বিষয়বস্তুতে চলুন

"মানসা মূসা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

তথ্যসূত্র যোগ করা হল
(সম্প্রসারণ করা হল)
(তথ্যসূত্র যোগ করা হল)
|}}
 
'''মানসা মূসা''' (আনুমানিক [[১২৮০]] থেকে আনুমানিক [[১৩৩৭]] পর্যন্ত) অথবা '''মালির প্রথম মূসা''' ছিলেন ১৪শতকের [[মালি]] সম্রাজ্যের একজন মানসা বা [[সম্রাট]]। তিনি ছিলেন মালি সম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা সান্দিয়াতা কেইতা'র ভাগ্নে। [[১৩০৭]] সালে তিনি সিংহাসনে আরোহণ করেন। তিনি প্রথম আফ্রিকান শাসক যিনি [[ইউরোপ]] এবং [[মধ্যপ্রাচ্য|মধ্যপ্রাচ্যে]] ব্যাপকভাবে পরিচিত ছিলেন। <ref>{{harvnb|Goodwin|1957|p=109}}</ref>
 
== হজ্জব্রত পালন ও স্বর্ণ বিতরণ ==
মূসা অধিক পরিচিত ছিলেন তার কথিত [[হজ্জ|হজ্জপালনের]] জন্য (১৩২৪-৫)। প্রচলিত আছে, তার হজ্জবহরের কাফেলায় রসদপূর্ণ থলে বহনকারী ৬০,০০০ লোক ছিল, সাথে ছিল ৫০০ গোলম যারা প্রত্যেকে একটি করে [[স্বর্ণ|সোনার]] দন্ড বহন করছিল এবং ৮০ থেকে ১০০টি উট ছিল, যেগুলো প্রত্যেকটি প্রায় ১৪০ কেজি সোনার গুড়ো বহন করছিলো। তার এই যাত্রাপথে তিনি প্রায় কয়েকশত কোটি টাকা মূল্যের সোনা বিতরণ করেছিলেন। [[কায়রো|কায়রোতে]] তিনি এত বেশি স্বর্ণ বিতরণ করেছিলেন যে, বেশ কয়েক বছর ধরে সেখানে স্বর্ণের দাম তুলনামুলকভাবে অনেক কম ছিল।
 
== ইসলাম প্রচারে সহায়তা ==
মানসা মূসা [[ইসলাম]] প্রচারেও সহযোগিতা করেছিলেন। তিনি একজন অনুগত মুসলিম ছিলেন এবং [[কুরআন|কুর'আনের]] শিক্ষার উপল ভিত্তি করে অনেকগুলো বিদ্যালয় নির্মাণ করেন। তিনি [[উত্তর আফ্রিকা|উত্তর আফ্রিকার]] ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থী প্রেরণ করতেন।<ref>{{harvnb|Goodwin|1957|p=110}}</ref>
 
== রাজকার্যে অবদান ==