"স্পেন জাতীয় ফুটবল দল" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সম্পাদনা সারাংশ নেই
'''স্পেনের জাতীয় ফুটবল দল''' ({{lang-es|Selección de fútbol de España}} ''সেলেক্‌সিওন্‌ দে ফুত্‌বোল্‌ দে এস্‌পাঞা'') হচ্ছে [[ফিফা|আন্তর্জাতিক]] [[অ্যাসোসিয়েশন ফুটবল|ফুটবলে]] [[স্পেন|স্পেনের]] প্রতিনিধি। দলটির নিয়ন্ত্রণ করে [[রাজকীয় স্পেনীয় ফুটবল ফেডারেশন]]। স্পেনের জাতীয় ফুটবল দলকে সাধারণত ''লা ফুরিয়া রোহা'' (La Furia Roja) অর্থাৎ "লাল শিখা" বা কেবল ''লা রোহা'' অর্থাৎ "লাল দল" নামে সম্বোধন করা হয়।<ref>http://goal.blogs.nytimes.com/2009/06/24/stopping-the-la-furia-roja-is-no-easy-task/</ref>
 
স্পেন ২০০৮ সালে [[উয়েফা ইউরোপীয়ান ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ|উয়েফা ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের]] ফাইনালে [[জার্মানি জাতীয় ফুটবল দল|জার্মানিকে]] পরাজিত করে। ২০১২ সালে ইতালিকে[[ইতালি জাতীয় ফুটবল দল|ইতালীকে]] ৪-০ গোলে পরাজিত করে স্পেন একমাত্র দল হিসেবে টানা দুবার ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হয়। এছাড়া স্পেন ১৯৬৪ সালে ইউরোপীয়ান নেশন্স কাপ জয় করে ও ১৯৮৪ সালে ফাইনাল পর্যন্ত উন্নীত হয়। এখন পর্যন্ত দলটি ১৪ বার [[ফিফা বিশ্বকাপ]] খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত দলটির সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে [[২০১০ ফিফা বিশ্বকাপেবিশ্বকাপ|২০১০ সালে]] চ্যাম্পিয়ন হওয়া।
 
২০০৮ সালের জুলাই মাসে স্পেন ফিফা বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে প্রথম বারের মতো শীর্ষে উঠে। ৬ষ্ঠ দল হিসেবে এই স্থানে আসীন হয় তারা। ২০০৬ সালের নভেম্বর থেকে জুন ২০০৯ পর্যন্ত স্পেন টানা ৩৫টি আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড করে। এই রেকর্ডটি পূর্বে ছিলো একমাত্র [[ব্রাজিল জাতীয় ফুটবল দল|ব্রাজিলের]] দখলে। এই ৩৫টি ম্যাচ অপরাজিত থাকার সময় স্পেন টানা ১৫টি খেলায় জয়লাভ করে, এবং এটিও ছিলো একটি রেকর্ড।
 
১৬ জুন বিশ্বকাপ ফুটবলে স্পেনের বিপক্ষে [[সুইজারল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দল|সুইজারল্যান্ড]] ১-০ গোলে জয় পায়।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|first=Sam|last=Sheringham|url=http://news.bbc.co.uk/sport2/hi/football/world_cup_2010/matches/match_16/default.stm|title=Spain 0–1 Switzerland|date=16 June 2010|work=[[BBC Sport]]|publisher=BBC|accessdate=17 June 2010}}</ref> এরপর স্পেন গ্রুপ-এইচ থেকে পরের দুই খেলায় জয়ী হয়ে [[নক-আউট|নক-আউটভিত্তিক]] ১৬ দলে পৌঁছে। [[পর্তুগাল জাতীয় ফুটবল দল|পর্তুগালকে]] ১-০ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে [[প্যারাগুয়ে জাতীয় ফুটবল দল|প্যারাগুয়েকে]] ১-০ ব্যবধানে হারায়। ৭ জুলাইয়ের [[সেমি-ফাইনাল|সেমি-ফাইনালে]] [[জার্মানি জাতীয় ফুটবল দল|জার্মানিকে]] ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো [[ফাইনাল]] নিশ্চিত করে।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|url=http://soccernet.espn.go.com/report?id=264121&league=FIFA.WORLD&cc=5739&ver=global|title=Puyol heads Spain into final|date=7 July 2010|work=[[ESPNsoccernet]]|publisher=[[ESPN]]|accessdate=8 July 2010}}</ref> [[টোটাল ফুটবল|টোটাল ফুটবলের দেশ]] [[নেদারল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দল|নেদারল্যান্ডকে]] চূড়ান্ত খেলার অতিরিক্ত সময়ে [[আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা‎‎|আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা‎‎'র]] জয়সূচক গোলে ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের নতুন [[চ্যাম্পিয়ন]] হয়।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|url=http://soccernet.espn.go.com/report?id=264123&cc=5739&ver=global|title=Iniesta sinks Dutch with late strike|date=11 July 2010|work=[[ESPNsoccernet]]|publisher=[[ESPN]]|accessdate=13 July 2010}}</ref>
 
== বিশ্বকাপ ফুটবল, ২০১৪ ==
 
== বিশ্বকাপ ফুটবল, ২০১৮ ==
 
== বর্তমান সদস্য ==
২৪১টি

সম্পাদনা

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা