বিষয়বস্তুতে ঝাঁপ দিন

"শিশু নির্যাতন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

২০১২ সালে, [[শিশু নিরাপত্তা সেবা]] প্রতিষ্ঠান অনুমান করে প্রায় ১০০০ শিশুর ৯ জন শিশুই যুক্তরাষ্ট্রে শিশু দু্র্ব্যবহারের শিকার। ৭৮ ভাগ অবহেলার শিকার। শারীরিক নির্যাতন, যৌন নির্যাতন, এবং অন্য ধরনের দু্র্ব্যবহারের শিকার হওয়া শিশুর পরিমান ছিল কম যথাক্রমে ১৮%, ৯%, এবং ১১% ভাগ ("অন্য ধরনের নির্যাতন" হল মানসিক নির্যাতন, ড্রাগ নির্যাতন, এবং তত্বাবধানের সল্পতা)। শিশু নিরাপত্তা সেবার রিপোর্টটি হয়ত শিশু দু্র্ব্যবহারের শিকার হওয়া শিশুর সংখ্যা সঠিক ভাবে বলতে অক্ষম। সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন একটি অন্য গবেষনায় বলে প্রতি চার জনে একজন শিশু দু্র্ব্যবহারের শিকার হয় তাদের জীবনে।<ref name=CDCFact2014>{{cite web |title=শিশু দু্র্ব্যবহার: Facts at a Glance |location=Atlanta, GA |publisher=Centers for Disease Control এবং Prevention |date=2014 |url=https://www.cdc.gov/হিংসাত্মক আচরণprevention/pdf/শিশুদু্র্ব্যবহার-facts-at-a-glance.pdf |deadurl=no |archiveurl=https://web.archive.org/web/20170829054942/https://www.cdc.gov/হিংসাত্মক আচরণprevention/pdf/শিশুদু্র্ব্যবহার-facts-at-a-glance.pdf |archivedate=29 August 2017 |df=dmy-all }}</ref>
 
২০০৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে আমেরিকান পাবলিক হেলথ এসোসিয়েশন ওয়াশিংট বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষনা প্রকাশকরে সেখানে ৩৭ শতাংশ আমেরিকান শিশু শিশুকালে বা ১৮ বছরের আগে শিশু নিরাপত্তা সেবার তদন্তের মুখোমুখি হয়েছেন ( আফ্রো-আমেরিকানের ক্ষেত্রে তা ৫৩%)।<ref>http://ajph.aphapublications.org/doi/abs/10.2105/AJPH.2016.303545</ref>
 
[[ডেভিড ফিনকেলহর]] শিশু দু্র্ব্যবহারের রিপোর্টগুলোর রেকর্ড জমা করেছেন ১৯৯০ সাল থেকে ২০১০ পর্যন্ত। তিনি বলেন যে ১৯৯২ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত যৌন নির্যাতনের হার ৬২% শতাংশ কমে এসেছে। ১৯৯২ থেকে দীর্ঘ-মেয়াদি শারীরিক নির্যাতনের হারও নেমে এসেছে ৫৬% শতাংশে। যৌন নির্যাতন কমার প্রবণতা বর্তমানে দীর্ঘ-মেয়াদি ইতিবাচক প্রবণতাকে সমর্থন করে। তিনি বলেন: "এটি দুভার্গ্যজনক যে শিশু দু্র্ব্যবহারের প্রবণতার তথ্য ভালভাবে প্রকাশিত হয় না এবং সর্বস্তরে পৌছায় না। জনসাধারণের নীতি স্থাপনে দীর্ঘ মেয়াদি যৌন এবং শারীরিক নির্যাতনের নিহিতার্থ গুরুত্বপূর্ন"<ref name="Finkelhor">{{cite web|url=http://www.unh.edu/ccrc/pdf/CV203_Updated%20trends%202010%20FINAL_12-19-11.pdf|title=Updated Trends in শিশু দু্র্ব্যবহার, 2010|last=Finkelhor|first=David|author2=Lisa Jones|author3=Anne Shuttuch|publisher=University of New Hampshire, Crimes Against children Research Center|accessdate=19 December 2011|deadurl=no|archiveurl=https://web.archive.org/web/20121010181838/http://www.unh.edu/ccrc/pdf/CV203_Updated%20trends%202010%20FINAL_12-19-11.pdf|archivedate=10 October 2012|df=dmy-all}}</ref>
 
ডগলাস জে. বেশারব, শিশু নির্যাতন এবং অবহেলার ইউ.এস. সেন্টারে প্রথম পরিচালক, বলেন " বর্তমানে যে সকল আইন আছে তা অস্পষ্ট এবং একেবারেই বিস্তৃত"<ref>{{cite web|url=http://www.philanthropyroundtable.org/topic/excellence_in_philanthropy/fixing_শিশু_protection|title=Fixing শিশু Protection|author=Besharov, Douglas J.|publisher=Philanthropy Roundtable|date=1 January 1998|pages=1–4|deadurl=no|archiveurl=https://web.archive.org/web/20130314061514/http://www.philanthropyroundtable.org/topic/excellence_in_philanthropy/fixing_শিশু_protection|archivedate=14 March 2013|df=dmy-all}}</ref> এবং শিশু নিরাপত্তা সেবা ও শিশু বিশেষজ্ঞের মধ্যে ঐক্যমতের অভাব রয়েছে নির্যাতন এবং অবহেলা বলতে কি বুঝায়।"<ref>{{cite web|url=http://cssronline.org/CSSR/Archival/2007/Krason.pdf |title=The Critics of Current শিশু নির্যাতন Laws এবং the শিশু Protective System: A Survey of the Leading |author=Krason, Stephen M. |publisher=The Catholic সামাজিক Science Review |accessdate=2007 |pages=307–350 |deadurl=yes |archiveurl=https://web.archive.org/web/20140427025448/http://cssronline.org/CSSR/Archival/2007/Krason.pdf |archivedate=27 April 2014 }}</ref> সুসান ওর, যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য দপ্তরের শিশু বুরোর প্রধান এবং শিশুর জন্য সেবা দপ্তর ও পরিবারের প্রধান (২০০১-২০০৭), বলেন "শিশু নির্যাতন এবং অবহেলা হিসেবে বর্তমানে যা ধরা হয় তা সরকারের পরাধীকার চর্চাকে প্রশংসার যোগ্য করে না"<ref>{{cite web|url=http://heartlএবং.org/sites/all/modules/custom/heartlএবং_migration/files/pdfs/6882.pdf |title=Policy Study 262 শিশু Protection at the Crossroads: শিশু নির্যাতন, শিশু Protection এবং Recommendations for Reform |author=Orr, Susan |date=1 October 1999 |deadurl=yes |archiveurl=https://web.archive.org/web/20130524064542/http://heartlএবং.org/sites/all/modules/custom/heartlএবং_migration/files/pdfs/6882.pdf |archivedate=24 May 2013 |df=dmy }}</ref>
 
একটি শিশু নির্যাতন মারাত্মক হয় যখন কোন শিশুর এতে মৃত্যু হয় অথবা যখন নির্যাতন অথবা অবহেলা যদি শিশু মৃত্যুর কারন হয়। যুক্তরাষ্ট্রে, ১.৭৩০ শিশু ২০০৮ সালে মারা যায় যার সাথে নির্যাতনের বিষয়টি জড়িত ছিল; এটি ১০০,০০০ শিশুতে ২ জন হারে ঘটেছে।<ref>[http://www.acf.hhs.gov/programs/cb/pubs/cm08/cm08.pdf শিশু দু্র্ব্যবহার 2008] {{webarchive|url=https://web.archive.org/web/20100705035918/http://www.acf.hhs.gov/programs/cb/pubs/cm08/cm08.pdf |date=5 July 2010 }}, U.S. Department of Health এবং Human Services, p.&nbsp;55.</ref> যেসব অবস্থা শিশুর জন্য মঙ্গল নয় তার মধ্যে আছে ঘন ঘন বাসা পাল্টানো, বেকারত্ব এবং পরিবারের সদস্য নয় এমন কেউ যদি পরিবারে বাস করে। শিশু নির্যাতনের মারাত্মক ফলাফল এড়াতে আমেরিকায় বেশকিছু ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে যেমন [[সেফ হেভেন ল]], শিশুর মারাত্মক অবস্থার পর্যালোচনা দল, তদন্তকারীর জন্য প্রশিক্ষন, [[শেকেন বেবি সিনড্রোম]] বন্ধ করার প্রোগ্রাম, এবং শিশু নির্যাতন মৃত্যু আইন যা শিশুকে কঠিন বাক্য না বলার আইন জারি করে।<ref>For a review of this literature, see, Douglas, E.M., 2005, ''শিশু দু্র্ব্যবহার fatalities: What do we know, what have we learned, এবং where do we go from here?,''pp 4.1–4.18, in শিশু Victimization, edited by K. Kendall-Tackett & S. Giacomoni, published by Civic Research Institute, Kingston, N.J.</ref>
 
আইনি সিদ্ধান্তে (শিশু [[মার্টা লরিয়ানো|কাস্টডি বিষয়ে]]) দেখা গেছে যে বাবা-মা'রা বাসায় সঠিকভাবে জাতীয় মান অনুযায়ী ভাষার প্রয়োগ করতে পারে না যা এক ধরনের শিশু নির্যাতন এমন রায় দিয়েছে একজন বিচারক।<ref>{{cite web |url=http://www.deseretnews.com/article/436153/SPEAKING-ONLY-SPANISH-AT-HOME-IS-নির্যাতন-TEXAS-JUDGE-RULES.html |title=SPEAKING ONLY SPANISH AT HOME IS নির্যাতন, TEXAS JUDGE RULES. |publisher=deseretnews.com. |date=29 August 1995 |access-date=21 March 2011 |deadurl=no |archiveurl=https://web.archive.org/web/20121022202152/http://www.deseretnews.com/article/436153/SPEAKING-ONLY-SPANISH-AT-HOME-IS-নির্যাতন-TEXAS-JUDGE-RULES.html |archivedate=22 October 2012 |df=dmy-all }}</ref>
 
== সমাজ এবং সংস্কৃতি ==
 
{{আরো দেখুন|শিশু উৎসর্গ}}
 
=== ইতিহাস ===
 
পুরো ইতিহাস জুড়ে বিভিন্ন সময়ে শিশু নির্যাতন অথবা শিশু দু্র্ব্যবহারের শিকার হচ্ছে এমন সূত্র পাওয়া যায়, কিন্তু বিশেষজ্ঞরা এই ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে শুরু করেন ১৯৬০ দশকে।<ref name=McCoyIntro /> ১৯৬২ সালে প্রকাশিত একটি আর্টিকেল "বার্টারড শিশু উপসর্গ" যা শিশু বিশেষজ্ঞ মনোবিজ্ঞানী [[সি. হেনরি কেম্প]] প্রকাশ করেন। এই বিষয়টিকে শিশু দু্র্ব্যবহার সম্পর্কে সর্তকতা ও সচেতনতার প্রতি গুরুত্ব দেবার প্রাথমিক ধাপ হিসেবে গণনা করা হয়। এই লেখাটি প্রকাশের আগে, শিশুর আঘাত পাওয়া যার ফলে হাড়ে চিড় ধরতে পারে এমন বিষয়কে ইচ্ছাকৃত ট্রমা হিসেবে ধরা হত না। তার পরিবর্তে, শরীর বিশেষজ্ঞরা একে হাড়ের রোগ বা মেনে নেওয়া যায় এমন অজুহাত হিসেবে দেখত যেমন পড়ে যাওয়া বা প্রতিবেশি শিশুদের সাথে ঝগড়া ইত্যাদি হিসেবে দেখত।<ref name=শিশুism/>{{rp|100&ndash;103}}
 
=== শিশু পাচার ===
২,১৩৪টি

সম্পাদনা