"গৌতম বুদ্ধ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
3টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10ehf1)
(অনির্ভরযোগ্য উৎস বাতিল)
(3টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10ehf1))
* ৪০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ: {{Citation | title = The Date of the Historical Śākyamuni Buddha | year = 2003 | editor-link = Awadh Kishore Narain | editor-first = Awadh Kishore | editor-last = Narain | publisher = BR Publishing | place = New Delhi | ISBN = 81-7646-353-1}}{{sfn | Norman | 1997|p= 33}} [http://isites.harvard.edu/fs/docs/icb.topic138396.files/Buddha-Dates.pdf Notes on the Dates of the Buddha Íåkyamuni] দেখুন}} এই বিকল্প মতবাদগুলি সমস্ত ঐতিহাসিকদের দ্বারা স্বীকৃত নয়।{{sfn |Schumann|2003|p = xv}}{{sfn | Wayman| 1993|pp = 37–58}}{{refn |group=পাদটীকা|২০১৩ খ্রিস্টাব্দে প্রত্নতাত্ত্বিক রবার্ট কনিংহ্যাম [[মায়াদেবী মন্দির, লুম্বিনী|লুম্বিনীর মায়াদেবী মন্দিরে]] ৫৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের একটি বৃক্ষ মঠের অবশেষ আবিষ্কার করে মতপ্রকাশ করেন যে, এটি একটি বৌদ্ধ মঠ হতে পারে, এবং তা সত্য হলে বুদ্ধের জন্মের সময় পিছিয়ে যেতে পারে।<ref group = web name= "natgeo" /> অবশ্য প্রত্নতাত্ত্বিকরা এই মঠ প্রাক-বুদ্ধ যুগের বৃক্ষপূজার স্থান কিনা তা নিয়ে সাবধানী এবং এ নিয়ে গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।<ref group = web name = "natgeo">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল = http://news.nationalgeographic.com/news/2013/11/131125-buddha-birth-nepal-archaeology-science-lumbini-religion-history/ |শিরোনাম= Oldest Buddhist Shrine Uncovered In Nepal May Push Back the Buddha's Birth Date |শেষাংশ= Vergano| প্রথমাংশ= Dan | তারিখ = 25 November 2013|প্রকাশক = [[National Geographic Society|National Geographic]]| সংগ্রহের-তারিখ= 26 November 2013}}</ref><br />রিচার্ড গোমব্রিখ অবশ্য কনিংহ্যামের মতকে বাতিল করে দিয়েছেন।<ref group= web>{{Citation | url = http://www.tricycle.com/blog/recent-discovery-earliest-buddhist-shrine-sham | first = Richard | last = Gombrich | year = 2013 | title = Recent discovery of "earliest Buddhist shrine" a sham? | publisher = Tricycle}}.</ref><br />জিওফ্রি স্যামুয়েলসের মতে বৌদ্ধ ও জৈন ধর্মের আদি যুগের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বিভিন্ন স্থানগুলি যক্ষ পূজার সঙ্গে সম্পর্কিত ছিল, যেখানে বৃক্ষের পূজা করা হত, যেগুলির অধিকাংশ পরবর্তীকালে বৌদ্ধ তীর্থে পরিণত হয়।{{sfn | Samuels |2010| pp = 140–52}}}}
 
প্রাচীন গ্রন্থগুলি থেকে প্রমাণ পাওয়া যায় যে, সিদ্ধার্থ গৌতম [[শাক্য]] জনগোষ্ঠীতে জন্মগ্রহণ করেন। এই গোষ্ঠী খ্রিস্টপূর্ব পঞ্চম শতাব্দীতে ভারতীয় উপমহাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মূল ভূখন্ড থেকে সাংস্কৃতিক ও ভৌগোলিক ভাবে কিছুটা বিচ্ছিন্ন অবস্থায় একটি ক্ষুদ্র গণতন্ত্র বা গোষ্ঠীতন্ত্র হিসেবে শাসন করত।{{sfn |Gombrich|1988|p= 49}} সিদ্ধার্থ গৌতমের পিতা শুদ্ধোধন একজন নির্বাচিত গোষ্ঠীপতি ছিলেন, যার ওপর রাজ্যশাসনের দায়িত্ব ছিল।{{sfn |Gombrich|1988|p=49}} বৌদ্ধ ঐতিহ্যানুসারে, গৌতম অধুনা [[নেপাল|নেপালের]] [[লুম্বিনী]] নগরে জন্মগ্রহণ করেন ও [[কপিলাবস্তু জেলা|কপিলাবস্তুতে]] বড় হয়ে ওঠেন।{{refn|group=পাদটীকা|name = "birthplace" |বৌদ্ধ ঐতিহ্যের ''নিদানকথা''<ref group = web>{{Citation | url = http://archive.org/details/buddhistbirth00daviuoft | title = Buddhist birth-stories; Jataka tales. The commentary introd. entitled Nidanakatha; the story of the lineage. Translated from V. Fausböll's ed. of the Pali text by TW Rhys Davids | edition = new & rev. | editor-first = Rhys | editor-last= Davids | year = 1878}}.</ref> ও [[জাতক]] কাহিনী অনুসারে, গৌতম অধুনা [[নেপাল|নেপালের]] [[লুম্বিনী]] নগরে জন্মগ্রহণ করেন <ref group = web>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল= http://whc.unesco.org/en/list/666|শিরোনাম = Lumbini, the Birthplace of the Lord Buddha| প্রকাশক = UNESCO | সংগ্রহের-তারিখ = 26 May 2011}}</ref><ref group= web name = "BuddhistPilgrimageSites">{{ওয়েব উদ্ধৃতি | ইউআরএল = http://www.vam.ac.uk/content/articles/t/the-astamahapratiharya-buddhist-pilgrimage-sites/ | শিরোনাম = The Astamahapratiharya: Buddhist pilgrimage sites | প্রকাশক = Victoria and Albert Museum | সংগ্রহের-তারিখ = 25 December 2012 | আর্কাইভের-ইউআরএল = https://web.archive.org/web/20121031180234/http://www.vam.ac.uk/content/articles/t/the-astamahapratiharya-buddhist-pilgrimage-sites/ | আর্কাইভের-তারিখ = ৩১ অক্টোবর ২০১২ | অকার্যকর-ইউআরএল = হ্যাঁ }}</ref> খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতাব্দীর মধ্যভাগে সম্রাট [[অশোক (সম্রাট)|অশোক]] গৌতমের জন্মস্থান হিসেবে লুম্বিনীকে চিহ্নিত করে সেখানে একটি স্তম্ভ স্থাপন করে ''...এই স্থানে বুদ্ধ শাক্যমুনি জন্মগ্রহণ করেন'' এই রকম উৎকীর্ণ করান।{{sfn|Gethin|1998|p=19}}<br/>কয়েকটি প্রস্তরলিপির ওপর নির্ভর করে মনে করা হয়ে থাকে যে ভারতের পূর্বসমদ্রতটে অধুনা [[উড়িষ্যা]] রাজ্যের কপিলেশ্বর গ্রামের লুম্বেই অঞ্চলটিই হল প্রাচীন লুম্বিনী।{{sfn |Mahāpātra| 1977}}{{sfn |Mohāpātra | 2000 | p = 114}}{{sfn |Tripathy| 2014}} হার্টম্যান এই তত্ত্ব পর্যালোচনা করে এই মতকে মিথ্যা প্রমাণ করে বলেন যে এই প্রস্তরলিপিগুলি ১৯২৮ খ্রিস্টাব্দের পরে নির্মিত।{{sfn|Hartmann|1991| pp = 38–39}}<br />
গৌতম কপিলাবস্তুতে বড় হয়ে ওঠেন{{sfn |Keown| Prebish | 2013 | p = 436}}{{refn|group=পাদটীকা|"The Buddha [...] was born in the Sakya Republic, which was the city state of Kapilavastu, a very small state just inside the modern state boundary of Nepal against the Northern Indian frontier.{{sfn|Warder|2000|p= 45}}}}{{refn|group=পাদটীকা|"He belonged to the Sakya clan dwelling on the edge of the Himalayas, his actual birthplace being a few miles north of the present-day Northern Indian border, in Nepal. His father was in fact an elected chief of the clan rather than the king he was later made out to be, though his title was ''raja'' – a term which only partly corresponds to our word 'king'. Some of the states of North India at that time were kingdoms and others republics, and the Sakyan republic was subject to the powerful king of neighbouring Kosala, which lay to the south{{sfn|Walsh|1995|p=20}}}}, যদিও কপিলাবস্তুকে অনেকে তাঁর জন্মস্থান হিসেবেও মনে করেন।{{refn|group=পাদটীকা|"The earliest Buddhist sources state that the future Buddha was born Siddhārtha Gautama (Pali Siddhattha Gotama), the son of a local chieftain — a ''rājan'' — in Kapilavastu (Pali Kapilavatthu) what is now the Indian–Nepalese border."{{sfn |Gethin|1998| p= 14}}}} প্রাচীন কপিলাবস্তুর সঠিক অবস্থান এখনো নির্ণীত নয়।{{sfn |Keown |Prebish|2013| p= 436}} উত্তর ভারতের [[উত্তর প্রদেশ]] রাজ্যের [[পিপরাহ্বা]]{{sfn | Nakamura |1980|p=18}}{{sfn |Keown |Prebish|2013|p = 436}} বা [[নেপাল|নেপালের]] [[তিলোরাকোট|তিলোরাকোটের]]{{sfn |Huntington | 1986}}{{sfn | Keown| Prebish| 2013| p= 436}} মধ্যে একটি শহরে প্রাচীন কপিলাবস্তুর অবস্থান বলে অনুমান করা হয়। এই দুই শহর মাত্র পনেরো মাইলের দুরত্বের ব্যবধানে অবস্থিত।{sfn|Huntington | 1986}}
 
[[মহাপরিনিব্বাণ সুত্ত]] অনুসারে গৌতম বুদ্ধের বয়স যখন আশি বছর, তখন তিনি তাঁর আসন্ন মৃত্যুর কথা ঘোষণা করেন। পওয়া নামক একটি স্থানে অবস্থান করার সময় [[চণ্ড (বৌদ্ধ)|চণ্ড]] নামক এক কামার তাঁকে ভাত ও ''শূকরমদ্দভ'' ইত্যাদি খাওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানান। এই খাবার খাওয়ার পরে গৌতম [[আমাশয়]] দ্বারা আক্রান্ত হন। [[চণ্ড (বৌদ্ধ)|চণ্ডের]] দেওয়া খাবার যে তাঁর মৃত্যু কারণ নয়, [[আনন্দ (বৌদ্ধ ভিক্ষু)|আনন্দ]] যাতে তা [[চণ্ড (বৌদ্ধ)|চণ্ডকে]] বোঝান, সেই ব্যাপারে বুদ্ধ নির্দেশ দেন। <ref group = web>{{Citation | publisher = Access insight | chapter-url = http://www.accesstoinsight.org/tipitaka/dn/dn.16.1-6.vaji.html | chapter = Maha-parinibbana Sutta | title = [[Digha Nikaya]] | number = 16 | at = verse 56}}.</ref> এরপর [[আনন্দ (বৌদ্ধ ভিক্ষু)|আনন্দের]] আপত্তি সত্ত্বেও অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় তিনি [[কুশীনগর]] যাত্রা করেন। এইখানে তিনি [[আনন্দ (বৌদ্ধ ভিক্ষু)|আনন্দকে]] নির্দেশ দেন যাতে দুইটি শাল বৃক্ষের মধ্যের একটি জমিতে একটি কাপড় বিছিয়ে তাঁকে যেন শুইয়ে দেওয়া হয়। এরপর শায়িত অবস্থায় বুদ্ধ উপস্থিত সকল ভিক্ষু ও সাধারণ মানুষকে তাঁর শেষ উপদেশ প্রদান করেন। তাঁর অন্তিম বাণী ছিল “বয়ধম্মা সঙ্খারা অপ্পমাদেন সম্পাদেথা”, অর্থাৎ “সকল জাগতিক বস্তুর বিনাশ আছে। অধ্যবসায়ের সাথে আপনার মুক্তির জন্য সংগ্রাম কর।”
 
বিভিন্ন পুঁথিতে অনুবাদবিভ্রাট ও লিখনশৈলীর পার্থক্যের জন্য গৌতম বুদ্ধের অন্তিম আহার্য্য বস্তু সম্বন্ধে স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায় না। [[আর্থার ওয়েলি|আর্থার ওয়েলির]] মতে [[থেরবাদ]] ঐতিহ্যানুসারে ''শূকরমদ্দভ'' বলতে শূকরের নরম মাংস বোঝানো হয়। যদিও [[কার্ল ইউজিন নিউম্যান]] এই শদের অর্থ করেছেন শূকরের নরম আহার। [[কার্ল ইউজিন নিউম্যান|নিউম্যান]] ও [[আর্থার ওয়েলি|ওয়েলি]] আবার এও মত প্রকাশ করেছেন যে এই আহারের সাথে শূকর শব্দটি যুক্ত হলেও হয়তো এটি একটি শুধুমাত্র একটি উদ্ভিদ, যাকে আহার হিসেবে ব্যবহার করা হত। পরবর্তীকালে কয়েক শতাব্দী পরে বুদ্ধের জীবনী রচনার সময় এই শব্দের অর্থ সাধারণ ব্যবহারে অপ্রচলিত হয়ে পড়ায় ''শূকরমদ্দভ'' শব্দটি শূকরের নরম মাংস হিসেবে ব্যবহৃত হতে থাকে।{{sfn|Waley|1932|pp= 343–54}} [[অস্কার ভন হিনুবার]] মত প্রকাশ করেছেন যে, বুদ্ধের মৃত্যু খাদ্যে বিষক্রিয়ার মাধ্যমে হয় নি, বরং [[সুপিরিয়র মেসেন্ট্রিক আর্টারি সিন্ড্রোম]] নামক বার্ধক্যের সময়ের একটি রোগের কারণে হয়েছিল।{{sfn|Mettanando| 2000}}<ref group = web>{{ওয়েব উদ্ধৃতি | শেষাংশ = Mettanando |ইউআরএল= http://www.buddhanet.net/budsas/ebud/ebdha192.htm | শিরোনাম= =Buddha net |তারিখ= 2001-05-15|সংগ্রহের-তারিখ= 25 December 2012}}{{dead|আর্কাইভের-ইউআরএল= linkhttps://web.archive.org/web/20121114032016/http://www.buddhanet.net/budsas/ebud/ebdha192.htm|dateআর্কাইভের-তারিখ= ২০১২-১১-১৪|অকার্যকর-ইউআরএল=May 2014হ্যাঁ}}</ref>
 
[[দীপবংশ]] ও [[মহাবংশ]] নামক [[শ্রীলঙ্কা|শ্রীলঙ্কার]] বৌদ্ধ ধর্মগ্রন্থানুসারে, বুদ্ধের মৃত্যুর ২১৮ বছর পরে সম্রাট [[অশোক (সম্রাট)|অশোকের]] রাজ্যাভিষেক হয়, সেই অনুযায়ী ৪৮৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দে বুদ্ধের মৃত্যু হয়। অন্যদিকে চীনা পুঁথি ({{lang|zh|十八部論}} ও {{lang |zh|部執異論}}) অনুসারে, বুদ্ধের মৃত্যুর ১১৬ বছর পরে [[অশোক (সম্রাট)|অশোকের]] রাজ্যাভিষেক হয়, সেই অনুযায়ী ৩৮৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দে বুদ্ধের মৃত্যু হয়। যাই হোক, থেরবাদ বৌদ্ধ ঐতিহ্যে ৫৪৪ বা ৫৪৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দে বুদ্ধের মহাপরিনির্বাণ ঘটে বলে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। [[মায়ানমার|মায়ানমারের]] বৌদ্ধরা ৫৪৪ খ্রিস্টপূর্বাব্দের ১৩ই মে{{sfn |Kala |1724|p = 39}} এবং [[থাইল্যান্ড|থাইল্যান্ডের]] বৌদ্ধরা ৫৪৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দের ১১ই মার্চ বুদ্ধের মৃত্যুদিবস বলে মনে করেন।{{sfn|Eade | 1995 |pp = 15–16}}
* {{Citation | last = Wayman|first= Alex|year= 1997| title= Untying the Knots in Buddhism: Selected Essays| publisher = Motilal Banarsidass | isbn = 812081321-9}}
* {{Citation | last = Weise|first =Kai | coauthors = et al |title = The Sacred Garden of Lumbini – Perceptions of Buddha's Birthplace | date = 2013 |publisher= UNESCO|location= Paris | archivedate = 2014-08-30 | url = http://unesdoc.unesco.org/images/0022/002239/223986E.pdf | archiveurl= https://web.archive.org/web/20140830011700/http://unesdoc.unesco.org/images/0022/002239/223986E.pdf | format = PDF}}
* {{Citation | last = Willemen| first = Charles, transl.| year =2009 2009| title = Buddhacarita: In Praise of Buddha's Acts | place = Berkeley, CA | publisher = Numata Center for Buddhist Translation and Research | isbn = 978-1886439-42-9| url = http://www.bdkamerica.org/digital/dBET_T0192_Buddhacarita_2009.pdf | format = PDF| সংগ্রহের-তারিখ = ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫| আর্কাইভের-ইউআরএল = https://web.archive.org/web/20140827205858/http://www.bdkamerica.org/digital/dbet_t0192_buddhacarita_2009.pdf| আর্কাইভের-তারিখ = ২৭ আগস্ট ২০১৪| অকার্যকর-ইউআরএল = হ্যাঁ}}
* {{Citation | last = Wynne | first = Alexander | year = 2007 | title = The Origin of Buddhist Meditation | url= http://www.e-reading.link/bookreader.php/134839/The_Origin_of_Buddhist_Meditation.pdf | publisher = Routledge | isbn = 0-20396300-8}}
{{refend}}
৫২,০৭৯টি

সম্পাদনা

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা