বিষয়বস্তুতে চলুন

কবুল হ্যায়: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

 
== কাহিনীসংক্ষেপ ==
জয়াজুয়া এবং আসাদের কাহিনী নিয়ে কুবুল হের শুরু।জয়াশুরু।জুয়া ছিল এক আধুনিক ওমেন।আসাদ ছিল ডিসিপ্লিন এবং ধার্মিক।সে জুয়ার চালচলন,আচার আচরণ পছন্দ করত না।আসাদের ছোটবেলার সঙ্গী তানভীর বেগমের আসাদের জীবনে আগমন এক নতুন অধ্যায় এর সূচনা করে।তানভীর সবসময় ধনী হাসবেন্ড খুঁজত।আসাদ তার জন্য পারফেক্ট ছিল।তাই সে আসাদকে বিবাহ করতে চেয়েছিল।কিন্তু ইতিমধ্যে জুয়া তানভীরের পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়ায়।কারণ আসাদ এবং জুয়া একে অপরকে ভালবেসে ফেলে এবং আসাদের আম্মি দিলশাদ আসাদ এবং জুয়ার বিবাহ ঠিক করে। জুয়া মনে করত তার বাবা বেঁচে আছেন এবং তিনি হিন্দুস্থানে আছেন।পরে জুয়া জানতে পারে যে গফুর আহমেদ সিদ্দিকী তার বাবা।বহু বর্ষ পূর্বে রাজিয়া রাশেদ খানের গুড়িয়া ফেক্টরিতে(পুতুল ফফেক্টরি/ডল ফেক্টরি) এক মহিলাকে হত্যা করে।ঐ মহিলা ছিল জুয়ার আম্মি।তানভীরআম্মি।রাশেদ খানকে হত্যা করে তানভীর সমস্ত দোষ সিদ্দিকী সাহেবের উপর চাপিয়ে দেয়।পরে জুয়া ও তার সৎ বোন হুমাইরা সব জানতে পারে এবং সত্যি সবার সামনে আনে।তানভীর আসাদ,জয়া,নাজমা এবং সিদ্দিকী সাহেবকে হত্যা করে।
 
 
বেনামী ব্যবহারকারী