বিষয়বস্তুতে চলুন

হরচন্দ্র ঘোষ: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
| spouse =
}}
'''হরচন্দ্র ঘোষ''' ({{lang-en|'''Hara Chandra Ghosh'''}}) ([[জুলাই ২৩|২৩ জুলাই]], ১৮০৮ - [[ডিসেম্বর ৩|৩ ডিসেম্বর]], ১৮৬৮) উনিশ শতকের বাঙালি জজ। তিনি [[হেনরি লুই ভিভিয়ান ডিরোজিও|ডিরোজিওর]] শিষ্যরূপে [[হিন্দু কলেজ|হিন্দু কলেজে]] শিক্ষাপ্রাপ্ত হন। [[লর্ড উইলিয়াম বেন্টিঙ্ক]] তাকে গভর্নর জেনারেলের দেওয়ানের পদ দিতে চাইলে তিনি তা গ্রহণে অসম্মত হন। পরে নতুন -সৃষ্ট মুনসেফের পদ পান। এক বছরের মধ্যে বাঁকুড়ার মুনসেফ থেকে হুগলীর সদর আমিন হন। ১৮৪৪ সালে প্রধান সদর আমিন হয়ে [[২৪ পরগণা|চব্বিশ পরগণায়]] বদলি হয়ে আসেন। ১৮৫২ সালে [[কলকাতা]] পুলিশ কোর্টের জুনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট এবং ১৮৫৪ সালে কলকাতা ছোট আদালতের জজের পদ পান এবং ১৮৬৮ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এ পদে তিনিই প্রথম বাঙালি।<ref name="সংসদ"/><ref name="Cotton">Cotton, H.E.A., ''Calcutta Old and New'', 1909/1980, pp. 639-40, General Printers and Publishers Pvt. Ltd.</ref> তিনি [[বাঁকুড়া]] ও শুরশুনায় দুটি স্কুল স্থাপন করেন। বেথুন স্কুল কমিটির সভ্য ও 'রায়বাহাদুর' উপাধি ভূষিত ছিলেন। স্মৃতিরক্ষা কমিটি কর্তৃক স্থাপিত (১৮৭৬) তার মর্মরমূর্তি ছোট আদালতের প্রাঙ্গণে বর্তমান আছে। তার পুত্র রায়বাহাদুর জ্ঞানেন্দ্র চন্দ্র [[কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়]] ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বহু লক্ষ টাকা দান করেছিলেন।<ref name="সংসদ">সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, ''সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান'', প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা ৮৪১, {{আইএসবিএন|978-81-7955-135-6}}</ref>
 
==তথ্যসূত্র==