পরিবর্তনসমূহ

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিশদ
 
==শেষ জীবনে অশ্বত্থামা==
[[অর্জুন]] দ্বারা [[কর্ণ]] এর মৃত্যুর পরে [[দুর্যোধন]] অশ্বত্থামাকে সেনাপতি নিয়োগ করেন। কুরুক্ষেত্র যুদ্ধ এ যখন [[দুর্যোধন]] সহ কৌরবদের সবাই মারা যায় তখন শেষ সময় এসময়ে এসে অশ্বত্থামা [[দুর্যোধন]]<nowiki/>কে বলেন কি করলে [[দুর্যোধন]] মৃত্যু কালে খুশিতে মৃত্যু বরণ করতে পারবেন। আর তার উত্তরে [[দুর্যোধন]] বলেন তিনি পাণ্ডবদের বংশকে নিঃচিহ্ন করে দেখতে চান। তার মিত্রের কথা রক্ষার জন্য অশ্বত্থামা সাথে সাথে পাণ্ডবদের শিবিরে গমন করেন। তার সাথে ছিলেন কৌরবপক্ষীয় জীবিত আর প্রথমেদুইজন, কৃপাচার্য ও কৃতবর্মা। রাত্রে অশ্বত্থামা দেখেন গাছের ডালে কাকের বাসাকে প্যাঁচা আক্রমন করছে। তিনি ঘুমন্ত অবস্থায় পান্ডবদের হত্যার ষড়যন্ত্র করেন। কৃপ আর কৃত এই নীচ কাজে আপত্তি জানালেও অশ্বত্থামা শুনলেননা। তারা শিবিরে গিয়ে ধৃষ্টদ্যুম্ন কে দেখা মাত্র তাকে হত্যা করেন। তারপরে অশ্বত্থামা দ্রৌপদীর পাঁচ ঘুমন্ত পুত্রদের, শিখণ্ডী ও অন্যান্য পাণ্ডব বীরদের হত্যা করেন। উল্লেখ্য, এই সময় পঞ্চপাণ্ডব, কৃষ্ণ গঙ্গাতীরে অবস্থান করছিলেন। তারপরেতারা এই খবর পেলে অশ্বত্থামা ব্রহ্মশিরপলায়ন অস্ত্রকরেন। প্রয়োগপুত্রশোকাহত করলেদ্রৌপদীকে সেটাশান্ত গিয়েকরতে উত্তরারতাকে গর্ভেযেকোনো থাকাপ্রকারে সন্তানবধ এরকরতে উপরযান গিয়েঅর্জুন। পড়ে।তাদের দেখে অশ্বত্থামা এরশক্তিশালী এইরুপব্রহ্মশির কাজঅস্ত্র থেকেপ্রয়োগ [[শ্রীকৃষ্ণ]]করলে তাকেঅর্জুন এইরুপবাধ্য অভিশাপহন দেনব্রহ্মশির যেদিয়ে কখনোব্রহ্মশির অশ্বত্থামারপ্রতিরোধ মৃত্যুকরতে। হবেব্যসদেবের না।মধ্যস্থতায় অশ্বত্থামাবিপর্যয় চাইলেওনিবৃত্ত কোনদিনহয় মৃত্যুবরণকিন্তু করতেসেটা পারবেনগিয়ে না।উত্তরার আজীবনগর্ভে অমরথাকা থাকবে।সন্তান <ref>যুদ্ধশেষ</ref>এর উপর গিয়ে পড়ে।
 
== অশ্বত্থামার শাস্তি ==
অশ্বত্থামার এই পাপের সাজা হিসেবে তার কাছ থেকে [[শ্রীকৃষ্ণ]] তার মাথার মনি টি কেড়ে নেন। যা ছিল তার বীরত্ব ও গৌরবের প্রতীক। অভিশাপ দেন যে কখনো অশ্বত্থামার মৃত্যু হবে না। অশ্বত্থামা চাইলেও কোনদিন মৃত্যুবরণ করতে পারবেন না। আজীবন অমর থাকবেন। <ref>যুদ্ধশেষ</ref> এই ঘটনার পর অশ্বত্থামাকে আর কোথাও পাওয়া যায়নি। তিনি মনিহারা শৌর্যহারা হয়ে চলে যান।
 
== তথ্যসূত্র ==

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা