বান্দরবান সরকারি কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বান্দরবান সরকারি কলেজ
বান্দরবান সরকারি কলেজের লোগো.webp
ঠিকানা
কলেজ রোড, বান্দরবান

বান্দরবান সদর উপজেলা

,
তথ্য
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৭৫ খ্রিস্টাব্দ
প্রতিষ্ঠাতাবোমাং রাজা মং শৈপ্রু চৌধুরী
অবস্থাসক্রিয়
বিদ্যালয় জেলাবান্দরবান জেলা
স্কুল কোড
  • চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড কোড: ৫৭৫০
  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কোড: ৪৫০১
  • EIIN কোড: ১০৩১০৭
ইআইআইএন১০৩১০৭ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
অধ্যক্ষমাকছুদুল আমিন
অনুষদ
  • বিজ্ঞান
  • ব্যবসায় শিক্ষা
  • মানবিক
শ্রেণী
  • একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণি
  • স্নাতক(পাস)
  • স্নাতক(সম্মান)
শিক্ষার্থী সংখ্যা৮২৯৪ জন
ভাষাবাংলা
শিক্ষায়তন১ একর
ক্যাম্পাসের ধরনশহর
রঙসাদা এবংকালো         
অন্তর্ভুক্তিজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়
শিক্ষা বোর্ডচট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড
ওয়েবসাইটbandarbangovtcollege.edu.bd

বান্দরবান সরকারি কলেজ বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার একটি সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রাকৃতিক পরিবেশ কলেজটির অন্যতম বৈশিষ্ট্য। পাহাড়ের পাদদেশে প্রাকৃতিক পরিবেশে একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনগুলো তৈরি করা হয়েছে।[১][২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

বান্দরবান কলেজ বান্দরবান জেলার সদর উপজেলার নোয়াপাড়া রোডের পাশে অবস্থিত।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৭৫ সালে বান্দরবান কলেজ প্রতিষ্ঠত হয়। সাবেক এমএলএ বীরেন্দ্র কিশোর রোয়াজা (ত্রিপুরা ) কলেজটির উন্নয়নের জন্য ২০ লাখ টাকা সরকার হতে অনুদান এনে দিয়েছিলেন।[৩]পরবর্তীতে ১৯৮০ সালের মার্চে কলেজটিকে জাতীয়করণ করা হয়। উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভের পর পরবর্তীতে স্নাতক (কলা), ১৯৯৬ সালে স্নাতক (ব্যবসায় শিক্ষা) এবং ১৯৯৮ সালে স্নাতক (বিজ্ঞান) কোর্স চালু করা হয়। এর ফলে কলেজটি পূর্ণাঙ্গ ডিগ্রী কলেজের মর্যাদা পায়। একাডেমিক শিক্ষার সম্প্রসারণে এখানে ২০০১ সালে ৩টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করা হয় এবং ২০১৩-১৪ সালে আরও ২টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালুর অনুমোদন লাভ করে। বর্তমানে অর্থনীতি, ব্যবস্থাপনা, হিসাববিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, বাংলা, ইংরেজি ও ইতিহাস বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু আছে।

ব্যবস্থাপনা[সম্পাদনা]

কলেজ পরিচালনার জন্য একটি গভর্নিং বডি রয়েছে।[২]

শিক্ষকবৃন্দ[সম্পাদনা]

কলেজের অধ্যক্ষ মাকছুদুল আমিন এবং উপাধ্যক্ষ নূরুল আবছার চৌধুরী। এছাড়াও আরও শিক্ষক - শিক্ষিকা কর্মরত আছেন।[২]

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

কলেজটিতে শিক্ষার্থীদের জন্য বিজ্ঞানভবন ও ছাত্রাবাস, একাডেমিক ভবন, প্রশাসনিক ভবন, অডিটরিয়াম ও খেলার মাঠ রয়েছে। এছাড়াও কলেজে একটি কম্পিউটার ল্যাব আছে। শিক্ষার্থীদের নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদ এবং বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের শহীদের স্মরণে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছে।[২]

শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

কলেজে বর্তমানে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার পাশাপাশি, অনার্স এবং ডিগ্রি পর্যায়েও পাঠদান করা হয়ে থাকে।[৪][২]

অনুষদসমূহ[সম্পাদনা]

  • বিজ্ঞান
  • ব্যবসায়
  • মানবিক
  • স্নাতক(পাস)
  • স্নাতক(সম্মান)
  • ব্যবস্থাপনা
  • অর্থনীতি
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও
  • হিসাববিজ্ঞান
  • ইংরেজি
  • বাংলা

সুযোগ-সুবিধাসমূহ[সম্পাদনা]

  • ইবাদতখানা
  • মিলনায়তন
  • রোভার স্কাউট
  • বৃত্তি ও ফ্রি স্টুডেন্টশীপ[৫][৬]

ফলাফল ও কৃতিত্ব[সম্পাদনা]

কলেজের বর্তমান পাশের হার ৫৪%। শিক্ষার ক্ষেত্রে বান্দরবান সরকারি কলেজের উল্লেখযোগ্য ভূমিকার স্বীকৃতি হিসেবে কলেজটি জেলা পর্যায়ে একাধিকবার শ্রেষ্ঠ কলেজের গৌরব লাভ করে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন"। ১৩ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১৮ 
  2. "Bandarban Govt. College"bandarbangovtcollege.edu.bd [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "বীরেন্দ্র কিশোর রোয়াজা"এলেংচা এক্সপ্রেস। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ 
  4. "Bandarban Govt College"nubd.info। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-২৩ 
  5. "সুযোগ সুবিধা"bandarbangovtcollege.edu.bd। ৯ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১৮ 
  6. "নিয়ম নীতি"bandarbangovtcollege.edu.bd। ১৯ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১৮