"গৌতম বুদ্ধ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বুদ্ধ হলেন বৌদ্ধধর্মের প্রধান চরিত্র। বৌদ্ধরা মনে করেন [[বৌদ্ধধর্মে বোধি|বোধি]]-প্রাপ্ত বা সম্পূর্ণ [[বুদ্ধত্ব]]-প্রাপ্ত দিব্য<ref>Guang Xing (2005). ''The Three Bodies of the Buddha: The Origin and Development of the Trikaya Theory''. Oxford: Routledge Curzon: pp.1 and 85</ref> শিক্ষক এবং তিনি তাঁর অন্তর্দৃষ্টির মাধ্যমে [[জীব (বৌদ্ধধর্ম)|জীবকে]] পুনর্জন্ম ও [[দুঃখ (বৌদ্ধধর্ম)|দুঃখের]] হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে সাহায্য করেন। বৌদ্ধ বিশ্বাস অনুসারে, বুদ্ধের মৃত্যুর পর তাঁর অনুগামীরা তাঁর জীবনী, কথোপকথনের বিবরণ ও [[ভিক্ষু]]-সংঘের নিয়মাবলির সারমর্ম প্রস্তুত করেন এবং স্মরণে রাখেন। তাঁর শিক্ষার বিভিন্ন সংকলন গ্রন্থে [[মৌখিক প্রথা|মুখে মুখে]] শিষ্য-পরম্পরায় প্রচলিত ছিল। প্রায় ৪০০ বছর পর তা [[তিপিটক|প্রথম লিপিবদ্ধ হয়]]।
 
== ঐতিহাসিক সিদ্ধার্থ গৌতম ==
==ঐতিহাসিকতা==
[[File:Mahajanapadas (c. 500 BCE).png|right|thumb|250px|বুদ্ধের সমসাময়িক প্রাচীন ভারতের রাজ্য ও শহরগুলির মানচিত্র]]
[[File:Lumbini pillar old.jpg|thumb|[[লুম্বিনী|লুম্বিনীতে]] বুদ্ধের জন্মস্থানে সম্রাট [[অশোক (সম্রাট)|অশোক]] দ্বারা নির্মিত স্তম্ভ]]
অধিকাংশবুদ্ধের ঐতিহাসিকদেরজীবনের মতেঐতিহাসিক সিদ্ধার্থতথ্য গৌতমসম্পর্কে [[ভারত|ভারতের]]কোনও প্রকার দুর্বল দাবি উত্থাপন করতে গবেষকরা দ্বিধাবোধ করেন। তাঁদের অধিকাংশই মেনে নিয়েছেন যে, বুদ্ধ [[মহাজনপদ|মহাজনপদের]] যুগে [[মগধ|মগধের]] সম্রাটসাম্রাজ্যের শাসক [[বিম্বিসার|বিম্বিসারের]] রাজত্বকালে শিক্ষাপ্রদানজীবিত ছিলেন, শিক্ষাদান করেছিলেন এবং একটি ভিক্ষু সংঘ প্রতিষ্ঠা করেনকরেছিলেন ({{circa|558|491 BCE}}),<ref>Rawlinson, Hugh George. (1950) ''A Concise History of the Indian People'', Oxford University Press. p. 46.</ref><ref>Muller, F. Max. (2001) ''The Dhammapada And Sutta-nipata'', Routledge (UK). p. xlvii. ISBN 0-7007-1548-7.</ref> তাঁর মৃত্যু হয়েছিল বিম্বিসারের উত্তরসূরি [[অজাতশত্রু|অজাতশত্রুরঅজাতসত্তুর]] রাজত্বকালেরশাসনকালের প্রথম দিকেদিকে। মৃত্যুবরণসেই করেন।হিসেবে বুদ্ধ ছিলেন জৈন [[তীর্থঙ্কর]] [[মহাবীর|মহাবীরের]] কনিষ্ঠ সমসাময়িক।{{sfn | Smith | 1924 | pp = 34, 48}}{{sfn তাঁর| জীবনকালেSchumann | 2003 | pp = 1-5}} [[বেদ|বৈদিক]] ব্রাহ্মণবাদ[[ব্রাহ্মণ (বর্ণ)|ব্রাহ্মণ্যবাদ]] ছাড়াও বুদ্ধের জীবন ছিল [[আজীবিকআজীবক]], [[চার্বাক]], [[জৈনজৈনধর্ম]] ও [[অঞ্জন]] প্রভৃতি প্রভাবশালী মতবাদগুলি[[শ্রমণ]] প্রচলিতচিন্তাধারার ছিল।উদয়কালের সমসাময়িক।{{sfn | Jayatilleke | 1963 | loc = chpt. 1-3}} [[ব্রহ্মজল সুত্ত]] গ্রন্থে এই সময়ধরনের বাষট্টিটি মতবাদের কথা বিবৃত হয়েছে। সেই যুগেই [[মহাবীর]], [[পূরণ কস্সপ]], [[মক্খলি গোসাল]], [[অজিত কেশকম্বলী]], [[পকুধ কচ্চায়ন]], [[সঞ্জয় বেলট্ঠিপুত্ত]] প্রমুখ [[নিগণ্ঠপ্রভাবশালী ণাতপুত্ত]]দার্শনিক প্রভৃতিতাঁদের প্রভাবশালীমত দার্শনিকদেরপ্রচার মতবাদকরেছিলেন। দ্বারা[[সামান্নফল সমৃদ্ধসুত্ত]] ছিলগ্রন্থের এবংএঁদের সিদ্ধার্থকথা গৌতমউল্লিখিত এইহয়েছে। সববুদ্ধ মতবাদেরনিশ্চয় সঙ্গেএঁদের পরিচিতমতবাদ ছিলেনসম্পর্কে বলেঅবহিত মনে করা হয়।ছিলেন।{{sfn |Walshe|1995|p = 268}}{{sfn |Collins|2009|pp = 199–200}}{{refn | group = note"পাদটীকা" |According to Alexander Berzin, "Buddhism developed as a shramana school that accepted rebirth under the force of karma, while rejecting the existence of the type of soul that other schools asserted. In addition, the Buddha accepted as parts of the path to liberation the use of logic and reasoning, as well as ethical behavior, but not to the degree of Jain asceticism. In this way, Buddhism avoided the extremes of the previous four shramana schools."<ref group="web">{{cite web |url = http://www.berzinarchives.com/web/en/archives/study/history_buddhism/buddhism_india/indian_society_thought_time_buddha_.html |title = Indian Society and Thought before and at the Time of Buddha|first = Alexander |last = Berzin| |publisher = Berzin archives |date = April 2007 |accessdate accessdate= 22 December 2014}}</ref>}} এমনকি গৌতম বুদ্ধের অন্যতমপ্রধান প্রধানদুই শিষ্য [[সারিপুত্ত]] ও [[মৌদ্গল্যায়ন|মোগ্‌গল্লান]] পূর্বেপ্রথম [[সঞ্জয়জীবনে ছিলেন সংশয়বাদী বেলট্ঠিপুত্ত|সঞ্জয় বেলট্ঠিপুত্তের]]বেলট্ঠিপুত্তর শিষ্যপ্রধান ছিলেন।শিষ্য।{{sfn|Nakamura|1980|p=20}} সিদ্ধার্থতিপিটকে গৌতমেরপ্রায়শই দুইজনদেখা শিক্ষকযায় যে, বুদ্ধ তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী মতধারার সমর্থকদের সঙ্গে বিতর্কে অংশ নিচ্ছেন। অর্থাৎ, বুদ্ধ নিজেও ছিলেন সমসাময়িক কালের অন্যতম শ্রমণ দার্শনিক।{{sfn|Warder|1998|p = 45}} এমনও প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে যে [[আলার কালাম]] ও [[উদ্দক রামপুত্ত]] দুইজনেইনামে দুই দার্শনিকও ঐতিহাসিক ব্যক্তিচরিত্র। ছিলেনখুব সেইসম্ভবত বিষয়েএঁরা স্পষ্টবুদ্ধকে প্রমাণধ্যানের দুটি ভিন্ন ভিন্ন পদ্ধতি শিক্ষা রয়েছে।দিয়েছিলেন।{{sfn | Wynne |2007 |pp = 8–23 |loc = ch. 2}} বুদ্ধের জীবনকথায় “জন্ম, বয়ঃপ্রাপ্তি, সন্ন্যাসগ্রহণ, আধাত্মিক অনুসন্ধান, বোধিলাভ, শিক্ষাদান ও মৃত্যু”র ধারাটি সাধারণভাবে স্বীকৃত হলেও, প্রথাগত জীবনীগ্রন্থগুলিতে বিভিন্ন বিবরণের সত্যতা সম্পর্কে মতৈক্য খুব কম ক্ষেত্রেই দেখা যায়।{{sfn |Buswell|2003|p = 352}}{{sfn |Lopez|1995|p = 16}}
 
গৌতম বুদ্ধের জন্ম ও মৃত্যুর সময়কাল সম্বন্ধে নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায় না। বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিককার অধিকাংশ ঐতিহাসিক ৫৬৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দ থেকে ৪৮৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দ পর্যন্ত সময়কালকে তাঁর জীবনকাল হিসেবে নিরূপণ করেন।{{sfn |Cousins|1996| pp =57–63}}{{sfn |Schumann| 2003| pp = 10–13}} ১৯৮৮ খ্রিস্টাব্দে বুদ্ধের জীবনীর ওপর আয়োজিত একটি সম্মেলনে অধিকাংশের বক্তৃতায় ৪০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের নিকটবর্তী বছরগুলির মধ্যে বুদ্ধের মৃত্যুর সময়কাল বলে নিরূপণ করেন।{{sfn |Cousins |1996 | pp = 57–63}}{{sfn | Prebish|2008|p=2}}{{refn|group=note|name = "dating" |

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা