"জাতীয় সংসদ ভবন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বট বিষয়শ্রেণী ঠিক করেছে
(বট বিষয়শ্রেণী ঠিক করেছে)
বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত আটটি সংসদ নির্বাচনের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় নির্বাচনের পর গঠিত সংসদের অধিবেশনগুলি অনুষ্ঠিত হয় পুরনো সংসদ ভবনে, যা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে।
 
তৎকালীন পাকিস্তান সরকার পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ) ও পশ্চিম পাকিস্তানের (বর্তমান পাকিস্তান) জন্য আইনসভার জন্য জাতীয় সংসদ ভবনের নির্মাণ শুরু হয় [[১৯৬১]] সালে। [[১৯৮২]] সালের [[২৮শে জানুয়ারি]] নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর একই বছরের [[১৫ই ফেব্রুয়ারি]] বাংলাদেশের দ্বিতীয় সংসদের অষ্টম (এবং শেষ) অধিবেশনে প্রথম সংসদ ভবন ব্যবহৃত হয়। তখন থেকেই আইন প্রণয়ন এবং সরকারি কর্মকাণ্ড পরিচালনার মূল কেন্দ্র হিসাবে এই ভবন ব্যবহার হয়ে আসছে।
 
== সংসদীয় ইতিহাস ==
<br />৬) ষষ্ঠ সংসদ: ১২ দিন ([[১৯শে মার্চ]], [[১৯৯৬]] - [[৩০শে মার্চ]], [[১৯৯৬]]) [[বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল|বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের]] নেতৃত্বে
<br />৭) সপ্তম সংসদ: ৫ বছর ([[১৪ই জুলাই]], [[১৯৯৬]] - [[১৩ই জুলাই]], ২০০১) [[আওয়ামী লীগ|আওয়ামী লীগের]] নেতৃত্বে
<br />৮) অষ্টম সংসদ: ([[২৮শে অক্টোবর]], [[২০০১]] - [[২৭শে অক্টোবর]], [[২০০৬]]) [[বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল]] নেতৃত্বাধীন চার দলীয় জোটের নেতৃত্বে</br />
<br />৯) নবম সংসদ: ([[১৭ই জানুয়ারি]], [[২০০৯]] - ) [[আওয়ামী লীগ]] নেতৃত্বাধীন জোট</br>
 
এর মধ্যে প্রথম সংসদ কখনোই জাতীয় সংসদ ভবন ব্যবহার করেনি। প্রতিটি সংসদের নেতা ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।
{{অসম্পূর্ণ}}
 
[[বিষয়শ্রেণী:বাংলাদেশের ভবন ও স্থাপনাসমূহস্থাপনা]]
[[বিষয়শ্রেণী:সমকালীন স্থাপত্য]]
৩,৪২,৭০১টি

সম্পাদনা

পরিভ্রমণ বাছাইতালিকা