বিল্ডারবার্গ গ্রুপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
বিল্ডারবার্গ গ্রুপ
Bilderberg - Oosterbeek.jpg
নেদারল্যান্ডের অবস্থিত বিল্ডারবার্গ হোটেল, এখানেই ১৯৫৪ সালে প্রথম বিল্ডারবার্গ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়
গঠিত ২৯ মে 1954; ৬৩ বছর আগে (1954-০৫-29)
সদস্যপদ ~১৫০ আমন্ত্রিত অংশগ্রহণকারী
পরিচালনা কমিটির সভাপতি হেনরি দে ক্যাস্ট্রিস
ওয়েবসাইট www.bilderbergmeetings.org[১]

বিল্ডারবার্গ গ্রুপ, বিল্ডারবার্গ সম্মেলন বা বিল্ডারবার্গ ক্লাব হল একটি বার্ষিক গোপন সম্মেলন যেখানে প্রায় ১২০-১৫০ জন শীর্ষপর্যায়ের নেতা ও বিশেষজ্ঞ্ররা অংশগ্রহণ করেন। নেতা ও বিশেষজ্ঞরা অর্থনীতি, রাজনীতি, শিক্ষা ও গণমাধ্যম থেকে আসেন। সম্মেলনের দুই-তৃতীয়াংশ অংশগ্রহণকারী ইউরোপ থেকে এবং বাকিরা উত্তর আমেরিকা থেকে আসেন। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে এক-তৃতীয়াংশ রাজনীতি ও সরকারসংশ্লিষ্ট এবং বাকিরা অন্যান্য ক্ষেত্রের।

সূত্রপাত[সম্পাদনা]

বিল্ডারবার্গ গ্রুপের প্রথম সম্মেলনটি ১৯৫৪ সালের মে মাসে নেদারল্যান্ডের হোটেল বিল্ডারবার্গে অনুষ্ঠিত হয়। এই সম্মেলনের উদ্যোক্তা ছিলেন কয়েকজন ব্যক্তি। এদের অন্যতম পোল্যান্ডের সাবেক রাজনীতিক জোজেফ রেটিঙ্গার। তিনি পশ্চিম ইউরোপে মার্কিনবাদের বিরুদ্ধে উদীয়মান মতবাদের ব্যাপারে শঙ্কিত ছিলেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনের প্রস্তাব করেন যেখানে ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ নেতারা আতলান্টিকতাবাদের পরিবর্ধন নিয়ে আলোচনা করবেন। অর্থাৎ এ সম্মেলনের উদ্দেশ্য হবে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের সাংস্কৃতিক বলয়কে অনুধাবন ও পর্যালোচনার মাধ্যমে এই অঞ্চল দুইটির মধ্যে পারস্পারিক অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতার ক্ষেত্র জোরদার করা।[২]

রেটিঙ্গার নেদারল্যান্ডের রাজপুত্র বার্নহার্ড-এর সাথে এব্যাপারে আলোচনা করেন। রাজপুত্র রেটিঙ্গারের সাথে একমত হন। তাদের সাথে ঐকমত্য প্রকাশ করেন বেলজিয়ামের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পল জিল্যান্ড এবং ইউনিলিভারের প্রধান নির্বাহী পল রিজকেন্স। বার্নহার্ড যোগাযোগ করেন তৎকালীন সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির প্রধানের সাথে। সিআইএ প্রধান তাকে পরামর্শ দেন ডোয়াইট ডি. আইজেনহাওয়ারের উপদেষ্টা চার্লস ডগলাস জনসনের সাথে আলাপ করতে।[৩] নির্ধারণ করা হয় যে প্রত্যেক অংশগ্রহণকারীদের দেশের থেকে দুইজন করে আসবে, দুইজনের মধ্যে একজন রক্ষণশীল এবং অন্যজন উদারনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির হতে হবে। প্রথম সম্মেলনে পশ্চিম ইউরোপের ১১টি দেশের মোট ৫০ জন প্রতিনিধি এবং যুক্তরাষ্ট্রের ১১ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করে।[৪]

প্রথম সম্মেলনের সফলতায় আয়োজকরা এটিকে একটি নিয়মিত বার্ষিক আয়োজন হিসেবে নির্ধারণ করেন। একটি স্থায়ী পরিচালনা কমিটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। রেটিঙ্গার এর প্রথম স্থায়ী সচিব হন। এই কমিটি এই সম্মেলনের অংশগ্রহণকারীদের তথ্যাবলি নিয়ে তালিকা প্রস্তত করে, যাতে পরবর্তিতে অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের মধ্যে ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করতে পারে।[৫] পরবর্তি তিনটি সম্মেলন ফ্রান্স, জার্মানি, ডেনমার্কে অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৫৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মত বিল্ডারবার্গ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের সম্মেলনে ফোর্ড ফাউন্ডেশন প্রায় ৩০,০০০ মার্কিন ডলার আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। সংস্থাটি ১৯৫৯ এবং ১৯৬৩ সালের সম্মেলনেও পৃষ্ঠপোষকতা করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Gowen নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. Hatch, Alden (১৯৬২)। "The Hôtel de Bilderberg"। HRH Prince Bernhard of the Netherlands: An authorized biography। London: Harrap। ওসিএলসি 2359663। "The idea was to get two people from each country who would give the conservative and liberal slant" 
  3. Aubourg, Valerie (জুন ২০০৩)। "Organizing Atlanticism: the Bilderberg Group and the Atlantic Institute 1952–63"Intelligence & National Security 18 (2): 92–105। ডিওআই:10.1080/02684520412331306760 
  4. Rockefeller, David (২০০২)। Memoirs। New York: Random House। পৃ: ৪১২। আইএসবিএন 9780679405887 
  5. Hatch, Alden (১৯৬২)। "The Hôtel de Bilderberg"। HRH Prince Bernhard of the Netherlands: An authorized biography। London: Harrap। ওসিএলসি 2359663। "anybody who has ever been to a Bilderberg Conference should be able to feel that he can, in a private capacity, call on any former member he has met" 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]