বিষয়বস্তুতে ঝাঁপ দিন

"শ্রীলঙ্কার সংবিধান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সংশোধন, সম্প্রসারণ
(সম্প্রসারণ, অনুবাদ)
(সংশোধন, সম্প্রসারণ)
* ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দের ১৮ নভেম্বর ২৯ নম্বর আইনের সংশোধন করে সরকারি অফিসারদের (নির্দিষ্ট বিভাগে যাঁরা আছেন তাঁদের বাদ দিয়ে) নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার অনুমতি প্রদান, এবং সেনেটে তাঁদের নির্বাচিত অথবা মনোনীত করার জন্যে উপযুক্ত করা হয়।
* ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের ২ অক্টোবর ৩৬ নম্বর সংশোধন করে সেনেট অবলুপ্ত করা হয়।<ref>{{cite web|title=Ceylon Constitution Order in Council 1946|url=http://tamilnation.co/srilankalaws/46constitution.htm}}</ref>
=== সংশোধনের তারিখ ===
 
;প্রজাতান্ত্রিক সংবিধান
{{মূল প্রবন্ধ|শ্রীলঙ্কান কনস্টিটিউশন অব ১৯৭২}}
 
বিশ্বের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে [[সিরিমাভো বন্দরনায়েকে]] ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দের মে মাসে কার্যভার গ্রহণ করেন।<ref>{{cite web|title=Sirimavo Bandaranaike: First woman premier|url=http://news.bbc.co.uk/2/hi/south_asia/964914.stm}}</ref>তাঁর যুক্তফ্রন্ট সরকার সংসদকে গণপরিষদ হিসেবে ব্যবহার করেন এবং প্রজাতান্ত্রিক সংবিধানের একটা খসড়া প্রস্তুত করেন। ১৯৭২ খ্রিস্টাব্দের ২২ মে প্রবর্তন করা হয়। [[Sri Lankan Constitution of 1972|বর্তমান সংবিধান]] ন্যাশনাল স্টেট অ্যাসেম্বলি নামে ৬ বছর মেয়াদী একটা এককক্ষবিশিষ্ট সংসদ প্রদান করেছিল এবং এর মধ্যে সার্বভৌমত্ব নিহিত ছিল। দেশের নামমাত্র প্রধান হিসেবে একজন রাষ্ট্রপতিকে মননীত করবেন প্রধানমন্ত্রী, যিনি মন্ত্রিসভার প্রধান
ও ন্যাশনাল স্টেট অ্যাসেম্বলির কাছে দায়বদ্ধ। সিংহল নাম পরিবর্তন করে রাখা হল শ্রীলঙ্কা প্রজাতন্ত্র (প্রোজ্জ্বল দ্বীপ)। ১৯৭৫ খ্রিস্টাব্দের ১১ ফেব্রুয়ারি এই সংবিধানে জনগণের মৌলিক অধিকার এবং স্বাধীনতা সংশোধন করে একটি ঘোষণা করা হয়; যাতে বলা হয় যে, একেকটি নির্বাচন ক্ষেত্রের সীমানা নির্ধারণের মাধ্যমে ৭৫,০০০ সংখ্যার জায়গায় ৯০,০০০ নির্বাচকমণ্ডলী থাকবে<ref>{{cite web|title=The 1972 Republican Constitution in the Postcolonial Constitutional Evolution of Sri Lanka|url=http://republicat40.org/wp-content/uploads/2013/01/The-1972-Republican-Constitution-in-the-Postcolonial-Constitutional-Evolution-of-Sri-Lanka.pdf}}</ref> [[জে. আর. জয়বর্ধনে]] ১৯৭৭ খ্রিস্টাব্দের জুলাইতে পাঁচ-ষষ্ঠমাংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কার্যভার গ্রহণ করে ৪ অক্টোবর, ১৯৭৭ তারিখে ১৯৭২ খ্রিস্টাব্দের সংবিধানে দ্বিতীয় সংশোধনী পাস করান; যার ফলে কার্যকরী রাষ্ট্রপতির পদ তৈরি হয়। এই বিধান অনুযায়ী ১৯৭৮ খ্রিস্টাব্দের ৪ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী জয়বর্ধনে স্বাভাবিকভাবেই শ্রীলঙ্কার প্রথম কার্যকরী রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন।<ref>{{cite web|title=Constitutional history of Sri Lanka|url=http://www.constitutionnet.org/country/constitutional-history-sri-lanka}}</ref>
 
==১৯৭৮ সংবিধানের পশ্চাৎপট==
 
১৯৭৭ খ্রিস্টাব্দে সাধারণ নির্বাচনের আগে ইউ এন পি জনগণের কাছ থেকে একটা নতুন সংবিধান গ্রহণ করার শাসনাদেশ পেয়েছিল। সেই অনুযায়ী বর্তমান সংবিধান সংশোধন করার জন্যে একটা
[[select committee (parliamentary system)|সিলেক্ট কমিটি]] মনোনীত করা হয়েছিল।
 
১৯৭৮ খ্রিস্টাব্দের ৭ সেপ্টেম্বর নতুন সংবিধান প্রবর্তিত হয়েছিল, যাতে [[unicameralism|এককক্ষবিশিষ্ট]] সংসদ এবং কার্যকরী রাষ্ট্রপতির ব্যবস্থা করা হয়েছিল। রাষ্ট্রপতির কার্যকাল এবং সংসদের মেয়াদ দুই ক্ষেত্রেই ছ-বছর ধার্য করা হয়েছিল। নতুন সংবিধান সংসদের নির্বাচনে বহু সদস্যের [[proportional representation|সমানুপাতিক প্রতিনিধিত্ব]] প্রবর্তিত হয়েছিল, যে সংসদের সদস্য সংখ্যা ছিল ১৯৬ (পরবর্তীকালে সংবিধানের চতুর্দশ সংশোধনীতে যেটা বাড়িয়ে ২২৫ করা হয়)।
 
সংবিধান স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা এবং [[মৌলিক অধিকার|মৌলিক অধিকারের]] গ্যারান্টি দিয়েছে, যেমন কোনো ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি তার মৌলিক অধিকার লঙ্ঘিত হলে [[শ্রীলঙ্কার সুপ্রিম কোর্ট|সুপ্রিম কোর্টের]] কাছে আবেদন করতে পারে। সংবিধানে শাসনের (ন্যায়পাল) জন্যে একজন সংসদীয় কমিশনার রাখার ব্যবস্থা আছে যিনি জনতার অভিযোগের ভিত্তিতে সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে প্রতিবিধান দিতে পারেন। এটা দলবদল-বিরোধী আইন, এবং জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ কিছু নির্দিষ্ট বিষয় ও বিলের ওপর গণভোট প্রবর্তন করে।
 
==সংশধনের জন্যে ব্যবস্থা==
 
শ্রীলঙ্কার সংবিধানে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সংসদের দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা দিয়ে সংশোধন করার ব্যবস্থা আছে। যাই হোক, বুনিয়াদি বৈশিষ্ট্যপূর্ণ নির্দিষ্ট কিছু ধারার ক্ষেত্রে, যেমন, ভাষা, ধর্ম এবং শ্রীলঙ্কার বিষয়ে [[একক রাষ্ট্র]] দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা এবং জাতীয় পর্যায়ে গণভোটে অনুমোদন দুটোরই প্রয়োজন হয়।
===এ পর্যন্ত সংশোধনসমূহ===
 
 
{|class="wikitable"
|-
!style="width: 12em;"|সংশোধন
!style="width: 9em;"|তারিখ
!বিবরণ
|-
|প্রথম সংশোধন
|২০ নভেম্বর ১৯৭৮
|বিশেষ অবস্থায় সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন বিষয়
|-
|দ্বিতীয় সংশোধন
|২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯
|প্রথম সংসদের সদস্যদের পদত্যাগ ও বহিষ্কার সম্পর্কিত বিষয়
|-
|তৃতীয় সংশোধন
|২৭ আগস্ট ১৯৮২
|রাষ্ট্রপতির প্রথম দফার ৪ বছরের পর পুনর্নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সক্ষম হওয়ার জন্যে
|-
|চতর্থ সংশোধন
|২৩ ডিসেম্বর ১৯৮২
|প্রথম সংসদের মেয়াদ বাড়ানোর জন্যে
|-
|পঞ্চম সংশোধন
|২৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৩
|রাজনৈতিক দল শূন্যপদ পূর্ণ করতে না-পারলে [[উপনির্বাচনের]] বিধান রাখা
|-
|ষষ্ঠ সংশোধন
|৮ আগস্ট ১৯৮৩
|আঞ্চলিক অখণ্ডতা লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা
|-
|সপ্তম সংশোধন
|৪ অক্টোবর ১৯৮৩
|হাই কোর্টের কমিশনারের সঙ্গে সম্পর্কিত এবং [[কিলিনচ্চি জেলা]] সৃষ্টি
|-
|অষ্টম সংশোধন
|৬ মার্চ ১৯৮৪
|[[রাষ্ট্রপতির পরামর্শদাতা]] নিয়োগ
|-
|নবম সংশোধন
|২৪ আগস্ট ১৯৮৪
|সরকারি আধিকারিকদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার যোগ্যতা সম্পর্কে
|-
|দশম সংশোধন
|৬ আগস্ট ১৯৮৬
|সরকারি নিরাপত্তা অধ্যাদেশের অধীনে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রয়োজনী ঘোষণার ধারা বাতিল
|-
|একাদশ সংশোধন
|৬ মে ১৯৮৭
|পুরো দ্বীপের রাজকোষের জন্যে ব্যবস্থা; হাই কোর্টের পত্তন সম্পর্কিত; আপীল কেশ কোর্টে সর্বনিম্ন বিচারক রাখার ধারা সংশোধন।
|-
|দ্বাদশ সংশোধন
|(প্রণীত হয়নি)
|
|-
|[[ত্রয়োদশ সংশোধন to the Constitution of Sri Lanka|ত্রয়োদশ সংশোধন]]
|১৪ নভেম্বর ১৯৮৭
|To make [[Tamil language|Tamil]] an official language and English a link Language, and for the establishment of [[Provinces of Sri Lanka#Provincial Councils|Provincial Councils]]
|-
|চতুর্দশ সংশোধন
|২৪ মে ১৯৮৮
|Extension of immunity of President; increase of number of Members to 225; validity of referendum; appointment of Delimitation Commission for the division of electoral districts into zones; proportional representation and the cut-off point to be 1/8 of the total polled; apportionment of the 29 National List Members
|-
|পঞ্চদশ সংশোধন
|১৭ ডিসেম্বর ১৯৮৮
|To repeal Article 96A to eliminate zones and to reduce the cut-off point to 1/20th
|-
|ষষ্ঠদশ সংশোধন
|১৭ ডিসেম্বর ১৯৮৮
|To make provision for [[Sinhala language|Sinhala]] and [[Tamil language|Tamil]] to be Languages of Administration and Legislation
|-
|সপ্তদশ সংশোধন
|৩ অক্টোবর ২০০১
|To make provisions for the Constitutional Council and Independent Commissions
|-
|অষ্টাদশ সংশোধন
|৮ সেপ্টেম্বর ২০১০
|To remove the sentence that mentioned the limit of the re-election of the President and to propose the appointment of a parliamentary council that decides the appointment of independent posts like commissioners of election, human rights, and Supreme Court judges
|-
|[[ঊনবিংশ সংশোধন to the Constitution of Sri Lanka|ঊনবিংশ সংশোধন]]
|28 April 2015
|To annul the অষ্টাদশ সংশোধন while replacing the defunct সপ্তদশ Amendment to establish the Independent Commissions and remove the Executive Presidential powers and limit the term of office of the President to five years while the President continue to function as the Head of State, Head of the Cabinet, and Head of Security Forces
|-
|বিংশ সংশোধন to the Constitution of Sri Lanka|বিংশ সংশোধন
|২২ অক্টোবর ২০২০
|To repeal the ঊনবিংশ সংশোধন
|-
|}
 
== বহির্সংযোগসমূহ ==
১,৫২৭টি

সম্পাদনা