"ইসোয়াতিনি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
'''এসোয়াতিনি''' ({{IPAc-en|ɛ|s|w|ə|ˈ|t|iː|n|ɪ}}, {{lang-ss|eSwatini}} {{IPA-ss|ɛswáˈtʼiːni|}}) আনুষ্ঠানিকভাবে '''কিংডম অব এসোয়াতিনি''' (সোয়াজি: উম্বুসো ভাসওয়াটিনি) নামে পরিচিত, এছাড়াও '''সোয়াজিল্যান্ড''' নামেও পরিচিত। এটি [[দক্ষিণাঞ্চলীয় আফ্রিকা]]র একটি [[স্থলবেষ্টিত দেশ]]। দেশটির উত্তর-পূর্ব দিকে [[মোজাম্বিক]] এবং উত্তর, পশ্চিম ও দক্ষিণে [[দক্ষিণ আফ্রিকা]]র সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে। দক্ষিণ থেকে উত্তরে ২০০ কিলোমিটার (১২০ মাইল) এবং পূর্ব থেকে পশ্চিমে ১৩০ কিলোমিটার (৮১ মাইল) বিস্তৃত এসোয়াতিনি [[আফ্রিকা]]র ক্ষুদ্রতম দেশগুলির মধ্যে অন্যতম নয়; তা সত্ত্বেও, দেশটির জলবায়ু এবং স্থলচিত্রে বিভিন্ন ধরনের বৈচিত্র রয়েছে। দেশটি শীতল এবং বৃষ্টিপাত যুক্ত উচ্চ পাহাড়ী এলাকা থেকে উষ্ণ এবং শুষ্ক নিম্ন এলাকা নিয়ে গঠিত।
 
দেশের জনসংখ্যার বেশিরভাগ অংশ জাতিগতভাবে সোয়াজি। দেশের মূলভাষা ভাষা সোয়াজি (স্থানীয় আকারে সিসোয়াতি)। সোয়াজিরা ১৮ তম শতাব্দীর মাঝামাঝি নাগভানে তৃতীয়-এর নেতৃত্বের অধীনে তাদের রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।<ref [6]name="Bonner82">{{cite book |last=Bonner |first=Philip |title=Kings, Commoners and Concessionaires |year=1982 |publisher=Cambridge University Press |location=Great Britain |isbn=0521242703 |pages=9–27}}</ref> দেশ ও সোয়াজি জাতি তাদের নাম গ্রহণ করেছে ১৯ শতকের রাজা মসোয়াতি দ্বিতীয়-এর থেকে, যার শাসনামলে সোয়াজি অঞ্চল বিস্তৃত এবং ঐক্যবদ্ধ ছিল; বর্তমান সীমানা ১৮৮১ সালে [[আফ্রিকা দখলের লড়াই]]-এর সময়কালে তৈরি হয়েছিল।<ref [7]name="Kuper86">{{cite দ্বিতীয়book বোয়ার|last=Kuper যুদ্ধের|first=Hilda পর,|title=The সোয়াজিল্যান্ডSwazi: (/A swɑːzllndSouth African Kingdom |year=1986 |publisher=Holt, -ləndRinehart and Winston |pages=9–10}}</)ref> দ্বিতীয় বোয়ার যুদ্ধের পর, সোয়াজিল্যান্ড নামে রাজত্বটি ব্রিটিশের অধীনে ছিল ১৯০৩ সাল থেকে ১৯৬৮ সালের ৬ সেপ্টেম্বর স্বাধীনতা লাভ না হওয়া পর্যন্ত।<ref [8]name="Gillis99">{{cite book |last=Gillis |first=Hugh |title=The Kingdom of Swaziland: Studies in Political History |year=1999 |publisher=Greenwood Publishing Group |isbn=0313306702}}</ref> ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে দেশের সরকারী নাম ''কিংডম অব সোয়াজিল্যান্ড'' থেকে ''কিংডম অব এসোইয়াতিনি''-এ পরিবর্তন করা হয়, যা সাধারণত সোয়াজি ব্যবহৃত হয়।<ref>{{cite [9]web |title=UN Member States |url=http://www.un.org/en/member-states/index.html#gotoE |publisher=[10[United Nations]] |accessdate=30 June 2018 |date=30 May 2018}}</ref><ref name=KingdEswatini/>
 
== ইতিহাস==
দেশে দ্বৈতশাসন ব্যবস্থার সরকার রয়েছে, ১৯৮৬ সালের পর এনভেনমামা ("রাজা") মশ্বতী তৃতীয় এবং এনডলভুকতি ("রানী মা") এনফোব্বি তফওয়ালা দ্বারা দেশটি যৌথভাবে শাসিত। [11] [12] সাবেক রাষ্ট্রের প্রশাসনিক প্রধান এবং দেশের প্রধানমন্ত্রীর এবং দেশের সংসদ উভয় কক্ষের (সেনেট এবং সংসদ অধিবেশনের) প্রতিনিধি নিযুক্ত করা হয় এবং পরবর্তীতে রাষ্ট্রের জাতীয় প্রধান রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। জাতিসংঘের প্রথাগত উৎসব এবং বার্ষিক উমলংঙা অনুষ্ঠানের সময় সভাপতিত্ব করেন। সংসদ অধিবেশনে এবং সেনেট সংখ্যাগরিষ্ঠতা নির্ধারণের জন্য প্রতি পাঁচ বছরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমান সংবিধান ২০০৫ সালে গৃহীত হয়েছিল। আগস্ট/সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত উমলংঙ্গা [13] এবং ডিসেম্বর/জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত রাজপরিবার নাচ ইনভাল্লা দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। [14]

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা