বিজয় মেহরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিজয় মেহরা
বিজয় মেহরা.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামবিজয় লক্ষ্মণ মেহরা
জন্ম১২ মার্চ, ১৯৩৮
অমৃতসর, পাঞ্জাব, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু২৫ আগস্ট, ২০০৬
নতুন দিল্লি, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কঅজয় মেহরা (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৭৮)
২ ডিসেম্বর ১৯৫৫ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট২১ জানুয়ারি ১৯৬৪ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১০৯
রানের সংখ্যা ৩২৯ ৫৬১৪
ব্যাটিং গড় ২৫.৩০ ৩৪.৪৪
১০০/৫০ -/২ ১৩/২৭
সর্বোচ্চ রান ৬২ ১৬৭*
বল করেছে ৩৬ ১৫৬৩
উইকেট - ২৬
বোলিং গড় - ৩১.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ৫/২৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ৫৬/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১১ মে ২০২০

বিজয় লক্ষ্মণ মেহরা (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; হিন্দি: विजय मेहरा; জন্ম: ১২ মার্চ, ১৯৩৮ - মৃত্যু: ২৫ আগস্ট, ২০০৬) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের পাঞ্জাবের অমৃতসর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৫ থেকে ১৯৬৪ সময়কালে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে দিল্লি, পূর্ব পাঞ্জাব ও রেলওয়েজ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন বিজয় মেহরা

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৫৩-৫৪ মৌসুম থেকে ১৯৭০-৭১ মৌসুম পর্যন্ত বিজয় মেহরা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। কিছুটা মজবুত গড়নের অধিকারী ছিলেন ও ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামতেন।

টেস্টের তুলনায় রঞ্জী ট্রফিতে বিজয় মেহরা বেশ ভালো খেলা উপহার দিয়েছিলেন। দশটি শতরানের ইনিংস সহযোগে ৩৭.৯০ গড়ে ৩,২২২ রান তুলতে পেরেছিলেন। দুই দশকের অধিক সময় নিয়ে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তার পদচারণ ছিল। এ পর্যায়ে তেরোটি শতরানের ইনিংসসহ ৩৪.৩৬ গড়ে ৫,৬৩৬ রান সংগ্রহ করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে আটটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন বিজয় মেহরা। ২ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ তারিখে মুম্বইয়ে সফরকারী নিউজিল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ২১ জানুয়ারি, ১৯৬৪ তারিখে একই মাঠে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

টেস্ট অভিষেককালীন তার বয়স ছিল ১৭ বছর ২৬৫ দিন। ফলশ্রুতিতে, তিনি তৎকালীন ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট ক্রিকেটারের মর্যাদাপ্রাপ্ত হন। পরবর্তীকালে, ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে মনিন্দর সিং তার এ রেকর্ড ভঙ্গ করেন। অভিষেক খেলায় মাত্র ১০ রান তুলতে সমর্থ হন। পরবর্তীতে, নতুন দিল্লিতে অনুষ্ঠিত টেস্টে ৩২ রান করেন। এ পর্যায়ে নরি কন্ট্রাক্টরের সাথে উদ্বোধনী জুটিতে ৬৮ রান সংগ্রহ করেন।

ইংল্যান্ডের মুখোমুখি[সম্পাদনা]

এরপর তাকে দলের বাইরে রাখা হয়। দীর্ঘ ছয় বল পর পুণরায় তাকে জাতীয় দলে খেলার জন্যে আমন্ত্রণ জানানো হয়। ১৯৬১-৬২ মৌসুমে ইংল্যান্ড দল ভারত গমন করে। কলকাতা টেস্টে আবারও তিনি ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমে সাহসী ভূমিকা পালন করে ৬২ রান তুলেন। এ পর্যায়ে সকালের শুরুতেই ডানহাতের বৃদ্ধাঙ্গুলীতে আঘাত পান। এ আঘাতের ফলে, দ্বিতীয় ইনিংসে তাকে ১১ নম্বরে মাঠে নামতে হয়। এছাড়াও, পরের টেস্টে অংশগ্রহণ করা থেকে নিজেকে বিরত রাখেন।

১৯৬২ সালে দলের সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমন করেন। সেখানে তিন টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। তন্মধ্যে, পোর্ট অব স্পেনে সিরিজের চতুর্থ টেস্টে নিজস্ব সেরা ৬২ রান তুলেন। এ পর্যায়ে সেলিম দুরাণী’র সাথে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১৪৪ রান যুক্ত করেন।

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর প্রশাসনে জড়িয়ে পড়েন। জীবনের শেষ দিনগুলোয় ডিডিসিএ প্রশাসনে যুক্ত হন। পাশাপাশি জাতীয় দল নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্য হন।

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ছিলেন তিনি। তার সন্তান অজয় মেহরা ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে পাঞ্জাব ও রাজস্থান দলের পক্ষে ১৯৯০-এর দশকে খেলেছেন। ২৫ আগস্ট, ২০০৬ তারিখে ৬৮ বছর বয়সে নতুন দিল্লি এলাকায় হৃদযন্ত্রক্রীয়ায় আক্রান্ত হয়ে বিজয় মেহরা’র দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of India Test Cricketers
  2. "India – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০২০ 
  3. "India – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]