বাকসো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাকসো
বাকসো
উৎপত্তিস্থলইন্দোনেশিয়া
খাদ্য শক্তি
(প্রতি পরিবেশনায়)
"বাকসো" এর একটি মাঝারি বলের মধ্যে ২১ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল, ১৩৪ মিলিগ্রাম সোডিয়াম এবং ৫৭ ক্যালোরি রয়েছে।[১] কিলোক্যালরি

বাকসো বা বাসো হল একটি ইন্দোনেশিয়ান মিটবল (মাংসের বল) জাতীয় খাবার।[২] অঞ্চলভেদে বাকসো হল গরুর মাংসের সুরিমি থেকে তৈরি মাংসের পেস্ট।[৩] এর আকার চাইনিজ বিফ বল (গরুর মাংসের বল), ফিশ বল (মাছের কিমার বল) বা শুয়োরের মাংসের বলের মতো হয়। বাকসো শব্দটির মাধ্যমে একটি একক মিটবল বা মিটবল স্যুপের একটি সম্পূর্ণ খাবারের পদকে নির্দেশ করা হয়। মি বাকসো বলতে হলুদ নুডলস এবং ভাত অথবা ভার্মিসেলি (ভার্মিসেলি হল একটি বিশেষ ঐতিহ্যবাহী পাস্তা) দিয়ে পরিবেশিত বাকসোকে বোঝায়, আর বাকসো কুয়া বলতে নুডলস ছাড়া পরিবেশিত বাকসো স্যুপকে বোঝায়।

সমস্ত ইন্দোনেশিয়া জুড়ে রাস্তার খাবার অস্থায়ী দোকান থেকে শুরু করে উচ্চ-শ্রেণির রেস্তোরাঁতেও বাকসো পাওয়া যায়। সোটো, সাতে এবং সিওমায়ের পাশাপাশি, বাকসো ইন্দোনেশিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় রাস্তার খাবার (পথখাবার)।[৪] আজ, ইন্দোনেশিয়ার সুপারমার্কেটে বিক্রি হওয়া হিমায়িত খাবার হিসাবে বিভিন্ন ধরণের বাকসো পাওয়া যায়। এটি সাধারণত নুডলস দিয়ে খাওয়া হয়।

উপাদান ও রন্ধনশৈলী[সম্পাদনা]

নুডল এবং শিম স্প্রাউট সঙ্গে বাকসো।

বাকসো সাধারণত সূক্ষ্মভাবে কাটা গরুর মাংস, অল্প পরিমাণে ট্যাপিওকা ময়দা বা সুজির ময়দা এবং তার সাথে লবণ যোগ করে তৈরি করা হয়। বাকসোতে অন্যান্য উপাদান হিসাবে মুরগি, শুয়োরের মাংস, মাছ বা চিংড়িও যোগ করা যেতে পারে।[৪] গরুর মাংসের সুরিমিতে মায়োসিনের পলিমারাইজেশনের উপস্থিতির কারণে বাকসোর আকার সুসংগত, দৃঢ় ও ঘন হয়।

যেহেতু বেশিরভাগ ইন্দোনেশিয়ান মুসলিম লোকেরা হালাল খাদ্যতালিকা পালন করে, তাই তাদের জন্য বাকসো তৈরি করতে সাধারণত গরুর মাংস, মুরগির মাংস বা মুরগির সাথে গরুর মাংসের মিশ্রণ ব্যবহার করা হয়।[৩] অমুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চলে, যেমন প্রধান চায়নাটাউন শহরগুলির এবং বালির হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ দ্বীপ অঞ্চলে, শুকরের মাংসের বাকসো পাওয়া যায়।[৫]

ঐতিহ্যগতভাবে গরুর মাংসের সুরিমি বা পেস্ট থেকে কিছু অংশ নিয়ে তাতে হাতের চাপ দিয়ে ও গোল করে পাকিয়ে সেটিকে বলের আকার দেওয়া হয়, তারপর তা গরম জলে সিদ্ধ করা হয়। মাংসের বল সেদ্ধ হয়ে যাওয়ার পরে মীটবলগুলি জল ঝরিয়ে শুকানো হয় ও পরিবেশন করা হয়। অথবা পরে ব্যবহারের জন্য ফ্রিজেও রাখা যেতে পারে। আগে থেকে রান্না করা বাকসো সাধারণত রাস্তার খাবার বিক্রেতাদের দোকানে ঝোলানো অবস্থায় দেখা যায়।

বাকসো সাধারণত একটি বাটিতে গরুর মাংসের ঝোলের মধ্যে রাখা হয় এবং তার সাথে হলুদ নুডলস, বিহুন (চালের ভার্মিসেলি পাস্তা), লবণাক্ত সবজি, টোফু, ডিম (বাকসোর সাথে ডিম পরিবেশন বেশ জনপ্রিয়), চাইনিজ ব্রোকলি, শিমের অংকুর, সিওমে বা বাষ্পযুক্ত মাংসের ডাম্পলিং বা খাস্তা ওনটন ইত্যাদি পরিবেশন করা হয়। ভাজা শ্যালট (পেঁয়াজকলি) এবং সেলারিও পাতা খাবারকে সজ্জিত করার জন্য ব্যবহার করা যায়। মি গোরেং, নাসি গোরেং, বা ক্যাপ কাই রন্ধনপ্রনালীতে বাকসোর টুকরো বিভিন্ন খাবারে মিশ্রিত করা হয়।

বাকসো মালং

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Calories in Indonesian Food Bakso Daging Sapi (Meatball)"My Fitness Pal 
  2. Rick Rodgers (২০১১)। I Love Meatballs!। Andrews McMeel Publishing। পৃষ্ঠা 29। আইএসবিএন 9781449419424 
  3. "Bakso: the soup President Barack Obama loved as a child"। Nola.com article from The Associated Press। 
  4. Bruce Kraig; Colleen Taylor Sen (২০১৩)। Street Food Around the World: An Encyclopedia of Food and Culture। ABC-CLIO। পৃষ্ঠা 182। আইএসবিএন 9781598849554 
  5. "Bakso "100% Haram" dikunjungi ABG sampai Senator"Suluh Bali (ইন্দোনেশীয় ভাষায়)। ৮ মে ২০১৫।