ৩০শে জুন এই পথটিতে প্রথমবারের মত যাত্রী পরিবহন শুরু হয়।

রেলপথ ও গতি[সম্পাদনা]

বেইজিং-সাংহাই উচ্চগতির রেলপথের মোট দৈর্ঘ্য ১৩১৯ কিলোমিটার। এই পথের উপর দিয়ে রেলগাড়িগুলি সর্বোচ্চ ৩৮০ কিলোমিটার/ঘন্টা বেগে চলতে সক্ষম। বেইজিং থেকে সাংহাই যেতে সময় লাগে ৩ ঘন্টা ৫৮ মিনিট; রেলগাড়ির গড় গতিবেগ ঘণ্টা প্রায় ৩২৯ কিমি। এই উচ্চগতির রেলপথে মোট ২৪টি রেলস্টেশন রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Staff, W. S. J. (জুলাই ২০, ২০১৬)। "China's Busiest High-Speed Rail Line Makes a Fast Buck"The Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ২৭ এপ্রিল ২০১৭ 
  2. Beijing-Shanghai High-Speed Line, China. Railway-Technology.com, 25 September 2008.
  3. "China starts work on Beijing-Shanghai express railway"। China View। এপ্রিল ১৭, ২০০৮। এপ্রিল ২২, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ এপ্রিল ২০০৮ 
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; rgi20101115 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  5. "Beijing-Shanghai high-speed train makes debut"। অক্টোবর ৪, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  6. "Beijing-Shanghai high-speed train makes debut"The Independent। জুন ৩০, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ জুন ৩০, ২০১১ 
  7. "Beijing to Shanghai Railway: diary of a 4h 48m journey"The Daily Telegraph। জুন ৩০, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ জুন ৩০, ২০১১ 
  8. "High-Speed Train Links Beijing, Shanghai"The Wall Street Journal। জুন ৩০, ২০১১। সংগ্রহের তারিখ জুন ৩০, ২০১১ 
  9. (চীনা) Zhang Chunjie (张纯洁) (সম্পাদক)। 京沪高铁19日起铺轨 全程不到四小时-新闻频道-和讯网। News.hexun.com। জুলাই ২৩, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  10. (চীনা) 京沪京杭动车下月开行卧铺। Thebeijingnews.com। নভেম্বর ২৫, ২০০৮। ২০১১-০৭-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  11. (চীনা) 京沪高铁列车开始试跑 最快4小时48分跑完全程_财经频道_凤凰网। Finance.ifeng.com। জুলাই ২০, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  12. 京沪高铁明提速 "复兴号"将在中途超车"和谐号"। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০১৭ 
  13. "China Focus: Beijing-Shanghai railway speed rises to 350 kph - Xinhua | English.news.cn"www.xinhuanet.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৬-২৯ 
  14. Construction of Beijing to Shanghai High-speed Railway Kicks Off. CRIEnglish.com, January 2008. (accessed: 25 September 2008)
  15. (চীনা) 京沪高铁江苏江苏段90%是桥梁 堪称"桥上铁"_时政频道_新华网। Xinhua News Agency। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০১১ 
  16. (চীনা) Zhang, Shuguang (ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। 京沪高速铁路系统优化研究 [Beijing–Shanghai High-Speed Railway System Optimization Research] (Chinese ভাষায়)। China Railway Press। পৃষ্ঠা 10। আইএসবিএন 978-7-113-09517-8