বিষয়বস্তুতে চলুন

রামমোহন রায়: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

2409:4061:50E:9309:B4ED:9B91:5A9D:B83E-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে HirokBot-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত
সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: পুনর্বহালকৃত মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(2409:4061:50E:9309:B4ED:9B91:5A9D:B83E-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে HirokBot-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফেরত)
ট্যাগ: পুনর্বহাল মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
{{ref improve|date=জুন ২০১২}}
{{Infobox revolution biography
|name=রাজা রামমোহন রায়
|lived={{জন্ম তারিখ|1772|5|22}} – {{death date|1833|9|27}}
|image= [[File:Raja Ram Mohan Roy (রামমোহন রায়) অথবা রাজা রাম মোহন রায়.jpg|thumb|এইচ. পি. ব্রিগস দ্বারা আঁকা রাজা রামমোহন রায়ের প্রতিকৃতি – ব্রিস্টল যাদুঘরে সংরক্ষিত]]
|caption= বাংলার নবজাগরণের জনক রাজা রামমোহন রায়
|alternate name=রামমোহন রায়
|dateofbirth={{জন্ম তারিখ|1772|5|22}}
|placeofbirth= জন্ম (মামার বাড়ি)-[[শ্রীরামপুর, পশ্চিমবঙ্গ|শ্রীরামপুর]] (অধুনা [[পশ্চিমবঙ্গ]])<br>বাড়ি- [[রাধানগর]], [[হুগলী জেলা]], অধুনা [[পশ্চিমবঙ্গ]]
|dateofdeath={{মৃত্যু তারিখ ও বয়স|1833|09|27|1772|5|22}}
| spouse =
| parents =
| children =
|prizes=
|religion=[[ব্রাহ্ম ধর্ম]],[[হিন্দুধর্মের শাখা]]
|footnotes=
|placeofdeath=[[স্টেপল্‌টন]], [[ব্রিস্টল]], [[ইংল্যান্ড]]
|movement=[[বাংলার নবজাগরণ]]
|organizations=[[ব্রাহ্মসমাজ]]
}}
[[File:রাজা রামমোহন রায়ের মূর্তি ২০১৯.jpg|থাম্ব|রাজা রামমোহন রায় সরণিতে রামমোহনের আবক্ষ মূর্তি]]
'''রাজা রামমোহন রায়''' অথবা '''রামমোহন রায়''' ([[২২ মে]], [[১৭৭২]] – [[সেপ্টেম্বর ২৭]], [[১৮৩৩]]) প্রথম [[ভারত]]ীয় ধর্মীয়-সামাজিক পুনর্গঠন আন্দোলন [[ব্রাহ্মসমাজ]]ের প্রতিষ্ঠাতা<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.yourarticlelibrary.com/history/ram-mohan-roy-and-brahmo-samaj/22830/|শিরোনাম=Ram Mohan Roy and Brahmo Samaj|শেষাংশ=মণ্ডল|প্রথমাংশ=পূজা|তারিখ=|ওয়েবসাইট=Your Article Library|প্রকাশক=|ভাষা=ইংরেজি|সংগ্রহের-তারিখ=14 December 2016}}</ref>{{rs|certain=y|কারণ=স্বপ্রকাশিত}} এবং [[বাঙালি]] [[দার্শনিক]]। তৎকালীন [[রাজনীতি]], [[জনপ্রশাসন]], [[ধর্ম]]ীয় এবং [[শিক্ষা]]ক্ষেত্রে তিনি উল্লেখযোগ্য প্রভাব রাখতে পেরেছিলেন। তিনি সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত হয়েছেন, [[সতীদাহ]] প্রথা বিলুপ্ত করার প্রচেষ্টার জন্য। তখন [[হিন্দু]] [[বিধবা]] [[নারী]]দের [[স্বামী]]র চিতায় [[সহমরণ]]ে যেতে বা আত্মাহুতি দিতে বাধ্য করা হত।
 
রামমোহন রায় কলকাতায় [[২০ আগস্ট]], [[১৮২৮]] সালে [[ইংল্যান্ড]] যাত্রার আগে [[দ্বারকানাথ ঠাকুর]]ের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ব্রাহ্মসমাজ স্থাপন করেন। পরবর্তীকালে এই ব্রাহ্মসমাজ এক [[সামাজিক আন্দোলন|সামাজিক ও ধর্মীয় আন্দোলন]] এবং বাংলার পুনর্জাগরণের পুরোধা হিসাবে কাজ করে।
 
== শৈশব ও শিক্ষা ==
[[মে ২২]], [[১৭৭২]] সালে [[হুগলী জেলা|হুগলী জেলার]] রাধানগর গ্রামে রামমোহন রায় জন্মগ্রহণ করেন এক সম্ভ্রান্ত ও ব্রাহ্মণ পরিবারে। প্রপিতামহ কৃষ্ণকান্ত ফারুখশিয়ারের আমলে বাংলার সুবেদারের আমিনের কার্য করতেন। সেই সূত্রেই 'রায়' পদবীর ব্যবহার বলে অনুমান করা হয়। কৃষ্ণকান্তের কনিষ্ঠ পুত্র ব্রজবিনোদ রামমোহনের পিতামহ। পিতা রামকান্ত। রামকান্তের তিন বিবাহ। মধ্যমা পত্নী তারিণীর এক কন্যা ও দুই পুত্র : জগমোহন ও রামমোহন। এঁদের বংশ ছিল বৈষ্ণব, কিন্তু রামমোহনের মাতা ছিলেন ঘোর তান্ত্রিক ঘরের কন্যা। রামকান্ত পৈতৃক এজমালি ভদ্রাসন ছেড়ে পার্শ্ববর্তী লাঙ্গুলপাড়া গ্রামে স্ব-পরিবারে উঠে যান। তার পিতা রামকান্ত রায় ছিলেন বৈষ্ণবী এবং মাতা তারিণী দেবী ছিলেন শাক্ত। পনেরো-ষোলো বছর বয়সে তিনি গৃহত্যাগ করে নানা স্থানে ঘোরেন। কাশীতে ও পাটনায় কিছুকাল ছিলেন এবং নেপালে গিয়েছিলেন। এর আগে তার সঙ্গে তন্ত্রশাস্ত্রবেত্তা সুপণ্ডিত [[নন্দকুমার বিদ্যালঙ্কার|নন্দকুমার বিদ্যালঙ্কারের]] (পরে হরিহরানন্দ তীর্থস্বামী [[কুলাবধূত]] নামে পরিচিত) যোগাযোগ হয়। রামমোহনের সংস্কৃতে ব্যুৎপত্তি, তার বেদান্তে অনুরাগ নন্দকুমারের সহযোগিতায় হয়েছিল। ব্রাহ্ম উপাসনালয় প্রতিষ্ঠায় হরিহরানন্দই তার দক্ষিণ-হস্ত ছিলেন। [[বারাণসী]] থেকে প্রথাগত [[সংস্কৃত]] শিক্ষার পর তিনি [[পাটনা]] থেকে [[আরবি]] ও [[ফারসি ভাষা|পারসি]] ভাষা শেখেন। পরে তিনি [[ইংরেজি]], [[গ্রিক]] ও [[হিব্রু ভাষা|হিব্রু]] ভাষাও শেখেন।