বিষয়বস্তুতে চলুন

"রেফ ফাইঞ্জ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
==প্রারম্ভিক জীবন==
ফাইঞ্জ ১৯৬২ সালের ২২শে ডিসেম্বর ইংল্যান্ডের সাফোকের ইপ্সউইচে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা [[মার্ক ফাইঞ্জ]] (১৯৩৩-২০০৪) ছিলেন একজন কৃষক ও আলোকচিত্রী এবং মাতা [[জেনিফার ল্যাশ]] (১৯৩৮-১৯৯৩) ছিলেন একজন লেখিকা।<ref name="গার্ডিয়ান-১৯৯৯"/> তিনি ইংরেজ, আইরিশ ও স্কটিশ বংশোদ্ভূত।<ref name="ফিল্ম-রেফ">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনাম=Ralph Fiennes Biography (1962-)|ইউআরএল=http://www.filmreference.com/film/66/Ralph-Fiennes.html|ওয়েবসাইট=ফিল্ম রেফারেন্স|প্রকাশক=অ্যাডভামেজ, ইঙ্ক.|সংগ্রহের-তারিখ=২৭ মে ২০১৮}}</ref> তার বংশনাম ফাইঞ্জ এসেছে ফরাসি গ্রাম পাস-দ্য-কালাই থেকে।<ref name="actors">''[[ইনসাইড দি অ্যাক্টরস স্টুডিও]]''-তে [https://www.youtube.com/watch?v=W_HKw3jYdLM James Lipton interview with Ralph Fiennes]</ref> তার নামের প্রথমাংশের উচ্চারণ রেফ ({{IPAc-en|r|eɪ|f}}) হওয়ায় প্রায়ই নামটির ইংরেজি ভুল বানান ''Rafe'' বা ''Raiph'' দেখা যায়।<ref name="এউগার্ডিয়ান-রেফ১৯৯৯">{{citeসংবাদ webউদ্ধৃতি|lastশিরোনাম=ক্যাজলIt's |first=জেসRaiph actually|urlইউআরএল=httphttps://www.ewtheguardian.com/ewfilm/article1999/0,,301253,00.html nov/14/1|titleসংগ্রহের-তারিখ=It's২৭ Pronounced 'Rafe Fines'মে ২০১৮|publisherকর্ম=[[এন্টারটেইনমেন্টদ্য উয়িকলিগার্ডিয়ান]] |dateতারিখ=4১৪ Marchনভেম্বর 1994 |accessdate=২৭ মে ২০১৮১৯৯৯|langভাষা=ইংরেজি}}</ref><ref name="গার্ডিয়ানএউ-১৯৯৯রেফ">{{সংবাদওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনামশেষাংশ=It'sক্যাজল Raiph|প্রথমাংশ=জেস actually|ইউআরএল=httpshttp://www.theguardianew.com/filmew/1999article/nov/14/10,,301253,00.html |সংগ্রহের-তারিখশিরোনাম=২৭It's মেPronounced 'Rafe Fines' ২০১৮|কর্মপ্রকাশক=[[দ্যএন্টারটেইনমেন্ট গার্ডিয়ানউয়িকলি]] |তারিখ=১৪4 নভেম্বরMarch ১৯৯৯1994 |সংগ্রহের-তারিখ=২৭ মে ২০১৮|ভাষা=ইংরেজি}}</ref> তার পিতামহ স্যার মরিস ফাইঞ্জ (১৯০৭-১৯৯৪) ছিলেন একজন শিল্পপতি এবং তার মাতামহ হেনরি আলিয়ন ল্যাশ ছিলেন ব্রিটিশ ব্রিগেডিয়ার।
 
ছয় ভাইবোনের মধ্যে ফাইঞ্জ সর্বজ্যেষ্ঠ। তার ভাইবোনেরা হলেন পরিচালক [[মার্থা ফাইঞ্জ]], সুরকার [[ম্যাগনাস ফাইঞ্জ]], চলচ্চিত্র পরিচালক [[সোফি ফাইঞ্জ]] এবং জমজ দুই ভাই অভিনেতা [[জোসেফ ফাইঞ্জ]] ও পরিবেশ সংরক্ষণবাদী জ্যাকব ফাইঞ্জ। তার ভাগ্নে হিরো ফাইঞ্জ-টিফিন একজন অভিনেতা।<ref name="ফিল্ম-রেফ"/>
১৯৯৪ সালে তিনি ''কুইজ শো'' চলচ্চিত্রে মার্কিন শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিত্ব চার্লস ভ্যান ডোরেন চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি [[ক্রিস্টিন স্কট-টমাস]]ের বিপরীতে মহাকাব্যিক [[দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ]]ের প্রণয়ধর্মী চলচ্চিত্র ''[[দি ইংলিশ পেশন্ট (চলচ্চিত্র)|দি ইংলিশ পেশন্ট]]'' চলচ্চিত্রে অভিনয় করে [[শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার]]ের মনোনয়ন লাভ করেন।<ref name="actors"/> এই দশকের শেষভাগে তিনি ক্যাম্প নস্টালজিয়া নির্ভর ''[[দি অ্যাভেঞ্জার্স (১৯৯৮-এর চলচ্চিত্র)|দি অ্যাভেঞ্জার্স]]'' (১৯৯৮), বাইবেলীয় মহাকাব্যিক ''[[দ্য প্রিন্স অব ইজিপ্ট]]'' (১৯৯৮) ও ঐতিহাসিক নাট্যধর্মী ''[[সানশাইন (১৯৯৯-এর চলচ্চিত্র)|সানশাইন]]'' (১৯৯৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৯ সালে তিনি ''ওয়ানজিন'' চলচ্চিত্রে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন এবং এর সহ-প্রযোজকও ছিলেন। তার বোন [[মার্থা ফাইঞ্জ]] চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেন এবং তার ভাই ম্যাগনাস এতে সুরারোপ করেন।
 
২০০০-এর দশকের শুরুতে তিনি থ্রিলারধর্মী ''[[স্পাইডার (২০০০-এর চলচ্চিত্র)|স্পাইডার]]'' (২০০২) এবং প্রণয়ধর্মী হাস্যরসাত্মক ''[[মেইড ইন ম্যানহাটন]]'' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। একই বছর তিনি ''[[দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস (চলচ্চিত্র)|দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস]]'' ও ''[[হ্যানিবল (চলচ্চিত্র)|হ্যানিবল]]''-এর পূর্ববর্তী পর্ব ''[[রেড ড্রাগন (২০০২-এর চলচ্চিত্র)|রেড ড্রাগন]]''-এ ফ্রান্সিস ডলারহাইড চরিত্রে অভিনয় করেন। [[এমিলি ওয়াটসন]] অভিনীত অন্ধ তরুণীর সাথে প্রণয়ের সম্পর্কে লিপ্ত সহানুভূতিশীল ধারাবাহিক খুনী চরিত্রে ফাইঞ্জের অভিনয় প্রশংসিত হয়। চলচ্চিত্র সমালোচক ডেভিড স্টেরিট লিখেন, "রেফ ফাইঞ্জ সমসাময়িক পাগল হ্যানিবল লেক্টারের মত ভয়ানক রকমের ভালো।"<ref>{{citeওয়েব webউদ্ধৃতি |urlইউআরএল=http://www.csmonitor.com/2002/1004/p15s02-almo.html |authorলেখক=স্টেরিট, ডেভিড |titleশিরোনাম=The doctor is in: Hannibal returns in 'Lambs' prequel |workকর্ম=ক্রিশ্চিয়ান সায়েন্স মনিটর |dateতারিখ=4 October 2002 |accessdateসংগ্রহের-তারিখ=২২ ডিসেম্বর ২০১৯ |langভাষা=en}}</ref>
 
২০০৫ সালে তিনি ''[[দ্য কনস্ট্যান্ট গার্ডেনার (চলচ্চিত্র)|দ্য কনস্ট্যান্ট গার্ডেনার]]'' চলচ্চিত্রে কেন্দ্রীয় ভূমিকায় অভিনয় করেন। [[কেনিয়া]]র পটভূমিতে নির্মিত চলচ্চিত্রটির কিছু অংশ কাইবেরা ও লোয়াঙ্গালানির প্রকৃত বস্তিতে চিত্রায়িত হয়। তাদের অবস্থা চলচ্চিত্রটির অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীদের প্রভাবিত করে এবং এতে তারা এই গ্রামগুলির শিশুদের শিক্ষা প্রদানের লক্ষ্যে কনস্ট্যান্ট গার্ডেনার ট্রাস্ট গঠন করেন। ফাইঞ্জ এই দাতব্য প্রতিষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।<ref>{{citeওয়েব webউদ্ধৃতি| urlইউআরএল=http://www.constantgardenertrust.org/html/patrons.htm| titleশিরোনাম=Constant Gardener Trust – Patrons| publisherপ্রকাশক=[[ইউনিসেফ]] | accessdateসংগ্রহের-তারিখ=২২ ডিসেম্বর ২০১৯ |langভাষা=en | archiveআর্কাইভের-urlইউআরএল=https://web.archive.org/web/20080316234711/http://www.constantgardenertrust.org/html/patrons.htm| archiveআর্কাইভের-dateতারিখ=16 March 2008| urlইউআরএল-statusঅবস্থা=dead| df=dmy-all}}</ref> এছাড়া তিনি যুক্তরাজ্য জুড়ে বিদ্যালয়ের শিশুদের পেশাদার মঞ্চে শেকসপিয়ারীয় নাটকে অভিনয় করতে সাহায্য প্রদানকারী দাতব্য প্রতিষ্ঠান শেকসপিয়ার স্কুলস ফেস্টিভ্যালের একজন পৃষ্ঠপোষক।<ref>[http://ssf.uk.com/patrons/ralph-fiennes] {{webarchiveওয়েব আর্কাইভ|urlইউআরএল=https://web.archive.org/web/20130616052352/http://ssf.uk.com/patrons/ralph-fiennes|dateতারিখ=16 June 2013}}</ref> একই বছর তিনি স্টপ-মোশন অ্যানিমেটেড হাস্যরসাত্মক ''ওয়ালেস অ্যান্ড গ্রোমিট: দ্য কার্স অব দ্য অয়্যার-র‍্যাবিট''-এ লর্ড ভিক্টর কোয়ার্টারমাইন চরিত্রে অভিনয় করেন। এতে তাকে ল্যাডি টটিংটনের ([[হেলেনা বোনাম কার্টার]]) পাণিপ্রার্থী নিষ্ঠুর উচ্চশ্রেণীয় বর্বর ব্যক্তি চরিত্রে দেখা যায়, যে ওয়ালেস ও গ্রোমিটকে অপছন্দ করে।<ref>{{citeওয়েব webউদ্ধৃতি|last1শেষাংশ১=ডিমট|first1প্রথমাংশ১=রিক|titleশিরোনাম=Wallace & Gromit Leads Annie Nominations|urlইউআরএল=http://www.awn.com/news/wallace-gromit-leads-annie-nominations|publisherপ্রকাশক=Animation World Network|accessdateসংগ্রহের-তারিখ=২২ ডিসেম্বর ২০১৯ |langভাষা=en|dateতারিখ=5 December 2005}}</ref><ref>{{citeসংবাদ newsউদ্ধৃতি|last1শেষাংশ১=ব্রাউন|first1প্রথমাংশ১=মারেসা|titleশিরোনাম=‘Wallace & Gromit’ grabs 10 Annie Awards|urlইউআরএল=https://variety.com/2006/digital/awards/wallace-gromit-grabs-10-annie-awards-1117937443/|accessdateসংগ্রহের-তারিখ=২২ ডিসেম্বর ২০১৯ |langভাষা=en |workকর্ম=[[ভ্যারাইটি (পত্রিকা)|ভ্যারাইটি]]|dateতারিখ=5 February 2008}}</ref>
 
==তথ্যসূত্র==
১,৮৬,১২৭টি

সম্পাদনা