বিষয়বস্তুতে চলুন

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ৬০

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ৬০
জুন ২০১৮ সালে বিমানটি
দুর্ঘটনা
তারিখ৮ মে ২০১৯ (2019-05-08)
সারমর্মরানওয়ে থেকে ছিটকে পড়া
স্থানইয়াঙ্গুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ইয়াঙ্গুন, মিয়ানমার
উড়োজাহাজ
বিমানের ধরনবম্বার্ডিয়ার ড্যাশ-৮-কিউ৪০০
পরিচালনাকারীবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স
আইএটিএ ফ্লাইট নম্বরBG060
আইসিএও ফ্লাইট নম্বরBBC060
কল সাইনBANGLADESH 60
নিবন্ধনS2-AGQ
ফ্লাইট শুরুশাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ঢাকা, বাংলাদেশ
গন্তব্যইয়াঙ্গুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
মোট ব্যক্তি৩৩
যাত্রী২৮
কর্মী
নিহত0
আহত১৮
উদ্ধার৩৩

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ৬০ বিমানটি বাংলাদেশের ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি আন্তর্জাতিক যাত্রীবাহী ফ্লাইট হিসেবে মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার কথা ছিল। ৮ মে ২০১৯ সালে একটি বম্বার্ডিয়ার কিউ৪০০ উড়োজাহাজে করে ফ্লাইটটি চালানোর সময় তা ইয়াঙ্গুনে অবতরণের সময় পিছলে রানওয়ের বাইরে চলে যায় ও ভেঙে তিন ভাগ হয়ে যায়। এতে কোন প্রাণহানি ঘটেনি তবে বিমানে থাকা ২৮ জন যাত্রীর মধ্যে ১৮ জন যাত্রী ও ৫ জন বিমানকর্মী আহন হন।[১][২] বিমানটি মেরামত করে পুনঃব্যবহারের যোগ্য না হওয়ায় বিমানটিকে পূর্ণ ক্ষতি হিসেবে ঘোষণা করা হয় এবং এটি কিউ৪০০০ বিমানের ১০ম ক্ষতি।

বিমান[সম্পাদনা]

দুর্ঘটনায় পতিত বিমানটির নিবন্ধন নম্বর হল এস২-এজিকিউ।

২০১১ সালে স্মার্ট এভিয়েশন কোম্পানির কাছে বিমানটি সরবরাহ করা হয় এবং ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে নতুন বিমান হিসাবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কাছে তা ভাড়া দেওয়া হয়।[৩]

দুর্ঘটনা[সম্পাদনা]

৮ মে ২০১৯ তারিখ বিকেলে স্থানীয় সময় প্রায় ৩টা ১৫ মিনিটের দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট নং ৬০ মায়ানমারের ইয়াঙ্গুনের উদ্দেশ্যে নির্ধারিত যাত্রী বিমানে করে ঢাকা থেকে যাত্রা শুরু করে। দুর্ঘটনার সময় বজ্রপাত হচ্ছিল এবং আবহাওয়া খুব খারাপ ছিল। বিমানটি অবতরণের জন্য নামার সময়, অজানা কারণে এটি এর পথ থেকে বিচ্যুত হয় এবং একমাত্র রানওয়ে থেকে ছিটকে পাশের ঘাসযুক্ত স্থানে চলে যায়। এতে উড়োজাহাজটির মূল দেহকাঠামো ভেঙে তিন টুকরো হয়ে যায়, তলা ফেটে যায়। বিমানের নিম্নকাঠামো ভেঙ্গে পড়ে এবং ডানের পাখাটি খুব ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে দুর্ঘটনার পর বিমানে আগুন ধরেনি ও সকলে বেঁচে যান তবে ১৮ জন আহত হন।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "মিয়ানমারে দুর্ঘটনার কবলে বাংলাদেশ বিমান"কালের কণ্ঠ। ৮ মে ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০১৯ 
  2. "ইয়াঙ্গুনে বাংলাদেশ বিমানের দুর্ঘটনা তদন্তে কমিটি"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ৯ মে ২০১৯। 
  3. "S2-AGQ Biman Bangladesh Airlines De Havilland Canada DHC-8-400"www.planespotters.net (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০১৯ 
  4. https://aviation-safety.net/database/record.php?id=20190508-0