বিষয়বস্তুতে চলুন

"ধ্রুপদী সভ্যতা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(1টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10ehf1))
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
{{Classicism}}
{{Human history}}
 
[[File:Parthenon from west.jpg|thumb|upright=1.2|center| [[পার্থানন]] যা ধ্রুপদী সভ্যতার একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ]]
 
'''ধ্রুপদী সভ্যতা''' ({{lang-en|Classical antiquity}}) হচ্ছে [[ভূমধ্যসাগর]]কেন্দ্রিক একটি সাংস্কৃতিক ঐতিহাসিক যুগ, যা অনেকটা প্রাচীন [[গ্রিস]] ও [[রোম|রোমের]] সাথে তুলনীয়। এজন্য এটি গ্রিকো-রোমান বিশ্ব নামেও পরিচিত। এই সময়টিতেই [[গ্রিক ভাষা]] এবং রোমান সাহিত্য (যেমন: [[ইস্কিলুস]], [[ওভিড]], [[হোমার]] ও অন্যান্য) পূর্ণমাত্রায় বিকশিত হয়।<ref>{{বই উদ্ধৃতি |firstপ্রথমাংশ=Paul|lastশেষাংশ=Fargis|titleশিরোনাম=The New York Public Library Desk Reference - 3rd Edition||yearবছর=1998|publisherপ্রকাশক=Macmillan General Reference|pagesপাতাসমূহ=262|isbnআইএসবিএন=0-02-862169-7}}</ref>
 
এটির শুরু হিসেবে বিবেচনা করা হয় খ্রিস্টপূর্ব সপ্তম-অষ্টম শতকে গ্রিক কবি হোমারে মহাকাব্যিক সাহিত্যের সূচনাকে, এবং এটি চলতে থাকে [[খ্রিস্ট ধর্ম|খ্রিস্ট ধর্মের]] বিকাশ ও রোমান সাম্রাজ্যের পতনের সাথে সাথে (খ্রিস্টের জন্মের ৫ম শতক পর্যন্ত), এবং এটি শেষ হয় ৩০০-৬০০ খ্রিস্টাব্দেরখ্রিষ্টাব্দের দিকে, এবং এর পর পরই শুরু হয় প্রাক-মধ্যযুগীয় পর্ব (৬০০-১০০০ খ্রিস্টাব্দখ্রিষ্টাব্দ)। বর্তমান আধুনিক সভ্যতার ভাষা, রাজনীতি, শিক্ষাব্যবস্থা, দর্শন, বিজ্ঞান, শিল্পকলা, এবং স্থাপত্যশৈলীতে প্রাচীন গ্রিক সভ্যতার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। তৎকালীন [[রেনেসাঁস|রেনেসাঁসের]] গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব দেখা যায় আঠারো ও উনিশ শতকের বিভিন্ন ক্ষেত্রে।
 
== তথ্যসূত্র ==
১,৮৬,১২৭টি

সম্পাদনা