"নাগর নদী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রচনাশৈলী
(বট বিষয়শ্রেণী ঠিক করেছে)
(রচনাশৈলী)
নাগর নদী ভারতে উৎপন্ন হয়ে পঞ্চগড় জেলা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী উপজেলা হয়ে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় প্রবেশ করে ঠাকুরগাঁও জেলার পশ্চিম সীমান্ত দিয়ে প্রবাহিত হয়ে অবশেষে হরিপুর উপজেলা হয়ে পুনরায় ভারতে প্রবেশ করেছে।<ref>http://www.thakurgaon.gov.bd/node/711926/নদ-ও-নদী</ref> তীরনই নদী এবং নোনাখাল, যমুনা খাল ও জালুই খাল নামে কিছু উল্লেখযোগ্য খালের সঙ্গে নাগর নদীর সংযোগ রয়েছে। নদীটির গতিপথ অধিকাংশ সময়ই ভারত-বাংলাদেশের সীমানা নির্দেশ করেছে। বাংলাদেশ অংশে এর দৈর্ঘ্য প্রায় ১২৫ কিমি। কিছুটা আকস্মিক বন্যা প্রবণতা রয়েছে, তবে তেমন একটা ক্ষয়-ক্ষতি করে না। শুষ্ক মৌসুমে পানি থাকে না, তবে কৃষকরা বর্ষা মৌসুমের পানিকে বাঁধ দিয়ে আটকে রেখে সেচের জন্য ব্যবহার করে থাকে। <ref>http://bn.banglapedia.org/index.php?title=নাগর_নদী</ref>
 
== আরও দেখুন ==
==তথ্যসূত্র==
* [[বাংলাদেশের নদীর তালিকা]]
* [[বাংলাদেশের বড় নদীসমূহ]]
 
==তথ্যসূত্র==
{{সূত্র তালিকা}}
 
{{বাংলার নদী}}
{{বাংলাদেশের নদনদী}}
{{বাংলার নদী}}
 
[[বিষয়শ্রেণী:পশ্চিমবঙ্গের নদী]]
৩২,০৬১টি

সম্পাদনা

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা