বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস
বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবসের লোগো.jpeg
পালনকারীবিশ্বব্যাপী
ধরনস্বাস্থ্য
তাৎপর্যআন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে দিবসের তাৎপর্য্য তুলে ধরা
পালনসভা, আলোচনা অনুষ্ঠান, প্রদর্শনী, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শোভাযাত্রা, পোস্টার, টীকা প্রদান
তারিখ২৮শে সেপ্টেম্বর

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস প্রতি বছর ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্বব্যাপী পালিত হয়। অ-লাভজনক প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল এলায়েন্স ফর রেবিজ কন্ট্রোল তার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের দফতর থেকে এ দিবস পরিচালনায় প্রধান সমন্বয়ের ভূমিকা পালন করে।[১]

"রেবিজ" বা "জলাতঙ্ক" হচ্ছে ভাইরাস গঠিত একটি রোগ যা সাধারণত কুকুর, শেয়াল, বাদুর প্রভৃতি উষ্ণ রক্তের প্রাণীদের মধ্যে দেখা যায়। এটি এক প্রাণী থেকে আরেক প্রাণীতে পরিবাহিত হতে পারে তার লালা বা রক্তের দ্বারা। বিশ্বের প্রায় সকল দেশের প্রাণীর মধ্যেই এই রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। প্রতি বছর বিশ্বে যত মানুষ কুকুরের দ্বারা আক্রান্ত হয়ে মারা যায় তার ৯৯ শতাংশই এই রোগের কারণে হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

কর্মসূচীসমূহ[সম্পাদনা]

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস উপলক্ষে পালিত অনুষ্ঠানমালার মধ্যে প্রধান হচ্ছে বিশ্বব্যাপী জলাতঙ্ক রোগের বর্তমান অবস্থা বিষয়ে পর্যালোচনা, এর প্রেক্ষিতে করণীয় বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরি ও বৃদ্ধির লক্ষ্যে সাধারণ জনগণ, চিকিৎসক এবং সরকারী-বেসরকারী নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা। এছাড়াও এই রোগ সম্পর্কে সাধারণ জনগণকে সচেতন করার জন্য এই দিনে বিশেষ র‌্যালী বা শোভাযাত্রা, বিনামূল্যে টীকা প্রদান প্রভৃতি কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Global Alliance for Rabies Control Website [1], accessed November 16th, 2010."। ২১ নভেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]