বিষয়বস্তুতে চলুন

"গিফু প্রশাসনিক অঞ্চল" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(এই বিষয়শ্রেণী নিবন্ধে সরাসরি যুক্ত করবেন না)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
গিফু প্রাচীন কাল থেকে জাপানের ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ অনেক যুদ্ধেরও ঘটনাস্থল ছিল এখানেই। চতুর্থ শতাব্দীতে এখানে য়ামাতো রাজসভার আসন স্থাপিত হয়। ৬৭২ খ্রিঃ জিন্‌শিন যুদ্ধের মাধ্যমে সম্রাট তেম্মু জাপানের চত্বারিংশ (চল্লিশ তম) সম্রাট হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।
 
আধুনিক গিফু প্রশাসনিক অঞ্চল অতীতে হিদা ও মিনো প্রদেশ এবং এচিযেন ও শিনানো প্রদেশের অংশবিশেষে বিভক্ত ছিল।<ref>Nussbaum, "Provinces and prefectures" in {{Google books|p2QnPijAEmEC|p. 780|page=780}}</ref> এর বর্তমান রাজধানী গিফু নগরের নামকরণ হয় ১৫৬৭ খ্রিঃ যখন ওদা নোবুনাগা তাঁরতার সমগ্র জাপানের একত্রীকরণ অভিযান উপলক্ষ্যে এই নগরের নামকরণ করেন।<ref name="kashimoristone">Stone ledger in front of [[Kashimori Shrine]]. Erected by Kashimori Shrine.</ref> গিফু নামটি লিখতে ব্যবহৃত দুটি চিত্রাক্ষরের প্রথমটি আসে ঐতিহাসিক কিশান পর্বত ('''岐'''山) থেকে; কিশান পর্বত প্রাচীন চীনের একত্রীকরণ সংক্রান্ত কিংবদন্তী বিশেষ। দ্বিতীয় অক্ষরটি আসে [[কনফুসিয়াস|কনফুশিয়াসের]] জন্মস্থান কুফু (曲'''阜''') অঞ্চলের নাম থেকে।<ref name="gkankou">[http://www.kankou-gifu.jp/en/outline/index.html Gifu tour guide – Outline of Gifu Prefecture] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20111001133648/http://www.kankou-gifu.jp/en/outline/index.html |তারিখ=১ অক্টোবর ২০১১ }}. Gifu Prefecture Tourist Federation. Accessed September 9, 2007.</ref> অনুমান করা যায়, নোবুনাগা জাপানের একত্রীকরণ চেয়েছিলেন বলে এই চিত্রাক্ষরগুলি নির্বাচন করেন।
 
== ভূগোল ==
১,৮৬,১২৭টি

সম্পাদনা