বাংলা বাগধারার তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বাগধারা শব্দের আভিধানিক অর্থ কথার বচন ভঙ্গি বা ভাব বা কথার ঢং। বাক্য বা বাক্যাংশের বিশেষ প্রকাশভঙ্গিকে বলা হয় বাগধারা। বিশেষ প্রসঙ্গে শব্দের বিশিষ্টার্থক প্রয়োগের ফলে বাংলায় বহু বাগধারা তৈরি হয়েছে। এ ধরনের প্রয়োগের পদগুচ্ছ বা বাক্যাংশ আভিধানিক অর্থ ছাপিয়ে বিশেষ অর্থের দ্যোতক হয়ে ওঠে।বলা যায় বাক্যার্থ ছাপিয়ে এখানে ব্যাঞ্জার্থই প্রধান।

নিচে বাংলা ভাষার কিছু বাগধারার তালিকা দেওয়া হয়েছে।

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
অ আ ক খ প্রাথমিক জ্ঞান (এ বিষয়ে আমার অ আ ক খ জ্ঞান নেই)
অকটবিকট ছটফটানি; ভীতিজনিত কারণে বিকৃত অঙ্গভঙ্গি (ভয়ে সে অকট-বিকট করছে)
অকণ্টক নিরুপদ্রব, নিঃশত্রু, বাধাহীন (আজকের দিনে অকণ্টকে জীবনযাপন করা সম্ভব নয়)
অকর্মার ধাড়ি অকর্মণ্য, অকেজো, অপদার্থ, কোন কাজের নয়, নিতান্ত অলস ব্যাক্তি; (তুমি একটা অকর্মার ধাড়ি) সমার্থক বাগধারা- অকালকুষ্মাণ্ড, অখদ্যে-অবদ্যে, অগাকান্ত, অগামারা, অগারাম, অপোগণ্ড, আমড়া কাঠের ঢেঁকি; খোদার খাসি; গোবরগণেশ; গোকুলের ষাঁড়; তালপাতার খাঁড়া, ধানগাছের তক্তা, ধানকাঠের মই, নিকম্মার ঢেঁকি; ষাঁড়ের গোবর ইত্যাদি
অকলমন্দ/আকলমন্দ/আক্কেলমন্ত বিজ্ঞ, বুদ্ধিমান, প্রাজ্ঞ (বয়সতো হল এখনও অকলমন্দি হল না)
অকলের শত্রু (অকল কে দুশমন) হিন্দি মূর্খ (মনে যখন কোন প্রশ্ন জাগে না তখন তোমাকে অকলের শত্রু মনে হচ্ছে)
অকস্মাৎ বজ্রপাত অপ্রত্যাশিত বিপদ (বাবা মারা গেলেন যেন অকস্মাৎ বজ্রপাত হ'ল)
অকাট মূর্খ জড়বুদ্ধিসম্পন্ন
অকারণে হৈচৈ অহেতুক চিন্তা; সমার্থক বাগধারা- মাথা নেই তার মাথাব্যাথা
অকালকুষ্মাণ্ড অকর্মণ্য, অকেজো, অপদার্থ, কাণ্ডজ্ঞানহীন, কোন কাজের নয় (গালি- অকালকুস্মাণ্ড ছেলে); সমার্থক বাগধারা- অকর্মার ধাড়ি, অখদ্যে-অবদ্যে, অপোগণ্ড, আমড়া কাঠের ঢেঁকি, গর্ভস্রাব ইত্যাদি
অকালকুসুম অসময়ে জাত ফুল, অসম্ভব বস্তু (অকালকুসুম দেশের উৎপাতসূক্সক)
অকালপক্ক ডেঁপো, বয়সের তুলনায় বেশি পাকা; বালক বয়সে বড়দের মত আচরণ (অকালপক্ক ছেলে)
অকালবর্ষণ বর্ষাকাল ভিন্ন অন্যসময়ে বৃষ্টি (অকালবর্ষণে চাষের সমূহ ক্ষতি)
অকালবসন্ত সময়ের আগেই সুখের সূচনা
অকালবার্ধক্য অপরিণত বয়সে বৃদ্ধাবস্থা প্রাপ্তি
অকালসন্ধ্যা সময়ের আগেই কষ্টের সূচনা
অকালে বাদল অপ্রত্যাশিত বাধা
অকালের তাল অসময়ে প্রাপ্ত দ্রব্য
অকুণ্ঠচিত্তে দ্বিধাহীনভাবে
অকুস্থল অপরাধ বা দুর্ঘটনা ঘটেছে এমন স্থান (পুলিশ দ্রুত অকুস্থলে পৌঁচেছে)
অকূল/অকূলদরিয়া/অকূলপাথার চরম সংকট, ভীষণ বিপদ (বাবা মারা যাওয়ায় আমি অকূলপাথারে পড়েছি); সমার্থক বাগধারা- অথৈ জল, সানকিতে বজ্রাঘাত ইত্যাদি
অকূলতারণ বিপদে যে রক্ষা করে এমন ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- অকূলের কূল
অকূলে কূল পাওয়া নিরুপায় অবস্থা থেকে উদ্ধার পাওয়া; গভীর সঙ্কটে সাহায্য পাওয়া
অকূলে ডোবা/পড়া ভীষণ বিপদে পড়া
অকূলে/অকূলপাথারে ভাসা বিপদে দিশেহারা হওয়া
অকূলের কূল বিপদে ত্রাণকর্তা; সমার্থক বাগধারা- অকূলতারণ
অকূলের ভেলা একান্ত নিরুপায় অবস্থার শেষ অবলম্বন
অক্কা পাওয়া/অক্কাপ্রাপ্তি কৌতুকে- মারা যাওয়া/মৃত্যু (শেষরাত্রে বুড়োটা অক্কা পেলো); সমতুল্য বাগধারা- আত্মারাম খাঁচাছাড়া, ঈশ্বরপ্রাপ্তি, গঙ্গাপ্রাপ্তি, পঞ্চত্বপ্রাপ্তি, পটল তোলা, শিঙে ফোঁকা ইত্যাদি
অক্টোপাস চারিদিক থেকে মারাত্মক আক্রমণ (নানা সমস্যা চারিদিক থেকে আমাকে অক্টোপাসের মত জড়িয়ে ধরেছে)
অক্ষয়বট অতিবৃদ্ধ ব্যক্তি (উৎস- গয়া, প্রয়াগ, ভুবনেশ্বর ইত্যাদি তীর্থস্থানে রোপিত বটবৃক্ষ যাদের পূজা করলে অক্ষয় পূণ্যলাভ হয়) সমার্থক বাগধারা-আদ্যিকালের বদ্যিবুড়ো, ঘাটের মড়া, তিনকাল গিয়ে এককালে ঠেকেছে, ভূষণ্ডির কাক ইত্যাদি
অক্ষরচুঞ্চু যার হাতের লেখা খুব সুন্দর
অক্ষরজ্ঞান/পরিচয় সামান্যতম জ্ঞান (এ বিষয়ে আমার অক্ষরপরিচয় নেই)
অক্ষরে অক্ষরে কোন ব্যতিক্রম না করে, যথাযথভাবে, সম্পূর্ণভাবে (তোমার নির্দেশ আমি অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছি) সমার্থক বাগধারা- হুবহু
অক্সিজেন জোগানো বাঁচার আশ্বাস পাওয়া; বিপদে ভরসা দেওয়া
অখদ্যে অবদ্যে অপদার্থ, অকর্মণ্য, ওঁচা (এমন অখদ্যে-অবদ্যে জিনিস আমি কিনি না)
অখন-তখন মুমূর্ষ, যায় যায় অবস্থা (একন-তখনের আঞ্চলিক রূপ)
অগড়বগড়/অগড়ম্‌বগরম্‌ অর্থহীন প্রলাপ, অপ্রাসঙ্গিক কথাবার্তা, ফাজিল কথা, বাক্যের আড়ম্বর, বৃথা বাক্যবিস্তার (অগড়মবগরম কথাবার্তা বলো না); সমার্থক বাগধারা- আবোলতাবোল
অগতির গতি ঈশ্বর, অনন্যোপায়ের উপায়; অসহায়ের শেষ অবলম্বন, নিরাশ্রয়ের আশ্রয়
অগত্যা মধুসূদন অনন্যোপায় হয়ে (কেউ যখন রাজী নয় তখন অগত্যা মধুসূদন আমিই করবো)
অগভীর জলের পুঁটিমাছ/শফরী অল্প ধন/বিদ্যা নিয়ে বড়াইকারী লোক
অগর-মগর করা // অগরমগর করনা- হিন্দি নানা অজুহাত দেখানো; 'কিছু করা বা না'-করার পক্ষে নানা ওজর/যুক্তি দেখানো (চাকরকে অনুপস্থিতির কারণ জিজ্ঞাসা করাতে সে অগর-মগর করতে লাগল)
অগস্ত্যযাত্রা চিরদিনের জন্য প্রস্থান, জন্মের নত যাওয়া, শেষযাত্রা; ভাদ্রমাসের বা প্রতিমাসের প্রথমদিন যাত্রা (নিষিদ্ধ বলে কল্পিত); উৎস- ভাদ্রমাসের প্রথমদিনে বিন্ধ্যপর্বত লঙ্ঘন করে দাক্ষিণাত্যে যাত্রা করেন, এর ফেরেন নি
অগা/অগাকান্ত/আগাচণ্ডী/অগামারা/অগারাম বিদ্রুপে- নির্বোধ, অকর্মা'গালি; স্নেহযুক্ত তিরস্কারে- অগাকান্ত ও অগারাম; তুচ্ছার্থক তিরস্কারে- অগামারা
অগাধ জল/সমুদ্র চরম বিপদ (চাকরিটা চলে যাওয়ায় অগাধ জলে পড়েছি)
অগাধ জলের মাছ সুচতুর ব্যক্তি, যার মনোভাব বোঝা যায় না; সমার্থক বাগধারা- অথৈ জলের মাছ; গভীর জলের মাছ
অগ্নি-অবতার১ অতি ক্রুদ্ধ ব্যক্তি
অগ্নি-অবতার২ অতি তেজস্বী পুরুষ
অগ্নিকন্যা অতি তেজস্বী নারী
অগ্নিকাণ্ড বিষম অনর্থ, তুলকালামকাণ্ড, তুমুল ঝগড়া (সংসারে অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে)
অগ্নিগর্ভ অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ, উত্তপ্ত (অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে; অগ্নিগর্ভ বক্তৃতা)
অগ্নিচক্ষু/দৃষ্টি কঠোর দৃষ্টি
অগ্নিপরীক্ষা কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন (সীতার অগ্নিপরীক্ষা)
অগ্নিবল ক্ষুধা (গরীবের অন্নবল নেই অগ্নিবল আছে)
অগ্নিবৃদ্ধি ক্ষুধাবৃদ্ধি (পরিশ্রম করলে অগ্নিবৃদ্ধি হয়)
অগ্নিমান্দ্য অক্ষুধা, অজীর্ণ রোগ, পরিপাকশক্তির অল্পতা। মন্দাগ্নি (বৃদ্ধবয়সে অগ্নিমান্দ্য রোগে ভুগছি)
অগ্নিমূর্তি অতিশয় ক্রুদ্ধ (শিক্ষকমশাই অগ্নিমূর্তি ধারণ করেছেন)
অগ্নিমূল্য জিনিসপত্রের চড়াদাম (জিনিসপত্রের অগ্নিমূল্যে মানুষ বিপর্যস্ত)
অগ্নিযুগ স্বদেশি আন্দোলনের সময়ের সশস্ত্র বিপ্লবের যুগ (বিপ্লবী ক্ষুদিরাম অগ্নিযুগের সন্তান)
অগ্নিশর্মা অত্যন্ত কোপনস্বভাব-ব্যক্তি (প্রখরমূর্তি অগ্নিশর্মা, ছাত্র মরে আতঙ্কে-রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- অগ্নি-অবতার
অগ্নিসাংস্কার মন্ত্র পড়ে শবদাহ, মৃত সৎকার
অগ্নিসাক্ষী আগুন ছুঁয়ে বা আগুনকে সাক্ষী রেখে শপথ (অগ্নিসাক্ষী করে বলছি আমি কিছু জানি না)
অগ্নিসেবন আগুনের তাপ উপভোগ (কাঠ জ্বালিয়ে অগ্নিসেবন করছি)
অগ্নিতে ঘৃতাহূতি উত্তেজনা/ক্রোধবৃদ্ধি (একেই উত্তেজনা চরমে, আর অগ্নিতে ঘৃতাহূতি দিও না)
অগ্নিতে বারিবর্ষণ উত্তেজনা/ক্রোধহ্রাস, রাগ স্থিমিত; সমার্থক বাগধারা- আনলে জল ঢালা/পড়া
অগ্রদানী প্রেতের উদ্দেশ্যে প্রদত্ত দান গ্রহণকারী পতিত ব্রাক্ষণ
অগ্রপশ্চাৎ ভালমন্দ, ভূতভবিষ্যৎ (অগ্রপশ্চাৎ বিবেচনা না করে কাজ করলে ফল ভাল হয় না)
অগ্রপাণি দক্ষিণ হস্ত
অঘটনঘটনকুশল অসাধ্যসাধনে বা অকাজে পটু পুরুষ
অঘটনঘটনপটিয়সী অসাধ্যসাধনে বা অকাজে পটু নারী
অঙ্কলক্ষ্মী/ অঙ্কশায়ীনি পত্নী, স্ত্রী
অঙ্কস্থ সম্পূর্ণ আয়ত্ব
অঙ্কুরে বিনষ্ট শুরুতেই নাশ/বিনাশ (সাফল্যের আশা অঙ্কুরেই বিনষ্ট)
অঙ্কুরোজ্ঞম কোন কিছুর সূত্রপাত
অঙ্গ জল হওয়া১ ভয় পাওয়া (রাতের অন্ধকারে পথ চলতে ভয়য়ে অঙ্গ অ্যাম্বার জল হয়)
অঙ্গ জল হওয়া২ ক্রোধ প্রশমিত হওয়া (মেয়ের মুখ দেখলে বাবার অঙ্গ জল হয়)
অঙ্গুলিত্রান/অঙ্গুস্তানা সেলাইয়ের সময় আঙুলে পরিধেয় বর্ম
অঙ্গুলিনির্দেশ/ অঙ্গুলিহেলন আঙুলের ইসারা, আঙুলের নির্দেশ
অচলায়তন প্রগতিবর্জিত ও গোঁড়ামিপূর্ণ প্রতিষ্ঠান (ধর্মীয় প্রতিষ্টানগুলি একেকটি অচলায়তন)
অচিন পাখি প্রাণ ('খাঁচার ভিতর অচিন পাখি কেমনে আসে যায়')
অচন্দ্রচেতন যৌনচেতনাশূন্য
অচিন্ত্যপূর্ব পূর্বে যা চিন্তা কয়ড়া যায় নি)
অছিলা অজুহাত, ওজর, বাহানা (তার না আসার একটা অছিলা থাকেই)
অজগরবৃত্তি আলসেমি; এক জায়গায় স্থির থেকে যা পাওয়া যায় তাতেই জীবনধারণ
অজগ্রাম/অজপাড়া/অজ পাড়াগাঁ মন্দার্থে- নিতান্ত ক্ষুদ্র/অপরিচিত/খাঁটি পল্লী
অজমূর্খ আকাট মূর্খ, নিরেট বোকা
অজাতশত্রু যার শত্রু নাই; যার শত্রু জন্মায়নি; যে শত্রুতা করে না (অজাতশত্রু যুধিষ্ঠির)
অজাতশ্মশ্রু যার গোঁফদাড়ি জম্নাইয়নি; বয়ঃপ্রাপ্তি সত্ত্বেও গোঁফ-দাড়ি ওঠে না এমন, মাকুন্দ
অজাকৃপাণীয়ন্যায় শিথিলাবদ্ধ কৃপাণের আঘাতে যেরূপ অজের মূন্ডচ্ছেদ হয়েছিল সেইরূপ আত্মকৃত কার্যে আত্মনাশ;(কাহিনী- অজের গা চুলকানোর জন্য দেওয়ালে একটা খাঁড়া শিথিলভাবে ঝোলানো ছিল; অকস্মাৎ সেই খাঁড়া পড়ে ছাগলের মূন্ডচ্ছেদ হয়)
অজাযুদ্ধ১ মূল অর্থ- ছাগল বা ভেড়ার যুদ্ধ, যেখানে লড়াই থেকে আস্ফালন বেশি; আলং- যে কাজে আড়ম্বর বেশি ফললাভ সামান্য(অজার যুদ্ধে আঁটুনি সার- প্রবাদ)
অজাযুদ্ধ২ ঋষিদের শ্রাদ্ধানুষ্ঠান, যেখানে কলাপাতা বিছানো হলেও আহার্য্য পরিবেশন হয় না)
অজ্ঞতকুলশীল যার বংশপরিচয় বা স্বভাবসম্পর্কে কিছু জানা নেই (অজ্ঞতকুলশীলকে ঘরে স্থান দিতে নেই)
অঞ্চলনিধি অত্যন্ত প্রিয়বোধে যা আঁচলের নীচে ঢেকে রাখা হয়, স্বামী বা সন্তান; মূলতঃ আদরের পুত্রসন্তান (মায়ের অঞ্চলনিধি)
অঝরঝরণ অজস্রধারায়, অবিরলপ্রবাহে, প্রচুরপরিমাণে ('শ্রাবণ অঝর ঝরে, ব্যাকুল বাতাস কেঁদে মরে...')
অঝরনয়ন সততগলদশ্রুনেত্র ('শ্রাবণ অঝর ঝরে, ব্যাকুল বাতাস কেঁদে মরে...')
অঞ্চলপ্রভাব স্বামীর উপর স্ত্রীর প্রভাব/প্রভুত্ব, স্ত্রীর একান্ত অনুগত; সমার্থক বাগধারা- আঁচলধরা
অতঃকিম এরপর কী, কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থা; সমার্থক বাগধারা- ততঃকিম
অতশত নানাবিধ বিষয় (আমি অতশত জানি না)
অতিঘরন্তি গৃহকর্মনিপুণা কুমারী মেয়ে (অতিঘরন্তি না পায় ঘর, অতিসুন্দরী না পায় বর- প্রবাদ)
অতিবাড় অতিরিক্ত অহংকার (অতিবাড় বেড়োনা ঝড়ে উড়ে যাবে')
অথৈ জল চরম সংকট, ভীষণ বিপদ; বিপদে দিশেহারা; সমার্থক বাগধারা- অকূল পাথার, সানকিতে বজ্রাঘাত ইত্যাদি
অথৈ জলের মাছ সুচতুর ব্যক্তি; চাপা স্বভাবের লোক; সমার্থক বাগধারা- অগাধ জলের মাছ; গভীর জলের মাছ
অদল-বদল তুল্যবিষয়ের পরিবর্তন (তার মতিগতিতে কিছু অদলবদল হবে না); সমার্থক বাগধারা- উলট-পালট, এদিক-ওদিক, হেরফের ইত্যাদি
অদানে অব্রাহ্মণে আজে-বাজে কাজে অর্থ ও পরিশ্রম ব্যয়
অদৃষ্টের কিল/পরিহাস/ফের ভাগ্যের মার; ভাগ্যবিড়ম্বনা/ভাগ্যের নিষ্ঠুরতা (অদৃষ্টের কিল ভূতেও/পুতেও কিলায়- প্রবাদ)
অধমাধম অধমেরও অধম, অত্যন্ত নিকৃষ্ট বা নীচ; সমার্থক বাগধারা- কীটস্য কীট
অধরপান চুম্বন ('সাত প্রকার বাহ্য রতির মধ্যে একটি হল অধরপান')
অধিক গর্জনে অল্প বর্ষণ বেশি মেঘ ডাকলে বৃষ্টি কম হয়; সমতুল্য- অনেক গর্জনে ফোঁটা বৃষ্টি; বর্ষণ নেই গর্জন সার; যত গর্জে তত বর্ষে না; বহ্বারম্ভে লঘু ক্রিয়া ইত্যাদি
অধিবিন্না দ্বিতীয়বার বিবাহিত পুরুষের জীবিত প্রথমা পত্নী
অধিবেত্তা প্রথম স্ত্রী জীবিত থাকা সত্বেও দ্বিতীয়বার বিবাহকারী পুরুষ
অধিবেদন প্রথম স্ত্রী জীবিত থাকা সত্বেও তার বন্ধ্যাদোষহেতু পুরুষের দ্বিতীয়বার বিবাহ
অধিমাস মলমাস
অনন্তযাত্রা মৃত্যু
অনভ্যাসের ফোঁটা১ আচমকা সৌভাগ্য সহ্য হয় না
অনভ্যাসের ফোঁটা২ প্রাথমিক অস্বস্তি (অনভ্যাসের ফোটা কপাল চড়চড় করে- প্রবাদ)
অনলে জল ঢালা/পড়া উত্তেজনা হ্রাস, রাগ স্তিমিত; সমার্থক বাগধারা- অগ্নিতে বারিবর্ষণ
অনাগতবিধাতা ভবিষ্যতের জন্য সংস্থানকারী; ভাবি অনিষ্টের প্রতিকারক; যে পরিণামের চিন্তায় আগাম ব্যবস্থা গ্রহণ করে (অনাগত বিধাতারা কখনো বিপদে পড়ে না)
অনাথের নাথ ঈশ্বর (অনাথের ও নাথ গৌরা রে- ধামাইল গান)
অনামুখো যার মুখ দেখলে অমঙ্গল হয়, এমন ব্যক্তি- মেয়েলি গালিবিশেষ
অনারাম অসুখ, অশান্তি ('শরীরের পক্ষে এমন অনারাম...'বুদ্ধদেব বসু)
অনাহারী ব্যাঙ্গে- কাজ করে কিন্তু বেতন পায় না এমন (আমি এক অনাহারী কর্মচারী)
অনিষ্ট হতে ইষ্টলাভ/অনিষ্টে ইষ্টলাভ খারাপ ঘটনা থেকে ভাল ঘটনার উৎপত্তি; শাপে বর (আম্ফান ঝড়ে অনেকের ক্ষেত্রে অনিষ্টে ইষ্টলাভ হয়েছে)
অনুজীবন কারো আশ্রিত হয়ে জীবনধারণ করা
অনুপান ঔষধের সাথে বা পরে পেয় মিষ্টিরস, যেমন মধু মকরধ্বজের অনুপান
অনুবাত অনুকূল বায়ু; বিপরীত প্রতিবাত
অনুরোধে ঢেঁকি গেলা অনুরোধ এড়াতে না পেরে দুরূহ কাজ সম্পন্ন করতে সম্মতি জ্ঞাপন; সমার্থক বাগধারা- উপরোধে ঢেঁকি গেলা
অনুলোম বিবাহ উচ্চবর্ণের পাত্রের সাথে নীচবর্ণের পাত্রীর বিবাহ
অনুলোমা স্বামী অপেক্ষা হীনাবর্ণ স্ত্রী
অনুশিষ্য শিষ্যের অনুগত শিষ্য, শিষ্যের শিষ্য
অনেক কাঠখড় পোড়ানো বহু চেষ্টা ও পরিশ্রম করা (অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে একটা চাকরি জোগাড় করছি)
অনেক/অগাধ জলের মাছ অত্যন্ত চালাক, চালচলন টের পাওয়া যায় না এমন সুচতুর ব্যক্তি; (লোকটি অগাধ জলের মাছ ওকে ছুঁতে পারবে না)
অন্তর টিপুনি গোপন ব্যথা, অন্যের অজ্ঞাতে কারো মনে গোপনে আঘাত
অন্তর্জলি যাত্রা অন্তিমকাল শুরু (ক রাজনৈতিক দলটার অন্তর্জলি যাত্রা শুরু হয়েছে)
অন্তর্দাহ ঈর্ষাজনিত কারণে গাত্রদাহ
অন্তর্দ্বন্দ্ব দল বা গোষ্ঠীর মধ্যে আত্মকলহ
অন্দর অন্তঃপুর, ভিতর (জলের তলে পাহাড় ছিল লাগল বুকের অন্দরেতে- রবীন্দ্রনাথ)
অন্ধ অজ্ঞান, বিচারবুদ্ধিহীন (অন্ধ বিশ্বাস)
অন্ধকার দেখা বিপদে দিশেহারা হওয়া
অন্ধকার দেখানো বিপদে ফেলা
অন্ধকারে উকুন বাছা // অন্ধকারে কালো বিড়াল খোঁজা; অসাধ্য কাজ যা কোনমতে সম্ভব নয়; সমার্থক বাগধারা- আকাশ থেকে চাঁদ পাড়া; কম্বলের লোম বাছা; কোদাল দিয়ে দাড়ি চাঁচা; খড়মপায়ে গঙ্গা পার হওয়া; খড়ের গাদায় সূঁচ খোঁজা; মুড়া কোদালে খাল কাটা; শামুক দিয়ে জলসেচা ইত্যাদি
অন্ধকারে ঢিল ছোঁড়া/মারা অনুমানে/আন্দাজে কাজ করা
অন্ধকারে থাকা কিছু না জানা, সম্পূর্ণ অনভিহিত থাকা; থই না পাওয়া
অন্ধকারে হাতড়ানো অনুমান করা
অন্ধকে দর্পণ দেখানো মূর্খকে জ্ঞানদান
অন্ধগোলাঙ্গুলন্যায় মুর্খের উপদেশ গ্রহণ করে গরুর লেজ ধরে চলতে দিয়ে এক অন্ধের যেরকম দুর্দশা হয়েছিল তদ্রুপ (কাহিনী- একদিন এক অন্ধ বন্ধুর বাড়ী যেতে গিয়ে পথ হারিয়ে ফেলে; সেইসময় এক রাখাল গরুর পাল নিয়ে বাড়ী ফিরছিল; অন্ধ রাখালকে বন্ধুর বাড়ীর পথ জানতে চাইলে সে তার গরুর লেজ ধরে থাকলে বলে; অন্ধ তাই করে; অন্ধ লেজ চেপে ধরায় গরু দিকবিদিকজ্ঞানশূন্য হয়ে ছোটাছুটি করতে থাকে; ফলে অন্ধের বন্ধুর বাড়ী যাওয়া হয় না পরন্তু সর্বাঙ্গ ক্ষতবিক্ষত হয়; কেউ মুর্খের উপদেশে চলতে গিয়ে বিপদাপন্ন হলে তাকে অন্ধগোলাঙ্গুলন্যায়ের অন্ধের সাথে তুলনা করা হয়।)
অন্ধপঙ্গুন্যায় এক অন্ধ ও এক খঞ্জের স্থানান্তরে যাওয়ার প্রয়োজন হয়; ঠিক হওয় অন্ধের পিঠে চড়ে খঞ্জ পথ দেখাবে এবং অন্ধ হেঁটে জাবে; এইভাবে তারা স্থানান্তরে গমন করে; পরস্পরের সামর্থ্য দিয়ে পরস্পরের অভাবমোচন হলে অন্ধপঙ্গুন্যায় হয়।
অন্ধপরম্পরান্যায় বিষয়বিশেষে অজ্ঞব্যক্তিদের কথায় বিশ্বাসযোগ্যতা নেই; (কাহিনী- এক অন্ধ বলে দুধের রঙ সাদা; তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়, 'তুমি কি করে জানলে?' উত্তরে সে বলে, 'অন্য অন্ধ তাকে বলেছে'; যেমন অন্ধবাক্যে দুধের শ্বেতত্ব প্রমাণিত হয় না তেমনি কোন বিষয়ে অজ্ঞদের বাক্যে সংশয় থাকে।)
অন্ধবিশ্বাস নির্বিচার যুক্তিহীন আস্থা (জগতের সব থেকে বড় পাপ হ'ল অন্ধবিশ্বাস)
অন্ধভক্তি যুক্তিবর্জিত প্রশ্নহীন আনুগত্য
অন্ধ হওয়া পক্ষপাতদুষ্ট হওয়া, হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হওয়া
অন্ধহস্তীন্যায় হস্তীর স্বরূপ জানতে গিয়ে কয়েকজন অন্ধের যেরূপ ধারণা হয়েছিল সেইরূপ; (কাহিনী- কয়েকজন অন্ধ এক চক্ষুস্মানের কাছে হাতী কিরকম দেখতে জানতে চায়; চক্ষুস্মান ব্যক্তি হাতীশালায় তাদের নিয়ে গিয়ে হাতীর অঙ্গ স্পর্শ করিয়ে বলে এটা হল হাতী; এতে যে অন্ধ যে অঙ্গ স্পর্শ করে সে সেই অঙ্গকেই হাতী মনে করে হাতী দেওয়ালের মত; যে কান স্পর্শ করে সে মনে করে হাতী কুলোর মত; যে গা স্পর্শ করে সে মনে করে হাতী দেওয়ালের মত; যে পা স্পর্শ করে সে মনে করে হাতী থামের মত এবং যে লেজ স্পর্শ করে সে মনে করে হাতী রজ্জুর মত; যে শুঁড় স্পর্শ করে সে মনে করে হাতী সাপের মত; অনভিজ্ঞ ও অল্পদর্শীরা একদেশ দর্শন করে চরম সিদ্ধান্তে উপনীত হলে তাদের অন্ধহস্তীন্যায়ের অন্ধের সাথে তুলনা করা হয়)
অন্ধিসন্ধি কলাকৌশল, গোপন তথ্য, হদিস (অন্ধিসন্ধি বোঝা দায়); সমার্থক বাগধারা- ঘাঁত-ঘোঁত, ফাঁক-ফোকর, সুলুক-সন্ধান ইত্যাদি
অন্ধের যষ্টি/নড়ি // অন্ধেকো লকড়ী (হিন্দি) অসহায়ের সহায়/একমাত্র অবলম্বন
অন্ধের হস্তীদর্শন অসম্পূর্ণ বিচার/সিদ্ধান্ত (অন্ধহস্তীন্যায় দ্রষ্টব্য)
অন্ধ্রেরন্ধ্রে কোনায় কোনায়, ফাঁক-ফোকরে (সরকারী দপ্তরের অন্ধ্রেরন্ধ্রে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে)
অন্ন জীবিকা (অন্নসংস্থান করতে ছুটে বেড়াচ্ছি)
অন্ন ওঠা আয়ু/পরমায়ু শেষ হওয়া (বৃদ্ধের অন্ন উঠেছে, এবার যাবার পালা)
অন্নগত প্রাণ১ অন্নের অভাবে প্রাণ যায় এমন অবস্থা
অন্নগত প্রাণ২ বিষয়াসক্তি, ভোগসর্বস্বতা,
অন্নচিন্তা চমৎকারা অন্নচিন্তা এমনই চমৎকার যে ক্ষুধায় বুদ্ধির বিকাশ হয় না; জীবিকার জন্য উদ্বেগ (অন্নচিন্তা চমৎকারা কালিদাস হয় বুদ্ধিহারা- প্রবাদ)
অন্নছত্র ক্ষুধার্তকে যেখানে সবসময় অন্ন দান করা হয়, লঙ্গরখানা; সমার্থক বাগধারা- অন্নসত্র
অন্নজল১ আহার্য, খাদ্য ও পেয়মাত্র; সমার্থক বাগধারা- দানাপানি
অন্নজল২ জীবিকা
অন্নজল৩ পরলোক গত আত্মার তৃপ্তিসাধনে হিন্দুদের আচরিত অনুষ্টান; শ্রাদ্ধে প্রেতের উদ্দেশ্যে প্রদত্ত ভোজ্যদ্রব্য
অন্নজলের নাড়ী কোটা শিশুর ভাতজল খাওয়ার বয়স হওয়া
অন্নজলের বরাত ওঠা পরমায়ু শেষ, জীবিকা অর্জনের উপায় শেষ
অন্নদাস পেটের জন্য পরের চাকর; পেটের ভাতুড়ে (ঘরজামাই শ্বশুরের অন্নদাস)
অন্নধ্বংস করা বসে বসে খাওয়া; অলসভাবে জীবন কাটানো ('বেটার ক-অকক্ষর গোমাংস বিদ্যার মধ্যে অন্নধ্বংস'-দাশরথি রায়)
অন্নবল অর্থ (অন্নবল নেই তার অগ্নিবল আছে)
অন্নবস্ত্র খাওয়া পড়ার ব্যবস্থা (চাকুরী না হলে অন্নবস্ত্রের সংস্থান হবে না) সমার্থক বাগধারা- খোরপোশ, ভাত-কাপড় ইত্যাদি
অন্নভোজী ভাত খেয়ে জীবনধারণ করে এমন
অন্নময় কোষ স্থূল শরীর
অন্নসঙ্কট খাদ্যাভাব (দেশে অন্নসঙ্কট নেই)
অন্নসংস্থান জীবিকার অর্জনের উপায়/ব্যবস্থা
অন্নসত্র ক্ষুধার্তকে যেখানে অন্ন দান করা হয়, লঙ্গরখানা; সমার্থক বাগধারা- অন্নছত্র
অন্যপুষ্ট অন্যদ্বারা প্রতিপালিত, কোকিল
অন্যপূর্বা অপরিণীতা; আগে কারও বাগদত্তা ছিল এমন নারী; কুমারী কন্যা
অপত্যস্নেহ সন্তানের প্রতি পিতামাতার স্নেহ, ভালোবাসা
অপদস্থ অপমানিত, লাঞ্ছিত
অপদার্থ অকর্মণ্ন্যয অযোগ্য।, মনুষত্বহীন (তোমার মত অপদার্থ আমি দেখি নি) সমার্থক বাগধার- অপোগণ্ড
অপদেবতা ভূত, প্রেত ইত্যাদি অপকৃষ্ট আত্মা
অপপ্রচার গুজব, মিথ্যা সংবাদ
অপবাদ কুৎসা, নিন্দা, বদনাম
অপমৃত্যু অস্বাভাবিক মৃত্যু
অপরাপর অন্যান্য, অন্য সমস্ত
অপরিণামদর্শী অদূরদর্শী, অবিবেচক, পরিণাম ভেবে কাজ করে না এমন; ভবিষ্যতে কী ঘটবে সে সম্পর্কে চিন্তা করে না এমন
অপলাপ১ মিথ্যা উক্তি (সত্যের অপলাপ)
অপলাপ২ অসংগত বাক্য
অপসংস্কৃতি বিকৃত রুচির সংস্কৃতি
অপাংক্তেয় গুরুত্বহীন, মর্যাদাহীন
অপাঙ্গে দেখা আড়চোখে দেখা
অপোগণ্ড মুখ্য অর্থ- নাবালক; আলং- অকর্মণ্য, কোন কাজের নয়, (এমন অপোগণ্ড আমি আর দেখিনি); সমার্থক বাগধার- অপদার্থ
অপ্রিয়বাদী কটুভাষী, মুখরা
অপ্সরা স্বর্গের বারাঙ্গনা, সুরসুন্দরী
অবগাহন গভীরে প্রবেশ
অবতার ব্যাঙ্গে- অদ্ভুত/কিম্ভূত মূর্তি (তুমি এক অবতার)
অবদংশ মদের চাট
অবরে-সবরে/ অবুরে সবুরে কদাচিৎ, খুব একটা বেশি নয়, মধ্যে মধ্যে, সময়ে সময়ে (অবরেসবরে এখানে বাঘের উৎপাত হয়); সমার্থক বাগধারা- কখনো সখনো, কালেভদ্রে
অবলীলাক্রমে অনায়াসে, বিনা পরিশ্রমে
অবলুণ্ঠিত ধূলায় গড়াগড়ি দিচ্ছে এমন (সব সম্মান অবলুণ্ঠিত)
অবলেহন জিভ দিয়ে আস্বাদন
অবশ্য অবশ্য নিশ্চয়ই, বলা বাহুল্য
অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা পরিস্থিতি বিবেচনায় কার্যক্রম গ্রহণ
অবস্থার দাস পরিস্থিতির সম্পূর্ণ বশবর্তী; যখন যেমন দশা তখন তেমন চলে
অবেলা অসময়
অব্রাহ্মণের দীর্ঘফোঁটা মেকি ব্রাহ্মণের বেশি ভড়ং
অভদ্রা কাল আকাল, দুঃসময়, দুঃর্ভিক্ষের সময়, বাধাবিঘ্ন ইত্যাদি (অভদ্রা বর্ষাকাল, হরিণী চাটে বাঘের গাল- প্রবাদ)
অভাগা করুণার পাত্র (অভাগা যেদিকে চায় সাগর শুকায়ে যায়- প্রবাদ)
অভাবে স্বভাব নষ্ট অনটনের চাপে সৎথ থেকে বিচ্যুত হওয়া
অভিশংসক মিথ্যা অপবাদ দেয় এমন ব্যক্তি
অভিসন্ধি কোন গুপ্ত মতলব; অসৎ অভিপ্রায়, কুমতলব (তোমার অভিসন্ধি আমার জানতে বাকি নেই)
অভিসার কোনো গুপ্ত উদ্দেশ্যে গোপন অভিযান (রাতের অন্ধকারে অভিসারে বেরল)
অভেদাত্মা হরিহর অভিন্ন হৃদয় বন্ধু
অমনি অমনি বিনাকারণে (অমনি অমনি মা তোমায় বকল?); সমার্থক বাগধারা- অনর্থক
অমনি একরকম মোটামুটি ভালো; ভালোও নইয়, মন্দও নয় এমন অবস্থা
অমরকণ্টক হয়ে অমরনাথ যাত্রা ঘুর/বাঁকাপথে কাজ করা
অমলধবল অতিশুভ্র ('অমলধবল পালে লেগেছে মন্দমধুর হাওয়া, দেখি নাই কভু দেখি নাই এমন তরণী বাওয়া'-রবীন্দ্রনাথ)
অমানিশার অন্ধকার অমাবস্যার ঘোর অন্ধকার (অমানিশার অন্ধকারে অসিত অশ্ব ডিম্বের অন্বেষণ- অনুপ্রাস অলংকার)
অমাবস্যার চাঁদ দুর্লভ বস্তু; যার দেখা পাওয়া ভার; সমার্থক বাগধারা- কোকিলের বাসা, ডুমুরের ফুল, দিনে তারা দেখা, সাপের পা ইত্যাদি
অমৃতপথযাত্রী মৃত্যুপথযাত্রী
অমৃতফল আম
অমৃতে অরুচি অতিপ্রিয় খাদ্যের প্রতি অনীহা; অতিপ্রিয় বস্তুর প্রতি বিরাগ
অমৃতের পুত্র/সন্তান মানুষ ('শৃন্বন্তু বিশ্বে অমৃতস্য পুত্রা- উপনিষদ)
অমেরুদণ্ডী বলিষ্ঠ নয়, দুর্বল চরিত্রের লোক
অম্লমধুর ঈষৎ অম্ল ও ঈষৎ মিষ্টের মিশ্রণ; ঈষৎ অম্লরসযুক্ত মিষ্টতাপ্রধান ফলাদি (ল্যাঙড়া অম্লমধুর আম)
অম্লমধুর বাক্য মিষ্টিপ্রলেপে ঝাঁঝালো বাক্য
অম্লানবদনে মন্দার্থে- দ্বিধাহীনভাবে, নিঃসঙ্কোচে (অম্লানবদনে সে মিথ্যেকথা বলে যায়)
অয়েল করা বিদ্রুপে- তোয়াজ করা, স্তাবকতা করা
অরক্ষণীয়া বয়স্কাকন্যা যাহার বিবাহ না দিয়া ঘরে রাখা যায় না (বর্তমানে অর্থহীন)
অরণ্যে রোদন নিস্ফল প্রার্থনা (পাথরে মাথা ঠোকা অরণ্যে রোদনের সামিল)
অরন্ধন ভাদ্রসংক্রান্তি, যে তিথিতে রান্না নিষিদ্ধ
অর্জুনের গাণ্ডীব দুষ্ট দমনকারী অমোঘ অস্ত্র; সমার্থক বাগধারা- শ্রীকৃষ্ণের সুদর্শন চক্র
অর্থদণ্ড/নাশ অনর্থক অর্থ ব্যয়, অর্থ ব্যয় সত্বেও উদ্দেশ্য সাধনে ব্যর্থ (একগাদা অর্থদণ্ড হল)
অর্থপিশাচ১ অর্থলাভের জন্য ভালোমন্দ, ন্যায়-অন্যায়বোধশূন্য (এখনের ডাক্তারগুলো একেকটি অর্থপিশাচ)
অর্থপিশাচ২ অত্যন্ত কৃপণ
অর্ধচন্দ্র অপমান করে বিদায় করা (ওকে অর্ধচন্দ্র দিয়ে বিদায় কর); সমার্থক বাগধারা- গলাধাক্কা, ঘাড়ধাক্কা
অর্ধাঙ্গিনী/অর্ধাঙ্গী পত্নী, স্ত্রী; সমার্থক বাগধারা- সহধর্মিণী
অলকাতিলকা চন্দনাদি দিয়ে কিশোরী মেয়ের মুখসজ্জা (অলকার তিলক সার- প্রবাদ)
অলক্ষ্মী১ গৃহকর্মে অনিপুণা ও স্বভাবে অগোছালো স্ত্রীলোক
অলক্ষ্মী২ অভাব, অনটন, দারিদ্র, দুর্দশা, হতভাগ্য, হতশ্রী (পরিবারটাকে অলক্ষ্মীতে পেয়েছে)
অলক্ষ্মী৩ সমুদ্রমন্থনে প্রথম উদ্ভূতা কল্পিত দুষ্ট লক্ষ্মী ('লক্ষ্মীরে হারাবই যদি অলক্ষ্মীরে পাবই'- রবীন্দ্রনাথ)
অলক্ষ্মীর দশা/দৃষ্টি অভাব-অনটন, দারিদ্র্য, দুর্ভাগ্য
অলপ্পেয়ে/অল্পেয়ে আয়ু অল্প হ'বে- এমন অর্থে মেয়েলি গালিবিশেষ
অলম্বুষ থপথপে মোটাসোটা অলস প্রকৃতির লোক, অমার্জিত, নির্বোধ (তোমার মত অলম্বুষকে দিয়ে কাজ হবে না)
অলিগলি খুব সরু ও দুর্গম রাস্তা; গলি ও তস্যগলি; গলি এবং তার থেকেও সঙ্কীর্ণ পথ; মার্থক বাগধারা- গলিঘুঁজি
অলিপানা কৌতুকে- মদ, সুরা
অলোকসামান্যা মনুষ্যলোকে দেখা যায় না এমন অসাধারণ সুন্দরী নারী
অল্প অল্প১ গুড়ি গুড়ি (অল্প অল্প বৃষ্টিতে কাদা হওয়, কাটা বৃষ্টিতে হওয় না)
অল্প অল্প২ কম কম (অল্প অল্প করে খাওয়া/দেওয়া)
অল্পজলের/পানির মাছ১ সাধারণ বোকাসোকা লোক; (অল্পজলের মাছ বেশী জলে উঠলে ও মাছে বেশী লাফালাফি করে-প্রবাদ);বিপরীত বাগধারা- অগাধ/গভীর জলের মাছ
অল্পজলের/পানির মাছ২ সামান্য পুঁজির লোক; অল্প বিদ্য জন, অল্পশক্তিমান; সঙ্কীর্ণমনা ব্যক্তি
অল্পবিদ্যা ভয়ংকরী অল্পবিদ্যা থেকে জাত অহঙ্কার; সামান্যবিদ্যা খুব ক্ষতিকর
অল্পবিস্তর/স্বল্প সামান্য পরিমাণ (আমি এই বিষয়ে অল্পস্বল্প জানি); সমার্থক বাগধারা- একটু-আধটু, কিছুকিছু, ভাসাভাসা, যৎসামান্য
অল্পের উপর দিয়ে যাওয়া সামান্য ক্ষতিস্বীকার করে বা কষ্টভোগে রেহাই পাওয়া বা কার্যসিদ্ধি হওয়া (ঝড়টা অল্পের উপর দিয়ে গেছে)
অশনবসন অন্নবস্ত্র, খাওয়াপরা, ভাতকাপড়; সমার্থক বাগধারা- খরপোশ, গ্রাসাচ্ছাদন
অশনিসঙ্কেত ঘোর বিপদের আশু সম্ভাবনা
অশিক্ষিত পটুত্ব যথাবিধি শিক্ষাপ্রাপ্ত না হয়েও কোনো বিষয়ে নৈপুন্য
অশীতিপর বয়স আশিরও বেশি এমন, অতিবৃদ্ধ (অশীতিপর বৃদ্ধ)
অশ্বডিম্ব অসম্ভব, কাল্পনিক বস্তু; সমার্থক বাগধারা- আঁটকুড়ের ব্যাটা, আকাশকুসুম, এঁড়ে গরুর দুধ, কাঠালের আমস্বত্ব, ঘোড়ার ডিম, পশ্চিমে সূর্যোদয়, ভস্মকীট, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
অশ্বতর কথ্যশব্দ 'খচ্চরের' সাধুরূপ দান- গালিবিশেষ
অশ্বত্থামা হত ইতি গজ সত্যের আবরণে মিথ্যাভাষণ
অশ্বমেধযজ্ঞ বিরাটমাপের আয়োজন
অশ্বশক্তি বিদ্যুত্ বা বাষ্পের সাহায্যে চালিত যন্ত্রের শক্তিনির্ণয়ের মাপকাঠি
অষ্টকপালে অভাগা
অষ্টবজ্রসম্মেলন কার্যসিদ্ধির অনুকূল কারণসমূহের মিলন
অষ্টরম্ভা অভাব, কিছুই না, ফাঁকি, শূন্য (সবার ভাগে কিছু-না-কিছু জুটলো, আমার ভাগে অষ্টরম্ভা); সমার্থক বাগধারা-কচু, কচু না ঘেচূ, কলা, কাঁচকলা ইত্যাদি
অষ্টাবক্র অত্যন্ত বাঁকা চরিত্রের লোক
অষ্টেপৃষ্ঠে সারা অঙ্গে, সকল-পাশে (অষ্টেপৃষ্ঠে বাঁধা পড়েছি); সমার্থক বাগধারা- আষ্টেপৃষ্ঠে
অসার-সুসার সুবিধা অসুবিধা
অসিত অশ্বডিম্বের অন্বেষণ অসাধ্যসাধনের চেষ্টা
অসুখ-বিসুখ রোগ জ্বালা ইত্যাদি
অসূর্যস্পশ্যা সূর্যের মুখ পর্যন্ত দেখে না এমন নারী; পর্দানশিনা নারী
অস্ত যাওয়া পতন হওয়া, মৃত্যু হওয়া
অস্তিনাস্তি থাকা-না-থাকা; আছে আবার নাই ('অস্তিনাস্তি না জানন্তি দেহিদেহি পুনঃপুনঃ')
অস্ত্র উদ্দেশ্যসাধনের জন্য যন্ত্রের মতো ব্যবহৃত ব্যক্তি, উদ্দেশ্যসাধনে ব্যবহারের উপযুক্ত হাতিয়ার
অস্থিচর্মসার / অস্থিসার অতিকৃশ, শীর্ণদেহ
অস্থি-পঞ্জর দেহের খাঁচা; সমার্থক বাগধারা- হাড়পাঁজরা
অস্থিতপঞ্চ/অস্থিতপঞ্চক/অস্থিরপঞ্চম চিন্তাকুলতা, কি করতে হবে ভাবে নয়া পাওয়া, জটিল অবস্থা (অস্থিতপঞ্চে পড়েছি, কি করব ভেবে পাচ্ছি না); সমার্থক বাগধারা- কিংকর্তব্যবিমূঢ়
অহংবুদ্ধি / অহমহমিকা 'আমিই সব' এমন দম্ভ
অহি-নকুল সম্পর্ক/ অহিনকুলতা সাপ ও নকুলের স্বভাবসিদ্ধ বৈরীতা; চির/ভীষণ শত্রুতা; সমার্থক বাগধারা- সাপে-নেউলে
অহিতে বিপরীত অনিষ্ট থেকে ইষ্ট লাভ; অভিশাপ আশীর্বাদে পরিণত; (ওমিক্রন অহিতে বিপরীত হতে চলেছে); সমার্থক বাগধারা- শাপে বর
অহর্নিশ/অহোরাত্র দিনরাত, নিশিদিন; সতত, প্রতিনিয়ত ('কুকথায় পঞ্চমুখ কণ্ঠভরা বিষ,কেবল আমার সঙ্গে দ্বন্দ্ব অহর্নিশ'-ঈশ্বর গুপ্ত)

[১]

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
আঁইষপান্না/আঁষপান্না হিন্দুদের শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের পর নিয়মভঙ্গের দিন জ্ঞাতিদের সাথে আমিষভোজনের সংস্কার; সনার্থক বাগধারা- মৎস্যমুখ
আঁউমাউ (=হাঁউমাউ) অতিভয়ে কোলাহল; বহুলোকের একত্র ক্রন্দনশব্দ; (সকলে আঁউমাউ করে কেঁদে উঠলো)
আঁকড়া-আঁকড়ি জড়াজড়ি, টানাটানি
আঁকাজোকা হিজিবিজি রেখা টানা; সমার্থক বাগধারা- আঁকিবুঁকি করা
আঁকাবাঁকা সাপের গতির মত বহুস্থানে বাঁকা ('ঐ আঁকাবাঁকা পথ যায় সুদূরে...' লঘুগীতি)
আঁকিবুঁকি হিজিবিজি দাগ; অন্যমনস্কভাবে টানা দাগ বা রেখা; সমার্থক বাগধারা- আঁকাজোকা
আঁকুপাঁকু অতিব্যস্ততাভাব; অত্যন্ত ব্যাকুল; ছটফট করা (কিছু বলার জন্য মন আঁকুপাঁকু করছে)
আঁকুতিব্যকুতি আকার ইঙ্গিতে মনোভাব প্রকাশ
আঁচ অনুমান, আভাস, ইঙ্গিত, ধারণা, মনোভাব (কিছু একটা আঁচ পেয়েছে; মনের আঁচ)
আঁচড় সামান্য চেষ্টা (এক আঁচড়েই বুঝে নিলাম)
আঁচলধরা ব্যক্তিত্বহীন পুরুষ, স্ত্রৈণ, স্ত্রীলোকের নির্দেশে চলা; সমার্থক বাগধারা- আঁচলের নিচে থাকা
আঁচলে গেরো১ সন্তানের মঙ্গল কামনায় কোল-আঁচলে গিঁট
আঁচলে গেরো২ কিছু মনে রাখার জন্য শেষ-আঁচলে গিঁট
আঁচলের নিচে থাকা আঁচলধরার অনুরূপ
আঁচাআঁচি পরস্পরের মনোভাব
আঁজলপাঁজল করা গা ঝাড়া দেওয়া
আঁটআঁট অল্প কষা (জামাটা আঁটআঁট মনে হচ্ছে)
আঁটকুড়ে/কুড়ো/কুড়ি / আটকুড়ে/কুড়ো/কুড়ি নিঃসন্তান, সন্তানহীন/হীনা
আঁটকুড়ের/কুড়ির ব্যাটা অবৈধ সন্তান- নীচুস্তরের গ্রাম্য গালিবিশেষ
আঁটসাঁট কড়াকড়ি, ঢিলে নয় এমন টানটান (আঁটসাঁট পোষাক পড়); সমার্থক বাগধারা- আঁটোসাঁটো
আঁটাআঁটি কষাকষি, টানাটানি, নিজের পাওনা বুঝে নিতে অতিশয় যত্ন (নিজের বেলায় আঁটিসাঁটি পড়ের বেলায় দাঁতকপাটি- প্রবাদ)
আঁটিচোষা অসার বস্তুগ্রহণ; সার জিনিস থেকে বঞ্চিত হওয়া (সময়মত এলে না এখন বসে আঁটী চোষো)
আঁটিসাটি হাতটা্ন, নিজের পাওনাগণ্ডা বুঝে নেওয়ার প্রতি যত্ন (নিজের বেলায় আঁটিসাঁটি)
আঁটুবাঁটু নড়বড়ে ভাব বার্ধক্যের কারণে জড়সড় ভাব (বৃদ্ধ চলনেবলনে আঁটুবাঁটু)
আঁটুনি১ শক্তবাঁধন (বজ্রআঁটুনি ফস্কাগেরো- প্রবাদ)
আঁটুনি২ (কথার) বাঁধুনি, বিন্যাস (ছেলেটির কথায় আঁটুনি আছে)
আঁটুনি কসুনি সার শুধু কথায় সরগরম করে; কাজের বেলায় কিছু না
আঁটুলবাঁটুল শিশুদের খেলা (খেলাটির শ্লোক- 'আঁটুলবাঁটুল শ্যামলা শাঁটুল')
আঁটোসাটো টানটান, দৃঢ়বদ্ধ, স্মাভাবিক মাপের চেয়ে ছোট (আঁটোসাটো ব্যবস্থা, আঁটোসাটো জামাকাপড়)
আঁত পাওয়া মতলব/মনোভাব আগাম জানতে পারা (আঁত পাওয়া ভার)
আঁত পাওয়া ভার খুব চাপাস্বভাবের লোক
আঁত বুঝে চলা মনোভাব বুঝে চলা
আঁতকে ওঠা ভয়ে চমকে ওঠা
আঁতলামি/আঁতলামো বুদ্ধিজীবীর অনুকরণ, পাণ্ডিত্য প্রদর্শনের চেষ্টা
আঁতাত দেশ বা গোষ্ঠীর মধ্যে অসাধু জোট (অশুভ আঁতাত)
আঁতিপাঁতি খোঁজা প্রতিস্থানে/চারিদিকে/তন্নতন্ন করে/পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে খোঁজা
আঁতুপুঁতু করা আদরের সন্তানের অতিরিক্ত যত্ন নেওয়া (ছেলেকে নিয়ে বেশি আঁতুপুঁতু করা ভাল নয়)
আঁতে ঘা দেওয়া অন্তরে/ইজ্জতে/মর্মে ঘা দেওয়া; প্রকাশ্যে অপমান করা (আঁতে ঘা দিয়ে কথা বলো না)
আঁতের টান নাড়ীর/প্রাণের টান (আঁতের টানে প্রতিবছর দেশে ফিরি)
আঁতেল বিদ্রুপে- বুদ্ধিজীবীর ধরনধারণ অনুকরণকারী ব্যক্তি (ব্যাটা আঁতলামি করছে)
আঁদাড়-পাঁদাড় আবর্জনা ভর্তি স্থান, আস্তাকুঁড় (আঁদাড়-পাঁদাড় পেরিয়ে বাড়ি ঢুকলাম)
আঁধার ঘরের প্রদীপ/মাণিক দুঃখীর ঘরের একমাত্র সুখের বস্তু; প্রাণাধিক সন্তান (পুত্রটি ছিল বৃদ্ধপিতার আঁধার ঘরের মাণিক)
আঁধারে ঢিল ছোঁড়া আন্দাজে কিছু বলা/করা
আঁস্তাকুড়ের পাত/পাতা হেয় ব্যক্তি; নীচমনা ব্যক্তি
আইডিয়া মনে উদিত ভাব, মনোগত বিষয় (মাথায় একটা আইডিয়া এসেছে)
আইঢাই অতিযন্ত্রণাহেতু অস্থিরতা; ছটফট, হাঁসফাঁস শ্বাসরোধ হওয়ার মত অবস্থা (গরমে শরীরটা আইঢাই করছে)
আইন-কানুন বিধি-ব্যবস্থা (শিব ঠাকুরের আপন দেশে, আইন কানুন সর্বনেশে-সুকুমার রায়)
আইবড়/আইবুড়/আইবুড়ো বয়ঃপ্রাপ্ত হওয়া সত্বেও অবিবাহিত/অবিবাহিতা এমন (দুর্ভাগা মেয়ের আইবুড়ো নাম এখনও ঘুচলো না)
আইবড়/বুড়োভাত পাত্র ও পাত্রীর বিয়ের পূর্বে কুমার ও কুমারী অবস্থায় শেষ ভাত খাওয়া; গায়েহলুদের দিন আহার-অনুষ্ঠান
আইবুড়ো নাম কাটানো যথেষ্ট দেরী হওয়ার আগে বিয়ে করা
আইবুড়ো পথ বদলানো/ভাঁড়ানো অভিনব পন্থা অবলম্বন করা; প্রচলিত পথ পরিবর্তন করা; এক পথ দিয়ে যাওয়া এবং অন্য পথ দিয়ে আসা
আইতে ছাগল, যাইতে পাগল দেরী সয় না, ধৈর্যহীন
আইল্যাণ্ড যেকোনো বিচ্ছিন্ন উঁচু জায়গা
আউট সংশোধনের বাইরে, বেসামাল (আকণ্ঠপানে ব্যাটা একেবারে আউট)
আউল/আউলিয়া দরবেশ, ফকির (কে যে ছিলে তুমি জানি নাক, কেহ দেবতা কি আউলিয়া- নজরুল)
আউল-ঝাউল/আউলা-ঝাউলা আলুথালু, এলোমেলো, বিশৃঙ্খল (সেই ধান সেই চাউল, গিন্নিগুণে আউল-ঝাউল-প্রবচন)
আওড়ানো তোতাপাখির মত মুখস্থ বলে যাওয়া
আওতায় আসা/পড়া এলাকাভুক্ত হওয়া; কবলে পড়া
আওয়াজ তোলা উচ্চস্বরে দাবী জানানো বা প্রতিবাদ করা (জনগণ ন্যায়বিচারের জন্য আওয়াজ তুলছে)
আওয়াজ দেওয়া বিদ্রুপাত্মক ধ্বনি উচ্চারণ করা (পিছন থেকে আওয়াজ দিচ্ছে)
আককাটা কাণ্ডজ্ঞানহীন মূর্খ, যে কেবল হিজিবিজি রেখা টানে লিখতে জানে না (আককাটাটা কি যে লিখেছে পাঠোদ্ধার করতে পারছি না); সমার্থক বাগধারা-আকাট
আককুটে/আখকুটে অমিতব্যয়ী, অপব্যয়ী, কোন জিনিষের প্রতি যে যত্ন নেয় না, যে সঞ্চয় করতে পারে না; সমার্থক বাগধারা- উড়ণচণ্ডে, লক্ষ্মীছাড়া
আকচাআকচি/ আখচাআখচি পরস্পর ঈর্ষা-দ্বন্দ্ব, রাগারাগি, রেষারেষি (সংসারে আকচাআকচি লেগেই আছে)
আকচার/ আকছার প্রায়ই, সর্বদা (ভাইয়ে ভাইয়ে মারামারি আকছার দেখা যায়)
আকটবিকট বিকটাকার বিশ্রী আকৃতি (ভয় পেয়ে আকটবিকট করছে); সমার্থক বাগধারা- অকটবিকট
আকণ্ঠ নিমজ্জিত ডুবুডুবু, ধ্বংস হওয়ার অবস্থা (ঋণে সে আকণ্ঠ নিমজ্জিত)
আকর্ণবিস্তৃত হাসি সারামুখ ছড়িয়ে হাসি
আকলমন্দি বিচক্ষণতা, বিচারবুদ্ধি (বয়স তো হল আকলমন্দি হবে কবে?)
আকাট কাণ্ডজ্ঞানশূন্য, বিদ্যারসহীন, মূর্খ; সমার্থক বাগধারা- আককাটা
আকাট মূর্খ জড়বুদ্ধিসম্পন্ন; নিরেট বোকা, মহামূর্খ; সমার্থক বাগধারা- ক অক্ষর গোমাংস, ক বলতে হ বলে, গণ্ডমূর্খ, হস্তীমূর্খ ইত্যাদি
আকার-ইঙ্গিতে চোখ ও মুখের ভঙ্গীতে (আকার ইঙ্গিতে কি যেন বলতে চাইছে)
আকাল দুর্ভিক্ষ, দুঃসময়, অভাব (আকাল পড়েছে আলুর বস্তা, মনের মত হয়নি সস্তা)
আকাশকুসুম অবাস্তব/অলীক/কাল্পনিক বস্তু, যার অস্তিত্ব নেই (আকাশকুসুম কল্পনা; 'আকাশকুসুম করিনু চয়ন হতাশে'-রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- অশ্বডিম্ব, আঁটকুড়ের ব্যাটা, এঁড়ে গরুর দুধ, কাঠালের আমস্বত্ব, ঘোড়ার ডিম, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
আকাশগঙ্গা১ ছায়াপথ, দুধপথ
আকাশগঙ্গা২ মন্দাকিনী নদী- স্বর্গের গঙ্গা
আকাশ-চাওয়া আকাশের দিকে চেয়ে অপেক্ষা করা হয়েছে এমন ('আমার অনেক দিনের আকাশ-চাওয়া আসবে ছুটে দখিন হাওয়া'-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)
আকাশ চুম্বন করা/ ছোঁয়া খুব উন্নতি করা (চাকরি জীবনে সে আকাশ ছুঁয়েছে)
আকাশচুম্বী অত্যন্ত উচ্চ (আকাশচুম্বী অট্টালিকা); সমার্থক বাগধারা-গগনস্পর্শী
আকাশ ছোঁয়া১ অতি উচ্চে ওঠা, অনেক বড় হওয়া (আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন না দেখলে বড় হওয়া যায় না)
আকাশ ছোঁয়া২ অত্যন্ত বেশি (জিনিষপত্রের দাম আকাশ ছুঁয়েছে)
আকাশছোঁয়া অতি উচ্চ (হিমালয়ের অনেক চূড়া আকাশ ছুঁয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা-গগনস্পর্শী
আকাশ থেকে কথা বলা অহঙ্কারী হওয়া, বড়বড় কথা বলা (দু'পসার মুখ দেখে আকাশ থেকে কথা বলা শুরু করেছে)
আকাশ থেকে কথা বলা২ নীচমনের পরিচয় দেওয়া
আকাশ থেকে পড়া১ অপ্রত্যাশিত ঘটনায় বা অজানা বিষয় হঠাৎ জানতে পেরে অত্যন্ত বিস্মিত হওয়া
আকাশ থেকে পড়া২ না জানার ভান করে বিস্ময় প্রকাশ করা (আমার কথা শুনে আকাশ থেকে পড়লে নাকি?)
আকাশদীপ হিন্দুগৃহে কার্তিক মাসে সন্ধ্যাকালে উঁচু বাঁশের মাথায় জ্বেলে রাখা বাতি; সমার্থক বাগধারা- আকাশপ্রদীপ
আকাশদুহিতা/আকাশনন্দিনী প্রতিধ্বনি (আকাশ-দুহিতা ওগো শুন প্রতিধ্বনি-মাইকেল মধুসূদন দত্ত)
আকাশ ধরা বৃষ্টি থামা (মনে হচ্ছে এবার আকাশ ধরবে)
আকাশপাতাল১ প্রচুর, বিশাল, বিস্তর বিপুল ব্যবধান (দুই ভাইয়ের মধ্যে আকাশপাতাল তফাৎ)
আকাশপাতাল২ সব বিষয়ে (আকাশপাতাল চিন্তাভাবনা)
আকাশপাতাল এক করা অসম্ভবকে সম্ভব করা (ভারতের স্বাধীনতার জন্য গান্ধিজী আকাশপাতাল এক করেছিলেন)
আকাশপাতাল খোঁজা সর্বত্র খোঁজা (এ জিনিস আকাশপাতাল খুঁজে পাবে না)
আকাশপাতাল চিন্তা/ভাবনা উদ্দেশ্যহীন নানাপ্রকার দুশ্চিন্তা/দুর্ভাবনা, যে চিন্তা বা ভাবনার অবধি নেই
আকাশপাতাল তোলপাড় করা সর্বত্র তন্নতন্ন করে খোঁজা
আকাশপাতাল ভেবে না পাওয়া ভাবতে গিয়ে বিভ্রান্ত/বিমুঢ়/বিহ্বল
আকাশপুত্র মুখ্য অর্থ- দেবতার সন্তান; আলং- ধরাছোঁয়ার বাইরে, অহঙ্কারী, উদ্ধত; কাণ্ডজ্ঞানহীন মানুষ; বিপরীতার্থক বাগধারা- ধরিত্রীপুত্র
আকাশপ্রদীপ হিন্দুরা স্বর্গত পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে কার্তিকমাসের প্রতি সন্ধ্যায় বাঁশের ডগায় যে প্রদীপ জ্বেলে দেয়; সমার্থক বাগধারা- আকাশদীপ
আকাশবন্যা ভারি বৃষ্টিপাতে প্লাবন
আকাশবাণী অশরীরী বাক্য, দৈববাণী ('হইল আকাশবাণী অন্নদা আইলা'-রায়গুণাক রভারতচন্দ্র)
আকাশবিহারী কল্পনাপ্রবণ, কল্পনার জগতে বাস করে এমন; সমার্থক বাগধারা- ঊর্ধ্বচারী, গগনচারী/বিহারী
আকাশ ভাঙ্গা প্রবল বৃষ্টিপাত (আকাশ ভেঙ্গে বৃষ্টি নামল)
আকাশ ভেঙ্গে পড়া১ (মাথায়) আকস্মিক বিপদে দিশাহারা হওয়া হঠাৎ মহাবিপদে পড়া
আকাশ ভেঙ্গে পড়া২ (মাথায়) দুঃখ বা ভাবনার বোঝা নেমে আসা (চাকরিটা হারিয়ে মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে)
আকাশভ্রমণ বিমান ইত্যাদিতে মহাশূন্যে ভ্রমণ
আকাশশয়ন উন্মুক্তস্থানে শোয়া
আকাশ হাতে পাওয়া দুরাশা পূর্ণ হওয়া, বিনাপ্রচেষ্টায় দুর্লভবস্তু হাতে পাওয়া; দুর্লভ বস্তু লাভের আশ্বাস পাওয়া
আকাশে ওড়া আনন্দে আত্মহারা হওয়া; কল্পনার জগতে বাস করা; সমার্থক বাগধারা- আকাশে হেঁটে বেড়ানো
আকাশে তোলা অতিরিক্ত প্রশংসা করা; প্রাপ্যের অতিরিক্ত প্রশংসা করা (আকাশে তুলে ছেলের মাথা খেও না); সমার্থক বাগধারা- প্রশংসায় পঞ্চমুখ
আকাশে থুথু ফেলা নিজের ক্ষতি করা
আকাশে ফাঁদ পেতে চাঁদ ধরা অবাস্তব/অলীক/অসার কল্পনা/চিন্তা; সমার্থক বাগধারা- কাপড় দিয়ে আগুন ঢাকা; কোদাল দিয়ে দাড়ি চাঁচা, খড়মপায়ে সাগর পার, ঝিনুক দিয়ে জলসেচা, ধান কাঠের মই বেয়ে স্বর্গে চড়া ইত্যাদি
আকাশে হেঁটে বেড়ানো আকাশে ওড়ার অনুরূপ
আকাশের চাঁদ দুর্লভ বস্তু; সমার্থক বাগধারা- বাঘের দুধ
আকাশের চাঁদ/তারা পাড়া অসম্ভব কাজ করা
আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়া আশাতীত বা দুর্লভ বস্তুপ্রাপ্তি (চাকরি পেয়েছে যেন আকাশের চাঁদ হাতে পেয়েছে)
আকাশের তারা গোনা অকাজে অলসভাবে সময় কাটানো; সমার্থক বাগধারাসমূহ- ছাদের কড়িকাঠ গোনা; নেই কাজ তো খই ভাজ; শুয়েশুয়ে লেজনাড়া, সমুদ্রের পাড়ে বসে ঢেউ গোনা ইত্যাদি
আকুলি-বিকুলি করা অতিশয় ব্যাকুল হওয়া, উৎকণ্ঠিত হওয়া, ব্যস্তসমস্ত হয়ে পড়া (খবরটা শোনার জন্য মন আকুলি-বিকুলি করছে)
আকৃতি-প্রকৃতি দেহের গঠন ও স্বভাবচরিত্র, ধরণধারণ, হাবভাব
আক্কেলগুড়ুম আকস্মিক ভয়ে বুদ্ধিলোপ, হতবুদ্ধি, হতভম্ব অবস্থা (তার বোলচাল শুনে আমার তো আক্কেলগুড়ুম)
আক্কেলদাঁত না গজানো বুদ্ধিবিবেচনা/কান্ডজ্ঞান না হওয়া, অপরিণত বুদ্ধির পরিচয় দেওয়া (বয়স তো হল এখনো আক্কেলদাঁত গজালো না?)
আক্কেলমন্ত/আক্ল্‌মন্দ আক্কেলযুক্ত বিবেচক, বিজ্ঞ, বুদ্ধিমান, প্রাজ্ঞ (আমার আক্কেল সত্যি মন্দ যে এখনো 'আক্ল্‌মন্দ' শব্দের অর্থ জানি না)
আক্কেলসেলামী গুনাগার, নির্বুদ্ধিতার দণ্ড; (ভুলের মাশুল হিসাবে একগাদা টাকা আক্কেলসেলামী দিতে হল); সমার্থক বাগধারা- ঝকমারির/ভুলের মাশুল
আক্কেল হওয়া বিপদে পরে শিক্ষা নেওয়া, শাস্তি পাওয়া (বৃষ্টির দিনে বেড়িয়ে অনেক আক্কেল হয়েছে)
আক্রা চড়া দাম (বড় আক্রার সময়)
আখড়া১ আশ্রম (বাউলদের আখড়া, লালন ফকিরের আখড়া, সন্ন্যাসীদের আখড়া ইত্যাদি)
আখড়া২ আড্ডাস্থল, শরীরচর্চার স্থান
আখড়াই দেওয়া আনুসঙ্গিক ক্রিয়াকলাপের প্রশিক্ষণ দেওয়া (নেতা এসে মাখে মাঝে চেলাদের ধান্ধাবাজির আখড়াই দেন)
আখরিয়া/আখুরে লেখক, লিপিকার, যার হস্তাক্ষর খুব সুন্দর
আখুটিয়া/আখুটে আবদারে, জেদী, অতিরিক্ত বায়না করে এমন (আখুটে শিশু)
আখের১ অন্তিম/শেষ অবস্থা (আমার আখেরের দশা চলছে)
আখের২ ভবিষ্যৎ (সবাই আখের গুচানোর ধান্ধায় থাকে)
আখের বুঝে চলা ভবিষ্যতের কথা ভেবে কাজ করা
আখেরি জমানা অন্তিমকাল, শেষযুগ, কলিযুগ
আখেরে লাভ অপেক্ষা করলে লাভ আছে, শেষপর্যন্ত লাভ হয় (সবুরে মেওয়া ফলে- প্রবাদ)
আগডুম বাগডুম১ অর্থহীন অসংলগ্ন শব্দদ্বয় ('আগডুম বাগডুম ঘোড়াডুম সাজে...'-ছড়া) ছড়াটির উৎস- 'অঘাডোম, বাঘাডোম, ঘোড়াডোম সাজে...')
আগডুম বাগডুম২ অগ্রবর্তী ও পার্শ্ববর্তী ঘোড়সওয়ার ডোম সৈন্য (পূর্বোক্ত ছড়াটির উৎস- 'অঘাডোম, বাঘাডোম, ঘোড়াডোম সাজে...')
আগড়বাগড়/আগড়মবাগড়ম কথা অপ্রয়োজনীয়, অপ্রাসঙ্গিক, অর্থহীন, আজেবাজে কথাবার্তা; প্রলাপ (আগড়মবাগড়ম বকো না); সমার্থক বাগধারা- আলতু-ফালতু
আগড়বাগড় খেয়ে পেট ভরানো অসার খাদ্য খেয়ে উদরপূর্তি করা
আগ তোলা১ বিশেষ উদ্দেশ্যে আগে থেকে আলাদা করে রাখা কোন দ্রব্যের অংশ
আগতোলা২ উচ্ছিষ্ট, আগে ব্যবহার করা হয়েছে এমন
আগল ভাঙা সব বাধাবিধ্ন কাটিয়ে এগিয়ে চলা (দুর্বলেরা আগল ভেঙেছে)
আগাগোড়া শুরু থেকে শেষ (আগাগোড়া আমি এককথা বলে আসছি); সমার্থক বাগধারা- আদ্যোপান্ত
আগাছা বাজে গাছপালার জঞ্জাল, বদলোক (আগাছার বাড় বেশি- প্রবাদ)
আগা-পাছতলা/ আগাপাস্তালা উপর থেকে নীচ পর্যন্ত, আপাদমস্তক; সর্বত্র (আগাপাস্তালা লেপমুড়ি দিয়ে শুয়ে আছে)
আগামাথা আদি বা অন্ত; শুরু বা শেষ; (আগামাথা কিছুই বুঝতে পারছি না)
আগুন১ ক্রুদ্ধ (রেগে আগুন)
আগুন২ দুর্ভাগ্য (কপালে আগুন)
আগুন৩ চড়া দাম (কাঁচাবাজারে আগুন লেগেছে)
আগুন৪ দুরদৃষ্টি ('কোন গুণ নাই তার কপালে আগুন'- ঈশ্বর গুপ্ত)
আগুন লাগা বিশৃঙ্খলা উপস্থিত হওয়া (ফসলের বাজারে আগুন লেগেছে)
আগুন ধরানো/লাগানো // আগ লাগানা- হিন্দি ঝগড়া,তীব্র বিরোধ সৃষ্টি করা; গৃহবিবাদ বাঁধিয়ে দেওয়া
আগুন নিয়ে খেলা বিপজ্জনক বিষয় নিয়ে নাড়াচাড়া করা
আগুন পোহানো আগুনের কাছে বসে হাত পা গরম করা (আগুন পোহাতে গেলে ধোঁয়া সইতে হয়- প্রবাদ)
আগুন মাস অগ্রহায়ণ মাস (আমার ময়না টিয়া আগুন মাসে ধান তুলিয়া খরমু তোমায় বিয়া- গীতিকবিতা)
আগুন লাগা সংসার নষ্ট হচ্ছে এমন সংসার
আগুন হওয়া ক্রুদ্ধ হওয়া; প্রচণ্ড রেগে যাওয়া (তোমার কথা শুনে সে একেবারে রেগে আগুন)
আগুনে ঘি ঢালা/ধূনো দেওয়া রাগ বাড়ানো
আগুনে জল ঢালা/পড়া রাগ কমানো/প্রশমিত হওয়া
আগুনের কাছে ঘি এমন দুইবস্তুর কাছাকাছি আসা, যাতে দ্বিতীয়ের ক্ষতি
আগুপাছু/আগেপাছে অগ্রপশ্চাৎ, ভূতভবিষ্যৎ, সামনে ও পিছনে (আগুপাছু ভেবে কাজ করবে)
আগুপাছু করা ইতঃস্তত করা (আগপাছু করলে কোন কাজ ভাল হয় না)
আগে আগে সামনে (মাতঙ্গিনী পতাকা হাতে আগে আগে চলছিলেন)
আগে কাম পিছে বাত // আগে লাথ পিছে বাত কাজের দাবী সর্বাগ্রে, কাজ ফেলে অকাজ করা নেই
আগেপাছে অগ্রপশ্চাৎ, ভূতভবিষ্যৎ, সামনে ও পিছনে (আগে পাছে কেউ নেই)
আগেপাছে করা ইতঃস্তত করা; সমার্থক বাগধারা- আগুপাছু করা
আগে ভাগে আগের থেকে, সবার আগে (আগে ভাগে খবর দিও)
আগে দর্শনধারী পরে গুণবিচারী বাহ্যিক সৌন্দর্য প্রথম আকৃষ্ট করে
আগে রাহ্‌ বতায়ে পাছে গোতা আগে পথ দেখায়, পরে গুঁতো মারে; সমার্থক বাগধারা- গাছে তুলে মই কেড়ে নেওয়া
আঘাটা ওঠানামা করার পক্ষে অনুপযুক্ত ঘাট (আঘাটায় নামবে না)
আঙটপাত কলাগাছের অখণ্ড পাতা
আঙুর ফল টক অলভ্য জিনিস মন্দ হয়
আঙুল কামড়ানো আফশোষ করা
আঙুল ঘুরিয়ে পাঁচিল দেওয়া বাঁকাপথে কাজ সম্পন্ন করা; ক্ষুদ্রচেষ্টায় বিরাট কর্ম করার প্রচেষ্টা
আঙুল ফুলে কলাগাছ হঠাৎ প্রচুর ধনসম্পত্তির মালিক (ক'বাবু আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে ধরাকে সরা জ্ঞান করছেন)
আচমকা সুন্দরী আপাতঃ সুন্দরী না হলেও হঠাৎ দেখলে সুন্দরী মনে হয়
আচানক অকস্মাৎ, হঠাৎ (আচানক কোথা থেকে উদয় হলে?)
আচাভুয়া/ আচাভুয়া-বোম্বাচাক/ আচাভো অদ্ভুতদর্শন, সঙবিশেষ, কিম্ভূতকিমাকার সাজসজ্জা, নির্বোধ
আচার-আচরণ/ আচার-ব্যবহার স্বভাব, প্রকৃতি, চরিত্র, চালচলন (তোমার আচার-ব্যবহার ঠিক না); সমার্থক বাগধারা- আদব-কায়দা, চলাফেরা, চালচলন, ভাবভঙ্গী ইত্যাদি
আচার-বিচার শাস্ত্রসম্মত বিধিবিষেধ (আচারে বাড়া বিচারে এড়া- প্রবাদ)
আচারবিরুদ্ধ শাস্ত্রসম্মত নোয় এমন আচার
আছাড়ি-পিছাড়ি মাটিতে গড়াগড়ি
আছোলা বাঁশ গাঁট-না-কাটা বাঁশ; আলং- কষ্টকর যন্ত্রণা; (ফেসবুক কর আর আছোলা বাঁশ খাও)
আছোলা বাঁশ দেওয়া কারো সর্বনাশ করা- অশালীন গালি
আছোলা বাঁশ পিছনে নেওয়া যেচে নিজের বিপদ ডেকে আনা; ইচ্ছা করে বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে জড়িয়ে পড়া
আজকাল অধুনা, বর্তমানে (আজকাল সে এখানে বড় একটা আসে না)
আজকাল করা অযথা দেরি/গড়িমসি করা
আজকাল বাদে আজ ও আগামীকাল, এই দুই দিন বাদে
আজকালের মধ্যে অনতিবিলম্বে, দুই-একদিনের মধ্যে (আজকালের মধ্যে বৃষ্টি হবে)
আজকের মত আজকের উপযোগী (আজকের মত ক্ষান্ত দাও)
আজ-নয়-কাল গড়মসি, দীর্ঘসূত্রিতা, সময় নষ্ট
আজ-বাদে-কাল শীঘ্রই, কয়েকদিন পর (আজ-বাদে-কাল পরীক্ষা, এখন পড়তে বস নি?))
আজগুবী অদ্ভু্‌ অবিশ্বাস্য, আজেবাজে, বানানো, ভিত্তিহীন (যতসব আজগুবী কথা/ঘটনা)
আজনবী অচেনা, অপরিচিত, আগন্তু্ক, নতুন, বিদেশি (আজনবী কোন দেশের লোক কে জানে)
আজব অদ্ভুত, আশ্চর্যজনক (আজব কথায় গজব করে)
আজাদ স্বাধীনতা (আজাদ হিন্দ ফৌজ)
আজেবাজে তুচ্ছ, অবজ্ঞার যোগ্য (আজেবাজে কথা) সমার্থক বাগধারা- হাবিজাবি
আঝালা-আতেলা ঝাল তেলবিহীন ব্যঞ্জন
আঞ্জাম/ আনজাম আয়োজন, বন্দোবস্ত, ব্যবস্থা (বিয়ের আঞ্জামে কোন ত্রুটি নেই)
আট/আঠকপালী/কপালে অভাগী/অভাগা, হতভাগী/ভাগা; সমার্থক বাগধারা- উঁচ-কপালিকপালে; উনপাঁজুরে, পোড়া-কপালে, হাভাতে ইত্যাদি
আটকা-আটকি কড়াকড়ি ব্যবস্হা
আটকড়াই সন্তান জন্মের অষ্টমদিনে আটরকম কলাইভাজা বিতরণের সংস্কার
আট কুঠুরি নয় দরজা মানুষের শরীরের আটটি গ্রন্থি, যথা- মাথার খুলি, ডান-বাম দুই ফুসফুস, হৃৎপিণ্ড, পাকস্থলী, দুই কিডনি আর কোলন আর মানুষের শরীরের নয়টা এনট্রান্স বা এক্সিট, যথা- দুই চোখ, দুই নাকের ফুটো, মুখ, দুই কানের ফুটো, আর বাকি দুইটা জননাঙ্গ ও পায়ু।
আটকুড়া অপুত্রক
আটকুড়ের ব্যাটা১ পুত্রহীনের সন্তান, অসম্ভব, যা হয় না; সমার্থক বাগধারা- অশ্বডিম্ব, আকাশকুসুম, এঁড়ে গরুর দুধ, কাঠালের আমস্বত্ব, ঘোড়ার ডিম, পশ্চিমে সূর্যোদয়, ভস্মকীট, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
আটকুড়ের ব্যাটা২ অবৈধ সন্তান, বেজন্মা (গ্রাম্য গালি বিশেষ)
আটকিয়া/আট্কে বাঁধা পুরীমন্দিরে থেকে নিয়মিত একজনের উপযোগী প্রসাদ পাওয়ার জন্য অর্থদান; জগন্নাথের প্রসাদ
আটখান/খানা করা টুকরা টুকরা করা
আটখান/খানা হওয়া আনন্দে অধীর হওয়া (আহ্লাদে আটখানা, মূল্য পাঁচ আনা)
আটঘাট অনিষ্টাশঙ্কার সকল পথ (আটঘাট বেঁধে চলা)
আটঘাট বাঁধা / আটঘাট বেঁধে চলা সবরকম অবস্থার জন্য প্রস্তুত থাকা; সবদিক সামলে চলা; সবদিক সুরক্ষিত করা (আটঘাট বেঁধে কাজে নামবে)
আটপৌরে কাপড় পোশাকী নয় এমন জামাকাপড়, সবসময়ে পরার জামাকাপড়
আটপৌরে ভাষা কথ্যভাষা সাধু নয়
আটা পেষাই করা দুরমুশ করা, খুব পিটাই করা, বেদম প্রহার করা
আটাশে ছেলে দুর্বল, নিস্তেজ ভীরু ('মা আমি কি আটাশে ছেলে, ভয় করি না চোখ রাঙালে'- রামপ্রসাদ)
আটেকাটে/পিটে/পিঠে কষ্টসহিষ্ণু, অত্যন্ত পরিশ্রমী, চৌকশ, সকলদিকে ভারবহনে সক্ষম, সকল বিষয়ে নিপুণ (আটে পিঠে দড় তবে ঘোড়ার পিঠে চড়- প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- অষ্টেপৃষ্ঠে
আটুপাটু আর্তভাব, কাতরতা, ব্যাকুলতা
আঠা১ আগ্রহ, উৎসাহ (তোমার দেখছি কাজে বড়ই আঠা)
আঠা২ ফাঁদ ('পিরিতি কাঁঠালের আঠা')
আঠারো আনা অতি নিশ্চয়তা, যথেষ্ট সম্ভাবনা (আজকে বৃষ্টি হওয়ার আঠারো আনা সম্ভাবনা)
আঠারো মাসে বছর অলস, অকর্মণ্য, দীর্ঘসূত্রী; অহেতুক কালক্ষেপনের ফলে বিলম্ব; সমার্থক বাগধারা- বত্রিশ দিনে মাস
আড্ডা গাড়া অস্থায়ী বাসাবাঁধা (এক সাধু এসে গ্রামের বটগাছের তলায় আড্ডা গেড়েছে)
আড্ডা দেওয়া/জমানো/মারা দলবেঁধে গল্পগুজব, আমোদস্ফূর্তি করা
আড্ডাবাজ গল্পগুজব করে সময় কাটায় এমন
আড় চোখে দেখা অপাঙ্গে দেখা
আড় নেই মুখের লাগাম নেই, চোখের পর্দা নেই
আড় ভাঙা আলস্য কাটানো, জিভের জড়তা কাটানো
আড় হওয়া কাত হয়ে কষ্টেসৃষ্টে শোয়া (আড় হয়ে পড়ে আছি)
আড়ং ধোলাই মুখ্য অর্থ- নতুন কাপড়ের ধোলাই; আলং- উত্তম-মধ্যম দেওয়া; সপাটে আছাড় মারা (বেশি বাড়াবাড়ি করলে আড়ং ধোলাই খাবে)
আড়কাঠি খবরসংগ্রাহক, বিদেশে পাঠাবার জন্য অর্থের লোভ দেখিয়ে শ্রমিকসংগ্রাহক, যোগানদার, পথপ্রদর্শক,
আড়কালা এক কানে সগুনতে পায় না এমন
আড়চোখ/নয়ন চোরা দৃষ্টি, বাঁকা চাহনি
আড়পাগলা আধা পাগলা
আড়বুঝ উলটা বোঝে এমন, একগুঁয়ে, বাঁকাবুদ্ধি সম্পন্ন
আড়/ আড়মোড়া ভাঙা শরীরের জড়তা কাটিয়ে আলস্য দূর করা
আড় হাতে উঠেপড়ে, উৎসাহের সঙ্গে (সময়ে কাজটা শেষ করতে সে আড়ে হাতে লেগেছে)
আড়া বক্রস্বভাবের লোক (লোকটা বেজায় আড়া)
আড়াআড়ি১ পরস্পর কোণাকুণি
আড়াআড়ি২ পরস্পর দ্বেষাদ্বেষি/রেশারেশি (দুজনের মধ্যে আড়াআড়ি চলছে)
আড়াই দিনের বাদশাহী অল্পদিনের জন্য বিলাসিতা
আড়াই হাত (তালগাছের) কোনো কাজের শেষ এবং সবচেয়ে কঠিন অংশ
আড়ালে আবডালে লোকচক্ষু এড়িয়ে, লুকিয়ে চুরিয়ে (আড়ালে আবডালে তার সম্পর্কে অনেক কথাই শোনা যায়)
আড়িপাতা আড়াল থেকে লুকিয়ে অন্যের কথা শোনা
আড়ে দেখা আড়াল/অন্তরাল থেকে দেখা
আড়ে হাতে লাগা প্রাণপণ চেষ্টা করা; ভীষণ শত্রুতা করা
আণ্ডাবাচ্চা ছোট ছোট শিশুসন্তান, ক্রোড়স্থ সন্তান; সমার্থক বাগধারা- ছানাপোনা
আতপ/আলো চাল রোদে শুকানো ধান থেকে প্রস্তুত চাল
আতান্তর অসুবিধা, দুঃখকষ্ট, দুর্ভাবনা, বিপদ, সংকট ইত্যাদি (মহা আতান্তরে পড়া গেল দেখছি)
আতালিপাতালি/আথালিপাথালি ব্যাকুল ও ব্যস্ত হয়ে এদিক-ওদিক চাইতে চাইতে (আথালিপাথালি করে খুঁজে বেড়াচ্ছে)
আতুপুতু প্রতিপালনে যত্ন ও সতর্কতার বাড়াবাড়ি (বেশি আতুপুতু করলে ছেলে মানুষ হবে না); সমার্থক বাগধারা- পুতুপুতু
আত্মচিন্তা নিজের ভালমন্দ নিয়ে শুধু চিন্তা
আত্মতুষ্টি নিজের সন্তোষ
আত্মত্যাগ/বিসর্জন নিজের স্বার্থ ত্যাগ
আত্মদান নিজেকে উৎসর্গ করণ; সমার্থক বাগধারা- বলিদান
আত্মবিস্মরণ বুদ্ধিনাশ, মতিভ্রম
আত্মসাৎ অন্যায়ভাবে পরের দ্রব্য হস্তগত করা
আত্মহারা মোহিত, সম্পূর্ণ আবিষ্ট (আনন্দে আত্মহারা)
আত্মাপুরুষ পুরুষনামী দেহস্থ আত্মা
আত্মারাম আত্মাপুরুষ, প্রাণ/মনপাখি (আত্মারাম খাঁচাছাড়া)
আত্মারাম খাঁচাছাড়া নিদারূণ ভয়ে মৃতপ্রায়; মৃত্যু; সমতুল্য বাগধারা- অক্কা পাওয়া, ঈশ্বরপ্রাপ্তি, গঙ্গাপ্রাপ্তি, পঞ্চত্বপ্রাপ্তি, পটল তোলা, শিঙে ফোঁকা ইত্যাদি
আত্মারাম গুটিয়ে/শুকিয়ে যাওয়া ভয়ে পাংশু হওয়া
আথালিপাথালি ব্যাকুল ও ব্যস্ত হয়ে এদিক-ওদিক চাইতে চাইতে, চারদিকে, যেখানে-সেখানে সর্বত্র (আথালিপাথালি করে খুঁজে বেড়াচ্ছি)
আদব-কায়দা ভদ্র সমাজের রীতিনীতি (শুধু হাওয়া খেয়ে বড় হয়েছে আদব-কায়দা কিছু শেখেনি);সমার্থক বাগধারা- আচার-আচরণ
আদমের সময় অতি প্রাচীনকালে; বহুকাল আগে; সমার্থক বাদধারাসমূহ- আদিকাণ্ডে, আদ্দিকালে, ভূষণ্ডির সময়ে, মান্ধাতার আমলে ইত্যাদি
আদরে বাঁদর বনে প্রশ্রয়ে চরিত্রগুণ নষ্ট হয়
আদা ওষুধের আধা আদা অর্ধেক রোগ ভালো করে
আদা জল খেয়ে পড়ে থাকা কার্যসিদ্ধির জন্য ধর্ণা দেওয়া
আদা জল খেয়ে লাগা উঠেপড়ে লাগা, প্রাণপণ চেষ্টা করা (পরীক্ষা আসন্ন, তাই আদা জল খেয়ে পড়তে বসেছে)
আদাড়-বাদাড় জলা জংলা যায়গা, বাড়ীর পিছনে আবর্জনা ফেলার যায়গা
আদাড়বনে শিয়াল রাজা নিজের এলাকায় সবাই প্রভুত্ব করে; সমার্থক বাগধারা- আপনা মহল্লামে কুত্তা শের, ভেড়া গোয়ালে বাছুর মোড়ল, বৃক্ষহীনদেশে ভেরেণ্ডাও বৃক্ষ ইত্যাদি
আদায় কাঁচকলায় পরস্পরবিরোধী দুইজন
আদায় কাঁচকলায় সম্পর্ক চিরবৈরিতা, তিক্তসম্পর্ক, পরস্পর শত্রুভাবাপন্ন, বিরুদ্ধ স্বভাবযুক্ত; সমার্থক বাগধারা- দা-কুমড়া সম্পর্ক, বাঘে-গরুতে সম্পর্ক, যেমন বুনো ওল তেমন বাঘা তেঁতুল; সাপ-নেঊলে সম্পর্ক ইত্যাদি
আদার ব্যাপারী ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী; নগণ্য/সামান্য ব্যক্তি (আদার ব্যাপারী হয়ে জাহাজের খোঁজ নেওয়া- প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- উলুখাগড়া, এ-ও-সে, চুনোপুঁটি ইত্যাদি
আদার ব্যাপারীর জাহাজের খবর মুখ্যঅর্থ- গ্রামের সামান্য ব্যবসায়ীর বৈদেশিকবাণিজ্যের খবর রাখা; গৌণঅর্থ- ক্ষমতার অতীত কিছু করা; সমার্থক বাগধারা- বামনের চাঁদ ধরা
আদিখ্যেতা আতিশয্য, ন্যাকামি, বাড়াবাড়ি, ভান (ছেলেকে নিয়ে বড় আদিখ্যেতা হচ্ছে)
আদিরস কাম ও প্রেমরস, শৃঙ্গাররস
আদুরে গোপাল অত্যন্ত আদরে পালিত সন্তান; লাই দিয়ে যার ইহকাল পরকাল শেষ
আদেখলা/আদেখলাপনা যেন আগে কোনদিন দেখেনি; অতিশয় লোভ (সব জিনিসের জন্যে এমন আদেখলেপনা ভালো নয়)
আদ্যশ্রাদ্ধ মৃতের প্রথম শ্রাদ্ধ
আদ্যিকাল বহুকাল আগের কথা, সেকেলে
আদ্যিকালের বদ্যিবুড়ো অতি বৃদ্ধব্যক্তি
আদ্যোপান্ত আগাগোড়া, শুরু থেকে শেষ, সম্পূর্ণরূপে (আদ্যোপান্ত মুখস্থ)
আধ/আধা-খেঁচড়া অসম্পূর্ণ কাজ, বিশৃঙ্খলা (কোন কাজ আধ-খেঁচড়া করে ফেলে রাখবে না)
আধ/আধা-পাগলা পাগলের মত হাবভাববিশিষ্ট
আধ/আধা-বয়সী মাঝ বয়সী, প্রৌঢ়
আধবুড়ো প্রায় বুড়ো
আধমণি কৈলাস ্প্রচুর পরিমাণে খেতে পারে
আধমরা মৃতপ্রায়
আধাআধি সমানে সমানে ভাগ (আধা-আধি বখরা চাই)
আধিব্যাধি মানসিক ও শারীরিক রোগ ('ব্যাধির চেয়ে আধি হল বড়'- রবীন্দ্রনাথ)
আধো-আধো অসম্পূর্ণ; অপরিস্ফুট (শিধুদের আধো-আধো বুলি)
আধো-আধোপনা ব্যাঙ্গে- শিশুসুলভ ব্যবহার
আনকা অচেনা, অজানা (এলাকায় আনকা মানুষের আনাগোনা বেড়ে গেছে)
আনকোরা অব্যবহৃত, ব্যবহারে মলিন নয়, সম্পূর্ণ নতুন, তাঁতকাটা কাপড় (আনকোরা ধুতি-শাড়ি)
আনচান অস্থির, চঞ্চল ('মা বলিতে প্রাণ করে আনচান'- রবীন্দ্রনাথ))
আনতাবড়ি এলোমেলো, আন্দাজে (আনতাবড়ি ঢিল ছুঁড়ছে)
আনন্দে আটখানা বেজায় খুশি; হেসে কুটিকুটি
আনপড় অজ্ঞ, আনাড়ী, অকৌশলী
আনমন অন্যমনস্ক
আনাগোনা/যানা আসাযাওয়া, জন্মমৃত্যু (দুনিয়াদারি মুসাফিরি, সিরিফ আনা-যানা- প্রবাদ)
আনাচকানাচ চারপাশ, জানা-অজানা সবস্থান (ঘরের আনাচকানাচ সমস্ত জায়গাই খুঁজেছি); সমার্থক বাগধারা- আদাড়-পাঁদাড়, আশপাশ, গলিঘুঁজি
আনাজ কাঁচা তরকারী
আনাড়ি অজ্ঞ, অনভিজ্ঞ, অশিক্ষিত; অপটু, মূর্খ
আন্দাজ অনুমান, ধারণা (আন্দাজে ঢিল ছুঁড়ো না)
আন্দিরাম মহাজন কপর্দকশূন্য ব্যবসায়ী
আন্নাকালী ক্রমাগত কন্যাসন্তানলাভের পর আর যাতে কন্যালাভ না হয়, সেজন্য কালীর কাছে প্রার্থনা (আর না কালী) জানিয়ে শেষসন্তানের এই নাম রাখা হয়।
আপকা ওয়াস্তে১ নিজের জন্য, আত্মসর্বস্ব
আপকা ওয়াস্তে২ নির্দিষ্টব্যক্তির জন্য, চাটুকার, তোষামুদে
আপ-খোরাকি নিজের জোগাড় করা খাওয়ার খরচ
আপক্ক/আপাকা পাকা নয় এমন; ঈষৎপক্ক, অল্পপাকা
আপদ বিরক্তি-উৎপাদনকারী ব্যক্তি বা বস্তু (এই আপদ বিদায় হলে বাঁচি)
আপদ-বালাই/ আপদ-বিপদ নানা ঝুট-ঝঞ্ঝাট/ঝামেলা, নানা দুঃখদুর্দশা, বাধাবিপত্তি, বিপদকাল (আপদ-বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়ানো উচিত); সমার্থক বাগধারা- ঝড়ঝাপটা
আপন কথাই পাঁচকাহন আত্মপ্রচারসর্বস্ব, নিজের প্রাধান্য স্থাপনের চেষ্টা
আপন কোলে ঝোল টানা আত্মপ্রচার, নিজের স্বার্থ দেখা
আপন গণ্ডা স্বার্থ (আপন গণ্ডা সবাই বুঝে নেয়)
আপন গাঁয়ে কুত্তা শের নিজের এলাকায় সবাই প্রভুত্ব করে; সমার্থক বাগধারা- আদাড় বনে শিয়াল রাজা, ভেড়া গোয়ালে বাছুর মোড়ল, বৃক্ষহীনদেশে ভেরেণ্ডাও বৃক্ষ ইত্যাদি
আপনজন নিজের লোক ('কে বা আপন কে বা পর')
আপন/আপনার পায়ে কুড়োল মারা নিজের অনিষ্ট করা
আপনভোলা/ আপনহারা নিজের সুখশান্তি ও পরিপার্শ্ব সম্পর্কে উদাসীন (বড় আপনভোলা মানুষ; 'ফাগুন হাওয়ায় হাওয়ায় করেছিই যে দান... আমার আপনহারা প্রাণ'-রবীন্দ্রনাথ))
আপনাপন নিজ নিজ, ব্যক্তিগত (আপনাপন বিশ্বাসের বিরুদ্ধাচরণ)
আপনা-আপনি নিজে নিজে, আপনা থেকে, স্বাভাবিকভাবে (যদি থাকে নসীবে, আপনা আপনি আসিবে- প্রবাদ)
আপনা হাত জগন্নাথ১ নিজের সব কিছু ভালো (আপন হাত জগন্নাথ, পরের হাত এটো পাত- প্রবাদ)
আপনা হাত জগন্নাথ২ খুব কৃপণস্বভাবের লোক; কাউকে কিছু দিতে হ'লে একেবারে ঠুঁটো (হস্তহীন) জগন্নাথ।
আপনি বাঁচলে বাপের নাম নিজে বেঁচে থাকলে তবেই পিতৃপুরুষের নাম বলা যায়
আপরুচি নিজের পছন্দ মত (আপরুচি খানা, পররুচি পরনা- হিন্দি প্রনাদ)
আপামরসাধারণ মুখ্য অর্থ- পামর তথা নরাধম পর্যন্ত সকলকে নিয়ে; গৌণ-অর্থ- উচ্চ-নীচ নির্বিশেষে, সর্বসাধারণ
আপোষ/ আপোস মিটমাট, রফা (দুপক্ষের মধ্যে আপোস হয়ে গেছে)
আপোষে উভয়পক্ষের সম্মতিক্রমে (আপোষে দুটি দল মিশে গেছে)
আপ্তবাক্য অভ্রান্ত বাক্য, দোষগুণ বিচার না করে সত্য বলে গৃহীত বাক্য; সমার্থক বাগধারা- বেদবাক্য
আপ্লুত অভিষিক্ত (করুণায় আপ্লুত মন)
আফশোস/আফসোস আক্ষেপ; দুঃখ, পরিতাপ, মনস্তাপ (এখন আফশোস করে কোন লাভ নেই, ভুলের শাস্তি পেতেই হবে)
আবদার যুক্তিহীন দাবী (জনগনের সব আবদার সমর্থনযোগ্য নয়)
আবর্জনা অবাঞ্ছিত ব্যক্তি (আজকের ধারণায় বৃদ্ধরা সংসারের আবর্জনা)
আবহমানকাল অদ্যবধি, চিরকাল, বহুকাল (আবহমানকাল ধরে এই নিয়ম চলে আসছে)
আবহাওয়া অবস্থা, পরিস্থিতি, হাল (দেশের আবহাওয়া খুব খারাপ)
আবাগী/আবাগে হতভাগ্য নারী/পুরুষ- গ্রাম্য ম্য়্লীযা গালিবিশেষ ('কোন্ চোখখাগী আবাগীর বেটির বুকে বসে'- নজরুল)
আবাদ কৃষিকর্ম, চাষবাস ('এমন মানবজীবন রইল পতিত আবাদ করলে ফলত সোনা')
আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা বালক-বৃদ্ধ-স্ত্রীলোক পর্যন্ত সকলেই
আবোল-তাবোল অর্থহীন/অসংলগ্ন/এলোমেলো কথাবার্তা (কি আবোল-তাবোল বকছো?
আব্রু আভিজাত্য, মর্যাদা, মানসম্ভ্রম ('জীবনে আব্রু আছে, মরণে কোন আব্রু নাই')
আভাঙা জল ঘাটের যে জল প্রাতঃকালে কেউ স্পর্শ করে নি (গাঁয়েগঞ্জে বিয়ের আচারে এই জলের প্রয়োজন হয়)
আম না হতে আমসি/ আমসত্ব আগাম সুখকল্পনা; কারণের আগে কার্য; সমার্থক ভাগধারা- কালনেমির লঙ্কাভাগ, গাছ না উঠতে এককাঁদি, গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল, রাবণের ছাদনাতলা, রাম না হতেই রামায়ণ, হবু ছেলের অন্নপ্রাশন ইত্যাদি
আমগন্ধি কাঁচাগন্ধযুক্ত খাবার, পুরো রান্না হয়নি
আমড়া কিছু না, ফাঁকি (আমার আমোড়া করবি)
আমড়া কাঠের ঢেঁকি অপদার্থ, কোন কাজের নয়; সমার্থক ভাগধারা- কলাখোলার নৌকা, ধানকাঠের তক্তা, ধানগাছের মই ইত্যাদি
আমড়াগাছি বিশেষ উদ্দেশ্যসাধনের জন্য তোষামোদ, স্তুতি (বড়বাবুর আমড়াগাছি করে প্রমোশন পেয়েছে)
আমতা আমতা অস্পষ্ট স্বীকারোক্তি; দ্বিধাগ্রস্তভাব; স্বীকার ও অস্বীকারের অস্পষ্টতাভাব, 'হাঁ কি না' খোলসা না করা, স্বীকারের ইচ্ছা নেই আবার অস্বীকারের উপায়ও নেই (অত আমতা আমতা করতে হবে না, যা বলার বলে ফেল); সমার্থক বাগধারা- কিন্তু কিন্তু করা
আমনে সামনে মুখোমুখি, সামনাসামনি
আমল রাজত্বকাল, শাসনকাল (ইংরাজ আমলে আমরা কথায় কথায় ইংরাজী শব্দ ব্যবহার করতাম না)
আমল দেওয়া/আমলে আনা গুরুত্ব/পাত্তা/প্রশ্রয় দেওয়া; গ্রাহ্য করা (সবার কথায় আমল দিও না)
আমসি হওয়া (মুখ) শুকিয়ে বিবর্ণ, বিশীর্ণ হওয়া
আমি/আমিত্ব অহঙ্কার, অহম ('আমি যাবে মলে')
আমি আমি করা আত্মপ্রশংসা করা
আমি আর আমাতে নেই আনন্দে আত্মহারা
আমির-উমরা গণ্যমান্য, প্রতিপত্তিযুক্ত, প্রভাবশালী, প্রচুর ক্ষমতাবিশিষ্ট (আমির-উমরাদের মেজাজই আলাদা); সমার্থক বাগধারা- হোমরাচোমরা
আমিরি চাল বড়মানুষি চাল
আমে দুধে এক উপযুক্ত মিলন; উপরতলায় মিল
আমেজ প্রকাশ, রেশ (চারিদিকে খুশির আমেজ)
আমোদ-প্রমোদ/ আমোদ-আহ্লাদ আনন্দোৎসব, আনন্দ-উল্লাস (আমোদ-আহ্লাদে সবাই মেতে আছে)
আয়নায় মুখ দেখা নিজের সুন্দর মুখের মত চরিত্রও সুন্দর করা
আয়ারাম দলবদল করে অন্যদল থেকে আসা সদস্য
আয়েন্দা১ ভবিষ্যৎ, আগামী দিন (আয়েন্দা কিছু হ'লে তার জন্য তুমি দায়ী থাকবে)
আয়েন্দা২ ভবিষ্যতে, এরপর থেকে (আয়েন্দা বেতমিজি কিছু না যেন দেখি)
আয়াশ/ আয়েশ আরাম, বিলাস, আমোদ, স্ফূর্তি (কাজের ফাঁকে একটু আয়েশ করে নিচ্ছি)
আর একটু হলে বাড়াবাড়ি হ’লে
আর কতই বা বেশি কিছু নয়
আর নয়তো কি এটাই উদ্দেশ্য
আরাম আনন্দ, সুখ (আরাম হারাম হ্যায়)
আর্জি অনুরোধ, প্রার্থনা (তোমার আর্জি না-মঞ্জুর)
আরশির মুখে পড়শি দেখা নিজের মত অপরকে ভাবা
আলগা খোঁপা শিথিল খোঁপা
আলগা থাকা কোন কিছুতে জড়িত না হওয়া, নির্লিপ্ত থাকা, দূরে দূরে থাকা
আলগা দরজা খোলা দরজা
আলগা দেওয়া চাপ কমানো; প্রশ্রয় দেওয়া
আলগা ভাব আন্তরিকতাহীন, লোক দেখানো ভাব
আলগা মন্তব্য অনভিপ্রেত/অসঙ্গত/বেফাঁস মন্তব্য
আলগা মুখ অসংযত কথাবার্তা
আলগোছে আলগা ভাবে, আলতো করে ছোঁয়াচ বাঁচিয়ে; সন্তর্পণে (কাঁচের বাসনগুলো আলগোছে রেখো); সমার্থক বাগধারা- আলতোভাবে
আলটপকা আচমকা, অপ্রত্যাশিতভাবে, বিনাচেষ্টায় হঠাৎ (আলটপকা এসে হাজির)
আলটুফালটু/আলতুফালতু কথা আজেবাজে/অনাবশ্যক/অর্থহীন কথাবার্তা (আলটুফালটু বকো না); সমার্থক বাগধারা- আগড়ম-বাগড়ম
আলতোভাবে আলগোছেের অনুরূপ
আলবৎ অবশ্যই (আলবৎ তুমি যাবে)
আলা আলোকিত অবস্থা; অনুগ্রহ, আশীর্বাদ-আরবি ('আলার ভিতরে রয়েছে কালা')
আলাইবালাই আপদবিপদ দূর হয়ে যাক (আলাই বালাই এমন কথা বলতে নেই)।
আলাদীনের প্রদীপ অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটানোর কারিগর
আলাপ আলোচনা / আলাপসালাপ পরস্পর কথোপকথন, পরামর্শ (মেয়ের বিয়ের ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা চলছে)
আলাভোলা সাদাসিধে বেখেয়ালি লোক, নিতান্ত ভালমানুষ; সমার্থক বাগধারা ভোলে-ভালা
আলাল ধনী, বড়লোক (আলালের ঘরের দুলাল- প্রবাদ)
আলুথালু শিথিল (আলুথালু বসন)
আলুনি খাবারে প্রয়োজনমত নুন দেওয়া হয় নি এমন
আলুর দোষ চরিত্রদোষ, লাম্পট্য, মেয়েদের প্রতি পুরুষের মাত্রাতিরিক্ত ও অশোভন আসক্তি
আলেয়া/ আলেয়ার আলো দুর্লভ বা বিভ্রান্তিকর বস্তু, মিথ্যা মায়া; সমার্থক বাগধারা- গজমুক্তা, মরুভূমির মরিচিকা ইত্যাদি
আলো-আঁধারি অস্পষ্ট আলো; আলো ও আঁধারের মিশ্রণ; কিছুটা আলো কিছুটা আঁধার এমন, আলো চোখে পড়লে আলোর পিছনের যে অন্ধকার দেখা যায়
আলোয় আলোয়১ দিনে দিনে, দিন থাকতে থাকতে (আলোয়-আলোয় বাড়ি ফিরতে হবে)
আলোয় আলোয়২ সুদিন থাকতে থাকতে ('ভালোয় ভালোয় বিদায় দে মা আলোয় আলোয় চলে যাই')
আলেয়ার পিছনে ছোটা অসম্ভবের পিছনে ছোটা
আশকারা/ আস্কারা প্রশ্রয় (তোমার আশকারাতেই ছেলে উচ্ছন্নে গেছে)
আশনাই প্রণয়; আসক্তি, অবৈধ প্রণয় ('মন যত বলে আশা নাই, হৃদে তত জাগে আশনাই'- নজরুল)
আশপাশ চারপাশ, কাছাকাছি জায়গা, নিকটবর্তী চারদিক (আশপাশ থেকে আওয়াজ আসছে); সমার্থক বাগধারা- আনাচকানাচ
আশমান-জমিন ফারাক বিশাল পার্থক্য (দুই ভাইয়ের আচার-ব্যবহারে আশমান-জমিন ফারাক)
আশীবিষ যার দাঁতে বিষ থাকে, সাপ (কি যাতনা বিষে বুঝিবে সে কিসে কভু আশীবিষে দংশেনি যারে'-কৃষ্ণচন্দ্র)
আশীসিক্কা ওজনের চড় প্রচণ্ড চপেটাঘাত
আষাঢ়ে গল্প আজগুবি/কাল্পনিক কাহিনী; উৎস-আষাঢ়মাসের অঝোরে বৃষ্টি পড়ার কালে অলস মুহূর্তের গল্পের আসর থেকেই ‘আষাঢ়ে গল্প’ প্রবাদটির সৃষ্টি হয়েছে
আষ্টেপৃষ্ঠে সর্বাঙ্গ ঘিরে, সারা অঙ্গে (লোকটাকে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে রাখা হল)
আসতে ছাগল, যেতে পাগল তর সয় না, ধৈর্যহীন
আসন টলা ক্ষমতা হারানোর উপক্রম
আসন্নকাল বিপদকাল, মরণকাল (রাজার আসন্নকাল সমাসন্ন)
আসবাবপত্র গৃহসজ্জার উপকরণ (আসবাবপত্রে ঘর বোঝাই)
আসমান-জমিন ফারাক দূরতিক্রম্য ব্যবধান, সীমাহীন পার্থক্য; সমার্থক বাগধারা- আকাশপাতাল তফাৎ
আসর গরম করা বিচিত্র কথাবার্তায় উদ্দীপনা সৃষ্টি করা; সরস কথায় সভায় উপস্থিত সকলকে মোহিত করা (আসর গরম কয়ড়া বক্তৃতা
আসর জমা জমায়েত/সভা লোকে পরিপূর্ণ হওয়া
আসর জমানো/মাতানো আসরে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা; বাকচাতুর্য এবং হাস্যপরিহাসে আসরকে আনন্দোচ্ছল করা
আসরে নামা কাজে অবতীর্ণ হওয়া
আসা-যাওয়া১ ক্ষতিবৃদ্ধি হওয়া (এতে অ্যাম্বার কিছু যায় আসে না)
আসা-যাওয়া২ দেখা-সাক্ষাৎ, মেলামেশা (পাশাপাশি থাকে অথচ ওদের মধ্যে আসা যাওয়া নেই)
আসা-যাওয়া৩ যাতায়াত (আসা যাওয়ার পথের ধারে গান গেয়ে মোর কেটেছে দিন'-রবীন্দ্রনাথ)
আসান নিস্কৃতি, রেহাই, লাঘব, সুবিধা (মুশকিল আসান)
আসানসোলে কয়লা চালান যার আছে তাকে আরও দেওয়া; তোষামোদ করা; সমার্থক বাগধারা- তেলা মাথায় তেল, ব্যঙের মাথায় ছাতি ইত্যাদি
আসে যায় গুরুত্বপূর্ণ, ক্ষতিবৃদ্ধি হয়
আস্ত কেউটে জীবন্ত বিষধরসম ভয়ানক বিপজ্জনক লোক
আস্ত-না-রাখা মেরে হাড়গোড় গুড়িয়ে দেওয়া
আস্তব্যস্ত সত্বর (আস্তব্যস্ত হয়ে ঘর ছেড়ে চলে গেল)
আস্ত হনুমান বিদ্রুপে- সকল অপকর্মের হোতা (উৎস- হনুমানের লঙ্কাদহন)
আস্ত শয়তান বদের হাঁড়ি চুড়ান্ত শয়তান, শয়তানের সর্দার (তুমি একটা আস্ত শয়তান) সমার্থক বাগধারা- ইবলিশ, বদের হাঁড়ি, শয়তানের হাঁড়ি
আস্তানা আড্ডা, আশ্রম, বসত (সাধুদের আস্তানা)
আস্তানা গাড়া সাময়িকভাবে কোথাও বসবাস করতে শুরু করা
আস্তানা গুটানো আড্ডা ভেঙ্গে দেওয়া
আস্তিন কোট, জামার হাতা
আস্তিন গুটানো মারামারি করতে উদ্যত; ভয় দেখানো (রাজনৈতিক ময়দানে দুইদল আস্তিন গুটাচ্ছে)
আস্তে আস্তে গলা কাটা সকল ব্যবহারেই বঞ্চনা; সমার্থক বাগধারা- শাঁখের করাত
আহামরি অসাধারণ, অতুলনীয়
আহামরি নয়, হ্যাক-থুও নয় মাঝারিধরনের
আহাম্মক নির্বোধ, বুদ্ধিহীন, বোকা, মুর্খ (আহাম্মক তিন জায়গায় বিষ্ঠা মাখে- প্রবাদ)
আহাম্মকী নির্বুদ্ধিতা, বুদ্ধিহীনতা, বোকামি, মুর্খামি (জলে বাস করে কুমিরের সাথে বিবাদ করা আহাম্মকি কাজ)
আহাম্মকের গলায় দড়ি আহাম্মক বারবার দোষ করে ও শাস্তি পায়
আহারনিদ্রা যাবতীয় নিত্যকর্ম (আমি আহারবনিদ্রা ত্যাগ করে তোমার জন্য বসে আছি)
আহারবিহার ভোজন ও আমোদ'আহ্লাদ, আহার প পরে ভ্রমণ;
আহালিবিলাত অন্যদেশ সম্পর্কে সম্পূর্ণ অনভিজ্ঞ
আহ্লাদী পুতুল অন্যায় আবদারকারী শিশু
আহ্লাদে আটখানা/ডগমগ অত্যন্ত/বেজায় খুশি; আনন্দে আত্মহারা/বিহ্বল (লটারীতে টাকা পেয়ে আহ্লাদে আটখানা)
আহ্লাদে গোপাল অনুচিত আদরে বিগড়ানো ছেলে
আহ্লাদে ফুটকড়াই হেসে লুটোপুটি
আহ্লাদের প্রহ্লাদ আদরের সন্তান

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ইঁচড়ে পাকা অকালপক্ব, ডেঁপো, ফাজিল, বখাটে. ছেলে বয়সে বয়স্কের মত কথা বলে
ইঁট মারলেই পাটকেল পড়ে হিংসা হিংসা টানে
ইঁদুর কপালে নিতান্ত মন্দভাগ্য
ইঁদুর কলে পড়া লোভ করতে দিয়ে ফাঁদে পড়া
ইঁদুর-দৌড়/ ইঁদুর-বিড়াল দৌড় পরস্পরকে টেক্কা দেওয়ার প্রতিযোগিতা; স্বার্থসিদ্ধির বা নিজের উন্নতির জন্য বেপরোয়া প্রতিযোগিতা
ইকরার কবুল, স্বীকার (আদালতে ইকরার করবে)
ইচ্ছে থাকলে উপায় হয় প্রবল ইচ্ছা থাকলে কঠিন কাজও সম্পন্ন হয়
ইজাজত সম্মতি (বিচারক ইজাজত দিয়েছেন)
ইজারা স্বত্বদখল, খাজনার ভিত্তিতে জমির মেয়াদী দখল
ইজ্জত কা সওয়াল (হিন্দি) সম্মানের প্রশ্ন জড়িয়ে আছে (এই কঠিন কাজটা আমায় করতেই হ'বে, এটা ইজ্জত কা সওয়াল)
ইটের বদলে পাটকেল ক্রিয়ার প্রতিক্রিয়া; দুর্ব্যবহার করলে দুর্ব্যবহার প্রাপ্য হয়
ইটের জবাব পাথরে দেওয়া ক্রিয়ার কড়া প্রতিক্রিয়া দেওয়া
ইতরবিশেষ অন্য থেকে পার্থক্য, ভেদাভেদ, সামান্য পার্থক্য (দুজনের ব্যবহারে তেমন ইতরবিশেষ নেই); সমার্থক বাগধারা- উনিশ-বিশ, যায়া বাহান্ন তাহাই তিপ্পান্ন
ইতরেতর পরস্পর
ইতস্ততঃ করা দোনামনা করা
ইতিউতি এদিক ওদিক, এখানে সেখানে (ইতিউতি চায় যদি দেখা পায়)
ইতিকর্তব্যবিমূঢ় কর্তব্য স্থির করিতে অক্ষম এমন; সমার্থক বাগধারা- এদিকো না, ওদিকও না; কিংকর্তব্যবিমূঢ়, সসেমিরা, হতবুদ্ধি
ইতি করা/টানা শেষ করা
ইতি গজঃ আংশিক সত্যের আবরণে মিথ্যাভাষণ
ইতিবাচক হ্যাঁ-বাচক (কন্যাপক্ষ থেকে কোন ইতিবাচক সাড়াশব্দ নেই)
ইতো ভ্রষ্টস্ততো নষ্ট একুল ওকুল দুকুল যাওয়া; সমস্ত কিছুই পণ্ড হওয়া
ইত্যবসরে এই সুযোগে (ইত্যবসরে দুস্কৃতিটা পালিয়ে গেল)
ইত্যাকার এই আকারের বা রকমের (ইত্যাকার কথাবার্তা আমার একদম পছন্দ নয়)
ইনকার অস্বীকার (সাহায্য করতে সে ইনকার করছে)
ইনসান মনুষ্যত্ব, মানবতা
ইনসাফ পক্ষপাতহীন, ন্যায়বিচার, সুবিচার (প্রকৃতির রাজত্বেও ইনসাফ নেই, শেখানে জোর যার মুল্লুক তার)
ইনাম পারিশ্রমিক, পুরস্কার, বকশিশ (কাজটা করতে পারলে ভাল ইনাম পাবে)
ইনিয়ে বিনিয়ে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে, নানাভাবে পল্লবিত করে, অনুনয়-বিনয় করে, সোহাগ করে (কী আদরে পাতাগুলোর গায়ে ইনিয়ে বিনিয়ে হাত বুলিয়ে যাচ্ছে-সৈয়দ মুজতবা আলী)
ইন্তিকাল/ ইন্তেকাল মৃত্যু, দেহাবসান (গতকাল আব্বার ইন্তেকাল হয়েছে)
ইন্তিজার/ ইন্তেজার অপেক্ষা, প্রতীক্ষা
ইন্তিজাম/ ইন্তেজাম ব্যবস্থা, সুব্যবস্থা
ইন্দুরত্ন/ ইন্দ্রদারু মদ্যপ
ইন্দ্রপতন/ ইন্দ্রপাত কোন মহামানবের মৃত্যু (গান্ধীর মৃত্যু ইন্দ্রপতনের সামিল)
ইন্দ্রপুরী ঐশ্বর্য্যপূর্ণ প্রাসাদ (নেতার বাড়ীটা দেখ যেন এক ইন্দ্রিপুরী)
ইন্দ্রলুপ্ত মাথাভর্তি টাক
ইন্দ্রীয়দোষ ইন্দ্রীয়ের উচ্ছৃখলতা, কামনাবাসনার আধিক্য, লাম্পট্য
ইন্দ্রীয়পর কামুক
ইন্দ্রীয়সুখ কামনাবাসনার তৃপ্তিসাধন, ভোগবিলাস
ইন্দ্রের শচী যখন যার তখন তার
ইন্ধন উত্তেজক বা সহায়ক জিনিস (পরিবারের ঝগড়াতে আর ইন্ধন জুগিয়ো না)
ইবলিশ শয়তানের সর্দার (তুমি একটা ইবলিশ); সমার্থক বাগধারা- আস্ত শয়তান, বদের হাঁড়ি, শয়তানের হাঁড়ি
ইমান/ ইমানদারি বিশ্বাস/ বিশ্বস্ততা (ইমানদার লোক)
ইমারত পাকাবাড়ী
ইয়া আল্লা খেদ, বিস্ময়, বা ভয়সূচক উক্তি (ইয়া আল্লা আম্ফানে আমি মলাম)
ইয়াদ খেয়াল, স্মরণ (কখন কি যে বল ইয়াদ থাকে না)
ইয়াঙ্কি বিদ্রুপে- আমেরিকার অধিবাসী (ইয়াঙ্কি কালচার)
ইয়ার/ইয়ার-বকসি আড্ডার সঙ্গী, রঙ্গপ্রিয় সহচর, সমপর্যায়ের বন্ধু (ইয়ার-বক্সিরা উপস্থিত)
ইয়ারকি/ইয়ারকি-ফাজলামো রঙ্গ, রসিকতা (সবসময় ইয়ারকি ভালো লাগে না)
ইরাদা ইচ্ছা, অভিপ্রায়, অভিলাষ, সঙ্কল্প (তোমার ইরাদা কই বলে ফেল)
ইলশে-গুড়ি মুখ্য অর্থ ইলিশ মাছ ধরার জন্য অনুকূল বৃষ্টিপাত; আলং- গুড়িগুড়ি বৃষ্টি
ইলাজ রোগের উপশম বা চিকিৎসা
ইলাহি-কাণ্ড বিরাট আয়োজন, মহাধুমধাম
ইল্লত কলঙ্ক, কলুষ, নোংরা (ইল্লত যায় না ধুলে- প্রবাদ)
ইল্লতি কাণ্ডকারখানা নোংরা ব্যাপারস্যাপার
ইশপিশ করা চঞ্চল হওয়া
ইশারা/ ইসারা ইঙ্গিত, সঙ্কেত
ইষ্ট/ইষ্টিকুটুম্ব আত্মীয়স্বজন
ইষ্টদেবতা উপাস্য দেবতা
ইষ্টমন্ত্র গুরুপ্রদত্ত মন্ত্র
ইস্তক জুতা-সেলাই লাগাত চণ্ডীপাঠ সংসারের ছোটবড় ভালমন্দ সবকাজ
ইস্তক-নাগাদ/লাগাদ শুরু থেকে শেষপর্যন্ত (ইস্তক পূণ্যাহ লাগাত আখেরি)
ইস্তফা/ ইস্তিফা কর্মত্যাগ (আমি চাকরিতে ইস্তফা দিয়েছি)
ইস্তাহার নোটিশ, প্রচারপত্র, বিজ্ঞাপন (সরকারী ইস্থাহারে বলা আছে)
ইস্পার কি উস্পার / এসপার ওসপার চরম নিস্পত্তি; সমার্থক বাগধারা- হেস্তনেস্ত
ইহকাল এই জন্মের কর্মফল (কৃতঘ্ন বিশ্বাসঘাতকের ইহকালও নেই পরকালও নেই- প্রবচন)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঈদের চাঁদ/ ঈদকা চাঁদ আকাঙ্ক্ষিত বস্তু, দুর্লভদর্শন, সহজে যার দেখা পাওয়া যায় না; সমার্থক বাগধারা- আলেয়ার আলো, কোকিলের বাসা, ডুমুরের ফুল ইত্যাদি
ঈশা/ঈসা যিশু (চলে গেল ঈসা, মুসা ও দাউদ- নজরুল)
ঈশানের মেঘ সঙ্কটের পূর্বাভাস
ঈশ্বরপ্রাপ্তি মৃত্যু; সমার্থক বাগধারা- অক্কা পাওয়া, আত্মারাম খাঁচাছাড়া, গঙ্গাপ্রাপ্তি, পঞ্চত্বপ্রাপ্তি, পটল তোলা, শিঙে ফোঁকা ইত্যাদি

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
উঁকিঝুঁকি আড়াল থেকে বারবার এদিক ওদিক দেখা
উঁচ-কপালী অলক্ষণা/কুদর্শনা/দুর্ভাগা নারী (লোকের তাই বিশ্বাস); সমার্থক বাগধারা- উটকপালী, উতকপালী
উঁচ-কপালে সৌভাগ্যবান ব্যক্তি (লোকের তাই বিশ্বাস); সমার্থক বাগধারা- উটকপালে, উতকপালে
উঁচু গাছে মই বাঁধা বেশি লাভের প্রত্যাশী
উঁচু ঘর ভাল বংশ; সচ্ছল পরিবার
উকিলি বুদ্ধি অতি চালাকি (উৎস- সুকুমার রায়)
উকুন বাছা১ অকাজ করা
উকুন বাছা২ পুঙ্খানুপুঙ্খ অনুসন্ধান করা
উক্তস্য পুনঃ কথনং কথিত বিষয়ের পুনরুক্তি
উগরানো/ উগলানো বিষয় না-বুঝে আওড়ে যাওয়া (পড়া উগরে দিয়েছি)
উগ্রচণ্ড/চণ্ডী কলহপ্রিয়/প্রিয়া পুরুষ/নারী; কোপনস্বভাবের পুরুষ/নারী
উগ্রমূর্তি সর্বদা মারমুখি
উচট খেয়ে প্রণাম অনিচ্ছায় প্রণাম
উচাটন উৎকণ্ঠা, ব্যাকুলতা ('তোমা বিনে মন করে উচাটন')
উচিত কথা কড়া কথা, ন্যায্য কথা, হক কথা (উচিত কথা শুনিয়ে দিয়েছি)
উচ্চবাচ্য না করা ভালমন্দ, হ্যাঁ বা না- কিছুই না বলা
উচ্চভাষী কড়া/রূঢ়ভাষী, প্রগল্ভ
উচ্চিংড়া/ড়ে কোপনস্বভাব
উচ্ছিষ্টভোগী তোষামোদ করে অন্যের অনুগ্রহলাভকারী, পরমুখাপেক্ষী, হীন
উচ্ছের ঝাড় কুখ্যাত বংশ
উজবক/উজবুক আহাম্মক, নির্বোধ, মূর্খ (এই উজবুকটা কোত্থেকে উদয় হ'ল)
উজানি বেলা বেলা দ্বিপ্রহর; সকাল নয়টা থেকে বারোটা
উজানে গুণ টানা নিয়ত বাধা ডিঙিয়ে কাজ করা
উজানের কই সহজলভ্য বস্তু
উঞ্ছবৃত্তি খুঁটে খুঁটে খাওয়া, তুচ্ছ/হীন জীবিকা (উঞ্ছবৃত্তি করে পেট চালাই)
উটকপালী কুলক্ষণা নারী; সমার্থক বাগধারা- উঁচকপালী, উৎকপালী
উটকা নারী স্বামীগৃহ ছেড়ে পিতৃগৃহে চলে যেতে চায় এমন নারী
উটকানো তন্নতন্ন করে খোঁজ; সবকিছু ওলটপালট করে রাখা
উটকো খবর ভিত্তিহীন খবর (উটকো খবরে বিশ্বাস করবে না)
উটকো ঝামেলা বাজে ঝামেলা (উটকো ঝামেলায় জড়িয়ে গেছি)
উটকো মানুষ/লোক অচেনা, অজানা, অবাঞ্ছিত, বিশ্বাসের অযোগ্য ব্যক্তি (উটকো লোককে ঘরে ডাকবে না)
উটকোমুখো কুতসিৎ/কদাকার/কিম্ভূতকিমাকারদর্শন- গালিবিশেষ
উটের কাঁটাভোজ অল্পসুখের জন্য বেশি কষ্ট স্বীকার
উঠতি অবস্থা উন্নতিশীল
উঠতি বয়স বয়ঃপ্রাপ্ত হচ্ছে এমন, যৌবনের প্রথমদিক
উঠতি বাজার বাজার চড়া
উঠতে বসতে/উঠিতে বসিতে বারংবার, যখন তখন, সবসময় ('উঠিতে বসিতে করি বাপান্ত, শুনেও শোনে না কানে'-রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- ঘড়ঘড়ি
উঠন্ত উদীয়মান (উঠন্ত মুলোর পত্তনিতে চেনা যায়- প্রবাদ)
উঠবস বিদ্যালয়ে শাস্তি দেওয়ার জন্য বারবার উঠা বসার আদেশ; উঠা ও বসার প্রর্যায়ক্রমের ব্যায়াম
উঠা বসা অন্তরঙ্গতা, একসাথে থাকা (অপছন্দের লোকের সাথে আমার উঠাবসা নেই)
উঠান চষা প্রতিবাদীকে উৎখাত করার জন্য নির্যাতন করা
উঠি-তো-পড়ি অতি দ্রুত, ঊর্ধ্বশ্বাসে (উঠি-তো-পড়ি করে ছুটলাম)
উঠিত-পতিত যে জমিতে কোন বছর চাষ হয়, কোন বছর চাষ হয় না এমন
উঠিয়ে দেওয়া উচ্ছেদ করা (ভাড়াটেকে উঠিয়ে দেওয়া)
উঠে পড়ে লাগা দৃঢ়সংকল্পে উদ্যমের সাথে কাজে লাগা; সমার্থক বাগধারা- কোমর বাঁধা
উঠে যাওয়া১ ছেড়ে যাওয়া (ভাড়াটে উঠে গেছে)
উঠে যাওয়া২ পড়ে যাওয়া (চুল উঠে যাচ্ছে)
উঠে যাওয়া৩ বন্ধ/লুপ্ত হওয়া (দোকানটা উঠে গেছে)
উড়নচণ্ডী/চণ্ডে অমিতব্যয়ী, লক্ষ্মীছাড়া, সম্পত্তি নষ্টকারী
উড়া অতি দ্রুত ছুটে যাওয়া (ও ছুটছে না উড়ছে?)
উড়ানো (টাকা) অপব্যয় করা (টাকা ওড়ানোর নয়, টাকা প্রয়োজনের)
উড়িয়ে দেওয়া অগ্রাহ্য করা (খবরটা উড়িয়ে দেবার মত নয়)
উড়ে এসে জুড়ে বসা হঠাৎ এসে কায়েম বা সর্বময় কর্তা হয়ে বসা; অনধিকারীর অধিকার
উড়ে যাওয়া ম্রাারা যাওয়ার উপক্রম (ভয়ে প্রাণ উড়ে যাচ্ছিল)
উড়ো কথা/খবর গুজব; ভিত্তিহীন খবর (উড়ো খবর কানে নিয়ো না)
উড়ো খই নিজের কাজে লাগবে না এমন জিনিস (ঊড়ো খই গোবিন্দায় নমঃ- প্রবাদ)
উড়োচিঠি বেনামী চিঠি (উড়ো চিঠি খুলো না)
উৎকপালী কদাকার/কুলক্ষণা/মন্দভাগ্যযুক্তা নারী; সমার্থক বাগধারা- উঁচকপালী, উটকপালী
উৎকর্ণ শোনার জন্য কান খাড়া করে আছে এমন
উৎপন্নমতি উপস্থিত বুদ্ধি আছে এমন
উৎপাত ঝামেলা, ঝঞ্ঝাট (সকালবেলা একি উৎপাত)
উৎস মূল কারণ (গোলমালের উৎসটা কি জানতে হবে)
উতোর-চাপান প্রশ্ন ও উত্তর; প্রশ্ন ও পালটা প্রশ্ন
উত্তমমধ্যম দেওয়া প্রহার করা, পিটুনি দেওয়া, ভাল ও মাঝারি ধরণের প্রহার করা
উত্তরপুরুষ/সূরি উত্তরাধিকারী, পরবর্তী প্রজন্ম/বংশধর
উত্তরাধিকার পূর্বপুরুষের সম্পত্তিতে পরপুরুষের স্বত্ব
উত্তরাপথ বিন্ধ্যপর্বতের উত্তরে অবস্হিত ভারতের উত্তরাংশ, আর্যাবর্ত
উত্তরায়ণ থ বিষুবরেখার উত্তরে সূর্যের আগমন
উত্তরীয় দেহের ঊর্ধ্বাঙ্গের পরিধেয়বস্ত্র; জামা, গেঞ্জী, ব্লাউজ ইত্যাদি (ওগাে আমার প্রিয়, তােমার রঙিন উত্তরীয় পরো পরো পরাে...'-রবীন্দ্রনাথ)
উত্তরোত্তর ক্রমশ, পরপর (তোমার উত্তরোত্তর শ্রীবৃদ্ধি হোক); সমার্থক বাগধারা- পরম্পরা
উথলপাথল/উথালপাথাল/উথালিপাথালি ওলট-পালট, বিক্ষুব্ধ, বিপর্যস্ত; (ঝড়ে সমুদ্র উথাল-পাতাল করছে)
উদয়াস্ত সারাদিন (উদয়াস্ত পরিশ্রম করে উদরান্ন জোগার করি)
উদরপরায়ণ খেতে পছন্দ করে এমন, পেটুক
উদরপূর্তি পেট ভরে আহার (উদরপূর্তি তো মন স্ফূর্তি)
উদরসর্বস্ব মহাপেটুক, কেবল খাই খাই করে
উদরসাৎ আত্মস্মাৎ করা হয়েছে এমন (নিজের ভেবে কেউ আমার কলমটা উদরসাৎ করেছে)
উদরান্ন ক্ষুধার অন্ন
উদরিণী গর্ভবতী
উদরী পেটের স্ফীতিজনিত রোগ
উদীচী ঊষা উত্তর বা সুমেরুজ্যোতি
উদো/উদোমাদা/উধো আহাম্মক, ক্যাবলা, বুদ্ধিহীন, বোকাসোকা, মাথাপাগলা, মুর্খ, হাবাগোবা; সমার্থক বাগধারা-গরু, গাধা, ঢেঁকি অবতার; বুদ্ধির ঢেঁকি; ভেড়া, লেবু, হবুচন্দ্র, গবুচন্দ্র, হাঁদা, হাঁদারাম, হাঁদাগঙ্গারাম ইত্যাদি
উদোর/উধোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে একের দায়/দোষ অপরের ওপর চাপানো
উদ্গীরণ করা মুখস্হ-করা কথা বা বিষয় না বুঝে আউড়ে যাওয়া (পড়া উগরে দিয়েছি)
উদ্বাহু বাহু উঁচু করে রয়েছে এমন, হাত ওঠানো (আহ্লাদে উদ্বাহু নৃত্য সুরু করেছে)
উদ্ভাবনীশক্তি কিছু সৃষ্টি করার ক্ষমতা
উদ্ভিন্ন যৌবনা আকর্ষণীয়,চমৎকার সদ্য যৌবনপ্রাপ্তা এমন
উনকুটি/কোটি চৌষট্টি কোটির কিছু কম, অসংখ্য, বহু, প্রায় কোটি
উনকুটি/কোটি চৌষট্টি দেবতা তেত্রিশ কোটি দেবতা
উনকুটি/কোটি চৌষট্টি পদে রান্না অসংখ্য পদের রান্না সম্পূর্ণ; আয়োজনে কোন কিছুই বাদ নেই
উনপঞ্চাশ বায়ু পাগলামি
উনপাঁজুরে দুর্বল, হতভাগ্য (উনপাঁজুরে বরাখুরে)
উনপাঁজুরে বরাখুরে উড়ণচণ্ডে, লক্ষ্মীছাড়া, হতভাগা- গালিবিশেষ
উনভাতে একটু খালি পেটে (উনভাতে দুনো বল- প্রবাদ)
উনানমুখী পোড়ামুখী, হতভাগী[ মেয়েলী গালিবিশেষ
উনিশ বিশ সামান্য পার্থক্য (দোষগুণবিচারে উনিশবিশ); সমার্থক বাগধারা- ইতর বিশেষ, যাহা বায়ান্ন তাহাই তিপ্পান্ন
উন্নাসিক অবজ্ঞায় নাক উঁচু করে এমন; সব কিছুকে তুচ্ছ মনে করে এমন, দাম্ভিক
উপকরণ কর্মসম্পাদনের প্রয়োজনীয় বস্তু (পূজার উপকরণ)
উপচিকীর্ষা পরের উপকার করার ইচ্ছা
উপজীবিকা পেশা, বৃত্তি, অপ্রধান জীবিকা
উপজীব্য অবলম্বন, জীবনধারণের উপায়, জীবিকার প্রয়োজনে গ্রহণযোগ্য
উপঢৌকন ব্যাঙ্গার্থে- উৎকোচ
উপদেবতা ভূত, প্রেত ইত্যাদি (তার ঘাড়ে উপদেবতা ভর করেছে)
উপযাচক স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে উপকার করে আসে এমন; স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে যাচ্ঞা করে এমন; সমার্থক বাগধারা- উপরপড়া
উপযাচিকা যে নারী স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে প্রণয় প্রার্থনা করে
উপর উপর অল্পবিস্তর, একটু-আধটু, কিছুকিছু, ভাসাভাসা, যৎসামান্য (আমি উপর উপর লেখাটা পড়েছি)
উপরি উপরি পরপর (উপরি উপরি তিনদিন বৃষ্টি হবে)
উপরওয়ালা বিধাতা, ঊর্ধ্বতন কর্মচারী
উপরচড়া অকারণে, গায়ে পড়ে, গায়ে পড়ে ঝগড়া করে এমন (লোকটা ভারি উপর চড়া)
উপরচাপ উপরওয়ালার আদেশ
উপরচাল অরিতিক্ত চালাকি, চতুর প্রতিপক্ষকে জব্দ করার মত পাল্টা চাতুরী, দেখনদারী, লোক দেখানো ভাবভঙ্গী
উপরচালাকি চালাক না হয়েও চালাকি করতে যায়; ফন্দি, ফাজলামি, মাত্রাতিরিক্ত চালাকি
উপরতলা ধনিক/বিত্তশালীর অবস্থান (উপরতলার লোক)
উপরপড়া অনধিকার চর্চাকারী, বিনা আহ্বাবানে স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে কাজ করে এমন ; সমার্থক বাগধারা- উপযাচক/যাচিকা
উপরমহল সরকারীস্তর
উপরোধে ঢেঁকি গেলা অনুরোধে দুরূহ কাজ করতে সম্মত হওয়া; সমার্থক বাগধারা- অনুরোধে ঢেঁকি গেলা
উপরি আয়/পাওনা অবৈধ আয়, ঘুষ
উপরি-উপরি১ অগভীরভাবে, ভাসাভাসা (লেখাটা উপরি উপরি দেখেছি)
উপরি-উপরি২ একটার উপর একটা (বইগুলি উপরি উপরি রাখা আছে)
উপরি-উপরি /উপর্যুপরি৩ একটানা, ক্রমান্বয়ে (উপর্যুপরি তিনবার তারা জিতল)
উপরে ওঠা কর্মস্থলে উন্নতি করা
উপরোধ-অনুরোধ সনির্বন্ধ অনুরোধ
উপরোধে ঢেঁকি গেলা অনুরোধে অনিচ্ছাসত্বেও কাজ করা
উপসর্গ নানা লক্ষণ (রোগের উপসর্গ)
উপায়১ কৌশল, পন্থা (এই সমস্যা সমাধানের একটা উপায় খুঁজে বার করতে হবে)
উপায়২ আয় রোজগার, লাভ (সে ভালোই উপায় করে)
উপায়ন্তর অন্য উপায় (উপায়ন্তর নে দেখে সে দেশ ছাড়লো); সমার্থক বাগধারা- গত্যন্তর
উপুড়হস্ত অকৃপণ,উদার,দানশীল,বদান্য (সাহায্যের ব্যাপারে সে সর্বদাই উপুড়হস্ত)
উপোসী ছারপোকা অভাবগ্রস্ত লোক
উভয়সঙ্কট দুইদিকেই বিপদ; স্বীকারে অস্বীকারে দুটানায়
উমদা চমৎকার, উপাদেয় (খাদ্য), পছন্দসই, মূল্যবান, সুন্দর (ভাইফোঁটায় দিতে বোনের জন্য ভাই একটা উমদা জিনিস কিনেছে)
উমেদারি কিছু (মূলতঃ চাকরি) পাওয়ার আশায় কারো ভজনা করা (চাকরির উমেদারি আমার পোষাবে না)
উলটপালট১ পরিবর্তন (কথার উলট-পালট যেন না হয়); সমার্থক বাগধারা- অদল-অদল, নড়চড়, হেরফের ইত্যাদি
উলটপালট২ বিশৃঙ্খল অবস্থা, স্বাভাবিক অবস্থার বিপরীত (ঘরের সবকিছু উলট-পালট হয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- এলোমেলো
উলটপালট৩ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে (উলটে পালটে জিনিষটা দেখ)
উলুখাগড়া নিরীহ প্রজা, অকিঞ্চিৎকর লোক (রাজায় রাজায় যুদ্ধ হয়, উলুখাগড়ার প্রাণ যায়- প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- আদার ব্যাপারী, এ-ও-সে, চুনোপুঁটি ইত্যাদি
উলুবনে মুক্তা ছড়ানো অপাত্রে/অস্থানে মহার্ঘবস্তু দান
উলেমা মুসলমান পণ্ডিতগণ
উল্কাপাত বিখ্যাত ব্যক্তির মৃত্যু
উল্কাবেগ উল্কাপতনের মত অতি তীব্রবেগ (কোবিদ জীবাণু উল্কাবেগে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে); সমার্থক বাগধারা- বিদ্যুৎগতি, রকেটগতি
উল্কামুখী১ সদাক্রুদ্ধ নারী
উল্কামুখী২ খেঁকশিয়ালী- মেয়েলি গালিবিশেষ
উল্টা বুঝলি রাম বিপরীত বুদ্ধিবিশিষ্ট; ভালোকথার কদর্থ করা; সদুপদেশের মন্দব্যাখ্যা
উল্টানো১ অস্বীকার/প্রত্যাহার করা (কথা উল্টিও না)
উল্টানো২ পরিবর্তন করা (পাতা উল্টিয়ে যাও)
উল্টানো৩ ভাবের পরিবর্তন করা (একদিন সবাই চোখ উল্টাবে)
উল্টাপাল্টা কথা অসঙ্গত/যুক্তিহীন কথা; কথার নড়চড়/খেলাপ
উল্টিপাল্টি১ গড়াগড়ি দিয়ে (মাটিতে উল্টিপাল্টি খাচ্ছে/দিচ্ছে)
উল্টিপাল্টি২ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে (জামাগুলি উল্টিপাল্টি পর)
উল্টিপাল্টি৩ তন্নতন্ন করে (উল্টিপাল্টি খুঁজেছি কোথাও পেলাম না)
উল্টে চোরা মশান গায় উলটে চোর পুলিশকেই চোখ রাঙায়; চোর নিষ্কৃতি লাভের জন্য সাধুকে চোর বলে
উলটো ঢেকুর কৌতুকে- বাতকর্ম
উল্টোপুরাণ উলটো কাহিনী
উল্টো বিপত্তি ভাল না হয়ে খারাপ; হিতে বিপরীত;
উল্লুক অভদ্র, নির্বোধ- গালিবিশেষ
উশখুশ/উসখুস অধিরতা, অস্বস্তিভাব (অত উশখুশ করছ কেন চুপ করে বস)
উশখুশ/উসখুস করা কিছু করার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়া (চলে যাবার জন্য উশখুশ করছে)
উশকোখুশকো/উস্কখুস্ক/উসকোখুসকো রুক্ষ ও অবিন্যস্ত, এলোমেলো, নিরস, কর্কশ (উশকোখুশকো চুল)
উশুল আদায় (কিছু উশুল করে ছাড়ব)
উষ্ট্রকণ্টকভোজনন্যায় অল্পসুখের জন্য বেশিকষ্ট স্বীকার
উস্তম পুস্তম/ফুস্তম করা উত্যক্ত করা, বিরক্ত করা

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঊনকোটি চৌষট্টি অসংখ্য, গুণে শেষ করা যাবেনা
ঊনকোটি চৌষট্টি দেবতা অসংখ্য দেবতা, ত্রেত্রিশ কোটি দেবতা, সব দেবতা
ঊনকোটি চৌষট্টি ব্যঞ্জন রান্না আয়োজনের কোন ত্রটি নেই; হেন পদ নেই যেটা বাদ পড়েছে
ঊনপঞ্চাশ বায়ু পাগলামি
ঊনপাঁজুরে দুর্বল, মন্দভাগ্য অলক্ষণযুক্ত লোক
ঊনপাঁজুরে বরাখুরে লক্ষ্মীছাড়া, হতভাগা- গালি (ঊনপাঁজুরে বরাখুরে তোর মরণ হওয় না)
ঊনিশ-বিশ প্রায় সমান, সামান্য পার্থক্য (মুখে মধু অন্তরে বিষ, তুমি আমি ঊনিশ বিশ; সমার্থক বাগধারা- ইতর বিশেষ
ঊর্ধ্বচারী কল্পনাপ্রবণ, কল্পনার জগতে বাস করে এমন; সমার্থক বাগধারা- আকাশবিহারী, গগনচারী/বিহারী
ঊর্ধ্বতন উচ্চতর পদে অধিষ্ঠিত, উপরওয়ালা (ঊর্ধ্বতন কর্মচারী)
ঊর্ধ্বদৃষ্টি উদাসীন (কিছু বললেই ঊর্ধ্বদৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে); সমার্শক বাগধারা- শিবনেত্র
ঊর্ধ্বশ্বাসে অতিশয় দ্রুতবেগে, তীব্র গতিতে, দ্রুতলয়ে (ঊর্ধ্বশ্বাসে ছুটে পালালো)
ঊর্মিমালী সমুদ্র

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঋণচোর যে কখনো ঋণ শোধ করে না
ঋণ-ছ্যাচড়া টাকা থাকতেও যে ঋণ শোধ করে না
ঋণজাল দেনার দায় (মেয়ের বিয়ে দিয়ে ঋণজালে জড়িয়ে পড়েছি)
ঋতুপর্ণা পর্ণমোচী বৃক্ষ, পাতাঝরা গাছপালা
ঋতুরাজ বসন্তকাল
ঋপু শত্রু
ঋষিশ্রাদ্ধ যে ক্রিয়ার আরম্ভ আড়ম্বরপূর্ণ এবং ফল অকিঞ্চিৎকর

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
এঁচড়ে পাকা অকাল পক্ক, ডেঁপো, ফাজিল
এঁটুলি গায়ে আঠার মত লেগে থাকা লোক
এঁটে ওঠা সমকক্ষ হওয়া; সমানে পাল্লা নিতে পারা (তুমি ওর সাথে এঁটে উঠতে পারবে না)
এঁটে যাওয়া ধরা, সঙ্কুলান হওয়া (যা লোক হ'বে এই ঘরে এঁটে যাবে)
এঁটো-কাঁটা ভুক্তাবশিষ্ট, খাওয়ার পর পাতে পড়ে থাকা অবশিষ্ট খাদ্য
এঁটোকাঁটার বিচার ছোঁয়াছুঁয়ির বিচার (বাইরে বেড়াতে গেলে এঁটোকাঁটার বিচার চলে না)
এঁটোখেকো/পাত উচ্ছিষ্টভোগী যে পাত কুড়িয়ে খায়; পরমুখাপেক্ষী, পরান্নভোজী, হীনভাবে বেঁচে থাকা লোক- গালিবিশেষ (এঁটোপাত কখনো স্বর্গে যায় না- প্রবাদ)
এঁটুলি পোকা নাছোড়বান্দা, রক্তচোষা (এঁটুলি পোকা মত পিছনে লেগে আছে); সমার্থক বাগধারা- চিনা/চিনে/ছিনা/ছিনে জোঁক
এঁড় (অণ্ডকোষ) কাটা পুরুষত্বহীন- গালিবিশেষ
এঁড়ে গরুর দুধ অসম্ভব বস্তু, অলীক কল্পনা, যা কখনো হয় না; সমার্থক বাগধারা- অশ্বডিম্ব, আঁটকুড়ের ব্যাটা, আকাশকুসুম, কাঠালের আমস্বত্ব, ঘোড়ার ডিম, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
এঁড়ে গলা/ডাক ষাড়েঁর মত বিকট কণ্ঠস্বর (এঁড়ে গলায় গান ধরেছে)
এঁড়েতর্ক যুক্তিহীন তর্কবিতর্ক; একগুঁয়ে লোকের যুক্তিহীন তর্ক
এঁড়ে তেল দেওয়া চাটুবাক্যে তৃপ্ত করা, তোষামোদ করা (এঁড়ে তেল দিয়ে কাজটা বাগিয়ে নিলে)
এঁড়ে লাগা শিশুদের রোগবিশেষ
এঁড়ে ষণ্ড/ষাঁড়১ প্রশংসায়- তেজস্বী শিষ্ঠ শীল পুরুষ
এঁড়ে ষণ্ড ষাঁড়২ নিন্দায়- একরোখা কান্ডজ্ঞানহীন লোক; সমার্থক বাগধারা- গোঁয়ার গোবিন্দ
এঁদো১ বৃক্ষলতাদিচ্ছন্ন অন্ধকারময়, আলো ঢোকে না এমন (এঁদো গলি, এঁদো বাড়ি)
এঁদো২ নোংরা ও পঙ্কিল (এঁদো পুকুরে ডুবে মরা- প্রবাদ)
এ-ও-তা অপ্রাসঙ্গিক কথা, নানা বিষয়/প্রসঙ্গ, যা তা ব্যাপার; সমার্থক বাগধারা- আজেবাজে, আবোলতাবোল
এ-ও-সে একথা-সেকথা; এটা সেটা, ছো্টখাটো বিষয়; নগণ্য ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- আদার ব্যাপারী, উলুখাগড়া, চুনোপুঁটি ইত্যাদি
এক অঙ্গ অভিন্ন অঙ্গ (এক অঙ্গে এত রূপ)
এক আঁচড়ে বোঝা একটুখানি দেখে বুঝে ফেলা
এক আকাশে দুই সূর্য প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী
এক আধটা একটা বড়জোর দুটো (এক-আধটা সুযোগ আমাকে দাও)
এক আধটু একটু-আধটু, কিঞ্চিৎ, বেশি নয়, মোটামুটি রকম (একট-আধটু নেশাভাঙ করে)
এক আধদিন কখনো সখনো, কদাচিৎ, কোনদিন, কোনসময় (এক আধদিন ভুল হয়ে যায়); সমার্থক বাগধারা- মাঝে মাঝে
এক আধবার কচিৎ, কখনো (এক-আধবার সে এখানে এসে উপস্থিত হয়)
এক-এক/ একেক১ অনিয়মিত, কোন-কোন (একেক দিন কলে জল আসে না)
এক-এক/একেক২ নানাপ্রকার, ভিন্নভিন্ন (একেক দেশে একেক নিয়ম; সে একেক সময়ে একেক কথা বলে)
এক-এক/একেক৩ প্রত্যেক, বিশেষ-বিশেষ (তার একেক ছেলে একেক রত্ন)
এক-এক পরপর, পর্যায়ক্রমে, (এক এক করে এসে প্রাপ্য নিয়ে যাও); সমার্থক বাগধারা- একে একে
এককড়া তুচ্ছ/সামান্য পরিমাণ (ঘটে এক কড়া বুদ্ধি নেই); সমার্থক বাগধারা- একটু, একটুকু, একটুখানি, একটু-আধটু
এককথা অপরিবর্তনীয় কথা (এককথার মানুষ)
এককথার মানুষ কথা রাখে, কথার নড়চড় হয় না এমন (আমি এককথার মানুষ, কথা দিলে কথা রাখি)
এক করা মিলিত করা (বিভক্ত জাতিকের এক করার কেউ নেই)
এক কলসি দুধে এক ফোঁটা চোনা একদোষে সবগুণ নষ্ট; এমন উৎকট মন্দ জিনিস যার অত্যল্প পরিমাণ প্রচুর ভালো জিনিস নষ্ট করতে পারে; সব ভাল আচরণ করে একটু কু-ব্যবহারে নিন্দার্হ; সুসম্পন্ন কাজের শেষরক্ষা না হওয়া
এক কলসির জল একগোষ্ঠীভূক্ত, একই গুণের গুণী, সমগোত্রীয়; সমার্থক বাগধারা- এককুঁয়োর ব্যাঙ; একগাছের ছাল; একগাঙের চিল; একগোয়ালের গরু; একগোলার ধান; একঘাটের জল; এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি ইত্যাদি
এককাঁড়ি রাশি, স্তুপ (ডাক্তারের পিছনে এককাঁড়ি টাকা খরচ হয়ে গেল)
এককাট্টা এক উদ্দেশ্যেসাধনে/যুক্তিতে একতাবদ্ধ, দলবদ্ধ, সংঘবদ্ধ, সংহত (পাওনা-গণ্ডার ব্যাপারে সবাই এককাট্টা); সমার্থক বাগধারা- একজোট
এককাঠি সরেস নিন্দার্থে- অন্যব্যক্তি থেকে তুলনায় একটু উপরে (তুমি দেখছি এককাঠি সরেস)
এককালীন একবারের মত (এককালীন বরাদ্ধ)
এককালে কোন একসময়ে (এককালে কোলকাতায় ঘোড়ায় ট্রাম টানত)
একক্ষুরে মাথা কামানো/মুড়ানো একগোত্রীয়, একগোষ্ঠীভূক্ত; সমপ্রকৃতিসম্পন্ন, একপ্রকার দোষে দুষ্ট (উৎস- পূর্বে দোষীদের মস্তকমুন্ডন করা হ'ত)
এককুঁয়োর ব্যাঙ // এক গাঙের চিল // একগাছের ছাল একগোষ্ঠীভূক্ত, একই গুণের গুণী, সমগোত্রীয়; সমার্থক বাগধারা- এককলসির জল; একঘাটের জল; এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি ইত্যাদি
এককান একজন যা শুনেছে (এককান দুকান হয়ে সবাই শুনেছে)
একখান/খানা একখণ্ড/টুকরা ('একখান কথা কই কই, কয়দিন আর ঘুরাবা'-গান)
একগলা গলা পর্যন্ত ডোবে এমন, গলা-প্রমাণ (একগলা জল)
একগা সর্বাঙ্গ ভর্তি (একগা গয়না))
একগাছা লম্বা একখানা কোন কিছু (একগাছা লাঠি নিয়ে এসেছি)
একগাছি লম্বা ও সরু কোন কিছু (মাথায় একগাছিও চুল নেই)
একগাদা প্রচুর, রাশিরাশি, স্তুপিকৃত (ঘরে একগাদা ময়লা জমেছে)
একগাল গালভরা
একগাল মাছি মহাবিব্রত (ভুলটা ধরিয়ে দিতে তার একগাল মাছি)
একগাল ভাত মুখ ভর্তি ভাত
একগাল হাসি গালভরা হাসি, মন খুলে হাসি
একগুঁয়ে অবাধ্য, জেদী, দুর্দমনীয়, যে বাধানিষেধ মানে না (বড় একগুঁয়ে ছেলে); সমার্থক বাগধারা- একরোখা, একবগগা, নাছোড়বান্দা, নেই আঁকড়া ইত্যাদি
এক গুরুর শিষ্য বিদ্রুপে- সমান দুষ্ট (কার দোষ কার গুণ বলবো, ওরা সবাই এক গুরুর শিষ্য); সমার্থক বাগধারা- এক গোয়ালের গরু, এক বোতলের বন্ধু ইত্যাদি
একগোছা/গুচ্ছ একআঁটি, গণনাযোগ্য কিছু বস্তুর সমষ্টি (একগোছা ধানের শীষ)
একগোয়ালের গরু // একগোলার ধান তুচ্ছার্থে- একদলভুক্ত, একই গুণের গুণী, সমগোত্রীয়; সমার্থক বাগধারা- এককলসির জল; একঘাটের জল; এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি ইত্যাদি
একঘর ঘর ভর্তি (একঘর আসবাবপত্র/লোক)
একঘরে১ জাতিচ্যুত, সমাজচ্যুত (অধুনালুপ্ত প্রথা)
একঘরে২ সকলপ্রকার সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত (দলে সে একঘরে হয়ে আছে)
একঘাটে জল খাওয়া সহাবস্থান করা (কড়াশাসনে বাঘে গরুতে একঘাটে জল খায়- প্রবাদ)
একঘাটের জল একই গুণসম্পন্ন, সমগোত্রীয়; সমার্থক বাগধারা- এককলসির জল; এককুঁয়োর ব্যাঙ, এক গাঙের চিল, একগাছের ছাল; এক জলাশয়ের মাছ, আক ঝাঁকের কই, এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি ইত্যাদি
একঘেয়ে নতুনত্ববর্জিত, বৈচিত্রহীন, সবসময় একরকম (একঘেয়ে সুর)
একচক্ষু কানা (এক একচক্ষু হরিণ সতত নদীর তীরে চড়িয়া বেড়াইত- কথামালা)
একচক্ষু হরিণ অপরিণামদর্শী, একদেশদর্শী; সমার্থক বাগধারা- কাজীর বিচার, মাকড় মারলে ধোকড় হয়, সামনে ছুঁচ গলেনা পিছনে হাতি গলে ইত্যাদি
একচিত্ অনন্যচিত্ত, এক বিষয়ে নিবিষ্টমনা, একাগ্র
একচুল অতি সুক্ষ্ম পরিমাণ, একগাছি চুল পরিমাণ, একচুলের বিস্তার, লেশমাত্র (একচুল তফাৎ; একচুল নড়ে না ইত্যাদি)
একচেটিয়া/ একচেটে একায়ত্ত, সম্পূর্ণ একের অধীন (একচেটিয়া আধিপত্য; দলে একচেটে অধিকার কায়েম)
একচোখা/ একচোখামি/ একচোখো একদিকে দৃষ্টিনিবিদ্ধ, কানা, পক্ষপাতদুষ্ট, কোন বিষয়ে পক্ষপাতিত্ব (একচোখো বিচার)
একচোট একদফায় প্রচুর, চুটিয়ে (একচোট খেয়ে নিলুম; একচোট বলা; দুই বন্ধুর মধ্যে একচোট ঝগড়া হল)
একচোট বলা মর্মে আঘাত দিয়ে বলা (সুযোগ বুঝে আমাকে একচোট বলে গেল)
একচ্ছত্র একাধিপত্য, নিরঙ্কুশ ক্ষমতার অধিকারী (দলে একছত্র অধিকার কায়েম হয়েছে)
একছুট১ চোঁ চাঁ/টানা দৌড় (একছুটে পগার পার)
একছুট২ একবস্ত্র (একছুটে ঘর থেকে বেড়িয়ে এলেন)
একজন অনির্দিষ্ট এক ব্যক্তি (সকালে একজন তোমার খোঁজ করছিলেন)
একজন হয়ে উঠা গণ্যমান্য লোক হওয়া (একদিন তোমার ছেলে সমাজের একজন অবশ্যই হবে)
এক জলাশয়ের মাছ // এক ঝাঁকের কৈ একদল/শ্রেণিভুক্ত, একই গুণসম্পন্ন; সমার্থক বাগধারা- এককলসির জল; এককুঁয়োর ব্যাঙ, এক গাঙের চিল, একগাছের ছাল; এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি ইত্যাদি
একজোট সংঘবদ্ধ (স্বার্থের কারণে একজোট হয়েছে); সমার্থক বাগধারা- এককাট্টা
একটা কিছু১ অজানা কিন্তু অস্তিত্বহীন নয়; অজ্ঞাত, কিন্তু আছে (এখানে একটা কিছু গোলমাল আছে)
একটা কিছু২ সুবিধামত কোন কিছু (স্থির হয়ে বসে না থেকে একটা কিছু কর)
একটা দুটো কয়েকটা ('আমরা দুটি ভাই শিবের গাজন গাই একটি দুটি পয়সা পেলে মুড়কি কিনে খাই')
একটানা অবিরাম, অবিশ্রান্ত (সারাদিন ধরে একটানা বৃষ্টি হয়ে চলেছে)
একটু-আধটু অল্পবিস্তর, উপরউপর, কিছুকিছু, ভাসাভাসা, সামান্যপরিমাণ (এই বিষয়ে আমার একটু-আধটু জানা আছে); সমার্থক বাগধারা- একটু, একটুকু, একটুখানি
একটু/একটুকু অতি অল্প পরিমাণ (একটুতেই ভেঙ্গে পড়ে; 'একটুকু ছোঁয়া লাগে একটুকু কথা শুনি'- রবীন্দ্রনাথ)
একঠাঁই এক জায়গায় মিলিত ('দুটি প্রাণ এক ঠাঁই'- রবীন্দ্রনাথ)
একডাকে চেনা নাম উচ্চারণমাত্র চিনতে পারা (একডাকে সবাই তাকে চেনে)
একডাকের পথ অনতিদূর, খুব অল্প পথ
একঢিলে দুইপাখি মারা এক প্রচেষ্টায় দুই উদ্দেশ্যসাধন করা
একতরফা কেবল একপক্ষ বিবেচনা করে কৃত; পক্ষপাতদুষ্ট (একতরফা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে)
একতা ঐক্য, মিলন, সম্মিলিত শক্তি (একতাই বল)
একতান এক সুরে বাঁধা, ঐক্যতান (একসুর, একতান)
একতিয়ার/ এক্তিয়ার অধিকার, ক্ষমতা (বিষয়টা আমার এক্তিয়ারে নেই)
একতিল অত্যল্প পরিমাণ, তিলমাত্র পরিমাণ (দাঁড়াবার মত একতিল জায়গা নেই); আমি তাকে একতিলও বিশ্বাস করি না)
একতুড়িতে অনায়াসে, মূহুর্তের মধ্যে (একতুড়িতে সমাস্যার সমাধান করে দিলো)
একদন্তী গনেশ
একদম পুরোপুরি, মোটেই, সম্পূর্ণরূপে (একদম ভালো লাগেনি); সমার্থক বাগধারা- একেবারেই
একদমা একেবার আওয়াজ করে থেমে যায় (একদমা পটকা/বোমা)
একদমে / এক নিশ্বাসে নিশ্বাস না ফেলে, নিমেষের মধ্যে (একদমে পৌঁছে যাব)
একদিন১ একবার, চূড়ান্ত নিস্পত্তির দিন (চোরের দশদিন, সাধুর একদিন- প্রবাদ)
একদিন২ কখনো, কোনদিন (একদিন সবাই সব ফেলে চলে যাবে)
একদিন৩ অশুভ দিন (আজ তোমার একদিন কি আমার একদিন)
একদিন শয়তান, সবদিন শয়তান মানুষ অভ্যাসের দাস; যার যা স্বভাব (স্বভাব যায় না মলে- প্রবাদ)
একদৃষ্টি অনিমেষ/অপলক দৃষ্টি, স্থিরনেত্র (একদৃষ্টে আমার দিকে তাকিয়ে আছে)
একদেশদর্শী পক্ষপাতী, পূর্বাপর বিচার করে না, সঙ্কীর্ণমনা (একদেশদর্শী চিন্তাভাবনা); সমার্থক বাগধারা- একপেশে
একনজরে একবার বা ক্ষণেক দেখেই; পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে না দেখে
একনলা একগ্রাসে যতটুকু খাবার মুখে ঢোকে (একনলা ভাত)
একনাগাড়ে অবিরাম (একনাগাড়ে বকে চলেছে)
এক নিমেষে মুহূর্তের মধ্যে (এক নিমেষে ঘটনাটা ঘটে গেল)
এক নিঃশ্বাসে দ্রুত,খুব সংক্ষেপে (এক নিঃশ্বাসে কাজ শেষ)
একপা যাওয়া অল্পদূর যাওয়া (বুদ্ধিমান এক পা দিয়ে একবার থামে)
একপায়ে খাড়া অত্যন্ত আগ্রহী, উদগ্রীব, দেরি সয় না, ব্যগ্র, সর্বদা প্রস্তুত (যাওয়ার জন্য সবাই একপায়ে খাড়া)
এক পালকের পাখি, একবাগানের ফুল/মালি একদল/শ্রেণিভুক্ত, একই গুণসম্পন্ন; সমার্থক বাগধারা- এককলসির জল; এককুঁয়োর ব্যাঙ, এক গাঙের চিল, একগাছের ছাল, এক জলাশয়ের মাছ , এক ঝাঁকের কৈ ইত্যাদি
একপেট ভরা পেট (একপেট খেয়েছি)
একপেশে পক্ষপাতী, পক্ষপাতদুষ্ট (একপেশে সিদ্ধান্ত); সমার্থক বাগধারা- একতরফা, একদেশদর্শী
একপ্রস্থ১ একদফা (একপ্রস্থ ঝগড়া হয়ে গেল)
একপ্রস্থ২ এক সেট (একপ্রস্থ জামাকাপড় নিও)
একফালা/ফালি লম্বালম্বিভাবে কাটা একখণ্ড
একবগ্গা/বর্গা অবাধ্য, জেদী, তেজস্বী, দুর্দমনীয় (বড় একবজ্ঞা ছেলে); সমার্থক বাগধারা- একরোখা, একগুঁয়ে, নাছোড়বান্দা, নেই আঁকড়া ইত্যাদি
একবনে দুইবাঘ প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী
একবনের শিয়াল এক দলভুক্ত
একবর্ণ কিছুমাত্র (কি বলছ একবর্ণও বুঝতে পারলাম না)
একবস্ত্রে কিছুমাত্র প্রস্তুতি না নিয়ে, যে কাপড় পরা ছিল সেই কাপড়ে, শুধু ধুতি পরে (একবস্ত্রে বাড়ী ছেড়ে চলে গেল)
একবাক্যে বিনা প্রতিবাদে, সমস্বরে, সর্বসম্মতিক্রমে (একবাক্যে সবাই প্রস্তাবটা মেনে নিল)
একবারে১ সম্পূর্ণভাবে (চিন্তায় চিন্তার সে একেবারে ম্রিয়মাণ)
একবারে২ স্বত্বত্যাগ করে (বইটা তোমাকে পড়তে চিয়েছি একবারে দিইনি)
একবোতলের বন্ধু এক দলভুক্ত (মন্দ অর্থে), প্রগাঢ় বন্ধুত্ব; সমার্থক বাগধারা- এক সানকির ইয়ার
একমাঘে শীত যায় না বিপদ একবারই আসে না
একমুখে দুইকথা দুইরকম কথা
একমেটে কোন কাজে প্রথম হস্তক্ষেপ; কোন কাজ অংশত শেষ
একমেবামাদ্বিতীয়ম তুলনারহিত; সমার্থক বাগধারা- একাই একশ
একযাত্রায় পৃথক ফল একই কাজের ফল কারো ভাল হয় কারো মন্দ হতে পারে
একযোগে দলবদ্ধভাবে, সম্মিলিতভাবে, সমস্বরে (একযোগে সবাই প্রতিবাদ করছি)
একরত্তি১ অত্যল্প পরিমাণ (একরত্তি ছাই- রবীন্দ্রনাথ
একরত্তি২ অতি শিশু, খুব ছোট (একরত্তি মেয়ে)
একরত্তি সোনা, স্যাঁকরা হাজার জনা অল্পবিষয়ের বহু প্রার্থী
একরার কবুল, স্বীকার
একরারনামা যে উক্তি দ্বারা দোষ স্বীকার করা হয়; সমার্থক বাগধারা- স্বীকারোক্তি
একরাশ প্রচুর পরিমাণ, স্তুপ (একরাশ কাজ পড়ে রয়েছে)
একরোকা/রোখা অবাধ্য, জেদী, তেজস্বী (একরোখা মেজাজ); সমার্থক বাগধারা- একগুঁয়ে, একবগগা, নাছোড়বান্দা, নেই আঁকড়া ইত্যাদি
একলপ্ত অখণ্ড, ভাগাভাগি নয়, লাগালাগি (শুরুতেই মাসের খোরাকি একলপ্তে দেওয়া হবে)
একলশেড়ে অসামাজিক, একা থাকতে ভালোবাসে এমন, সব একাই ভোগ করতে চায় এমন, ঘোর স্বার্থপর (ব্যাটা একলষেঁড়ে কারো সাথে মেশে না);
একলা-দোকলা কখনো একজন কখনো দুজন (একলা-দোকলা চলা যায় না)
একলাঠিতে সাত সাপ মারা এক উপায়ে অনেক কাজ হাসিল করা
একশেষ চরম, চুড়ান্ত (অপমানের একশেষ; হয়রানির একশেষ)
একসা একত্র; মিলিত; মিশ্রিত, একাকার (বৃষ্টির জলে ভিজে সবকিছু একসা)
এক সানকির ইয়ার এক দলভুক্ত, প্রগাঢ় বন্ধুত্ব; সমার্থক বাগধারা- এক বোতলের বন্ধু (মন্দ অর্থে)
একহাঁটু হাঁটু পর্যন্ত উঁচু (একহাঁটু জল)
একহাত নেওয়া অপ্রীতিকর কথা শুনানো; পরিহাসছলে ঘা দিয়ে ঠিক কথা বলা; পূর্ব শত্রুতার প্রতিশোধ নেওয়া; সমার্থক বাগধারা- দাদ তোলা
একহাতে একাকী, অন্যের সাহায্যবিনা (আমাকেই একহাতে সব কাজ করতে হয়)
একহারা রোগা-পাতলা ও লম্বা, (একহারা চেহারা); সমার্থক বাগধারা- ছিপছিপে
একহালি সংখ্যায় চার (একহালি ডিম)
একাই একশ অসাধারণ কুশলী/শক্তি (গিন্নি আমার দশভুজা, একাই একশ)
একা একা একাকী, নিঃসঙ্গ ('না পেয়ে তোমার দেখা, একা একা দিন যে আমার কাটে না রে'- রবীন্দ্রনাথ)
একাকার সর্বত্র সমান আকার (এলাকাটা জলে জলে একাকার)
একাগ্রচিত্ত অনন্যচিত্ত, একচিত্ত, এক বিষয়ে নিবিষ্টমনা
একা ঘরের গিন্নি পূর্ণকর্তৃত্ব; সমার্থক বাগধারা- একেশ্বরী
একাদশে বৃহস্পতি চরমসৌভাগ্য (একাদশে তোমার বৃহস্পতি তোমাকে আর পায় কে?) সমার্থক বাগধারা- তুঙ্গে বৃহস্পতি
একাধারে যুগপদ (একাধারে সম্পাদক ও প্রকাশক)
একান ওকান করা গোপন কথা রটনা করা
একান্ন একসাথে আহার করে এমন, ভাতৃপ্রভৃতি যাদের অন্ন অভিন্ন
একান্নবর্তী পরিবার একই গৃহস্থালির অন্তর্ভুক্ত পরিবার, যৌথপরিবার
একান্ত নিতান্ত (একান্ত প্রয়োজন হলে তোমার সাহায্য নেব)
একান্তপক্ষে নিতান্তই যদি (একান্তই যদি যাও তবে আমাকে ডেকো)
একান্তে অন্যের অগোচরে, গোপনে (একান্তে তোমার সাথে কিছু কথা আছে); সমার্থক বাগধারা- জনান্তিকে
একাহারী দিন-রাতে একবারমাত্র ভোজনকারী (সাধুরা একাহারী হন)
একিন দৃঢ় প্রত্যয়/বিশ্বাস (একিনই হচ্ছে না তুমি একথা বলেছ)
একুনে মোটহিসাবে, সর্বসমেত (একুনে কতজন নিমন্ত্রিত?); সমার্থক বাগধারা- মোটমাট, সাকুল্যে
একুল-ওকুল শ্বশুরকুল ও পিতৃকুল (মেয়েটির একুল ওকুল দুকুল গেছে)
একূল-ওকূল১ নদীর দুই পার (নদীর একূল ভাঙে ওকূল গড়ে এইতো নদীর খেলা)
একূল-ওকূল২ ইহকাল ও পরকাল
একূল ওকূল দুকূল যাওয়া/হারানো১ সব আশ্রয় হারানো (এ কূল ও কূল দুকূল গেল, অকূল পারে গোকুল- প্রবাদ)
একূল ওকূল দুকূল যাওয়া/হারানো২ সব হারানোর ব্যাথা (হৃদয়ের একূল ওকূল দুকূল ভেসে যায়, হায় সজনি উথলে নয়নবারি'-রবীন্দ্রনাথ)
একে একে পরপর (একে একে সবাইকে হারালাম); সমার্থক বাগধারা- এক এক৩
একে চায় আরে পায় না চাওয়া মনোমত জিনিস পেয়ে আনন্দে উৎফুল্ল
একেবারে এককালে, হঠাৎ (একবারে অতটা ভার সইবে নয়া)
একেবারেই পুরোপুরি, সম্পূর্ণভাবে (একেবারেই না); সমার্থক বাগধারা- একদম
একেশ্বরী পূর্ণকর্তৃত্বসম্পন্না একমাত্র গৃহিণী; সমার্থক বাগধারা- একা ঘরের গিন্নি
একোদিষ্ট মৃতব্যক্তির উদ্দেশে কৃৎ বাৎসরিক শ্রাদ্ধ
এক্কাগাড়ী এক ঘোড়ায় টানা দুই চাকার গাড়ী
এক্কা-দোক্কা ভাঙা মাটির হাঁড়ি বা কাচের টুকরা ইত্যাদি নিয়ে মাটিতে কাটা ছয়ঘরের মেয়েদের খেলা
এক্তিয়ার অধিকার, ক্ষমতা (বিষয়টা আমার এক্তিয়ারে পড়ে না)
এখনকার মত আজকের মত, আপাততঃ (এখনকার মত কাজ শেষ)
এখানকার মাটি ওখানে/এখানের মাটি ওখানে ধান্ধাবাজী
এখন-তখন অবস্থা প্রতিমুহূর্তে মৃত্যুর আশঙ্কা; মূমুর্ষু অবস্থাপ্রাপ্ত; সমার্থক বাগধারা- যায় যায় অবস্থা
এখানে সেখানে ইতস্ততঃ, এদিকে-ওদিকে, চারিদিকে (এখানে সেখানে ঘুরে বেড়ায়) সমার্থক বাগধারা- যত্রতত্র
এগুলে রাম পিছুলে রাবণ // এগুলে সর্বনাশ পিছুলে নির্বংশ উভয়সঙ্কট; সমার্থক বাগধারা- শাঁখের করাত, যেতে কাটে আসতেও কাটে; জলে কুমীর ডাঙায় বাঘ; শ্যাম রাখি না কুল রাখি; সাপের ছুঁচো গেলা ইত্যাদি
এজমালি একাধিকজনের অধিকারভুক্ত, যৌথ (এজমালি সম্পত্তি)
এজলাস বিচারাসন (প্রয়োজনে হাইকোর্টের এজলাসে যাব)
এজাহার কোন ফোজদারী মামলা সম্পর্কে থানায় প্রদত্ত বিবৃতি বা লিখিত অভিযোগ, স্বাক্ষীর উক্তি (আপনার এজাহার কী?)
এটা-ওটা-্সেটা অপ্রয়োজনীয় কতকগুলি
এটা-নয়-সেটা/এটাসেটা টুকটাক কতকগুলি
এড়া কাজে বেড়া জটিল কাজে বিপত্তি লেগেই থাকে
এড়ে দিয়ে তেড়ে ধরা ছেড়ে দেওয়া সুযোগ ফিরে পাওয়ার নিস্ফল প্রচেষ্টা
এণ্ডা বাচ্চা ছোট ছোট ছেলেনেয়ে
এণ্ডায় গণ্ডায় গোঁজামিল দিয়ে, ফাঁকি দিয়ে, সুরে সুর মিলিয়ে
এত এত প্রচুর পরিমাণে, রাশি রাশি ('এত এত ভালোবাসা মিছে অভিনয় আসলেই পৃথিবীতে কেউ কারো নয়'-লঘুগীতি)
এতিম পিতৃমাতৃহীন অনাথ বালক-বালিকা (আমি এতিমখানায় মানুষ হয়েছি)
এত্তেলা খবর, তলব, নোটিশ (মালিক এত্তেলা পাঠিয়েছেন)
এদিক-ওদিক১ ইতস্ততঃ (এদিক-ওদিক করছো কেন?)
এদিক-ওদিক২ চতুর্দিক (এদিক-ওদিক থেকে খবর পাচ্ছি)
এদিক-ওদিক৩ ত্রুটি (হিসাবে সামান্য এদিক-ওদিক হয়েছে)
এদিকও না ওদিকও না কিংকর্তব্যবিমূঢ়; সমার্থক বাগধারা- ন যযৌ ন তস্তৌ, স,সে,মি,রা ইত্যাদি
এধার ওধার এদিক ওদিক'এর অনুরূপ
এন্তার অবিরাম, দেদার (এন্তার মিথ্যা কথা বলে চলেছে)
এন্তেকাল মৃত্যু (গতকাল আব্বার এন্তেকাল হয়েছে)
এন্থু উৎসাহ, উদ্যম (ইংরাজী enthusiasm শব্দ থেকে উৎপন্ন শহুরে বাংলা; কাজে কোন এন্থু পাচ্ছি না)
এফোঁড়-ওফেঁড় এক দিক থেকে অন্য দিক পর্যন্ত বিদ্ধ (শিং দিয়ে এফোঁড়-ওফোঁড় করেছে)
এবড়ো-খেবড়ো উঁচু-নিচু, অসমান; বন্ধুর (এবড়ো-খেবড়ো রাস্তায় চলা শক্ত)
এমনি এমনি অপ্রয়োজনে, বিনা কারণে (মা এমনি এমনি তোমায় বকলো?); সমার্থক বাগধারা- শুধু শুধু
এমনি একরকম ভাল নয় মন্দও নয়; মোটামুটি ভালো
এমুড়ো-ওমুড়ো এদিক থেকে ওদিক পর্যন্ত (রাস্তার এমুড়ো-ওমুড়ো খুঁজে বেড়াচ্ছি); সমার্থক বাগধারা- আগাপাস্তলা
এরপর কথা নেই কথা সমাপ্ত
এলাহি কাণ্ড বিরাট আয়োজন। মহা-ধুমধাম (বিয়েবাড়ীতে এলাহি কাণ্ড চলছে); সমার্থক বাগধারা- যজ্ঞ
এলেবেলে গুরুত্বহীন, ধরার বাইরে এমন (এলেবেলে লোকের ভিড় জমেছে)
এলেম দক্ষতা, জ্ঞান, বিদ্যা, বুদ্ধিমত্তা (তোমার কত জানা আছে; তিনি খুব এলেমদার লোক)
এলোপাথাড়ি এখানে সেখানে, ক্রমাগত (এলোপাথাড়ি লাথি ঘুসি চালাচ্ছে)
এলোমেলো নিয়মরহিত, পরিপাটিহীন, বিশৃঙ্খল (এলোমেলো বাতাস বইছে)
এসপার ওসপার/ এসপার-কি-ওসপার/ চরম নিস্পত্তি, চূড়ান্ত মীমাংসা, ভাল বা মন্দ কোন একটী ঘটনা(এবারে একটা এসপার-ওসপার করে ছাড়ব); সমার্থক বাগধারা- হেস্তনেস্ত

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ওই যা গেল যা বিস্ময়জনিতকারণে অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটায় আক্ষেপসূচক উক্তি
ওকালতি কোন কিছুর সমর্থনে অযাচিত মন্তব্য, কারো পক্ষ সমর্থন (তোমাকে কেউ ওকালতি করতে ডাকেনি)
ও কে আচ্ছা, সব ঠিক আছে (ও কে আমি যাব; এদিকে সবকিছু ও কে) )
ওগরানো বাধ্য হয়ে গৃহীত বস্তু ফেরত দেওয়া (আগে টাকা ধার নিয়েছ এখন ওগরাও)
ওজন ক্ষমতা, গুরুত্ব, মর্যাদা
ওজন বুঝে চলা আত্মসম্মান বজায় রাখা (ওজন বুঝে চলতে শেখো)
ওজনদার গুরুত্বপূর্ণ, ক্ষমতা/প্রতিপত্তিশালী (তিনি বেশ ওজনদার ব্যক্তি)
ওজর/ ওজর-আপত্তি ছলনা, যা আসলে কারণ নয় তাকে কারণ বলে চালানো (কোন ওজর-আপত্তি চলবে না, অবশ্যিই আসবে); সমার্থক বাগধারা- অজুহাত
ওঝার ঘাড়ে ভূতের বোঝা উদ্ধারকারী নিজেই বিপদসঙ্কটে
ওঝার ব্যাটা বনগরু পন্ডিতের মহামূর্খ ছেলে
ওটবস/ ওঠাবসা একইসঙ্গে চলাফেরা, সংস্পর্শে আসা (আমি গুণীজনের সাথে ওঠাবসা করি)
ওঠ ছুঁড়ি তোর বিয়ে প্রস্তুতির আগেই হঠাৎ কোনো কাজ করার আহ্বান
ওত পাতা কিছু করার জন্য সুযোগের অপেক্ষায় থাকা
ওপার পরলোক (ওপারের ডাক এসেছে যেতে হবে)
ওয়াকিবহাল অবস্থা সম্পর্কে সম্পূর্ণ জ্ঞাত, অভিজ্ঞ (তেনারা শীতের তকলিফ বাবদে ওয়াফিফহাল- মুজতবা আলী)
ওয়াকুফ জ্ঞান, বুদ্ধি, বিবেচনা; বিপরীত বাগধারা- বেকুব, বেয়াকুফ
ওয়াদা অঙ্গীকার, প্রতিজ্ঞা, ভবিষ্যতে কিছু দেবার প্রতিশ্রুতি (তুমি ওয়াদা করেছিলে আসবে)
ওয়াপস প্রত্যাবর্তন,ফেরত (দেওয়া কথা ওয়াপস করা নেই)
ওয়ারিশ উত্তরাধিকার, বংশধর ( এই সম্পতির কোন ওয়ারিশ নেই)
ওয়াস্তা তোয়াক্কা, ভরসা (সে কারও ওয়াস্তা করে না)
ওয়াস্তে অপেক্ষায়, জন্য, দরুন, নিমিত্তে (আপকা-ওয়াস্তে)
ওরফে অন্যনামে, নামান্তরে (ফাটা-কেষ্টো ওরফে কৃষ্ণচন্দ্র দাস)
ওলটপালট এদিক-ওদিক, বিশৃঙ্খলা (গণ্ডগোলে সব ওলটপালট হয়ে গেছে); সমার্থক বাগধারা- তছনছ, তোলপাড়, বানচাল ইত্যাদি
ওলা-ওঠা কলেরা রোগ
ওষুধ করা বশ করা (বদ মেয়ে ছেলেটাকে ওষুধ করেছে)
ওষুধ দেওয়া শাস্তি দেওয়া, (বদমাইশটাকে কিছু ওষুধ দিতে হবে)
ওষুধে ধরা প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হওয়া
ওষুধ পড়া যথাযোগ্য প্রভাব পড়া; সঠিক ব্যবস্থা নেওয়া (সঠিক ওষুধ পড়লে সব ঠাণ্ডা হবে)
ওষ্টাগত প্রাণ প্রাণ যায় যায় অবস্থা, মুমূর্ষু, মৃতপ্রায়
ওস্তাদ গুরু, শিক্ষক (আজ ওস্তাদে সাকরেদে যেন শক্তির পরিচয়- নজরুল)
ওস্তাদি১ প্রশংসার্থে- কেরামতি, দক্ষতা (ছেলেটির ওস্তাদি স্বীকার করতে হবে)
ওস্তাদি২ নিন্দার্থে- উপর চালাকি, চালবাজী (বেশি ওস্তাদি দেখিয়েও না ধরা পড়ে যাবে)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঔষধ ধরা কাঙ্ক্ষিত ফললাভ
ঔষধ পড়া প্রভাবে পড়া

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ক অক্ষর গোমাংস বর্ণপরিচয়হীন মহামূর্খ ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- আকাট মূর্খ, ক বলতে হ বলে, গণ্ডমূর্খ,হস্তীমূর্খ ইত্যাদি
ক খ না জানা প্রাথমিক তথ্য অজানা (আমি সঙ্গীতের ক খ জানি না)
ক বলতে হ বলে অক্ষর পরিচয় জানে না, এমন মহামূর্খ ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- আকাট মূর্খ, ক অক্ষর গোমাংস, গণ্ডমূর্খ, হস্তীমূর্খ ইত্যাদি
কইয়ে বলিয়ে / বলিয়ে কইয়ে কথা বলায় দক্ষ এমন চৌখশব্যক্তি
কংস মামা নির্মম আত্মীয়; নিকটজনের প্রবল বিদ্বেষী
কংস মামার আদর কৃত্রিম ভালবাসা
কংস রাজার বদ ফরমাশ অন্যায় ও অসম্ভব আদেশ
কইমাছের প্রাণ কড়া জান, কষ্টসহিষ্ণু
কঙ্কণ ভূষণ (কবিকঙ্কণ মুকুন্দরাম)
কঙ্কালসার শরীরে হাড় ছাড়া কিছু নেই (কঙ্কালসার চেহারা)
কচকচি/কচকচানি/কচকচালি কলহ, ঝগড়াঝাটি, তর্কবিতর্ক, বাদানুবাদ ইত্যাদির অনুকার ধ্বনি (আইনের কচকচি; ঢেঁকির কচকচি); সমার্থক বাগধারা- খচখচি
কচকচে কাঁচা ফল,যা চিবালে কচকচ শব্দ করে
কচরকচর/ কচরমচর অনর্থক তর্কবিতর্ক, বচসা, বাদানুবাদ ইত্যাদির অনুকার ধ্বনি (সভায় খুব কচরকচর হচ্ছে)
কচিকাঁচা ছোটছোট ছেলেমেয়ে (এখানে কচিকাঁচার ভিড় লেগেই আছে); সমার্থক বাগধারা- কাচ্চাবাচ্চা
কচি খোকা/খুকি শিশুর মত আচরণকারী বয়স্কব্যক্তি/নারীর প্রতি ব্যঙ্গোক্তি, অপরিণত বয়স্ক পুরুষ/নারী
কচু কিছু না, ফাঁকি, মিথ্যা, শূন্যতাসূচক (দুঃখ না কচু; তুমি আমার কচু করবে); সমার্থক বাগধারা- অষ্টরম্ভা, কচু না ঘেচূ, কলা, কাঁচকলা, ঘোড়ার ডিম ইত্যাদি
কচুকাটা অতি সহজে বিনাশিত, নির্মমভাবে ধ্বংস, নির্মূলিত
কচুঘেঁচু অখাদ্য বস্তু, তুচ্ছ জিনিস, নানারকম আজেবাজে জিনিস
কচুপোড়া অখাদ্য বস্তু, কিছুই না, ফাঁকি, গ্রাম্য অশ্লীল গালিবিশেষ
কচুপোড়া খাও১ ফাঁকি অর্থে- প্রত্যাশা করে বিফল হওয়া; ব্যর্থ হয়ে পড়ে থাকো (খাও তবে কচুপোড়া, খাও তবে ঘণ্টা- সুকুমার রায়)
কচুপোড়া খাও২ অণ্ডকোষ পুড়িয়ে খাওয়া অর্থে- গ্রাম্য অশ্লীল গালিবিশেষ ((কচুপোড়া খাও- বেরুচ্ছি অমনি পিছন থেকে ডাকছে)
কচুবনের কালাচাঁদ অপদার্থ ব্যক্তি, কেতাদুরস্ত জামাকাপড়ে ফিটফাট লম্পটচরিত্রের লোক; সমার্থক বাগধারা- কদমগাছের কানাই, কলির কেষ্ট
কচ্ছপের কামড় নাছোড়বান্দা; যা সহজে ছাড়ে না
কঞ্চিতে বংশলোচন জন্মানো নীচের উচ্চপদ পাওয়া (কঞ্চিতে বংশলোচন জন্মালে কঞ্চি বাঁশের সম্মান পায়)
কটকটিয়া স্পষ্টবক্তা (কটকটিয়া উচিত কথা মুখের উপর বলে)
কটকটে কথা নিরস কথা, গালিগালাজ
কটকটে রঙ উৎকট বা উগ্র রঙ (কটকটে লাল রঙ)
কটমট কোপ-কঠোর, রোষরুক্ষ (কটমট করে তাকিয়ে আছে)
কটমটে কাঠখোট্টা, রসকসহীন, শুস্ক
কটরমটর শুকনো কঠিন বস্তু চিবানোর অনুকার শব্দ (কটরমটর করে ভাজা ছোলা খাচ্ছে)
কটু উক্তি / কটূক্তি গালিগালাজ
কটু কথা/বাক্য অশোভন বা কর্কশ কথা/বাক্য
কটু তেল ঝাঁঝালো তেল, সর্ষের তেল
কটুভাষী রুঢ়ভাষী
কট্টর কঠোর নিয়মানুসারী, গোঁড়া (কট্টর হিন্দু/মুসলমান)
কড়কানো / কড়কে দেওয়া তিরস্কার/ভর্ৎসনা করা (খুব করে কড়কে দিয়েছি)
কড়কড়ে ব্যবহারে মলিন নয়, সম্পূর্ণ নতুন (কড়কড়ে নোট)
কড়ঙ্কস্য করে চালানো টানাটানি করে সংসার চালানো
কড়মড় ক্রোধের ভাবসূচক (রাগে দাঁত কড়মড় করছে)
কড়া টাকা
কড়াকড়ি১ টাকাপয়সা ('দিনে দিনে বাড়ল দেনা, ও ভাই করলি নে কেউ বেচাকেনা হাতে নাই রে কড়াকড়ি'-রবীন্দ্রনাথ)
কড়াকড়ি২ কড়া অনুশাসন (নিয়মের কড়াকড়ি)
কড়া কথা কর্কশ কথা, তিরস্কার
কড়া থেকে উনুনে অল্প বিপদ থেকে বেশি বিপদে পতন
কড়ায় কড়া, কাহনে কানা অল্প খরচে নজরদারি, বেশি খরচে উদাসীন
কড়ায় গণ্ডায় পাই-পয়সা পর্যন্ত নিখুঁত হিসাবে; অতি নিপুণ ও সূক্ষ্ম হিসাবমতে (কড়ায় গণ্ডায় পাওনা বুঝে নেবো)
কড়ার১ অঙ্গীকার
কড়ার২ পুরীর জগন্নাথদেবের অঙ্গের চন্দনপ্রসাদ কিংবা মোহনভোগ প্রসাদ
কড়ি১ অর্থ, ধন, টাকা (এত শিখিয়াছ এটুকু শেখনি কিসে কড়ি আসে দুটো'-রবীন্দ্রনাথ; কড়ি থাকলে বাঘের দুধ মেলে- প্রবাদ; বন্ধু নেই কড়ি বই; যদি বর্ষে পৌষে কড়ি হয় তুষে-খনা)
কড়ি২ পাওনা (আপন কড়ি বুঝে নাও); সমার্থক বাগধারা- গণ্ডা
কড়িওয়ালা ধনবান ব্যক্তি
কড়িকপালে কড়ির কপালযুক্ত, অর্থ/ধনভাগ্য ভাল
কড়িকড়ার বুদ্ধি অত্যল্প বুদ্ধি
কড়ি গোনা / কড়িকাঠ গোনা অকাজে সময় নষ্ট করা; অলসে সময় কাটানো; কর্মহীন অবসর যাপন
কড়িচণ্ডাল/পিশাচ অর্থপিশাচ, সুদখোর- গালিবিশেষ
কড়িতে চতুর কাহনে কানা অল্প খরচে কিপ্টেমি, বেশি খরচে দরাজ
কড়িফটকা কপর্দকশূন্য, নিঃস্ব
কড়িমধ্যম চড়া সুর
কড়ির জিনিস মূল্যবান বস্তু
কড়ে রাঁড়ি অল্পবয়স্কা/বাল্যবিধবা
কণ্টক অন্তরায়, বিঘ্ন (আমই কারো পথের কণ্টক হতে চাই না)
কণ্টকশয্যা যন্ত্রণাদায়ক অবস্থা (মাল্য যে দংশিছে হায়, তব শয্যা যে কণ্টকশয্যা...'-রবীন্দ্রনাথ)
কণ্টকে কণ্টকোদ্ধার কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলা
কণ্ঠমণি/ভূষণ পরম প্রিয়পাত্র
কণ্ঠরোধ কথা বলার ক্ষমতা বা প্রতিবাদ করার অধিকার বিলোপ/হরণ (কণ্ঠ আমার রুদ্ধ আজিকে বাঁশি সঙ্গীত হারা- রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- টুঁটি চাপা/টেপা
কণ্ঠস্থ স্মৃতিতে ধরা আছে; (কবিতাটা আমার কণ্ঠস্থ আছে); সমার্থক বাগধারা- মুখস্থ
কণ্ঠাগত-প্রাণ১ মরণাপন্ন অবস্থা
কণ্ঠাগত-প্রাণ২ পরিশ্রমে অত্যন্ত ক্লান্ত
কন্ঠি১ কণ্ঠে ধারণের একনরা মালা
কন্ঠি২ বৈষ্ণব ও বৈষ্ণবীদের কণ্ঠে ধার্য তুলসীর মালা
কণ্ঠি ছেঁড়া১ বৈষ্ণবসম্প্রদায় ত্যাগ করা; আলং- দলত্যাগ করা
কণ্ঠিছেঁড়া২ বৈষ্ণবসম্প্রদায় ত্যাগ করেছে এমন; আলং- দলত্যাগী
কণ্ঠিধারণ/কণ্ঠিধারী বৈষ্ণব বেশ তুলসীর মালা গলায় পরা/বৈ
কণ্ঠিধারী ধর্মনিষ্ঠ, বৈষ্ণব
কণ্ঠিবদল বৈষ্ণব পাত্রপাত্রীর পরস্পরের কন্ঠি পালটিয়ে বিবাহপ্রথা
কত করে১ নানাভাবে, বহু অনুনয়-বিনয় সহকারে (কত করে বললাম শুনল না কিছুতেই )
কত করে২ কী দামে/হারে (চিঙড়িমাছ কত করে কেজি?)
কত কি নানারকম (কত কী দেখার আছে; একলা বসে বাদলশেষে শুনি কত কি)
কত ধানে কত চাল কঠিন বাস্তব, প্রকৃত অবস্থা; হিসাব করে চলা (বড়লোকেরা ব্যাটারা জানেই না কত ধানে কত চাল হয়)
কত-না অনেক পরিমাণে গণনার বাইরে (কত-না কেঁদেছি; 'দিতেছ দান দিবস-বিভাবরী, হল না সারা কত-না যুগ ধরি'- রবীন্দ্রনাথ)
কত যে সংখ্যার আধিক্যসূচক ('কত যে গিরি কত যে নদীতীরে কত যে তান বাজালে ফিরে ফিরে'- রবীন্দ্রনাথ)
কতশত অনেক, অগণিত, বহুসংখ্যক (কতশত লোক জমায়েত হয়েছিল)
কথা আটকানো লজ্জায় কথা বলতে না পারা
কথা আদায় করা১ অঙ্গীকার আদায় করা
কথা আদায় করা২ মনের কথা জানা
কথা উঠা১ প্রসঙ্গক্রমে কোন বিষয় উত্থাপিত হওয়া
কথা উঠা২ নিন্দনীয় কাজের সমালোচনা হওয়া
কথা কওয়া কিছু বলা, বাক্য উচ্চারণ করা (কথা কও, কথা কও অনাদি অতীত, অনন্ত রাতে কেন বসে চেয়ে রও?- রবীন্দ্রনাথ)
কথাকলি কেরালার বিখ্যাত নৃত্যশিল্প; 'কথা' শব্দের অর্থ- কাহিনী বা গল্প; 'কলি' শব্দের অর্থ- অভিনয় বা নাটক; যৌথশব্দের আলঙ্কারিক অর্থ- নাটক, পৌরাণিক যুদ্ধকাহিনী অবলম্বনে সৃষ্ট নৃত্যশৈলী
কথা কাটা অগ্রাহ্য করা, প্রতিবাদ করা, যুক্তি খণ্ডন করা
কথা কাটাকাটি তর্কবিতর্ক, তর্কিতর্কি, বচসা, বাদানুবাদ (দুই বন্ধুর মধ্যে কথা কাটাকাটি হচ্ছে)
কথা চালা এক কান থেকে অন্য কানে গোপন কথা রটনা করা
কথা চালাচালি আলাপ-আলোচনা; উত্তপ্ত বাকযুদ্ধ; কারও গোপন বিষয় নিয়ে কথা বলা; লোকমুখে পরস্পরের কোথা বলে পাঠানো
কথা জন্মানো
নিন্দনীয় কথার উৎপত্তি হওয়া
কথা টলা অঙ্গীকার না রাখা (কথা টলা থেকে পা টলা ভাল)
কথাটি নেই আপত্তি প্রতিবাদ নেই (শ্বশুর বাড়ীতে কত গঞ্জনা, তবু বধুটির মুখে কথাটি নেই)
কথা ঠেলা অগ্রাহ্য করা (ওর কথা ঠেলতে পারবো না)
কথা থাকা কথামত কাজ করা
কথা দিয়ে কথা নেওয়া মনোমত কথা বলে কারো থেকে কিছু তথ্য নেওয়া
কথা দেওয়া১ অঙ্গীকার করা, প্রতিশ্রুতি দেওয়া (দেওয়া কোথা ফেলতে নেই)
কথা দেওয়া২ বাগদান করা
কথা নড়া অন্যথা হওয়া; মিথ্যা হওয়া
কথান্তর কথার খেলাপ, ঝগড়া, বিবাদ
কথা নেই বার্তা নেই কোন আলাপ-আলোচনা নেই, অকস্মাৎ (কথা নেই বার্তা নেই অকস্মাৎ এসে হাজির)
কথা পড়া কোন বিষয়ের প্রসঙ্গ হওয়া (পড়ল কথা সভার মাঝে যার কথা তার প্রাণে বাজে-প্রবাদ)
কথা পাড়া প্রসঙ্গ উত্তাপন করা, প্রস্তাব দেওয়া (মেয়ের বিয়ের ব্যাপারে এক পক্ষের কাছে কথা পেড়েছি)
কথা ফেলা কথা অগ্রাহ্য করা (কথা দিয়ে যখন কথা ফেলতে পারবো না)
কথা ফোটা১ শিশুর মুখে অর্থযুক্ত শব্দ আসা
কথা ফোটা২ নিরবতা ভঙ্গ করা
কথা বলা বিশেষ বিষয়ে আলোচনা করা (তোমার চাকরীর ব্যাপারে আমি কথা বলবো
কথা বাড়ানো তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়া, সামান্য বিষয়কে প্রলম্বিত করা (বেশি কথা বাড়িয়ে কাজ নেই)
কথাবার্তা আলাপ আলোচনা, প্রসঙ্গ (দুপক্ষের সাথে কথাবার্তা চলছে);
কথা বেচে খাওয়া১ কথার বিনিময়ে অর্থোপার্জন (উকিলরা কথা বেচে খায়)
কথা বেচে খাওয়া২ লোক ঠকিয়ে জীবিকানির্বাহ (রাজিনীতিকরা কথা বেচে খায়)
কথামত চলা আদেশ/উপদেশ মান্য করা
কথামাত্র কেবল বলা কার্যে অনুষ্ঠিত নয় (কথামাত্র সার)
কথামাত্র সার অন্তঃসারশূন্য, অসার কথা, ফাঁকা আওয়াজ/বুলি
কথায় কথা বাড়ে তর্কের মিমাংসা নেই
কথায় কথায়১ অকারণে (কথায় কথায় ঝগড়া)
কথায় কথায়২ প্রত্যেক কথায় (কথায় কথায় অভিমান
কথায় কথায়৩ কথাপ্রসঙ্গে, গল্পগুজবে (কথায় কথায় জানলাম তুমি গান জানো)
কথায় চিড়ে ভেজানো ফাঁকা বুলিতে কার্যসাধন
কথায় টান বড়বড় কথা, বাগাড়ম্বর
কথায় থাকা যোগাযোগ/সংশ্রব রাখা (কথায় বলে কথায় থাকো)
কথায় না থাকা জড়িত না হওয়া; সংশ্রবে না থাকা (আমি কারো কথায় থাকি না) সমার্থক বাগধারা- ছায়া বা মাড়ানো, পথ না মাড়ানো, পা ধুতে না আসা ইত্যাদি
কথায় বলে প্রবাদ-প্রবচন (কথায় বলে কথায় থাকো)
কথার কথা১ ভিত্তিহীন প্রসঙ্গ, মূল্যহীন অসার কথা
কথার কথা২ সারকথা, কাজের কথা (তুমি যাবে না- এটা কি কথার কথা হ'ল?)
কথার কসরৎ/প্যাঁচ চাতুর্যপূর্ণ কথা
কথার ছলে/কথাচ্ছলে প্রসঙ্গক্রমে
কথার ঝুড়ি বাক্যবাগীশ, বাচাল
কথার তুবড়ি/ফুলঝুরি অনর্গল কথা বাকবিস্তার (সে কথার তুবড়ি ছোটাতে ভারি ওস্তাদ); সমার্থক বাগধারা- বাগাড়ম্বর, বাক্যস্রোত
কথার ধার ক্যাটকেটে/হুলফোটানো কথা
কথার ধার না ধরা তোয়াক্কা না করা; পাত্তা না দেওয়া; সংস্রব না রাখা
কথার ধোকড় বাকপটু, বাক্যবাগীশ কিন্তু অকর্মণ্য
কথার নড়চড় প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ (কথা দিয়েছি কথার নড়চড় হবে না)
কথার নেই মাথা অর্থহীন বা অসার কথাবার্তা
কথার নবাব বাক্যবাগীশ, বাচাল; সমার্থক বাগধারা- বাক্যনবাব, বাক্যবাগীশ, বাক্যবিশারদ
কথার পিঠে কথা প্রতিবাদ, প্রত্যুত্তর
কথার প্যাঁচ/মারপ্যাঁচ বাককৌশল/চাতুর্য
কথার ফাঁক অস্পষ্ট কথা
কথার ফুলঝুরি কথার তুবড়ি
কথার ফের কথার প্যাঁচ
কথার ভটচাজ্জি বাকসর্বস্ব, ফাঁকা কথা বলে; সমার্থক বাগধারা- বাক্যনবাব, বাক্যবাগীশ, বাক্যের ডোঙা ইত্যাদি
কথার মাথামুণ্ডু নেই অসংলগ্ন কথাবার্তা
কথার মানুষ কথা দিয়ে কথা রাখে
কথার মারপ্যাঁচ কথার কটকচালি, শঠতাপূর্ণ কথাবার্তা
কথারম্ভ প্রসঙ্গের অবতারণা
কথার শ্রাদ্ধ কথার অপব্যয়, বেকার কথাবার্তা
কথার শ্রী ভাষার মাধুর্য
কথা রাখা প্রতিশ্রুতি রক্ষা করা ('কথা রাখো কাছে থাকো')
কথাশিল্প গদ্যে লিখিত গল্প উপন্যাস ইত্যাদি সাহিত্য
কথাশিল্পী উপন্যাস রচয়িতা, ঔপন্যাসিক
কথা শুনা১ আদেশাদি পালন বা মান্য করা ('রসাল কহিল উচ্ছে স্বর্ণলতিকারে শুন মোর কথা ধনি নিন্দ বিধাতারে'-মাইকেল মধুসূদন); বিপরীত 'শোনা কথার' অর্থ-কেবল লোকমুখে শ্রুত হয়েছে; সত্য কি না জানা যায়নি
কথা শুনা১ দোষের জন্য কড়া কথা শুনা (দেরীতে আসায় কোথা শুনতে হল)
কথা শুনানো১ আদেশানুসারে কাজ করানো
কথা শুনানো২ দোষের জন্য কড়া কথা বলা
কথা সরা বাকস্ফূর্তি হওয়া (কি হ'ল এখন যে কথা সরে না)
কথা সারা কথোপকথন/গল্প সমাপ্ত
কথাসাহিত্য গল্প, উপন্যাস ইত্যাদি কাহিনী
কথোপকথন১ আলাপ আলোচনা, সংলাপ (এই বিষয়ে কোন কথপোকথন হয় নি); সমার্থক বাগধারা- আলাপসালাপ, কথাবার্তা, বলাবলি, বাক্যালাপ ইত্যাদি
কথোপকথন২ গল্প বলা
কদক্ষর বিশ্রি হাতের লেখা
কদমছাঁট কদম ফুলের মত ছোটছোট করে চুল ছাঁটা
কদমবুসি পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম/সালাম করার সংস্কার
কদম্বগাছের কানাই লম্পটচরিত্রের লোক
কদর আদরযত্ন, মর্যাদা, মূল্য, সম্মান (সোনার কদর কমে না)
কনকাঞ্জলি হিন্দু বিবাহানুষ্ঠানে বা অন্য অনুষ্ঠানে মাঙ্গলিক সোনা দানের সংস্কার
কনেচন্দন বিয়ের পাত্রীর মুখ চন্দন দিয়ে চিত্রিতকরণ
কনে দেখা আলো গোধূলির মৃদু স্বর্ণালী আলো
কনেবউ নববিবাহিতা বধু
কনেযাত্রী বিয়ে উপলক্ষে পাত্রীপক্ষ থেকে পাত্রপক্ষের বাড়ীতে নিমন্ত্রিত অতিথিবর্গ
কনের ঘরের মাসি, বরের ঘরের পিসি যিনি দুইপক্ষেই থাকেন, উভয়পক্ষের আত্মীয় ও বিশ্বাসের পাত্র
কন্দলি/ কন্দলিয়া কলহপ্রিয়া নারী
কন্দর্প সুন্দর কান্তি, সুপুরুষ ব্যক্তি
কন্ধকাটা কল্পিত মুণ্ডবিহীন ভূতবিশেষ
কন্যাকাল কুমারীকাল, বিবাহযোগ্য বয়স (কন্যাকাল হল তার, সুযোগ্য পাত্র পাওয়া ভার)
কন্যাপণ পাত্রীপক্ষের কাছে পাত্রপক্ষের অবৈধ দাবী, যৌতুক
কপচানো শেখা কথা বলিয়া যাওয়া, পাখির বুলি আওড়ানো; বকবক করা (বেশি কপচিও না)
কপর্দক কানাকড়ি, বৈদ্যের কড়ি (কপর্দকশূন্য)
কপর্দকশূন্য নিঃস্ব, সম্বলহীন (কপর্দকশূন্য অবস্থায় গাঁ ছেড়ে সহরে এসেছি); সমার্থক বাগধারা- পকেট গড়ের মাঠ
কপচানো অর্থ না বুঝে বাধাবুলি উচ্চারণ করা; একই কথা বারবার বলা (তোতাপাখির মত বাধাবুলি কপচে চলেছে)
কপকপ/ কপাকপ দ্রূত মুখে পুরে খাওয়ার অনুকার শব্দ, কপ কপ করে (কপকপ করে গিলছে; কপাকপ গিলে ফেলল); সমার্থক বাগধারা- টপাটপ
কপাল অদৃষ্ট, ভাগ্য (কপালে যা লেখা আছে তাই হবে; কপালের লিখন না হয় খণ্ডন)
কপাল কাটা অদৃষ্ট মন্দ হওয়া
কপাল ক্রমে/গুণে/জোরে সৌভাগ্যবশতঃ, ভাগ্যের আনুকূল্যে, হঠাৎ
কপাল গুণে গোপাল মেলা বক্রোক্তি; কুসন্তান লাভের প্রতি ইঙ্গিত
কপাল চাপড়ান নিজের ভুলের জন্য আফসোস করা; ভাগ্যের দোহাই দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করা
কপালজোর ভাগ্যজোর (কপাল জোরে এযাত্রায় বেঁচে গেলে)
কপাল টনটনে মন্দভাগ্য
কপাল ঠোকা১ সাফল্য পাওয়ার জন্য দৈবের কাছে মাথা খোঁড়া
কপাল ঠোকা২ পরিনাম বা ভাগ্যফল চিন্তা না করে কাজে নেমে পড়া (কপাল ঠুকে কাজে নেমে পড়েছি)
কপাল দোষ মন্দভাগ্য, ভাগ্য প্রতিকূল; সমার্থক বাগধারা- কাটা/ফাটা কপাল
কপাল পোড়া/ফাটা/ভাঙ্গা১ সৌভাগ্য নষ্ট হওয়া; কোন দুর্ঘটনা ঘটা, (সময়ে নয়া পেলে টাকা কপাল ভাঙ্গে আস্ত ইঁটে- ঈশ্বর গুপ্ত)
কপাল পোড়া/ পোড়া কপাল২ মন্দভগ্য, হতভাগ্য (পোড়া কপাল জোড়া লাগে না)
কপাল ফেরা ভাগ্য প্রসন্ন হওয়া, সৌভাগ্য লাভ
কপালি খেজুর গাছের কপাল যেখান রস পেতে কাটে
কপালে ভাগ্যবান, সৌভাগ্যের অধিকারী
কপালে আগুন দুরদৃষ্ট, মেয়েলী গালিবিশেষ ('কোন গুণ নেই তার কপালে আগুন- ঈশ্বর গুপ্ত
কপালে গোপাল সৌভাগ্য
কপালের গেরো কুগ্রহ, দুর্দৈব
কপালের ফের ভাগ্যবিড়ম্বনা, ভাগ্যবিপর্যয়
কপালের ভোগ কর্মফল
কপালের লিখন অদৃষ্টলিপি, ভবিতব্য
কপোত-কপোতী প্রেমিক-প্রেমিকা
কপোতবৃত্তি সঞ্চয় না করে জীবিকানির্বাহ; সঞ্চয় করে না, সব খেয়ে ফেলে; তুলনীয় প্রবাদ- বানরের সম্পত্তি গালে
কপোলকল্পনা/কল্পিত অবাস্তব উদ্ভট কল্পনা, মনগড়া কথা, ্মিথ্যা (স্বর্গ কপোলকল্পনা ছাড়া কিছু নয়); সমার্থক বাগধারা- গালগল্প
কবর দেওয়া বিসর্জন দেওয়া, সম্পূর্ণ পরিত্যাগ করা
কবলানো ঘুষ হিসাব দিতে চাওয়া (সরকারী অফিসে কাজ পেতে টাকা কবলাতে হয়)
কবল জবরদখল, গ্রাস (দেশটা দুর্ভাগ্যের কবলে পড়েছে); সমার্থক বাগধারা- খপ্পর
কবুল অনুমোগন, সম্মতি, স্বীকার (আমি দোষ কবুল কড়ছি)
কবোষ্ণ্ ঈষদ উষ্ণ
কব্জা অবাঞ্ছিত অধিকার, প্রভাব (দুষ্ট লোকটার কব্জা থেকে কিছুতেই বেরুতে পারছি না)
কব্জা করা১ আয়ত্বে আনা (অঙ্কটাকে কিছুতেই কব্জা করতে পারছি না)
কব্জা করা২ অনৈতিকভাবে ভাবে দখলে রাখা (বড়দেশ ছোটদেশের জমি কব্জা করে)
কম কথা নয় উপেক্ষার বিষয় নয়
কমজোর/কমজোরি দুর্বল/দুর্বলতা (অসুখে ভুগে ভুগে কমজোরি হয়ে পড়ছে)
কম পানির মাছ সাধারণ বোকাসোকা লোক (কম পানির মাছ বেশ পানিতে উঠলে ও মাছে বেশ লাফালাফি করে-প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- অল্পজলের মাছ; বিপরীত বাগধারা- অগাধ/গভীর জলের মাছ
কমবক্ত১ নির্বোধ, বুদ্ধিহীন- গালিবিশেষ (কমবক্ত এই কাজটাও করতে পারো না?)
কমবক্ত২ বদনসীব, ভাগ্যহীন, হতভাগা (বক্তের বৌ মরে কমবক্তের ঘোড়া মরে'- প্রবাদ)
কমবেশী অল্পাধিক, মোটামুটি (কমবেশী হাজার টাকা দরকার)
কম-সে-কম অন্ততপক্ষে, কমপক্ষে, খুব কম করে ধরলেও, নিদেনপক্ষে (কম-সে-কম তার আসা উচিত ছিল)
কমল-আঁখি/ কমলাক্ষী পদ্মের মত সুন্দর চোখ/চক্ষুবিশিষ্টা, লক্ষ্মীদেবী
কমলাসনা লক্ষ্মীদেবী
কমলিনী শ্রীরাধিকা
কম-সে-কম অন্ততঃপক্ষে, কমপক্ষে, নিদেনপক্ষে (কম-সে-কম একশ টাকা চাই)
কম্বল/কম্বলি ছাড়ছে না নাছোড়বান্দা
কম্বলের লোম বাছা অসাধ্য কাজ; অকাজ করা
কম্বুকণ্ঠ শঙ্খধ্বনির মত উচ্চ ও গম্ভীর কণ্ঠস্বর
কয়লা ছাড়ে না ময়লা অপরিবর্তনীয় স্বভাব; সমার্থক বাগধারা- ইল্লৎ যায় না ধুলে, দুধ খাওয়ালেও সাপের বিষ কমে না, দুধ ঢাললেও নিম নিষ্টি হয় না, যার যা রীত ছাড়ে কদাচিৎ, স্বভাব যায় না ম’লে ইত্যাদি
কয়েদ আটক, আবদ্ধ, বন্দী (জন্মমুহূর্ত থেকে আমরা কোন-না-কোনভাবে কয়েদী)
করকরে১ আনকোরা, একেবারে নতুন (করকরে নোট)
করকরে২ বালির মত দানাযুক্ত (করকরে ভাত)
করকিশলয় আঙুল
করকুষ্ঠি কোষ্ঠীর মত হাতের শুভাশুভ রেখাসমূহ (করকুষ্ঠি কেউ দেখায় কেউ দেখায় না)
করজোড়ে দু'হাত এক করে (করজোড়ে ক্কষমা চাইছি)
করণকারণ বিবাহ ('পৃথিবীতে যত কপি ব্রহ্মার সৃজন সেসব বানরের হৈল করণকারণ')
করতলগত হস্তগত (অনেক কষ্টে ক্ষমতা করতলগত হয়েছে)
করপল্লব ফুলের নরম পাতার মতো হাত; সুন্দর হাত
করপুট জোড়হাত (করপুটে নিবেদন করছি)
করমুক্ত নিস্কর, যে জমির খাজনা দিতে হয় না
করাতের দাঁত উভয়সঙ্কট, দুদিকেই বিপদ; সমতুল্য- এগুলে রাম পিছুলে রাবণ', 'এগুলে সর্বনাশ পিছুলে নির্বংশ', 'জলে কুমীর ডাঙায় বাঘ', 'শাঁখের করাত, যেতে কাটে আসতেও কাটে', 'শ্যাম রাখি না কুল রাখি', 'সাপের ছুঁচো গেলা ইত্যাদি।
করালবদনা ভীষণমুখবিশিষ্টা নারী
করিৎকর্মা দক্ষ; পরিশ্রমী; বুদ্ধিমান, নিজহাতে কাজ করে এমন (কতিৎকর্মা পুরুষ)
করুণার অবতার ব্যাঙ্গার্থে কুৎসিত দর্শন, কিম্ভূত আকার (ধর্মাবতার করুণার অবতার)
করিতকর্মা কর্মে কুশল, খুব পটু (করিতকর্মা ছেলে)
করে খাওয়া জীবিকা অর্জনের উপায় খুঁজে পাওয়া
করেকর্মে খাওয়া চেষ্টাচরিত্র করে; পরিশ্রমের সাহায্যে অন্নের সংস্থান করা (ছেলেটা যাহোক করেকর্মে খাচ্ছে)
কর্জ ঋণ, ধার, হাওলাত
কর্ণগোচর হওয়া কানে শোনা গেছে
কর্ণপাত করা গুরুত্ব দেওয়া (আমার কথায় কেউ কর্ণপাত করছে না)
কর্তাগিন্নি স্বামী-স্ত্রী
কর্তাগিরি কর্তার মত আচরণ, কর্তৃত্ব প্রদর্শন
কর্তাভজা বিদ্রুপে- ক্ষমতাশালীর মোসাহেব/স্থাবক, তোষামোদকারী
কর্তার ইচ্ছাই কর্ম উপরওয়ালা/প্রভুর নির্দেশে কাজ
কর্মকাণ্ড১ বেদের যে অংশে যজ্ঞাদি কর্মের বিধান আছে
কর্মকাণ্ড২ যাবতীয় কাজ (তোমার কর্মকাণ্ড দেখে সবাই হতবুদ্ধি); সমার্থক বাগধারা- কাণ্ডকারখানা, ব্যাপার-স্যাপার
কর্মনাশা কাজে বিঘ্নসৃষ্টিকারী (কর্মনাশা বুদ্ধি)
কর্মফল কৃত কর্মের ফল যা লোকবিশ্বাসমতে পরজন্মে ভোগ করতে হয়)
কর্মফের দুরদৃষ্ট
কর্মভোগ১ অহেতুক পরিশ্রম
কর্মভোগ২ দুস্কর্মের ভোগান্তি
কর্মসূত্রে কাজের প্রয়োজনে (কর্মসূত্রে সে দিল্লিবাসী)
কলকণ্ঠ/কণ্ঠী মধুর কণ্ঠস্বরবিশিষ্ট/বিশিষ্টা
কলকাঠি নাড়া বদ উদ্দেশ্যে আড়াল থেকে নিয়ন্ত্রণ করা; কুপরামর্শ দেওয়া (দল ভাঙানোর খেলায় কেউ আড়াল থেকে কলকাঠি নাড়ছে)
কলকে পাওয়া সমাদর/স্বীকৃতি পাওয়া; উপেক্ষিত না হওয়া (এখানে কলকে পাবে না)
কলজে পুরু/বড় হৃদয়বান ব্যক্তি
কলজের জোর অত্যধিক সাহস, বুকের পাটা
কলজে পুড়ে খাঁক শোকে-দুঃখে পাগল
কলম করা গাছের ডাল কেটে চারা করা
কলম পেশা কেরানীগিরি, নবিশী (কলমপেশা আমার কাজ)
কলমবাজ পেশাদার লেখক
কলমের খোঁচা অসৎ আদেশ; অন্যের বিরুদ্ধে ক্ষতিকর লেখা
কলমের জোর লেখার প্রভাব
কলমি শাকের ক্যাশ মেমো আদিখ্যেতা, বাড়াবাড়ি
কলমির ঝাড় বহু সদস্যের বংশ
কলা কিছু না, ফাঁকি, মিথ্যা
কলা করা কিছুই করতে না পারা (তুমি আমার কলাটি করবে)
কলাকৌশলে/কলেকৌশলে চাতুর্যপূর্ণ উপায়ে (অনেক কলাকৌশলে কাজটা উদ্ধার করেছি); সমার্থক বাগধারা- ছন্দেবন্দে, পাকেপ্রকারে ইত্যাদি
কলা খাও১ বানর পদবাচ্য হও- গালিবিশেষ; কিছু করতে না পেরে ব্যর্থ হয়ে পড়ে থাকো- তিরস্কার
কলা খাও২ কিছু করতে না পেরে ব্যর্থ হয়ে পড়ে থাকা- তিরস্কার (তুমি এখন বসে বসে কলা খাও)
কলা খেয়ে যাওয়া পিণ্ডদানকালের কলা খাওয়া; মারা যাওয়া- গালিবিশেষ
কলাখেকো বুদ্ধি বানুরে দুর্বুদ্ধি
কলাতলায় যাওয়া বিবাহ হওয়া
কলা দেখানো অগ্রাহ্য করা বা ফাঁকি দেওয়া অর্থে বুড়ো আঙুল দেখানো (সবাইকে কলা দেখিয়ে কেমন চলে গেল)
কলাপোড়া কিছু না, ফাঁকি (কলাপোড়া খাও)
কলাপোড়া খাওয়া ব্যর্থ হয়ে পড়ে থাকা; অশ্লীল গালিবিশেষ
কলাবৌ১ ব্যাঙ্গে- দীর্ঘ ঘোমটাটানা বউ
কলাবৌ২ পরিহাসে- অতি অতিলজ্জাশীলা গৃহবধূ (কলাবৌয়েরা সব উধাও)
কলার ভেলায় সাগরপার অল্প পরিশ্রমে বিরাট কাজ, অসম্ভব কাজ, অসাধ্যসাধন উচ্চাশা ইত্যাদি; সমার্থক বাগধারা-খড়মপায়ে গঙ্গাপার, নরুণে তালগাছকাটা, মুড়াকোদালে দিঘিকাটা, শামুক দিয়ে পুকুরসেঁচা ইত্যাদি
কলা হওয়া কিছুই না হওয়া (আমার কলা হবে)
কলিকাল/যুগ অনাচার ও অসহিষ্ণুতার কাল
কলিজা/কলজে মুখ্যার্থে- যকৃত; গৌণার্থে- হৃৎপিণ্ড, হৃদয় ('কলজেতে ফুটেছে কাঁটা পঞ্চবাণের হুল')
কলিজা/কলজে পুড়ে খাঁক শোকে দুঃখে হৃদয় পুড়ে ছাই
কলিজা/কলজে পুরু আসমসাহসিক
কলিজা/কলজের জোর আত্যাধিক সাহস
কলি ফেরানো বছরে একবার বাড়ী চুনকাম করা
কলির অবতার চরম বদমায়েশ
কলির অর্জুন লক্ষ্যে অভ্রান্ত
কলির কেষ্ট নারীসঙ্গভোগী নব্যপ্রেমিক; কেতাদুরস্ত লম্পটচরিত্রের লোক; সমার্থক বাগধারা- কচুবনের কালাচাঁদ
কলির প্রহ্লাদ ব্যাঙ্গে- কু-পিতার কুসন্তান
কলির সন্ধ্যা/সন্ধে ভয়াবহ দুর্দিনের/দুর্ভাগ্যের সূত্রপাত (এতো সবে কলির সন্ধে)
কলুর বলদ অন্যের ইচ্ছানুসারে একটানা খাটা স্বাধীনতাহীন, চিন্তাশক্তিহীন ব্যক্তি; নির্বিকারে/নির্বিচারে খাটা ব্যক্তি (মা আমায় ঘুরাবি কত, কলুর চোখবাঁধা বলদের মত- রাম্প্রসাদী গান; সমার্থক বাগধারা- ধোপার গাধা
কলের পুতুল পরের নির্দেশে যন্ত্রের মত চলা ব্যক্তিত্বহীন পুরুষ
কল্কে পাওয়া পাত্তা/সমাদর পাওয়া; দশের মধ্যে একজন বলে গণ্য হওয়া
কল্লতরু অত্যন্ত উদার ও বদান্যব্যক্তি, যিনি সহজেই অন্যের ইচ্ছাপূরণ করেন (বাঙালী উপদেশে কল্পতরু)
কল্ললোক কল্পনার রাজ্য, মনগড়া রাজ্য
কল্লার (দুষ্ট) ঘাড়ে বোল্লার (বোলতা) কামড় দুষ্টের শাস্তি
কষ উদ্যম (তোমার খুব কষ আছে দেখছি)
কষকষ হিংসা ও প্রতিহিংসা অর্থে- (রাগে শরীরটা কষকষ করছে)
কষতে কষতে বাঁধনা ছেঁড়া অতি টানাটানির বিপত্তি
কষাকষি দুইপক্ষের মধ্যে দ্বন্দ্ব (দর কষাকষি, মন কষাকষি)
কষিত কাঞ্চন খাঁটি সোনা; খাঁটি লোক
কষ্টেসৃষ্টে অনেক কষ্টে, কষ্টে উপায় সৃষ্টি করে, কোনমতে, কোনপ্রকারে (কষ্টেসৃষ্টে দিন কেটে যায়); সমার্থক বাগধারা- কায়ক্লেশে
কসবা গণ্ডগ্রাম, ছোট সহর, ভদ্রপল্লী, সমৃদ্ধ বসতি
কসম দিব্বি, শপথ
কসরৎ অনুশীলন, অভ্যাসজনিত কৌশল, কায়দা (সাইকেল চালনা কসরৎ করছি); সমার্থক বাগধারা- মেহনৎ
কসাই অত্যন্ত নির্মম ও স্বার্থপর ব্যক্তি (কোথাও মানুষ নেই, সর্বত্র কসাইগিরি চলছে)
কসুর অপরাধ, দোষ, ত্রুটি (হুঁজুর কসুর মাপ করবেন নেই)
কস্তাকস্তি পীড়াপীড়ি (অনেক কস্তাকস্তি করে দাম কমিয়েছি)
কস্তাকস্তি ধস্তাধস্তি বিশেষ চেষ্টা ও হাতাহাতি
কস্মিনকালে কখনো, কোনকালে (কস্মিনকালে এমন কথা শুনিনি)
কাঁকুড়লতার গর্ভধারণ নিজের মৃত্যু ডেকে আনা; সমার্থক বাগধারা- খাল কেটে কুমির আনা
কাঁখবিড়ালি বগলের ফোঁড়া
কাঁচ/কাঁচাকলা কিছু না, ফাঁকি, মিথ্যা (সবাই ভাল জিনিস পেলো আমার ভাগ্যে কাঁচকলা); সমার্থক বাগধারা- অষ্টরম্ভা, কচু, কচু না ঘেচূ, লবডঙ্কা ইত্যাদি
কাঁচঃ কাঁচঃ মণির্মণি যে যা, তাই থাকে
কাঁচা আনাজ তরিতরকারী শাকসব্জি
কাঁচা কথা পরিবর্তনযোগ্য প্রাথমিক কথাবার্তা
কাঁচা কাজ১ অপটু হাতের কাজ
কাঁচা কাজ২ অবিবেচনাপ্রসূত কাজ
কাঁচাখেকো দেবতা ঘুষখোর
কাঁচা খিস্তি অশ্লীল গালিগালাজ
কাঁচা খেউড় অশ্লীল ভাষায় রচিত লেখা গান ইত্যাদি
কাঁচা গুয়ে ঢিল মারা অপ্রীতিকর কাজ করা
কাঁচাঘর মাটি, বাঁশ ইত্যাদির ঘর ('নিজহাতে গড়া মোর কাঁচাঘর খাসা...')
কাঁচা ঘুম অপূর্ণ ঘুম
কাঁচা টাকা/পয়সা নগদে প্রচুর উপার্জন; বিনা পরিশ্রমে অর্জিত অর্থ, হিসাব-বহির্ভূত পয়সা
কাঁচাপাকা আধা কাঁচা আধা পাকা (কাঁচাপাকা চুল)
কাঁচা বয়স অপরিণত বয়স, বয়সে তরুণ
কাঁচাবাজার মাছ মাংস আনাজ ইত্যাদি বিক্রয়ের স্থান
কাঁচা বুদ্ধি/মাথা অপরিণত বুদ্ধি
কাঁচা বাঁশে ঘুণ ধরা অল্পবয়সে বিগড়ানো/চরিত্র নষ্ট হওয়া
কাঁচাবাজার শাকসবজি মাছ-মাংসের বাজার
কাঁচামাটিতে পা দেওয়া ভুল জায়গায় আগ বাড়া
কাঁচামাল যে সকল উপাদান থেকে শিল্পদ্রব্য তৈরী হয়
কাঁচামিঠা কাঁচা অবস্থায় মিষ্টি এমন (কাঁচামিঠা আম)
কাঁচা রং অস্থায়ী রং
কাঁচা রসিদ অস্থায়ী প্রাপ্তিস্বীকারপত্র
কাঁচা রাস্তা মাটির রাস্তা, বাঁধানো নয় এমন রাস্তা
কাঁচা লেখা১ অপরিণত হাতের লেখা
কাঁচা লেখা২ নিম্নমানের রচনা
কাঁচা সর্দি সর্দির প্রাথমিক অবস্থা
কাঁচা সোনা১ মুখ্যার্থে- বিশুদ্ধ সোনা; গৌণার্থে- নিখাদ সুন্দর মানুষ ('দেখেছি রূপসাগরে মনের মানুষ কাঁচা সোনা...'- নবনীদাস ক্ষ্যাপা বাউল)
কাঁচা সোনা২ সুন্দর শ্রীযুক্ত শরীর (কাঁচা সোনা শরীর)
কাঁচা হাত আনাড়ি, অপটু হাত, দক্ষতার অভাব, অনভিজ্ঞতা (কাঁচা হাতের কাজ)
কাঁচা হাতের কাজ নানাখুঁতযুক্ত কাজ, বুদ্ধিহীনের ম্ত কাজ (এই চুরিটা নেহাতই কাঁচা হাতের কাজ)
কাঁচা হলুদ অল্পবয়স্কা মেয়ে
কাঁচা হিসাব চুড়ান্ত নয় এমন হিসাব
কাঁচুমাচু লজ্জা, ভয় ইত্যাদি কারণে জড়সড়, সংকুচিত (মুখ কাঁচুমাচু করে দাঁড়িয়ে আছো কেন?)
কাঁচে কাঞ্চনে সমান দুইয়ের পার্থক্য বোঝার বোধ নেই; সমতুল্য- মুড়ি-মুড়কির একদর
কাঁচের ঘরে বসে ঢিল ছোঁড়া বোকার মত কাজ
কাঁটা অন্তরায়, বিঘ্ন (কাঁটাবনবিহারিণী সুর-কানা দেবী. তাঁরি পদ সেবি, করি তাঁহারই ভজনা...'-রবীন্দ্রনাথ)
কাঁটাকুটা অন্তরায়, বিঘ্ন, জঞ্জাল (রাস্তাঘাট কাঁটাকুটায় ভর্তি)
কাঁটাগাছের তলায় থাকা/বাস করা সবসময় বিপদের আশঙ্কায় থাকা
কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলা শত্রুর বিরুদ্ধে শত্রু লাগিয়ে উভয়কে নাশ করা
কাঁটা তোলা শত্রু নাশ করা
কাঁটা দেওয়া১ বাধা সৃষ্টি করা
কাঁটা দেওয়া২ রোমাঞ্চিত হওয়া, লোম খাড়া হওয়া (ভয়ে শরীরে কাঁটা দিচ্ছে)
কাঁটা হওয়া ভয়ে শিউরে ওঠা সঙ্কুচিত হইয়া
কাঁটায় কাঁটায় ঠিক ঠিক, সময়ের এতটুকু ব্যতিক্রম না করে (কাঁটায় কাঁটায় কাজ করা; কাঁটায় কাঁটায় হাজির হবে)
কাঁঠাল পাকানো (কিলিয়ে) দ্রুত কার্যসিদ্ধির জন্য অস্বাভাবিক ব্যবস্থা অবলম্বন
কাঁঠালের আমসত্ত্ব১ অবাস্তব/অলীক/কাল্পনিক বস্তু, যা হবার নয়; সমার্থক বাগধারা- অশ্বডিম্ব, আঁটকুড়ের ব্যাটা, আকাশকুসুম, এঁড়ে গরুর দুধ, ঘোড়ার ডিম, ভস্মকীট, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
কাঁঠালের আমসত্ত্ব২ অর্থতঃ স্ববিরোধী বাক্য
কাঁঠালের ছাল রসকষহীন ব্যক্তি
কাঁড়ানো চালে তিন ঘা পাড় (ঢেঁকির পাড়) সম্পন্ন কাজে অনাবশ্যক পরিশ্রম
কাঁড়ি কাঁড়ি প্রচুর পরিমাণে (ওষুধের পিছনে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা খরচ হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- রাশি রাশি
কাঁদুনি গাওয়া সকাতরে অনুযোগ করা বা দুঃখ-অভাব-অভিযোগ প্রভৃতি প্রকাশ করা (অনেক হয়েছে এর কাঁদুনি গাইতে হবে না।
কাঁধ দেওয়া কোন বিষয়ের ভার লওয়া, সাহায্য করা
কাঁধে কাঁধ মেলানো পরস্পরে সহযোগিতা করা
কাঁধে কুড়ুল বনময় খোঁজা আপনভোলা লোক
কাঁধে ঝুলি নেওয়া ভিক্ষার জন্য বার হওয়া
কাঁধে নেওয়া দায়িত্ব নেওয়া (সংসারের দায়িত্ব আমি কাঁধে নিয়েছি)
কাঁহাতক কতক্ষণ/কতকাল পর্যন্ত/কোন সীমা পর্যন্ত (কাঁহাতক এই অন্যায় সহ্য করা যায়?)
কা-কস্য-পরিবেদনা কে কার কথা ভাবে; বৃথা হাহুতাশ
কাককাঁকুড় জ্ঞান দুটি বিষয়ের পার্থক্য বুঝতে পারার মত সামান্যতম জ্ঞান
কাক-কোকিলে ভেদ ভাল-মন্দের তফাত
কাক-কোকিলের সমান দর ভাল-মন্দের তফাত না থাকা
কাকচক্ষু কাকের চক্ষুর মত স্বচ্ছ ও নির্মল
কাকজোছনা/জ্যোৎস্না ম্লান জ্যোৎস্না, রাত্রিশেষের ক্ষীণ চন্দ্রালোক যা দেখে কাক দিনের আলো ভেবে জগে ওঠে
কাকতাল/কাকতালীয়ন্যায় আকস্মিক যোগাযোগ সম্বন্ধীয়
কাকতালীয় ব্যাপার কার্যকারণ সম্পর্কবিহীন দুই ঘটনা; আকস্মিক সাদৃশ্য; আপাতদৃষ্টিতে মনে হয় সম্পর্কযুক্ত অথচ পরস্পর সম্পর্কহীন একসংগে সংঘটিত দুই ঘটনা; তালগাছে কাক বসামাত্র তাল পতনের মত ঘটনা।
কাকতন্দ্রা/নিদ্রা কাকের মত সতর্ক সজাগ ঘুম, অগভীর পাতলা ঘুম, কপট ঘুম
কাকপক্ষ কানের পাশে ঝুলানো চুলের গোছা, কানপাটা, জুলফি
কাকপদ লেখায় বাদপড়া অংশ নির্দেশকচিহ্ন, গণিতের ক্যারেটচিহ্ন (^)
কাকপুচ্ছ কাকের মত পুচ্ছযুক্ত পাখি, কোকিল
কাকপুষ্ট অপরদ্বারা পুষ্ট, কোকিল
কাকফল নিমফল
কাকবন্ধ্যা একটিমাত্র সন্তানের জননী, এক গর্ভা
কাকবলি কাককে আহারের জন্য দেয় নবান্নের অংশ
কাকভীরু প্যাঁচা
কাকভূষণ্ডী বহুদর্শী বয়োবৃদ্ধ লক, বহু অভিজ্ঞাতাসম্পন্ন বৃদ্ধব্যক্তি
কাকভোর ভোরের যে সময় কাকেরা প্রথম ডাকা শুরু করে, খুব সকাল
কাকলাস অত্যন্ত কৃশকায় ব্যক্তি
কাকলি অব্যক্ত মধুরধ্বনি ('কোকিলকাকলীকলকলৈ'-গীতগোবিন্দ)
কাকশীর্ষ কাস্তে আকৃতির সাদা বকফুল
কাকস্নান অল্পজলে স্নান; তাড়াহুড়ো করী কোনমতে স্নান, সংক্ষিপ্ত গোসল
কা কস্য পরিবেদনা কে কার কথা ভাবে; বৃথা হাহুতাশ
কাকিলা (কোকিলা) বউ সন্তান প্রতিপালন করতে পারে না কিন্তু ন্যাকামী করে, এমন নারী
কাকুতিমিনতি / কাকুবাদ অনুনয়-বিনয়, কাতর বচন, সাধ্য-সাধনা (তোমার কাকুবাদে আমি ভুলছি না)
কাকের ঠ্যাঙ, বকের ঠ্যাঙ // কাগের ছা বগের ছা অত্যন্ত কুৎসিত হস্তাক্ষর; কাগের ছা বগের ছার মত সাদাকালো লেখা অর্থাৎ অক্ষরের কোথাও কালি লাগা কোথাও কালি-না-লাগা; হাতের লেখায় ছেলেমানুষি ভাব
কাকের বাসায় কোকিলের ছা পরের অন্নে প্রতিপালিত।
কাকের পিছে ফিঙে লাগা কাউকে ব্যতিব্যস্ত করে তোলা
কাকের (খাবার) লুকান এমন লুকানো যে পরে খুঁজে পাওয়া ভার
কাকোদর কুৎসিত উদর, সাপ
কাগজপত্র দলিলজাতীয় প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্রসমূহ; নানা ধরনের খুঁটিনাটি কাগজ
কাগজে কলমে লিখিতভাবে, মুখে মুখে নয়া থাকা
কাগাবগা উচ্ছৃঙ্খল ছন্নছাড়াভাব, সামঞ্জস্যহীন অবস্থা
কাগুজে বাঘ কেবল কাগজেই আছে বাস্তবে নেই; মিথ্যা ভয়
কাঙালপনা অতিশয় লোলুপতা
কাঙালি বিদায় অবজ্ঞার সাথে দান
কাঙালের ঘোড়ারোগ/ঠাকুরব্যাধি দরিদ্রের সাধ্যতীত ব্যয়ের আকাঙ্ক্ষা/শখ
কাচ্চাবাচ্চা অতি অল্পবয়সী ছেলেমেয়ে (মেলায় কাচ্চাবাচ্চাদের ভিড় জমেছে); সমার্থক বাগধারা- কচিকাঁচা
কাছাকাছি১ লাগোয়া (বাড়ীগুলি সব কাছাকাছি)
কাছাকাছি২ প্রায় সমান (কাছাকাছি বয়সের ছেলেমেয়েরা গুলতানি করছে)
কাছা আলগা/খোলা/ ঢিলা অসাবধান, কাণ্ডজ্ঞানহীন, পরোক্ষ বিষয়ে নজর নেই, বেখেয়াল (কাছা আলগা লোক); সমার্থক বাগধারা- মুক্তকচ্ছ
কাছা ধরা তোষামোদকারী, পরনির্ভরশীল
কাছায় হাগা কাপুরুষ, ভীরুতা প্রকাশ করা
কাছেকাছে সঙ্গেসঙ্গে (নাতিটা সবসময় তার কাছেকাছে থাকে)
কাছেপিঠে বেশি দূরে নয়, ধারেকাছে, সন্নিকটে (কাছেপিঠে থেকো বেশি দূরে যেও না)
কাজকর্ম চাকুরী, জীবিকা, পেশা
কাজকাম কার্যমাত্র (আমার কাজকাম সব শেষ)
কাজ কী কি প্রয়োজন অর্থাৎ নিস্প্রয়োজন (আদার ব্যাপারীর জাহাজের খবরের কাজ কি?- প্রবাদ)
কাজ দেওয়া১ কাজে নিযুক্ত করা
কাজ দেওয়া২ দায়িত্ব অর্পণ করা
কাজ দেখা১ কাজের দেখাশুনা করা
কাজ দেখা২ চাকুরী খোঁজা
কাজ দেখানো১ নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করা
কাজ দেখানো২ কর্মব্যস্ততার ভান করা (পরোক্ষে কাজে ফাঁকি দেওয়া)
কাজও নেই কামাইও নেই অকারণে ব্যস্ত, নির্দিষ্ট কোন কাজ নেই পরোক্ষে বিরামও নেই; অর্থাৎ কাজের কোন নিয়মবিধি নেই যখন যা আসে তাই করতে হয়
কাজপাগল/পাগলা কাজ করতে ভীষণ ভালোবাসে এমন, অস্বাভাবিকরকমের কাজের নেশাযুক্ত
কাজ বাগানো১ উদ্দেশ্য সিদ্ধি করা (সুযোগ বুঝে কাজ বাগিয়ে নিয়েছে)
কাজ বাগানো২ চাকরী জোগাড় করে নেওয়া (নেতা ধরে একটা কাজ বাগিয়েছি)
কাজ বাড়ানো অকাজ করে খাটনী বাড়ানো (দুরন্ত ছেলে ঘরের কাজ বাড়ায়)
কাজ হওয়া উদ্দেশ্য সিদ্ধ হওয়া (তুমি থাকাতে আমার কাজ হয়েছে)
কাজ হাঁশিল করা উদ্দেশ্য সিদ্ধ করা (তুমি থাকাতে আমার কাজ হয়েছে)
কাজলা কৃষ্ণবর্ণা (বাঁশ-বাগানের মাথার উপর চাঁদ উঠেছে ওই, মাগো আমার শোলক্-বলা কাজলা দিদি কই?- যতীন্দ্রমোহন বাগচী)
কাজিয়া ঝগড়া, বিবাদ (দুদলের মধ্যে কাজিয়া লেগেই আছে)
কাজীর বিচার অন্যায় বিধিবিরুদ্ধ পক্ষপাতদুষ্ট বিচার; আধাআধি ভাগ করে সমস্যার সমাধান বা একপেশে বিচার
কাজে আসা/লাগা প্রয়োজনে লাগা, ফললাভ হওয়া ('চুপ করে বসে না থেকে তকলি কাটলেও কাজে আসে')
কাজেই/ কাজে কাজেই অতএব, সুতরাং
কাজেকর্মে সাংসারিক কাজে (মেয়েটি কাজেকর্মে বেশ ভালো)
কাজের কথা প্রয়োজনীয় কথা, সারকথা
কাজের কাজ উপযুক্ত, মুল্যবান কাজ (কাজ তো অনেক হয়, তবে কাজের কাজ খুব কম হয়)
কাজের কাজি উপযুক্ত ব্যক্তি, কর্মদক্ষ (তুমিই হ' লে এই কাজের একমাত্র কাজি)
কাজের বার অনুপযুক্ত ব্যক্তি, অকর্মণ্য
কাজের মাথামুণ্ড নাই কাজে শৃঙ্খলা নেই
কাজের কাজি/লোক উপযুক্ত ব্যক্তি, কর্মঠ, কাজে কুশল, যে কার্যত করে, শুধু মুখে বলে না
কাজের সময় কাজি প্রয়োজনে তোষামোদ (কাজের সময় কাজি, কাজ ফুরালেই পাজি- প্রবাদ)
কাঞ্চনমূল্য১ স্বর্ণমুদ্রার মূল্যস্বরূপ দক্ষিণা
কাঞ্চনমূল্য২ অগ্নিমূল্য (বাজারে কাঞ্চনমূল্যে কাঁচা আনাজ কিনতে হচ্ছে)
কাটখোট্টা/ কাঠখোট্টা গোঁয়ার, রসকশহীন, রুক্ষপ্রকৃতি; শুষ্কহৃদয়, দয়ামায়াহীন (কাটখোট্টা লোক)
কাটগোঁয়ার/ কাঠগোঁয়ার অত্যন্ত একগুঁয়ে প্রকৃতি, অত্যন্ত গোঁয়ার, ভালমন্দ বোধহীন
কাটছাঁট কিয়দংশ বাদ (পরিকল্পনায় কিছু কাটছাঁট করা হয়েছে); সমার্থক বাগধারা- ছাড়ছোড়, বাদসাদ ইত্যাদি
কাটমোল্লা/কাঠমোল্লা অল্পশিক্ষিত গোঁড়া ধর্মজ্ঞানহীন সংকীর্ণমনা মুসলমান পুরোহিত, ধর্মজ্ঞানহীন ধর্মব্যবসায়ী
কাটা১ ছেদন করা (গাছ কাটা)
কাটা২ খনন কয়ড়া (খাল কেটে কুমীর আনা- প্রবাদ)
কাটা৩ খণ্ডন করা (যুক্তি কাটা)
কাটা৪ অতিবাহিত করা (সময় কাটা)
কাটা৫ আঁকা (দাগ কাটা)
কাটা৬ আবৃত্তি করা বা রচনা করা (ছরা কাটা)
কাটা৭ পরিস্কার হওয়া (মেঘ কাটা)
কাটা৮ লেখা (চেক কাটা)
কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা অপমানের উপর অপমান,যন্ত্রণার উপর যন্ত্রণা; সমার্থক বাগধারা- গোদের ওপর বিষফোঁড়া
কাটাকাটা১ ছাড়াছাড়া স্পষ্ট বোল (কাটাকাটা কথা)
কাটাকাটা২ জ্বালা ধরানো (কাটাকাটা কথা)
কাটাকাটি১ তর্কাতর্কি (কথা কাটাকাটি ভাল লাগে না)
কাটাকাটি২ মারামারি, হানাহানি (দেশে কাটাকাটি লাঠালাঠি লেগেই আছে)
কাটাকুটা নৈবদ্যের উপকরণ, ফলমূলাদি
কাটাকুটি১ কেটে সংশোধন করা (লেখাটায় অনেক কাটাকুটি হয়েছে)
কাটাকুটি২ অবসান (দেনাপাওনা কাটাকুটি হয়ে গেছে)
কাটাকুটি৩ কাটার পর ছোট করে কোটা
কাটা ছাঁটা আবশ্যকমত বাহুল্য বর্জন করা
কাটাছাঁটা প্রয়োজনমত ঠিক মাপ সই
কাটাছেঁড়া বিস্তৃত বিশ্লেষণ (পুলিশ ঘটনার কাটা ছেঁড়া করছে)
কাঠ নিস্পন্দ (ভয়ে কাঠ)
কাঠকাঠ কর্কশ/রসকষহীন (কাঠকাঠ কথাবার্তা); সমার্থক বাগধারা- চাঁচাছোলা/চাঁছাছোলা
কাঠখড় জোগাড়যন্ত্র, নানারকম চেষ্টা ও পরিশ্রম (অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে আসতে পেরেছি)
কাঠখোট্টা একগুঁয়ে, গোঁয়া্‌র, রসকষহীন
কাঠগোঁয়ার অত্যন্ত গোঁয়ার/একরোখা প্রকৃতির লোক (তোমার মত কাঠগোঁয়ার দুটো দেখিনি); সমার্থক বাগধারা- গোঁয়ারগোবিন্দ
কাঠপুতুলি/কাঠের পুতুল নির্জীব, স্থির
কাঠফাটা রোদ্দুর তীব্র রোদের তেজ, প্রচণ্ড রৌদ্র
কাঠবিড়ালীর সেতুবন্ধন নগণ্যের সাহায্য; কোন তুচ্ছ কাজ তুচ্ছ নয়
কাঠি কাঠি অত্যন্ত সরু, কৃশ (কাঠি কাঠি হাত পা)
কাঠি দেওয়া উত্যক্ত/উত্তেজিত/বিরক্ত করা, বাধার সৃষ্টি করা, বাগড়া দেওয়া (পিছনে কাঠি দিতে সবাই পারে)
কাঠে কাঠে সমানে সমানে, সেয়ানে সেয়ানে (কাঠে কাঠে লড়াই)
কাঠের ঘোড়া ধর্মরাজ (কড়ি পেলে কাঠের ঘোড়া হাঁ করে)
কাঠের পুতুল/কাঠপুতুলি নির্জীব, স্থির
কাঠে কাঠে পড়া সেয়ানেসেয়ানে মোকাবিলা
কাড়াকাড়ি পরস্পরের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেবার চেষ্টা; সমার্থক বাগধারা- টানাটানি
কাণ্ডকারখানা আচার-ব্যবহার, নানা ঘটনাসমূহ (তোমার কাণ্ডকারখানা দেখে সবাই হতবাক); সমার্থক বাগধারা- কর্মকাণ্ড, ক্রিয়াকলাপ/কাণ্ড ব্যাপার-স্যাপার
কাণ্ডজ্ঞান/ কাণ্ডা-কাণ্ড-জ্ঞান/ কাণ্ডা-কাণ্ডি-জ্ঞান সহজাত বুদ্ধি; অবস্থা অনুযায়ী কর্তব্য-অকর্তব্যবোধ, বুদ্ধিবিবেচনা, ভালমন্দ বিচারের ক্ষমতা, উচিত-অনুচিতবোধ, (দেখে মনে হচ্ছে তুমি কাণ্ডজ্ঞান হারিয়েছো)
কাৎলামাছ বিত্তশালী, ঘাঘুলোক, বিরাট দাঁও
কাতার পংক্তি, শ্রেণী, সারি, বড় দল
কাতারে কাতারে সারিবদ্ধভাবে অজস্র সংখ্যায় (কাতারে কাতারে লোক আসছে)
কাদা ওড়ানো অঘটন ঘটানো; অসম্ভবকে সম্ভব করা
কাদা ওড়ানীর কাছে ধুলা উড়ানী অতিধূর্তের কাছে ধূর্তাপনা
কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি পরস্পরের নিন্দা করা, কুৎসা গাওয়া ( দলে দ্বন্দ্ব, কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করে দলটা গেল)
কানকাটা নির্লজ্জ, বেহায়া
কান কাটা অপমান করা; বুদ্ধিবলে পরাজিত করা (সবার সামনে তোমার কান কেটে দেব)
কান কাটা যাওয়া অপমানিত হওয়া, লজ্জিত হওয়া (তোমার ব্যবহারে আমার কান কাটা যাচ্ছে)
কানখড়কে কুমন্ত্রণাদাতা, শোনায় সতর্ক
কানখড়খড়ে শ্রবণশক্তি এমন প্রখর যে মৃদু শব্দও শুনতে পায়
কান খাড়া করা মনোযোগী হওয়া, শোনার জন্য ব্যাগ্র/সতর্ক হওয়া
কানচাটা কানের পাতায় ক্ষতরোগবিশেষ (গাফাটা গায়ে দাদ যার সদাই বিরস মন সুখ নেই তার- প্রবচন)
কানচাটা হাসি আকর্ণবিস্তৃত হাসি (মাড়ি বের করে কানচাটা হাসি হেসো না)
কান টানা উপলক্ষ ধরে লক্ষ্যে পৌঁছানো (কান টানলে মাথা আসে- প্রবাদ)
কান থাকতে কালা অমনোযোগী
কান দেওয়া গ্রাহ্য করা, মনোযোগ দেওয়া, মনোযোগ দিয়ে শোনা (ওর কথায় কান দিও না)
কান নিয়ে গেল চিলে কানপাতলা লোক
কান পাতলা সহজেই বিশ্বাসপ্রবণ, শোনা কথায় প্রভাবিত হয় (বড় কানপাতলা লোক)
কান পাতা শোনা,গোপনে শোনা, শোনার জন্য উদ্গ্রীব ('আমি কান পেতে রই'-রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধার- আড়ি পাতা
কান ফাটা কানের পর্দা ফাটার মত তীব্র শব্দযুক্ত (কানফাটা আওয়াজ)
কানফুল কানের অলঙ্কার বিশেষ
কানবালা বলয়াকৃতি কানের অলঙ্কার বিশেষ
কান ভাঙানি/ভাঙানো অন্যের সম্পর্কে কুপরামর্শ দান; গোপনে অন্যের সম্পর্কে কুকথা বলে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য সৃষ্টি করা (কান ভাঙাতে সবাই আছে); সমার্থক বাগধার- কানে মন্ত্র দেওয়া
কান ভারী করা নানাবিরুদ্ধ কথা বলে কান ভারাক্রান্ত করা; সমার্থক বাগধার- কান ভাঙানো, কানে মন্ত্র দেওয়া
কান মলা অপমান করা, অপদস্থ করা (ঘাট হয়েছে আমি কান মলছি)
কাননকুসুম বনফুল ('কাননে কুসুম কলি সকলি ফুটিল')
কানাইয়ের মা পরের সন্তানের মা
কানাকড়ি১ অতি নগণ্য পরিমাণ, অত্যল্প অর্থ (আমার কানাকড়িরও সম্বল নেই); সমার্থক বাগধারা- ফুটো পয়সা
কানাকড়ি২ অতিতুচ্ছ মূল্য (তোমার কথার কানাকড়ি মুল্য নেই)
কানাকানি কানে কানে নিভৃতে বলা; গোপন রটনা চুপে চুপে বলাবলি (বিষয়টা নিয়ে সবাই কানাকানি করছে); সমার্থক বাগধারা- কানাঘুষা
কানাখোঁড়ার একগুণ বাড়া১ পঙ্গুর অনুভূতিশক্তি বেশি;
কানাখোঁড়ার একগুণ বাড়া২ গুণহীনের অহঙ্কার/বড়াই বেশি হয়
কানাগরু বামুনকে দান অপ্রয়োজনীয় জিনিস দান করে পূণ্যলাভের আকাঙ্ক্ষা
কানাগরুর ভিন্ন গোঠ (মাঠ)/পথ অবুঝে সোজা পথে হাঁটে না; বুদ্ধিহীন লোক যুক্তির ধার ধারে না
কানাগলি একমুখ বন্ধ গলি; আলং- দিশাহীন পথ
কানাগলিতে ঘুরে মরা নিস্কৃতির পথ হন্নে হয়ে খুঁজে মরা
কানাঘুষা/ঘুষো চুপে চুপে বলাবলি (কানাঘুষায় কান দেবেন না; কেউ আমাকে বলে নি, কানাঘুষায় ব্যাপারটা জানতে পারলাম); সমার্থক বাগধারা- কানাকানি
কানাচি পাতা/মারা গোপনে শুনতে চেষ্টা করা (কানাচি মেরে কি শুনছো?)
কানাছেলের নাম পদ্মলোচন নির্গুণের মধ্যে গুণ খোঁজার হাস্যাস্পদ প্রয়াস; সমার্থক বাগধারা- কেলেবামুনের নাম গৌরাঙ্গসুন্দর, গোঙ্গাছেলের নাম তর্কবাগিশ, ঘুঁটেকুড়ুনির ব্যাটার নাম চন্দনবিলাস, ছাল নেই কুত্তার নাম বাঘা ইত্যাদি
কানামাছি খেলা ধরাছোঁয়া না দেওয়া (চোর-পুলিশে কানামাছি খেলছে)
কানায় কানায় কিনারা পর্যন্ত, পরিপূর্ণ (কলসীটা কানায় কানায় ভরা)
কানায়ে ভাগনা লম্পটচরিত্রের লোক; সমার্থক বাগধারা- কচুবনের কালাচাঁদ, কদম্বগাছের কানাই, ভাগনে কানাই
কানী বিদ্রুপে- যেন দেখতে পায় না এমন নারী- গালিবিশেষ (রাজার আছে রাণী কানার আছে কানী-প্রবাদ)
কানীন কুমারীমেয়ের সন্তান (কর্ণ কুন্তীর কানীন পুত্র)
কানে আঙুল দেওয়া অশ্রাব্য কিছু শুনতে না চাওয়া
কানে আসা শুনা
কানে কানে অন্যে শুনতে পায় না এমনভাবে, কানের কাছে মুখ নিয়ে গিয়ে মৃদুস্বরে সমার্থক বাগধারা- চুপিচুপি
কানে খাটো কম শুনতে পায়
কানে তুলো গোঁজা ইচ্ছা করে না শোনা (যতই বকো আর ঝকো কেনে গুঁজেছি তুলো)
কানে তোলা বিষয় উত্থাপন করা, মন দিয়ে শুনা, শোনানো (কথাটা মনিবের কানে তুললো)
কানে ফু দেওয়া চুপে চুপে কুপরামর্শ দেওয়া
কানে মন্ত্র দেওয়া কান ভাঙানো-এর অনুরূপ
কানে লাগা১ বিশ্বাসযোগ্য মনে হওয়া; অন্য অর্থে- কানে কঠোর বা শ্রুতিমধুর মনে হওয়া
কানে লাগা২ শ্রুতিকটু লাগা
কানে লাগা৩ শ্রুতিমধুর মনে হওয়া
কানে লেগে থাকা স্মৃতি জাগরূক থাকা
কানে মাথা খাওয়া গালিতে- শ্রবণশক্তি হারানো (কানের মাথা খেয়েছো নাকি, এত ডাকছি শুনতে পাচ্ছ না)
কান্নাকাটি অনুনয়-বিনয়, একান্ত আবদার, প্রচুর ক্রন্দন (অযথা কান্নাকাটি করে কোন লাভ হবে না)
কাপড়-চোপড় পোশাকপরিচ্ছদ (একটু বোসো কাপড়চোপড় ছেড়ে আসি)
কাপড়ে আগুন ঢাকা পাপ চাপা দেবার ব্যর্থপ্রয়াস
কাপড়েবাবু জামাকাপড়বিলাসী অল্পধনী, বাহ্যিক সভ্যব্যক্তি
কাপড়েহাগা অতি ভীরু
কাপ্তান/কাপ্তেন হীন আমোদপ্রমোদরত ও ইয়ারদের পৃষ্ঠপোষক ধনীব্যক্তি
কাপ্তেনি করা মস্তানি/সর্দারি করা
কাফের ইসলাম ধর্মে অবিশ্বাসী বা ইসলামবিরোধী লোক; নৃশংস, নির্মম ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের প্রতি মুসলমানদের বিতৃষ্ণাজ্ঞাপক উক্তি
কাবার খতম, শেষ, সমাপ্তি (মাসকাবারে মাইনে পাবে; 'আমি কই কম্ম কাবার কুকুরেই করবে সাবাড়'- নজরুল)
কাবিল উপযুক্ত, লায়েক, যোগ্য (এই কাজের কাবিল লোক চাই)
কাবু জব্দ, দুর্বল, বশীভূত (জ্বরে একেবারে কাবু; আমাকে কাবু কয়ড়া সহজ নয় ইত্যাদি)
কামচোর১ আসঙ্গলিপ্সা
কামচোর২ কাজে ফাঁকিবাজ
কামড়াকামড়ি পরস্পর মারামারি (দুইদল কামড়াকামড়ি করছে)
কামধেনু অভীষ্টপূরণকারী, সকলের উপকারকারী
কাম নাই কামাইও নাই নির্দিষ্ট কোন কাজ নেই ফলে সর্বদা উদ্যোগী থেকে উপস্থিতমত কাজ করতে হয়
কাম ফতে অভিষ্ট সিদ্ধ
কামলা দিনমজুর
কামাই১ উপার্জন, রোজগার (কামাই ভালোই হয়)
কামাই২ বিরাম (কাজ নাই কামাইও নাই)
কামাগ্নি অতি লালসা
কামানি ক্ষৌরকর্মের বেতন, নাপিতের আয়
কামাল অসাধারণ/প্রশংসনীয় কাজ, পরাকাষ্ঠা, বিস্ম‍য়কর সাফল্য ('কামাল তু নে কামাল কিয়া ভাই' নজরুল)
কামিন নারীশ্রমিক (কোলিয়ারীর কুলি-কামিন)
কামিনী অতিশয় কামুকা নারী
কামিনী-কাঞ্চন নারী ও অর্থ, উভয়ের প্রতি আশক্তি (‘কামিনী-কাঞ্চন অনিত্য, একমাত্র ঈশ্বরই নিত্য’-রামকৃষ্ণ)
কামিয়াব সফল ('হাম হোঙ্গে কামিয়াব')
কায়কল্প আয়ুবৃদ্ধি ও যৌবনলাভের জন্য আয়ুর্বেদীয় চিকিৎসাবিশেষ
কায়ক্লেশ কায়িক পরিশ্রম
কায়ক্লেশে অভাব অনটনে, কষ্টেসৃষ্টে (কায়ক্লেশে কোন রকমে বেঁচে আছি)
কায়দা কৌশল ('দায়ে পড়লে কায়দা বেড়োয় মস্তিস্ক ফুঁড়ে')
কায়দাকানুন রীতিনীতি (এখানকার কায়দাকানুন সব আলাদা)
কায়মনোবাক্যে দেহ মন ও বাক্যে, সর্বোতভাবে (আমি কায়মনোবাক্যে তোমার কুশল কামনা করি)
কায়েম পাকা, বহাল, চিরস্থায়ী (চাকরিতে কায়েম হয়েছে; কায়েমি বন্দোবস্ত, কায়েমি স্বার্থ ইত্যাদি)
কার ঝামেলা, ফ্যাসাদ, সঙ্কট (আচ্ছা কারে পড়া গেল)
কারখানা বিরাট ব্যাপার (তোমার কাণ্ডকারখানা দেখে সবাই বিস্মিত)
কারচুপি কৌশল, চালাকি, শঠতা (টাকার কারচুপি কে না করে); সমার্থক বাগধারা- কারিকুরি, কারসাজি ইত্যাদি
কারণবারি/সলিল কৌতুকে- মদ, সুরা (\দূএ হোক নিরানন্দ এসো পান করি কারণসলিল'-রবীন্দ্রনাথ)
কারদানী/ কেরদানী কর্মকৌশল, বাহাদুরী (বেশি কারাদানী দেখাতে হবে না)
কারবার কাণ্ড, ব্যাপার (ওর কারবারটা দেখেছো)
কারণ জল/বারি/সুধা মদ ('বিপিনবাবুর কারণসুধা মেটায় জ্বালা মেটায় ক্ষুধা- (ফিল্মি গান)
কারণের আগেই কার্য আগাম সুখকল্পনা; সমার্থক ভাগধারা- আম না হতে আমসি/আমস্বত্ব, কালনেমির লঙ্কাভাগ, গাছ না উঠতে এককাঁদি, গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল, রাবণের ছাদনাতলা, রাম না হতেই রামায়ণ, হবু ছেলের অন্নপ্রাশন ইত্যাদি
কারসাজি চালাকি, প্রবঞ্চনা (কারসাজি করে ভাইয়ের সম্পত্তিটা দখল করল); সমার্থক বাগধারা- কারচুপি
কারিকুরি উপায়, দক্ষতা, শিল্পনৈপুণ্য (অল্পে সারো বেশি কারিকুরি করতে হবে না)
কার্তিক১ প্রশংসায়- অতিসুপুরুষ (আর্কিক জামাই হবে তোমার)
কার্তিক২ নিন্দায়- অতিকদাকার পুরুষ
কাল কাটানো জীবনযাপন করা, সময়ের অপচয়
কাল ক্ষেপণ সময় অতিবাহন (বৃথা কাজে অযথা কাল ক্ষেপণ করো না)
কাল গোনা দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করা ('এত দিন যে বসে ছিলেম পথ চেয়ে আর কাল গুনে'- রবীন্দ্রনাথ)
কালগ্রাস মৃত্যু্র কবল (কালগ্রাসে পরিত হল); সমার্থক বাগধারা- কালের কবলে
কালঘাম মুখ্যার্থে- মৃত্যুকালীন ঘাম; গৌণার্থে- প্রচুর ঘাম, প্রচণ্ড পরিশ্রমে সর্বাঙ্গ সিক্ত
কালঘুম মুখ্যার্থে- চিরঘুম, মৃত্যু এমন ঘুম যা ভাঙতে চায় না; গৌণার্থে- সর্বনেশে ঘুম, যার জন্য কোন অশুভ ঘটনা ঘটে
কালচক্র আবর্তমান কাল, চক্রের মত অবিরাম ভ্রমণশীল সময়
কালনেমির লঙ্কাভাগ ফললাভের আগেই ফলভোগের সুখকল্পনা; অতি আগাম পরিকল্পনা; অভিষ্ট সিদ্ধির আগেই অনুকূল জল্পনা-কল্পনা; সমার্থক ভাগধারা- রাবণের ছাদনাতলা, রাম না হতেই রামায়ণ, হবু ছেলের অন্নপ্রাশন ইত্যাদি
কালপেঁচা অত্যন্ত অশুভকর বা কালো ও কদাকার ব্যক্তি
কালপ্রাপ্তি মৃত্যু (গতকাল পিতার কালপ্রাপ্তি ঘটেছে)
কালবেলা জ্যোতিষশাত্রমতে অশুভ সময়
কালবিলম্ব সময় অতিবাহন (কালবিলম্ব না করে চলে এস)
কালযাপন সময় কাটানো/ক্ষেপ (অযথা কালযাপন কর না); সমার্থক বাগধারা- কালক্ষেপণ, কালহরণ
কালরাত্রি১ অশুভ রাত, যে রাতে কারো মৃত্যু হয়
কালরাত্রি২ বাসি বিয়ের পরবর্তী রাত
কালশশী/কালোশশী কৃষ্ণপক্ষের চাঁদ
কালশিটা আঘাতের ফলে রক্ত জমে উৎপন্ন কালো দাগ
কালসাপ ক্রুর/খলব্যক্তি, অনিষ্টকারী শক্তি, ভয়ানক হিংস্র (দুধকলা দিয়ে ঘরে কালসাপ পোষা-প্রবাদ)
কালস্রোত সময়ের অগ্রগতি ('কালস্রোতে ভেসে যায় জীবন,যৌবন ধনমান'- রবীন্দ্রনাথ)
কালহরণ কালযাপন-এর অনুরূপ
কাল হওয়া মৃতপ্রায় হওয়া; ধ্বংসের কারণ হওয়া (বদসঙ্গই ওর কাল হয়েছে)
কালা/কালাচাঁদ শ্রীকৃষ্ণ ('কালারে তোর প্রেমে ভীষণ জ্বালা'-লোকগীতি)
কালা-কানুন অন্যায় বিধি; জনস্বার্থবিরোধী আইন
কালাকাল সুসময় ও দুঃসময়, শুভ ও অশুভ সময়
কালাগ্নি প্রলয়ঙ্কর/সৃষ্টিনাশক অগ্নি
কালাগুরু কৃষ্ণচন্দন
কালাচাঁদ/কালিয়া শ্রীকৃষ্ণ; বিদ্রুপে- কালো কুৎসিত ব্যক্তি, কলঙ্কিত ব্যক্তি
কালান্তক প্রলয়াঙ্কারী (কালান্তক সামুদ্রিক ঝড় আসছে)
কালাপানি সমুদ্র
কালাপাহাড় মুখ্যার্থে- স্বধর্মদ্বেষী অত্যাচারী ও ভয়ংকর ব্যক্তি; প্রচলিত ধর্ম ও সংস্কারের বিরোধীব্যক্তি; গৌণার্থে- ভীষণ অত্যাচারী ও ক্রুর প্রকৃতির ব্যক্তি
কালাপুরুত তোতলা যজমান গুণে দুজনই সমান, যেন মণিকাঞ্চন যোগ
কালা/কালোবাজার যে বাজারে অবৈধ জিনিষ কেনাবেচা হওয়
কালাচাঁদ১ প্রশংসার্থে- কালো সুন্দর ছেলে; সমার্থক বাগধারা- কেলে মানিক/সোনা
কালাচাঁদ২ নিন্দার্থে- দুশ্চরিত্র লোক (কচুবনের কাঁলাচাঁদ)
কালামুখ/মুখো কলঙ্কলিপ্তমুখ, নির্লজ্জ, বেহায়া (এই বেহায়া কালামুখ আর দেখিও না)
কালাশুদ্ধি যে সময়ে কৃত ধর্মীয় ক্রিয়াকর্ম শুদ্ধ হওয় না
কালাশৌচ পিতামাতার মৃত্যুর কারণে বর্ষব্যাপী অশৌচ
কালি দেওয়া কলঙ্ক লেপন করা
কালিদহ গভীর নদী ('কেলে হরি কৃষ্ণকালী কালিদহের কুল'; কালিদহের জলে ডুবে মর ইত্যাদি)
কালিদাস মহামুর্খ (যে ডালে বসে সেই ডাল কাটে)
কালে কালে কালক্রমে, সময়ের উত্তরণে (কালে কালে কতই হল, পুলি পিঠের লেজ গজালো- প্রবাদ)
কালে ধরা/পাওয়া মৃত্যুর আলিঙ্গন
কালেভদ্রে কদাচিৎ, খুব একটা বেশি নয় (কালেভদ্রে এমন ঘটনা ঘটে); সমার্থক বাগধারা- অবরে-সবরে, কখনো-সখনো, নমাসে-ছমাসে
কালের কবলে মৃত্যু, সর্বনাশ; সমার্থক বাগধারা- কালগ্রাস
কালের করাল গ্রাস মৃত্যুমুখ, যমের কবল
কালো বিষন্ন, মলিন
কালোটাকা অবৈধ উপায়ে অর্জিত টাকা (দেশে কালোটাকার পাহাড় জমেছে)
কালোবাজার নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে জিনিস কেনা-বেচা
কালোমুখ অপ্রসন্ন মুখ
কালোয়াতি ব্যঙ্গে- ওস্তাদি (বেশি কালোয়াতি দেখিও না)
কাশীধামে ভূমিকম্প অসম্ভব ব্যাপার (বিশ্বাস যে শিবের থানে ভুমিকম্প হয় না)
কাশীধাম হয়ে কাঞ্চীপুরম যাত্রা ঘুর/বাঁকা পথে কাজ সম্পন্ন করা; সমার্থক বাগধারা- অমরকণ্ঠ হয়ে অমরনাথ যাত্রা, ঢেঁকিশাল দিয়ে কটকযাত্রা, কানপুর হয়ে নাগপুরযাত্রা ইত্যাদি
কাষ্ঠহাসি লোক দেখানো আন্তরিকতাহীন হাসি, শুস্ক নিরস হাসি
কাহিল দুর্বল, নিস্তেজ, বেদম, শ্রান্ত (রোগে ভুগে ভুগে কাহিল হয়ে পড়েছি)
কিংকর্তব্যবিমূঢ় কী করতে হবে বুঝতে পারে না এমন, কর্তব্য স্থির করতে না পেরে স্থির হয়ে থাকা (প্রচণ্ড বকুনি খেয়ে লোকটা কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়ল); সমার্থক বাগধারা- ইতিকর্তব্যবিমূঢ়, এদিকও না- ওদিকও না, ন যযৌ ন তস্থৌ, সসেমিরা, হতবুদ্ধি ইত্যাদি
কিংবদন্তী মুখেমুখে, জনশ্রুতি, জনরব, গুজব, মুখেমুখে প্রচলিত কথা, লোকপরম্পরায় শ্রুত কাহিনী
কিচির মিচির কোলাহল, ঝগড়া, বাকাবকি (এখন কিচিরমিচির বন্ধ কর)
কিছু কিছু১ অল্পস্বল্প, সামান্যসংখ্যক (কিছু কিছু লোক ব্যাপারটা জানে)
কিছু কিছু২ একটু-আধটু, উপর উপর, ভাসাভাসা (ব্যাপারটার কিছু কিছু আমার জানা আছে)
কিছু-না-কিছু এটা নয় ওটা; অন্ততঃ কিছু পরিমাণ (চিল ছোঁ মারলে কিছু-না-কিছু নিয়ে ওঠে- প্রবাদ)
কিছুতেই না অবশ্যই নয়, একেবারেই নয় (আমি কিছুতেই যাব না))
কিতাব-কীট খুব পড়ুয়া; সমর্থক বাগধারা- বইয়ের পোকা, গ্রন্থকীট
কিনার/কিনারা১ ধার, পাড়, প্রান্ত ('আমি তবী নিয়ে বসে আছি নদী কিনারে'-রবীন্দ্রনাথ)
কিনারা২ উপায়, নিস্পত্তি, মিমাংসা (মামলার কোন কিনারা দেখতে পাচ্ছি না)
কিন্তু কিন্তু ইতঃস্তত করা; দ্বিধাগ্রস্ত ভাব (অত কিন্তু কিন্তু করতে হবে না);সমার্থক বাগধারা- আমতা আমতা
কিমাশ্চর্য্যমতঃপরম এরপর আর (অধিক) আশ্চর্যের কি আছে; কি অদ্ভুত ব্যাপার
কিম্ভুতকিমাকার অদ্ভুত/বিশ্রী আকার, কদাকার, বিকট দর্শন (এমন কিম্ভুতকিমাকার রূপ ধারণ করেছো কেন?)
কিম্মৎ দাম, মূল্য (এর কিম্মৎ যা লাগবে আমই দেব)
কিরকিরে বালির মত খরখরে
কিরা দিব্বি, প্রতিজ্ঞা (আল্লার কিরা আমি সত্য কথা বলছি)
কিল খেয়ে কিল চুরি/হজম অপমানিত হয়ে অপমান গোপন করা
কিলবিল/কিলিবিলি বহুসংখক প্রাণীর একস্থানে জমায়েত এবং ইতস্ততঃ দ্রুত সঞ্চারণভাব (জলে পোকা কিলবিল করছে)
কিলিয়ে কাঁঠাল পাকানো অসম্ভবকে সম্ভব করার চেষ্টা করা; অস্বাভাবিকভাবে দ্রূত কার্যসম্পন্ন করার চেষ্টা
কিসমৎ ভাগ্য (কিসমত কা খেল; আমার কিসমৎ কী আমি জানি না)
কিসে আর কিসে উত্তমের সাথে অধমের তুলনা (কিসে আর কিসে, সোনা আর সিসে)
কিস্তিমাত কার্য সফল (হেরেও তুমি জিতলে, তুমিই কিস্তিমাত করলে)
কীচকবধ নির্দয়ভাবে প্রহৃত, প্রচণ্ড প্রহার (উৎস- দ্রৌপদীকে অপমান করায় ভীম কীচককে মেরে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকৃত করে দিয়েছিলেন)
কীট অধম/নগণ্য ব্যক্তি (নরকের কীট)
কীটাণুকীট/কীটস্য কীট অতি নগণ্য ব্যক্তি, অধমের অধম, নিকৃষ্টতম
কীর্তিকলাপ সুু-অর্থে-কৃতিত্বের পরিচায়ক কাজ; মন্দার্থে- অকাজ-কুকাজ (তোমার কীর্তিকলাপ সবাই জানে)
কুঁকড়ি-মুকড়ি কুণ্ডলী পাকিয়ে রয়েছে এমন; জড়সড় (শীতে বা ভয়ে কুঁকড়িমুকড়ি হয়ে আছে)
কুঁচকি-কণ্ঠা খাওয়া মাত্রারিক্তভোজন; সমার্থক বাগধারা- গণ্ডে-পিণ্ডে গেলা
কুঁচাকাঁচা কচি ছেলেমেয়ে; সমার্থক বাগধারা- কাচ্চাবাচ্চা
কুঁজার/কুঁজির মন্ত্রণা দুষ্টের পরামর্শ
কুঁজোর ইচ্ছা অসমর্থের অভিলাষ
কুঁড়ে অলস, কর্মে অপটু
কুঁড়ের বাদশা ভয়ানক অলস; সমার্থক বাগধারা- গোঁফ খেজুরে; পি-পু-পি-সু
কুঁতকুঁতে অতি ক্ষুদ্র চোখ (ওটা হোঁদোল কুঁতকুঁতে)
কুকুরকুণ্ডলী কুকুরের মত কুঁকড়ে শোয়া; কুণ্ডলাকৃতি কুকুরের মত জড়সড়
কুকুর পোষা হেয় জ্ঞান করা (কথা দিয়ে কথা না রাখতে পারলে আমার নামে কুকুর পোষো)
কুকুরে গোঁ ভয়ানক গোঁ
কুকুরে ঘুম পাতলা সচেতন ঘুম, সজাগ ঘুম
কুকুরে লেজ বাঁকাচরিত্রের লোক
কুকুরের আড়াই পাক স্বভাব দোষ; সমার্থক বাগধারা- গাধার জল খাওয়া, বিড়ালের তিন পা, শিয়ালের রা ইত্যাদি
কুক্ষিগত পুরোপুরি আত্মস্মাৎ, সম্পূর্ণ অধিকৃত (ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে দলের সর্বেসর্বা হয়েছে)
কুগ্রহ উৎপাত, উপদ্রব (আমার জীবনে সে মূর্তিমান কুগ্রহ); সমার্থক বাগধারা- ধনি
কুচকুচ উজ্জ্বল কালো রঙের ভাবপ্রকাশক (চুলগুলো কালো কুচকুচ করছে)
কুচুটে/কুচুণ্ডে কুটিক প্রকৃতির, হিংশুটে
কুছ পরোয়া নেই কোনো ভয় নেই
কুটকচালে১ কলহ ও বিবাদপ্রিয়
কুটকচালে২ দুর্বোধ্য ও তর্কবিতর্কের বিষয়ীভূত
কুটকুটানি অস্বস্তিবোধ, চুলকানি, ব্যগ্রতা (পয়সার কুটকুটানি- কাঁচা পয়সা হলেই খরচের জন্য কুটকুটানি বাড়ে)
কুটিকুটি/কুটিপাটি আকুল, আটখানা, যেন টুকরা টুকরা হয়ে যাবে এমন (হেসে কুটিকুটি/কুটিপাটি)
কুটোকাটা অকিঞ্চিতকর জিনিসপত্র (ঘরে কিছু কুটোকাটা পড়ে রইল)
কুদরৎ/কুদরতি কৌশল, ক্ষমতা, গৌরব, দক্ষতা, নৈপুণ্য বাহাদুরি, সামর্থ্য ('কুদরৎ কা খেল', কুদরতির জোরে রক্ষা পেয়েছি)
কুনকি হাতি পোষ্মানা হাতি, আলং- যে কৌশলে অন্যকে বশে আনে ও রাখে
কুনোব্যাঙ ঘরকুনো লোক, মুখচোরা, মেয়েমুখো, সীমিত জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- কূপমণ্ডুক
কুপো ব্যাঙ্গে- নাদাপেটা/পেটমোটা লোক
কুপোকাত পরাজিত, পর্যুদস্ত, বিধ্বস্ত
কুবেরের ধন/ভাণ্ডার সুবিপুল ধনসম্পদ, যে ঐশ্বর্য ফুরায় না
কুমড়াগড়াগড়ি একসাথে অনেকলোকের কুমড়ার মত মাটিতে গড়াগড়ি; হৃষ্টপুষ্ট শিশুর গড়াগড়ি
কুমড়ো-পটাশ মোটাসোটা অকর্মণ্য লোক
কুমিরের কান্না/কুম্ভিরাশ্রু মায়া কান্না, লোক দেখানো কান্না; ধরা যায় এমন ভান; সমার্থক বাগধারা- ব্যাঙের শোকে সাপের চোখে জল, মাছের মায়ের কান্না ইত্যাদি
কুম্ভকর্ণ খুব ঘুমকাতুরে
কুম্ভকর্ণের নিদ্রা দীর্ঘকাল ধরে কোন কাজ অবহেলিত
কুম্ভকর্ণের নিদ্রাভঙ্গ দীর্ঘকাল ধরে অবহেলিত কাজে সহসা হাত পড়া
কুম্ভীপাক নরকবিশেষ, যেখানে পশুপক্ষী হত্যার জন্য তেলে জ্বলেপুড়ে মরতে হয় (কুম্ভীপাকের তেলে পুড়ে মর-গালিবিশেষ)
কুম্ভীলক যে অপরের রচিত সাহিত্য থেকে ভাব ভাষা প্রভৃতি চুরি করে নিজের বলে চালায়
কুয়া/কুয়োর ব্যাং সংকীর্ণ অভিজ্ঞতাসম্পন্ন এবং জ্ঞানলাভে অনিচ্ছুক লোক, ঘরকুনো ব্যক্তি, যে বাইরের কোন খবর রাখে না; সমার্থক বাগধারা- কূপমণ্ডুক
কুরবানি মুসলমান ধর্মবিহিত পশুবলি, উৎসর্গ
কুর্নিশ বিনম্র অভিবাদন ('আমি বেদুঈন, আমি চেঙ্গিস, আমি আপনারে ছাড়া করি না কাহারে কুর্ণিশ' নজরুল)
কুরুক্ষেত্র / কুরুক্ষেত্র কাণ্ড/ব্যাপার তুমুল ঝগড়া, ভীষণ গোলমাল, মারামারি, ভীষণ গোলমাল (সভায় কুরুক্ষেত্র হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- খণ্ডপ্রলয়, তুলকালামকাণ্ড, ধুন্ধুমারকাণ্ড, মহামারী কাণ্ড, লঙ্কাকাণ্ড ইত্যাদি (সভায় কুরুক্ষেত্র ব্যাপার চলছে)
কুল কাঠের অঙ্গার/আগুন তীব্র দহনজ্বালা
কুলগৌরব১ উচ্চবংশের অহঙ্কার; সমার্থক বাগধারা- কুলাভিমান, জাত্যভিমান
কুলগৌরব২ বংশের মুখ উজ্জ্বলকারী
কুল মজানো বংশের সুনাম নষ্ট করা
কুল রাখি কি শ্যাম রাখি রাধার মানসিক দ্বন্দ্ব, উভয়সেঙ্কট; সমার্থক বাগধারা- এগুলে সর্বনাশ পিছুলে নির্বংশ, এগুলে রাম পিছুলে রাবণ, করাতের দাঁত, যেতে কাটে আসতেও কাটে, জলে কুমীর ডাঙায় বাঘ, সাপের ছুঁচো গেলা ইত্যাদি
কুললক্ষ্মী বংশমর্যাদা বৃদ্ধি করে এমন নারী
কুলশীল বংশ ও চরিত্র (অজ্ঞাত কুলশীলকে ঘরে স্থান দিও না)
কুলাঙ্গার কুলের কলঙ্কস্বরূপ ব্যক্তি
কুলাভিমান আভিজাত্যের গর্ব; সমার্থক বাগধারা- জাত্যভিমান
কুলে কালি দেওয়া বংশকে কলঙ্কিত করা
কুলে বাতি দেওয়া বংশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা (তার মৃত্যুতে তার কুলে বাতি দেওয়ার কেউ রইল না)
কুলের কাঁটা বংশের সুনাম নষ্টকারী সন্তান
কুলের ধ্বজা নিন্দার্থে- কুলের কলঙ্ক
কুলের প্রদীপ প্রশংসার্থে- কুলের গৌরব
কুলের বউ/কুলবধু সুচরিত্রা গৃহবধু; ভদ্রবংশের গৃহবধু ('কাদের কুলের বউ গো তুমি, কাদের কুলের বউ')
কুলের বার স্বামী বা পিতৃগৃহত্যাগকারী কুলটা নারী
কুশীলব নাটকের পাত্রপাত্রী
কুষ্মাণ্ড অপদার্থ ব্যক্তি- গালিবিশেষ (অকাল কুষ্মাণ্ড)
কুসুমকুসুম অল্পগরম
কুস্তি জড়াজড়ি
কূটকচালি অনর্থক বকাবকি, ঘোরপ্যাঁচ চুলচেরা তর্কবিতর্ক, বাজে তর্ক
কূটকচালে কলহপ্রিয়
কূটকৌশল চালাকি, ধান্ধাবাজী
কূটভাষী নিজের স্বার্থ বজায় রেখে বিচক্ষণতার সাথে কথা বলে এমন
কূপমণ্ডুক/ কুয়ার ব্যাঙ কুয়ার ব্যাঙের মত সীমাবদ্ধ জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তি, ঘরকুনো ব্যক্তি, সঙ্কীর্ণচেতা ব্যক্তি
কূল আশ্রয় (অকূলে কূল পাওয়া)
কূলকিনারা নিস্কৃতি, মুক্তির উপায় ('আদি নাই অন্ত নাই নাই কূলকিনার, এ সমুদ্রে ঝাঁপ দিলে উঠে শক্তি কার'- জাগের গান)
কূলকিনারা না পাওয়া কোন দিশা না পাওয়া
কূলহারা দিশাহারা ('কুলহারা ঢেউ আমি নীড়হারা পাখি, অজানা সুখের আশায় শুধু চেয়ে থাকি')
কৃতকর্ম স্বীয়কৃত কাজ (কৃতকর্মের ফল সবাই ভোগ করে)
কৃতকার্য সফল (সে পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়েছে)
কৃতনিশ্চয় সাফল্য সম্পর্কে সংশয়হীন (সে কৃতনিশ্চয় যে পরীক্ষায় প্রথম হবে)
কৃতবিদ্য বিদ্যান, মার্জিত, সুশিক্ষিত
কৃতসঙ্কল্প স্থির সিদ্ধান্তে উপনীত (দেশ ছাড়তে সে কৃতসঙ্কল্প)
কৃতাঞ্জলিপুট জোড়হস্ত (হুজুর কৃতাঞ্জলিপুটে নিবেদন করি আমি এই কাজ করিনি)
কৃপণের কড়ি খরচ না করে অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে যে অর্থ সঞ্চয় করা হয়; অতিপ্রিয় বস্তু (অন্ধের নড়ি, কৃপণের কড়ি- প্রবাদ)
কৃষ্ণচতুর্দশীর চাঁদ শেষ অবস্থায় উপনীত
কৃষ্ণের জীব দুর্বল ও অসহায় প্রাণী
কেঁচে গণ্ডুষ অসমাপ্ত কাজ পুনরায় সূচনা; নতুন করে আরম্ভ করা; আবার গোড়া থেকে শুরু করা
কেঁচে যাওয়া আয়োজন পণ্ড হওয়া, ভেস্তে যাওয়া (পরিকল্পনাটা কেঁচে গেছে)
কেঁচো অতি হীনব্যক্তি, ভীরুপ্রকৃতির লোক (ভয়ে কেঁচো)
কেঁচো খুঁড়তে সাপ সামান্য থেকে অসামান্য পরিস্থিতি; সামান্য বিষয়ের অনুসন্ধানে গুরুতর বিষয় প্রকাশিত
কেঁচো দিয়ে কাৎলা ধরা অল্পচেষ্টায় বিরাট কাজ
কেঁদে কঁকিয়ে কান্নাকাটি ও কাতর অনুনয়বিনয় করে (কেঁদে কঁকিয়ে মাকে রাজি করেছি)
কেঁদে বাঁচা কোনক্রমে অব্যাহতি পাওয়া
কেউ-কেউ কোন কোন (কেউ কেউ আমাকে সমর্থন করবে)
কেউ-না-কেউ/ কেউবা অনির্দিষ্ট কোন একজন, এ বা সে (কেউ-না-কেউ উপস্থিত থাকবে)
কেউকেটা১ নগণ্য/সামান্য ব্যক্তি ('মন যে বড় কেউকেটা নয় মনের নিজের মর্জি আছে')
কেউকেটা২ গণ্যমান্য সম্মানীয় ব্যক্তি (তুমি এমন কিছু কেউকেটা নও)
কেচ্ছা কুৎসা, নিন্দাচর্চা (নেতাদের কেচ্ছায় কান পাতা দায়)
কেটে পড়া চলে যাওয়া, অজ্ঞাতসারে পলায়ন করা, বিপদবুঝে সরে যাওয়া (এখন কেটে পড়)
কেতাদুরস্ত পরিপাটি, রুচিসম্মত, ফ্যাশনসম্মত; ফিটফাট (কেতাদুরস্ত পোশাক)
কেতাব-কীট বইয়ের পোকা, যে সর্বদা বই পড়ে; সমার্থক বাগধারা- গ্রন্থকীট
কেতাবি যে ব্যক্তির পুঁথিগত বিদ্যা আছে কিতু হাতেকলমে শিক্ষা নেই (চাষ করা কেতাবি লোকের কাজ নয়)
কেনারাম যে পরিশ্রম করে সম্পত্তি অর্জন করে
কেয়াবাত প্রশংসাসূচক উক্তি; প্রশংসার আড়ালে নিন্দা; উপহাসে- বাঃ বাঃ বেশ বেশ
কেয়ামত মহাপ্রলয়, শেষবিচারের দিন (আমরা ক্রমশঃ কেয়ামতের নিকটবর্তী হচ্ছি)
কেয়ার সমীহ (আমি কাউকে কেয়ার করি না; আমি তাকে থোড়াই কেয়ার করি); সমার্থক বাগধারা- তোয়াক্কা
কেরদানি/কেরামতি১ সুঅর্থে- কর্মক্ষমতা, কৌশল, নৈপুণ্য (তোমার কেরদানি আমার জানা আছে)
কেরদানি/কেরামতি২ নিন্দার্থে- ক্ষতি করার ক্ষমতা (তোমার কেরদানি শেষ)
কেরায়া কোন কিছুর বিনিময়ে পারিশ্রমিক
কেলে কার্তিক/ভূত/হাঁড়ি কালো কদাকার ব্যক্তি
কেলে মানিক/সোনা প্রশংসার্থে- কালো সুন্দর ছেলে; সমার্থক বাগধারা- কালাচাঁদ
কেলে মানিক/সোনা নিন্দার্থে- কালো কুৎসিত ছেলে (শ্যাওড়া গাছের কেলেমাণিক)
কেলেবামুনের নাম গৌরাঙ্গসুন্দর নিরর্থক নামকরণের ব্যর্থপ্রয়াস; সমার্থক বাগধারা- কানাছেলের নাম পদ্মলোচন, গোঙ্গাছেলের নাম তর্কবাগিশ, ঘুঁটেকুড়ুনির ব্যাটার নাম চন্দনবিলাস, ছাল নেই কুত্তার নাম বাঘা ইত্যাদি
কেলোর কীর্তি গোলমেলে ব্যাপার, বিশৃঙ্খল কাজকর্ম, নটঘটি ঘটনা (আজকে ঘরে একটা কেলোর কীর্তি হবে)
কেল্লা ফতে/কেল্লামাত/ কেল্লা মেরে দেওয়া উদ্যোগ সফল, কাজ হাসিল, কার্যসিদ্ধি, বাজিমাত, সাফল্যলাভ (মার দিয়া ভাই কেল্লা আর আমাকে পায় কে)
কেশাগ্র স্পর্শ করতে না পারা কোনো ক্ষতিসাধন বা অপমান করতে না পারা; ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকা
কেষ্টবিষ্টু বিদ্রূপে- সম্মানীয়/গণ্যমান্য ব্যক্তি, হোমরাচোমরা লোক
কেষ্টলীলা বিদ্রুপে- প্রমোদবিহার (ওখানে কেষ্টলীলা চলছে)
কেস১ ঘটনা, ব্যাপার (সে এক মজার কেস)
কেস২ মামলা (তার নামে একটা কেস ঠুকে দিয়েছি)
কৈমাছের প্রাণ যা সহজে মরে না
কৈফিয়ৎ আত্মপক্ষ সমর্থন (মিথ্যাকথা বলার কি কৈফিয়ৎ দেবে?)
কোঁচা দুলিয়ে বেড়ানো বাবুগিরি করা; দায়িত্বজ্ঞানহীন হয়ে আলস্যে দিন কাটানো
কোজাগর কে জাগর (কে জাগিতেছে), এই লক্ষ্মীপূর্ণিমাতে কে জেগে আছে?
কোণঘেঁষা লাজুক প্রকৃতির লোক
কোণঠাসা উপেক্ষিত (দলে সে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে)
কোণঠাসা করা বেকায়দায় ফেলা
কোথায় আগরতলা, কোথায় চৌকিরতলা কিসে আর কিসে; উত্তমের সাথে অধমের তুলনা
কোথায় রাজাভোজ, কোথায় গঙ্গুতেলি কিসে আর কিসে; উত্তমের সাথে অধমের তুলনা
কোথায় রাণী ভবানী, কোথায় ফুলি মেছুনী কিসে আর কিসে; উত্তমের সাথে অধমের তুলনা
কোথায় হরিদ্বার, কোথায় গুহ্যদ্বার কিসে আর কিসে; উত্তমের সাথে অধমের তুলনা
কোদাল দিয়ে দাড়ি চাঁচা ব্যর্থ প্রয়াস
কোন মুখে কোন সাহসে, কোন গর্বে (কোন মুখে তুমি এমন কথা বলছো)
কোমর বাঁধা দৃঢ়সঙ্কল্প হয়ে কোন কাজে নেমে পড়া; সমার্থক বাগধারা- উঠেপড়ে লাগা
কোমর ভাঙা কোন কাজে নিরুদ্যম হওয়া
কোমরের জোর সামর্থ্য
কোম্পানীর আমল ইংরাজী রাজত্বের সূত্রপাতকাল
কোয়াক অশিক্ষিত, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নয়; সমার্থক বাগধারা- হাতুড়ে
কোয়াক ডাক্তার/বদ্যি চিকিৎসাশাস্ত্রে জ্ঞান ও দক্ষতা আছে বলে দাবি করে এমন ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- কোয়াক
কোরা কাগজ যে কাগজে লেখা হয়নি
কোরাস সমবেত ধ্বনি (ব্যাঙের কোরাস শুনছি)
কোল-আঁচল শাড়ীর যে প্রান্ত কোলের কাছে থাকে
কোল-আঁচলে গিঁট সন্তানের মঙ্গল কামনায় আঁচলে গেরো
কোলকুঁজো শরীর কোমরের কাছে বাঁকা হওয়ার জন্য সামনের দিকে ঝুঁকে পড়েছে এমন
কোলজুড়ানো কোলে বসলে মায়ের মন জুড়ায় এমন
কোলজোড়া হয়ে থাকা চিরজীবী হওয়া
কোলটানা ছ স্বার্থান্বেষী ব্যক্তি
কোলপাতলা ঘেঁষাঘেঁষি নয় কিছুটা দূরে দূরে (কোলপাতলা ডাগর গুছি লক্ষ্মী বলেন ঐখানে আছি- খনা)
কোলপোঁছা ছেলে/কোলের ছেলে কনিষ্টপুত্র
কোলেপিঠে মানুষ যত্নে প্রতিপালিত
কো্লের ছেলে নিতান্ত শিশু
কোস্তাকুস্তি ধস্তাধস্তি
ক্যাঁক ক্যাঁক করা কর্কশ স্বরে বিরক্তি/রাগ প্রকাশ করা
ক্যাঁচর-ম্যাচর একাধিক লোকের একত্র চিৎকার (ওখানে কিসের এত ক্যাঁচর-ম্যাচর হচ্ছে?)
ক্যাঁট ক্যাঁটে / ক্যাট ক্যাটে কর্কশ, ধৃষ্টতাপূ্র্ণ, মর্মভেদী (ক্যাট ক্যাটে কথা); সমার্থক বাগধারা- চ্যাটাং চ্যাটাং, ট্যাঁক ট্যঁকে ইত্যাদি
ক্যাডার সংগঠনের কর্মীবৃন্দ
ক্যাবলাকান্ত/ক্যাবল-রাম কিছু জানে না কিছু বোঝে না এমন, অনভিজ্ঞ, বোকা, স্থূলবুদ্ধিসম্পন্ন; সমার্থক বাগধারা- হাঁদারাম
ক্যালমা/ ক্যালি কেরামতি, ক্ষমতা, দক্ষতা, ইংরাজী শব্দ- calibre থেকে উতপন্ন সহুরে বাংলা; ক্যালি থাকলে চাকরি পেতে অসুবিধা হবার কথা নয়)
ক্যালানো১ পেটানো (কেলিয়ে বৃন্দাবনে পাঠিয়ে দেব)
ক্যালানো২ অকারণে দন্ত বিকশিত করা (দাঁত-ক্যালানে)
ক্যাসেট উলটানো প্রসঙ্গ পরিবর্তন করা (এ বিষয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে এবার ক্যাসেট উলটানো যাক)
ক্যাসেট বাজা অবিরাম কথা বলা (এইরে ক্যাসেট বাজা শুরু হয়েছে আমি পালাই); সমার্থক বাগধারা- বকবক করা
ক্রন্দসী১ আকাশ ও পৃথিবী ('ঐ শুন দিশে দিশে তোমা লাগি কাঁদিছে ক্রন্দসী, হে নিষ্ঠুরা বধিরা ঊর্বশী'-রবীন্দ্রনাথ)
ক্রন্দসী২ রোরুদ্যমানা (উচ্চস্বরে ক্রন্দনরত) রমণী ('ক্রন্দসী পথচারিণী, তুমি কোথা যাও তুমি কারে চাও?- রবীন্দ্রনাথ)
ক্রিয়াকর্ম ধর্মীয় বা সামাজিক অনুষ্টান, পূজা-পার্বণ ইত্যাদি শাস্ত্রীয় কর্ম
ক্রিয়াকলাপ/কাণ্ড আচার-ব্যবহার (তোমার ক্রিয়াকলাপ ভাল ঠেকছে না); সমার্থক বাগধারা- কাণ্ডকারখানা
ক্রোড়পত্র দলিলের অতিরিক্ত অংশ; পূর্ণাঙ্গতার নিমিত্ত গ্রন্থের শেষে যুক্ত গ্রন্থখণ্ড; সংবাদপত্রের সাময়িকী
ক্রোধবহ্নি/ক্রোধানল প্রচণ্ড রাগ
ক্রোধান্ধ হিতাহিত জ্ঞানশূন্য
ক্লিশে বহু ব্যবহারে জীর্ণ
ক্লীব কাপুরুষ, পুরুষত্বহীন ব্যক্তি
ক্ষণজন্মা পূণ্যবান, ভাগ্যবান, শুভক্ষণে যার জন্ম (ওটি ক্ষণজন্মা ছেলে বেঁচে থাকলে দেশের মুখ উজ্জ্বল করবে)
ক্ষণপ্রভা বিদ্যুৎ ('ক্ষণপ্রভা প্রভাদানে বাড়ায় মাত্র আঁধার পথিকে ধাঁধিঁতে'- মাইকেল মধুসূদন)
ক্ষণভঙ্গুর অল্পকালের মধ্যেই ভেঙে যায় বা নষ্ট হয় এমন; বিনাশপ্রাপ্ত হয় এমন
ক্ষমতার চিটেগুড় ক্ষমতার লোভ
ক্ষুন্নিবৃত্তি ক্ষুধার উপশম/নিবারণ (ঘরে ক্ষুন্নিবৃত্তি করার মত কিছু নেই)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
খই ঢেকুর চোঁয়া ঢেকুর
খই ফোটা (মুখে) অনবরত বকবক করা, অনর্গল কথা বলা (ছেলেটার মুখে যেন খই ফুটছে)
খইয়ের/খয়ের বন্ধন/ খয়ের বাঁধন মুখ্য অর্থ- খুঁটি ঘিরে দুই হাতে খই গ্রহণহেতু বন্ধন; গৌণার্থে- উভয়সংকট, কিংকর্তব্যবিমূঢ়তা; ধরতেও পারি না, ছাড়তেও পারি না- এমন মানসিক অবস্থা (আমি খইয়ের বন্ধনে পড়েছি, ডাক্তার হব না ইঞ্জিনিয়ার হব ভেবে ঠিক করতে পারছি না); সমার্থক বাগধারা- লাজাবন্ধনন্যায়
খচখচ১ অস্বস্তির অনুভূতি (এই অস্বস্তিটা মনের মধ্যে সবসময় খচখচ করছে)
খচখচ২ অতি দ্রুত (কিছু না ভেবে খচখচ করে সই করে দিল)
খচখচি বাদানুবাদ; তর্কবিতর্ক; কলহ (বেশি খচখচি ভাল লাগে না); সমার্থক বাগধারা-কচকচি)
খচা/ খচানো (অশালীন) রেগে যাওয়া/ রাগিয়ে দেওয়া (আমার কথায় সে খচেছে)
খচাখচ নিরবচ্ছিন্নতাভাব (স্টেডিয়াম খচাখচ ভর্তি)
খচমচ/খচোমচো গণ্ডগোল, গোলমাল (দুভাইয়ের মধ্যে সমসময় খচমচ লেগেই আছে)
খচে বোম (অশালীন) রেগে আগুন (তোমার কথা শুনে একেবারে খচে বোম হয়ে গেছে)
খচো (অশালীন) রাগী লোক (তোমার মত খচো আমি দেখেনি)
খচ্চর১ দুর্বৃত্ত, বদমাইশ লোক, অতিধূর্ত- গালিবিশেষ (লোকটা আচ্ছা খচ্চর তো)
খচ্চর২ ব্যাঙ্গার্থে- জারজসন্তান- গালিবিশেষ
খচ্চর (তিলে) হাড়ে হাড়ে বদমাইশ
খঞ্জন-নয়ন/নয়না চটুল সুন্দর নয়ন
খটখটানো খটখট শব্দ করা; দরজায় কড়া নাড়া
খটখটে জলহীন শুস্কতাভাবব্যঞ্জক (রাস্তাঘাট খটখটে
খটখটে বাতাস আর্দ্রতাহীন শুষ্ক বাতাস
খটখটে রোদ প্রখর রদ্দুর
খটমট/খটোমটো কঠিন, জটিল, দুর্বোধ্য (খটমট বিষয়; বড় খটমট অঙ্ক)
খটাখটি নিরন্তর ঝগড়াঝাটি (স্বামীস্ত্রীর মধ্যে দিনরাত খটাখটি লেগেই আছে); সমার্থক বাগধারা- খিটিমিটি
খড়কুটা/টো জ্বালানী হিসাবে ব্যবহৃত শুকলা লতাপাতা
খড়কুটো ধরে বাঁচা শেষমুহুর্তে তুচ্ছ সাহায্য নেওয়া
খড়খড়ে১ অত্যন্ত শুকনো, শুকনো খড়ের মত (খড়খড়ে গামছায় গা মোছা যায় না)
খড়খড়ে২ তীব্রশ্রবণশক্তিসম্পন্ন (কড়খড়ে কান)
খড়মপেয়ে যার পা খড়মের মতো, চলবার সময় যার পদতলের মাঝখান ভূমি স্পর্শ করে না; গালিবিশেষ
খড়মপায়ে গঙ্গাপার অসম্ভব কাজ, অসাধ্যসাধন ইত্যাদি; উচ্চাশা; সমার্থক বাগধারা-কলার ভেলায় সাগরপার, নরুণে তালগাছকাটা, মুড়াকোদালে দিঘিকাটা, শামুক দিয়ে পুকুরসেঁচা ইত্যাদি
খড়ি পাতা জ্যোতিষশাস্ত্র মতে গণনা করা
খড়ের আগুন উগ্রপ্রকৃতির লোক, যে দপ করে রেগে যায় আবার অপ্লেতেই ঠাণ্ডা হয়; খুব উৎসাহে কাজ আরম্ভ করে কিন্তু উৎসাহ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় না
খড়ের গাদায় ছুঁচ খোঁজা অসাধ্য কাজ
খড়্গহস্ত অত্যন্ত ক্রুদ্ধ, প্রহারে উদ্যত, মারমুখি (সবাই তোমার উপর খড়্গহস্ত); সমার্থক বাগধারা- খাপ্পা
খণ্ডকপাল দুর্ভাগ্য, মন্দভাগ্য
খণ্ডপ্রলয় তুমুল ঝগড়া, দাঙ্গাহাঙ্গামা, ভীষণ গোলমাল, মারামারি, ভীষণ ব্যাপার (ঘরের মধ্যে এতক্ষণে খণ্ডপ্রলয় বেঁধে গেছে); সমার্থক বাগধারা- কুরুক্ষেত্র, তুলকালামকাণ্ড, ধুন্ধুমারকাণ্ড, মহামারীকাণ্ড, লঙ্কাকাণ্ড ইত্যাদি
খণ্ডযুদ্ধ ছোটখাটো যুদ্ধ, তীব্র বাদানুবাদ (দুজনের মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ লেগে গেছে)
খণ্ডাখণ্ডি প্রবাল মারামারি (দুই ভাইয়ের মধ্যে খণ্ডাখণ্ডি চলছে)
খতম শেষ, সমাপ্তি (খেল খতম, পয়সা হজম)
খতরনক/ খতরা বিপজ্জনক, ভীতিপ্রদ; অনিষ্টের আশঙ্কা, বিপদ, ভয়
খতা/ খতিয়ে দেখা বিবেচনা করা (তোমার আবেদন আমি খতিয়ে দেখবো)
খনখনে কর্কশ আওয়াজ (খনখনে গলার গান)
খনি ঐশ্বর্যের ভাণ্ডার, রত্নের আকর (মহাভারত খনিস্বরূপ, কথায় বলে- যাহা নাই ভারতে তাহা নাই ভারতে)
খপ করে শীঘ্র বা হঠাৎ কিছু করে ফেলা (খপ করে ধরে ফেলল); সমার্থক বাগধারা- হট করে
খপ্পর কবল, ফাঁদ (ছেলেটা এক বদ লোকের খপ্পরে পড়েছে)
খবর করা ডেকে পাঠানো (ছেলেকে খবর পাঠাও)
খবর নেওয়া খোঁজ নেওয়া (নিয়ত আমি সকলের খবর নিই)
খবর রাখা তত্ত্ব সম্পর্ককে অবগত থাকা (আমি তোমাদের সব খবর রাখি)
খবর হওয়া কোন ঘটনা জানাজানি হওয়া, সাড়া পড়ে যাওয়া (ট্রেনের খবর হয়েছে)
খবরাখবর তত্ত্বতালাশ (দেশের খবরাখবর রাখা উচিত)
খবরাদারি চোখ রাঙানি, তত্ত্বাবধান, হুঁসিয়ারি (পরের খবরদারি আমার একেবারেই না-পসন্দ)
খবরা-খবর তত্ত্বতালাশ, খোঁজখবর (আমি সকলের খবরাখবর রাখো কি?)
খয়রাত দান, সাহায্য (খয়রাত ঘর থেকে শুরু হয়- প্রবাদ)
খয়ের খাঁ চাটুকার, তোষামুদে, মোসাহেব, স্তাবক (খয়ের খাঁরা সবসময় নেতার আশেপাশে থাকে)
খয়েরখাঁই চাটুকারীতা, তোষামোদী, মোসাহেবী, স্থাবকতা
খরখরে১ অমসৃণ (খরখরে মেঝে)
খরখরে২ বেশ চালাকচতুর ও চটপটে, চঞ্চল (খরখরে ছেলে)
খরখরে৩ স্পষ্টবক্তা (খরখরে লোক)
খরচপত্র/পাতি প্রয়োজনমত নানবিধ আনুসঙ্গিক ব্যয়, অতিরিক্ত ব্যয় (বিয়ের খরচপাতি ভালোই হবে)
খরচে বেশি ব্যয় করে এমন (খরচে লোকেদের টাকা জমে না)
খরচের খাতায় কিছু পাওয়ার আশা নেই; অন্তিম অবস্থা; দলত্যাগ করতে পারে, রিক্তহস্ত ইত্যাদি
খরচের হাত/ খরুচে অত্যধিক খরচ করে এমন, খরচে দরাজ
খরপোশ আহার ও বাসিস্থানের ব্যবস্থা; সমার্থক বাগধারা- অন্নবস্ত্র, অশনবসন, গ্রাসাচ্ছাদন, ভাতকাপড় ইত্যাদি
খলখলে আলগা, ঝাঁঝরা, নড়বড়ে, (ওর পাল্লায় পড়লে দুদিনে তোমার অবস্থা খলখলে করে দেবে)
খলবলানি তীব্র চাঞ্চল্য (ছাঁটাইয়ের কথা শুনে কর্মচারীদের মধ্যে খলবলানি শুরু হয়েছে)
খলিফা ব্যঙ্গে- ওস্তাদ বা ধূর্ত (আচ্ছা খলিফা লোক তো!)
খসখস দ্রুত লেখার অনুকার শব্দ (খসখস করে দুকলম লিখে দাও)
খসা১ খরচ হওয়া (অনেক টাকা খসেছে)
খসা২ নির্গত হওয়া (মুখ থেকে খসলেই হল, এনে হাজির করছি)
খসা৩ বাঁধন শিথিল হওয়া (খোঁপা খসে পড়েছে)
খসা৪ ম্ত্যু (বুড়োটা খসেছে)
খাঁ-খাঁ শূন্যতা/নির্জনতাভাবসূচক (বাড়ীটা খাঁ-খাঁ করছে; মনটা খাঁ খাঁ করছে); সমার্থক বাগধারা- ফাঁকা ফাঁকা
খাঁই/খাঁকতি১ অর্থনৈতিক আকাঙ্খা, লালসা, লোভ (লোকের টাকার খাঁই বাড়ছে)
খাঁই/খাঁকতি২ দাবী, পাওয়ার ইছা (পাত্রপক্ষের খাঁই মেটে না)
খাঁচা বুকের হাড়পাঁজরের কাঠামো ('খাঁচার ভিতর অচিন পাখি কেমনে আসে যায়'- বাউলগীতি)
খাঁচায় পুরে খোঁচা মারা বাগে এনে যন্ত্রণা দেওয়া
খাঁচার পাখি১ প্রাণ ('খাঁচার ভিতর অচিন পাখি কেমনে আসে যায়'-লালন)
খাঁচার পাখি২ বাগে থাকা লোক
খাঁদা/খেঁদা নতনাসিক
খাঁদা নাকে তিলক/নথ বিসদৃশ/বেমানান সাজসজ্জা; সমার্থক বাগধারা- গোদাপায়ে মল, রোগাহাতে ফাঁদালবালা ইত্যাদি
খাইখরচ খাওয়ার জন্য যে খরচ হয়, খোরাকি
খাই খাই সর্বদা খাওয়ার জন্য লালসা প্রকাশ ('খাই খাই কর কেন এসো বস আহারে'-সুকুমার রায়)
খাইখালাসি জমির আয় থেকে ঋণ পরিশোধ (খাইখালাসি সর্তে জমিতে চাষ কড়ছি)
খাইয়ে পেটুক, ভোজনরসিক
খাওয়াদাওয়া খাওয়া ও দেওয়া/খাওয়ানো, আহার ও পানভোজনপর্ব (খাওয়া দাওয়া সেরে গল্পগুজব করা যাবে); সমার্থক বাগধারা- খানাপিনা
খাওয়াপরা ভাতকাপড়; ভরণপোষণের দায় (আমি কারও খাওয়াপরার দায়িত্ব নিতে পারব না); সমার্থক বাগধারা- খোরপোশ
খাক ছাই, ভস্ম (পুড়ে সব খাক হয়ে গেছে)
খাকসার দীনসেবক, বিনয়াবনত
খাজা নিরেট বোকা (আচ্ছা খাজা লোক তো)
খাঞ্জা খাঁ নবাবীচালে চলা লোক (চলছে যেন নবাব খাঞ্জা খাঁ); উৎস- দক্ষিণবঙ্গে খান জাহান আলী খাঁ নামক এক নবাব ছিলেন
খাটাখাটি/খাটাখাটনি নানাবিধ পরিশ্রম, মেহনৎ (খাটাখাটিতে শরীর সুস্থ থাকে)
খাটাল অত্যন্ত নোংরা ও দুর্গন্ধময় স্থান (বাড়ীর সামনেটা খাটাল হয়ে আছে))
খাটিয়ে খুব খাটতে পারে এমন (খুব খাটিয়ে লোক)
খাটো কথা সামান্য কথা
খাটো করা অপদস্থ/অপমান/হেয় করা (কাউকে খাটো করলে নিজে খাটো হতে হয়)
খাটো কাপড় অভাব অনটনের লক্ষণ (আমি মোটা চাল খাটো কাপড়ের লোক)
খাটো গলা চাপা/মৃদু গলা (দুজনে খাটো গলায় কিছু আলোচয়া করছে)
খাটো দৃষ্টি/নজর কৃপণতা, ছোট নজর (খাটো দৃষ্টির লোক দিলখোলা হয় না)
খাটো লোক বেঁটে লোক
খাটো হওয়া অপদস্থ/অপমানিত/হেয় হওয়া (কাউকে খাটো করলে নিজে খাটো হতে হয়)
খাট্টা বিগড়ে গেছে এমন; বিরক্ত (মেজাজ খাট্টা)
খাট্টামিঠা (কথা ইত্যাদি সম্পর্কে) মিষ্টি প্রলেপ দেওয়া কিন্তু ঝাঁঝালো (খাট্টামিঠা সম্পর্ক); সমার্থক বাগধারা- অম্লমধুর, টকমিষ্টি
খাড়া-বড়ি-থোড়, থোড়-বড়ি-খাড়া কোনো অবস্থা যখন আগে-পরে একই রকম এবং বৈচিত্র্যহীন; বিরক্তিকর পুনরাবৃত্তি
খাণ্ডবদাহন/খাণ্ডবানল ভয়ঙ্কর অগ্নিকাণ্ড
খাণ্ডার/খাণ্ডারনি উগ্রস্বভাব, কলহপ্রিয়, ঝগড়াটে পুরুষ/নারী (এক খাণ্ডারের পাল্লায় পড়েছি)
খাতাকলমে সরকারীভাবে (খাতাকলমে অনেককথা বলা আছে, আসলে কিছুই নাই)
খাতা খোলা কিছুর প্রাপ্তি শুরু; ব্যবসায়সংক্রন্ত হিসাব শুরু করা
খাতাপত্র হিসাবপত্র
খাতা লেখা দৈনন্দিন জমাখরচের হিসাব রাখা
খাতায় নাম লেখানো ব্যাঙ্গার্থে- বদসঙ্গের সদস্য হওয়া
খাতির জমা নিরুদ্বিগ্ন, মানসিক প্রশান্তি, বন্ধুত্ব স্থাপিত হওয়া (দুদিন আলাপেই ভালো খাতির জমেছে)
খাতির নদারৎ/ খাতিরনদারদ কোন অনুগ্রহ-অনুকম্পা নেই; স্পষ্টবাদী, হক-কথা বলে এমন
খাদের কিনারে চরমসঙ্কট আসন্ন; অধঃপাতের শেষসীমায় (দেশের আর্থিক অবস্থা একেবারে খাদের কিনারে)
খাদ্যাখাদ্য কোনটি খাওয়া উচিৎ এবং কোনটি খাওয়া অনুচিত
খানকতক বেশি না কয়েকটি (খানকতক রুটি দিলেই হবে)
খানকি মুসলমান গণিকা/যৌনকর্মী- গালিবিশেষ
খান-খান টুকরা টুকরা (সব আশা আকাঙ্খা খান খান হয়ে ভেঙে গেল)
খানদান আভিজাত্য, উচ্চবংশে জন্মের গৌরব, বংশকৌলিন্য (খানদানী চালচলন)
খানাখন্দ গর্ত, খাদ ইত্যাদি (খানাখন্দ দেখে গাড়ী চালাবে)
খানা (বাড়ি) তল্লাশি অপরাধীর বা আপত্তিকর বস্তুর খোঁজে প্রতিটি ঘরে অনুসন্ধান (এলাকায় পুলিশের জোর খানাতল্লাশি চলছে); সমার্থক বাগধারা- চিরুণি তল্লাশি
খানাপিনা খাওয়া-দাওয়ার অনুরূপ
খানেক প্রায় একের কাছাকাছি (মাইল/মিনিট খানেকের পথ)
খাপ খাওয়া মানানসই হওয়া (কথার সাথে কাজ খাপ খাচ্ছে না)
খাপ খাওয়ানো সামঞ্জস্য রক্ষা করে চলা
খাপ খোলা জাহির করা (বেশি খাপ খুলো না ধরা পড়ে যাবে)
খাপছাড়া অসংলগ্ন, বেমানান (খাপছাড়া কথাবার্তা বলো না)
খাপ্পা ক্রুদ্ধ, রেগে আছে এমন (তিনি আমার উপর বেজায় খাপ্পা); সমার্থক বাগধারা- খড়গহাস্ত
খাবলা একমুষ্টিতে যা ধরে (সেদিন আর নাইরে নাতু, খাবলা খাবলা খাবে ছাতু- প্রবাদ)
খাবার আগে/সময় শোবার চিন্তা অতিসতর্কতা
খাবি খাওয়া নিঃশ্বাসের জন্য ছটফট করা; বিপদথেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপ্রাণচেষ্টা করা (প্রতিদিন জীবনযন্ত্রণায় খাবি খাচ্ছি)
খামকা/খামোকা/খামোখা অকারণে (খামকা বকা খেলাম)
খামখেয়াল চিত্তের অস্থিরতা, সদাপরিবর্তনশীল মানসিক অবস্থা, হঠাৎ হঠাৎ কোন কাজ করে বসা (তিনি বড় খামিখেয়ালি লোক); সমার্থক বাগধারা- খেয়ালখুশি, মন-মরজি
খামতি ঘাটতি (বুদ্ধির ঘাটতি পরিশ্রমে মেটায়)
খামোশ চুপ কর- আদেশ
খারিজ অগ্রাহ্য, বাতিল (তোমার আবেদনপত্র খারিজ হয়ে গেছে)
খাল কেটে কুমির আনা // খাল কেটে বেনোজল ঢোকানো নিজের বিপদ ডেকে আনা; সমার্থক বাগধারা- সাধ করে শাল নেওয়া
খাল খিঁচা অত্যন্ত প্রহার করা (বেশই লাফাঝাপা করলে খাল খিঁচে দেবো)
খালাস১ অব্যাহতি, মুক্তি, রেহাই (সে জেল থেকে খালাস পেয়েছে)
খালাস২ দায়মুক্তি (তুমি তো বলেই খালাস)
খালি খালি১ অকারণ, অনর্থক (খালি খালি আমাকে বকছ)
খালি খালি২ প্রায় ফাঁকাভাব, শূন্যতাভাবের অনুকার শব্দ (বাড়ীটা খালি খালি লাগছে)-
খাস আপীল আপীলের উপর আপীল, বিশেষ আপীল
খাসকামরা/মহল নিজস্ব কামরা/বাড়ী
খাসখবর প্রকৃত/সত্য খবর
খাসজমি সরকারের কর্তৃত্বাধীন জমি
খাসতালুক স্বীয় অধীনে থাকা জমি; নিজের সম্পত্তি, জমিদারের কর্তৃত্বাধীন জমি ( নেতারা দেশটা নিজের খাসতালুক মনে করে)
খাসতালুকের প্রজা খুব অনুগত ব্যক্তি
খাসনবিশ ব্যক্তিগত কর্মচারী
খাসমহল নিজ আব্বাস
খাস্তা নষ্ট, বিকৃত (সাত নকলে আসল খাস্তা- প্রবাদ)
খিঁচ১ সামান্য ত্রুটি (কাজে একটা খিঁচ রয়ে গেছে); সমার্থক বাগধারা- খোঁচ
খিঁচ২ মনান্তর (আগে খিঁচ দূর করতে হবে)
খিঁচে নেওয়া ইচ্ছার বিরুদ্ধে বলপূর্বক আদায় করা (কিছু টাকা ওর কাছ থেকে খিঁচে নিতে হবে)
খিচখিচি/খিচিমিচি/খিটিমিটি সামান্য বিষয় নিয়ে ঝগড়াঝাটি (স্বামীস্ত্রীর মধ্যে সারাক্ষণ খিচিমিচি লেগেই আছে); সমার্থক বাগধারা- খটাখটি, খিটিমিটি, দন্ত কচকচি
খিচ মারা কোন কাজ নিঃশেষে সম্পন্ন করা
খিচুড়ি বিভিন্ন বিষয়ের বিসদৃশ মিশ্রণ, বিশৃঙ্খলা, (তোমার ওই খিচুড়িভাষা আমি বুঝি না)
খিচুড়ি পাকানো জটিল/বিশৃঙ্খল করে তোলা (সবকিছুতেই খিচুড়ি পাকিয়ে রেখেছে)
খিটকেল সারাক্ষণ খিটখট করে এমন
খিটখিট ক্রমাগত মৃদু আপত্তির ভাব (এত খিটখিট করলে লোকে বিরক্ত হবেই); সমার্থক বাগধারা- টিকটিক
খিটখিটে সদাবিরক্তিভাব (খিটখিটে মেজাজ)
খিটিমিটি তুচ্ছ কারণে সর্বদা কলহ/বাদানুবাদ/মতবিরোধ (দুই জায়ের মধ্যে সবসময় খিটিমিটি লেগেই আছে)
খিদমত চাকরী, দাসত্ব (আমি কারও খিদনতগারি করতে পারব না)
খিদমতে তালক সৃষ্টির সেবা
খিলখিল আনন্দময় হাস্যধ্বনির অনুকার শব্দ
খিলাফ অন্যথা, শর্তভঙ্গ (কথার খিলাফ করো না)
খিস্তি (অশালীন) গালিগালাজ
খুঁচানো উত্যক্ত করা, বারবার তাগাদা দেওয়া (না খোঁচালে পাওনা আদায় হয় না)
খুঁচিয়ে ঘা করা অনর্থক কথা বাড়িয়ে অপ্রিয় অবস্থার সৃষ্টি করা
খুঁট আখরে/আখুরে অল্পশিক্ষিত, নামসই করার ক্ষমতাবিশিষ্ট লোক; যার হাতের লেখা সুন্দর নয়
খুঁট আখুরে, বরাখুরে অপদার্থ কোন কাজের নয় বলে গালি/তিরস্কার
খুঁটি অবলম্বন, মুরুব্বি, পৃষ্ঠপোষক, সহায় (খুঁটির জোর থাকলে সব হয়)
খুঁটি গাড়া স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করা
খুঁটিনাটি ছোটখাটো বিষয়, তুচ্ছ ব্যাপার (আমি খুঁটিনাটি বিষয়েও নজর রাখি); সমার্থক বাগধারা- খুচ-খাচ
খুঁটিয়ে আনা বিস্তৃত অনুসন্ধান করে খবর আনা
খুঁটিয়ে দেখা খুঁত ধরে বিচার করা
খুঁটির জোর পৃষ্টপোষকের সহায়তা, মুরুব্বির জোর (খুঁটির জোরে মেড়া লড়ে- প্রবাদ)
খুঁটুরমুটুর সামান্য ঝগড়াঝাঁটি (সবসময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে খুঁটুরমুটুর লেগেই আছে)
খুঁটে খাওয়া অন্নসংস্থান করতে সমর্থ
খুঁতখুঁত করা অনিচ্ছা প্রকাশ করা; মনে তৃপ্তি/শান্তি না পাওয়া
খুঁতখুঁতে কখনো সন্তুষ্ট নয়, ছোটখাটো ভুলভ্রান্তির জন্য সবসময় অসন্তোষ প্রকাশ করে; সন্দেহপ্রবণ
খুচ-খাচ খুঁটিনাটি-এর অনুরূপ
খুচরা/খুচরো১ অল্প পরিমাণ (খুচরা কাজ, খুচরা বাজার, খুচরা বিক্রি)
খুচরা/খুচরো২ টাকার ভাংতি, রেজকি (বাজারে খুচরার অভাব পড়েছে)
খুচরা/খুচরো কথা১ অবান্তর/বাজে কথা (খুচরা কথায় কান দিতে নেই)
খুচরা/খুচরো কথা২ অল্প জরুরি কথা (তোমার সাথে কিছু খুচরা কথা আছে)
খুচরা/খুচরো কাজ ছোটখাটো কাজ (কিছু খুচরা কাজ বাকি আছে)
খুচরা/খুচরো পাপ ছোটখাটো রোগ (দাদ হাজা চুলকানি ইত্যাদি সব হ'ল খুচরা পাপ)
খুচরা বাজার/বিক্রি ভোক্তার বাজার যেখানে অল্প পরিমাণে ক্রয়বিক্রয় হয়
খুটুরমুটুর/ খুটুরখাটুর ক্রমাগত মৃদু খুটখুটি শব্দ (ঘরের মধ্যে খুটুরমুটুর কি করছো?)
খুড়োর কল লোক ঠকানোর যন্ত্র; মিথ্যা আশা জাগিয়ে লোককে বোকা বানানোর কৌশল
খুদকুঁড়ো অতি সামান্য আহার (বিদুরের খুদকুঁড়ো)
খুদে বার্তা মুঠোফোনে লিখিত বার্তা (SMS)
খুদে রাক্ষস ভয়ানক পেটুক
খুদে শয়তান দেখতে ছোট কিন্তু শয়তানিতে দড়
খুন হওয়া১ আকুল হওয়া ('শুনিয়া গবু ভেবেই হল খুন'- রবীন্দ্রনাথ)
খুন হওয়া২ লুটোপুটি খাওয়ার মত অবস্থা (আমার হিন্দি শুনে সবাই হেসেই খুন)
খুন-খারাবি দাঙ্গাহাঙ্গমা, মারামারি, কাটাকাটি
খুনখুনে অতিবৃদ্ধ ব্যক্তি (খুনখুনে বুড়ো)
খুন চাপা (মাথায়) ক্রোধে রক্ত গরম; প্রচণ্ড রেগে যাওয়া
খুনসুটি/সুড়ি ছেলেমানুষী ঝগড়াঝাঁটি, ছল করে ঝগড়া, প্রণয়কলহ (ছেলেবেলায় ভাইবোনে খুনসুটি লেগেই থাকে)
খুনাখুনি/ খুনোখুনি সাংঘাতিক মারামারি; রক্তারক্তি কাণ্ড; তুমুল ঝগড়া-বিবাদ
খুনি/খুনে অত্যন্ত নিষ্ঠুর লোক
খুপরি মুখ্য-অর্থ- ক্ষুদ্রঘর; গৌণার্থে- মাথার খুলি (খুপরি গরম)
খুপসুরত/খুবসুরত অতি সুন্দর/সুশ্রী (খুবসুরত মহিলা)
খুল্লমখুল্লা খোলাখুলি, প্রকাশ্যভাবে (মোবাইলের কারণে বর্তমানে সবকিছুই খুল্লামখুল্লা)
খুরেখুরে দণ্ডবৎ পরোক্ষে পশু বলে ঘোষণা করে দুষ্টের কাছে নিষ্কৃতি কামনা
খুশখবর/ খোশখবর আনন্দসংবাদ (খুশখবরের ঝুটাও ভাল- প্রবাদ)
খুশবু সুগন্ধ (গোলাপের খুশবু)
খুশি আনন্দ, মর্জি (যেখানে খুশি যাও)
খেঁক খেঁক করা/ খেঁকানো ক্রোধ প্রকাশ করা (কি হলো, এত খেঁক খেঁক করছো কেন?)
খেঁকি অসহিষ্ণু, রগচটা, নিয়ত খেঁকখেঁক করে এমন (খেঁকি মহিলা)
খেঁচাখিঁচি/খেঁচাখেঁচি / খেচাখেচি/খেচামেচি গোলমাল, চিল্লাচিল্লিম ঝগড়াঝাটি, মনোমালিন্য (খেঁচাখেঁচি অনেক হয়েছে, এবার থামাও)
খেই কথার ধারা/সূত্র (মাঝে মাঝে কথার খেই হারিয়ে ফেলি)
খেউড় অশ্রাব্য গালাগালি (আবার খেউড় শুরু করলে)
খেজুরে আলাপ অর্থহীন বিরক্তিকর অবান্তর কথাবার্তা (অবসর সময়ে খেজুরে আলাপে সময় কাটাই); সমার্থক বাগধারা- গ্যাঁজানো
খেদ আক্ষেপ (কিছু পাইনি, তাতে আমার কোন খেদ নেই)
খেদমত আদর আপ্যায়ন (খেদমতে কণ ত্রুটি নেই)
খেপ একবারের চেষ্টায় যতটা হয় (দিনে গড়ে পাঁচটা খেপ মারি)
খেয়ালখুশি আবদার, যেমন ইচ্ছা তেমন করা (খেয়ালখুশিমত সবকিছু করা যায় না); সমার্থক বাগধারা- খামখেয়াল
খেয়ে দেয়ে একাদশী আঁচাতে অনীহা
খেয়ে ফেলা ব্যতিব্যস্ত করা (তাগাদা করে করে আমাকে খেয়ে ফেলছে)
খেয়োখেয়ি ঝগড়াবিবাদ (দলের মধ্যে খেয়োখেয়ি লেগেই আছে)
খেরোর খাতা বাজে হিসাব, লাল কাপড়ে বাঁধা বিবিধ বিষয় লেখার খাতা
খেল/খেলা১ জারিজুরি (খেল খতম)
খেল/খেলা২ ভোজবাজি (ভানুমতীর খেল)
খেল/খেলা৩ বিশেষ আচরণ, লীলা('এই খেলা তো শেষ খেলা নয়'- রবীন্দ্রনাথ)
খেলাঘর কৃত্রিম সংসার ('খেলাঘর মোর ভেঙ্গে গেছে হায়, নয়নের যমুনায়'-লঘুগীতি)
খেলানো ইচ্ছামত পরিচালিত করা
খেলাপ বিরূপ আচরণ (আমি কথার খেলাপ করি না)
খোঁচ কাঁটা, ছোটখাটো ঝঞ্ঝাট, সামান্য ত্রুটি (কাজটায় শেষপর্যন্ত একটা খোঁচ রয়ে গেল)
খোঁচাখুঁচি করা/ খোঁচানো ক্রমাগত উত্ত্যক্ত/বিরক্ত করা, কার্যসিদ্ধির জন্য নানা দিক থেকে চাপ প্রয়োগ (কিসের গরজে এত খোঁচাখুঁচি করছ?)
খোঁজখবর সন্ধান (তার কোন খোঁজখবর নেই); সমার্থক বাগধারা- ঠিক-ঠিকানা, তত্ত্বতালাশ ইত্যাদি
খোঁজখুঁজি ক্রমাগত বা বারংবার খোঁজ বা সন্ধান (খোঁজাখুঁজিই সার হল, ছেলেটার কোন খোঁজ পেলাম না)
খোঁড়াখুঁড়ি ক্রমাগত বা বারংবার খনন (রাস্তায় খোঁড়াখুঁড়ি চলছে)
খোঁয়াড়ি/খোঁয়ারি ভাঙা মদের নেশা কাটাবার জন্য অল্প মদ খাওয়া
খোদ আসল, স্বয়ং (খোদ মালিক উপস্থিত)
খোদকারি/খোদগারি অনুচিত ও অসংগত হস্তক্ষেপ (খোদার উপর খোদকারি)
খোদা হাফেজ খোদা আপনার মঙ্গল করুন
খোদাই খিদমতগার খোদার পথে সেবক, নিঃস্বার্থ সেবক
খোদার উপর খোদকারি যোগ্যলোকের কাজে অযোগ্যলোকের অসংগত হস্তক্ষেপ
খোদার খাসি ব্যঙ্গে- সংসারের চিন্তাভাবনামুক্ত হৃষ্টপুষ্ট ব্যক্তি; নাদুসনুদুস কিন্তু নিষ্কর্মা লোক; সমার্থক বাগধারা- গোকুলের ষাঁড়, ধর্মের ষাঁড়
খোয়াব মিথ্যা আশা, স্বপ্ন (এখানে চাকরি পাবে, খোয়াব দেখছো নাকি?)
খোরপোশ অন্নবস্ত্রের সংস্থান; গ্রাসাচ্ছাদন, থাকা-খাওয়া, ভাত-কাপড়; ভরণপোষণের ব্যয় (তোমার খোরপোশ জোগাবে কে?)
খোরাক১ খাদ্যদ্রব্য (সংসারের খোরাক কম নয়)
খোরাক২ পাত্র (হাসির খোরাক)
খোরাকি খাইখরচ (খোরাকি বাবদ অতিরিক্ত একশ টাকা লাগবে)
খোলতাই সুবিকশিত (চেহারাটা বেশ খোলতাই হয়েছে)
খোলনলচে বদল আমূল পরিবর্তন (দলটার ভালো করতে হলে খোলনলছে বদলানো দরকার)
খোলস বাইরের আবরণ (সভ্য মানুষ মুখে খোলস এঁটে থাকে)
খোলসা অকপট, মুক্তমন (কথাটা খোলসা করে বল); সমার্থক বাগধারা- খোলাখুলি, খোলামেলা ইত্যাদি
খোলাকাটা বামুন পুরুতগিরি যার ব্যবসা এমন বামুন; সমার্থক বাগধারা- যজমানী বামুন
খোলাখুলি অকপটে, খোলামনে, প্রকাশ্যে, স্পষ্টাস্পষ্টি (খোলাখুলি সব কথা বলতে গেলে অনেক বাধা আসবে); সমার্থক বাগধারা- খোলসা, খোলামেলা ইত্যাদি
খোলা তালাক স্ত্রীর ইচ্ছায় তালাক
খোলা দলিল প্রত্যক্ষ/স্পষ্ট প্রমাণ
খোলাবাজার নিয়ন্ত্রণ্মুক্ত বাজার
খোলামকুচি অকিঞ্চিৎকর জিনিস (টাকাকড়ি খোলামকুচি নয় যে নয়ছয় করবে)
খোলামেলা১ অকপট, অকৃত্রিম, আন্তরিক, ছলাকলাহীন, মনখোলা, মিশুকে (তিনি বেশ খোলামেলা মনের মানুষ); সমার্থক বাগধারা- খোলসা, খোলাখুলি ইত্যাদি
খোলামেলা২ আলোবাতাসপূর্ণ (ঘরটা বেশ খোলামেলা)
খোলামেলা৩ বেয়াব্রু, অশালীন, শিথিল (সিনেমার নায়িকারা খোলামেলা পোষাকে নিজেদের দেখাতে ব্যস্ত)
খোশকবালা স্বেচ্ছাকৃত স্বত্ব হস্তান্তরের পাকা দলিল
খোশখবর সুসংবাদ
খোশখেয়াল ইচ্ছা,মর্জি; সমার্থক বাগধারা- খামখেয়াল
খোশগল্প আনন্দের কথাবার্তা; হালকা গল্পগুজব (সারাটা দিন খোশগল্প করেই কেটে গেল)
খোশনবিশ যে ব্যক্তির হাতের লেখা সুন্দর
খোশনসিব সৌভাগ্যবান
খোশমেজাজ প্রীতিকর মনের অবস্থা (বেশ খোস মেজাজেই আছি)
খ্যাঁকখ্যাঁক কর্কশভাবে বিরক্তি প্রকাশ
খ্যাঁচড়া অসম্পূর্ণ ও বিশৃঙ্খলভাবে কৃত (খ্যাঁচড়া কাজ)
খ্যাঁচাখেঁচি/মেচি কলহ, বাদানুবাদ, মনোমালিন্য
খ্যাঁট কৌতুকে- আহার, ভোজন, জবর খাওয়া (বিয়েবাড়িতে খ্যাঁট কেমন হল)
খ্যাঁদা বোঁচা নাক কান কাটা নির্লজ্জ বেহায়া
খ্যাপলা জালে মাছ ধরা ধান্ধায় থাকা (খ্যাপলা জালে মাছ ধরতে সুযোগসন্ধানীরা বসে থাকে)
খ্যামটা নাচ বাঈজীদের কোমরদোলানো হীন লঘুনৃত্য

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
গঁদের গঁদ মুখ্যঅর্থ- গন্ধের গন্ধ; গৌণ অর্থ- অতি দূরসম্পর্কিত ব্যক্তি
গকুলের ষাঁড় অসংযত বা স্বেচ্ছাচারী পুরুষ
গগনচারী/বিহারী অতি কল্পনাবিলাসী, কল্পনার জগতে বাস করে এমন; সমার্থক বাগধারা- আকাশবিহারী, ঊর্ধ্বচারী
গগনচুম্বী/স্পর্শী অতি উচ্চ (গগনচুম্বী অট্টাকিকার সারি); সমার্থক বাগধারা- আকাশছোঁয়া
গগনাম্বু বৃষ্টির জল
গঙ্গাজল১ নির্মল পবিত্র জল
গঙ্গাজল২ গঙ্গাজলের মত নির্মলজলের দুই নারীর সখিত্ব বা সই পাতানোসম্পর্ক
গঙ্গাজলি অন্তির্জলি, মুমূর্ষু ব্যক্তির মুখে গঙ্গাজল প্রদানের সংস্কার
গঙ্গাজলে গঙ্গাপূজা বিনাব্যয়ে কার্যসিদ্ধি; সমার্থক বাগধারা- মাছের তেলে মাছ ভাজা
গঙ্গাপুত্র ডোম, শবদাহকারী ব্যক্তি, মুর্দাফরাশ
গঙ্গাপ্রাপ্তি/লাভ মৃত্যু; অন্তিমকাল; সমার্থক বাগধারা- অক্কা পাওয়া, আত্মারাম খাঁচাছাড়া ঈশ্বরপ্রাপ্তি, কেষ্ট পাওয়া, গয়াংগচ্ছ, পঞ্চত্বপ্রাপ্তি, পটল তোলা, শিঙে ফোঁকা ইত্যাদি
গঙ্গাযমুনা দুটি ভিন্ন বর্ণের পাশাপাশি অবস্থান বা মিলন
গঙ্গাযাত্রা গঙ্গাজল স্পর্শ করে মরার জন্য মুমূর্ষু ব্যক্তির গঙ্গাতীরে যাওয়া
গঙ্গাযাত্রী মুমূর্ষু ব্যক্তি
গচানো কৌশলে অন্যের ঘাড়ে চাপানো
গচ্চা অসাবধানতার জন্য অর্থদণ্ড, গুণাগার (একগাদা টাকা গচ্চা গেল)
গজকচ্ছপ১ দুই বলশালী, স্থূলকায় ও প্রবল প্রতিপক্ষ
গজকচ্ছপ২ ব্যঙ্গে- অতিকায় ব্যক্তি
গজকচ্ছপী/ গজকচ্ছপের লড়াই প্রবল প্রতিদ্বন্দিতা, সমান দুই শক্তির দীর্ঘস্থায়ী জবরদস্ত লড়াই
গজগামি/গামিনী হাতির মতো ধীর, মন্থর ও সুন্দর গমনভঙ্গীবিশিষ্ট
গজগজ১ অসন্তোষ প্রকাশ, বিরক্তিসূচক উক্তি (রাগে গজগজ করছে)
গজগজ২ বেরিয়ে আসার জন্য অস্থিরতাভাব (পেটে কথা গজগজ করছে)
গজগজ৩ স্থানাভাবে ঠেলাঠেলি (এখনও পেটে খাবার গজগজ করছে)
গজগজ৪ অভাবহেতু অস্ফুট গর্জন (পেটে বিদ্যা গজগজ করছে)
গজচক্ষু ঈষৎ বাঁকা এবং দেহের তুলনায় ছোট বেমানান চোখ
গজদন্ত দাঁতের উপরে গজানো দাঁত, উঁচু দাঁত
গজদন্তমিনার কল্পনাপ্রসূত স্থান, কল্পিত সুখের স্থান, কল্পনা/ভ্রান্তিবিলাস (গজদন্তমিনারে বাস করছ নাকি?); সমার্থক বাগধারা- মূর্খের স্বর্গ
গজদন্তমিনারবাসী কল্পনাবিলাসী
গজব১ আল্লার মার, ভগবানের শাস্তি (যা দোষ করেছো, গজব মাথায় পড়ল বলে)
গজব২ প্রচণ্ড ক্রোধ ('গজব করলে তুমি আজব কথায়'- ভারতচন্দ্র)
গজভুক্তকপিত্থবৎ মুখ্য অর্থ- গজ নামক পোকায় খাওয়া সারশূন্য কয়েৎবেল; গৌণ অর্থ- অন্তঃসারশূন্য অবস্থা/ব্যক্তি
গজমুক্তা/মোতি কল্পিত মুক্তা, হাতির মাথায় জন্মে বলে প্রবাদ আছে, যা দুর্লভদর্শন, মিথ্যা মায়া; সমার্থক বাগধারা- আলেয়ার আলো, মরুভূমির মরীচিকা ইত্যাদি
গজরগজর বিরক্তিসূচক স্বগোক্তি (তখন থেকে গজরগজর করে চলেছে)
গজেন্দ্রগমন গজরাজের মত মন্দছন্দে সুন্দর চলা
গঞ্জিকাসেবী গাঁজাখোর (গাঁজা শব্দকে সংস্কৃতরূপ দান); তুলনীয়- বরাহতনয়> শুয়োরের বাচ্চা
গটগট/গটমট ক্রোধ ও দম্ভের সাথে চলা পদক্ষেপের কাল্পনিক শব্দ (রাগে গটগট করে চলে গেল)
গড্ডলিকা দলের মধ্যে অগ্রগামিনী মেষী বা ভেড়ি; অগ্রবর্তী ভেড়িকে অনুসরণকারী ভেড়ার পাল
গড্ডলিকা প্রবাহ অবিচ্ছিন্ন গতি; যে মেষীর পিছনে পিছনে মেষপাল অনুসরণ করে; আলং- ভালোমন্দ বিচার না করে সকলের অন্ধ অনুকরণ; প্রচলিত মতের অনুগমিতা
গড়গড়১ অবলীলাক্রমে, অবাধে (গড়গড় করে মুখস্থ বলে গেল)
গড়গড়২ কোন কিছু গড়িয়ে যাওয়ার অনুকার শব্দ (গাড়ীটা গড়গড় করে গড়িয়ে গেল)
গড়বড় অন্যথা, অব্যবস্থা, উলটাপালটাভাব, কলঙ্ক, গোলমাল, জগাখিচুড়ি ইত্যাদি (কিছু গড়বড় আছে নিশ্চই)
গড়া কথা অসত্য/বানানো কথা
গড়াগড়ি প্রাচুর্যসূচক (খরচের বহর দেখে মনে হয় ঘরে টাকা গড়াগড়ি যাচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- ছড়াছড়ি
গড়াগড়ি দেওয়া১ একটু ঘুমানো (একটু সময় গড়িয়ে নিলাম)
গড়াগড়ি দেওয়া২ এপাশ ওপাশ করা (ঘুম আসছে না, বিছানায় গড়াগড়ি দিচ্ছি)
গড়াগড়ি দেওয়া৩ মাটিতে লুটানো (পুত্রহারা মা শোকেদুঃখে মাটিতে গড়াগড়ি দিচ্ছে)
গড়াপেটা আগে থেকেই ঠিকঠাক করা; খেলাধূলায় অসৎ উপায়ে ফল পরিবর্তন
গড়িমসি অলস গরুমোষের প্রকৃতি; আলস্য, কুঁড়েমি, দীর্ঘসূত্রতা, সমর্থ হয়েও ভার বইতে অনিচ্ছুক; সমার্থক বাগধারা- গয়ংগচ্ছ
গড়িমসি করা দুষ্ট গরুমোষের মত আলসেমি, কুঁড়েমি করা; গয়ংগচ্ছভাব, দীর্ঘসূত্রতা (গড়িমসি করে সারাটা দিন কাটিয়ে দিলে); সমার্থক বাগধারা- টালবাহানা
গড্ডালিকা প্রবাহ মুখ্য অর্থ- মেষের দলের অবিচ্ছেদে সম্মুখবর্তী মেষীর অনুসরণ; না বুঝে পরস্পরের অন্ধ অনসুরণ
গড়ের মাঠ শূন্য, ফাঁকা (পকেট গড়ের মাঠ)
গণেশ উলটানো উঠে যাওয়া, ফেল মারা
গণেশের কান প্রার্থীর প্রার্থনা শোনার ক্ষমতা
গণ্ডকূপ গালের টোল
গণ্ডগোল১ ঝগড়া, বচসা, বিবাদ (আমি কিছু বললে গণ্ডগোল শুরু হবে)
গণ্ডগোল২ কোলাহল, বিশৃঙ্খলা (গণ্ডগোলের মধ্যে যেও না; ফাগুনে না রুলে ওল শেষে হবে গণ্ডগোল- খনা); সমার্থক বাগধারা- ওলটপালট, গোলমাল, গোলযোগ
গণ্ডগ্রাম১ জনবহুল বৃহৎগ্রাম, সমৃদ্ধ গ্রাম
গণ্ডগ্রাম২ অজগ্রাম, অজপাড়াগাঁ
গণ্ডদেশ কপোল, গাল
গণ্ডমূর্খ সম্পূর্ণ অক্ষরজ্ঞানহীন ব্যক্তি,মহামূর্খ; সমার্থক বাগধারা- আকাটমূর্খ, ক অক্ষর গোমাংস, ক বলতে হ বলে, হস্তীমূর্খ ইত্যাদি
গণ্ডা পাওনা (আপন গণ্ডা বুঝে নেব); সমার্থক বাগধারা- কড়ি
গণ্ডা গণ্ডা বহুসংখ্যক (গণ্ডা গণ্ডা লুচি)
গণ্ডায় আণ্ডা/এণ্ডা দেওয়া/মেশানো গোলমালের সুযোগে নিজের কাজে ফাঁকি দেওয়া; গোঁজামিল দেওয়া; সমার্থক বাগধারা- গোলে হরিবোল দেওয়া ইত্যাদি
গণ্ডারের চামড়া মান/অপমানবোধ নেই এমন মনোবৃত্তি, গালাগাল গায়ে মাখে না এমন
গণ্ডায় গণ্ডায় বহুল পরিমাণে
গণ্ডী সীমাসূচক পরিসর (কখনো নিজের গণ্ডী অতিক্রম করতে যেও না)
গণ্ডে-পিণ্ডে/ গাণ্ডে-পিণ্ডে গলা পর্যন্ত ঠেসে, মাত্রাতিরিক্ত পেট বোঝাই করে (নেমন্তন্ন বাড়িতে গেলেই সে গণ্ডে পিণ্ডে গিলবে)
গতর স্বাস্থ্য (গতরখানা দেখেছ?)
গতরখাকী/খেকো // গতরখাগী/খেগো অত্যন্ত অলস, পরিশ্রমবিমুখ নারী/পুরুষ- গালিবিশেষ
গতর খাটানো পরিশ্রম করা (গতর না খাটালে রুটি জুটবে না)
গতর নাড়ানো কাজে নিযুক্ত থাকা (অকম্মারা গতর নাড়তে চায় না)
গতরজমা আলসেমি, কুঁড়েমি
গতর পোষা আলসেমি বা কুঁড়েমি করা; পরিশ্রম না করে শরীর তোয়াজ করা
গতর লাগা মোটাসোটা হওয়া
গতরে পোকা ধরা অকর্মণ্য হয়ে পড়া; আলস্যে সময় কাটাতে কাটাতে কর্মশক্তি হারিয়ে ফেলা
গতরের মাথা খাওয়া নিস্কর্মা হয়ে বসে থাকা
গতশোচনা/ গতস্য শোচনা অতীত বিষয়ের জন্য অনুশোচনা (গতস্য শোচনা নাস্তি)
গতিপ্রকৃতি ধরণধারণ, হাবভাব, ভবিষ্যতে কি হতে পারে
গতুয়া অলস, কুঁড়ে
গতুরে কর্মঠ, পরিশ্রমী
গত্যন্তর অন্য গতি বা উপায় (গত্যন্তর না থাকায় দেশ ছেড়েছি); সমার্থক বাগধারা- উপায়ন্তর
গদগদ আবেগজনিত বিহ্বলতার অনুকার শব্দ (গদগদ কণ্ঠ)
গদাইলস্কর বিপুল আকৃতির মন্থরগতিসম্পন্ন ব্যক্তি; অলস, কুঁড়ে
গদাইলস্করী চাল মুখ্য অর্থ- গদাই লস্করের মত মন্থরগতি; গৌণ অর্থ- কার্যে আলসেমী,উদাসীনতা, ঢিলেমী
গদি১ ব্যবসায়ীর দপ্তর,
গদি২ ক্ষমতার উচ্চপদ (মন্ত্রীত্বের গতি)
গনদেবতা জনসাধারণরূপ দেবতা
গনশক্তি জনসাধারণের ঐক্যবদ্ধ শক্তি
গনশত্রু জনসাধারণের শত্রু
গনাগুণতি/ গোনাগুনতি একেবারে ঠিকঠিক, কমও নয় বেশিও নয়
গনাগোষ্ঠী আত্মীয়পরিজনসমূহ
গন্ধবনিক গন্ধদ্রব্য তথা মসলার ব্যবসায়ী
গন্ধমাদন একটি বস্তুর যায়গায় দশটা বস্তু; সামান্য ও লঘুবস্তুর পরিবর্তে বিরাট ও ভারিবস্তু
গন্ধর্ব (=ঘোড়া) ছোটানো এমন মার মারা যাতে ঘোড়ার মত ছুটে বেড়াতে হয়
গন্ধর্ববিবাহ প্রচলিত নিয়মকানুন না মেনে কেবল নায়ক ও নায়িকার অনুমতিক্রমে সম্পন্ন বিবাহ
গন্ধে গন্ধে সূত্র অনুসরণ করে (গন্ধে গন্ধে এসে ঠিক হাজির হয়েছে)
গন্ধে টের পাওয়া অনুমানে জানা
গবা/গবারাম/গবচন্দ্র/গবুচন্দ্র/গবেট গোবুদ্ধিবিশিষ্ট, নির্বোধ, নিরেট বোকা, বোধশক্তিহীন (তোমার মত গবাকে দিয়ে কিছু হবে না); সমার্থক বাগধারা- উদোমাদা, হাবা হাবাগবা ইত্যাদি
গভীরজলের মাছ অনেক বুদ্ধি ধরে; অত্যন্ত ধূর্ত ও চাপাস্বভাবের লোক
গমগম গম্ভীর শব্দে শব্দিত (আসর গমগম করছে)
গয়ংগচ্ছ 'যাচ্ছি যাব' এমনভাব; আলসেমি, কুঁড়েমি, দীর্ঘসূত্রতা; সমার্থক বাগধারা গড়িমসি
গয়বি/গায়েবী/গৈবী চাল অবস্থা না জেনেই ব্যবস্থাগ্রহণ; আড়াল থেকে চাল চালা
গয়সাল মুসলমান ধর্মালম্বী হিন্দু
গয়াংগচ্ছ গয়াপ্রাপ্তি, মৃত্যু (কোটা বাসে মালকচ্ছ, বন্ধু বুঝি গয়াংগচ্ছ); সমার্থক বাগধারা- অক্কা পাওয়া, আত্মারাম খাঁচাছাড়া, ঈশ্বরপ্রাপ্তি, কেষ্ট পাওয়া, পঞ্চত্বপ্রাপ্তি, পটল তোলা, শিঙে ফোঁকা ইত্যাদি
গয়ারাম দলবদলে একদল থেকে অন্যদলে যাওয়া সদস্য
গয়ার পাপ/ভূত বিরক্তিকর অপরিহার্য বিষয় বা ব্যক্তি, যার কাছ থেকে নিস্কৃতি পাওয়া কঠিন; যাকে সহজে তাড়ানো যায় না;
গরজ আবশ্যক, প্রয়োজনের নিমিত্ত অনাবশ্যক কাজ করার দায় (গরজ বড় বালাই)
গরজ বড় বালাই প্রয়োজন/স্বার্থের জ্বালা বড় জ্বালা, যে দাবি যেমন করেই হোক মেটাতে হয়; সমার্থক বাগধারা- গরজে গঙ্গাস্নান, দায়ে পড়ে ঢেলায় প্রণাম; দায়ে পড়ে দা‘ঠাকুর ইত্যাদি
গরজে গঙ্গাস্নান স্বার্থের তাগিদ; দায়ে পড়ে পূণ্যকর্ম; সমার্থক বাগধারা- গরজ বড় বালাই, দায়ে পড়ে ঢেলায় প্রণাম; দায়ে পড়ে দা‘ঠাকুর ইত্যাদি
গরপছন্দ অপছন্দ, অমনোনীত (অনুষ্টানে কিছু গরপছন্দ লোকও উপস্থিত থাকবেন)
গরবিলি অবন্দোবস্ত, অব্যবস্থা (অনুষ্টানে যেন কোন গরবিলি না হয়)
গরম উদ্ধত (গরম কথা)
গরম কাপড় শীতের পশমিপোশাক
গরম খবর টাটকা খবর
গরম গরম/ গরমাগরম একেবারে সদ্য-ভাজা (গরমাগরম লুচি)
গরম গরম কথা কটুবাক্য, কড়াকড়া কথা
গরম পানীয় বিয়ার জিন রাম ইত্যাদি অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় (বাবুরা আজকাল আনন্দানুষ্ঠানে নরম পানীয় খান না, গরম পানীয় খান)
গরমিল হিসাবে বৈষম্য, ভুল (হিসাবে কিছু গরমিল হচ্ছে)
গররাজি অনিচ্ছুক (করোনায় অনুষ্ঠান করতে অনেকেই গররাজি হচ্ছে)
গরহাজির অনুপস্থিত (অনুষ্ঠানে অনেকেই গরহাজির হবে)
গরিব-গুরবো বিত্তহীন সম্প্রদায় (গরিবগুরবোদের কথাও একটু ভাবা উচিত ছিল)
গরীবের ঘোড়ারোগ অবস্থার অতিরিক্ত ব্যয়ের সাধ; উৎকট বাসনার বাতিক
গরু আকাট মুর্খ
গরু খোঁজা তন্নতন্ন করে খোঁজা
গরু চোর অতি ভীতসন্ত্রস্ত ব্যক্তি, যে ব্যক্তি মুখ বুজে সমস্ত পীড়ন সহ্য করে
গরু মেরে জুতা দান বিরাট ক্ষতি করে অল্প ক্ষতিপূরণ; জঘন্য অন্যায়কর্মের প্রায়শ্চিত্তস্বরূপ অল্পকিছু ভালো কাজ করা
গরুর ঝাল খেয়ে বেড়ানো ভয়চকিত কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থা
গর্তের সাপ খুঁচিয়ে বার করা অনাবশ্যক ঝামেলা ডেকে আনা
গর্দভ বোকা, মহামূর্খ, মাথামোটা, হিতাহিতজ্ঞানশূন্য- গালিবিশেষ
গর্দভ-রাগিণী কর্কশ সুর; বিকট চিৎকার
গর্ভযন্ত্রণা দীর্ঘকালব্যাপী উৎবেগ ও উৎকণ্ঠা, নিদারুণ কষ্ট
গর্ভস্রাব অকালপ্রসুত শিশুতুল্য ব্যর্থজন্মা, অকাল কুস্মাণ্ড, অপদার্থ- গালিবিশেষ
গলগ্রহ গলার ভারস্বরূপ পোষ্য যাকে ইচ্ছা না থাকলেও প্রতিপালন করতে হয়; যে অকর্মা বসেবসে অন্যের অন্ন ধংস করে (জামাই শ্বশুরের গলগ্রহ)
গলদ/গলত/গলতি দোষ, ত্রুটি, ভুল (কোন গলতি ব্যাপারে আমি নেই)
গলদঘর্ম অসম্ভব ঘামছে এমন, ক্লান্ত ও ঘর্মাক্ত (গলদঘর্ম অবস্থা)
গলবস্ত্র অতিশয় বিনীতভাব (গলবস্ত্র হয়ে অনুরোধ করছি)
গলতি গলদ, ভুলত্রুটি (তোমার কাজে অনেক গলতি আছে)
গলা ওঠা স্বর উঁচু করা
গলা করে বলা মুক্তকণ্ঠে বলা, বড় গলায় বলা
গলা কাটা প্রবঞ্চনা করা (গলা কাটা দাম)
গলা কাটা দাম মাত্রাতিরিক্ত দাম
গলাগলি অতন্ত ঘনিষ্টতা (দুজনের মধ্যে গলাগলি ভাব) সমার্থক বাগধারা- আঙ্গাঙ্গি
গলা চাপা স্বর নীচু করা
গলা ছাড়া স্বর উচ্চে তোলা
গলা জল গভীর সঙ্কট
গলা টিপলে দুধ বেরোয় নিতান্ত শিশু
গলা ধরা/বসা স্বর বন্ধ হওয়া
গলাধাক্কা অপমান করে বিদায় করা; সমার্থক বাগধারা- অর্ধচন্দ্র, ঘাড়ধাক্কা
গলা বাঁচানো প্রাণ বাঁচানো
গলাবাজী১ চিৎকার চেঁচামেচি (গলাবাজী করে কাজ উদ্ধার হয় না)
গলাবাজী২ অসার নিস্ফল বক্তৃতা (নেতার গলাবাজীতে জনগন ভুলবে না)
গলা ভাঙা স্বরবিকৃতি
গলা সাধা গানের রেওয়াজ করা, সরগম সাধনা, সুরের সাধনা
গলাধঃকরণ খাওয়া, গেলা (এই ঠাণ্ডা চা গলাধঃকরণ করা যায় না)
গলায় কাপড় অতি দারিদ্র বা বিনয়ীর লক্ষণ
গলায় গলায়১ আকণ্ঠ, গলা পর্যন্ত (গলায় গলায় ঋণে ডুবে আছে)
গলায় গলায়২ অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ, নিবিড়ভাবে, প্রগাঢ় (গলায় গলায় পীরিত)
গলায় গাঁথা/পড়া অনভিপ্রেত বোঝা হওয়া (বৃদ্ধবয়সে আমি কারো গলায় গাঁথবো না)
গলায় ছুরি মাত্রাতিরিক্ত দামে পণ্যবিক্রয়
গলায় দড়ি মৃত্যু কামনা করে ধিক্কারসূচক উক্তি (অমন স্বামীর গলায় দড়ি)
গলায় পড়া/গাঁথা গলগ্রহ হওয়া (বিধবা বোনটি গলায় এসে পড়েছে)
গলায় পা দেওয়া উৎপীড়ন করা (গলায় পা দিয়ে ঝগড়া করছে)
গলায় লাগা বলতে/গিলতে কষ্ট হওয়া
গলার কাঁটা বোঝাস্বরূপ
গলার জোর উচ্চস্বর, চিৎকার
গলার নিচে যাওয়া উদরপূর্তি
গলিঘুঁজি খুব সরু ও দুর্গম রাস্তা; গলি ও তস্য গলি (এই গলিঘুঁজির মধ্যে বাড়ীটা খুঁজে বার করতে খুব কষ্ট হয়েছে); সমার্থক বাগধারা- অলিগলি
গল্পগুজব নানাবিষয়ে হালকা আলাপ-আলোচনা (সারাটা দিন গল্পগুজব করেই কেটে গেল)
গল্পের ভুশুড়ি ভাঙা ক্রমাগত একটার পর একটা গল্প বলা
গসগস ক্রোধ বা বিরক্তির ভাবসূচক (রাগে গসগস করছে); সমার্থক বাগধারা- গজগজ
গস্ত ঘুরে ফিরে জিনিসপত্র কেনা (সে বড়বাজারে গস্ত করতে গেছে)
গহনার নৌকা সময়তালিকা অনুযায়ী বহুযাত্রী নিয়ে চলাচলকারী বড় নৌকাবিশেষ
গাঁ গ্রাম (গাঁয়ের লোক)
গাঁইগুঁই অনিচ্ছা বা অসম্মতিসূচক অস্পষ্ট অভিব্যক্তি (তাকে যেতে বললাম বটে, তবে সে যেতে গাঁইগুইঁ করছে)
গাঁইগোত্র পূর্বপুরুষের গ্রাম ও গোত্রপতিচয়, কুলপরিচয়
গাঁ-গাঁ উত্কটভাবে চিৎকার করে কথা বলা;ক্রুদ্ধ আওয়াজবিশেষ (বাচ্চাটা গাঁ-গাঁ করছে)
গাঁ বড় তার মাঝের পাড়া কয়েক ঘর বাসের ছোট্ট গাঁয়ে একাধিক পাড়া থাকে না; অস্তিত্বহীন বস্তুর কল্পনা; সম্পূর্ণ নির্গুণ ব্যক্তির গুণের উল্লেখ
গাঁইয়া অশিক্ষিত, অমার্জিত (তুমি একটা গাঁইয়া লোক)
গাঁক-গাঁক চিৎকার করে কথা বলার ভাবপ্রকাশক (সে এত গাঁকগাঁক করে কথা বলে যে কানে তালা লেগে যায়)
গাঁজা খাওয়া অলীক ও বানানো কথা বলা (গাঁজা খেয়ে কথা বলছ নাকি?)
গাঁজাখুরি অবিশ্বাস্য, অলীক কল্পনা (গাঁজাখুরি গল্প)
গাঁট কোমরের কাপড় যেখানে টাকাপয়সা রাখা হয় (গাঁটের পয়সা খরচ করে কিনেছি); সমার্থক বাগধারা- টেঁক/ট্যাঁক
গাঁটগচ্চা গাঁটের পয়সা অযথা খরচ
গাঁটছড়া মুখ্য- বিবাহকালে বর ও কনে উভয়ের বস্ত্রাঞ্ছলের গ্রন্থিবন্ধন; আলং- স্বার্থের জোটবন্ধন (রাজনৈতিক দলগুলি ভোটের সময় পরস্পর গাঁটছড়া বাঁধে)
গাঁটের কড়ি/পয়সা নিজের পরিশ্রমের পয়সা, স্বোপার্জিত সঞ্চিত অর্থ
গাঁট্টাগোঁট্টা/ গাট্টাগোট্টা সুগঠিত ও পেশিযুক্ত ও শক্তিশালী (গাঁট্টা-গোঁট্টা চেহারা)
গাঁয়ে মানে না আপনি মোড়ল মূর্খ ও অযোগ্য ব্যক্তির হাস্যকর আত্মশ্লাঘা; উপর-পড়া কর্তৃত্ব
গা এলিয়ে দেওয়া হাত পা ছেড়ে শুয়ে পড়া
গা করা/ দেওয়া কিছু মনে করা, নজর করা, মনোযোগ দেওয়া (আমার ব্যাপারটায় কেউ গা করছো না)
গা কশকশ করা আক্রোশজনিতকারণে অস্বস্তিবোধ হওয়া (রাগে আমার গা কশকশ করছে)
গা কাঁপা প্রচণ্ড ভয় পাওয়া (খাদের ধারে দাঁড়িয়ে আমার গা কাঁপছে)
গা কেমন কেমন করা অসুস্থতা বোধ করা
গা গতর অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ, সর্বাঙ্গ (খাটুনির চোটে গা-গতর ব্যাথা হয়ে গেছে)
গা গরম অল্প জ্বর, জ্বর নয় জ্বর জ্বর ভাব
গা গুলানো বমির উদ্রেক হওয়া
গা ঘামানো পরিশ্রম করা (খুব গা ঘামিয়ে সময়য়ে কাজটা শেষ করেছে)
গা ঘেঁষা১ অন্তরঙ্গ হওয়ার চেষ্টা (বড়লোকের গা ঘেঁষা নেই)
গা ঘেঁষা২ গায়ে পড়ে ভাব জমায় এমন
গা চাটাচাটি করা ভালবাসা জানানো (পুলিশের গা চাটাচাটি করা ভালো নয়)
গা ছাড়া আগ্রহহীন, ঢিলেঢালাভাব (তোমার মধ্যে গা ছাড়া ভাব দেখা যাচ্ছে)
গা জুড়ানো মনে শান্তি পাওয়া; ক্লান্তি দূর হওয়া
গা-জোয়ারি জবরদস্তি (গা-জোয়ারি দেখিয়ে কোনো লাভ নেই)
গা জ্বলা অতিশয় ক্রোধের উদ্রেক হওয়া (অন্যায় কথা শুনলে গা জ্বলে ওঠে)
গা জ্বালা করা/গায়ে জ্বালা ধরা ঈর্ষান্বিত হওয়া, বিরক্তি উদ্রেক হওয়া
গা জুরি/জোয়ারি করা গায়ের জোরে কোথা বলা, অন্যায় কথা বলা
গা ঝাড়া দেওয়া জড়তা কাটিয়ে কাজে নামা
গা ঝিম ঝিম করা অসুস্থ বোধ করা
গা টেপাটেপি করা ইঙ্গিতে কথা বলা
গা ঢাকা দেওয়া আত্মগোপন করা, পালিয়ে যাওয়া (সুযোগ পেয়ে দুস্কৃতি গা ঢাকা দিল)
গা ঢালা হাত-পা ছড়িয়ে শুয়ে পড়া
গা তোলা ঘুম থেকে উঠে বসা, নড়েচড়ে ওঠা
গা দেওয়া উৎসাহ দেখানো; মনোযোগ দেওয়া (ছেলেটা আমার কথায় গা-ই দিল না); সমার্থক বাগধারা- গা করা
গা পেতে নেওয়া মেনে নেওয়া; বিনা প্রতিবাদে সহ্য করা, স্বীকার করা
গা মাটি মাটি করা শুয়ে পড়ার ইচ্ছা
গা মোড়া আলস্য ভাঙ্গা, আলস্য দুর করার জন্য গা মোচড় দেওয়া
গা ম্যাজম্যাজ করা অস্বস্তি/আলস্য বোধ করা
গা লাগা মনযোগী হওয়া; প্রবৃত্ত হওয়া (গা লাগিয়ে কাজ কর)
গা সহা অভ্যস্ত (লোকের সমালোচনা আমার গা সহা হয়ে গেছে)
গা শোঁকাশুঁকি করা পরস্পরের প্রতি অন্তরঙ্গ হওয়া
গাওয়া সাক্ষ্য (অন্ততঃ তিনজনের গাওয়া চাই)
গাঙ গঙ্গা, বড়নদী (গাঙ পেরুলেই পাটনী শালা- প্রবাদ)
গাঙ পেরুলেই পাটনী শালা স্বার্থসিদ্ধি হয়ে গেলে উপকারী কেউ নয়
গাঙ্গুরাম তেলি অতি নগণ্যব্যক্তি
গাছ না উঠতে এককাঁদি // গাছে না উঠতেই এককাঁদি // গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল কাজে নামার আগেই ফলের প্রত্যাশা; প্রাপ্তির পূর্বেই ভোগের আয়োজন; সমার্থক ভাগধারা- আম না হতে আমসি/আমস্বত্ব, কালনেমির লঙ্কাভাগ, রাবণের ছাদনাতলা, রাম না হতেই রামায়ণ, হবু ছেলের অন্নপ্রাশন ইত্যাদি
গাছকোমর বাঁধা (মেয়েদের সম্পর্কে) গাছে ওঠা বা কোন ভারী কাজ করার সময় আঁচল কোমরে জড়িয়ে নেওয়া)
গাছগাছড়া/গাছগাছালি বুনো লতাগুল্ম, ওষুধ হিসাবে ব্যবহৃত ভেষজ উদ্ভিদ (গাছগাছড়ার গুণের কথা আমরা ভুলেই গেছি)
গাছপাগল বদ্ধ উন্মাদ
গাছপাথর (বয়সের) পরিমাণনির্দেশক, অনেক বয়স হয়েছে (বুড়োর বয়সের গাছপাথর নেই)
গাছপালা নানারকম গাছ ও লতাপাতা
গাছে চড়ানো/তোলা অযথা প্রশংসা করা; চাটুকারি করে কাউকে গর্বিত করা
গাছে তুলে মই কাড়া আশা দিয়ে নিরাশ করা; প্ররোচনা দিয়ে বিপজ্জনক কাজে লিপ্ত করে পরে অসহায় অবস্থায় ফেল চলে যাওয়া
গাছের ফল সহজলভ্য বস্তু (চাকরিটা গাছের ফল নাকি যে চাইলেই পাবে?); সমার্থক বাগধারা- ছেলের হাতের মোয়া
গাছেরও খাওয়া তলারও কুড়ানো /গাছের পাড়া তলার কুড়ানো নিতান্ত স্বার্থপরের মত কাজ করা; সকল উপায়ে অভিষ্ট বিষয় হস্তগত করা (চতুরতার লক্ষ্মণ)
গাট্টা-গোট্টা সুগঠিত ও পেশিযুক্ত ও শক্তিশালী (গাট্টা-গোট্টা চেহারা)
গাড্ডা অস্বস্তিকর পরিস্থিতি, বিপদ
গাড্ডা/গাড্ডু মারা পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়া
গাড্ডায় পড়া বিপদে পড়া (খুব গাড্ডায় পড়ে গেছি)
গাড়ল মুখ্য অর্থ- গড্ডর, গড্ডল, ভেড়া, মেষ; গৌণ অর্থ- অন্যের বা স্ত্রীর বুদ্ধিতে মুর্খের মত চলা ব্যক্তি (তুমি একটা আস্ত গাড়ল)
গাড়িঘোড়া বিভিন্ন ধরনের যানবাহন
গাড়ি ফেল করা রেলগাড়ি ধরতে না পারা
গাণ্ডু (অশালীন) অবিবেচক, আহাম্মক, বুদ্ধিহীন (গাণ্ডূর মত কাজ করো না)
গাণ্ডেপিণ্ডে গেলা অপরিমিত আহার
গাত্রজ্বালা/দাহ ঈর্ষা, ক্রোধ ইত্যাদি মানসিক ভাব
গাত্রোত্থান বিছানা ছেড়ে উঠে বসা বা দাঁড়ানো
গাদাগাদি প্রচুর জমায়েত (গাড়ীতে গাদাগাদি করে লোক উঠেছে); সমার্থক বাগধারা- গায় গায় ঘেঁষাঘেঁষি, চাপাচাপি, ঠাসাঠাসি, ঠেসাঠেসি, লাগালাগি ইত্যাদি
গাধা/ গর্ধভ অত্যন্ত নির্বোধ, বোকা- তিরস্কার (তুমি একটা আস্ত গাধা)
গাধা পিটিয়ে ঘোড়া করা বোকাকে শিখিয়ে পড়িয়ে চালাক করা
গাধার খাটুনি১ যে কাজে বুদ্ধির প্রয়োজন নেই, কিন্ত পরিশ্রম আছে (সংসারে গাধার খাটনি খেটে মরি)
গাধার খাটুনি২ যে কাজে পারিশ্রমিকের তুলনায় অতিরিক্ত খাটুনি
গাধার রাগিণী উৎকট স্বরে চিৎকার
গাধার জল খাওয়া স্বভাব দোষ; সমার্থক বাগধারা- কুকুরের আড়াই পাক, বিড়ালের তিন পা, শিয়ালের রা ইত্যাদি
গাধার পিটুনি নির্মম প্রহার
গাধার রাগিণী উৎকট স্বরে চিৎকার
গান্ধর্ববিবাহ পাত্রপাত্রীর ইচ্ছানুসারে প্রচলিত আচার অনুষ্ঠান পরিহার করে একে অপরকে স্বামী ও স্ত্রীরূপে বরণ
গাপ গোপনে আত্মস্মাৎ (আমার সম্পত্তিটা বেমালুম গাপ করে দিলে)
গাফিলতি/ গাফিলিয়তি অবহেলা, অমনযোগ, ঔদাসিন্য, ঢিলেমি, ফাঁকিবাজী (গাফিলতি করেই নিজের ক্ষতি করলাম)
গাবদাগোবদা বেমানান মোটাসোটা চেহারা
গায়ে কাঁটা দেওয়া ভয়ে রোমাঞ্চিত হওয়া
গায়ে গায়ে পাশাপাশি (বাড়ীগুলি সব গায়ে গায়ে তুলেছে)
গায়ে গায়ে ঋণশোধ পরস্পরের দেনাপাওনা কাটাকাটি করে ঋণ পরিশোধ
গায়ে গু মাখলে যামও ছাড়ে না দোষ করলে নিস্কৃতি নাই; দোষীরা কখনো নিস্কৃতি পায় না
গায়ে জ্বর আসা আশঙ্কিত হওয়া, ভয় পাওয়া (পরীক্ষার নাম শুনলেই অ্যাম্বার গায়ে জ্বর আসে)
গায়ে থুথু দেওয়া ঘৃণা করা, ধিক্কার দেওয়া, নিন্দা করা (তোমার ব্যবহারে সবাই গায়ে থুথু দিচ্ছে)
গায়ে-পড়া উপর-পড়া; অযাচিত ও অবাঞ্ছিত (গায়ে-পড়া স্বভাব)
গায়ে-পড়ে উপর-পড়া হয়ে; অযাচিতভাবে (গায়ে-পড়ে ঝগড়া করা ওর স্বভাব)
গায়ে ফুঁ দিয়ে বেড়ানো নির্ভাবনায় বাবুয়ানা ও ফুর্তি করে বেড়ানো; পরিশ্রম না করে আরামে দিন কাটানো; দায়-দায়িত্ব এড়িয়ে চলা
গায়ে ফোসকা পড়া অসহ্য বোধ হওয়া; ঈর্ষান্বিত হওয়া
গায়ে বিষ ছড়ানো/ঢালা অঙ্গ জ্বালানো, ক্রোধ হওয়া
গায়ে মাখা আমল দেওয়া; গ্রাহ্য করা (সব কথা গায়ে মাখতে নেই)
গায়ে মাস লাগা স্বাস্থ্য ভাল হওয়া
গায়ে লাগা ইঙ্গিতে দোষারূপ হচ্ছে ভেবে মনে লওয়া;মর্মে আঘাত করা
গায়ে সওয়া অভ্যস্ত হওয়া; (ওসব গালিগালাজ গায়ে সয়ে গেছে)
গায়ে হাত তোলা মারধর/প্রহার করা
গায়ে হাত না দিয়ে কথা বলা নিজের দোষ গোপন করে পরের নিন্দা করা
গায়ের ঝাল ঝাড়া গায়ের জ্বালা মেটানো
গায়েব১ অদৃশ্য (হঠাৎ তুমি কোথায় গায়েব হয়ে গেলে?)
গায়েব২ আত্মসাৎ (আমার টাকাটা গায়েব করে দিল)
গায়েবী/গৈবী চাল অদৃশ্য চাল; আড়াল থেকে চাল চালা
গায়েবী/গৈবী ধন গুপ্তধন ('লোকে রটিল পেয়েছে গৈবী ধন'- অবনীন্দ্রনাথ)
গায়ের জল স্বাস্থ্য
গায়ের জ্বালা ঈর্ষা, হিংসা (পরের উন্নতিতে সকলের গায়ে জ্বালা ধরে; সমার্থক বাগধারা- গাত্রদাহ
গায়ের জ্বালা/ঝাল মনের জমে-থাকা ক্রোধ; দীর্ঘদিনের সঞ্চিত আক্রোশ (গালাগালি করে গায়ের ঝাল মিটিয়ে নিয়েছি); সমার্থক বাগধারা- দাদ
গালগল্প অবাস্তব কথাবার্তা, খোসগল্প, গাঁজাখুরি/মনগড়া কাহিনী; সমার্থক বাগধারা- কপোলকল্পনা
গালপাট্টা 'গালজোড়া দাড়ি (বর এসেছে বীরের ছাঁদে, বিয়ের লগ্ন আটটা; পিতল-আঁটা লাঠি কাঁধে, গালেতে গালপাট্টা'- রবীন্দ্রনাথ)
গাল বাড়িয়ে চড় খাওয়া আগবাড়িয়ে অপমানিত হওয়া
গালভরা একগাল
গালভরা কথা বড়ো বড়ো আড়ম্বরপূর্ণ কথা, বড়াই
গালভরা নাম বিরাট নাম, নামের চোটে গগন ফাটে
গালভরা পান পানে পরিপূর্ণ
গালভরা প্রতিশ্রুতি অনেক কিছু করে দেবার প্রতিশ্রুতি (ভোট পাওয়ার জন্য রাজনৈতিক নেতারা গালভরা প্রতিশ্রুতি দেন)
গালভরা হাসি পরম সন্তোষজনক হাসি
গালাভরা বালা যতটা ভার ততটা গুণের নয়
গালমন্দ/গালাগাল/গালাগালি/গালিগালাজ করা কটুক্তি করা, তিরস্কার করা
গালে চড় খাওয়া বেদনাদায়ক অভিজ্ঞতা অর্জন করা
গালে চূণকালি মাখানো তীব্র অপমান করা বা দূরপনেয় কলঙ্কলেপন করা
গালে হাত দেওয়া অবাক হওয়া; বিস্ময় প্রকাশ করা
গিজগিজ/গিসগিস বহুলোকের একত্র সমাবেশহেতু গুঞ্জনশব্দ
গিজগিজ করা বহু প্রাণী বা বস্তুর ঠাসাঠাসি করে থাকা (সভায় লোক গিজগিজ করছে);সমার্থক বাগধারা- ঠাসাঠাসি
গিদ্ধড় (=শিয়াল) অপরিচ্ছন্ন, নোংরা, অর্থলোভী- গালিবিশেষ
গিন্নিপনা গৃহিণীসুলভ আচরণ; কৌতুকে বা ব্যাঙ্গে- অল্পবয়সী মেয়ের গৃহিণীসুলভ আচরণ
গিন্নিবান্নি সুগৃহিণীসুলভ আচরণ; বয়স্কা অভিজ্ঞতাসম্পন্ন গৃহকর্ত্রীর মত আচরণ
গিরগিটি১ অত্যন্ত কৃশ ও শীর্ণকায় ব্যক্তি
গিরগিটি২ বর্ণচোরা ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- বহুরূপী
গিরিকন্দর পাহাড়ের গুহা
গিরিসঙ্কট দুই পর্বতের মধ্যবর্তী সঙ্কীর্ণ গিরিপথ
গিলটি সোনা মেকি পালিশ করা কৃত্রিম সোনা
গুঁতাগুঁতি ঝগড়াবিবাদ, ঠেলাষেলি, ধাক্কাধাক্কি
গুচ্ছের বিরক্তিকর অবাঞ্ছিত অতিরিক্ত (গুচ্ছের কাজ ঘাড়ে চেপেছে)
গুজগুজ১ অল্পলোকের সমাবেশের মৃদু গুঞ্জনশব্দ
গুজগুজ২/গুজগুজানি গোপনে শলাপরামর্শ (দু'জনে মিলে কী গুজগুজানি করছো?)
গুজগুজিয়া / গুজগুজে যার পেটের কথা স্পষ্ট পাওয়া যায় না; যে মনের কথা স্পষ্ট করে প্রকাশ করে না (গুজগুজে স্বভাব); সমার্থক বাগধারা- ভিদভিদে
গুজরান১ জীবিকা নির্বাহ করা ('চাষবাস করে দিন গুজরান করি'- রবীন্দ্রনাথ)
গুজরান২ দিন অতিবাহন/যাপন করা (স্বচ্ছন্দের দিন গুজরান কড়ছি)
গুটিকতক/কয়েক অল্প পরিমাণ
গুটিগুটি ধীর পদক্ষেপে (গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে চল)
গুটিসুটি / গুড়িশুড়ি সঙ্কুচিত, হাত পা গুটিয়ে থাকা (লেপের মধ্যে গুড়িশুড়ি মেরে শুয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- জড়সড়
গুড়গুড়িয়া খর্বাকৃতি ব্যক্তি
গুড়-ব্যাঘ্র সরল ভাষাকে সাধুভাষায় উপস্থাপন (মধু সিংহের বাড়ী=>গুড়ব্যাঘ্র ভবন; শুয়োরের বাচ্চা=> বরাহতনয়)
গুড়ি মারা ওত পেতে থাকা (ইঁদুর ধরতে বিড়ালটা গুড়ি মেরে বসে আছে)
গুড়ে বালি আশায় নৈরাশ্য, আশা বিফল (আশা করছ সাহায্য পাবে, সে গুড়ে বালি)
গুণধর/ গুণনিধি/ গুণসাগর ব্যাঙ্গে- সব বদগুণের অধিকারী (অতি গুণধর ছেলে)
গুনাগার/ গুণোগার আক্কেলসেলামি, পাপের শাস্তি, ভুলের মাশুল, লোকসানের অর্থদণ্ড (ভুল করাতে একগাদা টাকা গুনাগার দিতে হল)
গুনাহ/ গোনাহ অপরাধ, দোষ, পাপ ('সারা বছর যত গুণাহ ছিল রে জমা'- নজরুল)
গুণে ঘাট নেই/গুণে নুন নাই ব্যাঙ্গে- সব বদগুণের অধিকারী (শ্রীমানের গুণের ঘাট নেই)
গুব-লেট ভেস্তে যাওয়া; ভেস্তে গেছে এমন (সব গুবলেট হয়ে গেছে)
গুম খুন গুপ্ত হত্যা
গুমর/গুমোর অহংকার, গর্ব, দম্ভ (চাকুরিজীবী মহিলার গুমর একটু বেশি হয়)
গুমোর ভাঙা গর্ব চূর্ণ হওয়া; অহঙ্কার দূর হওয়া
গুয়ের এপিঠ আর ওপিঠ মন্দের সবই মন্দ
গুয়ের পোকা অধমের অধম, নরাধম
গুরুগম্ভীর গভীর অর্থযুক্ত এবং গম্ভীর শব্দবিশিষ্ট (গুরুগম্ভীর বর্ণনা, গুরুগম্ভীর ভাষা)
গুরু চণ্ডালী সাধুভাষার সাথে কথ্য ভাষার একত্র যোগ (চর্ব্য-চোষ্য রান্না, ভাতপ্রাশন, মড়াদাহ, শবপোড়া ইত্যাদি)
গুরুপাক সহজে হজম হয় না এমন (গুরুপাক খাদ্য)
গুরুবাক্য অলঙ্ঘনীয় নির্দেশ
গুরু বোবা, শিষ্য কালা দু’জনই সমান অপদার্থ; সমার্থক বাগধারা- অন্ধ দোকানদার কালা খরিদ্দার, হবু রাজা গবু মন্ত্রী ইত্যাদি
গুরু মারা বিদ্যা যার কাছে শিক্ষা অনিষ্ট করার জন্য তারই উপর প্রয়োগ (সংগীত একটি গুরুমুখী বিদ্যা)
গুরু লঘু জ্ঞান কথাবার্তায় বড় ছোট জ্ঞান (তোমার এখনও গুরু-লঘু জ্ঞান হল না)
গুলজার সরগরম, জমজমাট (নরক গুলজার)
গুলতান/গুলতানি১ আড্ডা মারা, খোশগল্প করা (বসে বসে গুলতানি করলে ভাত জুটবে না)
গুলতান/গুলতানি২ জটলা করা, ঘোঁট পাকানো (ওখানে কিসের গুলতানি চলছে?)
গুলপট্টি ধাপ্পা। ফাঁকি, মিথ্যা কথা (অযথা গুলপট্টি মেরো না)
গুলবদন গোলাপের ন্যায় কোমলদেহী ('ভুখা আঁখি কাজ কি ঢাকি ওড়না দিয়ে গুলবদন'-নজরুল)
গুলিখোর াফিম চণ্ডু ইত্যাদি নেশার দ্রবসেবী
গুলি মারা উপেক্ষা করা; তোয়াক্কা না করা, পাত্তা না দেওয়া (গুলি মারো চাকরিকে, আমি ব্যবসা করবো)
গুলিস্তাঁ/গুলিস্তান পুস্পবন, ফুলের বাগান ('শরাব-সাকীর গুলিস্তাঁয়'- নজরুল)
গুষ্টিবর্গ পরিবারের সকল সদস্য
গুষ্টির পিণ্ডি কুলনাশ বা নির্বংশ হওয়ার ইঙ্গিতসূচক গালিবিশেষ
গুষ্টির মাথা বংশের মাথা খাওয়ার ইঙ্গিতসূচক গালিবিশেষ
গৃহবিবাদ সংসারের লোকজনের মধ্যে ঝগড়াঝাটি
গৃহবধু/লক্ষ্মী কুলবধু; গৃহিণী, বিবাহিতা নারী যে সংসারধর্ম পালন করে
গৃহভেদী ঘর ভাঙানে, পরিবারের মধ্যে বিবাদ ঘটায় এমন (গৃহভেদী বিভিষণ)
গেঁজেল গাঁজাখোর, অবাস্তব/মিথ্যা কথা বলে এমন
গেঁড়াকল লোককে ঠকাবার কৌশল, বিপদ, ফাঁদ (আচ্ছা গেঁড়াকলে পড়া গেছে)
গেঁড়া মারা আত্মসাৎ করা (আমার অনেক টাকা গেঁড়া মেরে দিয়েছে)
গেঁড়ানো আত্মসাৎ/চুরি করা (সে নিশ্চয় ওটা গেঁড়িয়েছে); সমার্থক বাগধারা- হাতানো
গেঁতো অলস, দীর্ঘসূত্রী (গেঁতো লোক)
গেঁয়ো অশিক্ষিত ও অমার্জিত (গেঁয়ো লোক)
গেছো মেয়ে ডানপিটে, উদ্দাম ও পুরুষভাবাপন্ন
গেজেট কৌতুকে- যার কাছে সব খবর পাওয়া যায় এমন ব্যক্তি
গেদে দেওয়া প্রচণ্ড তিরস্কার করা
গেরো ফ্যাসাদ; বিপদ, গ্রহের ফের (কপালের গেরো)
গোঁ একরোখামি, জেদ, মেজাজ (থাকে যদি টাকা করবে গোঁ, চৈত্রমাসে ভুট্টা রো- খনা)
গোঁ ধরা একরোখা হওয়া, জিদ ধরা (গোঁ ধরে বসে আছে)
গোঁ গোঁ করা১ কথা বলতে না পারা (গোঁগা ছেলে)
গোঁ গোঁ করা২ যন্ত্রণাসূচক শব্দ করা; যন্ত্রণায় কাতর ধ্বনি
গোঁগা/গোঙ্গা ছেলের নাম তর্কবাগিশ যা হবার নয়; অসঙ্গত ব্যাপার; নিরর্থক নামকরণের ব্যর্থপ্রয়াস; সমার্থক বাগধারা- কানাছেলের নাম পদ্মলোচন, কেলেবামুনের নাম গৌরাঙ্গসুন্দর, ঘুঁটেকুড়ুনির ব্যাটার নাম চন্দনবিলাস, ছাল নেই কুত্তার নাম বাঘা ইত্যাদি
গোঁজামিল দেওয়া কোনোরকমে জোড়াতালি দিয়ে মেলানো, বাজে হিসাবে অঙ্ক মেলানো
গোঁফ খেজুরে খেজুরটি গোঁফের উপর এসে পড়েছে তবু সেটি মুখের মধ্যে পুরে নেবার চেষ্টা করে না এমন অলসের চূড়ামণি; সমার্থক বাগধারা- কুঁড়ের বাদশা, পি-পু-পি-সু
গোঁফে তা১ আরামে দিন কাটানো
গোঁফে তা২ উপেক্ষা করা
গোঁফে তা৩ সুযোগের অপেক্ষায় থাকা
গোঁয়ার গোবিন্দ নির্বোধ অথচ হঠকারী; কাণ্ডজ্ঞানহীন, রসকষহীন, একগুঁয়ে ও দুঃসাহসী (গোঁয়ার গোবিন্দ ছেলে); সমার্থক বাগধারা- কাঠগোঁয়ার
গোকুলে বাড়া অজ্ঞাত স্থানে লুকিয়ে থেকে শক্তি বৃদ্ধি করা ('তোমারে বধিবে যে গোকুলে বাড়িছে সে')
গোকুলের ষাঁড় অসংযত স্বেচ্ছাচারী মুক্তপুরুষ, যাকে বাধা দেবার কেউ নেই; স্বচ্ছন্দে বিচরণকারী ও পরের অনিষ্টকারী ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- খোদার খাসি,ধর্মের ষাঁড়
গোগ্রাসে গরুর মত বড়বড় গ্রাসে (খিদের জ্বালায় গোগ্রাসে গিলছে)
গোছগাছ যথাস্থানে জিনিসপত্রের সজ্জা, সাজানোগোছানো, সুন্দরভাবে রক্ষণ (যাবার সময় হয়ে এলো, এখনো গোছগাছ হয় নি?); সমার্থক বাগধারা- বাঁধাছাদা
গোছালো সংসার হিসাব করে চলা সংসার
গোজন্ম বিদ্যাহীন বুর্থ মনুষ্যজন্ম (গোজন্ম ঘুচে গন্ধর্ব জন্ম হল)
গোজন্ম ঘুচে গন্ধর্ব জন্ম মন্দ থেকে ভালো হওয়া
গোটা কতক অল্পসংখ্যক, কয়েকটি; সমার্থক বাগধারা- গুটি কয়েক
গোটা গোটা আস্ত য়াস্ত,পরিচ্ছন্ন (গোটা গোটা অক্ষরে লেখা)
গোডিমওয়ালা ছেলে দুধের শিশু
গোড়া কেটে আগায় জল আগে নষ্ট করে পরে ভালো করার চেষ্টা
গোড়াপত্তন কোন কাজ শুরু
গোড়ায় গলদ মূলেই গোলমাল, শুরুতেই ভুল; সমার্থক বাগধারা- বিসমিল্লায় গলদ
গোড়ে গোড় দেওয়া পদাঙ্ক অনুসরণ করা;মতে মত দেওয়া; সহমত হওয়া
গোদা পায়ে আলতা/মল বিসদৃশ/বেমানান সাজ; সমার্থক বাগধারা- খাঁদানাকে তিলক, খাঁদানাকে নথ, রোগাহাতে ফাঁদালবালা ইত্যাদি
গোদা পায়ে লাথি অমূলক ভয়; বাহ্যত ভয়ঙ্কর কার্যত নয় (গোদা পা দেখতে ভীষণ হলেও আঘাত সামান্যই হয়)
গোদা বাংলা অলঙ্কারবিহীন সহজ সরল বাংলা (বিষয়টা গোদা বাংলায় বুঝিয়ে বল)
গোদের ওপর বিষফোঁড়া কষ্টের উপর কষ্ট; জ্বালার উপর জ্বালা, বিপদের ওপর বিপদ ('পোড়ার উপর পোড়া, যেন গোদের উপর বিষ ফোঁড়া'- ঈশ্বর গুপ্ত ); সমার্থক বাগধারা- কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা
গোধূম গম জাতীয় শষ্য, যার থেকে আটা ময়দা সুজি ইত্যাদি প্রস্তুত হয়
গোধূলি সূর্যাস্তকাল, শেষজীবন ('ধূসর জীবনের গোধূলিতে')
গোবর গণেশ অকর্মণ্য, নির্বোধ, স্থূলবুদ্ধিসম্পন্ন ব্যক্তি
গোবরগাদা অন্তঃসারশূন্য
গোবর ভরা মাথা বুদ্ধিহীন; মাথা অসার/বাজে জিনিসে বোঝাই
গোবরে/গোবরগাদায় পদ্মফুল নিকৃষ্টস্থানে উৎপন্ন উৎকৃষ্ট বস্তু; কুতসিৎ পরিবারে সুন্দর সন্তান; নীচকুলে মহৎব্যক্তি
গোবিন্দের বাপ একজন নগণ্য ব্যক্তি
গোবেচারা/গোবেচারি অতিরিক্ত ভালোমানুষ, নিরীহ শান্ত মানুষ
গো-বৈদ্য হাতুড়ে চিকিৎসক
গোমড়া মুখ অপ্রসন্ন মুখ
গোমূর্খ আকাট মূর্খ, নিরেট বোকা, অক্ষরপরিচয় পর্যন্ত নেই এমন
গোয়ালার কাঁজি (আমানি) ভক্ষণ নামমাত্র সার, কাজে কিছু নয়
গোরস গরুরু দুধ ('গোরস গলিগলি ফিরে সুরা বইঠল বিকাই'-তুলসীদাস)
গোরুচোর অতি ভীতসন্ত্রস্ত ব্যক্তি, যে ব্যক্তি মুখ বুজে সব অত্যাচার সহ্য করে
গোল গর্তে চৌকো পেরেক অস্বস্তিকর অবস্থা,যোগ্যস্থানে অযোগ্য নিয়োগ; বেখাপ্পা মেল; সমার্থকা বাগধারা- পান্তাভাতে ঘি ইত্যাদি
গোলকধাঁধা জটিল বিষয়/সমস্যা, বহুকুটিলপথসংকুল গোলাকার স্থান বা বেষ্টনী যার মধ্যে ক্রমাগত ঘুরেও বাইরে যাবার পথ খুঁজে পাওয়া যায় না
গোলমাল/গোলযোগ কোলাহল, বিশৃঙ্খলা (গোলমালে গোলমালে পিরিত করো না- লোকগীতি); সমার্থক বাগধারা- ওলটপালট, ডা্মাডোল
গোলমালে চণ্ডীপাঠ বিশৃঙ্খল কাজকর্ম; 'ঠিক না বেঠিক পড়া ধরা পড়ে না'-এই সুযোগে কাজে ফাঁকি
গোলমেলে লোক কুটিল গোলমালপ্রিয় লোক
গোলা অশিক্ষিত, গুণহীন সাধারণ (গোলা লোক, গোলা পায়রা)
গোলাঙ্গুলন্যায় গরুর লেজ ধরে শ্বশুরবাড়ী যেতে গিয়ে অন্ধের যে দুরবস্থা হয়েছিল সেইরুপ (অন্ধগোলাঙ্গুলন্যায় দ্রষ্টব্য)
গোলাপ বিছানো শয্যা সুখস্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ জীবন
গোলাপী/গোলাবী নেশা অল্প মদের নেশা
গোলামখানা গোলামের মনোবৃত্তিসম্পন্ন লোক তৈরি করার কারখানা, যেখান থেকে উদ্ধার পাওয়া কঠিন
গোলে হরিবোল গোলমালে ভিড়ের সুযোগে কাজে ফাঁকি দেওযা; বিশৃঙ্খল কার্যকলাপ; সমার্থক বাগধারা- গণ্ডায় আণ্ডা দেওয়া
গোলেমালে চণ্ডীপাঠ বিশৃঙ্খল কাজ
গোল্লায় যাওয়া অধঃপাত্র/উচ্ছন্নে/জাহান্নমে/বিগরে/রসাতলে যাওয়া
গোসাঘর বনেদী বাড়িতে যে ঘরে অভিমান হলে মহিলারা আশ্রয় নিত (অতীতের বিষয়)
গোস্তাকি অশিষ্টতা/ধৃষ্ঠতা/বেয়দবি (হুজুর গোস্তাকি হয়েছে মাপ করবেন)
গোস্পদে ডুবে মরা সামান্য বিপদে নাজেহাল হওয়া
গৌরচন্দ্রিকা গীতিকাহিনী ভূমিকা হিসাবে শ্রীচৈতিন্যের অন্দনা; আলং- কোন কাহিনীর ভূমিকা, মুখবন্ধ
গৌরবে বহুবচন গর্ব করার সুযোগ তৈরি হলে তখন সেই বিষয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়ে ওঠার প্রবণতামূলক ভণ্ডামি
গৌরী সেন যার কাছে অর্থ চাইলেই পাওয়া যায়, কিন্তু হিসাব চায় না এমন ব্যক্তি
গৌরী সেনের টাকা অঢেল অর্থ- চাইলেই পাওয়া যায়; বেহিসাবী অর্থ
গ্যাঁজানো অসার হালকা গল্পগুজব (অযথা গেঁজিয়ে সময় নষ্ট করো না)
গ্যাঁট হয়ে বসা নিশ্চল স্থায়ীভাবে বসা (লোকগুলি গ্যাঁট হয়ে বসে আছে)
গ্যাঁড়া মারা আত্মসাৎ করা, অপহরণ করা (অনেক টাকা গ্যাঁড়া মেরে দিয়েছে)
গ্যাঁড়াকল লোক ঠকাবার কৌশল ঠকাবার কৌশল; বিপদ, ফাঁদ (আচ্ছা গ্যাঁড়াকলে পড়েছি তো)
গ্যাঁড়ানো আত্মসাট/চুরি করা (সে নিশ্চয় ওটা গেঁড়িয়েছে); সমার্থক বাগধারা- হাতানো
গ্যাঞ্জাম ভিড় (সহরের রাস্তায় লোকের গ্যাঞ্জামে হাঁটা যায় না); সমার্থক বাগধারা- ভিড়ভাট্টা
গ্যাস ছাড়া/দেওয়া/মারা বাজে কথা বলা; মিথ্যা কথা বিশ্বাস করবার চেষ্টা করা; (বেশি গ্যাস ছেড়ো না তোমাকে সবাই চেনে); সমার্থক বাগধারা- গুল মারা
গ্রন্থকীট বইয়ের পোকা, যার অন্যদিকে খেয়াল নেই এবং যে বইয়ের জগতের বাইরের কিছু জানে না; সমার্থক বাগধারা- কেতাবকীট
গ্রহের ফের অদৃষ্টের ছলনা, কুগ্রহের দৃষ্টি, বিপদ
গ্রাম নাই তার সীমানা অন্যায় দাবী, বাড়াবাড়ি
গ্রাসাচ্ছাদন অন্নবস্ত্র, খাওয়াপরা, ভাতকাপড়; সমার্থক বাগধারা- খরপোশ, গ্রাসাচ্ছাদন

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঘচঘচ/ঘচাঘচ অপেক্ষাকৃত নরম বস্তু ক্রমাগত কাটার অনুকার শব্দ (লাউটা ঘচঘচ করে কেটে ফেল); সমার্থক বাগধারা- ঘ্যাঁচঘ্যাঁচ
ঘট১ পাত্র (সর্বঘটে কাঁঠালী কলা- প্রবাদ)
ঘট২ মাথা (ঘটে বুদ্ধি নেই)
ঘট৩ দেহ (ঘটের মধ্যে সাঁই বিরাজে'- বাউল গান)
ঘটকালি বৈবাহিক সম্বন্ধ স্থাপনের কৌশল
ঘটঘট/ ঘটরঘটর শূন্য কাঠের পাত্রে কাঠের লাঠি বা অন্য কিছুর অননরত নাড়াচাড়া করার অনুকার শব্দ
ঘটঘটানো উদ্দেশ্যবিহীনভাবে ঘুরে বেড়ানো
ঘটনাক্রমে/চক্রে অপ্রত্যাশিতভাবে (ঘটনাক্রমে আমি এখানে উপস্থিত)
ঘটি১ এক দণ্ড (২৪ মিনিট)
ঘটি২ পশ্চিমবাংলার অধিবাসী
ঘটিকা সময় (সকাল দশ ঘটিকায়)
ঘটিচোর ছিঁচকে চোর
ঘটিরাম অপদার্থ/অযোগ্য কর্মচারী (দীনবন্ধু মিত্রের 'সধবার একাদশী' থেকে)
ঘটে বুদ্ধি নেই নির্বোধ, বুদ্ধিহীন; সমার্থক বাগধারা- ঘিলুহীন খুলি, মগজে শাঁস নেই, মাথায় গোবর পোড়া, মাথায় বুদ্ধি নাই ইত্যাদি
ঘড়ি আড়াই দণ্ড (এক ঘণ্টা)
ঘড়ি-ঘড়ি ক্ষণে ক্ষণে, প্রতি মুহূর্তে; বারংবার (ঘড়ি-ঘড়ি ঘড়ি দেখছো কেন?); সমার্থক বাগধারা- উঠিতে বসিতে
ঘড়িয়াল/ঘড়েল/ঘোড়েল১ ঘণ্টা বাজিয়ে সময় ঘোষণা করা যার পেশা
ঘড়িয়াল/ঘড়েল/ঘোড়েল২ ধূর্তলোক (খুব ঘড়েল লোকের পাল্লায় পড়েছি); সমার্থক বাগধারা- ধড়িবাজ
ঘণ্টা বিদ্রুপে- কিছুই না, ফাঁকি (তুমি আমার ঘণ্টা করবে); সমার্থক বাগধারা- অষ্টরম্ভা, কচু, ঘেচু, কলা, কাঁচকলা, ঘোড়ার ডিম ইত্যাদি
ঘণ্টাপথ বড় রাস্তা, রাজপথ (ঘণ্টাপথ ধরে কিছুদূর এগিয়ে যাও)
ঘনকাল বর্ষাকাল (ঘনকালে আকাশ জুড়ে মেঘের ঘনঘটা)
ঘনঘটা মেঘের আড়ম্বর
ঘনঘোর গাঢ় অন্ধকার (এমন দিনে তারে বলা যায় এমন ঘনঘোর বরিষায়- রবীন্দ্রসঙ্গীত)
ঘর১ কক্ষ (বসার ঘর, শোয়ার ঘর, ঠাকুর ঘর ইত্যাদি)
ঘর২ পরিবার (এই গ্রামের নাম সাতঘরা- সাত ঘর লোকের বাস)
ঘর৩ অন্তর, ভিতর (ঘরে-বাইরে; ঘরের কথা বাইরে কেন?)
ঘর৪ বংশ (মেয়ের জন্য ভাল ঘরের ছেলে খুঁজছি)
ঘর৫ ছিদ্র, ফুটো (জামার বোতামের ঘর)
ঘর৬ স্থান (জমার ঘরে শূন্য)
ঘর আলো-করা যে ঘর/সংসারের শোভা বৃদ্ধি করে এমন (ঘর আলো করা ছেলে)
ঘর করা গৃহস্থালী করা, সংসারধর্ম পালন করা, গৃহিণী হিসাবে দায়িত্ব পালন করা (মেয়ে স্বামীর ঘর করছে)
ঘরকন্না সাংসারিক কাজকর্ম (ঘরকন্নায় মেয়ের মন বসেছে)
ঘরকুনো অত্যন্ত গৃহাসক্ত, গৃহকোণ ছেড়ে নড়তে চায় না, এমন ব্যক্তি, অমিশুক, অসামাজিক, লাজুক
ঘর খোঁজা১ বাসস্থান খোঁজা
ঘর খোঁজা২ বৈবাহিক সম্পর্কস্থাপনে উপযুক্ত পালটি ঘর খোঁজা
ঘর গোছানো সুন্দরভাবে সংসার পরিচালনা করা
ঘর ঘর আপনপর, প্রত্যেক বাড়িতে বা পরিবারে (গ্রামের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে)
ঘর ছাড়া গৃহত্যাগ করা; বৈরাগ্য অবলম্বন করা
ঘর জোড়া শূন্যগৃহ পূর্ণ করা (নতুন বৌ এসে ভাঙা ঘর জুড়েছে)
ঘরজোড়া জমকালো (ঘরজোড়া খাট কিনেছে)
ঘর জ্বালানো পরিবারের সুখশান্তি নষ্ট করা (তুমি কি আমার ঘর জ্বালাতে এসেছ?)
ঘর জ্বালানে ঘরের শান্তি বিঘ্নিত করে এমন (ঘর জ্বালানে পর ভুলানে)
ঘর জ্বালানে পর ভুলানে ঘরের লোকের কাছে কষ্টদায়ক, বাইরের লোকের কাছে প্রিয়
ঘর তোলা বুননের সময় ঘর তৈরী করা বা বাড়ানো
ঘর থাকতে বাবুই ভেজা সুযোগ থাকতে কষ্টভোগ
ঘরনি/ঘরন্তী সংসার পরিচালনে নিপুণা রমণী (ঘরনি হল ঘরের লক্ষ্মী)
ঘরপোড়া১ যার ঘর পুড়েছে এমন,কষ্টদায়ক অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তি (ঘরপোড়া গরু)
ঘরপোড়া২ আত্মধ্বংসকারক (ঘরপোড়া বুদ্ধি)
ঘর বাঁধা বিয়ে করে সংসার পাতা
ঘরবাড়ি/সংসার আসবাবপত্রসহ বাড়ি, গৃহস্থালী, বাসস্থান, সংসারের কাজকর্ম
ঘরবার করা কারো আকুল প্রতীক্ষায় ক্রমাগত ঘরের বাইরে যাওয়া ও ভিতরে আসা (ছেলে রাত পর্যন্ত না ফেরায় মা ঘরবার করছে)
ঘর বোঝা পরিজনের মনোভাব বোঝা
ঘর ভাঙ্গানো গৃহবিবাদ সৃষ্টি করা; কুপরামর্শ দিয়ে একান্নবর্তী পরিবার টুকরা করা (ঘর ভাঙ্গানে স্ত্রী)
ঘরভেদী গৃহবিবাদ সৃষ্টিকারী (ঘরভেদী বিভীষণ); সমার্থক ভাগধারা- ঘরের কুমির, ঘরশত্রু
ঘর মজানো কুল/বংশে কলঙ্কলেপন করা
ঘর মারা বুননের সময় শেষ ঘরের মুখ বন্ধ করা
ঘরমুখো পরিবারের প্রতি অনুরক্ত (ঘরমুখো বাঙালী, রণমুখো সেপাই)
ঘরশত্রু পরের সাথে হাত মিলিয়ে আপনজনের অনিষ্টকারী ব্যক্তি (ঘরশত্রু বিভীষণ); সমার্থক বাগধারা- ঘরের কুমির, ঘরভেদী
ঘরসংসার সংসারের কাজকর্ম
ঘরসন্ধান ঘরের দোষ অনুসন্ধান; ঘরের ভেদ জ্ঞাত হওয়া
ঘরসন্ধানী যে ঘরের সব গুপ্তখবর জানে; গৃহছিদ্রজ্ঞ (ঘরসন্ধানী বিভীষণ)
ঘর সামলানো পরিজনকে বশে রাখা (ঘর সামলানো বড় দায়)
ঘরা-ঘরি আপোশে, নিজেদের মধ্যে (জিনিসপত্র ঘরাঘরি ভাগ করে নেওয়া হয়েছে)
ঘরে আগুন দেওয়া পরিজনদের ধ্বংসসাধন করা; সংসারের শান্তি নষ্ট করা (পরের মেয়ে ঘরে আগুন দিতে চাইছে)
ঘরে-ঘরে প্রতিটি ঘরে, সব ঠাঁই ('ঘরে ঘরে আছে পরমাত্মীয়, তারে আমি ফিরি খুঁজিয়া'-রবীন্দ্রনাথ)
ঘরে-পরে ঘরের ভিতরে ও বাইরে, দেশেবিদেশে, সর্বত্র ('ঘরে-পরে সবে হাসিছে'-রবীন্দ্রনাথ)
ঘরের কথা পরিবারের ও নিজপক্ষের অন্তরঙ্গ কথা (ঘরের কথা পরকে বলা)
ঘরের কুমির ঘরশত্রু
ঘরের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানো নিজের অর্থে পরের উপকার করা; অকারণে অন্যের দায়িত্ব মাথায় নেওয়া
ঘরের ঢেঁকি ঘরের শক্তসামর্থ অকর্মণ্য ছেলে
ঘরের লক্ষ্মী গৃহবধু, স্ত্রী
ঘরের লোক আত্মীয়-পরিজন (খয়রাত ঘরের লোক দিয়ে শুরু হয়- প্রবাদ)
ঘরের ল্যাঠা সংসারের ঝঞ্ঝাট
ঘরামির ঘর ছেঁদা নিজের কাজে নজর নেই
ঘর্মাক্ত কলেবর ঘামে ভেজা শরীর (ঘর্মাক্ত কলেবরে সে এসে উপস্থিত)
ঘষেমেজে নানাভাবে চেষ্টাচরিত্র করে, তোয়াজ তদারক করে (ঘষেমেজে একটা ব্যবস্থা করেছি)
ঘষেমেজে সুন্দরী নকল সুন্দরী
ঘাঁটানো অনভিপ্রেত প্রসঙ্গ পুনরুত্থাপন করে খেপিয়ে তোলা, উত্তেজিত করা (ওকে ঘাঁটানো উচিত হবে না)
ঘাঁতঘোঁত/ঘাতঘোত কলাকৌশল, গোপন তথ্য (আমি অনেক ঘাঁতঘোঁত জানি); সমার্থক বাগধারা- অন্ধিসন্ধি, ফাঁক-ফোকর, সুলুকসন্ধান ইত্যাদি
ঘা-কতক কয়েকবার প্রহার, ভালরকমের মার (পিঠে ঘা-কতক পড়লেই সব বলে দেবে)
ঘা করা (খুঁচিয়ে) অনাবশ্যক অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করা
ঘা খাওয়া দুঃখ পাওয়া (জীবনে অনেক ঘা খেয়েছি)
ঘা শুকানো পুরানো শোক বিস্মৃত হওয়া (এই ঘা শুকাতে সময় লাগবে)
ঘাগি/ঘাগু/ঘাঘি অনেকবার শাস্তি পেয়েছে এমন, পুরানো পাপী, সুচতুর সেয়ানা লোক (ঘাগি আসামী, ঘাগু শয়তান)
ঘাট১ ত্রুটি/দোষ (আমার ঘাট হয়েছে ক্ষমা চাইছি)
ঘাট২ কমতি (তার গুণের ঘাট নেই- তির্যকোক্তি- সব বদগুণের অধিকারী)
ঘাটখরচ মড়া পোড়াবার খরচ
ঘাটলা পাকা/বাঁধানো ঘাট
ঘাটে এসে তরি ডোবা কাজের শেষ দিকে এসে বিফল হওয়া
ঘাটের মড়া তুচ্ছার্থে- অতিবৃদ্ধ; বুদ্ধিলুপ্ত ব্যক্তি
ঘাড় পাতা দায়িত্ব নেওয়া, সম্মতি দান
ঘাড় ধরে করানো করতে বাধ্য করা
ঘাড় ধাক্কা দেওয়া তাড়িয়ে দেওয়া; বহিস্কার করার
ঘাড় নাড়া হ্যাঁ বা না সূচক ইঙ্গিত করা
ঘাড় ভাঙ্গা (পরের) আপনস্বার্থে অন্যকে ব্যয় বহন করতে বাধ্য করা; কৌশলে অন্যের খরচে নিজের কাজ হাসিল করা
ঘাড়ভাঙ্গা খাটুনি প্রাণান্তকর পরিশ্রম
ঘাড়েগর্দানে অত্যন্ত স্থুলব্যক্তি; মাথা ও স্কন্ধ আলাদা মনে হয় না এমন স্থুলব্যক্তি (ঘাড়েগর্দানে বেশ হয়েছো); সমার্থক বাগধারা- গজস্কন্ধ
ঘাড়ে চাপা আশ্রয় করা, দায়িত্ব পড়া, গলগ্রহ হওয়া (বিধবা বোন আমার ঘাড়ে চেপেছে)
ঘাড়ে দুটো মাথা অত্যন্ত দুঃসাহসী (আমার ঘাড়ে দুটো মাথা নেই যে প্রতিবাদ করব)
ঘাড়ে নেওয়া দায়িত্বভার গ্রহণ করা (স্বেচ্ছায় সংসার চালনার দায়িত্ব আমি ঘাড়ে নিয়েছি)
ঘাড়ে ভূত চাপা দুষ্টবুদ্ধি মাথায় চাপা/চাড়া দেওয়া
ঘাতঘোত ঘাঁতঘোঁতের অনুরূপ
ঘাতের ভাই অত্যন্ত স্বার্থপর, স্বার্থের সম্পর্ক
ঘানি টানা১ খুব পরিশ্রম করা; কারাদণ্ড ভোগ করা (এই পাপের জন্য কিছুদিন ঘানি টেনে আসো- অতীতে কারাদণ্ডভোগকালে তেলের ঘানি টানতে হ'ত)
ঘানি টানা২ খুব কষ্টে নিত্যনৈমিত্তিক জীবনধারণ করা (বিনা-প্রতিবাদে সংসারের ঘানি টেলে চলেছি)
ঘাপটি মারা শিকারের অপেক্ষায় ওঁত পেতে থাকা; সুযোগের অপেক্ষায় থাকা (ব্যবসায়ীরা সবসময় ঘাপটি মেরে বসে থাকে)
ঘাম ঝরানো পরিশ্রম করা (ঘাম ঝরিয়ে পয়সা উপায় করি)
ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়া উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা থেকে স্বস্তি পাওয়া (ঝড় কাটতে ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়লো)
ঘাইয়েল/ঘায়েল আহত, পরাভূত, বিপর্যস্ত ('উনিশটিবার ম্যাট্রিকে সে ঘায়েল হয়ে থামল শেষে'- কবিতা সৎপাত্র- সুকুমার রায়)
ঘাস কাটা অকাজ বা সামান্য কাজ করা, বেকার বসে থাকা
ঘি আদুড়, ঘোল ঢাকা বিপরীত বুদ্ধি
ঘিচিঘিচি গায়ে গায়ে লাগানো (ঘিচিঘিচি বাড়ীগুলি সব অপরিচ্ছন্ন অস্বাস্থ্যকর)
ঘিনঘিন করা ঘৃণার জন্য অস্বস্তি বোধ করা (গা ঘিনঘিন করছে)
ঘিয়ে ভাজা রুগ্ন রসকষহীন হাড়জিরজিরে (ঘিয়ে-ভাজা কুকুর)
ঘিলু নড়া বুদ্ধিনাশ
ঘিলু শুকিয়ে যাওয়া চিন্তাশক্তি লোপ পাওয়া (চিন্তায় চিন্তায় মাথার ঘিলু শুকিয়ে গেল)
ঘিলুহীন খুলি নির্বোধ, বুদ্ধিহীন; সমার্থক বাগধারা- ঘটে বুদ্ধি নেই, মগজে শাঁস নেই, মটকা খালি, মাথায় গোবর পোড়া, মাথায় বুদ্ধি নাই ইত্যাদি
ঘুঁটি সাজানো কৌশল অবলম্বন করা; নির্দিষ্ট কাজের পরিকল্পনা করা
ঘুঁটে পোড়ে গোবর হাসে অন্যের বিপদে নিজেকে খুশী মনে করা; নিজের অবশম্ভাবী বিপদ সম্বন্ধে অজ্ঞতা
ঘুঁটেকুড়ুনির ব্যাটার নাম চন্দনবিলাস নেই-গুণে নামকরণের হাস্যকর প্রয়াস; সমার্থক বাগধারা- কানা ছেলের নাম পদ্মলোচন; কেলে বামুনের নাম গৌরাঙ্গসুন্দর; গোঙ্গা ছেলের নাম তর্কবাগিশ; ছাল নেই কুত্তার নাম বাঘা ইত্যাদি
ঘুঁটের মালা/মেডেল অসম্মানিক উপহার
ঘুঘু অতিকৌশলী, ধূর্ত, ফন্দিবাজ লোক (লোকটা একটা আস্ত ঘুঘু)
ঘুঘু চরা/চরানো (ভিটেয়) কারও সর্বনাশ করা; নির্বংশ হওয়ার গালিবিশেষ
ঘুঘুর বাসা ফন্দিবাজ লোকদের আস্তানা (কোর্ট-কাছারী একটা ঘুঘুর বাসা)
ঘুটঘুটে ঘোর কালোরঙের (ঘুটঘুটে অন্ধকার); সমার্থক বাগধারা- ঘুরঘুট্টি, মিশমিশে
ঘুণ হওয়া ঘুণপোকার মত অতিকৌশলে অভ্যন্তরে প্রবেশ করা
ঘুণাক্ষর আভাস, সামান্যতম ইঙ্গিত (বিষয়টা ঘুণাক্ষরেও টের পাইনি)
ঘুণে ধরা অনেক পুরানো (ঘুণে ধরা আসবাবপত্র)
ঘুম কাতুরে অনেকক্ষণ ঘুমাতে না পারলে কাতর হয় এমন; ঘুমাতে খুব ভালবাসে
ঘুম চটে যাওয়া ঘুমের আবেশ কেটে যাওয়া
ঘুমিয়ে থাকা অলস/অসতর্ক হয়ে থাকা (সামনে বিপদ এখন ঘুমাবার সময় নয়)
ঘুমেরে ঘুম পাড়ানো ঘুম না হওয়া
ঘুরঘুট্টি ঘুটঘুটের অনুরূপ
ঘুরঘুর করা অকারণে ঘুরে বেড়ানো, অভিসন্ধিমূলক আনাগোনা (এখানে ঘুরঘুর করছো কেন?)
ঘুরপথ দীর্ঘতর পথ (রাস্তা খারাপের জন্য ঘুরপথ এসেছি)
ঘুর/ঘোরপ্যাঁচ১ অন্তরায়, জটিলতা, বাধাবিঘ্ন (কাজটায় অনেক ঘোরপ্যাঁচ আছে)
ঘুর/ঘোরপ্যাঁচ২ কুটিলতা (ওর মনে কোন ঘুরপ্যাঁচ খেলে না);সমার্থক বাগধারা- কূটকচাল
ঘুরাঘুরি/ঘোরাঘুরি অপ্রয়োজনে বারংবার যাতায়াত, ইতস্তত হাঁটাহাঁটি
ঘুরেফিরে বারংবার (ঘুরে ফিরে একই কথা বলছো)
ঘুর্ণিপাক জল বা বাতাসের প্রচণ্ড আবর্ত ('থাকব না কো বদ্ধ ঘরে, দেখব এবার জগৎটাকে,কেমন করে ঘুরছে মানুষ যুগান্তরের ঘুর্ণিপাকে'- নজরুল)
ঘুষঘুষ/ঘুসঘুস চাপা, ভিতরে ভিতরে রয়েছে অথচ বাইরে থেকে বোঝা যায় না এমন (ঘুষঘুষে জ্বর)
ঘুসকি গৃহস্থা কুলটা (ঘুসকি মাগি- গ্রাম্য মেয়েলি গালিবিশেষ)
ঘৃতাহুতি (অগ্নিতে) উত্তেজনা বৃদ্ধি (অগ্নিতে আর ঘৃতাহুতি করো না)
ঘেঁচু অবজ্ঞার্থে- কিছু না (তুমি আমার ঘেঁচু করবে)
ঘেউ ঘেউ নিস্ফল চিৎকার (দুর্বলের ঘেউ ঘেউ করাই সার)
ঘেন্নাপিত্তি লজ্জা ও বিরাগ, লজ্জায় মাথা কাটা যায় এমন বোধ (কোন কাজই ঘেন্নাপিত্তি করার নয়)
ঘেরাটোপ চারদিক ঘিরে আচ্ছাদন; সম্পূর্ণ ঢেকে রাখার জন্য ঢাকনা; নিরাপদ আশ্রয় (সৈন্যবাহিনীর ঘেরাটোপে আশ্রয় নিয়েছে)
ঘোঁট পাকানো দল বেঁধে বিরূপ সমালোচনা করা, ষড়যন্ত্র করা (দলের মধ্যে কিছু লোক ঘোঁট পকাচ্ছে)
ঘোড়দৌড় করানো অত্যধিক দৌড়াদৌড়ি করিয়ে হয়রান করা; নাকাল করা (সরকার জনসাধারণকে ঘোড়দৌড় করাচ্ছে)
ঘোড়া ডিঙিয়ে ঘাস খাওয়া ক্ষমতাশালীকে অতিক্রম করে কার্যসিদ্ধির চেষ্টা
ঘোড়া দেখে খোঁড়া হওয়া আরাম পাবার সুযোগ পেলে আলসেমি করা
ঘোড়ায় জিন দিয়ে আসা আসা থেকেই যাবার জন্য ছটফট করছে (ঘোড়ায় জিন দিয়ে এসেছো নাকি?)
ঘোড়ার আগে গাড়ি জুতা বেআক্কেলী কাজ, বিপরীত বুদ্ধি
ঘোড়ার গোয়ালে ভেড়া ঢোকা হটকারী সিদ্ধান্ত
ঘোড়ার ঘাস কাটা বাজে বা সামান্য কাজে সময় নষ্ট, বেকার বসে থাকা
ঘোড়ার ডাক্তার তুচ্ছার্থে- ডাক্তার পদবাচ্য নয়; সমার্থক বাগধারা- হাতুড়ে ডাক্তার
ঘোড়ার ডিম অস্তিত্বহীন বস্তু, কিছু না, ফাঁকি; সমার্থক বাগধারা- অশ্বডিম্ব, আঁটকুড়ের ব্যাটা, আকাশকুসুম, এঁড়ে গরুর দুধ, কাঠালের আমস্বত্ব,ভস্মকীট, সোনার পাথরবাটি, সোনার হরিণ; সাপের পাঁচ-পা ইত্যাদি
ঘোড়ারোগ অবস্থার অতিরিক্ত ব্যয়ের সাধ; উৎকট বাতিক; সাধ্যের অতিরিক্ত বাবুগিরির সাধ (গরীবের ঘোড়ারোগ-প্রবাদ)
ঘোড়েল ধূর্ত লোক (রাজনীতির ময়দানে এখন শুধু ঘোড়েলদের ঘোরাফেরা); সমার্থক বাগধারা- ধড়িবাজ
ঘোপঘাপ লুকিয়ে থাকার যায়গা
ঘোমটার আড়ালে/তলে/নীচে খেমটা নাচ মুখ্য অর্থ- কুলবধুর বেশে অসতীর ব্যবহার; গৌণ অর্থে- বাইরে সাধুত্ব, ভিতরে নষ্টামি; সাধুত্বের আড়ালে ভণ্ডামি
ঘোর কলি চরম অরাজকতা
ঘোরপ্যাঁচ ঘুরপ্যাঁচের অনুরূপ
ঘোর সংসারী বিষয়-আশয়মোহে আচ্ছন্ন; প্রচণ্ড বিষয়ানুরক্ত
ঘোরাঘুরি করা কোন কাজ আদায়ের জন্য ক্রমাগত যাতায়াত করা (একটু সাহায্য পাওয়ার জন্য সরকারের দ্বারে ঘোরাঘুরি করছি); সমার্থক বাগধারা- হাঁটাহাঁটি
ঘোরাফেরা করা ইতিস্তত বিচরণ করা (সকালে বিকালে একটু ঘোরাফেরা করলে শরীর ভাল থাকে); সমার্থক বাগধারা- হাঁটাহাঁটি
ঘোল খাওয়া/খাওয়ানো কষ্টের ফেরে পড়া; বিপদে পড়ে নাকাল হওয়া; বিপদে ফেলে নাকাল করা
ঘোল ঢালা (মাথায়) অপমান করা; জব্দ করা
ঘোলা জল অব্যবস্থা, চরম বিশৃঙ্খলা (ঘোলা জলে মাছ ধরা- প্রবাদ)
ঘোলা জলে মাছ ধরা অব্যবস্থার সুযোগ নিয়ে কার্যোদ্ধার
ঘ্যাঁচঘ্যাঁচ ঘচঘচের অনুরূপ
ঘ্যাঁচড়া একগুঁয়ে, নির্লজ্জ, বেহায়া (ওর মত ঘ্যাঁচড়া লোক দেখেনি); সমার্থক বাগধারা- ঠ্যাঁটা
ঘ্যাঁট নানাবিধ বস্তুর অবাঞ্ছিত মিশ্রণ (ঘ্যাঁট পাকিয়ে রেখেছে)
ঘ্যানঘ্যানানি ক্রমাগত অনুনয় বা অনুযোগ; বিরক্তিকর নাকিসুরে কান্না; বিরক্তিকর উক্তি; সমার্থক বাগধারা- মক-মক করা/মকমকানি
ঘ্যানরঘ্যানর বিরক্তিকর টানা শব্দ (তখন থেকে সমানে ঘ্যানরঘ্যানর করে চলেছে)
ঘ্যাম (অশালীন) উঁচুদরের/মানের বিষয় (এসব ঘ্যাম ব্যাপারের মর্ম তুমি বুঝবে না)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
চক১ গ্রামের প্রধানস্থান (মোল্লার চক)
চক২ বৃহৎ বাজার (চাঁদনী চক)
চকচক ঔজ্জ্বল্য, দীপ্তি, তীব্র উজ্জ্বলতার ভাবপ্রকাশক (যা চকচক/চকমক করে তাই সোনা নয়- প্রবাদ)
চকবন্দী জমির সীমানা নির্ধারিত হয়েছে এমন (চকবন্দী জমি)
চকবন্দী দরজা যে দরজায় লতা'পাতা-ফুল কাটা তক্তায় ভরা চৌকো খোপ থাকে
চকমা দেওয়া ধোঁকা দেওয়া; প্রবঞ্চনা করা
চকমিলান বাড়ী যে বাড়ীর চারপোতায় পরস্পর লাগালাগি ঘর থাকে
চকাচকি/চখাচখি মুখ্য অর্থ- চক্রবাক দম্পতি, এদের দাম্পত্যপ্রেম চিরপ্রসিদ্ধ; আলং-আদর্শ দম্পতি ('আজ কিসের তরে নদীর চরে চখাচখির মেলা'- রবীন্দ্রনাথ)
চক্কর১ চক্রাকার চিহ্ন (বিষ নেই কুলোপানা চক্কর- প্রবাদ)
চক্কর২ ধাঁধা, প্রতারণার ক্রিয়া (চক্করে পড়ে সব খুইয়েছি)
চক্কর খাওয়া ঘুরপাক খাওয়া, বায়ুসেবন করা (মাঠে একবার চক্কর দিয়ে আসি)
চক্র কুমন্ত্রণা, চক্রান্ত, ষড়যন্ত্র (দশচক্রে ভগবান ভূত- প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- ফন্দিফিকির
চক্রবক্র ছলচাতুরী
চক্ষু কর্ণের বিবাদভঞ্জন শোনা বিষয় চোখে দেখে নিঃসন্দেহ হওয়া
চক্ষু খুলে যাওয়া অজ্ঞতা দূর হওয়া
চক্ষু চড়কগাছ আতঙ্কে হতবুদ্ধি, ভয়ে বা বিস্ময়ে বিস্ফারিত দৃষ্টি
চক্ষু ছানাবড়া ভয়ে বা বিস্ময়ে চোখ বিস্ফারিত
চক্ষু থেকেও অন্ধ মূর্খ, ভালোমন্দ উপলব্ধি করতে অক্ষম
চক্ষুদান১ উদাহরণের মাধ্যমে অজ্ঞানকে জ্ঞানদান
চক্ষুদান২ অপরকে সতর্কীকরণ
চক্ষুদান৩ পরের দ্রব্য চুরি (টেবিল থেকে কেউ আমার মোবাইলটায় চক্ষুদান করেছে)
চক্ষুলজ্জা অন্যের সামনে কিছু করতে বা বলতে সংকোচ
চক্ষুশুল অত্যন্ত অপ্রিয় লোক; যাকে দেখলে বিরক্তি জন্মে; সমার্থক বাগধারা- চোখের বালি, চোখের বেদনা
চক্ষুষ্মান্ সত্যদ্রষ্টা, ভালোমন্দ উপলব্ধি করতে সমর্থ এমন ব্যক্তি
চক্ষুস্থির বিস্ময়ে হতবুদ্ধি (পাত্রপক্ষের দাবীর বহর শুনে মেয়ের বাবার চক্ষুস্থির)
চচ্চড়ি পাকানো পরিস্থিতি জটিল করে তোলা
চটকা ভাঙা মূখ্য অর্থ সতর্ক হওয়া
চট-জলদি১ কিছু না ভেবেচিন্তে, কোনরূপ দ্বিধা না করে (চট জলদি কোন সিদ্ধান্ত নিও না); সমার্থক বাগধারা- হুট করে, হুটহাট
চট-জলদি২ অবিলম্বে, খুব দ্রুত, তাৎক্ষণিক, বিনা প্রস্তুতিতে (চট জলদি কিছু নাস্তা বানাও)
চটচট আঠালোভাব (মেঝেটা চটচট করছে)
চটচটে আঠালো (জামাকাপড় খুব চটচটে হয়ে গেছে)
চটপট খুব তাড়াতাড়ি, অতি দ্রুত (চটপট কাজ সারো); সমার্থক বাগধারা- ঝটপট
চটপটে তাড়াতাড়ি কাজ করতে পারে এমন (খুব চটপটে ছেলে);সমার্থক বাগধারা- চালাকচতুর
চটাচটি বাদানুবাদ, রাগারাগি (বেশি চটাচটি করলে শরীরের ক্ষতি)
চড়বড় করা খই ফোটার মত দ্রুত কথা বলার শব্দ (মুখে যেন চড়বড় করে খই ফুটছে)
চড় মেরে গড় আগে অসম্মান পরে সম্মান
চড়কগাছ বিদ্রুপে- অতিরিক্ত রোগা এবং ঢ্যাঙ্গালোক
চড়কের বাদ্যি বাদ্যযন্ত্রের বিরামহীন জোরালো আওয়াজ
চড়চাপড় চড়ের পর চড় (দুইদলের মধ্যে খুব চড়চাপড় চলছে)
চড়া১ উগ্র, উদ্ধত (চড়া মেজাজ)
চড়া২ তীক্ষ্ণ, তীব্র (চড়া রোদ, চড়া গলা)
চড়া৩ উচ্চ, ঊর্ধ্বগতি (চড়া দাম, চড়া সুর)
চড়া পড়া মুখ্য অর্থ- নদীগর্ভে পলি জমা; আলং- বুদ্ধি খুলছে না (বুদ্ধিতে চড়া পড়েছে)
চড়াই উৎড়াই উন্নতি-অবনতি (জীবনে চড়াই উৎড়াই আছে)
চড়াই পাখির প্রাণ ক্ষীণজীবী ব্যক্তি
চড়ুইভাতি নদীতীর, গ্রামের প্রান্তে বা সবুজে ঘেরা বনভূমিতে একান্তে সংঘবদ্ধ আহার; সমার্থক বাগধারা- বনভোজন
চড়ুকে বাতিক চড়কগাছে পাক খাওয়ার লোভে সন্ন্যাসী হওয়ার ইচ্ছা
চড়ুকে হাসি অন্তরে যন্ত্রণা সত্ত্বেও বাইরে হাসি; চটকদার/জমকালো হাসি; লোক দেখানো কাষ্ঠহাসি
চণ্ড দুর্বৃত্ত
চণ্ডমূর্তি উগ্রমূর্তি
চণ্ডী (রণ) উগ্রা/কোপনস্বভাবা নারী (রণচণ্ডী সামনে খাড়া)
চণ্ডীপাঠ থেকে জুতা সেলাই সবরকম কাজ
চতুরচূড়ামণি অত্যন্ত চালাক
চতুরাশ্রম সনাতন ধর্ম অনুযায়ী জীবনের চার অবস্থা- ব্রহ্মচর্য, গার্হস্থ্য, বানপ্রস্থ ও সন্ন্যাস
চতুরে চতুরে কোলাকুলি/চতুরের সাথে চতুরালি সমানে সমানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা
চতুরের ফতুর হওয়া অতিচালাক সর্বশান্ত হয়
চতুর্গুণ বহুগুণ (খিদে চতুর্গুণ বেড়ে গেছে)
চতুর্দিক সবদিক (চতুর্দিকে তার নজর থাকে)
চতুর্ভুজ ব্যঙ্গে- আনন্দে অভিভূত, কৃতার্থ, বিগলিত (প্রশংসা শুনলে সবাই চতুর্ভুজ হয়ে যায়)
চতুর্ভুজা খুবই করিতকর্মা নারী (গৃহিণী আমার চতুর্ভজা, একাই চারিদিক সামলান); সমার্থক বাগধারা- দশভুজা
চতুষ্পাঠী টোল, বেদ/সংস্কৃত অধ্যয়নের পাঠশালা
চতুস্পদ সাধারণ অর্থ- চারিপদবিশিষ্ট; আলং- পশুর মতো নির্বোধ/মূর্খ; পশুর ন্যায় বুদ্ধিবিশিষ্ট (বুদ্ধিতে চতুস্পদ)
চতুষ্কর জন্তু বানর ইত্যাদি প্রাণি, যাদের দুহাত ও দুপায়ের অগ্রভাগ করের মত; গাধা,গরু ইত্যাদির মত গালিবিশেষ
চত্বর সাধারণ অর্থ- আঙিনা, উঠোন, প্রাঙ্গণ; আলং- অঞ্চল, এলাকা (এই চত্বরে তোমাকে যেন না দেখি)
চনমনে সতেজ, প্রাণবন্ত (প্রাতর্ভ্রমণে শরীর চনমনে থাকে)
চন্দ্রবিন্দু হওয়া মারা যাওয়া
চন্দ্রাহত উন্মত্ত, পাগল (ইংরাজী lunatic শব্দের অর্থ পাগল; এই শব্দের অনুসুরণে চন্দ্রাহত)
চপচপানি প্রগল্ভতা, বড়বড় কথা, বেশি বকা (মুখে চপচপানি কাজের বেলায় অষ্টরম্ভা)
চপলার হাসি বিদ্যুৎ ঝলক
চব্বিশ ঘণ্টা সারা দিনরাত্রি ধরে, সমস্ত সময়, অনবরত (চব্বিশ ঘণ্টা খাটছে)
চমক ভাঙা হঠাৎ হুঁশ হওয়া; অন্যমনষ্ক ভাব সহসা কেটে যাওয়ত
চম্পট দেওয়া পলায়ন করা, সরে পড়া (পুলিশ আসছে দেখে দুস্কৃতিরা চম্পট দিল)
চরকি ঘোরা / চরকিবাজী অবিরাম কাজ করে, অপ্রয়োজনে ঘুরে বেড়ানো (সবসময় চরকির মত ঘুরে বেড়াচ্ছি; কোন কাজ নেই)
চরা বিদ্রূপে- যথেচ্ছ ঘুরে বেড়ানো
চরাচর মুখ্য অর্থ- চর (জঙ্গম) ও অচর (স্থাবর) অর্থাৎ যা চলে এবং যা চলে না সবকিছু; গৌণ অর্থ- জগৎ, সমগ্র পৃথিবী/সৃষ্টি ('বিশ্ব-চরাচর তোমারই মনোহর রূপের ছায়া'- নজরুল); সমার্থক বাগধারা- চলাচল
চরানো বিদ্রূপে- পড়ানো, শিক্ষকতা করা (আমি ছেলে চরিয়ে পেট চালাই)
চর্বিতচর্বণ১ একই বিষয়ের বারবার নিরস আলোচনা; পূর্বে আলোচিত বিষয় নিয়ে পুনরায় আলোচনা
চর্বিতচর্বণ২ প্রতিভা ও মৌলিকতার অভাবহেতু অপরের রচনা অনুকরণ
চর্ব্য-চোষ্য উত্তম ও সুস্বাদু আহার্য/খাদ্যবস্তু (চর্ব্যচোষ্য রান্না করা হয়েছে)
চর্ব্য-চোষ্য-লেহ্য-পেয় চিবিয়ে, চুষে, লেহন ও পান করে খাওয়ার যোগ্য; বিভিন্ন ধরনের মহার্ঘ আহার্য ও পানীয়;
চর্মচক্ষু স্থূলদৃষ্টি
চলতি জমা/হিসাব যে ব্যাঙ্কজমার ওপর সুদ পাওয়া যায় না
চলনসই কাজ চালানো গোছের; মোটামুটি কাজ চলে যাবে; কোনোমতে কাজ চলতে পারে; মাঝামাঝি ধরনের
চলচিত্ত চঞ্চরী সাধারণ অর্থ- চঞ্চলা ভ্রামরী; আলং- অস্থিরমতি ব্যাকুলচিত্তের নারী
চলনে-বলনে চলাফেরায় ও কথাবার্তার ধরনে (সে তো চলনে-বলনে একেবারে সাহেব)
চলাচল১ যাতায়াত (যানবাহন চলাচল করছে না)
চলাচল২ সঞ্চালন (রক্ত চলাচল করছে না)
চলাচল৩ যা চলে এবং যা চলে না সবকিছু; গৌণ অর্থ- জগৎ, সমগ্র পৃথিবী/সৃষ্টি ('ডুব-ডুব-ডুব রূপ সাগরে আমার মন,তলাতল পাতাল খুঁজলে,

পাবি রে প্রেম রত্ন ধন'-কৃষ্ণকীর্তন); সমার্থক বাগধারা- চরাচর

চলাফেরা১ আচরণ (তোমার চলাফেরা ভাল লাগছে না); সমার্থক বাগধারা- আচার-ব্যবহার, চালচলন, ভাবভঙ্গী ইত্যাদি
চলাফেরা২ ইতস্তত ভ্রমণ (এখন আর চলাফেরা করতে পারি না); সমার্থক বাগধারা-পায়চারি
চলার সাথি পথের সঙ্গী
চল্লিশে চালশে চল্লিশ বছর বয়সে দৃষ্টি ক্ষীণ
চলে আসা স্থান পরিত্যাগ করা
চলে চলা এগুনো, দ্রূত অগ্রসর হওয়া
চলোর্মিচঞ্চল অস্থির
চশমখোর চক্ষুলজ্জাহীন, নির্লজ্জ-বেহায়া
চষা তন্নতন্ন করে খোঁজা
চষে বেড়ানো নানা স্থানে ঘুরে বেড়ানো
চাঁই নেতা মোড়ুল, প্রধানব্যক্তি (দলের একজন চাঁই)
চাঁচা/চাঁছাছোলা কাটকাট, মাধুর্য/রসকষহীন, রূঢ়ভাবে স্পষ্ট (চাঁছাছোলা কথাবার্তা)
চাঁড়াল নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক
চাঁদ১ আদরের বস্তু (আমার সোনা চাঁদের কণা'-গান)
চাঁদ২ বিদ্রুপে- অসুন্দর ব্যক্তি (এই যে চাঁদবদন এদিকে এসো একবার)
চাঁদ৩ কৌতুকে- বন্ধুকে সম্বোধনবিশেষ (এসো দেখি চাঁদ)
চাঁদ কপালে/কপালি সৌভাগ্যবান পুরুষ/নারী
চাঁদবদন/বদনী চাঁদের মতো মুখবিশিষ্ট পুরুষ/নারী ('সোহাগ চাঁদবদনী ধনি নাচোতো দেখি')
চাঁদমারি বিদ্রুপ ও আক্রমণের লক্ষ্য (সকলেই আমাকে চাঁদমারি করেছে)
চাঁদ হাতে দেওয়া/পাওয়া দুর্লভ বা প্রীতি উৎপাদনকারী বস্তু হাতে দেওয়া/পাওয়া
চাঁদি১ খাঁটি রূপা (স্যাঁকরা চাঁদি বলে রাঙ চালায়)
চাঁদি২ মুখ্য অর্থ- রূপার টাকা; গৌণ অর্থ- অর্থ, টাকা (চাঁদির জোরে দাপিয়ে ধরাকে সরা জ্ঞান করছে)
চাঁদি৩ মাথার টাক ('চাঁদা দিতে চাঁদি ফাটে, মানের গুড়ে বালি'); সমার্থক বাগধারা- ব্রহ্মতালু
চাঁদের কণা অতি আদরের শিশুসন্তান ('আমার সোনা, চাঁদের কণা তুলনা তার নাই'-লঘুগান)
চাঁদের কাছে জোনাকি অতি নগণ্য, তুলনা চলে না
চাঁদের দিকে হাত বাড়ানো ক্ষমতার বাইরে প্রত্যাশা করা
চাঁদের হাট১ আনন্দের প্রাচুর্য, গুণীজনের সম্মেলন
চাঁদের হাট২ রূপের ছড়াছড়ি; রূপসী রমণীদের সমাগম
চাঁদের হাট৩ প্রিয়জনদের সংসার/সমাগম (নাতি-নাতিনীদের নিয়ে দাদুর চাঁদের হাট বসেছে)
চাই কী হয়তঃ (চাই কী আমিও যেতে পারি)
চাকচাক/ চাকাচাকা চ্যাপটা পাতলা গোল গোল টুকরা (আলুগুলি চাক চাক/ চাকা চাকা করে কাটো)
চাকনচিকন / চিকনচাকন বেশভূষায় ফিটফাটভাব (কতকগুলি ফোতবাবু আছে যাদের বাইরে চাকনচিকন ভিতরে খ্যাড়- আলালের ঘরের দুলাল)
চাকভাঙা টাটকা ও খাঁটি, নির্ভেজাল (চাকভাঙা মধু)
চাকরি মেঘের ছায়া এই আছে তো এই নেই; অত্যন্ত অনির্ভরশীল
চাগাড় দেওয়া১ উত্তেজিত হয়ে ওঠা, প্রবলভাব শারণ করে (দুর্বুদ্ধি চাগাড় দিয়েছে)
চাচা আপন প্রাণ বাঁচা আগে নিজেকে রক্ষা কর, পর পরে হবে
চাট মুখরোচক খাদ্যদ্রব্য
চাটনি টক ঝাল তেল ইত্যাদি সহযোগে তৈরি মুখরোচক খাবার; বিদ্রুপে- মুখরোচক আলোচনা
চাটাচাটি বিদ্রুপে- অন্তরঙ্গতা (বেশি চাটাচাটি ভালো নয়)
চাটাইয়ে শুয়ে লাখ টাকা স্বপ্ন দেখা অতিরিক্ত আশা করা
চাটি অবজ্ঞায় চড় (মারব এক চাঁটি)
চাটিবাটি করা/তোলা ভিটেমাটি থেকে উৎখাত করা; ভিটেমাটি ছেড়ে চলে যাওয়া
চাটুবাদ পরের সন্তুষ্টির জন্য অনুচিত প্রিয়বাক্য বলা; নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য পরের অতিরিক্ত প্রশংসা করা; খোসামোদ, তোষামোদ
চাপাচাপি১ পিড়াপিড়ি (বেশি চাপাচাপি করো না, ও পারবে না)
চাপাচাপি২ ঘনবিন্যস্ত (একটু চাপাচাপি করে বসলে চারজন বসতে পারবে)
চাপাচুপি গোপনতা, ঢাকাঢাকি (কেচ্ছা চাপাচুপি থাকে না)
চাপা দেওয়া / চেপে যাওয়া সত্য লুকানো;আলোচনার না করা
চাপা পড়া আলোচনায় না আসা
চাপান উতোর প্রশ্ন ও উত্তর; প্রশ্ন ও পালটা প্রশ্ন; তরজা গানের লড়াই
চাবিকাঠি সমস্যা সমাধানের উপায়; নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা (সাফল্যের চাবিকাঠি)
চামচা তল্পিবাহক, তোষামুদে (নেতাদের থেকে চামচাদের লাফালাফি বেশি)
চামচিকের লাথি নগণ্য ব্যক্তির কটূক্তি/দুর্ব্যবহার
চায়ের পেয়ালায় তুফান সামান্য বিষয় নিয়ে তুলকালামকাণ্ড; প্রবল তর্কবিতর্ক
চারচক্ষু খোলা চারিদিকে সতর্ক দৃষ্টি
চারচক্ষুর মিলন বিবাহকালে শুভদৃষ্টি
চার চাকা চার চাকার গাড়ী (আমি চার চাকায় এসেছি)
চারচাখো চশমাপড়া অল্পবয়সী ছেলে, (মেয়েরা আজকাল চারচোখো ছেলেদের বেশি পছন্দ করে)
চারজন কয়েকজন, জনসাধারণ
চারটি/চাট্টিখানি অল্প পরিমাণ, যৎসামান্য (চারটিখানি মাটি চাই; তোমার সাহায্য আমায় কাছে চারটিখানি কথা নয়)
চারডবল চারগুণ, হিসাবের অনেক বেশি (তোমার চারডবল বয়স আমার)
চারদিক চতুর্দকের অনুরূপ
চারসন্ধ্যা দিনের চার সময়, যথা- প্রভাত, মধ্যাহ্ন, সন্ধ্যা ও মধ্যরাত্রি
চারহাঁটু স্ত্রী-পুরুষ, স্বামী-স্ত্রী
চারহাত এক করে দেওয়া বিবাহ দেওয়া
চার্জ১ অভিযোগ (তোমার নামে চার্জ আছে)
চার্জ২ দায়িত্ব (বিষয়টা তোমার চার্জে রইল)
চার্জ৩ মাশুল (হোটেল চার্জ ঘরপ্রতি হাজারা টাকা)
চাল১ জীবনযাত্রার ধরণ (বনেদী চাল)
চাল২ গতিভঙ্গি (গদাইলস্করি চাল)
চাল৩ কৌশল, ফন্দি (কূটচালে ধরাশায়ী)
চাল কমানো সংসারের খরচ কমানো; জীবনযাত্রার আড়ম্বর কমানো
চালচলন আচরণ, ভাবভঙ্গি, স্বভাবচরিত্র (তোমার চলচলন ভাল নয়); সমার্থক বাগধারা- আচার-ব্যবহার, চলাফেরা, ভাবভঙ্গী ইত্যদি
চাল চালা কৌশল খাটানো, ফন্দি আঁটা (এবার একটা নতুন চাল চেলেছি)
চাল-চিঁড়ে দূরপথের খাবার ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী (চাল-চিঁড়ে বেঁধে সকালেই রওয়ানা হয়ে গেল)
চাল চিবানো নিরস কথাবার্তা বলা (তখন থেকে চাল চিবিয়েই চলেছে)
চালচুলো আহার-বাসস্থানের সংস্থান
চালচুলোহীন/চাল-না-চুলো আহার-বাসস্থানের সংস্থান নেই এমন, নিঃস্ব, নিঃসম্বল, নিঃসহায়, নিরাশ্রয় (চালচুলোহীন ছেলের সাথে মেয়ের বেয়ে দেওয়া যায় না)
চালবাজ ধোঁকাবাজ, মিথ্যা বড়াইকারী, বিথ্যা জাঁক করে এমন
চাল বাড়ানো সংসারের খরচ বাড়ানো; জীবনযাত্রার আড়ম্বর বাড়ানো
চাল বিগড়ানো অধঃপাতে যাওয়া
চালমাত কার্যোদ্ধার
চাল মারা মিথ্যা জাঁক দেখানো; মিথ্যা বড়াই করা; ফাঁকি দেওয়া
চালবাজী/চালিয়াতি ফন্দিবাজী, মিথ্যা বড়াই
চালশে কানা চল্লিশ বৎসর বয়সজনিতকারণে দৃষ্টিহীনতা (ন্যাকা-ঢঙ্গী চালশে কানা জল বলে খায় চিনির পানা- প্রবাদ)
চালাচালি আদানপ্রদান, দেওয়ানেওয়া (চিঠি চালাচালি চলছে)
চালু মাল১ বাজারে কাটতি আছে
চালু মাল২ বিদ্রুপে(অশালীন)- ফন্দিবাজ লোক; লোকের মন জয় করে নিজের কাজ হাসিল করতে দক্ষ ব্যক্তি (বড় চালু মাল আছ দেখছি)
চাষবাস কৃষিকাজ করে জীবনধারণ
চাষা/ চাষাভুষো তুচ্ছার্থে- গ্রাম্য অশিক্ষিত লোক (চাষার মত কথাবার্তা)
চিঁ চিঁ করা ক্ষীণকণ্ঠে বেদনা প্রকাশ করা
চিঁড়ে কাঁচকলা চিরবৈরীতা; সমার্থক বাগধারা- আদায়-কাঁচকলায় সম্পর্ক
চিঁড়ে চ্যাপ্টা১ অতিরিক্ত ভিড়ের চাপে নাজেহাল অবস্থা (ভিড়ের মধ্যে চিঁড়েচ্যাপটা হয়ে কোনগতিকে এসেছি)
চিঁড়ে চ্যাপ্টা২ নাস্তানাবুদ; আধমরা (মেরে চিঁড়েচ্যাপটা করে দেব)
চিকণকালা শ্যামসুন্দর, শ্রীকৃষ্ণ
চিকণ-চাকণ সুন্দর মসৃণ গঠন (উপরে চিকণ-চাকণ ভিতরে খেড়)
চিকুরজাল কেশদাম, চুলের গুচ্ছ
চিকুরঝালা বিদ্যুতের ঝলকানি
চিচিং ফাঁক গুপ্ত বিষয় উন্মেচিত/প্রকাশিত (আমার সবকিছু যেন চিচিং-ফাঁক না হয়ে যায়-নজরুল)
চিজ বিদ্রূপে- ধান্ধাবাজ, ধূর্তলোক (সে একটি চিজ বটে); সমার্থক বাগধারা- যন্ত্র
চিটিংবাজ ঠগ, প্রতারক
চিঠিচাপাটি চিঠিসংক্রান্ত নানা কাগজপত্র; চালাচালির চিঠিসমূহ
চিড় খাওয়া/ধরা ভেঙে যাবার উপক্রম হওয়া (ওদের বন্ধুত্বে চিড় ধরছে)
চিড়বিড় করা অস্থিরতা প্রকাশ (এত চিড়বিড় করছো কেন?)
চিড়িয়া চালবাজ ধূর্ত লোক
চিড়িয়াখানা বিচিত্রধরনের লোকের সমাবেশ
চিৎ সম্পূর্ণ পরাজিত (ভোটযুদ্ধে বিরোধীরা সব চিত)
চিৎপটাং/ চিৎপাত সম্পূর্ণ চিৎ হয়ে পতন, ঊর্ধ্বমুখ হয়ে পতিত (ওরাং ওটাং চিৎপটাং-সুকুমার রায়)
চিতচোর প্রেমিক, মনকে যে হরণ করেছে
চিতা চিরস্থায়ী মর্মযন্ত্রণা (রাবণের চিতা কখনো নেভে না- প্রবাদ)
চিত্তশুদ্ধিবটিকা কৌতুকে- কুৎসিতদর্শনা নারী, যাকে দেখলে চিত্তে বিকার উৎপন্ন হয়
চিত্তির বিচিত্র ব্যাপার; আশ্চর্য কাণ্ড, দফারফা, সর্বনাশ (দাশু একটিং করবে? তাহলেই চিত্তির- সুকুমার রায়)
চিত্রগুপ্তের খাতা মানুষের কৃত-কর্মের হিসাব-নিকাশের খাতা; মানুষের পাপপুণ্য এর নির্ভূল হিসাব; সবকিছু যমের নজরে আছে (চিত্রগুপ্তের খাতায় তোমার নাম আছে)
চিত্রিণী চারপ্রকার নারীর দ্বিতীয়প্রকার (পদ্মিনী,চিত্রিণী, শঙ্খিনী, হস্তিনী; মধ্যম-আকৃতির এই নারীদের মুখে মৃদুহাসি লেগেই থাকে; এরা চলনেবলেন অস্থিরতা দেখায় না)
চিনির পুতুল অল্পেতেই শ্রমকাতর; সমার্থক বাগধারা- ননীর পুতুল
চিনির বলদ ভারবাহী কিন্তু ফলভোগী নয়; অপরের সমৃদ্ধির জন্য খেটেমরা ব্যক্তি
চিনে/ছিনে জোঁক নাছোড়বান্দা
চিন্তাভাবনা বিচার বিবেচনা (অনেক চিন্তিভাবনা করে ঠিক করলাম দেশ ছাড়ব)
চিন্তামণি ছিনে পরম আরাধ্য (যে খায় চিনি জোগায় চিন্তামণি- প্রবাদ)
চিপটান কাটা/ ঝাড়া বিদ্রূপ করা, ব্যঙ্গ করে মন্তব্য করা; রাগ প্রকাশ না করে এমনভাবে কথা বলা যাতে লোকের আপাদমস্তক জ্বলে যায়; সমার্থক বাগধারা- চিমটি কাটা
চিবিয়ে চিবিয়ে কথা বলা বক্তব্য পরিষ্কার করে না বলা; সমার্থক বাগধারা- গুজগুজিয়া
চিমটি কাটা চিপটান কাটার অনুরূপ
চিমডড়া/চিমড়ে একগুঁয়ে, অবাধ্য (চিমড়ে স্বভাবের লোক)
চিমড়ে পাকানো/মারা অত্যন্ত রোগাটে হওয়া (দিনে দিনে শরীরটা চিমড়ে পাকাচ্ছে)
চিরকুট ছোট টুকরা কাগজ (একটা চিরকুটে তোমার নামটা লিখে দাও)
চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত কায়েমী স্বার্থ প্রতিষ্ঠিত
চিরাচরিত অতি প্রাচীনকাল থেকে চলে আসছে এমন (চিরাচরিত প্রথা)
চিরুণি তল্লাশি অপরাধীর বা আপত্তিকর বস্তুর সন্ধানে এলাকার প্রতিটি ঘরে অনুসন্ধান (পুলিশ জঙ্গির খোঁজে এলাকায় চিরুণি তল্লাশি চালাচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- খানা তল্লাশি
চিল চিৎকার/চেঁচান তারস্বরে চিল্লানো (সকলে মিলে চিল চিৎকার জুড়ে দিয়েছে)
চিল্লাচিল্লি বহুলোকের একত্র চীৎকার, হইচই, হট্টগোল (এত চিল্লাচিল্লি কিসের); সমার্থক বাগধারা- চেঁচামেচি
চীনা/চীনে জোঁক নাছোড়বান্দা; সমার্থক বাগধারা- ছিনা/ছিনে
চুঁ শব্দ মৃদু শব্দ (চুঁ শব্দ করবে না)
চুঁইচুঁই করা প্রচণ্ড ক্ষুধার ভাব (খিদেয় পেট চুঁইচুঁই করছে)
চুকচুক বেশি করে তেল মাখা/মাখানো হয়েছে এমন (কালো চকচকে চুল)
চুকলি কাটা ভাঙানি দেওয়া; আড়ালে নিন্দা করা
চুটকি বিদ্রুপে- টিকি
চুটকি সাহিত্য সরলভাষায় অতিঅল্প কথায় লিখিত সরস সাহিত্য
চুনকালি দেওয়া/লাগা (মুখে) কলঙ্কলেপন করা; অপদস্থ হওয়া
চুনোপুঁটি মুখ্যঅর্থ- ছোটছোট মাছ; গৌণ অর্থ- নগণ্যব্যক্তি; অল্প পুঁজি ও ক্ষমতার লোক (পুলিশ চুনোপুঁটিদের শাস্তি দেয় আসল চাঁইদের ধরে না); সমার্থক বাগধারা- আদার ব্যাপারী, উলুখাগড়া, এ-ও-সে, চ্যাঙা-ব্যাঙা ইত্যাদি
চুপ মারা নীরব থাকা, নীরবে বসে থাকা
চুপসে যাওয়া সংকুচিত হওয়া
চুপিসাড়ে সাড়াশব্দ না দিয়ে আকার ইঙ্গিতে (চুপিসাড়ে এদিয়ে যাও)
চুমকুড়ি সশব্দ চুমার আওয়াজ (গাড়োয়ানের চুমকুড়ি গরুতে চেনে- প্রবাদ)
চুমরানো/চোমরানো মিষ্টিকথায় ভুলানো; পিঠে হাত বুলিয়ে কাজ উদ্ধার; দাড়িতে হাত বুলানো
চুমুক দিয়ে পুকুর শুকানো গাঁজাখুরি গল্প
চুয়াড় নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক
চুরচুর বহু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত (কাঁচের গ্লাসটা ভেঙে চুরচুর হয়ে গেল)
চুরিচামারি চুরি ও তদরূপ হীন অপকর্ম
চুলকানি অতিরিক্ত ব্যগ্রতা বা উৎসুক্যভাব ( তোমার এত চুলকানি কিসের?)
চুলকে ঘা করা ইচ্ছা করে নিজের বিপদ ডেকে আনা
চুলচেরা সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম (চুলচেরা বিচার/বিশ্লেষণ/হিসাব)
চুলবুল করা/ চুলবুলানি অস্থিরতা প্রকাশ করা, উসখুস করা; ছটপট করা (এত চুলবুল করছো কেন? এত চুলবুলানি কিসের?)
চুলোচুলি কলহ, তুমুল ঝগড়া/দ্বন্দ্ব (সামান্য একটা ব্যাপার নিয়ে যে এমন চুলোচুলি হ'বে কে জানতো)
চুলোয় যাওয়া১ উচ্ছন্নে/গোল্লায় যাওয়া (ছেলেটা চুলোয় গেছে)
চুলোয় যাওয়া২ // চুলোর দোরে যাওয়া চিতায় ওঠা, মরা, যমের দুয়ারে যাওয়া- মেয়েলি গালিবিশেষ (তুমি চুলোর দোরে যাও)
চুলোয় যাওয়া৩ দূর হওয়া (চুলোয় যাক ওসব ব্যাপার)
চুলোভোগী ঘাটের মড়া- গ্রাম্য মেয়েলি গালি
চূড়ামণি১ গুণে- শ্রেষ্ঠ বা প্রধান ব্যক্তি (সমাজের চূড়ামণি)
চূড়ামণি২ বিদ্রুপে- মার্কামারা চোর
চূড়ামণিযোগ চন্দ্রগ্রহণ ও সূর্যগ্রহণ উপলক্ষে গঙ্গাস্নানের যোগ
চূড়ার ওপর ময়ূরপাখা অতিরিক্ত সাজসজ্জা; ভালোর ওপর ভালো; ভড়ংসর্বস্ব
চেঁচা-চেঁচি /চেঁচা-মেচি গণ্ডগোল, বহুলোকের একত্র চীৎকার (এত চেঁচামেচি কিসের?); সমার্থক বাগধারা- চিল্লাচিল্লি, হইচই, হট্টগোল
চেঁচেপুঁছে /চেটে-পুটে একটুও অবশিষ্ট না রেখে, নিঃশেষে চেটে (দইটা চেঁচেপুঁছে খেয়ে নিল)
চেনাজানা/চেনাপরিচয়/চেনাশোনা অতি পরিচিত ('চেনাশোনার কোন বাইরে যেখানে পথ নাই নাইরে'- রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- জানাশোনা
চেপে ধরা বিশেষভাবে অনুরোধ বা পীড়াপীড়ি করা
চেপে যাওয়া কিছু না বলে চুপ থাকা (চেপে যাও কিছু বলতে হবে না)
চেপে বসা কায়েম হয়ে বসা
চেয়েচিন্তে১ অপরের সাহায্য নিয়ে (চেয়েচিন্তে কজ চালাই)
চেয়েচিন্তে২ নিজের ভালমন্দ বিবেচনা করে (চেয়েচিন্তে খাবেন)
চেষ্টাচরিত্র বিশেষ উদ্যোগ ও আয়োজন (অনেক চেষ্টাচরিত্র করে একটা ঘর পেয়েছি)
চৈতন/চৈতনচুটকি টিকি, মুণ্ডিত মস্তকে রেখে দেওয়া চুলের গুচ্ছ
চৈতন্যোদয় বুদ্ধির বিকাশ (বয়সতো হল চৈতন্যোদয় হবে কবে?)
চোঁচাঁ অতিদ্রুততার সঙ্গে, অন্য কোন দিকে না তাকিয়ে (পুলিশ দেখে দুস্কৃতি চোঁচাঁ দৌড় দিল)
চোঁচোঁ এক নিশ্বাসে এবং সাগ্রহে, দ্রুত তরলদ্রব্য খাওয়ার শব্দ (চোঁচোঁ করে দুধটা খেয়ে ফেলল)
চোখ উল্টানো অকৃতজ্ঞতার ভাব প্রকাশ করা (সুবিধা নিয়ে চোখ উল্টানো মানুষের স্বভাব)
চোখ উল্টানো/বোজা মৃত্যু হওয়া, মৃত্যুর পূর্বমুহূর্তে চোখ স্থির হয়ে আসা (একদিন সবাই চোখ উল্টাবে)
চোখ এড়ানো কারো নজর না হওয়া
চোখ কপালে তোলা বিস্মিত হওয়া
চোখ কান খুলে রাখা সজাগ ও সতর্ক থাকা
চোখ খাওয়া দৃষ্টিশক্তি হারানো (অল্পবয়সেই চোখ খেয়েছি)
চোখখাকি/খেকো দৃষ্টিহী্না/হীন- গালিবিশেষ
চোখ খোলা সতর্ক হওয়া; জ্ঞানলাভ করা বা করানো, সচেতন হওয়া (এই ব্যাপারটা আমার চোখ খুলে দিয়েছে)
চোখ গরম করা চোখ আরক্ত করা
চোখ ঘুরানো রেগে তাকানো (চোখ ঘুরিয়ে লাভ নেই, কোন সুরাহা হবে না)
চোখ চাওয়া ভাগ্য অনুকূল/প্রসন্ন হওয়া (এতদিনে ভগবান চোখ তুলে চেয়েছেন)
চোখ ছানাবড়া ভয়ে বিস্ময়ে চোখ বিস্ফারিত
চোখ টানানো অন্যের সুখ সইতে না পারা; অন্যের শ্রীবৃদ্ধিতে ঈর্ষান্বিত হওয়া
চোখ টেপা ইসারা করা, চোখ দিয়ে ইঙ্গিত করা
চোখ ঠারা১ চোখ কুঁচকে ইসারা করা
চোখ ঠারা২ নিজেকে মিথ্যা স্তোকবাক্য দেওয়া (নিজের মনকে চোখ টারা)
চোখ তুলে চাওয়া সহানুভূতিশীল হওয়া (গরীবের দিকে ভগবান চোখ তুলে চান না)
চোখ তুলে তাকানো বিরুদ্ধাচারণ করা, মোকাবিলা করা, সাহস করা (নেতাজী ইংরাজের বিরুদ্ধে চোখ তুলে তাকানোর সাহস দেখিয়ে ছিলেন); সমার্থক বাগধারা- চোখে চোখ রাখা
চোখ থাকতেও কানা / চোখ থেকেও অন্ধ অজ্ঞান, কাণ্ডজ্ঞানহী্ন, মূর্খ (চোখ থাকতে কানারা কখনো জীবনে উন্নতি করতে পারে না)
চোখ দেওয়া কুনজর দেওয়া লোভ করা (পরের সম্পদে চোখ দেওয়া অনুচিত)
চোখ পড়া১ অসাধু উদ্দেশ্যে নজরে আসা (ফাঁকা জমিটার ওপর প্রোমোটারদের নজর পড়েছে)
চোখ পড়া২ মনোযোগ আকৃষ্ঠ হওয়া (এতদিনে ভাঙাবাড়ীর দিকে চোখ পড়েছে)
চোখ দেখানো/পাকানো/রাঙানো ক্রুদ্ধ হওয়া; গরম নেওয়া, ধমকানো, রাগ দেখানো (অত চোখ দেখিয়ো না তোমার ভয়ে কেউ মরে নেই); সমার্থক বাগধারা- চোখ ঘুরানো, চোখ লাল করা
চোখ ফিরিয়ে থাকা / চোখ ফেরানো নজর না দেওয়া, সম্পর্ক ছিন্ন করা, সহানুভূতিশীল না হওয়া
চোখ ফোটা জ্ঞান হওয়া; প্রকৃত অবস্থা জানতে পারা; ভুল ধারণা দূর হওয়া; সাবধান হওয়া
চোখ বুজে থাকা না দেখার ভান করা; বিচারবিবেচনা বিসর্জন দেওয়া (চোখ বুজে শুধু হুকুম তামিল করে যাও)
চোখ বুলানো/ বোলানো হালকাভাবে পড়া (খবরের কাগজে প্রতিদিন একবার চোখ বুলাই)
চোখ বোজা মারা যাওয়া
চোখ মারা এক চোখ বুজে অশ্লীল ইঙ্গিত করা
চোখ লাল করা রাগ দেখানো (কথায় কথায় চোখ লাল করো না); সমার্থক বাগধারা- চোখ দেখানো/পাকানো/রাঙানো
চোখ লুকানো সামনে না যাওয়া (কথা দিয়ে কথা নয়া রাখতে পেরে সঃে এখন চোখ লুকোচ্ছে)
চোখল/চোখাল-মুখাল চালাকচতুর, তুখোড়, বলিয়ে কইয়ে, সপ্রতিভ, সবদিকে নজর আছে এমন; সমার্থক বাগধারা- চৌকশ
চোখাল২ তীব্র মসলা/স্বাদযুক্ত (চোখালো রান্না)
চোখা-চোখা কথা কাটকাট কথা; তীব্র মর্মভেদী কথা
চোখা-চোখি পরস্পর দেখা, সামনাসামনি উপস্থিতি (অনেকদিন পরস্পরের চোখা-চোখি নেই)
চোখা মাল খাঁটি বা বিশুদ্ধ মাল
চোখা লোক চৌখস, তুখোড় লোক
চোখে অন্ধকার দেখা দিশেহারা হয়ে পড়া
চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখানো প্রমাণ দিয়ে স্পষ্টভাবে বোঝানো
চোখে চশমা ঘরময় খোঁজা আপনভোলা/ঢিলেঢালা লোক
চোখে চোখ রেখে কথা বলা চোখ তুলে তাকানো'র অনুরূপ
চোখে চোখে কথা ইঙ্গিতে/ইসারায় কথা (চোখে খোখে কোথা বল মুখে কেন বল না- লঘুগীতি)
চোখে চোখে রাখা সতর্ক নজরদারি; দৃষ্টির বাইরে যেতে না দেওয়া
চোখে ছানাবড়া দেখা বিষ্ময়ে/ভয়ে চোখদুটি গোল হাওয়া
চোখে ঝর্ণার জল/পানি অতিরিক্ত মায়াকান্না
চোখে ঠুলি পরা/পরানো কিছু দেখতে না চাওয়া/দেওয়া/পাওয়া (খুলে দে মা চোখের ঠুলি- রামপ্রসাদী গান)
চোখে ধরা পছন্দ হওয়া, নজরে লাগা
চোখে ধূলো দেওয়া ফাঁকি দেওয়া, ঠকানো
চোখে ধোঁয়া দেখা দিশাহারা/হতভম্ব হওয়া
চোখে পড়া নজরে আসা
চোখে ভেলকি লাগা মোহাচ্ছন্ন হওয়া; ভ্রমে পতিত হওয়া
চোখে-মুখে কথা বেশি কথা বলা, বাচালতা; বাক্চাতুর্য; সমার্থক বাগধারা- নাকেমুখে কথা
চোখে লাগা১ পছন্দ হওয়া (জায়গাটা আমার চোখে লেগেছে
চোখে লাগা২ বেমানান লাগা (তোমার আচরণ চোখে লাগছে)
চোখে সরষে ফুল দেখা বিপদে দিশেহারা হওয়া (আক্রার বাজারে চোখে সরষে ফুল দেখছি)
চোখে সাঁতার পানি অতিরিক্ত মায়াকান্না
চোখের চামড়া অন্যের দৃষ্টিতে লজ্জাজনক মনে হয় এমন কিছু কররে সঙ্কোচবোধ করা, লজ্জা সঙ্কোচ; সমার্থক বাগধারা- চোখের পর্দা
চোখের দেখা শুধু পলকের জন্য দেখা, কোন কথা নয়
চোখের নেশা কেবল দেখার উৎকট বাতিক/মোহ
চোখের পর্দা/পাতা লজ্জাসংকোচ (চোখের পর্দা থাকলে তুমি চাইতে না); সমার্থক বাগধারা- চোখের চামড়া
চোখের পলক নিমেষ; মুহূর্তকাল (চোখের পলকে লোকটা উধাও হয়ে গেল)
চোখের বদলে চোখ প্রতিশোধ নিতে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি
চোখের বালি বিরক্তির কারণ; চোখের জন্য পীড়াদায়ক বস্তু/ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- চক্ষুশুল
চোখের ভুল দেখার ভুল
চোখের মণি অত্যন্ত প্রিয়জন
চোখের মাথা খাওয়া কিছুই নজরে না আসা, দৃষ্টিশক্তি হারানো
চোট১ আঘাত (পায়ে চোট আছে)
চোট২ দফা, বার (একচো্টে অনেকটা)
চোট৩ ক্ষতি (অনেকগুলি টাকা চোট হয়ে গেল)
চোটপাট করা তিরস্কার করা, বকাঝকা করা, রাগ দেখানো (বাগে পেয়ে আমার ওপর খুব চোটপাট করল)
চোট্টামি প্রবঞ্চনা (চোট্টামি করে জেতা)
চোদ্দপুরুষ ঊর্ধ্বতন সাত ও অধস্তন সাত পুরুষ
চোদ্দপুরুষ তোলা পিতা ও পূর্বপুরুষের উল্লেখ করে গালাগালি দেওয়া; সমার্থক বাগধারা- বাপ-বাপান্ত করা
চোদ্দবার বারংবার, বহুবার (চোদ্দবার না করেছি, তবু নিষেধ শুনলো না)
চোপা১ মুখ, মুখমণ্ডল (যদি দেখ মাকুন্দ চোপা একপাও এগিয়ো নয়া বাপা- খনা)
চোপা২ কড়া জবাব, স্পষ্ট উত্তর (মেয়েগুলি বড় মুখের ওপর চোপা করে)
চোয়াল ভাঙ্গা শব্দ উচ্চারণ করা যায়না এমন শব্দ
চোয়াল শক্ত করা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হওয়া
চোর ধরতে চোরকে লাগানো সহজে কার্যসিদ্ধি
চোরাকারবার বেআইনি ব্যবসায়
চোরাকুঠি ঘরের মধ্যে ঘর
চোরাগলি সঙ্কীর্ণ পথ
চোরাগর্ত নজরে পড়ে নয়া এমন গর্ত
চোরাগোপ্তা আকস্মিক ও অন্যের নজর এড়িয়ে (চোরাগোপ্তা আক্রমণ)
চোরাচালান শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পণ্য আমদানী-রপ্তানী
চোরাপকেট পরিধেয় বস্ত্রের ভিতরে গুপ্ত পকেট
চোরাবালি মৃত্যুফাঁদ
চোরে চোরে খালাতো/মাসতুতো ভাই // চোরের সাক্ষী গাঁটকাটা একই অন্যায় কাজের কাজি, সমসঙ্গী; সমার্থক বাগধারা- শুঁড়ির সাক্ষী মাতাল
চোরের উপর বাটপাড়ি চোরের কাছ থেকে চোরাইমাল চুরি; চোরের সঙ্গে প্রতাড়না, ঠগকে ঠকানো
চোরের মায়ের কান্না সন্তানের অন্যায় কাজের শাস্তিভোগের জন্য গোপনবিলাপ
চোরের মায়ের বড় গলা অসতের হম্বিতম্বি
চোস্ত চৌকশ, নিখুঁত, সুন্দর (সে চোস্ত হিন্দি বলে)
চৌকশ চালাকচতুর, সব কাজে দক্ষ, সবদিকে নজর আছে এমন (এই কাজে একটি চৌকশ ছেলে চাই); সমার্থক বাগসগারা- চোস্ত, বলিয়ে কইয়ে
চৌকা গর্তে গোল পেরেক বিশেষ অবস্থায় স্বচ্ছন্দ নয় (বন্ধুহীনস্থানে এসে আমার অবস্থা হয়েছে চৌকা গর্তে গোল পেরেকের মত)
চৌকাঠ না মাড়ানো সম্পর্ক না রাখা; সম্পর্ক ছিন্ন করা, সংস্পর্শে না আসা, (আমি এখন কারও চৌকাঠ মাড়াই না); সমার্থক বাগধারা- কথায় না থাকা, ছায়া না মাড়ানো, পথ না মাড়ানো, পা ধুতে না আসা ইত্যাদি
চৌঘরি মাত দেখানো দাবাখেলায় ব্যবহৃত; বিষম সঙ্গটে ফেলা
চৌচির খণ্ডবিখণ্ড, খণ্ডে খণ্ডে বিভক্ত (কাঁচের থালাটা পড়ে গিয়ে চৌচির হয়ে গেল)
চৌপট/চৌপাট ধ্বংস, নষ্ট (সম্পত্তি সম্মান সবই চৌপাট হয়ে গেল)
চৌপর চার প্রহর, সারা দিনরাত (চৌপর দিনভর দেয় দূরপাল্লা- সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত)
চৌপল চারকোণবিশিষ্ট (চৌপল বোতল)
চৌমাথা দুটি রাস্তার মিলনস্থল (চৌমাথায় তোমার জন্য অপেক্ষা করব)
চৌহদ্দি চতুঃসীমা, সীমানা (জমির চৌহদ্দি)
চ্যাঁচামেচি বহুলোকের একসঙ্গে চিৎকার (এতো চেঁচামেচি কিসের?)
চ্যাঙদোলা মুখ্য অর্থ- শববাহী খাটিয়া/খাটুলি, শবের মত বয়ে নিয়ে যাওয়া; আলং- দু'হাত ও দু'পা ধরে দেহ ঝুলিয়ে বহন (ওকে চ্যাঙদোলা করে তুলে নিয়ে যাও)
চ্যাঙড়া অপরিণত বয়স্ক/বুদ্ধি, অর্বাচীন, ছ্যাবলা যুবক; সমার্থক বাগধারা- ফচকে
চ্যাঙা-ব্যাঙা গুরুত্বহীন লোক; সমার্থক বাগধারা- চুনোপুঁটি
চ্যাচাঁমেচি একাধিক লোকের একসঙ্গে চীৎকার; সমার্থক বাগধারা- হট্টগোল
চ্যাটাং চ্যাটাং কর্কশ, ধৃষ্টতাপূর্ণ, মর্মভেদী (চ্যাটাং চ্যাটাং কথা); সমার্থক বাগধারা- ক্যাটকেটে, টেঁকটেকে ইত্যাদি
চ্যালাচামুণ্ডা শাকরেদ ও তার অনুচবৃন্দ, ভক্তবৃন্দ (সাধু তার চ্যালাচামুণ্ডা নিয়ে ডেরা বেঁধেছে)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ছক কিছু করার আগে স্পষ্ট নকশা পরিকল্পনা
ছক কাটা/ ছকা কাজের খসড়া বা মুসাবিদা করা (আগে কাজটা ঠিকমত ছকে নাও)
ছককাটা১ চৌকো ঘর কাটা হয়েছে এমন
ছককাটা২ পরিকল্পিত
ছকড়া নকড়া১ অপব্যয়, অবহেলা
ছকড়া নকড়া২ অবজ্ঞাসূচক আচরণ/ব্যবহার
ছকড়া নকড়া৩ বিশৃঙ্খল (ঘরের সবকিছু ছকড়া-নকড়া অবস্থায় ছড়িয়ে আছে)
ছকড়া নকড়া৪ সস্তা দর (বাজারে আম ছকড়া-নকড়া দরে বিক্রি হচ্ছে)
ছকবাঁধা গতানুগতিক (ছকবাঁধা পথে চলতে আমরা অভ্যস্ত)
ছক্কাপাঞ্জা১ জাঁকজমক, বড়বড় কথা, বড়াই করা (ছক্কাপাঞ্জা করা লোক হালকা চালের হয়)
ছক্কাপাঞ্জা২ চালাকী, তামাশা, প্রতারণা (লোকটা আমার সাথে ছক্কাপাঞ্জা করছে)
ছটফট১ অস্থিরতা (গরমে সবাই ছটফট করছে); সমার্থক বাগধারা- ধড়ফড়
ছটফট২ আকুলতা (ছেলে আসার পথ চেয়ে মায়ের মন ছটফট করছে)
ছড়ছড় বেগে বৃষ্টি পড়ার শব্দ (ছচ্ছড় করে বৃষ্টিপাত শুরু হল)
ছড়াছড়ি১ প্রাচুর্য, বাহুল্য (বাজারে আমের ছড়াছড়ি যাচ্ছে)
ছড়াছড়ি২ অবহেলাজনিত অপচয় (সরকারী কাজে টাকার ছড়াছড়ি হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- হরির লুট
ছড়ানো-ছিটানো / ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছত্রাকারে চারিদিকে ছড়ানো (জিনিসপত্র এভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখলো কে?)
ছড়ি ঘোরানো খবরদারি/মাতব্বরি করা (এখানে তোমাকে কেউ ছড়ি ঘোরাতে ডাকেনি)
ছত্রখান ছাতার আকারে ইতঃস্তত বিক্ষিপ্ত ( চারিদিকে জিনিসপত্র ছত্রখান হয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- ছত্রাকার
ছত্রছায়া আশ্রয় ও প্রশ্রয় (ছোট ছোট রাষ্ট্রগুলি কোন-না-কোন বড়রাষ্টের ছত্রছায়ায় থাকে)
ছত্রধর ব্যাঙ্গে- বশংবদ আজ্ঞাবহ, হুকুমের চাকর; সমার্থক বাগধারা- লাটের বাঁট
ছত্রভঙ্গ মুখ্যঅর্থ- রাজচিহ্ননাশ; গৌণঅর্থ- সঙ্গীগণের পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন (সৈন্যদল ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়েছে)
ছত্রাকার ছত্রখানের অনুরূপ
ছনছন জ্বর জ্বরভাব (শরীরটা ছনছন করছে)
ছন্দপতন আবাঞ্ছিত আকস্মিক উপস্থিতি, তালভঙ্গ, রসভঙ্গ (তোমার আসাতে আসরে ছন্দপতন হয়েছে)
ছন্দেবন্দে নানা কৌশলে (ছন্দেবন্দে কার্যোদ্ধার করেছি); সমার্থক বাগধারা- কলাকৌশলে, পাকেপ্রকারে ইত্যাদি
ছন্নছাড়া উচ্ছন্নে গেছে এমন; আশ্রয়হীন, লক্ষ্মীছাড়া (ছন্নছাড়া জীবন)
ছপ্পর (=ছাদ) ফুঁড়ে অপ্রত্যাশিতভাবে, আশাতীতভাবে, (আল্লা যারে দেয় ছপ্পর ফুঁড়ে দেয়- হিন্দি প্রবাদ)
ছবুড়ি ছগণ্ডা মুখ্য অর্থ- ৬x(৬x৪)=১৪৪ সংখ্যক; গৌণ অর্থ- বহুসংখ্যক
ছমছম ভয়জনিত বিকার/শিহরণ (ভয়ে গা ছমছম করছে)
ছয়কে নয়, নয়কে ছয় করা সম্পূর্ণ বিপরীত কাজ করা বা কথা বলা, দিনকে রাত করা
ছয়লাপ১ পরিপূর্ণ, ছেয়ে গেছে এমন (কাগজপত্রে ঘর একেবারে ছয়লাপ)
ছয়লাপ২ চুড়ান্ত অপচয়, বাজে ভাবে অর্থব্যয় (অর্থের ছয়লাপ হচ্ছে অথচ কাজের কাজ হচ্ছে না)
ছরকট/কুট ছড়াছড়ি, বিশৃঙ্খল (জিনিসপত্র ছরকট হয়ে আছে)
ছরকুটে বিশৃঙ্খল এলোমেলো স্বভাববিশিষ্ট (ছরকুটে লোক)
ছল ধরা কথার দোষ বার করা
ছল করা ভান করা, কপটতা অবলম্বন করা ('আমি ছল করে জল আনতে যাইগো যমুনায়')
ছলচাতুরী জুয়াচুরি, ধূর্তামি, প্রবঞ্চনা (চলচাতুরীতে কার্যসিদ্ধি হবে না)
ছলছুতা/তো অছিলা; সামান্য অজুহাত/ত্রুটি; সমার্থক বাগধারা- ছুতোনাতা
ছলাকলা শঠতা; মনভোলানো কৌশল/হাবভাব
ছলে-বলে-কৌশলে ছলনা বা শক্তিপ্রয়োগ অথবা চাতুর্যে কার্যসিদ্ধি করা
ছাঁচ আদল, ধরন, সাদৃশ্য (একই ছাঁচে গড়া দুই ভাই)
ছাঁদনা-তলা বিবাহের ছায়ামণ্ডপ, যে মণ্ডপে বিবাহ-আসর অনুষ্ঠিত হয় (রাবণের ছাঁদনা-তলা- প্রবাদ)
ছাই১ অসার/মূল্যহীন বস্তু, আজেবাজে তুচ্ছ জিনিস, জঞ্জালতুল্য বস্তু (ওসব ছাই কেন খাচ্ছ?); সমার্থক বাগধারা- ছাইপাঁশ, ছাইভষ্ম
ছাই২ কিছু না, ফাঁকি (তুমি ছাই জানো); সমার্থক বাগধারা- কচু, কলা, ঘেঁচু ইত্যাদি
ছাই চাপা আগুন১ অব্যক্ত ক্রোধ/মর্মবেদনা
ছাই চাপা আগুন২ সুপ্তপ্রতিভা; ভিতরে তেজ আছে বাইরে প্রকাশ নেই, অপ্রকাশিত
ছাই চাপা কপাল দুর্ভাগ্য; যা খুলতে পারে এমন ভাঙা কপাল
ছাই ফেলতে ভাঙা কুলো নগণ্য/অকাজের জন্য অবহেলিত ব্যক্তির প্রয়োজনীয়তা
ছাইপাঁশ/ভষ্ম ছাই১ এর অনুরূপ (কি ছাইপাঁশ লিখছো?)
ছাগল ব্যাঙ্গে- বোকা, বুদ্ধিহীন, গালিবিশেষ (তোমার মত ছাগল দেখিনি); সমার্থক বাগধারা- গড্ডল, গরু, পাঁঠা ইত্যাদি
ছাগলদাড়ি ব্যঙ্গে- ছাগলের দাড়ির মত কেবল চিবুকে তোলা দাড়ি
ছাগল দিয়ে চাষ করা // ছাগল দিয়ে ধান মাড়ানো অযোগ্যলোক দিয়ে ভারী কাজ করানো
ছাগলের তৃতীয়সন্তান অবহেলিত, বঞ্চিত
ছাড়১ মুক্তি, রেহাই (কাজ শেষ না হলে ছাড় নেই); সমার্থক বাগধারা- ছাড়ছোড়
ছাড়২ মুল্যহ্রাস (দামে কিছু ছাড় আছে)
ছাড়ছোড়১ কিয়দংশ পরিত্যাগ (খরচখরচা ছাড়ছোড় দিয়ে কত থাকল?); সমার্থক বাগধারা- কাটছাঁট, বাদসাদ ইত্যাদি
ছাড়ছোড়২ মুক্তি, রেহাই (কোন ছাড়ছোড় নেই কাজটা করে দিয়ে যাবে)
ছাড়া-ছাড়া পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন (আজকাল সবাই ছাড়া-ছাড়া থাকে)
ছাড়া-ছাড়া কথা কর্কশ কাটাকাটা কথা (ছাড়াছাড়া কথায় ঝাঁঝ থাকে)
ছাড়া-ছাড়ি পরস্পর থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন (দুইবন্ধুর মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে)
ছাড়ান-ছোড়ান অব্যাহতি, মুক্তি, রেহাই (কোনপ্রকার ছাড়ান-ছোড়ান নেই)
ছাতা দিয়ে মাথা রাখা বিপদে সাহায্য করা; অর্থ ও আশ্রয় দিয়ে সম্মান রক্ষা করা; সমার্থক বাকধারা- ভাঙা ঘর ছেয়ে দেওয়া
ছাতা/ছাতি ধরা আশ্রয় দেওয়া, সাহায্য করা
ছাতারে দেওয়া কাজ কিছু নেই, কেবল গোলমাল
ছাতি (বুকের) সাহস, বুকের পাটা
ছাতি ফোলানো গর্ব করা; শক্তিমত্তা জাহির করা ('সাত মহারথী শিশুরে বধিয়া ফুলায় বেহায়া ছাতি'- নজরুল)
ছাতু১ মিহিগুড়ো; (মেরে ছাতু করে দেবে)
ছাতু২ কিছু না, ফাঁকি (সে জানে ছাতু); সমার্থক বাগধারা- কচু, কলা, ছাই, ছাইপাঁশ ইত্যাদি
ছাতুখোর তুচ্ছার্থে- স্থূলবুদ্ধিসম্পন্ন ব্যক্তি (ব্যাটা ছাতুখোর)
ছানাপোনা ব্যাঙ্গে- অতি অল্পবয়স্ক ছেলেমেয়ে, ছোটছোট শিশুসন্তান; সমার্থক বাগধারা- আণ্ডা বাচ্চা, কাচ্চাবাচ্চা, বাচ্চাকাচ্চা
ছানাবড়া বিস্ময়ে চোখের বিস্ফোরণ (দেখে চক্ষু ছানাবড়া)
ছাপাছাপি১ তথ্য গোপন করা; সকলের কাছে লুকিয়ে রাখা (এত ছাপাছাপি কিসের?); সমার্থক বাগধারা- ছিপাছিপি, ঢাকাঢাকি, লুকোছাপা ইত্যাদি
ছাপাছাপি২ অত্যধিক পরিমাণে, কানায় কানায় (আহারে ছাপাছাপি ভাল নয়)
ছাপোষা নিরীহ দরিদ্রব্যক্তি, পোষ্য ভারাক্রান্ত মধ্যবিত্ত,(ছাপোষা কেরানী)
ছায়া আশ্রয়
ছায়া আর কায়া অঙ্গাঙ্গী-সম্পর্ক; আলো আর কালো; দেহ আর মন; দিন আর রাত; ভালো আর মন্দ ইত্যাদি
ছায়া না মাড়ানো সংশ্রব না রাখা/সংশ্রবে না থাকা (তোর ছায়া মাড়ালে লোকে মন্দ বলবে); সমার্থক বাগধারা- কথায় না থাকা, চৌকাঠ না মাড়ানো, পথ না মাড়ানো, পা ধুতে না আসা ইত্যাদি
ছায়াতে ভূত দেখা অজানা আশঙ্কায় ভীত
ছায়ার পিছনে ছোটা অসম্ভব পাওয়ার চেষ্টা (ছায়ার পিছনে ছুটে ছায়া ধরা যায় না, বরং উলটো ছুটলে ছায়া পিছু নেয়)
ছায়ার সাথে যুদ্ধ পণ্ডশ্রম, নিস্ফল পরিশ্রম
ছার কপালে/কপালি মন্দভাগ্য, হতভাগা/ভাগি (ধিক্কারে, গালিতে)
ছারখার ধ্বংস, বিনাশ (সোনার লঙ্কা ছারখার- প্রবাদ)
ছারপোকা তুচ্ছার্থে- নগণ্যব্যক্তি; রক্তচোষার মানসিকতাসম্পন্ন ব্যক্তি
ছারপোকার বিয়ান ক্রমাগত বংশব্যক্তি
ছাল ছাড়ানো (পিঠের) প্রচণ্ড প্রহার করা (মেরে পিঠের ছাল ছাড়িয়ে নেব)
ছাল নেই কুত্তা, নাম তার বাঘা নেই-গুণে নামকরণের হাস্যকর প্রয়াস; সমার্থক বাগধারা- কানা ছেলের নাম পদ্মলোচন; কেলে বামুনের নাম গৌরাঙ্গসুন্দর; গোঙ্গা ছেলের নাম তর্কবাগিশ; ঘুঁটেকুড়ুনির ব্যাটার নাম চন্দনবিলাস ইত্যাদি
ছিঁচকে চোর ছোটখাটো জিনিস চুরি করে; হাতের কাছে যা পায় তাই চুরি করে
ছিঁচকাঁদুনে অল্পতেই কান্নাকাটি করে এমন (ছিঁচকাঁদুনে শিশু)
ছি ছি করা/পড়া ধিক্কার দেওয়া, নিন্দা করা (চারদিকে সবাই ছিছি করছে); সমার্থক বাগধারা- ছ্যা ছ্যা করা
ছিকলি কাটা টিয়ে অধীনতামুক্ত সত্তা; স্বাধীন মনোভাবাপন্ন ব্যক্তি
ছিটকে ছ // ছিটকে পড়া ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়া; দূরবর্তী অঞ্চলে চলে যাওয়া (চাকরির খোঁজে সবাই চারিদিকে ছিটকে ছ হয়ে যাচ্ছে)
ছিটেফোঁটা অতি সামান্য পরিমাণ (ছিটেফোঁটা বৃষ্টি হয়েছে)
ছিদ্রান্বেষণ অন্যের দোষের খোঁজখবর; পরের দোষত্রুটি খুঁজে বেড়ানো
ছিদ্রদর্শী/ছিদ্রান্বেষী পরের দোষত্রুটি অনুসন্ধানে অভ্যস্ত এমন; পরের দোষত্রুটি খুঁজে বেড়ায় এমন
ছিনা/ছিনে জোঁক নাছোড়বান্দা, রক্তচোষা (ছিনে-জোঁকের মত পিছনে লেগে আছে); সমার্থক বাগধারা- এঁটুলি পোকা
ছিনালি ভ্রষ্টানারীর চাতুরী বা মিথ্যা প্রণয় (ছিনাল মাগীর ফাঁদে পড়ো না)
ছিনিমিনি খেলা১ মুখ্য অর্থ- জলে খোলামকুচি ছুঁড়ে জলকাটার খেলা; গৌণঅর্থ- অত্যন্ত বেহিসাবি খরচ বা চুড়ান্ত অপব্যয় যথেচ্ছ ব্যবহার (টাকা নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে)
ছিনিমিনি খেলা২ ইচ্ছামত ব্যবহার (মন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা)
ছিপছিপে কৃশ, পাতলা রোগা ও লম্বাগড়নবিশিষ্ট (ছিপছিপে গড়নের মেয়ে); সমার্থক বাগধারা- একহারা, ডিগডিগে
ছিপাছিপি গোপনতা, লুকানো (সব সত্য বলবে, কিছু ছিপাছিপি করো না); সমার্থক বাগধারা- ছাপাছাপি, ঢাকাঢাকি, লুকোছাপা ইত্যাদি
ছিমছাম আতিশয্যবর্জিত কিন্তু শোভন ও সুচারু (ছিমছাম বাড়ীঘর)
ছুঁচিবাই ছুঁলে শুচিতা নষ্ট হবে, এমন বাতিক; অঙ্গশুদ্ধি নিয়ে বায়ুরোগগ্রস্ততা
ছুঁচো/ছুছুন্দর তুচ্ছ/নীচ/পাজি/হীন ব্যক্তি, নোংরামনের লোক- গালিবিশেষ
ছুঁচো মেরে হাত গন্ধ করা সামান্য লাভের জন্য দুর্নাম কুড়ানো
ছুঁচোর কচাকচি/কীর্তন ছুঁচোর মতো বিরক্তিকর চেঁচামেচি; নিরন্তর কলহ; পেটে ক্ষিদের জ্বালা (ভিতরে ছুঁচোর কেত্তন বাইরে কোঁচার- প্রবাদ)
ছুঁচোর গলায় চন্দ্রহার অযোগ্যের হাতে উৎকৃষ্ট বস্তু
ছুঁড়ি তুচ্ছার্থে- কিশোরী
ছুঁতমার্গ অস্পৃশ্যতার মানসিকতা, স্পর্শদোষ; সমার্থক বাগধারা- ছোঁয়াছুঁয়ি
ছুট১ অব্যাহতি, মুক্তি (ছুট পাওয়া ভার); সমার্থক বাগধারা- ছুটকারা
ছুট২ পরিধেয় বস্ত্র (একছুটে ঘর থেকে বেড়িয়ে এলো)
ছুটকারা ছুট১ এর অনুরূপ
ছুটকি অবজ্ঞায়- শিশু-বালিকা (সবাই আমাকে ছুটকি বলে)
ছুটকো১ নগণ্য (ছুটকো লোক, ছুটকো কাজ ইত্যাদি)
ছুটকো২ হঠাৎ প্রাপ্তি (কিছু ছুটকো টাকা পেয়ে গেছি)
ছুটকো-ছাটকা হিসাবের বাইরে (দু-একটা ছুটকো-ছাটকা কাজ জুটে যায়)
ছুটমুখ আজেবাজে/শক্ত কথা বলতে যার আটকায় না
ছুতোনতা/নাতা সামান্য ত্রুটি; কোন একটি অছিলা/অজুহাত (কোন ছুতোনাতায় কাজে আসে না) সমার্থক বাগধারা- ছলছুতো
ছুপা রুস্তম সুপ্তপ্রতিভাসম্পন্ন, বোঝা যায় না কিন্তু অনেক শক্তি ধরে এমন কিছু
ছুরি দেওয়া/চালানো (গলায়) বিশালমাপে ঠকানো
ছেঁকে ধরা ঘিরে ধরা; চারদিক থেকে অনেকে মিলে ব্যতিব্যস্ত করা (পাওনাদারেরা ছেঁকে ধরেছে)
ছেঁচড়/ ছ্যাঁচড় নির্লজ্জ, নীচপ্রকৃতির লোক, দেনা সহজে শোধ করতে চায় না এমন
ছেঁড়া কচুর পাত অপদার্থ, কোন কর্মের নয়
ছেঁড়া কাঁথায় শুয়ে লাখ-টাকার স্বপ্ন দেখা নগণ্যের উচ্চাশা
ছেঁড়া চুলে খোঁপা বাঁধা বৃথাচেষ্টা, ব্যর্থপ্রয়াস (মূলতঃ পরকে আপন করার বৃথাচেষ্টা)
ছেঁড়া/ছেঁদো কথা আজেবাজে কথা; চাতুরীপূর্ণ বাজে কথা
ছেঁড়াছিঁড়ি বারবার ছেঁড়া (এটাকে কতবার আর ছেঁড়াছিঁড়ি করবে?)
ছেঁড়া বস্তায় খাসাচাল মূর্খের ঘরে গুণবান সন্তান
ছেঁড়া মামলা/ল্যাঠা ঝঞ্ঝাটে ও বিরক্তিকর ব্যাপার
ছেঁদা মালা মুখ্যঅর্থ- নারকেলখোলের মালা; গৌণঅর্থে- অপব্যয়ী ব্যক্তি
ছেঁদো কথা অসার/কপট/বাঁকা কথা (ছেঁদো কথায় মন ভরবে না)
ছেড়ে দিয়ে তেড়ে ধরা প্রথমে ঢিলে দিয়ে পরে চেপে ধরা; সমার্থক বাগধারা- ঢিল দিয়ে টেনে আনা
ছেলেখেলা অকিঞ্চিৎকর অনুষ্ঠান, অতি সহজসাধ্য ব্যাপার (সেতার বাজানো মোটেই ছেলেখেলা নয়)
ছেলে-ছোকরা অল্পবয়স্ক ছেলেরা, অপক্ববুদ্ধি যুবক, অপরিণতবুদ্ধি তরুণ
ছেলেপিলে/পুলে সন্তানসন্ততি (ছেলেপিলে নিয়ে ঘর করি, আমি কোন ঝুটঝামেলাই নেই)
ছেলে-ভুলানো যাতে কেবল শিশুরাই ভোলে বা আকৃষ্ট হয় তেমন কিছু (ছেলে-ভুলানো ছড়া)
ছেলেমানুষ অল্পবয়স্ক; অপরিণতবুদ্ধি (ছেলেমানুষি করো না)
ছেলের হাতের মোয়া অতি সহজ ব্যাপার; সহজলভ্য বস্তু; সমার্থক বাগধারা- গাছের ফল
ছোঁ দেওয়া আমল দেওয়া; ঘনিষ্টতা রাখা
ছোঁ মারা হঠাৎ কেড়ে নেবার চেষ্টা করা
ছোঁকছোঁক করা খাওয়ার জন্য ব্যগ্রতা প্রকাশ করা; অতিশয় লোভ করা (খালি খাওয়ার জন্যে ছোঁকছোঁক করে)
ছোঁচা১ অত্যন্ত খাদ্যলোভী ('ছোঁচা তুমি, তোমার সঙ্গে আড়ি আমার, যাও'- নজরুল);
ছোঁচা২ আত্মসম্মানহীন লোক
ছোঁয়াছুঁয়ি পরস্পর স্পর্শ; অস্পৃশ্য বস্তু বা ব্যক্তির সঙ্গে সংস্পর্শদোষ; সমার্থক বাগধারা- ছুঁতমার্গ
ছোকরা তুচ্ছার্থে- অপরিণতবুদ্ধির নব্যযুবক
ছোটখাটো১ ক্ষুদ্রায়তন, স্বল্পায়তন, মোটামুটি ক্ষুদ্র আকার (ছোটখাটো গল্প/বাড়ী/ব্যবসা); সমার্থক বাগধারা- ছোটমোট
ছোটছেলে বালক (ছোট ছেলেদের জামাকাপড়)
ছোট নজর কৃপণতা, খাটো/সঙ্কীর্ণ দৃষ্টি
ছোট মুখ শিশু ('ছোট ছোট মুখ জানে না ধরার দুখ'- রবীন্দ্রনাথ)
ছোটমুখে বড় কথা ছোটদের মুখে বড়দের মত কথাবার্তা; অসম্মানজনক কথাবার্তা
ছোটমোট ছোটখাটো১-এর অনুরূপ
ছোটলোক অভদ্র ব্যক্তি, হীনমানসিকতার লোক; সঙ্কীর্ণচেতা
ছোটাছুটি অতিশয় ব্যস্ততা (হঠাৎ গুলির আওয়াজে আতঙ্কে ছোটাছুটি পড়ে গেছে)
ছোবল মারা নখ/দাঁত দিয়ে বিদ্ধ করা
ছোটো হাজরি ইংরাজী কায়দায় প্রাতঃরাশ; সকালবেলার লঘু জলযোগ
ছ্যাঁচড় ছেঁচড়-এর অনুরূপ
ছ্যাঁৎ করা ভয়ে শিউরে ওঠা (বুকটা ভয়ে ছ্যাঁৎ করে উঠল)
ছ্যা ছ্যা করা ধিক্কার জানানো, নিন্দা করা (সবাই তোমার কাজে ছ্যা ছ্যা করছে); সমার্থক বাগধারা- ছি ছি করা
ছ্যাবলা লঘুপ্রকৃতি, বালকের মতো চপল (এখানে ছ্যাবলামি করো না)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
জগাইমাধাই অন্তরঙ্গ বন্ধুদ্বয়; সমার্থক বাগধারা- জোড়ের পায়রা, হরিহর আত্মা ইত্যাদি
জগদ্দল মুখ্য অর্থ- পরমেশ্বর; গৌণ অর্থ- গুরুভার পাথর (বুকের ওপর যেন জগদ্দল পাথর চাপানো আছে)
জগন্নাথযাত্রা পুরীর তীর্থে গমন
জগাখিচুড়ি বিভিন্নরকম অবাঞ্ছিত জিনিসের সংমিশ্রণ; বিশৃঙখলা; উৎস-পুরীর জগন্নাথদেবের খিচুড়িভোগ); সমার্থক বাগধারা- হচপচ
জগাখিচুড়ি পাকানো কোন বিষয় জটিল করে তোলা; গোলমাল বাধানো
জঙ্‌লা মুখ্য-অর্থ- জঙলসম্পর্কিত, বন্য; গৌণ-অর্থ- সুন্দরবনের বাঘ (জঙলা কখনো পোষ মানে না)
জঙ্‌লী অসভ্য, বন্য
জঞ্জাল অবাঞ্ছিত বস্তু, উৎপাত, উপদ্রব, লেঠা (আচ্ছা সব জঞ্জাল জুটেছে)
জট মনের জটিল অবস্থা
জট পাকানো জটিলতা সৃষ্টি করা; তালগোল পাকিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হওয়া
জটলা১ বহুলোকের একত্র সমাবেশ (জটলার মধ্যে যেও না)
জটলা২ বহুলোকের একত্র কোলাহল, জল্পনা (এখানে এত জটলা কিসের)
জটিলা-কুটিলা বধুগঞ্জনাকারী কলহপরায়ণা শাশুড়ী-ননদ (উৎস- শ্রীরাধার শাশুড়ী ও ননদের নাম হল জটিলা ও কুটিলা)
জঠরানল নিবৃত্তি ক্ষুধার শান্তি
জড়পদার্থ/পিণ্ড নিশ্চেষ্ট ব্যক্তি
জড়পুত্তলি স্থবির/স্হূলবুদ্ধি/জড়মনোভাবাপন্ন লোক
জড়ভরত অকর্মণ্য, নিস্ক্রিয় নিরুদ্দম জড়বুদ্ধিসম্পন্ন ব্যক্তি (এমন জড়ভরতের মত বসে আছ কেন?)
জড়সড়১ ভীত ও আড়ষ্ট (ভয়ে সবাই জড়সড় হয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- জবুথবু
জড়সড়২ সঙ্কুচিত (ঠাণ্ডায় সবাই জড়সড় হয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- গুটিসুটি, গুড়িসুড়ি
জড়াজড়ি/জড়ামড়ি পরস্পর আঙ্গিলনাবদ্ধ- (শীতে সবাই জড়াজড়ি করে শুয়ে আছে)
জড়িপটি খাওয়া চলতে চলতে পা জড়িয়ে যাওয়া
জড়িবুটি গাছের শিকড়বাকড় থেকে তৈরী টোটকা ওষুধ
জতুগৃহ সহজদাহ্য ঘরবাড়ী
জনক-জননী-জননী পিতামাতাদের জন্মদাত্রী জন্মভূমি- ধরিত্রী (অয়ি নির্মল সূর্যকরোজ্জ্বল ধরনী, জনক-জননী-জননী'-রবীন্দ্রনাথ)
জনপদ/ জনবসতি লোকালয়
জনপ্রাণিহীন/জনমানবশূন্য নির্জন, জনবসতি নেই এমন
জনমত অধিকাংশ লোকের মত
জনমানব একজন মানুষও (এলাকাটা জনমানবশূন্য, অর্থাৎ এলাকাটাতে একজন লোকও বাস করে না)
জনরব/শ্রুতি কিংবদন্তি, গুজব, মুখেমুখে রটে-যাওয়া কথা
জনসাধারণ দেশের বিত্তহীন সম্প্রদায়; দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী
জনাকতক কয়েক জন (মিটিংয়ে জনা কতক হাজির হয়েছে)
জনা-জনা একজন একজন করে (জনা-জনা এগিয়ে এসো)
জনান্তিক নাটকে দর্শক বা চরিত্রের উদ্দেশে উচ্চারিত বক্তব্য যা দর্শক বা চরিত্র শুনতে পাচ্ছে না বলে ধরে নেওয়া হয়; স্বগোক্তি
জনান্তিকে একপার্শ্বে, গোপনে আলাপ, জনসমীপে কিন্তু আড়ালে/নেপথ্যে ('এখানে জনান্তিকে বলে রাখি সৃষ্টিকর্তার প্রসাদ সত্যিই আছে আমার চোখে'- রবীন্দ্রনাথ))
জনারণ্য বনে সন্নিবিষ্ট গাছের মত থিকথিক করছে লক, বহু লোকের একত্র অবস্থান
জনৈক অনির্দিষ্টি কোন একজন (জনৈক ব্যক্তি)
জন্ম-এয়োতি/এয়োস্ত্রী চিরসধবা নারী
জন্মকুণ্ডলী জন্মকালীন রাশিচক্র
জন্মগত সহজাত (জন্মগত দোষ)
জন্মজন্মান্তরে ইহজন্মে ও পরজন্মে; যতবার জন্ম হবে ততবার
জন্মে১ জন্ম থেকে, সারাজীবনে (জন্মেও একটা সত্য কথা বল'ল না)
জন্মে২ জন্ম হওয়ার পর ('জন্মেই দেখি ক্ষুব্ধ স্বদেশভূমি'- সুকান্ত ভট্টাচার্য)
জন্মের মত/শোধ চিরদিনের জন্য, শেষবার/শেষবারের মতো ('জন্মের শোধ ডাকিগো মা তোরে কোলে তুলে নিতে আয় মা'-শ্যামাসঙ্গীত)
জপ করানো/ জপানো ক্রমাগত পরামর্শ দিয়ে কার্যোদ্ধারের চেষ্টা করা (টাকার লোভ দেখিয়ে তাকে জপানো সম্ভব নয়)
জপতপ ঈশ্বরের উপাসনা; বারবার ঈশ্বরের নাম উচ্চারণ ও স্মরণ (জপতপ আমার আসে না)
জপমালা নিত্য/সর্বদা স্মরণীয় বিষয়বস্তু (টাকাই এখন তার জপমালা হয়েছে)
জবজব তেল/ঘিতে সিক্ত হওয়ার ভাব (চুল তেলে জবজব করছে)
জবরজং অসম্ভব ভারী এলোমেলো, বিশৃঙখল, বিসদৃশ, বেমানান (জবরজং পোষাক)
জবরজুলুম ভীষণ অত্যাচার, জবরদস্তি (পুলিশ ঘরে ঘরে বড় জবরজুলুম করছে)
জবরদস্ত দুর্দান্ত,অত্যন্ত বলবান (জবরদস্ত লোক)
জবরদস্তি জুলুমবাজি (জবরদস্তি করে সব কেড়ে নিয়েছে)
জবাই মুখ্য অর্থ- কোরাণের মন্ত্র উচ্চারণ করতে করতে ভোজ্যজীবের কণ্ঠচ্ছেদ; আলং- ধ্বংস, নাশ, হত্যা('এ গোঁফ যদি আমার বলিস করব তোদের জবাই'-সুকুমার রায়)
জবাকুসুমাসঙ্কাশং জবাফুলের মত (রক্তবর্ণ) (ওঁ জবাকুসুমসঙ্কাশং কাশ্যপেয়ং মহাদ্যুতিম্‌; ধ্বান্তারিং সর্বপাপঘ্নং প্রণতোহস্মি দিবাকরম্' প্রভাতী সূর্যপ্রণামমন্ত্র)
জবান১ প্রতিশ্রুতি (জবান দিলে রাখতে শেখো)
জবান২ বুলি, ভাষা (তোমার জবানের ঠিক নেই)
জবাব১ উত্তর (চিঠির জবাব দিও; 'জবাব চাই জবাব দাও' রাজনৈতিক শ্লোগান)
জবাব২ কৈফিয়ৎ (এর জবাবে তোমার কি বলার আছে?)
জবাব৩ চোপা করা (মুখে মুখে জবাব দেয়)
জবাব৪ ইস্তফা (সে কাজে জবাব দিয়েছে)
জবাবদিহি কারণ প্রদর্শন, কৈফিয়ৎ (এই ভুলের জন্য তোমাকে জবাবদিহি করতে হবে)
জবুথবু জড়ের মতো নিষ্ক্রিয় ও শক্তিহীন; নড়াচড়া করতে পারে না বা চায় না এমন; (অল্পবয়সেই সে জবুথবু হয়ে গেছে); সমার্থক বাগধারা- জড়সড়
জমকালো আড়ম্বরপূর্ণ, চটকদার (জমকালো অনুষ্ঠান)
জমজমাট উপভোগ্য, চিত্তাকর্ষক, জমজমে এবং সেইকারণে আকর্ষণীয়; (জমজমাট আড্ডা/আসর); সমার্থক বাগধারা- সরগরম
জমাখরচ আয়ব্যয়ের হিসাব
জমানা আমল, যুগ, শাসনকাল (জমানা বদল গয়া)
জমিজমা ভূসম্পত্তি ও মূলধন (আমার জমিজমা কিছুই নাই)
জমিজিরাত চাষের উপযোগী জমি, কৃষিজমি
জমিদারী খবরদারি, দাপট, মাতব্বরি (এখানে তোমার জমিদারী চলব না)
জম্পতি জায়া ও পতি, স্বামী ও স্ত্রী, মিথুনযুগল
জম্পেশ অতিশয় উপভোগ্য; খুব জমিয়ে করা কাজ (বিয়েবাড়ীতে জম্পেশ খাওয়াদাওয়া হল)
জম্বুক শিয়ালের মত ধূর্তলোক, সঙ্কীর্ণমনা লোক- গালিবিশেষ
জয়কেতু/জয়কেতে খোসামুদে, স্বার্থসিদ্ধির জন্য যখন যে জয়ী তার দিকে কাত; সবসময় বিজয়ীর পক্ষে; যে ব্যক্তি সবসময় স্বার্থসিদ্ধির জন্য গুনগান করে
জয়জয়কার সবার মুখে জয়ধ্বনি (সবাই তোমার জয়জয়কার করছে)
জরদ্গব মুখ্য অর্থ- জরাগ্রস্ত বৃষ; আলং অকর্মণ্য বৃদ্ধ; অথর্ব, নিস্ক্রীয়/নিস্পন্দ লোক
জরাজীর্ণ বার্ধক্যের জন্য দুর্বল ও অকর্মণ্য (জরাজীর্ণ শরীর)
জল দিয়ে জল বার করা শত্রুকে দিয়ে শত্রুনিধন করা
জল না গলা কৃপণতা
জলখাবার হালকা খাবার
জলগ্রহণ না করা সম্পর্ক না রাখা
জলচল যার ছোঁয়া জল খেতে বাধা নেই
জলজ্যান্ত জলে যেমন মাছ থাকে তেমন জলজিয়ন্ত; টাটকা, তাজা, অত্যন্ত স্পষ্ট, বিশুদ্ধ, খাঁটি, ডাহা ইত্যাদি
জলজ্যান্ত প্রমাণ অতি স্পষ্ট প্রমাণ
জলজ্যান্ত মিথ্যা একেবারে ডাহা মিথ্যা
জলজ্যান্ত সত্য একেবারে বিশুদ্ধ সত্য
জলদ-গম্ভীর গলা মেঘের গর্জনের মত গম্ভীর গলা
জলধর মেঘ, সমুদ্র
জলপান হালকা/জলখাবার
জলপানি১ জলযোগের পয়সা
জলপানি২ মেধাবীছাত্রবৃত্তি, ভালো ছাত্রকে প্রদত্ত আর্থিক পুরস্কার (স্যার আশুতোষ তাঁর বাবার কাছ থেকে নিত্য একটাকা করে জলপানি পেতেন)
জলবৎতরলং/ জলভাত অতি সহজ ব্যাপার (এই অঙ্ক আমার কাছে জলভাত)
জলবাতাস আবহাওয়া (এখানকার জলবাতাস স্বাস্থের পক্ষে ভালো); সমার্থক বাগধারা- জলহাওয়া
জলবায়ু কোন অঞ্চলের ৩০/৪০ বছরের গড় উষ্ণতা, আর্দ্রতা, বায়ুপ্রবাহ, বৃষ্টিপাত ইত্যাদি
জলবিয়োগ মুত্রত্যাগ
জলবিষুব সূর্যের দক্ষিণায়ন যাত্রাকালে বিষুবরেখা অতিক্রমের দিন (২২শে সেপ্টেম্বর)
জলযোগ হালকা জলখাবার
জলসত্র তীষ্ণার্ত পথিককে জল বিতরণের স্থান
জল সহা হিন্দু বিয়েতে প্রতিবেশীর বাড়ি থেকে জল এনে মঙ্গলকাজ সমাধা করা
জল হওয়া১ গলে যাওয়া (আইস্ক্রীম গলে জল হয়ে গেছে)
জল হওয়া২ রাগ পড়ে যাওয়া (রাগী মানুষটা হঠাৎ জল হয়ে গেছে)
জল হওয়া৩ বৃষ্টি হওয়া (কাল রাতে সামান্য জল হয়েছিল)
জল-হাওয়া আবহাওয়া (এখানকার জল-হাওয়া খুব মনোরম)
জলহীন জলাশয় অলীক কল্পনা, অসম্ভব ব্যাপার, যা হবার নয়; সমার্থক বাগধারা- বালিহীন বালিয়াড়ী
জলাঞ্জলি১ অপচয় (অকারণে টাকার জলাঞ্জলি দিও না)
জলাঞ্জলি২ সম্পূর্ণ পরিত্যাগ (ছেলে আমার পড়াশুনায় জলাঞ্জলি দিয়েছে)
জলে কুমির ডাঙায় বাঘ উভয়সংকট, প্রাণঘাতী, দুদিকেই বিপদ; সমতুল্য- এগুলে রাম পিছুলে রাবণ', 'এগুলে সর্বনাশ পিছুলে নির্বংশ', 'শাঁখের করাত, যেতে কাটে আসতেও কাটে', 'শ্যাম রাখি না কুল রাখি', 'সাপের ছুঁচো গেলা ইত্যাদি।
জলে জল বাঁধে পয়সাতে পয়স আসে
জলে জল মেশে সমপ্রকৃতির বস্তু মিলে যায়
জলে দেওয়া/ফেলা/যাওয়া অপচয় করা; নষ্ট করা; নষ্ট হওয়া
জলে পড়া বিপদে পড়া
জলের কুমির ডেকে আনা বিপদ ডেকে আনা
জলের ছিটে দিয়ে লগির গুঁতো খাওয়া বিপদ ডেকে আনা
জলের আলপনা/তিলক/দাগ ক্ষণস্থায়ী চিহ্ন; নশ্বর/ক্ষণস্থায়ী বস্তু
জলের দাম অতি সস্তাদর (জলের দামে বাড়ীটা কিনেছি)
জলের মত সহজবোধ্য/সাধ্য (অঙ্কটা জলের মত সহজ)
জল্পনাকল্পনা অনুমান, পরামর্শ (সব জল্পনাকল্পনার অবসান); সমার্থক বাগধারা- আলাপ-আলোচনা
জল্লাদ অতি নির্মম নিষ্ঠুর ব্যক্তি
জহুরি যে আসল/ভালো জিনিস চেনে, গুণগ্রাহী ব্যক্তি (জহুরি জহর চেনে)
জাঁকজমক আড়ম্বর ও উদ্যমের সাথে কাজ, ঐশ্বর্যের অহঙ্কার, জেল্লা, বিশেষ সমারোহ; সমার্থক বাগধারা- ঠাঁটঠমক, ঠাঁটবাট
জাঁতা/জাঁতিকলে পড়া লোভের বশে ফাঁদে পড়া
জাতক্রোধ আজন্মকাল ধরে ক্রোধ, বহু পুরোনো ও তীব্র ক্রোধ
জাত খাওয়া/খোয়ানো জাতি, ধর্ম বা সতীত্ব নষ্ট করা/হওয়া; সমার্থক বাগধারা- জাত মারা/যাওয়া
জাত তোলা জাতির উল্লেখ করে গালাগালি দেওয়া
জাতপাত ধর্ম বা বংশগত ভেদাভেদ (আমি জাতপাত মানি না)
জাতব্রাহ্মণ ব্রাহ্মণকুলে জন্মহেতু ব্রাহ্মণ
জাতভাই একস্বভাবের লোক, একই পেশার মানুষ, সমগোত্রীয়
জাত মারা/যাওয়া জাত খাওয়া/খোয়ানোর অনুরূপ
জাতশত্রু১ উৎপন্ন বা জাত হয়েছে যে শত্রুতা, যার অনেক শত্রু জন্মেছে
জাতশত্রু২ আজন্ম শত্রুতা, আসল শত্রু
জাতসাপ মুখ্য অর্থ- কেউটে, গোখরো ইত্যাদি বিষধর সর্প; আলং- তীব্র বিদ্বেষপূর্ণ মানিসকতার লোক
জাতিস্মর পূর্বজন্মের কথা স্মরণ করতে পাড়ে এমন
জাতে ওঠা/তোলা মর্যাদাবৃদ্ধির ফলে উচ্চ সমাজে স্থান পাওয়া/দেওয়া
জাতে ঠেলা সমাজচ্যুত করা
জাত্যভিমান উচ্চবংশের অহঙ্কার; সমার্থক বাগধারা- কুল/বংশগৌরব
জাদু করা মোহাবিষ্ট করা (সে আমায় যাদু করেছে)
জান কবুল প্রাণপণ চেষ্টা, প্রাণ দিতেও প্রস্তুত এমন (ইজ্জত রাখার জন্য জান কবুল)
জান কয়লা/খারাপ প্রচণ্ড ক্লেশে জীবন বিপর্যস্ত
জানবাড়ী কল্পিত ভবিষ্যৎবক্তার আবাস
জানাজানি পরস্পরের কাছ থেকে পরস্পরের জানা; সবার মাঝে রাষ্ট্র
জানান দেওয়া আগের থেকে জানিয়ে রাখা; আভাসে ইঙ্গিত করা; নিজের অস্তিত্ব জাহির করা (করোনা জানান দিচ্ছে যে সভ্যতা আজ মহাসঙ্কটে পড়েছে)
জানাশোনা আলাপ পরিচয়, আগের থেকে পরিচিত ( (জানাশোনা পথে পা বাড়ানো উচিত); সমার্থক বাগধারা- চেনাশোনা
জানেমন প্রিয়, জীবনসাথী
জানোয়ার অসভ্য, বর্বর, মনুষ্যত্বহীন ব্যক্তি (তোমার মত জানোয়ার জীবনে দুটি দেখিনি); সমার্থক বাগধারা- জঙলী
জান্নাতবাসী পরলোকগত
জান্নাতুল ফিরদৌস সর্বোচ্চ স্বর্গ
জাবর কাটা বিরক্তিকরভাবে একই কথা বারবার বলা
জামাই আদর প্রচুর আদরযত্ন
জামে/জুম্মামসজিদ যে মসজিদে শুক্রবারে দুপুরে জুম্মার নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়্
জামের খোসা ফেলে খাওয়া খুঁতখুঁতানি
জায়-বেজায় ন্যায়-অন্যায়, ভালমন্দ, বক্তব্য-অবক্তব্য
জায়গা জমি ভূসম্পত্তি (আমার জায়গাজমি কিছু নেই)
জায়ানুজীবী স্ত্রীর রোজগারে খায় এমন ব্যক্তি
জারিজুরি কূটবুদ্ধির প্রয়োগ, তেজ, দম্ভ, প্রভাব, প্রতিপত্তি, শক্তি ইত্যাদি (আর তোমার জারিজুরি খাটবে না)
জাল১ বন্ধন (মায়াজাল)
জাল২ ঝামেলা, ফাঁদ (অযথা জালে জড়িও না)
জাল গুটানো কর্মক্ষেত্রের পরিধি সঙ্কুচিত করা; কর্মক্ষেত্র থেকে প্রস্থান করা
জাল ছেঁড়া বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়া (জাল ছেঁড়া পোলো ভাঙামাছ)
জালছেঁড়া মাছ দুর্ধর্ষ লোক; বিপদ থেকে পরিত্রাণপ্রাপ্ত; সমার্থক বাগধারা-পোলো ভাঙামাছ
জাল দিয়ে বাতাস ধরা অসম্ভব কাজ; খোশগল্প
জালি কূটকচালে, প্রতারক, বাজে লোক, শঠ
জালিবোট জাহাজের সঙ্গে বাঁধা ছোট নৌকা
জালিয়াত অন্যের অবিকল নকলকারী, প্রতারক ('জাতের নামে বজ্জাতি সব জাত-জালিয়াত খেলছে জুয়া...'-নজরুল)
জালিম জুলুমকারী, নিষ্ঠুর প্রকৃতির লোক
জালে জড়ানো ঝামেলায় পড়া
জাসু অগ্রগণ্য, প্রধান (চোরের জাসু)
জাহাঁবাজ সু-অর্থে-দুর্দান্ত, বহুদর্শী, সর্বজ্ঞ; নিন্দার্থে- কুটবুদ্ধিসম্পন্ন, দজ্জাল, ধড়িবাজ ইত্যাদি (মহা জাঁহাবাজ লোক)
জাহাজ বিশাল আধার (বিদ্যের জাহাজ)
জাহাজের পাছে নঙ্গর/ জাহাজের সঙ্গে জালিবোট অপরিহার্য সঙ্গী
জাহান্নম ইসলাম শাস্ত্রানুযায়ী নরক, দোজখ (তুমি জাহান্নমে যাও)
জাহান্নমে যাওয়া অধঃপাতে/উচ্ছন্নে যাওয়া-গালিবিশেষ; সমার্থক বাগধারা- গোল্লায় যাওয়া
জাহির প্রচার, প্রদর্শন (বেশি বিদ্যা জাহির করতে হবে না)
জাহিল অজ্ঞ অশিক্ষিত ব্যক্তি, নির্বোধ
জিকির১ আল্লার নাম স্মরণ করা
জিকির২ একই কথার বারবার উচ্চারণ
জিগরি দোস্ত ঘনিষ্ট বন্ধু
জিগির উচ্চধ্বনি, জোর আওয়াজ (জিগির তোলা)
জিগির তোলা বিশেষ জোর দিয়ে বলা; দাবীর স্বপক্ষে আওয়াজ তোলা
জিতাক্ষর দুর্বোধ্য হস্তাক্ষর পাঠে দক্ষ
জিভ কাটা অপ্রতিভ/লজ্জিত হওয়া
জিভ বার করা ভেংচি কাটা
জিভ বার হওয়া প্রাণান্তকর পরিশ্রমে ক্লান্ত হওয়া;
জিভ সেলাই নিশ্চুপ (সব দেখছি, কিন্তু জিভ সেলাই করে বসে আছি)
জিভ সেলাই করে দেওয়া কিছু না বলার জন্য ভয় দেখানো
জিভে গজা জিভের আকৃতিবিশিষ্ট গজা
জিভে জল প্রলুব্ধ
জিভে দাঁতে সম্বন্ধ ভালমন্দের সম্পর্ক; দাঁতের অসুখে জিভ পাশে যায়, অথচ সুযোগ পেলেই দাঁত জিভকে কামড়ায়
জিমখানা খেলাধূলা ও ঘোড়দৌড়ের সুবিধাযুক্ত স্থান
জিলিপির প্যাঁচ অসরল ভাব, কুটিলতা, পেঁচোয়া মন
জিহ্বাকণ্ডুয়ন ঝগড়া করার জন্য চুলকানি
জীবদ্দশা আয়ুষ্কাল (জীবদ্দশায় তিনি যশস্বী হয়েছিলেন)
জীবনমরণ সমস্যা বেঁচে থাকা বা না-থাকা নির্ভর করে এমন কঠিন সমস্যা (জল পাওয়াটা এখন জীবনমরণ সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে)
জীবন্মৃত বেঁচে থেকেও মৃতপ্রায়, নির্জীব
জীবিকার্জন জীবনযাত্রার জন্য অর্থোপার্জন
জীয়নকাঠি এঁচে থাকার প্রেরণা
জীয়ন্তমাছে পোকা পড়ানো/পাড়ানো১ অসম্ভবকে সম্ভব করা
জীয়ন্তমাছে পোকা পড়ানো/পাড়ানো২ মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সুচরিত্রে কালিমা লেপন করা
জীয়ন্তে মরা দুঃখকষ্টে জীবন্মৃত
জুজুবুড়ি কল্পিত ভয়োৎপাদক পিশাচীর মূর্তি
জুতসই উপযুক্ত, ঠিকঠাক, সুবিধাজনক (খাওয়াটা জুতসই হ'ল না); সমার্থক বাগধারা- লাগসই
জুতা খাওয়া/মারা অপমানিত হওয়া/আপমান করা
জুতা সেলাই থেকে চণ্ডীপাঠ ছোটবড় সবধরনের কাজ
জুম্মামসজিদ যে মসজিদে শুক্রবারে দুপুরে জুম্মার নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়্
জুয়াচোর ধোঁকাবাজ, শঠ
জুলজুল চক্ষু মৃদু উজ্জ্বল চক্ষু (জুলজল করে তাকিয়ে আছে)
জেগে স্বপ্ন দেখা অবাস্তব আশা/কল্পনা করা
জেঠামি/জেঠানো অকালপক্কতা, ফাজলামো, প্রগল্ভতা, বাচালতা ইত্যাদি
জেনেশুনে সচেতনভাবে, সব বুঝে (সে জেনেশুনেই কাজটা করেছে)
জেরবার দেহ ও মনে পরিশ্রান্ত; নানা দুর্বিপাকে নাকাল, বিপর্যস্্‌ হীনবল (কাজের চাপে জেরবার হচ্ছি)
জেহাদ কোনো সৎ উদ্দেশ্যে প্রতিবাদ; ধর্মরক্ষার জন্য অধর্মযুদ্ধ; সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার লড়াই
জৈসা কা তৈসা যে যেমন তার তেমন
জোঁকের মুখে চূন/নূন উচিত কথা বলে উদ্ধত ব্যক্তিকে চুপ করানো
জো উপায়, পথ, সুযোগ (পালাবার কোন জো নেই)
জোগাড়যন্ত্র পরিপাটি করে উপকরণ সংগ্রহ ও কাজ সম্পাদনের ব্যবস্থা
জোট পাকানো ষড়যন্ত্র করা
জোট বাঁধা সঙ্ঘবদ্ধ হওয়া
জোটেবুড়ি মাথার চুল জট পাকিয়ে গেছে এমন অতি বৃদ্ধা; শিশুদের ভয়োৎপাদক কল্পিত মূর্তি
জোড়াতাড়া/তালি কোনরকমে কাজ চালানোর ব্যবস্থা (জোড়াতালি দিয়ে কাজ সেরেছি); সমার্থক বাগধারা- তাপ্পি মারা
জোড়া/জোড়ের পায়রা অন্তরঙ্গ বন্ধুদ্বয়; সমার্থক বাগধারা- জগাইমাধাই, হরিহর আত্মা ইত্যাদি
জোরকদম দ্রুতগতি
জোরজুলুম উৎপীড়ন, বলপ্রয়োগ
জোলো১ পানসে (জোলো স্বাদ)
জোলো২ অন্তসারশূন্য (জোলো বক্তৃতা)
জোশ উৎসাহ, উদ্দীপনা (তোমার কথায় ও জোশ পেয়েছে)
জো-হুকুম তোষামোদকারী
জ্ঞানগম্যি কাণ্ডজ্ঞান, সাধারণ জ্ঞান (বয়স তো হ'ল, আর জ্ঞানগম্যি কবে হবে?_
জ্ঞানচক্ষু অন্তর্দৃষ্টি (জ্ঞানচক্ষু উন্মিলিত হলে জানবে সব মায়া, মোহ, মিথ্যা)
জ্ঞান দেওয়া অবাঞ্ছিত অশোভন উপদেশ দেওয়া (তমাকে আর জ্ঞান দিতে হবে নয়া
জ্ঞানপাপী জেনেশুনে যে মিথ্যা কথা বলে
জ্ঞানবৃদ্ধ প্রচুর জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তি
জ্ঞানশূন্য অজ্ঞান, মূঢ় ব্যক্তি
জ্যালজ্যালে১ নিস্প্রভ (জ্যালজ্যালে রঙ)
জ্যালজ্যালে২ ছিদ্রযুক্ত (জ্যালজ্যালে কাপড়)
জ্যাঠা অকালপক্ক, ফাজিল (জয়াঠা ছেলে)
জ্বরজারি/জ্বালা জ্বর এবং আনুসঙ্গিক উপসর্গ (জ্বরজারিতে কাবু হয়ে পড়েছি)
জ্বলজ্বল দীপ্তিময় (পূব আকাশে শুকতারা জ্বলজ্বল করছে)
জ্বলন্ত আগুনে ঘি পড়া উত্তেজনা বৃদ্ধি করা
জ্বলন্ত উদাহরণ/নিদর্শন/প্রমাণ অতিস্পষ্ট/ একেবারে প্রত্যক্ষ প্রমাণ, জাজ্জ্বল্যমান দৃষ্টান্ত;
জ্বালানো জ্বালাতন করা (সকলকে আর জ্বালিও না)
জ্বালামুখ আগ্নেয়গিরির মুখ

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঝকঝক/ঝকমক ঔজ্জ্বল্যের ভাব (পাওয়ার আনন্দে চোখ ঝকমক করে উঠলো)
ঝকঝকে-তকতকে তৈজসের মত উজ্জ্বল এবং জলের মত স্বচ্ছ (ঝকঝকে-তকত্কে থালাবাসন)
ঝক মারা১ কাজে ব্যর্থ হওয়া
ঝক মারা২ দোষ ত্রুটি স্বীকার করা
ঝক মারা৩ বোকামি করা, মুর্খের মত কাজ করা
ঝকমারি অনুশোচনায়- ত্রুটি, দোষ, ভুল (তোমার উপকার করতে যাওয়াই আমার ঝকমারি হয়েছে)
ঝকমারির মাশুল ভুলের দণ্ড; সমার্থক বাগধারা- আক্কেলসেলামী
ঝক্কি উপদ্রব, ঝঞ্ঝাট, ঝামেলা, সঙ্কটপূর্ণ দায়িত্ব (ঝক্কি সামলানো দায়)
ঝগড়াঝাঁটি নিজেদের মধ্যে হওয়া কলহ, তর্কাতর্কি (কোন ঝগড়াঝাঁটিতে জড়াবে না); সমারথক বাগধারা- বাকবিতণ্ডা, বাদবিসম্বাদ ইত্যাদি
ঝটপট১ অতি শীঘ্র, খুব তাড়াতাড়ি (ঝটপট কাজ সারো); সমার্থক বাগধারা- চটপট, ঝপাঝপ
ঝটপট২ পাখির ডানা নাড়ার শব্দ (পাখির ঝটপট)
ঝটাপটি পরস্পর জড়াজড়ি, হাতাহতি (বাচ্চাগুলি কাদায় ঝটাপটি করছে)
ঝড়ঝাপটা বিপদ আপদ, বাধাবিপত্তি (জীবনে অনেক ঝড়ঝাপটা বয়ে গেছে)
ঝড়তিপড়তি ছোটখাটো অংশ, যৎসামান্য (আমার ভাগে ছিল কিছু ঝড়তিপড়তি)
ঝড়বাদল/বৃষ্টি/তুফান দুর্যোগপুর্ণ আবহাওয়া (এই ঝড়বাদলে কেউ বাইরে বেরিয়ো না)
ঝড়ো কাক বিপর্যস্ত ব্যক্তি
ঝঞ্ঝাট পোহানো/সামলানো কষ্ট সহ্য করা
ঝপাঝপ খুব তাড়াতাড়ি (সবাই ঝপাঝপ স্নান কর); সমার্থক বাগধারা- ঝটপট
ঝর ঝরে১ অঝোরে ঝরে (বরষার বাদল অঝোরে ঝরে' রবীন্দ্রনাথ)
ঝরঝরে২ তাজা হালকা (আজ শরীরটা বেশ ঝরঝরে লাগছে)
ঝরঝরে৩ পরিষ্কার, পরিচ্ছন্ন (ঝরঝরে হাতের লেখা)
ঝরঝরে৪ গোটাগোটা ও শক্ত (ঝরঝরে ভাত)
ঝরঝরে৫ বিদ্রুপার্থে- ঝাঁঝরা, নষ্ট (পরকাল ঝরঝরে)
ঝরাপাতা শুস্ক জীর্ণশীর্ণ লোক; অপাংক্তেয়, বাতিলের দলে ('ঝরাপাতাগো আমি তোমারি দলে'-রবীন্দ্রনাথ)
ঝরো ঝরো অবিরাম বৃষ্টি পরার শব্দ ('আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদর দিনে রবীন্দ্রনাথ)
ঝলসাকানা সুর্যের দিকে চেয়ে যার আর্ধেক চোখ গেছে
ঝলমল উজ্জ্বল আলো (ভোরের আকাশ আ্লোয় ঝলমল করছে)
ঝাঁকের কই একদলভুক্ত, সমগোত্রীয় (ঝাঁকের কই ঝাঁকে ফিরে এসেছে)
ঝাঁ ঝাঁ১ তীব্র উত্তাপের ভাব (রোদ ঝাঁ ঝাঁ করছে)
ঝাঁ ঝাঁ২ নিস্তবতার ভাব )
ঝাঁ ঝাঁ৩ খুব তাড়াতাড়ি (ঝাঁ ঝাঁ করে কাজ শেষ করল)
ঝাঁ ঝাঁ৪ যন্ত্রণাবোধ (মাথাটা ঝাঁ ঝাঁ করছে)
ঝাঁকি দর্শন১ অল্প সময়ের জন্য দেখা (জগন্নাথদেবের ঝাঁকি দর্শন)
ঝাঁকি দর্শন২ লুকিয়ে দেখা
ঝাঁঝরাচোখ যে চোখে অল্পেই জল্প আসে (ঝাঁঝরাচোখে আমাকে ফাঁকি দিতে পারবে না)
ঝাঁটাখেকো ঝাঁটার বাড়ি খেতে অভ্যস্ত, হীনব্যক্তি- গ্রাম্য মেয়েলী গালিবিশেষ
ঝাঁপ খোলা/বন্ধ দোকান খোলা/বন্ধ
ঝাড় অশালীন তিরস্কার, বকুনি (এমন একটা ঝাড় দেব না, মালুম পাবে)
ঝাড়পোঁছ ঘরদোর পরিষ্কার করা (ঘরটা ঝাড়পোঁছ করতে হবে)
ঝাড়ফুঁক রোগ সারাতে মন্ত্র পড়ে গায়ে ফুঁ দেওয়ার সংস্কার
ঝাড়বংশ গোষ্ঠী, বংশের সকলে, সমূলে (ঝাড়বংশে নিপাত যা- গালি হিসাবে উক্তি)
ঝাড়া১ উজাড় করা (ঝুলি ঝাড়া)
ঝাড়া২ অবরাম, একটানা (ঝাড়া দুঘণ্টা বকে গেলো)
ঝাড়া৩ চুরি করা (ঝাড়া মাল)
ঝাড়া৪ পরিষ্কার করা (ঝাড়া মসলা)
ঝাড়া৫ বাছাই করা (ঝাড়া পান)
ঝাড়া৬ সম্পূর্ণ (ঝাড়া একঘণ্টা বক্তৃতা দিল; ঝাড়া মুখস্থ)
ঝাড়া৭ ঝুটঝামেলা থেকে মুক্ত; নির্ঝঞ্ঝাট (ঝাড়া হাত পা)
ঝাড়েবংশে/মূলে সবশুদ্ধ, সম্পূর্ণরূপে (শয়তানের দলকে ঝাড়েবংশে নিশ্চিহ্ন করতে হবে)
ঝাড়ের দোষ বংশে্র দোষ
ঝাল খাওয়া (পরের মুখে) পরের মুখে শোনা নিন্দা মেনে লওয়া
ঝাল ঝাড়া/মেটানো কড়া কড়া কথা বলে মনের আক্রোশ মেটানো, ক্রোধ উপশম করা (কড়া কড়া কথা বলে মনের ঝাল মিটিয়ে নিয়েছি)
ঝালানো১ সংস্কার করা (সম্প্রতি পুকুরটা ঝালাই করা হয়েছে)
ঝালানো২ অভ্যাস/মকশো/রপ্ত করা, পুরানো সম্পর্ক পুনরুজ্জীবিত করা (পরিচয়টা নতুন করে ঝালিয়ে নিলাম)
ঝালাপালা কানে তালা লাগা শব্দ (ডিজের গানে কান ঝালাপালা হচ্ছে)
ঝালে, ঝোলে, অম্বলে সব ব্যাপারে, সব যায়গায়, সর্বঘটে (অত ঝালে ঝোলে অম্বলে থাকার কি প্রয়োজন?)
ঝালে ঝোলে এক করা যাদের আলাদা থাকা উচিৎ তাদের ভুল করে এক করা
ঝালের ঝোল নিরামিষ ঝোল
ঝিঁঝিঁ ধরা ঝিমঝিম করার ভাব (দুপায়ে ঝিঁঝিঁ ধরেছে)
ঝিঁকে মারা হেঁচকে হেঁচকে চলা
ঝিকমিক/ঝিকিমিকি ক্ষণে আলো ক্ষণে ম্লান (রাতের আকাশে তারা ঝিকমিক করছে)
ঝিকুর (=ঘিলু) নড়া মাথা খারাপ হওয়া (বুড়োর ঝিকুর নড়েছে)
ঝিকে মেরে বৌকে শেখানো একজনকে বকে অন্যকে আভাসে-ইঙ্গিতে শেখানো; পরের উপর রাগ করে আপনজনকে শ্বাসটি দিয়ে মনের ক্ষোভ মেটানো)
ঝিঙে ফোঁকা আয়ু ফুরিয়ে আসা
ঝিনুক দিয়ে পুকুরসেচা অল্প পরিশ্রমে বিরাট কাজ, অসাধ্যসাধন, উচ্চাশা ইত্যাদি; সমার্থক বাগধারা- কলার ভেলায় সাগরপার, খড়মপায়ে গঙ্গাপার, নরুণে তালগাছ কাটা, মুড়া কোদালে দিঘিকাটা ইত্যাদি
ঝিরঝির/ ঝিরঝিরে হালকা বৃষ্টির শব্দ, ধীরগতিতে বওয়ার ভাব (ঝিরঝির বৃষ্টি; ঝিরিঝিরে বাতাস বইছে)
ঝিলমিল/ঝিলিমিলি মিট্মিটে মৃদুআলো ('সন্ধ্যারাগে ঝিলিমিলি ঝিলমের স্রোতখানি বাঁকা'-রবীন্দ্রনাথ)
ঝুট-ঝামেলা অবাঞ্ছিত/ফালতু ঝগড়া (আমি কোন ঝুটঝামেলায় জড়াই না)
ঝুটমুট অকারণে, ফালতু (ঝুটমুট ঝামেলা করা); সমার্থক বাগধারা-মিছিমিছি
ঝুড়িঝুড়ি প্রচুর পরিমাণে (ঝুড়িঝুড়ি মিথ্যা কথা বলার স্বভাব)
ঝুরঝুরে আলগা ও শুস্ক (ঝুরঝুরে মাটি)
ঝুলনযাত্রা শ্রীকৃষ্ণের দোলোৎসব
ঝুলাঝুলি জেদাজেদি, পীড়াপিড়ি, সনির্বন্ধ অনুরোধ (তাঁকে নিয়ে যাবার জন্য কি ঝুলোঝুলি)
ঝুলিঝাড়া অকিঞ্চিতকর, যৎসামান্য
ঝুলি ঝাড়া রিক্তহস্ত হওয়া
ঝুলি নেওয়া (কাঁধে) ভিক্ষা করতে বার হাওয়া
ঝেঁটিয়ে বিগায় করা দূর দূর করে তাড়িয়ে দেওয়া (দলে যত আবর্জনা জমেছে তা ঝেঁটিয়ে বিদায় করতে হবে)
ঝেঁপে/ঝেড়ে দেওয়া (অশালীন) আত্মসাৎ করা, চুরি করা (আমার বইটা ঝেঁপে দিয়েছে); সমার্থক বাগধারা- মেরে দেওয়া
ঝেড়ে কাশা সমস্ত খুলে বলা; কোন কিছু গোপন না করে আসল উদ্দেশ্য ব্যক্ত করা
ঝেড়ে ফেলা দূর করা, নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া, মুছে ফেলা সরিয়ে দেওয়া (সব দুশ্চিন্তা মন থেকে ঝেড়ে ফেলো)
ঝোপ বুঝে কোপ মারা সুযোগ ও অবস্থা বুঝে ব্যবস্থাগ্রহণ (একটু অপেক্ষা করছি, ঝোপ বুঝে কোপ মারবো)
ঝোলানো অস্বস্তিতে/বিপদে ফেলা (বিশ্বাস করে তোমাকে দায়িত্ব দিলাম, ঝোলাবে না)
ঝোলে অম্বলে এক করা যাদের আলাদা থাকা উচিৎ তাদের এক করা অনুচিত

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
টইটম্বুর মুখ্য অর্থ- তুম্ববৎ স্ফীত; টই=ঘরের চালের মটকা এবং তুম্ব=লাউয়ের শুকনো খোল; আলং- কানায় কানায় পূর্ণ। পরিপূর্ণ (জল খেয়ে পেট টইটম্বুর; জলে পুকুর টইটম্বুর; রসে লিচুগুলি টইটম্বুর ইত্যাদি)
টং/টঙ১ অতি ক্রুদ্ধ (রেগে টং হয়ে আছে)
টং/টঙ২ পায়রার উচ্চখোপ, সর্বোচ্চ স্থান (টং-এ উঠে বসে আছে)
টংয়স্‌টংয়স্‌ চলার সময় ঠ্যাঙে ঠ্যাঙে লাগার ভাব (ট্যাঁঙ্‌স ট্যাঁঙ্‌স দ্রষ্টব্য)
টক করে নিমেষের মধ্যে (টক করে ওষুধটা খেয়ে ফেল)
টকটকে তীব্র উজ্জ্বলতার ভাব (টকাটকে লাল রঙ)
টকাটক করে ক্রমাগত অতি দ্রূততার সাথে (টকাটক মুখে ফেলছে আর গিলছে); সমার্থক বাগধারা- টপাটপ
টকো হাড় স্পষ্টবাদী
টক্কর খাওয়া ঠোকর/হোঁচট খাওয়া (পথ চলতে টক্কর খাওয়ার অর্থ জীবনে শিক্ষা লাভ করা)
টক্কর দেওয়া পাল্লা দেওয়া, সমানে সমানে যুঝে যাওয়া (তাকে টক্কর দেওয়া তোমার দ্বারা সম্ভব নয়)
টক্করাটক্করি করা টক্কর দেওয়া, পরস্পর প্রতিদ্বন্দ্বিতা (দুইজনে খুব টক্করাটক্করি চলছে)
টগবগিয়ে উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে (টগবগিয়ে সে এগিয়ে চলেছে)
টগরবোষ্টমী ঘর করে অথচ ঘরণী নয়; জাত-না-খোয়ানো বজ্জাত নারী
টগরা চটপটে, চালাকচতুর (বেশ টগরা ছেলে)
টগেটগে চলা সতর্কতার সাথে পা ফেলা
টঙ/টং১ অতি ক্রুদ্ধ, আস্ফালন (রেগে টঙ)
টঙ/টং২ সর্বোচ্চ স্থান (টঙ্গে বসে আছে)
টঙ্ক আস্ফালন, ক্রোধ (কেবল মুখেই যত টঙ্ক)
টনক নড়া চৈতন্য/হুঁশ হওয়া, বুঝে ওঠা; হঠাৎ মনে পড়া (এতক্ষণে তোমার টনক নড়ল?)
টনটনানি বেদনার ভাব (বাতের টনটনানি)
টনটনে বিদ্রূূপে- গভীর, তীক্ষ্ণ, পাকা, মজবুত (বেশ টনটনে জ্ঞান আছে)
টনিক উদ্দীপক, বলকারক ওষুধ, মনে জোর বাড়ায় এমন বস্তু (টাকা টনিকের কাজ করে)
টপ-টপ/টপাটপ ক্রমাগত ও অতি দ্রুত (টপ টপ করে খেয়ে নেও); সমার্থক বাগধারা- টকটক/টকাটক
টপ্পা মারা গলপগুজব করে সময় কাটানো
টরটরে১ দ্রুত চলার ভাব (টরটরে লাট্টু)
টরটরে২ দ্রুত বলার ভাব (টরটরে ছেলে)
টরটরে ছেলে কথাবার্তায় খুব চালাকচতুর, চটপটে, সপ্রতিভ
টলটল/টলবল/টলমল অস্থির, কম্পমান, বিক্ষিপ্ত (টলটল করে জল মৃদুমন্দ বায়)
টলটলে পরিস্কার স্বচ্ছ (টলটলে জল)
টলা১ অন্যথা হওয়া (আমার ক্থা টলে না)
টলা২ কম্পিত হওয়া (পা টলে তো বাত টলে না)
টলা৩ বিচলিত হওয়া (কিছুতেই আমার মন টলে না)
টয়ে বাঁধা মুখ্য অর্থ- ছাতার অভাবে যে ব্যক্তি মাথায় কাপড় বেঁধে বেড়ায়; গৌণ অর্থ- অতি দরিদ্র ব্যক্তি
টসটস১ ফোঁটাফোঁটা (টসটস করে চোখের জল ফেলছে)
টসটস২ রসে পরিপূর্ণ (আমগুলি পেকে টসটস করছে)
টাঁশটাঁশ কঠোর, কর্কশ (আগে না নোয়ালে বাঁশ পাকলে করে টাঁশটাঁশ- প্রবাদ)
টাঁশা/টাঁসা বিদ্রুপে- মারা যাওয়া (বুড়োটা টেঁশেছে)
টাইট দেওয়া জব্দ/ঢিট/শায়েস্তা করা (লোকটার বড় বাড় বেড়েছে, একটু টাইট করে দিতে হবে)
টাইপ ধরন, প্রকার (বড় বদ টাইপের লোক)
টাইম অবকাশ, সময় (একটুও নিঃশ্বাস ফেলার টাইম নেই)
টাইম-বাঁধা নির্দিষ্ট সময় ধরে (টাইম-বাঁধা খাওয়াদাওয়া)
টাঁক করা প্রতীক্ষা করা (টাঁক করে আছি কখন পাবো)
টাকা ওড়ানো দুহাতে টাকা খরচ করা; অপব্যয় করা
টাকা করা/কামানো উপার্জন/সঞ্চয় করা
টাকা খাওয়া ঘুষ নেওয়া (সুযোগ পেলে সবাই টাকা খায়)
টাকা খাটানো অর্থ বিনিয়োগ করা
টাকা জমানো সঞ্চয় করা
টাকা মারা অর্থ আত্মসাৎ করা
টাকাওয়ালা/টাকার মানুষ অর্থশালী ব্যক্তি
টাকাকড়ি/পয়সা নগদ অর্থ, ধনদৌলত
টাকাটা সিকিটা খুব সামান্য পরিমাণ অর্থ (টাকাটা সিকিটা যা পাই তাতেই চলে)
টাকার আণ্ডিল/কুমির প্রচুর অর্থের মালিক
টাকার গরম বিত্তের অহঙ্কার
টাকার ভাঙানি বড় নোটের পরিবর্তে ছোট নোট
টাকার মানুষ ধনী, বিত্তশালী
টাকার মুখ দেখা অর্থলাভ করা; অর্থোপার্জনে সক্ষম হওয়া
টাকার শ্রাদ্ধ অপরিমিত অর্থের অপব্যয় (আজকাল বিয়েবাড়ীর অনুষ্ঠানে টাকার শ্রাদ্ধ হয়)
টাটানো (চোখ) ঈর্ষান্বিত হওয়া (অন্যের সুখে কারো কারো চোখ টাটায়)
টান১ অভাব (অর্থের টান)
টান২ অত্যধিক চাহিদা (বাজারে ডিমের টান আছে)
টান৩ আকর্ষণ (স্নেহের টান)
টান৪ আসক্তি, মমতা (নাড়ীর টান)
টান৪ ধোঁয়া মুখে (বিড়ির টান)
টান৫ বিশেষ ঢঙ (কথায় হিন্দী টান)
টান৬ দেমাক (কথায় টান আছে)
টান ওঠা হাঁপানি (টান উঠেছে)
টান করা সোজা করা (চাদর টান কর)
টান পড়া সরবরাহে অভাব হওয়া (বাজারে মাছের টান পড়েছে)
টান মেরে ফেলা ছুঁড়ে ফেলা (সব টান মেরে ফেলে দেবো)
টানটান আঁট-সাঁট, চড়া আকর্ষণ, শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা (নাটকে টান টান উত্তেজনা)
টানা১ মদ খাওয়া (লোকটা আজ খুব টেনেছে)
টানা২ প্রচুর খাওয়া (ভোজবাড়িতে গিয়ে প্রচুর টেনেছ মনে হচ্ছে)
টানা৩ ধুমপান করা (বিড়ি টানা)
টানা৪ নিরবিচ্ছিন্ন (টানা লেখা)
টানা৫ পক্ষপাতী হওয়া (কারো দিকে টেনে কথা বলার প্রয়োজন নেই)
টানা৬ ব্য়য় সঙ্কোচ করা (সংসার টেনে চলছে)
টানা জাল একসঙ্গে বহু মাছ ধরার জন্য পুকুর ইত্যাদির মধ্যে দিয়ে টেনে নিয়ে যাওয়া বড় জাল
টানা টানা চোখ আয়তনেত্র
টানা টানা কথা তির্যক কথাবার্তা
টানা টানা লেখা বাঁকা হাতের লেখা)
টানাটানি অভাব, অনটন (টানাটানির সংসার)
টানাপোড়েন মুখ্য অর্থ- কাপড়ের লম্বা দিকের সূতা এবং আড়ের দিকের সূতা; আলং- বিরক্তিকর আসা-যাওয়া (সংসারের টানাপোড়েনে দমবন্ধ হওয়ার অবস্থা)
টানাবুনা টেনে বুনার ভাব; ব্যয়সঙ্কোচ (টানাবুনায় সংসার চলে)
টানা মাল চোরাই করা জিনিস
টানা রাস্তা সোজা রাস্তা
টানাহেঁছা/হ্যাঁচড়া জোরাজুরি করা; জোর করে কাজ করার চেষ্টা (অকারণে পুলিশে টনা হেঁছা করছে)
টায় টায়/টায়-টোয়/ টায়ে টায়ে কোনোরকমে; ঠিক ঠিক; না কম না বেশি; যতটা আবশ্যক ততটা (টায়-টায় পাশ করেছে)
টায়ে টায়ে মিলিয়ে দেওয়া যেমন তেমন করে গোঁজামিল দেওয়া
টালবাহানা 'করছি করব' মনোভাব, দেরী, দীর্ঘসুত্রতা, মিথ্যা ওজর (টালবাহানা করে কাজের দেরী হল); সমার্থক বাগধারা-অজুহাত, অগর-মগর, গড়িমসি
টালমাটাল অস্থিরতা, নড়বড়ে, বিপর্যয়কর অবস্থা (ব্যবসায়ে এখন টালমাটাল অবস্থা চলছে)
টাল সামলানো কোনমতে ধাক্কা সামলানো; বিপদমুক্ত হওয়া (এই যাত্রায় কোন মতে টাল সামলেছি)
টালাটালি নাড়ানাড়ি; বারবার নড়চড় (বেশি কথা টালাটালি করা ভাল না)
টিউশনি গৃহশিক্ষকতা করা (টিউশনি করে পেট চালাই)
টিকটিক ক্রমাগত মৃদু আপত্তি করার ভাব (এত টিকটিক করলে লোকে বিরক্ত হবেই); সমার্থক বাগধারা- খিটখিট
টিকটিকি বিদ্রূপে- গোয়েন্দা, ডিটেকটিভ (পিছনে টিকটিকি লেগেছে)
টিকটিকি পড়া অমঙ্গলসূচক টিকটিক শব্দ বা টিকটিকির ডাক হওয়া; কোন শুভকাজে অগ্রসর না হওয়ার ইঙ্গিত হওয়া
টিকি চুটকি, চৈতন্য (মাথা আছে টিকি নাই)
টিকি দেখতে পাওয়া উপস্থিত আছে তার নিদর্শন পাওয়া; কদাচিৎ দেখতে পাওয়া (তোমায় হন্নে হয়ে খুঁজছি, অথচ তোমার টিকির দেখা নাই)
টিকির দেখা নেই কৌতুকে- মোটেই দেখতে না পাওয়া, সম্পূর্ণ অদর্শন (হন্যে হয়ে খুঁজছি, অথচ তোমার টিকির দেখা নেই)
টিকি-বাঁধা স্বার্থের কারণে আবদ্ধ (মালিকের কাছে আমার টিকি বাঁধা)
টিকে থাকা কোন প্রকারে বেঁচে থাকা; ব্যবসা বজায় রাখা (কোনভাবে খেয়ে পরে টিকে আছি)
টিন-টিন অতিশয় কৃশতার ভাব (রোগা টিনটিনে ছেলে)
টিপ-টিপ ভয় বা বেদনার জন্য মৃদুস্পন্দনভাব (ভয়ে বুক টিপ-টিপ করছে)
টিপ-টিপ করে/ টিপিটিপি আস্তে আস্তে, ধীরে ধীরে (টিপি-টিপি বৃষ্টি পড়ছে)
টিপ্পনী কাটা অন্যের কথার মধ্যে অনাবশ্যক মন্তব্য করা; কথাবার্তার মধ্যে বিদ্রুপাত্মক মন্তব্য করা (কথায় কথায় টিপ্পনী কাটে); সমর্থক বাগধারা- ফোড়ন কাটা
টিফিন১ অপরাহ্নের বিরতি (টিফিন টাইমে তোমার সাথে দেখা করব)
টিফিন২ অপরাহ্নের জলযোগ (সঙ্গে টিফিন রাখবে)
টিমটিম করা১ অতিকষ্টে অস্তিত্ব বজায় রাখা (টিমটিম করে ব্যবসাটা চলছে)
টিমটিম করা২ ক্ষীণভাবে জ্বলা (বাতিটা টিমটিম করছে)
টুঁ শব্দ করা প্রতিবাদ করা (অপশাসনের বিরুদ্ধে টুঁ শব্দ করা লোক কমে গেছে)
টুঁ শব্দ না করা প্রতিবাদ না করে সম্পূর্ণ চুপচাপ থাকা (টুঁ শব্দ না করে শুধু দেখে যাও)
টুঁটি চাপা/টেপা কিছু বলতেঁ না দেওয়া; বাকস্বাধীনতা হরণ করা (তুমি বল নাই, শুধু শ্বেতদ্বীপে জোগাইবে আলো রবি-শশী-দীপে, সাদা র'বে সবাকার টুঁটি টিপে- নজরুল)
টুকটাক/টুকিটাকি অল্প, সামান্য, হালকা (টুকটাক জিনিস কেনা বাকি আছে)
টুকটাক করে এদিক ওদিক করে, কষ্টেসৃষ্টে (টুকটাক করে সংসারটা চলছে)
টুকটুক ঘোর লাল; সুন্দর লাল (ঠোঁটটা টুকটুক করছে)
টুকিটাকি/টুকটাক অল্প অল্প, একটু-আধটু, যৎসামান্য, সামান্য অংশ (টুকিটাকি কাজ বাকি আছে)
টুপভুজঙ্গ নেশায় চুর/বুঁদ (মদ খেয়ে টুপভুজঙ্গ হয়ে পড়ে আছে)
টুপি পড়ানো অন্যায় কাজে রাজী করানো, বোকা বানানো; লোভ দেখিয়ে কাজ হাসিল করা (ওকে টুপি পড়ানো সহজ হবে না)
টুমটাম করে অল্পব্যয়ে, সামান্যভাবে (টুমটাম করে অনুষ্ঠানটা সারছি)
টুলো পণ্ডিত মুখ্য অর্থ- টোলে শিক্ষাপ্রাপ্ত পণ্ডিত; ব্যঙ্গে- পুঁথিগত বিদ্যাসাগর যার শিক্ষা সেকেলে এবং ব্যাবহারিক জগতে অচল (টুলো পণ্ডিতির দিন শেষ)
টুস্কির মাল টেকঁসই নয়; বাজে জিনিস, টুস্কি দিলেই ভেঙে যাবে, এমন ক্ষণভঙ্গুর (সস্তায় কেনা জিনিস টুস্কির মাল হয়)
টেঁক টাকা রাখার জায়গা (পকেটমার টেঁক কেটে পয়সা মারে); সমার্থক বাগধারা- ঘাঁট
টেকটেকে কর্কশ, রুক্ষ (টেকটেকে কথা)
টেঁকে গোঁজা আত্মসাৎ করা; তুচ্ছজ্ঞান করা; অবলীলাক্রমে সম্পূর্ণ কাবু করা (তোমায় আমি টেঁকে গুজি)
টেকসই ঠিক সয়ে যাবে, পাকা, মজবুত, স্থায়ী (টেকসই লাঠি)
টেক্কা দেওয়া পাল্লা দেওয়া; প্রতিযোগিতায় করা
টেক্কা মারা টেক্কা তাসের শ্রেষ্ঠকার্ড; মুখ্য-অর্থে শ্রেষ্ঠ চাল দেওয়া; আলং- প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ হওয়া
টেড়িমেড়ি করা ক্রুদ্ধ হওয়া, অসদাচরণ করা (বেশি টেড়িমেড়ি করো না)
টেণ্ডাইমেণ্ডাই গরম মেজাজ, সক্রোধ আস্ফালন (এখানে তোমার টেণ্ডাইমেণ্ডাই চলবে না)
টেনে টেনে বলা কথা ধীর লয়ে কথা বলা
টেনে বলা কথা একজনের পক্ষ নিয়ে কথা বলা (কারো পক্ষে টেনে কথা বলার প্রয়োজন নেই)
টেনেটুনে/ টেনেবুনে অনেক কষ্টে (টেনে টুনে সংসার চলে); সমার্থক বাগধারা- কষ্টেসৃষ্টে, মেরেকেটে
টেপাটেপি করা (গা) আকারে ইঙ্গিতে কথা বলা (গা টেপাটেপি করে কি কথা বলাবলি হচ্ছে?)
টেরিয়ে যাওয়া বিস্ময়ে হতবাক হওয়া; বোকা বনে যাওয়া (তার সাফল্যে সবাই টেরিয়ে গেছে); সমার্থক বাগধারা-ট্যারা বনে যাওয়া
টোটকা ওষুধ বিধিবদ্ধ ওষুধের তালিকাবহির্ভূত ওষুধ; গাছ-গাছড়ায় তৈরী ওষুধ (গরীবে টোটকা ওষুধে নির্ভর করে)
টোটো করা উদ্দেশ্যবিহীনভাবে এদিক-ওদিক ঘুরে দেড়ানো (সারাদিন কোথায় টোটো করে ঘুরে বেড়াচ্ছ?)
টোপ প্রলোভনের সামগ্রী (টোপ ফেলে মাছ ধরে)
টোপ গেলা/ফেলা প্রলোভনে আকৃষ্ট হওয়া/করা
ট্যাঁক- কোমরে কাপড় (ট্যাঁকে গোজা); সমার্থক বাগধারা- গাঁট
ট্যাঁক-ট্যাঁকে / ট্যাক-ট্যাকে কর্কশ, ধৃষ্টতাপূর্ণ, মর্মভেদী (ট্যাক-ট্যাকে কথা) সমার্থক বাগধারা- ক্যাঁটক্যাঁটে, চ্যাটাং-চ্যাটাং ইত্যাদি
ট্যাঁকে গোঁজা মুখ্যঅর্থ- কোমরের কাপড়ের মধ্যে গুঁজে রাখা; গৌণঅর্থ- সম্পূর্ণ আত্মসাৎ করা; অনায়াসে আয়ত্তে আনা (সবাইকে আমি ট্যাঁকে গুজি)
ট্যাঁঙ্‌ ট্যাঁঙ্‌ করে চলা অশোভন পদক্ষেপে চলা
ট্যাঁঙ্‌স ট্যাঁঙ্‌স চলার সময় ঠ্যাঙে ঠ্যাঙে লাগার ভাব
ট্যাঁঙ্‌স ট্যাঁঙ্‌স করে চলা ধীর পদক্ষেপে লক্ষ্যহীনভাবে চলা (ট্যাঁঙ্‌স ট্যাঁঙ্‌স করে এদিক ওদিক ঘুরে বেড়াচ্ছে)
ট্যাঁফোঁ উচ্চবাচ্য, ক্ষীণতম প্রতিবাদ, জারিজুরি (এখানে কোন ট্যাঁফোঁ চলবে না)
ট্যাঁস দো-আঁশলা জাতি, ফিরিঙ্গি
ট্যারা বনে যাওয়া চোখ ট্যারা হয়ে যাওয়া; বিস্ময়ে হতবাক হওয়া; (তার সাফল্যে সবাই ট্যারা বনে গেছে); সমার্থক বাগধারা- টেরিয়ে যাওয়া

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় ভালমন্দের বিচারে মন্দই বেশী; মন্দলোকের ভিড়ে ভাললোক খুঁজে পাওয়া অসম্ভব
ঠকঠকানো অভাব/রিক্ততা প্রকাশ করা (ভাঁড়ে তোর নেইকো ঘি ঠকঠকালে হবে কি?-প্রবাদ)
ঠনঠন ফাঁকা, শূন্যতাবোধক (পকেট ঠনঠন); সমার্থক বাগধারা- গড়ের মাঠ
ঠাঁই আশ্রয়, যায়গা (ঠাঁই নাই ঠাঁই নাই ছোট্ট সে তরী আমারি সোনার ধানে গিয়েছে ভরি- রবীন্দ্রনাথ); সমার্থক বাগধারা- ঠায়
ঠাঁই ঠাঁই ছাড়া ছাড়া, পৃথক পৃথক বাসস্থান (ভাই ভাই ঠাঁই ঠাঁই- প্রবাদ)
ঠাওর/ঠাহর করা১ তীক্ষ্ণদৃষ্টিতে দেখা (প্রথমে ঠোর করে দেখিনি)
ঠাওর/ঠাহর করা২ নির্ধারণ করা (আমাকে বোকা ঠাওরেছে)
ঠাকরুণ দিদি ভগ্নীতুল্য ব্রাহ্মণকন্যা
ঠাকুর কাত বিদ্রুপে- দাতা বিমুখ
ঠাকুরচাকর ব্রাহ্মণ রাঁধুনী (ঠাকুরবাড়ী ঠাকুরচাকর দাসদাসীতে পরিপূর্ণ)
ঠাকুরদালান পূজার জন্য নির্দিষ্ট দালান
ঠাকুরালি ছলনা, প্রভুত্ব (ছাড় তোমার ঠাকুরলি)
ঠাট বজায় রাখা অভাব চাপা রাখা; জাঁকজমক বজায় রাখা
ঠাটঠমক/ ঠাটবাট আড়ম্বরপূর্ণ চালচলন/সাজসজ্জা (ঠাটঠমকে বিকোয় ঘোড়া- প্রবাদ); সমার্থক বাগধারা- জাঁকজমক, সাজসজ্জা
ঠাণ্ডা কথা মিষ্টিমিষ্টি কথা
ঠাণ্ডা করা/হওয়া জুড়ানো, ক্রোধ প্রশমিত করা
ঠাণ্ডা লড়াই চাপা রেষারেষি; মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ; পরস্পরবিরোধী রাষ্ট্রজোট প্রত্যক্ষ সংগ্রামে অবতীর্ণ না হয়ে পরস্পরের প্রতি যে যুদ্ধভাব বিরাজ করে; (রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে ঠাণ্ডা লড়াই চলে)
ঠাণ্ডা লাগা শৈতাক্রান্ত হওয়া
ঠাণ্ডা হওয়া প্রকৃতিস্থ হওয়া, শান্ত হওয়া
ঠাণ্ডার দিন শীতকাল
ঠায় অলসভাবে, স্থিরভাবে ( একভাবে টায় বসে আছি)
ঠারে-ঠারে/ ঠারে-ঠোরে আভাসে-ইঙ্গিতে (ঠারে ঠারে কথা কয়, মুখে কিছু বলে না)
ঠাসাঠাসি / ঠেসাঠেসি পরস্পর ঘনসন্নিবিষ্ট; সমার্থক বাগধারা- গাদাগাদি, ঘেঁষাঘেঁষি
ঠিকঠাক/ঠিকঠিক ঠিকমত, যথার্থ, স্থিরীকৃত (কাজটা ঠিকঠাক হল না)
ঠিকঠিকানা সন্ধান (তার কোন ঠিকঠিকানা নেই); সমার্থক বাগধারা- খোঁজখবর, তত্ত্বতালাশ
ঠিকা/ঠিকে কাজ চুক্তিভিত্তিক নির্দিষ্ট কাজ
ঠিকে ভুল অল্পমাত্রায়/যোগে/সিদ্ধান্তে ভুল
ঠুঁটো মুখ্য অর্থ- অঙ্গুলিহীন; গৌণো অর্থ- অকর্মণ্য; কোন কাজের নয় (ঠুঁটো জগন্নাথ)
ঠুঁটো জগন্নাথ অলস ব্যাক্তির কর্মহীন হয়ে বসে থাকা; দেখার প্রশ্ন নেই, দেখতে যেমনি হোক কাজে সম্পূর্ণ অকর্মণ্য
ঠুনকো কথা অসার/মূল্যহীন কথা
ঠেক আস্থানা, আড্ডাস্থল (এখানে আমার একটা ঠেক আছে)
ঠেকাঠেকি ছোঁয়াছুঁয়ি (ঠেকাঠেকি বাঁচিয়ে কাজ কর)
ঠেকা মেয়ে চিরকুমারী
ঠেকে শেখা বিপদে পড়ে শেখা
ঠেঙ্গা মেরে কথা বলা কঠোর বাক্য বলা
ঠেঙ্গানি খাওয়া/দেওয়া মার খাওয়া/দেওয়া
ঠেলা বিপদ, সঙ্কট (ঠেলা সামলানো দায়)
ঠেলাঠেলি ক্রমাগত লোক যাওয়া আসায় ধাক্কাধাক্কি
ঠেলামারা কথা খোঁচা দিয়ে কথা, ব্যাঙ্গাত্মক কথা
ঠেলার নাম বাবাজি চাপে পড়ে কাবু হওয়া; অবস্থার চাপে অবজ্ঞার পাত্রের সমাদর পাওয়া
ঠেলে ফেলা অবহেলায় পরিত্যাগ করা; অনাদরে দূরে সরিয়ে রাখা
ঠেস কটাক্ষ, বক্রোক্তি (ঠেস দিয়ে কথা বলা)
ঠোঁট ওল্টানো/বাঁকানো অবজ্ঞা প্রকাশ করা
ঠোঁটকাটা স্পষ্টবাদী, যার মুখে কোনো কথাই আটকায় না।
ঠোঁট টেপা মুখ বন্ধ করা, কথা না বলা
ঠোঁট ফোলানো অভিমান করা
ঠোক খাওয়া বাধা পাওয়া; বাধা পেয়ে কিছুক্ষণের জন্য থামা (ঠোক খেয়ে থেমে গেছি)
ঠোকর মারা একটু আধটু চর্চা করা; ফোড়ন কাটা; কঠোর ভাষায় প্রতিকথার জবাব দেওয়া
ঠোকাঠুকি কলহ, ঝগড়া (দুই ভাইয়ের মাঝে ঠোকাঠুকি লেগেই আছে)
ঠোক্কর ভালরকম শিক্ষা (এমন ঠোকর দেবো, যেন মনে থাকে)
ঠোনকা মারা বাঁকা আঙুলে খোঁচা মারা
ঠোঁক কাটা কাক যে সবসময় ঠোক্কর মারে তথা খুঁত ধরতে চেষ্টা করে।
ঠ্যাঁটা অবাধ্য, একগুঁয়ে, কর্কশভাষী, বেহায়া (বড় ঠ্যাঁটা ছেলে); সমার্থক বাগধারা- ঘ্যাঁচড়া

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ডকে ওঠা উঠে যাওয়া, নষ্ট হওয়া (ব্যবসা ডকে উঠেছে)
ডগমগ আত্মহারা, উদ্বেল (আহ্লাদে একেবারে ডগমগ; ঢলঢল রসে ডগমগ)
ডগিডগি কচিকচি, নধর (ডগিডগি লাউশাক)
ডঙ্কা মারা আস্ফালন করা; তোয়াক্কা না করা; সগর্বে ঘোষণা করা (বুড়োটা ডঙ্কা মেরে দিন কাটিয়ে গেল)
ডবকা ছুঁড়ি উদ্ভিন্নযৌবনা সোমত্ত মেয়ে- অশালীন ('ভুরু নাচায় ডবকা ছুঁড়ি ভরন্ত এই দুপুর বেলায়'); সমার্থক বাগধারা- পাকা মাল
ডবডবানি আস্ফালন, বড়াই, ভয়প্রদর্শন, শাসানি (তোমার ডবডবানি খুব বেড়েছে)
ডাঁটা বকাবকি করা; শক্ত কথা বলা (খুব ডেঁটে দিয়েছি)
ডাঁটো শক্তসমর্থ (ডাঁটো লোক নাহ'লে এ কাজ হবে না)
ডাইনে আনতে বাঁয়ে কুলায় না/নেই আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি; সমার্থক বাগধারা- খরচের আঁকে আনতে জমার আঁকে কুলায় না
ডাইনী খোঁজা/শিকার না-দোষে দোষ খুঁজে বেড়ানো; জনগনের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করা ও জনগনকে বে-আইনি শাস্তিপ্রদানের জন্য রাষ্টশক্তির অপচেষ্টা
ডাক ছাড়া/ডাক দিয়ে বলা চিৎকার করে বলা
ডাকসাইটে কু বা সুখ্যাত (ডাকসাইটে নেতা)
ডাকাডাকি/ডাক পাড়া ক্রমাগত ডাকা; চেঁচিয়ে ডাকা
ডাকাবুকা/বুকো মুখ্য অর্থ- দস্যুর মত বুক; গৌণ অর্থ- অসীমসাহসী, নির্ভিক (ডাকাবুকো মেয়ে); সমার্থক বাগধারা- ডানপিটে, ডেয়ারডেভিল
ডাকসাইটে বিখ্যাত নাম, এক ডাকে চেনা নাম, প্রভুত প্রতিপত্তিশালী (ডাকসাইটে নেতা)
ডাকের কথা প্রবাদ ও প্রবচন
ডাকের সাজ অভ্র, জরি, রাংতা, সোলা ইত্যাদি দ্বারা প্রস্তুত প্রতিমার সাজ
ডাকের সুন্দরী সর্বজনখ্যাত সুন্দরী
ডাগর-ডোগর বয়সের অনুপাতে বড়সড় চেহারার কিশোর/কিশোরী
ডাঙ করা এক জায়গায় জমা করা
ডাঙায় বাঘ জলে কুমির উভয়সঙ্কট; দুদিকেই বিপদ; সমার্থক হিন্দি বাগধারা- সামনে কূঁয়া পিছনে নালা
ডাঙার মাছ অস্বস্তিকর/দমবন্ধকরা অবস্থা
ডাণ্ডা মেরে ঠাণ্ডা কঠোর অনুশাসন
ডানপিটে অসমসাহসী, খুব ছটফটে, দুরন্ত (বাপরে কি ডানপিটে ছেলে); সমার্থক বাগধারা- ডাকাবুকো, ডেয়ারডেভিল
ডান হাত প্রধান সহায় বা সহচর (নাতিটি বৃদ্ধের ডান হাত)
ডান হাত বাঁ হাত লেনদেন; হাতফেরতা (ডান হাত বাঁ হাত হ'য়ে জিনিসটা হারিয়ে গেছে)
ডান হাতের কাজ/ব্যাপার১ আহার, খোরাক, খাই
ডান হাতের কাজ/ব্যাপার২ কঠিন কাজ
ডানা কাটা // ডানা কেটে/ছেঁটে দেওয়া ক্ষমতা হ্রাস করা
ডানাকাটা পরী সু-অর্থে- নিখুঁত/পরমাসুন্দরী; কু/ব্যাঙ্গার্থে- কুরূপা নারী
ডানা গজানো (পাখির) সাবালক হওয়া; অন্যের সাহায্য/পরামর্শ ছাড়াই চলতে শেখা; বিদ্রুপে- লায়েক হওয়া (বাবুর ডানা গজিয়েছে)
ডানায় ভর দিয়ে চলা/থাকা অসীম আনন্দে আত্মহারা
ডামাডোল গণ্ডগোল, বিশৃঙ্খলা (ডামাডোলে সব কিছুই ওলটপালট)
ডালপালা মূল বিষয়ের অতিরিক্ত বা অতিরঞ্জিত বর্ণনা
ডালভাত খুব সহজ ও সরল, জলভাত
ডালা/ডালি পরিপূর্ণ বা প্রাচুর্যপূর্ণ আধার (রূপের ডালি)
ডিগডিগে দীর্ঘ, লম্বা (ডিগিডিগে শরীর); সমার্থক বাগধারা- ছিপছিপে
ডিগবাজী বিদ্রুপে-আদর্শ নীতি/প্রতিশ্রুতির হঠাৎ পরিবর্তন (আজকাল রাজনীতিতে ডিগবাজী খাওয়া জলভাত)
ডিঙা/ডিঙি মারা পায়ের বুড়ো আঙুলের উপর ভর দিয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানো
ডিপো ঘাঁটি, জন্মস্থান (মশার ডিপো, ময়লার ডিপো, রোগের ডিপো ইত্যাদি)
ডিমে রোগা চিররুগ্ন, অতিশয় কৃশ
ডুব মারা অদৃশ্য হওয়া; আত্মগোপন করা (এই কয়দিন কোথায় ডুব মেরে ছিলে?)
ডুবা১ নিমগ্ন হওয়া (পড়ায় ডুবে আছে)
ডুবা২ সঙ্কটে পড়া (লোকটা দেনায় ডুবে আছে)
ডুবানো ধ্বংস/সর্বশান্ত করা (অসৎ বন্ধুরা তাকে ডুবালো)
ডুবুডুবু১ নষ্ট/সর্বশান্ত হওয়ার উপক্রম (দেনার দায়ে ব্যবসা ডুবুডুবু)
ডুবুডুবু২ রসাবেশপূর্ণ ('হরিনামরসে শান্তিপুর ডুবুডুবু, নদে ভেসে যায়')
ডুবেডুবে জল খাওয়া গোপনে/লোকচক্ষুর অন্তরালে কাজ করা (তোমার ডুবে ডুবে জল খাওয়ার সব আমরা জানি)
ডুমুরফুল অদৃশ্য/বিরলদর্শন বস্তু/ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- অমাবস্যার চাঁদ, আলেয়ার আলো, মরুভূমির মরিচিকা ইত্যাদি
ডুমুরফুল হওয়া অদৃশ্য হওয়া (মাঝে মাঝে ডুমুরফুল হয়ে যাও কেন?) (প্রসিদ্ধি যে ডুমুরের ফুল হয় না, আসলে কচি ডুমুরের ভিতরে ফুল থাকে)
ডুমো ডুমো করে ছোট্ট ঘনকের আকারে (আলুগুলি ডুমো ডুমো করে কাটো)
ডেঁপো অকালপক্ক (ডেঁপো ছেলে)
ডেকরা অভদ্র, অসৎ- গ্রাম্য মেয়েলি-গালিবিশেষ
ডেকে শাল নেওয়া ইচ্ছা করে বিপদে পড়া
ডেয়ারডেভিল খুব ছটফটে, দুঃসাহসী, দুরন্ত (বড় ডেয়ারডেভিল ছেলে, যে কোন বিপজ্জনক কাজে সবার আগে এগিয়ে যায়); সমার্থক বাগধারা- ডাকাবুকো, ডানপিটে
ডেরা গাড়া/বাঁধা আড্ডা গাড়া, অস্থায়ীভাবে বাসা করা (শ্মশানে কিছু সাধু ডেরা বেঁধেছে)
ডোবা সমস্যার জালে জড়িয়ে পড়া, পাপে নিমজ্জিত হওয়া ('স্বখাত সলিলে দুবে মরি শ্যামা, দোষ কারো নয় গো মা')
ডোর বন্ধন, আকর্ষণ (প্রণয়ডোরে বাঁধা)
ড্যাংড্যাং ঢাকের বাদ্যি, উৎসব, জয়ধ্বনি (ড্যাংড্যাং করে চলে যাব)
ড্যাবড্যাব আয়ত বিস্ফারিত ও ভাষাহীন চোখ (ড্যাবড্যাব করে তাকিয়ে আছে)
ড্যামেজ কন্ট্রোল বিপদ থেকে বাঁচার চেষ্টা (আলটপকা মন্তব্য করে এখন ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে নেমেছে)
ড্রিঙ্ক করা উঁচুজাতের মদ খাওয়া (আজকাল স্ফুর্তি করতে ছেলেরা মদ খায় না, ড্রিঙ্ক করে)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ঢং আমোদজনক অঙ্গভঙ্গি; ছলনা; ন্যাকামি, রঙ্গ (বেশি ঢং করো না)
ঢক্ঢক্ দ্রুত জল পান করার ভাব (ঢক ঢক করে খেয়ে ফেলো)
ঢক্কানিনাদ উচ্চকণ্ঠে ঘোষণা
ঢপ ধাপ্পা, মিথ্যা কথা (বেশি ঢপ মেরো না); সমার্থক বাগধারা- গুলপট্টি
ঢলঢলে১ ঢিলা (ঢলঢলে জামা)
ঢলঢলে২ লাবণ্যময় (ঢলঢলে মুখ)
ঢলতা ন্যায্য ওজনের ওপর বাড়তি পরিমাণ (পাইকারী বাজারে ওজনে ঢলতা পাওয়া যায়)
ঢলা পক্ষপাতী হওয়া (সে তার বন্ধুর দিকে ঢলেছে)
ঢলাঢলি অতিরিক্ত মাখামাখি, কেলেঙ্কারি (বেশি ঢলাঢলি ভালো নয়)
ঢলানে কেলেঙ্কারি করে এমন নারী
ঢাকঢাক গুড়গুড় প্রকৃত অবস্থা/বিষয় গোপন রাখার চেষ্টা (এ নিয়ে এত ঢাকঢাক-গুড়গুড় কীসের?); সমার্থক বাগধারা- ছিপাছিপি, ঢাকঢাক গুড়গুড়, লুকোছাপা ইত্যাদি
ঢাক পেটানো/বাজানো উচ্চগ্রামে প্রচার করা; সবাইকে জানিয়ে দেওয়া (অত ঢাক পেটানোর কি আছে?)
ঢাক বাজিয়ে ইঁদুর ধরা সাড়ম্বরে সামান্য কাজ করা
ঢাক বাজিয়ে ঢেকে রাখা উচ্চপ্রচারে দোষ ঢাকার চেষ্টা
ঢাকাঢাকি গোপন করা, লুকানো (সব সত্য বলবে, কোন ঢালাঢাকি করবে না); সমার্থক বাগধারা- ছিপাছিপি, ঢাকঢাক গুড়গুড়, লুকোচুরি ইত্যাদি
ঢাকীশুদ্ধ বিসর্জন সবশুদ্ধ বর্জন; সমূলে বিনাশ
ঢাকে কাঠি দেওয়া ঢাক বাজানো; হইচই করা
ঢাকে কাঠি পড়া অনুষ্ঠানের সূচনা হওয়া
ঢাকের কাঠি মোসাহেব, তোষামুদে, চাটুকার
ঢাকের কাছে ট্যামটেমি তুলনায় খুবই ক্ষুদ্র
ঢাকের দায়ে মনসা বিকানো আড়ম্বর করতে গিয়ে আসল জিনিস হারানো; মূল খরচের তুলনায় আড়ম্বরের খরচ ব্রেশি
ঢাকের বাঁয়া বাঁয়া বাজে না-এই ভাবার্থে- অকেজো, অনাবশ্যক, অপ্রয়োজনীয় সঙ্গী, কাছে থাকে কিন্তু কাজের নয়
ঢালাঢালি বারংবার ঢালা (বেশি ঢালাঢালিতে নষ্ট হবে)
ঢিট করা শায়েস্তা করা (তোমাকে ঢিট করতে সময় লাগবে না)
ঢিটপনা চাতুরী, শটতা (তোমার ঢিটপনা সহ্যের বাইরে)
ঢিঢি পড়া দুর্নাম রটা; ব্যাপক জানাজানি ও ধিক্কার (এ নিয়ে চারদিকে ঢিঢি পড়ে গেছে)
ঢিমা তাল / ঢিমা তেতালা অতি ধীরগতি, উদ্যমহীনতা, দীর্ঘসূত্রিতা (এত ঢিমে তালে চললে কাজ সহজে শেষ হবে না)
ঢিল ছোঁড়া (অন্ধকারে) কার্যসিদ্ধি হতে পারে এই আশায় কিছু করা
ঢিল দিয়ে ঢিল টানা আঘাত করে প্রত্যাঘাত খাওয়া
ঢিল দিয়ে টেনে আনা আগে ঢিলে দিয়ে পরে নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা; সমার্থক বাগধারা- ছেড়ে দিয়ে তেড়ে ধরা
ঢিল দিয়ে ঢিল ভাঙা শত্রু দিয়ে শত্রুনিধন; কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলা
ঢিলে দেওয়া শৈথিল্য দেখানো (কাজে ঢিলা দেওয়া যাবে না)
ঢিলে-ঢালা১ শিথিল (ঢিলেঢালা পোশাক)
ঢিলেঢালা২ অলস, দীর্ঘসূত্রী,যার কাজে আঁটসাঁট নেই বা আগ্রহ নেই এমন (খুবই ঢিলেঢালা গোছের মানুষ)
ঢিলের বদলে পাটকেল আঘাতের উত্তরে আরও বড় প্রত্যাঘাত আসে;
ঢুঁ দেওয়া/মারা কোথাও কিছুক্ষণের জন্য যাওয়া (আড্ডাস্থলে একবার ঢুঁ মেরে আসি)
ঢুঁঢুঁ/ঢুঢু কিছুই নয়, ফাঁকি (কাজের বেলায় ঢুঁঢুঁ); সমার্থক আলং শব্দ- অষ্টরম্ভা, কচু, কলা, ঘেচু ইত্যাদি
ঢুলুঢুলু নেশার ঘোরযুক্ত; ভাবে বিভোর ('চোখদুটি তার ঢুলঢুলে')
ঢেঁকি অত্যন্ত বোকা লোক, অপদার্থ (লোকটা বুদ্ধির ঢেঁকি); সমার্থক বাগধারা- অকর্মার ধাড়ি; অপোগণ্ড, আমড়া কাঠের ঢেঁকি; নিকম্মার ঢেঁকি ইত্যাদি
ঢেঁকি অবতার১ আহাম্মক, উদোমাদ, ক্যাবলা, নিষ্কর্মা ও নির্বোধ, বুদ্ধিহীন, বোকাসোকা, মাথাপাগলা, মুর্খ, হাবাগোবা; সমার্থক বাগধারা-গরু, গাধা, ঢেঁড়স, বুদ্ধির ঢেঁকি, ভেড়া, লেবু, হবুচন্দ্র, গবুচন্দ্র, হাঁদা, হাঁদারাম, হাঁদাগঙ্গারাম ইত্যাদি
ঢেঁকি অবতার২ টানটান অবস্থায়, সটান ('প্রথম রাতেতে প্রভু ঢেঁকি অবতার'- শীতের কড়চা)
ঢেঁকি গেলা কষ্টকর কাজ করতে রাজী হওয়া
ঢেঁকি না, কুলো না অন্নসংস্থানের কোন উপায় নেই
ঢেঁকির কচকচি ঢেঁকির কচকচ শব্দের মত বিরক্তিকর কথা কাটাকাটি, বচসা
ঢেঁকির কুমির হওয়া আত্মীয় শত্রু হওয়া
ঢেঁকির তসুলি দুদিকের মন রেখে চলা লোক
ঢেঁকির পাড় পড়া (বুকে) বুক ধড়াস ধড়াস করা; পরশ্রীকাতরতার মর্মজ্বালায় ছটফট করা
ঢেঁকির স্বর্গে গিয়ে ধান ভানা মন্দভাগ্যের কোনো অবস্থাতেই ভালো কিছু হতে পারে না
ঢেঁড়স অপদার্থ, কোন কাজের নয় (তুমি একটা আস্ত ঢেঁড়স)
ঢেউ গোণা বাজে কাজে সময় নষ্ট; অলসে সময় কাটানো
ঢেপঢেপে মুখ্য অর্থ- ভজা ঢাকের আওয়াজ; আলং- প্রচণ্ড রকমের ভিজা (ভিজে একেবারে ঢেপঢেপে হয়ে গেছো)
ঢেপসি বিদ্রুপে- অকর্মণ্য বা মোটা মেয়ে
ঢেমনা/ঢ্যামনা মুখ্য অর্থ-নির্বিষ ঢোঁড়াজাতীত সাপ; আলং- দো-আঁশলা, লম্পট- গালিবিশেষ
ঢেরা সই নিরক্ষর ব্যক্তির 'x' এই চিহ্নদ্বারা প্রদত্ত সই
ঢেলা মারা (অন্ধকারে) আন্দাজে কাজ করা
ঢেলামারা কাজ সম্পূর্ণ অবহেলায় করা কাজ
ঢোঁড়া খোঁজা- (অনেক ঢুঁড়েও তার পাত্তা পাই নি)
ঢোঁড়া সাপ বিদ্রুপে- অপদার্থ ব্যক্তি
ঢোল ঢোলের মতো ফোলা (ফুলে ঢোল)
ঢোলের পাশে কাসি অপরিহার্য সঙ্গী
ঢ্যাকার আগে চলা ধাক্কা দেবার আগে থাকতেই চলা
ঢ্যাংঢ্যাং বিনা কারণে নাচতে থাকার ভাবপ্রকাশ (ঢ্যাংঢ্যাং করে নেচে চলেছে)
ঢ্যাঙা বেমানান লম্বা (তালগাছের মত ঢ্যাঙা)
ঢ্যামনা লম্পট- অশালীন মেয়েলি গালিবিশেষ)
ঢ্যারা ক্রসচিহ্ন (ঢ্যারা সই)
ঢ্যারা সই ক্রসচিহ্নদ্বারা নিরক্ষর ব্যক্তির দস্তখত

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
তকরার করা তর্কবিতর্ক/ঝগড়াঝাটি/বাকবিতণ্ডা করা
তকরারী জমাখরচ ব্যবসায়ের হিসাবের খাতা রাখার বিশেষপদ্ধতি
তক্কেতক্কে গোপনে প্রস্তুত; সু্যোগের অপেক্ষায় তক্কেতক্কে আছি, সুযোগ পেলেই ধরবো); সমার্থক বাগধারা- তাকেতাকে
তক্ত‌/তখ্ত গদি (তক্তে বসতে কে না চায়)
তক্তা বানানো (মেরে) প্রচণ্ড প্রহার করা; সমার্থক বাগধারা- হাড় গুড়িয়ে দেওয়া, হাড়গোড় ভেঙ্গে দেওয়া, হাড়মাস আলাদা করা ইত্যাদি
তখত-তায়ুশ প্রসিদ্ধ ময়ূরসিংহাসন; দিল্লির মসনদ; দেশের শাসনভার
তখরচ অতিরিক্ত/আনুসঙ্গিক/বাজে খরচ
তচনচ/তছনছ বিপর্যস্ত, বিশৃঙ্খলা (ঘরে সব তচনচ হয়ে আছে); সমার্থক বাগধারা- উলটপালট, তছনছ, লণ্ডভণ্ড ইত্যাদি
তটস্থ হওয়া বিচলিত হওয়া
তড়বড় করা অতিব্যস্ত হওয়া (বেশি তড়বড় করো না); সমার্থক বাগধারা- তাড়াহুড়া করা, হুড়োহুড়ি করা
তড়পানো আস্ফালন করা (যতই তড়পাও কিছু হবে না)
তড়ফদারি পক্ষপাতমূলক আচরণ (তোমাকে তরফদারি করতে কেউ ডাকে নি)
তড়িঘড়ি একটুও দেরি না করে; তৎক্ষণাৎ; হুট করে (তড়িঘড়ি করে উপস্থিত হ'লাম)
তৎকাল নির্দিষ্টকাল, নির্ধারিতকাল, সেইসময় (তৎকাল টিকিট কাটা আছ)
ততঃকিম তারপর কী, কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থা; সমার্থক বাগধারা- অতঃকিম
তত্ত্বতালাশ সন্ধান (তত্ত্বতালাশ করে মেয়ের বিয়ে দেবে); সমার্থক বাগধারা- খোঁজখবর, ঠিক-ঠিকানা ইত্যাদি
তত্ত্বাবধান রক্ষণাবেক্ষণ (সম্পত্তির তত্ত্বাবধান)
তথৈবচ আগের মতই; পূর্ববৎ; সেইরকমই (পেটে বিদ্যা নেই, বুদ্ধিও তথৈবচ)
তদবির কার্যসিদ্ধির জন্য উপায় বা চেষ্টা (তদবিরভোগ্যা বসুন্ধরা)
তন্নতন্ন চারিদিকে ব্যাপকভাবে (তন্নতন্ন করে খোঁজা দরকার); সমার্থক বাগধারা- পুঙ্খানুপুঙ্খ পাতিপাতি
তপ্তখোলা প্রচণ্ড পীড়াদায়ক অবস্থা (চাকুরীস্থল তপ্তখোলায় পরিণত হয়েছে)
তদবির কার্যসিদ্ধির জন্য চেষ্টা; ধরাধরি (বসুন্ধরা এখন আর বীরভোগ্যা নয়, তদবিরভোগ্যায় পরিণত হয়েছে)
তথৈবচ একই রকম, আগে যেমন ছিল তেমনি (বিদ্যাতো নেইই, বুদ্ধিও তথৈবচ)
তবিলদারি কোষাধ্যক্ষের কাজ ('আমায় দে মা তবিলদারি')
তমোজ্যোতি আঁধারের আলো; জোনাকিপোকা
তর না সওয়া একটুও দেরী করতে অনিছা (ফিরতে যেন তর সইছে না)
তরতর দ্রুতগতিসূচক (তরতর করে নারকেল গাছে উঠে পড়ল)
তর-তাজা জীবন্ত, টাটকা, সজীব (তরতাজা সবজি, তরতাজা খবর)
তরি-তরকারি নানাবিধ কাঁচা শাকসবজি
তর্জনগর্জন প্রবল গর্জনসহ তিরস্কার বা শাসানি (যত তর্জনগর্জন সব গরীবলোকদের উপর)
তলতল/ তলতলে অত্যন্ত নরমসূচক, প্রায় গলিত অবস্থা (আমগুলো পেকে তলতল করছে)
তলাতল পুরাণে বর্ণিত সপ্তপাতালের অন্যতম ('তলাতল খুঁজলে পরে পাবিরে তুই রত্নধন, ডুব ডুব ডুব ডুবসাগরে আমার মন')
তলায় তলায়/ তলেতলে গোপনে, ভিতরে ভিতরে (তলায় তলায় দু'দলের আঁতাত আছে; তলে তলে টাকা খায়)
তলিয়ে দেখা গভীরভাবে বিবেচনা করা; পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিচার করা (তলিয়ে দেখলে কাজটা না করাই ভাল)
তল্পি গুটানো চিরদিনের জন্য কোন স্থান পরিত্যাগ
তল্পিতল্পা বিছানাপত্র, সঙ্গে নেওয়া জামাকাপড় ও ছোটছোট জিনিসপত্র (তল্পিতল্পা নিয়ে সরে পড়েছে)
তল্পিবাহক অনুচর আজ্ঞানুসারে চলা ব্যক্তি (আমি কারো তল্পিবাহক নই); সমার্থক বাগধারা- চাটুকার, চামচা, তোষামুদে, মোসাহেব ইত্যাদি
তল্লাট অঞ্চল, এলাকা (এ তল্লাটে তাকে আর পাবে না)
তল্লাশ অনুসন্ধান (মেয়ের জন্য ভালছেলের তল্লাশ করে চলেছি)
তাঁতের মাকু খালি দিক পরিবর্তন করে এমন ব্যক্তি
তাঁতীকুলও গেল বৈষ্ণবকুলও গেল সবদিক বজায় রাখা গেল না; সমার্থক বাগধারা- একুল ওকুল দুকুল গেল
তাঁবেদার অনুগত লোক, চামচা (আমাকে তোমার তাঁবেদার পাওনি)
তা দেওয়া গোপনে উৎসাহ দেওয়া (ওদের ঝগড়ায় তুমি তা দিচ্ছ কেন?)
তাই তো কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থা (তাই তো, এখন কী হবে?)
তাইরে নাইরে কোনোরকমে কালক্ষেপ, বাজে কাজে কালক্ষেপ, ভাবনাচিন্তাহীন মনোভাবাপন্ন (তাইরে নাইরে করে দিন কাটায়); সমার্থক বাগধারা- তেরে কেটে তা
তাওয়ানো চটানো, উত্তেজিত করা (তোমরাইতো ওকে অকারণে তাওয়ালে)
তাক করা নিশানা বা লক্ষ্য স্থির করা (অন্ধকারে তাক করা যায় না)
তাক লাগা বিস্মিত হওয়া (বিস্ময়ে তাক লেগে গেছে)
তাকেতাকে ওত পেতে, প্রতীক্ষায়, সতর্কতার সাথে; সন্ধানে সন্ধানে; সুযোগের অপেক্ষায়; সমার্থক বাগধারা তক্কেতক্কে
তাকেপাকে বিশেষ সতর্কতার সাথে
তাড়া১ আঁটি,গোছা (নোটের তাড়া)
তাড়া২ আক্রমণ (তাড়া খেয়ে বাঘটা পালিয়েছে)
তাড়া৩ উৎখাত করা (ওকে তাড়াও)
তাড়া৪ ধমক (তাড়া খেয়ে পড়তে বসেছে)
তাড়া৫ ধাওয়া করা (পুলিশ তাড়া করেছে)
তাড়া৬ ব্যস্ততা, শীঘ্রতার প্রয়োজন (আমার কোন তাড়া নেই)
তাড়াহুড়ো অত্যধিক ব্যস্ততা (তাড়াহুড়ো করলে কাজ শেষ হতে দেরী হয়); সমার্থক বাগধারা- লাফঝাঁপ, লাফালাফি, হুড়োহুড়ি
তাড়ু আনাড়ি, তেড়ে-হেঁকে খেলে এমন (তাড়ু ব্যাট্সম্যান)
তাণ্ডব প্রচণ্ড লাফালাফি, প্রলয়ঙ্কর ব্যাপার (পাগলটা তাণ্ডব শুরু করেছে)
তাণ্ডবনৃত্য/লীলা মুখ্য অর্থ- প্রলয়কালে শিবের উদ্দাম নৃত্য; গৌণ অর্থে- প্রলঙ্কর কাণ্ড, ভয়াবহ ক্রিয়াকলাপ (ভহাবহ বন্যা বিশাল এলাকা জুড়ে তাণ্ডবনৃত্য শুরু করে ছে)
তাত/তাতা/ তাতানো ক্রুদ্ধ মেজাজ/ ক্রুদ্ধ হওয়া/ ক্রুদ্ধ করা (তাতে বাত নষ্ট; কথায় কথায় তেতে উঠছে; ওকে আর তাতিয়ো না)
তানা-না-না কাজ আরম্ভের আড়ম্বরে অযথা কালক্ষেপ; বাজেকাজে সময়নষ্ট, গোলমাল (তানা-না-না করে দিনটা কাটিয়ে দিল)
তাপ্পি মারা১ কোনরকমে কাজ সারা (রাস্তাগুলো তাপ্পি মেরে সারানো হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- জোড়াতালি দেওয়া
তাপ্পি মারা২ (অশালীন) গুল মারা, ধাপ্পা দেওয়া (ও তাপ্পি মেরে কথা বলে)
তাবড় তাবড় তা থেকে বড়; বড় বড় (ওকে অনেক তাবড় তাবড় ডাক্তার দেখানো হয়েছে)
তা-বৈ-কি তাহা ছাড়া আর কিছু নাই
তামা তুলসী করা নির্দোষিতা প্রমাণের দিব্বি করা (তামা-তুলসী ছুঁইয়ে বলছি আমি কিছু জানি না)
তামার বিষ অর্থের কু-প্রভাব (তামার বিষে পড়ে সমাজটা জর্জরিত)
তারকাটা বুদ্ধিহীন, মাথার গোলমাল (তারকাটা ছেলে)
তারস্বর উচ্চ বা চড়া স্বর (তারস্বরে মাইক বাজছে))
তারিয়ে তারিয়ে স্বাদ উপভোগ করার জন্য ধীরে ধীরে খাওয়া (তারিয়ে তারিয়ে ক্ষীরসন্দেশ খাচ্চে)
তাল করা/খোঁজা ইচ্ছা করা, সুযোগ খোঁজা (পালাবার তাল করছে)
তাল কাটা/ ভঙ্গ হওয়া মাত্রায় সামঞ্জসহীন হওয়া (উভয়ের মধ্যে তাল কেটেছে)
তালকানা ভালো-মন্দ বোধহীন, কাণ্ডজ্ঞানহীন (তোমার মত তালকানা আগে দেখি নি)
তালগাছ দিয়ে দাঁতন করা অসম্ভব ব্যাপার, গাঁজাখুরি, যা হবার নয়
তালগাছের আড়াই হাত বিশেষ কাজের শেষ কঠিন অংশ
তালগোল পাকানো/হওয়া জটিল অবস্থা সৃষ্টি করা, জটিলতা সৃষ্টি হওয়া; বিশৃঙ্খল করা (বিষয়টা তালগোল পাকিয়ে গেছে)
তালজ্ঞান ভালোমন্দ বোধ, কাণ্ডজ্ঞান (তালজ্ঞান হারিয়ে ফেলেছো নাকি?)
তাল তোলা বায়না করা (এবার সবাই কাশ্মীর যাওয়ার তাল তুলেছে)
তাল ঠুকে লাগা সাহসের সাথে কাজে নামা (তাল ঠুকে ব্যবসায়ে নেমে পড়লাম)
তাল ঠোকা আস্ফালন করা; অপরকে দ্বন্দ্বে আহ্বান করা; সগর্ব উক্তি (কুস্তিতে তাল ঠুকছে)
তাল তোলা বায়না করা (এবার সবাই কাশ্মীর যাওয়ার তাল তুলেছে)
তাল দেওয়া আগ বাড়িয় সমর্থন করা, উমেদারি করা (নেতার কথায় তাল দেওয়াই অনুচরদের কাজ)
তাল পড়া পিঠে সশব্দে কিল পড়া (অঙ্কটা না পারলে পিঠে বিরাশি সিক্কার তাল পড়বে)
তালপাতার খাঁড়া অপদার্থ ব্যক্তি
তালপাতার ছায়া ক্ষণস্থায়ী বিষয়
তালপাতার সেপাই অত্যন্ত কৃশব্যক্তি; শক্তিহীন ব্যক্তি
তালমিল কাজে সঙ্গতি, মাত্রার সামঞ্জস্য (তোমার কথায় ও কাজে কোন তালমিল নেই)
তাল রাখা অপরের সাথে কাজে সঙ্গতি রাখা (সকলের সাথে তাল রেখে চলতে হবে)
তাল সামলানো ঝক্কি সামলানো; শেষরক্ষা (অফিসের তাল সামলাতে পারছি না)
তালে তাল দেওয়া অন্যায় কাজ সমর্থন করা; তোষামোদ করা (কেউ অন্যায় করলে তার সাথে তালে তাল দিতে নেই)
তালগোল পাকানো বিপর্যস্ত/বিশৃঙ্খল করা (কাজটাতে তালগোল পাকিয়ে ফেলেছি)
তালেগোলে বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে (তালেগোলে আসল কথাটা বলতে ভুলে গেছি)
তালেবর ব্যঙ্গে- ওস্তাদ, চৌকশ, লায়েক (তুমি এমন কিছু তালেবর হওনি)।
তাসের ঘর১ অত্যন্ত ক্ষণস্থায়ী অবস্থা (বাড়ীটা তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পড়ল)
তাসের ঘর২ ভঙ্গুর অবস্থা, বিপজ্জনক অবস্থা (দলটা তাসের ঘরের মত টিকে আছে)
তিড়-বিড় চঞ্চলতা বা অস্থিরতাভাব (ছেলেটা বড় তিড়বিড় করছে)
তিড়িং-বিড়িং ফড়িঙের মত লাফিয়ে লাফিয়ে চলা (এতো তিড়িংবিড়িং করছো কেন?)
তিক্ত অপ্রীতিকর (উভয়ের মধ্যে সম্পর্কটা তিক্ত হয়ে গেছে)
তিতিবিরক্ত উত্ত্যক্ত, অত্যন্ত বিরক্ত (একেবারে তিতিবিরক্ত হয়ে গেছি)
তিনঠেঙে লাঠি হাতে বৃদ্ধ
তিনকাল শৈশব, যৌবন ও প্রৌঢ়ত্ব (তার তিনকাল গিয়ে এককালে ঠেকেছে)
তিনকুল পিতৃকুল, মাতৃকুল ও শ্বশুরকুল (তার তিনকুলে কেউই নেই)
তিনমাথা অতিবৃদ্ধ (তিনমাথা যেখানে বুদ্ধি নেবে সেখানে- প্রবাদ)
তিন লাফে অতি দ্রুতপদে (তিন লাফেে সে এসে উপস্থিত হল); সমর্থক বাগধারা- সাত-তাড়াতাড়ি
তিনশত্রু শত্রুকে তিনটি দ্রব্য দেওয়ার ভাবনা থেকে উৎপন্ন বাগধারা (কথায় বলে তিনশত্রু দিতে নাই)
তিনাঞ্জলি তিলাঞ্জলির অনুরূপ
তিমিঙ্গিল যে তিমিকে গিলে খায় সে তিমিঙ্গিল (কাল্পনিক); যে তিমিঙ্গিলকে গিলে খায় সে তিমিঙ্গিলগিল; অর্থাৎ কেউ অজেয় নয়; সমার্থক বাগধারা- দাদারও দাদা আছে, বাপেরও বাপ আছে ইত্যাদি
তিরস্করণী/তিরস্করিণী/তিরস্কারিণী বাধা (অনেক তিরস্কারিণী পার হ'তে হয়েছে)
তিরিক্ষি যে অল্পেতে রেগে যায়; রগচটা (তিরিক্ষি মেজাজের লোক)
তিরোধান মহাপুরুষের মৃত্যু
তিল অতিসামান্য পরিমাণ বা অংশ ('তিল ঠাঁই আর নাহিরে'- রবীন্দ্রনাথ)
তিল কুড়িয়ে তাল একটু একটু করে গড়ে তোলা সঞ্চয়
তিল তিল করে // তিলে তিলে একটু একটু করে; ক্রমে ক্রমে কিন্তু অবিচ্ছিন্নভাবে (তিল তিল করে ওই টাকা সঞ্চয় করেছি)
তিল ধারণের জায়গা না থাকা অত্যন্ত ভিড় হওয়া, ঠাসাঠাসি হওয়া (ঘরে তিল ধারণের জায়গা নেই)
তিলককাটা বামুন/বৈষ্ণব বিদ্রুপে- ভণ্ড/মেকী ধার্মিক
তিলকা গায়ে তিল ফুলের মত চিহ্ন ('অলকা তিলকা ভালে রেখা আঁকা')
তিলকাঞ্চন খুব কম খরচে শ্রাদ্ধানুষ্ঠান
তিলকে তাল করা তুচ্ছ ব্যাপারকে বড় করে দেখানো; সামান্য ব্যাপারকে গুরুতর করে তোলা
তিলাঞ্জলি মুখ্য অর্থ- মৃত আত্মার তৃপ্তির উদ্দেশে তিল ও জলের তর্পণ' আলং- সম্পূর্ণ সম্পর্কছেদ ('তিলাঞ্জলি দিঁলু কুললাজে')
তিলে খচ্চর অতি দুষ্ট প্রকৃতির লোক, খুব বদমাইশ-গালিবিশেষ (লোকটা একনম্বরের তিলে খচ্চর); সমার্থক বাগধারা- হাড় বজ্জাত
তিলে তাল অল্পবিষয়ে বিশাল আড়ম্বর
তিলে তিলে // তিল তিল করে একটু একটু করে, ধীরে ধীরে (রোমনগরী তিলে তিলে গড়ে উঠেছে)
তিলে তিলে তিলোত্তমা তিলে তিলে সৃষ্ট সৌন্দর্য
তিলেক ক্ষণকাল, ক্ষণমাত্র ('তিলেক দাঁড়া ওরে সমন বদন ভরে মাকে ডাকি- শ্যামাসঙ্গীত')
তীরগলায় ঘণ্টা সরু গলায় ঘণ্টার মতন বেমানান সাজ
তীরে এসে তরী ডোবা কাজের শেষদিকে বিফল হওয়া
তীর্থের কাক সাগ্রহে প্রতীক্ষাকারী; পরানুগ্রহপ্রত্যাশী লোভীব্যক্তি (সকলে তীর্থের কাকের মত বসে আছে)
তুইতোকারি করা তুই, তোর ইত্যাদি শব্দপ্রয়োগে অপমান করা বা অসম্মান দেখানো
তুঘলকি কাণ্ড উদ্ভট কাণ্ডকারখানা; খামখেয়ালিপূর্ণ কাজ (রাজত্বে তুঘলকি কাণ্ড চলছ)
তুঙ্গী উঁচুতে অবস্থিত ('তুঙ্গী মেঘ শুভ্রকেশ')
তুঙ্গে বৃহস্পতি মহাসৌভাগ্য (তুঙ্গে তোমার বৃহস্পতি আর তোমাকে পায় কে)
তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা অবজ্ঞা/অশ্রদ্ধা করা
তুড়ি দেওয়া/মারা অবজ্ঞা করা, এড়িয়ে যাওয়া, তোয়াক্কা না করা (তুড়ি মেরে আমার কথা উড়িয়ে দিল)
তুড়ুম ঠোকা ভালোভাবে শিক্ষা দেওয়া
তুফান তোলা প্রবল বিতর্ক/উত্তেজনার সৃষ্টি করা
তুবড়ি ছোটানো/ফাটানো অনর্গল জোরে জোরে কথা বলে যাওয়া
তুরীয়ানন্দ আনন্দে আত্মহারা অবস্থা, চরম আনন্দ ('আমি তুরীয়ানন্দে ছুটে চলি এ কি উন্মাদ আমি উন্মাদ'-নজরুল)
তুরুপের তাস অমোঘ অস্ত্র, বাজী মাতের সেরা অস্ত্র (আমি এখন তুরুপের তাস খেলিনি)
তুর্কিনাচ/নাচন পরের নির্দেশে চলতে গিয়ে নাজেহাল অবস্থা (নানা নির্দেশ দিয়ে সরকার জনসাধারণকে তুর্কিনাচন নাচাচ্ছে)
তুলকালাম কাণ্ড তুমুল ঝগড়া, প্রচণ্ড গোলমাল; সমার্থক বাগধারা- কুরুক্ষেত্র কাণ্ড, খণ্ডপ্রলয়, ধুন্ধুমারকাণ্ড, মহামারীকাণ্ড, লঙ্কাকাণ্ড ইত্যাদি (সভায় তুলকালাম কাণ্ড চলছে)
তুলতুল/ তুলতুলে অত্যন্ত কোমল/নরমভাব (মুখখানা তুলতুল করছে)
তুলসীবনের বাঘ কপট, ভণ্ড, ভেকধারীব্যক্তি, সাধু বলে পরিচিত অসাধুব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- তিলককাটা বামুন, বকধার্মিক, বাঘের গায়ে নামাবলী, বিড়ালের গলায় তুসলীর মালা, বিড়ালতপস্বী, ভিজে বিড়াল ইত্যাদি
তুলোধুনা করা প্রচণ্ড প্রহার করা, বিপর্যস্ত করা, শায়েস্তা করা
তুষানল/ তুষের আগুন তুষের আগুনের মত দীর্ঘস্থায়ী দুঃসহ মর্মযন্ত্রণা
তেঁতুলে দুষ্ট, পাজি, বদলোক (তেঁতুলে লোক)
তেঁদড়/ত্যাঁদড় দুষ্ট, পাজি, বেহায়া (লোকটা বড় তেঁদড় তো)
তে এঁটে১ কুৎসিতদর্শন লোক
তেজ অহঙ্কার, দেমাক (তেজ দেখিয়ে কাজ হাসিল করতে চায়); সমার্থক বাগধারা- তেল
তেজারতি সুদের বিনিময়ে টাকা ধার দেওয়ার কাজ (তেজারতি করে অনেক পয়সা কামিয়েছে)
তেঠঙ্গা / তেঠেঙে বিদ্রুপে- লাঠিযুক্ত বৃদ্ধ লোক; বয়সজনিত কারণে বঙ্কিম চেহারা; সমার্থক বাগধারা- ত্রিভঙ্গমুরারি
তেড়েফুঁড়ে / তেড়েমেড়ে বিপুল শক্তি ও উদ্যমের সঙ্গে (তেড়েফুঁড়ে কাজে লেগে গেল; 'তেড়েমেড়ে ডাণ্ডা করে দিই ঠাণ্ডা- সুকুমার রায়)
তেতেপুড়ে রোদের তাপে গরম হয়ে(তেতেপুড়ে এসেই জল খেয়ো না)
তেরিয়া উগ্রস্বভাব, উদ্ধত (তেরিয়া লোক)
তেরি-মেরি কর্কশ বাক্য প্রয়োগ, গালাগালিবিশেষ (তেরি-মেরি করে তেড়ে গেল)
তেরে কেটে তা তুচ্ছতাচ্ছিল্য, উপেক্ষার ভাব, কোনভাবে দিন কাটানো, ভাবনাচিন্তাহীন (তেরে তেটে তা করে দিন কাটিয়ে গেল); সমার্থক বাগধারা- তাইরে নাইরে
তেল অহঙ্কার, দেমাক (তোমার খুব তেল বেড়েছে দেখছি); সমার্থক বাগধারা- তেজ
তেল কুচকুচে/চুকচুকে বেশি করে তেল মাখা/মাখানো হয়েছে এমন চকচকে
তেল দেওয়া/মাখানো // তেলানো হীনভাবে তোষামোদ করা (ওকে অত তেলাচ্ছ কেন?)
তেলামাথায় তেল যার প্রচুর আছে তাকে আরও দান (তেলা মাথায় ঢালো তেল শুকনা মাথায় ভাঙ্গো বেল- প্রবাদ)
তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠা প্রচণ্ড রাগান্বিত হওয়া (তার কথা শুনে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠল)
তেলে ভাজা রোদে পুড়ে তামাটে বর্ণ
তৈরী ছেলে ব্যাঙ্গে- অকালপক্ব, চৌখশ, ডেঁপো, ফাজিল, নষ্টচরিত্র ইত্যাদি (আরেকটি তো তৈরি ছেলে, জাল করে নোট গেছেন জেলে'-সুকুমার রায়)
তৈরী ছেলের বাপ ঘরজামাইয়ের বাপ
তোতাপাখি/বৃত্তি না বুঝে অনুকরণকারী; অনুকরণের স্বভাব
তোমার একদিন কি আমার একদিন হেস্তনেস্ত করা
তোয়াক্কা সমীহ (আমি কাউকে তোয়াক্কা করি না); সমার্থক বাগধারা- কেয়ার
তোয়াজ মনোরঞ্জন (উপরওয়ালাকে সবসময় তোয়াজ করে চলতে হয়)
তোলপাড়১ প্রবল আলোড়ন (বুকের ভিতর তোলপাড় হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- ওলটপালট
তোলপাড়২ তুমুল ঝগড়া, বিক্ষোভ (দেশজুড়ে তোলপাড় হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- চিৎকার-চেঁচামেচি, হৈচৈ ইত্যাদি
তোলাহাঁড়ি গোমড়ামুখো
ত্যাঁদড় নির্লজ্জ, বেহায়া (বড় ত্যাঁদড় ছেলে)
ত্রাতা মধুদূদন বিপদে সাহায্যকারী ব্যক্তি
ত্রাহি মধুসুদন বিপদ থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা
ত্রাহি ত্রাহি ডাক বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য পরিত্রাহি চিৎকার
ত্রিভঙ্গমুরারি শ্রীকৃষ্ণ; ব্যঙ্গে- বাঁকা চেহারার অতিবৃদ্ধ লোক
ত্রিমূর্তি ব্রহ্মা বিষ্ণু ও মহেশ্বর; ব্যঙ্গে তিন সাঙাৎ (মন্দার্থে- সহচর, সহযোগী)
ত্রিশঙ্কু অবস্থা // ত্রিশঙ্কুর দশা অনিশ্চিত অবস্থায় পড়েছে এমন ব্যক্তি; এদিকেও না ওদিকেও না; সমার্থক বাগধারা- দোনমনা, বেড়ার ওপর বসে ইত্যাদি
ত্রিসীমানা সান্নিধ্য (তুমি আমার ত্রিসীমানা মারাবে না)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
থ খেয়ে/বনে/মেরে যাওয়া/হওয়া ভয়ে কিংকর্তব্যবিমূঢ়/বিস্মিত/স্তম্ভিত হওয়া (ওর কথা শুনে থ মেরে গেছি)
থই পাওয়া কূল/সীমা পাওয়া (কাজের কোন থই পাচ্ছি না)
থইথই করা প্রাচুর্যসূচক দ্বিত্বশব্দ (সভায় লোক থইথই করছে)
থওকা দর আন্দাজী হিসাব; কোন মাপজোখ না করে; (থওকা দরে মাল কেনা)
থকা অবসন্ন/ক্লান্ত হওয়া; হাঁপিয়ে যাওয়া (পরিশ্রমে একদম থকে গেছি)
থতমত খাওয়া/থতিয়ে যাওয়া কিছু বলতে গিয়ে ইতস্তত করা; কিছু দেখে বা শুনে অপ্রতিভ হওয়া; মুখে কথা না ফোটার অবস্থা; ঘাবড়ে গিয়ে কিছু স্থির করতে না পারা
থপথপে কোমল স্থূল শরীর (থপথপে লোক)
থমথম ভয়াবহতাসূচক নিস্তব্ধতা (চারদিক কেমন থমথম করছে)
থরথর প্রবল কম্পনভাব (থরথর করে কাঁপা)
থরহরি কম্প প্রবলভীতির কারণে মানসিক বিপর্যয় (ভয়ে সে থরহরি কাঁপছে)
থলির মধ্যে হাতি পোরা অসম্ভব কাজ, যা হবার নয়
থাউকো থোক হিসাবে, মোটটামুটি দরে (থাউকো দরে কিনলাম)
থাকা-খাওয়া খোরপোশ, ভাত-কাপড়; বাসস্থান ও খাওয়াদাওয়া (চাকুরীস্থলে থাকা-খাওয়ার একটা ব্যবস্থা করতে হবে)
থাকাথাকি অবস্থান, বিদ্যমানতা (সেখানে থাকাথাকির ব্যাপারটা পরে স্থির কয়ড়া যাবে)
থাকা-না-থাকা বাঁচা-মরা (আমার থাকা-না-থাকার সাথে এই বিষয়ের কোন সম্পর্ক নেই)
থানা-পুলিশ করা পুলিশি সাহায্য পেতে বারবার থানায় যাওয়া; মামলা-মকদ্দমায় জড়িয়ে পড়া
থাবা দেওয়া/বসানো/মারা পাঞ্জায় আঘাত করা; কেড়ে বা ছিনিয়ে নেওয়া; হস্তক্ষেপ করা (আমার অধিকারে থাবা দিচ্ছে)
থাবাথুবি দিয়ে রাখা পিঠ চাপড়ে ভুলিয়ে রাখা (কোনরকমে থাবাথুবি দিয়ে বিষটা চাপা রেখেছি)
থাবড়ে দেওয়া চড়ের ওপর চড় মারা (বেশি কথা বললে থাবড়ে দেব)
থিক-থিক করা পোকামাকড়ের প্রাচুর্যসূচক;বহু বস্তু/প্রাণীর বিরক্তিকর একত্র সন্নিবেশের ভাবসূচক (জলে পোকা থিক-থিক করছে)
থিতা/ থিতানো মন্দীভূত হওয়া (আন্দোলন থিতিয়ে এসেছে)
থিতু হওয়া এক জায়গায় স্থির হয়ে বসা (আগে থিতু হও, পরে যা বলার বলবে)
থির-থিরানি মৃদু কম্পন, থিরথির করে কাঁপা (ভয়ে থির-থিরানি শুরু হয়েছে)
থুত্‌কার/ থুতু ফেলা ধিক্কার জানানো
থুতু দিয়ে ছাতু গোলা/মলা অসম্ভব কাজ করার চেষ্টা; কৃপণতা করা
থুত্থুড়ে বার্ধক্যজনিত কারণে কম্পনসূচক, অতিবৃদ্ধ (থুত্থুড়ে বুড়ো)
থেকে থেকে কিছুকাল অন্তর, মধ্যে মধ্যে (থেকে থেকে জ্বর আসছে)
থেবড়া মারা মাটিতে চেপ্টে বসা (থেবড়া মেরে বসে আছে)
থোঁতা মুখ অহঙ্কার, দর্প (থোঁতা মুখ ভেঙে দেবো)
থোড়কুচি করা টুকরা টুকরা করা
থোড় অতি সামান্য, প্রায় কিছুই না (সবাই ভাগ পেল আমি পেলাম থোড়)
থোড়-বড়ি-খাড়া, খাড়া-বড়ি-থোড় বৈচিত্রহীন একঘেঁয়ে জীবন
থোড়াই কেয়ার করা একটুও না, মোটেই গ্রাহ্য না করা (আমি তোমাকে থোড়াই কেয়ার করি)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
দকে (কাদা) পড়া ভীষণ বিপদে প়ড়া (দকে পড়ে হাঁসফাঁস করছি)
দক্ষযজ্ঞ প্রলয়কাণ্ড, চূড়ান্ত হট্টগোল, লন্ডভন্ড কর্মকান্ডে বিপর্যস্ত অবস্থা (সভায় দক্ষযজ্ঞ লেগে গেছে)
দক্ষিণ নায়ক একইসাথে বহু নায়িকার প্রতি অনুরক্ত
দক্ষিণ রায় সুন্দরবনের বাঘ
দক্ষিণহস্ত অবলম্বন, প্রধান সহায় (সেইতো আমার দক্ষিণ হস্ত, তাকে ছাড়া আমার চলে না)
দক্ষিণহস্তের কাজ/ব্যাপার১ আহার, খাওয়াদাওয়া, ভোজন (এখন দক্ষিণহস্তের ব্যাপার চলছে)
দক্ষিণহস্তের কাজ/ব্যাপার২ কঠিন কাজ(এটা দক্ষিণহস্তের কাজ। সহজ হবার নয়)
দক্ষিণা সম্মাননীয় ব্যক্তির পারিশ্রমিক (গুরুদক্ষিণা)
দক্ষিণা-পথ বিন্ধ্যপর্বতের দক্ষিণে অবস্হিত ভারতের দক্ষিণাংশ
দক্ষিণার জোর উৎকোচ জোর
দগ-দগে জ্বালাময় এবং লালচে ক্ষত (দগদগে ঘা)
দগ্ধ কপাল হতভাগ্য; সমার্থক বাগধারা- পোড়া কপাল, ফাটা কপাল, ভাঙা কপাল ইত্যসি
দগ্ধ চিত্ত সন্তপ্ত চিত্ত
দজ্জাল ঝগরাটে (দজ্জাল মেয়ে)
দড়িকলসি আত্মহত্যার উপায়; ডুবে মরার সহায়ক (অভাগার দড়ি কলসিও জোটেনা)
দড়ি ছিঁড়ে পালানো মায়ার বন্ধন কাটিয়ে চলে যাওয়া; মৃত্যু
দড়িদড়ি দড়ির মত কৃশ, সরু (দড়িদড়ি চেহারা)
দণ্ডবৎ মাটিতে লাঠির মত শুয়ে প্রণাম (হুজুর দণ্ডবৎ হই)
দণ্ডে দণ্ডে ক্ষণে ক্ষণে, প্রতি মুহূর্তে (দণ্ডে দণ্ডে এসে সে আমার খবর নেয়)
দণ্ডমুণ্ডের কর্তা আর্থিক দণ্ড দেওয়ার অধিকারী উপরওয়ালা, শাসক বা বিচারপতি
দধিকর্ম / দধিকড়মা দই, খই, ছাতু ইত্যাদি দিয়ে মাঙলিক কাজের জন্য প্রস্তুত ভাগবিশেষ
দধিমঙ্গল সূর্যোদয়ের আগে বর-কনের দই খাওয়ার আচারবিশেষ
দধীচি পরের মঙ্ড়েগলের জন্য আত্মবলিদানকারী পুরুষ
দধীচির হাড় শক্ত সমর্থ
দন্ত কচকচি ঝগড়া (দন্ত কচকচি করতে মুখিয়ে আছে; সমার্থাওক বাগধারা- খিচিমিচি
দন্ত বিকাশ দাঁত খিঁচুনি, হাসি (আর দন্ত বিকাশ করতে হবে না)
দন্তস্ফুট দুর্বোধ্য বিষয়ের মধ্যে প্রবেশ (লেখাটায় দন্তস্ফুট করতে পারছি না)
দর্পণে মুখ দেখা অবিকল প্রতিবিম্ব; লোকের সাথে যেমন ব্যবহার করবে তেমন ব্যবহার ফেরৎ পাবে
দফা১ কিস্তি (দফায় দফায় দাম বাড়ছে)
দফা২ অবস্থা (আমার দফারফা)
দফারফা ধ্বংস, সর্বনাশ, সব শেষ, বারোটা বাজা (ব্যবসায়ের দফারফা হয়ে গেছে)
দফা শেষ/সারা জীবনান্ত, জীবনযাত্রার অবসান করা (শেষদফায় পৌঁছে গেছি)
দবদবা তেজ, প্রতাপ, প্রভুত্ব (অবস্থা পড়ন্ত তবু একটুও দবদবা কমে নি); সমার্থক বাগধারা- জাঁকজমক, রবরবা, রমরমা
দম নেওয়া বিশ্রাম করা (অনেক পরিশ্রম হয়েছে এবার একটু দম নাও)
দম ফাটা গোপন আবেগে অস্থির হওয়া (কথাটা না বলা পর্যন্ত দম ফেটে যাচ্ছে)
দম ফাটা হাসি হাসির প্রবল বেগে বুক ফেটে যাওয়ার উপক্রম
দম ফুরানো/বেরুনো ক্লান্ত হয়ে পড়া
দমকা হাওয়া আকস্মিক প্রবল ঝটকা (দমকা হাওয়ায় সব ওলটপালট)
দমে ভারী যা সিদ্ধ হতে বেশি সময় লাগে
দয়ে (দহ) ফেলা/মজানো বিপদে ফেলা, সর্বনাশ করা (তোমায় দয়ে ফেলে মারবো)
দর-কচা/কাঁচা আধপাকা-আধকাঁচা, আংশিক অপরিপক্কতা (চেহারাটা দরকচা মেরে গেছে)
দর্শনী দেবতার মন্দির দর্শনের জন্য প্রদেয় প্রণামি (দর্শনী না দিলে হতভাগ্যরা দেবতার দর্শন পায় না)
দলছুট দল থেকে বিচ্ছিন্ন (দলছুটেরা নতুন দল গড়েছে)
দল নিন্দার্থে- অসৎ সংসর্গ (দলে পড়ে ছেলেটা উচ্ছন্নে গেছে)
দল পাকানো কারো শত্রুতা করার জন্য দলবদ্ধ হওয়া
দল বাঁধা জোটবদ্ধ হওয়া
দলাদলি দুই দলের মধ্যে বিবাদ, দল বেঁধে বিরুদ্ধাচরণ (দলের মধ্যে দলাদলি চলছে)
দলিল-দস্তাবেজ লিখিত প্রমাণস্বরূপ কাগজপত্র
দলে দলে নানা দল বেঁধে; প্রচুর সংখ্যায় (দলে দলে লোক আসছে)
দলে ভারী একেকটি দলে বহুসংখক লোক
দশ১ জনসাধারণ ('দশে মিলি করি কাজ')
দশ২ বিশিষ্টজন (তিনি হলেন দশের একজন)
দশকথা নানাকথা, কটুকথা, গালমন্দ (আমায় দশ কথা শুনিয়ে দিল)
দশগুণ বহুগুণ (এবার দশগুণ বৃষ্টি হয়েছে)
দশচক্রে ভগবান ভূত বারবার বলা মিথ্যা সত্যে পরিণত হয়
দশবাইচণ্ডী মুখ্য অর্থ- দশভুজা দুর্গা; আলং- অতি কোপনস্বভাবা নারী; সমার্থক বাগধারা- রণচণ্ডী
দশবার বহুবার (দশবার না করেছই, তবু কথা শুনল না)
দশভুজা খুবই করিতকর্মা নারী (গৃহিণী আমার চতুর্ভজা, একাই চারিদিক সামলান); সমার্থক বাগধারা- চতুর্ভুজা
দশমী-দশা শেষ অবস্থা, বার্ধক্য, মৃত্যু (আমি দশমী-দশায় উপস্থিত হয়েছি)
দশাসই লম্বা-চওড়া স্বাস্থ্যবান মানুষ (দশাসই চেহারা)
দস্তানা পড়া বিড়াল আয়েসী লোক
দস্তুর প্রথা, রীতি (এখানকার এই দস্তুর)
দস্তুরমত নিয়মমাফিক, রীতিমতো, যথেষ্ট, বিলক্ষণ (তুমি দস্তুরমতো দায়ী)
দহ কঠিন সঙ্কট (দহে পড়েছি)
দহন যন্ত্রণা ('দহন জ্বালায় জ্বলে জ্বলে হৃদয় অ্যাম্বার হল ছাই')
দহরম মহরম ঘনিষ্ঠসম্পর্ক, অত্যন্ত মাখামাখিভাব (দু'দলের মধ্যে খুব দহরম মহরম চলছে)
দহলা-নহলা করা ইতঃস্তত করা ( যাবার আগে সে খুব দহলা-নহলা করছে)
দহে পড়া/মজানো গভীর সংকটে পড়া/ফেলা
দাঁও সুযোগ, মওকা (দাঁও ফসকে গেল)
দাঁও মারা সহজে মোটা লাভ; সুযোগ পেয়ে কাজ হাসিল (বিরাট একটা দাঁও মেরেছি)
দাঁড়কাকের ময়ূরপুচ্ছ ভণ্ডামির চিহ্ন
দাঁড়ি টানা/দেওয়া ক্ষওয়া/বিরত হওয়া, থামা,(আমি এইখানে দাঁড়ি টানলাম)
দাঁত কপাটি লাগা দাঁতে দাঁতে খিল ধরা; চোয়াল আটকে যাওয়া
দাঁত-ক্যালানে অকারণে দন্ত বিকশিত করে এমন
দাঁত খিচানো বিকৃত মুখভঙ্গী করে তিরস্কার করা (সব সময় দাঁত খিঁচাবে না তো)
দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা সময়ে সুযোগের সদব্যবহার
দাঁত ফোটানো/বসানো কোন দুরুহ বিষয় উপলব্ধি করতে পারা (এত কঠিন লেখা যে দাঁত ফোটানোই যায় না)
দাঁত বার করা বেহায়া, নির্লজ্জ (এমন দাঁত বার করে দাঁড়িয়ে আছো কেন?)
দাঁত ভাঙা দর্পচূর্ণ করা/হওয়া (সময় তোমার দাঁত ভাঙবে)
দাঁতভাঙা উচ্চারণে কষ্ট হয় এমন (সংস্কৃতে দাঁতভাঙা শব্দের ছড়াছড়ি)
দাঁতে কুটো করা/কাটা অতি বিনীত হওয়া; হীনভাবে বশ্যতা স্বীকার করা (দাঁতে কুটো কড়ছই আর ভুল হবে না)
দাঁতে জিভে সম্পর্ক মন্দ-ভালোর সম্পর্ক (সুযোগ পেলে দাঁত জিভে কামড় মারে, অথচ দাঁতে যন্ত্রণা হলে জিভ সামলায়)
দাঁতে দড়ি দিয়ে পড়ে থাকা না খেয়ে শুয়ে থাকা; আনাহারে থাকা
দাঁতে দাঁত লাগা প্রবল শীতে দাঁতে দাঁতে ঠোকাথূকি লাগা
দাউ দাউ প্রবল আগুনের ভাবসূচক (চিতাটা দাউ দাউ করে জ্বলছে)
দা-কুমড়াসম্পর্ক চিরশত্রুতা আদা-কাঁচকলায় সম্পর্ক, বাঘে-গরুতে সম্পর্ক, বুনো ওল-বাঘা তেঁতুল সম্পর্ক; সাপ-নেউলে সম্পর্ক ইত্যাদি
দাঙ্গা-হাঙ্গামা বহু লোকের বা বিভিন্ন শ্রেণির মধ্যে ক্রমাগত মারামারি (খুবই দুর্ভাগ্য যে এখনো হিন্দু-মুসলমানে দাঙ্গা-হাঙ্গামা হয়)
দাগ অভিমান, মালিন্য (মনের দাগ কখনো মুছে না)
দাগ লাগা দোষ/কলঙ্ক স্পর্শ করা (তার চরিত্রে দাগ লেগেছে)
দাগা আঘাত, মর্মবেদনা (তার মনে দাগা লেগেছে)
দাগাবাজি বিশ্বাসঘাতকতা (দাগাবাজি করে পার পাবে না)
দাগি পূর্বে সাজাপ্রাপ্ত (দাগি আসামী)
দাঙ্গা-হাঙ্গামা বিভিন্ন শ্রেণির মধ্যে অনবরত মারামারি
দাতাকর্ণ সু অর্থে- অতিশয় দানশীল ব্যক্তি; কু অর্থে- মাত্রারিক্ত বদান্যতার প্রতি ব্যঙ্গোক্তি
দাদ তোলা/নেওয়া সুযোগ বুঝে পুরানো বৈরীতার প্রতিশোধ নেওয়া (একদিন এই অপমানের দাদ তুলবো)
দাদা হজম গাঁজাখুরি/খোশগল্প (তোমার দাদা হজম করা গল্প থামাও)
দাদাগিরি মাতব্বরি, সর্দারি (আজকাল সব জায়গায় দাদাগিরি চলছে)
দাদার দাদা অতিরিক্ত চালাক; অধিকতর শক্তিধর দাদা (দাদা থাকলে দাদার দাদা আছে)
দানসামগ্রী বিয়ে বা শ্রাদ্ধে দানের জন্য সাজিয়ে রাখা সামগ্রী
দাপাদাপি আস্ফালন (এত দাপাদাপি কিসের?)
দাবীদাওয়া অভিযোগ, নালিশ, স্বত্বাধিকার (সম্পত্তির ওপর আমার দাবীদাওয়া আছে)
দায় পড়েছে 'গরজ নেই’ মনোভাব ব্যক্ত করতে উক্তি
দায়সারা অবহেলা বা অসহযোগিতাপূর্ণ (দায়সারা কাজ)
দায়ে ঠেকা/পড়া বাধ্য হওয়া, বিপদে পড়া (দায়ে পড়ে টাকা দিতে হল)
দায়ে পড়ে ঢেলায় প্রণাম // দায়ে পড়ে দা‘ঠাকুর প্রয়োজন/স্বার্থের জ্বালা বড় জ্বালা; সমার্থক বাগধারা- গরজ বড় বালাই; গরজে গঙ্গাস্নান ইত্যাদি
দারুভূত জগন্নাথ/মুরারী নানাচিন্তায় কাষ্ঠবৎ
দারোয়ানি পাহারা দেবার কাজ (কাঁহাতক আর তাদের পিছনে দারোয়ানি করা যায়?)
দার্শনিকতা ব্যঙ্গে- অত্যধিক চিন্তাশীলতা
দালাল ব্যঙ্গে- অযৌক্তিকভাবে কারও পক্ষ অবলম্বনকারী বা পক্ষসমর্থনকারী (সরকারের দালাল, মালিকের দালাল)
দার্শনিকতা ব্যঙ্গে- অত্যধিক চিন্তাশীলতা (তোমার ওই দার্শনিকসুলভ আচার-ব্যবহারে লোকে মজা পায়)
দাসখৎ দাসত্বের স্বীকারপত্র (দাসখৎ লিখে দিয়েছি নাকি?)
দাসানুদাস একান্ত অনুগত ব্যক্তি (আম কারও দাসাকনুদাস নই)
দিকপাল অতিপ্রভাবশালী ব্যক্তি
দিকদারি বিরক্তিকর অবস্থা
দিগগজ মুখ্য অর্থ- পূর্বাদিক্রমে অষ্টদিকে রক্ষক ঐরাবতসহ অষ্টহস্তী; আলং (ব্যঙ্গার্থে)- মহাপণ্ডিত (দিগগজ পণ্ডিত); সমার্থক বাগধারা- হস্তীমূর্খ
দিগদিগন্ত চারিদিক, সমস্ত দিক, সর্বত্র ('মন মোর মেঘের সঙ্গী উড়ে চলে দিগদিগন্তের পানে'- রবীন্দ্রনাথ)
দিগ্ভ্রান্ত দিশাহারা, বেতালা ('দিগভ্রান্ত এক বিরহী পথিক')
দিগ্বিদিক১ পূর্বাদি চার দিক ও ঈশানাদি চার কোণ, সর্বদিক (সম্মুখে শয়ান সিন্ধু দিগ্বিদিক হারাইয়া- রবীন্দ্রনাথ)
দিগ্বিদিক২ ছোটবড়, ন্যায়-অন্যায়, ভালমন্দ, হিতাহিত ইত্যাদি (লোকটার দিগ্বিদিক জ্ঞান নেই)
দিন আসা সুদিন আসা ('দিন আগত ঐ, ভারত তবু কই')
দিন কাটা সময় অতিবাহিত হওয়া (কষ্টে-সৃষ্টে দিন কাটছে)
দিনকাল সময় ও অবস্থা (দিনকাল বড় খারাপ)
দিনকে রাত করা মিথ্যাকে সত্য ও সত্যকে মিথ্যা বানানো
দিনক্ষণ দিনের শুভ-অশুভ সময় (দিনক্ষণ দেখে বাড়ী থেকে বেরিয়ো)
দিনগত পাপক্ষয় নিত্যকৃত্য, একঘেয়ে রোজের কাজ রোজ শেষ করা; বিনা আনন্দে শুধু শুকনো কর্তব্যপালন
দিন কেনা নিজ্ধর কাজ গুছিয়ে নেওয়া; সুযোগমত কার্যোদ্ধার
দিন গোণা দীর্ঘকাল ধরে সাগ্রহে অপেক্ষা করা
দিন চলা জীবনযাত্রার দৈনন্দিন খরচ জোগাড় হওয়া; বেঁচে থাকা (কোনভাবে আমার দিন চলে)
দিন চালানো জীবনযাত্রার খরচ জোগাড় করা (দিন চালাতে গিয়ে জীবনান্ত)
দিন দিন প্রতিদিন, ক্রমশ ('দিন দিন আয়ুহীন হীনবল দিন দিন'- মাইকেল)
দিনদুপুর মধ্যাহ্ন, বেলা দ্বিপ্রহর, প্রকাশ্য দিবালোক (দিনদুপুরে ডাকাতি- প্রবাদ)
দিন ফুরানো আয়ু শেষ হওয়া (আমার দিন ফুরালো ব্যাকুল বাদলসাঁঝে'- রবীন্দ্রনাথ)
দিনে ডাকাতি অত্যন্ত দুঃসাহসী কুকর্ম, জ্ঞাতসারে/প্রকাশ্যে প্রতারণা(ব্যবসায়ীরা দিনে ডাকাতি করছে)
দিনে তারা দেখা অসম্ভব কিছু সম্ভব করতে পেরে গর্ব অনুভব করা; প্রচণ্ড অহংকারী
দিনে দিনে১ উত্তরোত্তর, ক্রমশঃ, ধীরে ধীরে (দিনে দিনে বাড়লো দেনা...'-রবীন্দ্রনাথ)
দিনে দিনে২ দিনের বেলায়, আলো থাকতে থাকতে (দিনে দিনে বাড়ী ফিরে আসবে)
দিনের দিন প্রতিদিন। সেইদিনই
দিবাস্বপ্ন অবাস্তব সুখকল্পনা
দিব্বি১ চমৎকার, বেশ ভালোভাবে, মনোহর, সুন্দর (বরকনেকে দিব্বি মানিয়েছে)
দিব্বি২ কিরা, প্রতিজ্ঞা (দিব্বি করছি আর কখনো ওখানে যাব না)
দিল খোলসা/খোলা সরল মনের লোক, কোন ঘোরপ্যাঁচ নেই; (দিলখোলা হাসি) সমার্থক বাগধারা- অকপটচিত্ত, প্রাণখোল
দিল দরিয়া সমুদ্রের মত হৃদয়; উদার হৃদয়
দিলখুশ/খোশ চিত্তের তৃপ্তিদায়ক
দিল্লি দূর অস্ত লক্ষ্য বহুদূর, লক্ষ্যে পৌঁছুতে এখনও অনেক বাকি
দিল্লি হিল্লি/হিল্লি দিল্লি কাছের ও দূরের নানা অনির্দিষ্ট জায়গা
দিল্লিকা লাড্ডু যে লোভনীয় বস্তু পেলে লোকে নিরাশ হয়, আবার না পেলেও নিরাশ হয়
দিশপাশ কূলকিনারা, দিশা (কাজের দিশপাশ নেই)
দিশাহারা কিংকর্তব্যবিমূঢ়, দিগভ্রান্ত ('মনিহারা ফণীর মত দিশেহারা হই')
দীন দুনিয়ার মালিক ধর্ম ও জগতের প্রভু- ঈশ্বর ('দীন দুনিয়ার মালিক তুমি দিল কি দয়া হয় না')
দীর্ঘসূত্রী পরিনাম জেনেও যে ব্যক্তি ব্যবস্থা গ্রহণে দেরি করে
দুইয়ে দুইয়ে চার আপাতসম্পর্কহীন দুটি বিষয়ের মধ্যে কার্য-কারণসম্পর্কস্থাপন
দুইয়ের বার দুই উদ্দেশ্যই অনুকূল অবস্থায় আছে
দু কথা কতকগুলি শক্ত কথা
দু-এক কথা অল্প কয়টি কথা
দু-চার কথা অল্প কতকগুলি কড়া কড়া কথা (দু-চার কথা শুনিয়ে দিল)
দু’কান কাটা নির্লজ্জ বেহায়া
দুঃখচাটা/দুখচেটে দুঃখভোগে অভ্যস্ত, চির/জন্মদুখী
দুখীরাম যে ব্যক্তি দুঃখকষ্টে দিন কাটায়
দু-চোখের বিষ অত্যন্ত অপ্রিয় বিষয়বস্তু, চক্ষুশুল
দুধ কলা দিয়ে সাপ পোষা মারাত্মক শত্রুকে চিনতে না পেরে সাদরে পালন করা
দুধ ঘির শ্রাদ্ধ প্রচুর দুধ ঘির অপচয়
দুধ মেরে ক্ষীরটুকু নির্যাস, সার অংশ
দুধে আলতা রঙ উজ্জ্বল গৌরবর্ণ
দুধে গরুর চোনা একটুদোষে বহুগুণ বরবাদ
দুধে জলে মেশা বেমালুম মিশে যাওয়া; একাত্ম হওয়া
দুধে ভাতে থাকা সচ্ছল অবস্থায় ঐশ্বর্যে বা ভোগে থাকা ('আমার সন্তান যেন থাকে দুধে ভাতে'-রায়গুণাকর ভারতচন্দ্র)
দুধের মাছি সুসময়ের বন্ধু/সঙ্গী; সমার্থক বাগধারা- ফুলের ভ্রমরা, বসন্তের কোকিল, লক্ষ্মীর বরযাত্রী, শরতের শিশির, সুখের পায়রা ইত্যাদি
দুধের বদলে ঘোল/পিটুলি গোলা // দুধের সাধ ঘোলে মেটানো কাঙ্খিত উৎকৃষ্ট বস্তুর পরিবর্তে নিকৃষ্ট বস্তুতে সন্তুষ্ট থাকা
দুনিয়ার বার সৃষ্টিছাড়া
দুনুনুমু/ দোনোমোনো করা ইতস্তত করা (সে দুনুমুনু করছে বিদেশে যাবে কিনা); সমার্থক বাগধারা- ত্রিশঙ্কু, বেড়ার উপর বসে ইত্যাদি
দু’নৌকায় পা বিচারে অস্থিরতা; দুকুল রাখার চেষ্টা
দুপায়ে দণ্ডবৎ সশ্রদ্ধ প্রণাম, ক্ষমা প্রার্থনা করা
দুমুখো সাপ দুজনকে দুরকম কথা বলে পরস্পরের মধ্যে শত্রুতা সৃষ্টিকারী ব্যক্তি
দুমুঠো অল্প পরিমাণ ('দুমুঠো অন্ন তারে দুইবেলা দেন'-রবীন্দ্রনাথ)
দুয়ারে হাতীবাঁধা প্রচুর ধনসম্পদের মালিক
দূর ছাই/দূর-হোক-ছাই বিরক্তিকর অভিব্যক্তি
দুরমুশ করা প্রচণ্ড প্রহার করা
দুর্বাসা কোপণস্বভাব ক্ষতিকর ব্যক্তি
দুর্মুখ কটুভাষী, অপ্রিয়ভাষী
দূর ছাই ঘৃণা লজ্জা বিরক্তি অবিশ্বাস অসম্মতি প্রভৃতি ভাবপ্রকাশক (দূর ছাই, কিছুই ভালো লাগে না)
দূর ছাই করা অবজ্ঞা করা
দূরদর্শী ভবিষ্যতের ফলাফল আগাম অনুধাবন করতে পারে এমন, বিচক্ষণ
দূর দূর ঘৃণা লজ্জা বিরক্তি অবিশ্বাস অসম্মতি প্রভৃতি ভাবপ্রকাশক (দূর দুর ওকে দিয়ে কিছু কাজ হবে না)
দূর দূর করা তাড়িয়ে দেওয়া, বিতাড়ণ করা; সমার্থক বাগধারা- ঝেঁটিয়ে বিদায় করা
দূরদৃষ্টি পরিণাম সম্পর্কে সচেনতা, বিচক্ষণতা
দৃঢ়মুষ্ঠি কৃপণ (এই দৃঢ়মুষ্ঠির কাছে কোন বদান্যতা আশা করো না)
দৃঢ়মূল গভীরভাবে মাটিতে প্রোথিত (দৃঢ়মূল বিশ্বাস)
দৃষ্টান্ত কোন বিষয়ের যাথার্থ প্রমাণের জন্য সদৃশ বিষয়ের উল্লেখ (ছেলে বাপের দৃষ্টান্ত হয়)
দেঁতো হাসি/ দেঁতোর হাসি আন্তরিকতাশূন্য কৃত্রিম হাসি, কপটহাসি, কাষ্ঠহাসি, দাঁতের হাসি
দেওয়ালে পিঠ ঠেকা লড়াইয়ের আর সুযোগ নেই
দেওয়ালের কান থাকা কিছু গোপন নয়
দেওয়ালের লিখন ভবিষ্যৎ পতন ও বিপর্যয়ের আভাস
দেখন হাসি দেখা হলেই হাসে এমন ব্যক্তি
দেখনাই বাইরের আচারাচরণ/চালচলন (শুধু দেখনাই ভালো হলেই চলবে না)
দেখাদেখি অনুসরণ, নকল, সাক্ষাৎ (এই উত্তরগুলি সব দেখাদেখি করে লেখা)
দেখাশুনা অনুসন্ধান, খোঁজখবর, তত্ত্বাবধান,(মেয়ের জন্য পাত্র দেখাশুনা চলছে)
দেখে নেওয়া জব্দ করা (আমাকে দেখে নেবে বলে শাসিয়েছে)
দেখেশুনে সতর্কভাবে বিচার করে (দেখেশুনে মনে হচ্ছে এটা নকল)
দেদার আসংখ্য, প্রচুর (ইচ্ছামত দেদার গাল দিচ্ছে)
দেনমোহর মুসলমানদের বিয়েতে স্ত্রীকে দেওয়া স্বামীর যৌতুক
দেনাপাওনা দেয় পরিশোধ ও প্রাপ্যের প্রাপ্তি; সমার্থক বাগধারা- হিসাবনিকাশ
দেবপুরী অতি সুন্দর ভবন
দেবর লক্ষণ লক্ষণের মত আদর্শবান, চরিত্রবান একান্ত অনুগত দেবর, যেমনটি পেতে প্রতিটি নারী কামনা করে
দেবা তুচ্ছার্থে- পুরুষ, স্বামী (যেমন দেবা তেমনি দেবী)
দেশ-কাল-পাত্র স্থান, সময় ও পরিবেশপরিস্থিতি
দেহাত / দেহাতি গ্রাম / গ্রাম্য; তুচ্ছার্থে- গেঁয়ো (দেহাতি লোক)
দেহি দেহি রব তীব্র আকাঙ্ক্ষার চিৎকার
দৈত্যকুলে প্রহ্লাদ কুবংশে সুসন্তান
দৈনন্দিন প্রতিদিন করতে হয় এমন (দৈনন্দিন কাজ)
দৈবাৎ সহসা, হঠাৎ (দৈবাৎ যদি কেউ চলে আসে)
দো-আঁশলা অকুলীন, বর্ণসঙ্কর, বিপিতা-বিমাতা সম্পর্কযুক্ত- আলং-নীতিভ্রষ্ট ব্যাক্তি (দো-আঁশলা কুকুর)
দোটানা / দোনোমনো দুই ভিন্ন জিনিসের প্রতি মনের সমান আকর্ষণ এবং তার ফলে দ্বিধা;
দোটানায় পড়া/ দোনোমনো করা কি করতে হবে, কোন দিকে যেতে হবে বুঝতে না পারা
দোনোমনা/ দুনুমনু ইতঃস্তত ভাব; বিচারে অস্থরতা (আমি দোনোমোনো করছি ব্যবসা করব না চাকরি করবো); সমার্থক বাগধারা- ত্রিশঙ্কু, বেড়ার উপর বসে ইত্যাদি
দোরগোড়া দরজার সামনের স্থান (মহম্মদ পর্বতের দোড়গোড়ায় উপস্থিত- প্রবাদ)
দোর ধরা ধর্ণা দেওয়া
দোলাচল অনিশ্চয়তা, অস্থিরতা, ইতস্তত/দ্বিধাভাব, সংকল্পের অভাব
দোষৈক-দর্শী গুণ দেখে না, কেবল দোষ দেখে এমন
দোসর সঙ্গী, ষহকারী (শনিবারের মড়া দোসর খোঁজে)
দোহন করা শোষণ করা
দোহাই দেওয়া অজুহাত দেখানো; দিব্বি কাটা; অতীতের নজির টানাল; ঈশ্বরের নামে সরর্কীকরণ (দোহাই তোদের একটু চুপ কর)
দোহার মুখ্য অর্থ- যে মূল গায়কের ধুয়া ধরে গান করে; গৌণ অর্থ- সহকারী (আমার সাথে দোহার থাকে)
দোহারা মাঝারি গড়নবিশিষ্ট (দোহারা চেহারা)
দৌড় ব্যঙ্গে- ক্ষমতা (দেখব তোমার কত দৌড়)
দৌড়ঝাঁপ ছূটোছুটি, ব্যস্ততা (আম্র আর দৌড়ঝাঁপ করার বয়স নেই)
দৌলত প্রভাব প্রতিপত্তি (শশুরের দৌলতে জামাই করে খাচ্ছে)
দ্বিজজিহ্ব পরস্পরবিরোধী উক্তিকারী, মিথ্যাবাদী
দ্বিমত পরস্পরবিরোধী দুই মত (এ বিষয়ে কোন দ্বিমত নেই)
দ্বিরুক্তি আপত্তিজ্ঞাপন (কোন দ্বিরুক্তি না কাজটা করেছে)
দ্বীপান্তর অন্যদ্বীপ, দূরবর্তী দ্বীপে নির্বাসন ('নব নব পবনভরে, যাব দ্বীপে দ্বীপান্তরে'-রবীন্দ্রনাথ)
দ্বৈপায়নতা দ্বীপে বসতি ('দ্বৈপায়নতা ইংরাজের পক্ষে একটা বিরাট সূযোগ'-রবীন্দ্রনাথ)
দ্ব্যর্থহীন দুইপ্রকার অর্থ হয় না এমন, স্পষ্টভাষায় (দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানিয়ে দেওয়া হয়েছে)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ধক১ হৃৎপিণ্ডের প্রবল স্পন্দনের শব্দ (বুকের ভিতর ধক করে উঠল)
ধক২ প্রচণ্ডতা; শক্তি; তেজ, সাহস (তার কথার ধক আছে)
ধকল ঝক্কি/তাল, কাজের চাপ (সারাদিনের ধকল আর সয় না)
ধড়ফড়১ হৃৎপিণ্ডের দ্রুত কম্পন (বুক ধড়ফড় করছে)
ধড়ফড়২ তাড়াহুড়ো (ধড়ফড়ে কাজ সুন্দর হয় না)
ধড়মড় আকস্মিক দ্রূততা/ব্যস্ততা (ধড়মড় করে বিছানায় উঠে বসল)
ধড়াচূড়া ভারী সাজপোষাক (ধড়াচূড়া পরে সাতসকালে কোথায় চললে?)
ধড়িবাজ অত্যন্ত চতুর, ধূর্ত লোক (মহা ধড়িবাজ লোক তো); সমার্থক বাগধারা- ঘোড়েল
ধড়ে প্রাণ আসা বিপদ থেকে মুক্তি পেয়ে স্বস্তি (ঝড় কাটার পর ধড়ে প্রাণ এলো)
ধনতেরাস কার্তিকমাসের কৃষ্ণপক্ষের তেরোনম্বর দিনে সোনা কে‌নার ধুম পড়ে, যার জৌলুসে আকৃষ্ট হয়ে মা লক্ষ্মী নিজে আসেন সেই বাড়িতে
ধনদাস অত্যন্ত কৃপণ (ধনদাস মরে ক্ষুদের জাউ খাইয়া- প্রবাদ)
ধনপিশাচ ধর্ম-অধর্ম, উচিত-অনুচিত বিচার না করে যে অর্থ অর্জনে প্রয়াসী)
ধনপ্রিয়া যে নারী অর্থ ভালবাসে
ধনি১ সুন্দরী যুবতী নারী (সোহাগ চাঁদবদনী ধনি নাচতো দেখি-লোকগীতি)
ধনি২ রমণীকে সম্বোধনের শব্দ (রসাল কহিল উচ্চে স্বর্ণলতিকারে, শুন মোর কথা ধনি নিন্দ বিধাতারে- মাইকেল মধুসূদন)
ধনুক ভাঙা/ধনুর্ভঙ্গ পণ অতি কঠিন ও অনড় প্রতিজ্ঞা
ধনুর্ধর ব্যঙ্গে- বাহাদুর ব্যক্তি, যে ব্যক্তি খুব কেরামতি দেখায়
ধন্বন্তরি অতিশয় সুচিকিৎসক, যিনি রোগ নিরাময়ে কখনো ব্যর্থ হন না
ধপধপ/ধবধব অতি উজ্জ্বল ও শুভ্রতাসূচক (সাদা ধপধপে কাপড়; ধবধবে জ্যোৎস্না); সমার্থক বাগধারা- ফুটফুট
ধর তক্তা মার পেরেক দায়সারাভাবে দ্রূত কাজ শেষ করার চেষ্টা (এত ভাবাভাবির কি আছে ধর তক্তা মার পেরেকের মত কাজ কর)
ধরনধারণ আচার-ব্যবহার, চালচলন, হাবভাব, স্বভাবচরিত্র (লোকটির ধরনধারণ সুবিধার ঠেকছে না)
ধরতা১ যা আগে থেকেই বাদ বলে ধরে নেওয়া হয়
ধরতা২ পাছে ওজন কম হয় এই জন্য বিক্রেতা আগে থেকেই যে পরিমাণ জিনিস আন্দাজে ক্রেতাকে ধর দেয়)
ধরতাই বুলি চালু কথা
ধরতে ছুঁতে নেই কোন দায়ে জড়িত নয়; নির্লিপ্তভাব
ধরপাকড়১ গ্রেপ্তারকরণ (পুলিশ এলাকায় ব্যাপক ধরপাকড় করছে); সমার্থক বাগধারা ধরাধরি
ধরপাকড়২ অনুগ্রহ লাভের জন্য সনির্বন্ধ অনুরোধ; (চাকরির জন্য একে ওকে ধরপাকড় করছি); সমার্থক বাগধারা ধরাধরি, পিড়াপিড়ি
ধর লক্ষণ যে কাজটি করতে বলা হয়নি অথচ করা যুক্তিযুক্ত সে কাজটি না করা; অতি অনুগত ও বোকারা কর্তার ইংগিত, উদ্দেশ্য ও অভিপ্রায় না বুঝে পরিষ্কার নির্দেশ ছাড়া কোন কাজে হাত দেয় না
ধরা দেওয়া আত্মসমর্পণ করা
ধরাকে সরাজ্ঞান করা অহংকারে অন্ধ, গর্বে সকলকে তুচ্ছজ্ঞান করা
ধরাছোঁয়া১ নাগাল (দুস্কৃতি পুলিশের ধরাছোঁয়ার বাইরে)
ধরাছোঁয়া২ বোধগম্যতা (লেখাটা আমার ধরাছোঁয়ার বাইরে)
ধরাধরি১ গ্রেপ্তারকরণ (এলাকায় ব্যাপক ধরাধরি চলছে); সমার্থক বাগধারা ধরপাকড়
ধরাধরি২ অনুগ্রহ লাভের জন্য সনির্বন্ধ অনুরোধ; সকলে মিলে ধরা (ধরাধরি করে একটা আশ্রয় পেয়েছি); সমার্থক বাগধারা-পিড়াপিড়ি
ধরাধরি৩ সকলে মিলে বয়ে নিয়ে যাওয়া (ধরাধরি করে লোকটাকে বসানো হল)
ধরাবাঁধা নির্দিষ্ট, নির্ধারিত (কোন ধরাবাঁধা নিয়ম নেই)
ধরাশায়ী মাটিতে পতিত (গরুর গুঁতোয় ধরাশায়ী)
ধরি মাছ না ছুঁই পানি কৌশলে কার্যোদ্ধার
ধরিত্রীপুত্র ্মুখ্য অর্থ মানুষ; আলং- কাণ্ডজ্ঞানসম্পন্ন সাধারণ মানুষ ; বিপরীতার্থক বাগধারা- আকাশপুত্র
ধর্মকর্ম শাস্ত্রবিধি অনুযায়ী পূণ্যকর্ম
ধর্মপত্নী বিবাহিতা স্ত্রী
ধর্মপিতা/পুত্র ধর্মত যাকে পিতা বা পুত্র বলে স্বীকার করা হয়েছে
ধর্মপুত্র (ধর্মপুত্তুর) যুধিষ্ঠির বিদ্রুপে- যুধিষ্ঠিরের মতো ধার্মিক বলে যে নিজেকে জাহির করতে চায়
ধর্মের কল সত্য (ধর্মের কল বাতাসে নড়ে/ধর্মের ঢাক আপনি বাজে- প্রবাদ)
ধর্মের ষাঁড় স্বেচ্ছাচারী অনিষ্টকারী মুক্তপুরুষ, যাকে বাধা দেবার কেউ নেই; স্বচ্ছন্দে বিচরণকারী ও পরের অনিষ্টকারী ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- খোদার খাসি, গোকুলেরষাঁড়
ধস্তাধস্তি পরস্পরের প্রতি বলপ্রয়োগ, দলবদ্ধভাবে মারামারি (সভায় ধস্তাধস্তি হচ্ছে); সমার্থক বাগধারা- হাতাহাতি
ধাড়ি সচরাচর নিন্দায় সর্দার (বদের ধাড়ি, বুড়োধাড়ি ইত্যাদি)
ধাত মানসিক প্রকৃতি, মেজাজ, স্বভাব (এসব আমার ধাতে সয় না)
ধাতস্থ শান্ত, সুস্থ (এতক্ষণে একটু ধাতস্থ হয়েছি)
ধানকাঠের কড়ি/মই // ধানগাছের তক্তা অপদার্থ, অকেজো ব্যক্তি; নির্বোধের ভ্রান্তবিলাস; সমার্থক বাগধারা- আমড়া কাঠের ঢেঁকি
ধান দিয়ে লেখাপড়া শেখা যত্সামান্য খরচে লেখাপড়া শেখা
ধানদূর্বা দিয়ে পূজা করা বিদ্রুপে- সম্মান/সমীহ করা (ঐ অপদার্থকে ধানদূর্বা দিয়ে পূজা করতে হবে নাকি?)
ধান ভানতে শীবের গীত অপ্রাসঙ্গিক বিষয়ের অবতারণা
ধানাইপানাই করা অর্থহীন বাজে কথা বলা; অসংবদ্ধ বাক্যজাল বিস্তার করা (ধানাইপানাই করে কাজ না করে সরে পড়লো)
ধানি লঙ্কা কড়া/তেজযুক্ত লোক)
ধান্ধা উদ্দেশ্য, কাজের সন্ধান (এখানে কোন ধান্ধায় এসেছো?); সমার্থক বাগধারা- ফিকির
ধান্যেশ্বরী ব্যঙ্গে- ধেনো মদ
ধাপধাড়া ব্যাঙ্গে- অজ্ঞাত বহুদূরবর্তী স্থান (ধাপধাড়া গোবিন্দপুর)
ধামাচাপা দেওয়া অন্যায়ভাবে গোপন করা (বিষয়টা এইভাবে ধামাচাপা দেওয়া ঠিক হয় নি)
ধামসাধামসি উদ্দাম নাচানাচি (সারারাত ধরে ধামসাধামসি চলেছে); সমার্থক বাগধারা- হৈহুল্লোড়
ধামা ধরা চাটুকারিতা, খোশা/তোষামোদ করা
ধামাধরা চাটুকার, খোশা/তোষামুদে
ধার ধারা খাতির করা, গায়ে মাখা, গ্রাহ্য কর, তোয়াক্কা করা; পাত্তা দেওয়া; মান্যতা দেওয়া; সংস্রব রাখা ইত্যাদি
ধার না ধারা উপেক্ষা করা; সম্পর্ক না রাখা (আমি কারো ধার ধারি না)
ধারধোর করা ধার-কর্জ করা
ধারা প্রকৃতি, রকম (কেমনধারা লোকগো তুমি?)
ধারাপাতের বাইরে নিয়মকানুনের বাইরে
ধারে কাটা দক্ষতা ও বুদ্ধির জোরে কার্যোদ্ধার
ধারে ডোবা প্রচুর দেনায় জড়িয়ে পড়া
ধাষ্টামি ধৃষ্টতা, স্পর্ধা, নির্লজ্জ আচরণ (ধাষ্টামি করো না)
ধিকিধিকি মৃদু জ্বলনের ভাব (মনের মাঝে আগুন ধিকিধিকি জ্বলছে)
ধিঙ্গি প্রগল্ভ, বেহায়া (ধিঙ্গি মেয়ে)
ধিঙ্গিপনা বেহায়া মেয়ের উদ্দাম নাচ
ধিন-তা-ধিনা নাচনকোদন, লম্পঝম্প (ধিন-তা-ধিনা করা থামাও)
ধিনিকেষ্ট বিদ্রুপে- ধিনধিন করে নেচে বেড়ায় এমন ফুর্তিবাজ লোক
ধীরে সুস্থে আস্তেআস্তে; তাড়াহুড়ো না করে
ধুকপ মৃদু হৃদস্পন্দন (বুকের ভিতরটা ধুকপুক করছে)
ধুকপুকানি অস্থিরতা, মানসিক উদবেগ (রেসাল্ট বেরুবে তাই বুকে ধুকপুকানি শুরু হয়েছে)
ধুৎতোর/ধুত্তোর তোর সংশ্রবজনিত ঝঞ্ঝাট দূর হোক, বিরক্তিসূচক অভিব্যক্তি (ধুত্তোরি কি যে হচ্চে কিছু বুঝছি না)
ধুনি মখ্য অর্থ- সন্ন্যাসীর অগ্নিকুণ্ড; গৌণ অর্থ- আশায় আশায় অপেক্ষারত (ধুনি জ্বালিয়ে বসে আছে)
ধুন্ধুমারকাণ্ড উৎস-পুরাণে বর্ণিত অসুর; তুলকালাম কাণ্ড, প্রচণ্ড গোলমাল; সমার্থক বাগধারা- কুরুক্ষেত্রকাণ্ড, খণ্ডপ্রলয়, তুলকালামকাণ্ড, মহামারীকাণ্ড, লঙ্কাকাণ্ড ইত্যাদি (সভায় ধুন্ধুমারকাণ্ড চলছে)
ধুমধাড়াক্কা১ প্রচুর আড়ম্বর/জাঁকজমক/শোরগোল (কালীপূজার সময় খুব ধুমধাড়াক্কা চলে)
ধুমধাড়াক্কা২ হাত চালিয়ে মারা (ধুমধাড়াক্কা হাত চালিয়ে দিল)
ধুমধাম জাঁকজমক, সমারোহ (ধুমধাম করে মেয়ের বিয়ে দিল)
ধুমসা/ধুমসো নিন্দায়- কালো মোটাসোটা লোক
ধুমসি নিন্দায়- বেমানান রকমের কালো ও মোটা মেয়ে (ধুমসি মেয়ের কাণ্ড দেখো)
ধুরন্ধর ওস্তাদ, দক্ষ (মহা ধুরন্ধর লোক) সমার্থক বাগধার- ধান্ধাবাজ
ধুলো দেওয়া (চোখে) ফাঁকি দেওয়া (আমার চোখে ধুলো দিয়ে পারবে না)
ধুলো দেওয়া (গায়ে) ঘৃণা প্রকাশ করা
ধুলোমুঠি ধরলে সোনামুঠি ভাগ্য সুপ্রসন্ন হলে স্বল্পচেষ্টাতেই সাফল্য আসে
ধূনা/ধূনো দেওয়া (আগুনে) ইন্ধন যোগানো; উত্তেজনা ছড়ানো
ধূমকেতু অশুভলক্ষণ, উৎপাত, হঠাৎ এসে উপস্থিত ব্যক্তি (ধূমকেতুর মত কোথা থাকে উদয় হলে?); সমার্থক বাগধারা- ভূঁইফোঁড়
ধূমায়মান অল্প অল্প প্রকাশিত হচ্ছে (মানুষের ক্ষোভ ধূমায়িত হচ্ছে)
ধূলিসাৎ সম্পূর্ণ ব্যর্থ (সমগ্র প্রচেষ্টা ধূলিসাৎ হল)
ধোঁকা খাওয়া/দেওয়া প্রতারিত হওয়া; প্রতারণা করা
ধোঁকায় পড়া প্রতারিত হওয়া; সংশয়ে পড়া
ধোঁকার টাটি প্রতারণার আবরণ, যে প্রতারণা বাইরে থেকে বোঝা যায় না (সংসারটা ধোঁকার টাটি)
ধোঁয়াটে/ ধোঁয়াশা অস্পষ্টভাব (সমস্ত বিষয়টা আমার কাছে ধোঁয়াটে লাগছে)
ধোকড় কিছু না, ফাঁকি (মাকড় মারিলে ধোকড় হয়- প্রবাদ)
ধোপদুরস্ত বাবুয়ানি, পরিপাটি, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন
ধোপা-নাপিত বন্ধ একঘরে, সমাজচ্যুত
ধোপার গাধা পরের জন্য খেটে মরা ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- কলুর বলদ
ধোপে টেকা বজায় থাকা; যুক্তিগ্রাহ্য হওয়া; শেষ পর্যন্ত নানা ঘাতপ্রতিঘাত সহ্য করে টিকে যাওয়া (ঢোপে টিকবে না)
ধোয়া তুলসীপাতা নিস্পাপ, কিছু জানে না
ধোলাই প্রচণ্ড প্রহার (চোরটাকে আচ্ছা করে ধোলাই দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে)
ধ্যাড়ানো অপটুতার দরুন কাজ পণ্ড করা
ধ্বজাধারী১ উপাধি, বংশ, ফোঁটা, তিলক ইত্যাদির গর্বে গর্বিত ব্যক্তি
ধ্বজাধারী২ ব্যঙ্গে- কোনো প্রতিষ্ঠান বা সংস্থার উগ্রসমর্থক (ধর্মের ধ্বজাধারী)
ধ্রুব১ অবিসংবাদিত, খাঁটি, যথার্থ (ধ্রুব সত্য)
ধ্রুব২ নিশ্চিত, বদ্ধমূল (ধ্রুব বিশ্বাস)
ধ্রুব৩ অপরিবর্তনীয়, স্থির (ধ্রুব লক্ষ্য; 'যে ধ্রুবপদ দিয়েছো বাঁধি'-রবীন্দ্রনাথ)

[সম্পাদনা]

বাগধারা অর্থ
ন যযৌ ন তস্থৌ কি কর্তব্য স্থির করতে না পেরে স্থির হয়ে থাকা (আমার হয়েছে ন যযৌ ন তস্থৌ অবস্থা, এগুতেও পারছি না, পেছুতেও পারছি না) সমার্থক বাগধারা- এদিকও না ওদিকও না; কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থা, স,সে,মি,রা ইত্যাদি
নকড়া-ছকড়া করা অবহেলা/তুচ্ছতাচ্ছিল্য/অপমানিত করা (এভাবে তাকে নকড়া-ছকড়া করা উচিত হয় নি)
নকলনবিশ বিদ্রুপে- অনুকরণ করতে ওস্তাদ
নকশা / নকশাবাজী তামাশা, ন্যাকামি (বেশি নকশা মেরো না; আর নকশাবাজী করো না)
নখদন্তহীন শার্দূল ক্ষমতা হারানো প্রবল ব্যক্তিত্ব
নখদর্পণ নিখুঁত ও স্পষ্ট জ্ঞান (সমস্ত বিষয়টা আমার নখদর্পণে আছে)
নগদ নারায়ণ কাঁচাপয়সা (নগদ নারায়ণে বিদায় কর)
নগদ বিদায় কাজ শেষ হওয়ামাত্র মূল্যপ্রদান
নগদানগদি নগদে (নগদানগদি দাম মিটিয়ে দেয়)
নগ্ন সত্য অকৃত্রিম খাঁটি সত্য
নগরঘণ্ট নানাসব্জী ও তাদের খোসা ইত্যাদি হাবজাগোবজা একত্রে প্রস্তুত ঘ্যাঁট
নচ্ছার অপদার্থ, সারবিহীন্ন অতি নীচ- গালিবিশেষ
নজরকাড়া আকর্ষণীয়, দর্শনীয় (তার খেলা সবার নজর কেড়েছে)
নজর দেওয়া১ সু অর্থে- দৃষ্টি দেওয়া, লক্ষ্য রাখা (আমার দিকে একটু নজর দিও)
নজর দেওয়া২ কু-অর্রথে- অশুভ/কুদৃষ্টি, ঈর্ষালু দৃষ্টি (পেঁচোর নজর লেগেছে)
নজর/নজরে রাখা তত্বাবধান করা; বিশেষ লক্ষ্য রাখা (কাজের গতির দিকে একটু নজর রেখো)
নজরানা উপঢৌকন, ভেট; বিদ্রুপে- ঘুষ (নজরানা না দিলে সরকারী দপ্তরে কাজ হয় না)
নজরে পড়া কৃপাদৃষ্টি, দৃষ্টিগোচর হওয়া, ভালো ধারণা (মালিকের নজরে পড়েছ, তোমার আর ভাবনা কি)
নটখট/খটি ছোটখাটো গোলমাল (দুই পরিবারের মধ্যে নটখটি লেগেই আছে); সমার্থক বাগধারা- লটখট
নটঘট অসৎ ঘটনা, নষ্ট ঘটন্‌, অবৈধ প্রণয়, কলঙ্কজনক ঘটনা (নটঘটে নটবর)
নটঘটে নটবর বিদ্রুপে- লম্পটশ্রেষ্ঠ ব্যক্তি
নট নড়ন-চড়ন একদম নড়া চড়া করা যাবে না)
নড়চড় অন্যথা, পরিবর্তন, ব্যত্যয় (আমার কথার নড়চড় হ'বে না)
নড়ন-চড়ন স্পন্দন ও চলন (নড়ন-চড়ন-রহিত)
নড়নড়/ নড়বড় ভগ্নাবস্থায় লেগে থাকার ভাব; ঢিলেঢালা ভাব (নড়বড়ে আটচালা); সমার্থক বাগধারা- লড়বড়
নড়ি অবলম্বন (অন্ধের নড়ি)
নড়েভোলা আধাপাগলা, বোকা লোক; সমার্থক বাগধারা- উদোমাদা, গবচন্দ্র, গবা, নেলাভোলা, হাবাগোবা ইত্যাদি
নতুন কুটুম্ব সম্প্রতি যার সঙ্গে বৈবাহিক সম্বন্ধ স্থাপিত হয়েছে
নথ নাড়া গর্ব করা
নদের চাঁদ সুবেশী অকর্মাব্যক্তি; বেলেল্লাপনায় ওস্তাদলোক
ননদ পুঁটুলি বিয়ের সময় ননদকে দেওয়া বউয়ের উপহার
ননীর পুতুল আদুরে দুলাল, শ্রমবিমুখ
নন্দী-ভৃঙ্গী বিদ্রুপে- কারো পাশে থাকা সর্বক্ষণের অনুচরবর্গ
নন্নেমারা রোগা ও দুর্বল (নন্নেমারা চেহারা হয়েছে)
নবকার্তিক১ এক অর্থে-গুণহীন সুপুরুষ; সমার্থক বাগধারা- পলাশ ফুল, পিতলের কাটারী, মাকাল ফল, রাঙামূলো, শিমূলফুল ইত্যাদি
নবকার্তিক২ ভিন্ন অর্থে- কালো কদাকার ব্যক্তি; সমার্থক বাগধারা- কেলে কার্তিক, লোহার কার্তিক
নবকুমার উপকারী ব্যক্তি
নবজীবন দুঃখের পর সুখের অবস্থা (চাকরি পেয়ে নবজীবন লাভ করেছি)
নবডঙ্কা/লবডঙ্কা কিছু না, ফাঁকি, বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠ; সমার্থক বাগধারা- অষ্টরম্ভা, কচু, কচু না ঘেচূ, কলা, কাঁচকলা ইত্যাদি
নবমী দশা মূর্চ্ছা যাওয়া
নবমীর পাঁঠা প্রাণভয়ে ভীত ব্যক্তি
নবাব ব্যঙ্গে- নবাবের মত অহঙ্কারী, আরামপ্রিয় ও বিলাসী ব্যক্তি ('কথায় কখনো ঘটেনি অভাব, যখনি বলেছি পেয়ছি জবাব একবার ওগো বাক্য-নবাব চলো দেখি কথা শুনে'- রবীন্দ্রনাথ)
নবাব খাঞ্জা খাঁ অমিতব্যয়ী অতিবিলাসী ব্যক্তি (যেন নবাব খাঞ্জা খাঁ)
নবাবপুত্র অমিতব্যয়ী ব্যক্তি; বিলাসী ও আরামপ্রিয় লোক
নবাব সিরাজদ্দৌলা মাত্রাতিরিক্ত নবাবীয়ানা; উচ্ছৃঙ্খল চরিত্রের লোক
নবাবি চাল নবাবের মত আচার আচরণ, অনুকরণপ্রিয়তা (অত নবাবী চালের কি আছে?)
নবিশ আনাড়ী লোক (তুমি দেখছি একেবারেই নবিশ)
নম নম/নমো নমো দায়সারাভাব, তাড়াতাড়ি (নম নম করে পূজোটা সেরেছি)
নমস্কারি হিন্দুদের বিয়েতে মান্য কুটুম্বদের দেয় বস্ত্রাদি
নমাস ছমাস অন্তর// নমাসে ছমাসে কদাচিৎ, বহুদিন বাদে বাদে (নমাসে ছমাসে একবার এসে উপস্থিত হয়); সমার্থক বাগধারা- কখনো-সখনো, কালেভদ্রে
নম্বরী নোট উচ্চমূল্যের টাকার নোট (নম্বরী নোটে কিছু লেখা থাকলে নোট বাতিল)
নয়ছয়১ অপচয় (টাকা নয়ছয় করার নয়)
নয়ছয়২ বিশৃঙ্খলতা (ঘরের সবকিছু নয়ছয় হয়ে আছে); সমার্থক নাগধারা- উলটপালট, তছনছ, লণ্ডভণ্ড ইত্যাদি
নয়কে হয় করা মিথ্যাকে সত্য প্রতিপন্ন করা; বিপরীত বাগধারা- হয়কে নয় করা
নয়দুয়ারী দ্বারেদ্বারে ভিক্ষা মাগে এমন ব্যক্তি
নয়নজুলি সরু জলনালী (গাড়ীটা পথপার্শ্বস্থ নয়নজুলিতে গিয়ে পড়েছে)
নয়নমণি পরম আদরের সন্তান ('সই গো আমার নয়নমণি কই, মনিহারা ফণির মত দিশেহারা হই')
নয়নসুখ মিহি সুতীর কাপড়
নরক/ নরককুণ্ড আবর্জনাপূর্ণ/জঘন্য স্থান (জায়গাটাকে এমন নরক কর রেখেছো কেন?; সহরটা নরককুণ্ডে পরিণত হয়েছে)
নরক গুলজার বদলোকের জমায়েতে আসর সরগম
নরকযন্ত্রণা অসহ্য মানসিক যন্ত্রণা (ঝড়ে বিপর্যস্ত হয়ে নরকযন্ত্রণা ভোগ করছি)
নরকে যাওয়া মৃত্যু হওয়া; মৃত্যু কামনা করে গালি (নরকে যাও)
নরকের কীট অতি নীচ মানসিকতার লোক
নরকের দরজা/দ্বার তুর্কমেনিস্তানের দরওয়াজা শহরের একটি প্রাকৃতিক গ্যাসক্ষেত্র দীর্ঘদিন ধরে যার অগ্নিমুখটি অনবরত জ্বলছে বলে নরকের দরজা বলা হয়; আলং- উচ্ছন্নে যাওয়ার পথ
নরম গরম কথা মিঠে ও কটু মিশ্রিত বাক্য (নরমে গরমে তাকে অনেক কথা শুনিয়ে দেওয়া হয়েছে)
নরম পানীয় চা, কফি, মিল্কশেক ইত্যাদি কোমল পানীয় (বাবুরা আজকাল আনন্দানুষ্ঠানে নরম পানীয় খায় না, গরম পানীয় খায়)
নরম মাটি দুর্বলপ্রকৃতির লোক (নরম মাটিতে বেড়াল আঁচড়ায়- প্রবাদ)
নরমে গরম দুর্বলের উপর অত্যাচার
নরসুন্দর নাপিত
নরুণে তালগাছ কাটা অল্প পরিশ্রমে বিরাট কাজ, অসাধ্যসাধন, উচ্চাশা ইত্যাদি; সমার্থক বাগধারা- কলার ভেলায় সাগরপার, খড়মপায়ে গঙ্গাপার, মুড়া কোদালে দিঘিকাটা, শামুক দিয়ে পুকুরসেঁচা ইত্যাদি
নলিনীদলগত-

জলদবৎতরলম্

পদ্মপাতার জলের মত ক্ষণস্থায়ী (বহুবর্ণের একটি বৃহত্তম শব্দ; তুলনীয়- অতলজলদলতলন্যস্ত- রত্নরাজিবনমহামুল্যপুরুষরত্ন, নিশাশেষোন্মেষুন্মুখকমলকোরপকপমহৃদয়সূর্য,
নষ্টচন্দ্র ভাদ্রমাসের কৃষ্ণাচতুর্দশী ও শুক্লাচতুর্দশীর চাঁদ যা দেখলে কলঙ্ক হয়)
নষ্টামি কুকর্ম করা (তোমার নষ্টামি ধরা গেছে)
নষ্টের গোড়া কুকর্মের হোতা (তুমিই হ'লে যত নষ্টের গোড়া)
নসিব অদৃষ্ট, ভাগ্য (নসিব খারাপ হলে পোড়া শোলমাছও পালায়- প্রবাদ)
নস্যি তুচ্ছ ব্যাপার, অতি সামান্য পরিমাণ (ব্যাপারটা আমার কাছে নস্যি)
নহলা-দহলা করা ইতস্ততঃ করা (কাজ শুরু করার আগে সে খুব নহলা-দহলা করছে)
না ঘাটকা, না ঘরকা১ সর্বত্র অনাদৃত ব্যক্তি (সংসারে আ্মার অবস্থা- না ঘরকা না ঘাটকা)
না ঘাটকা, না ঘরকা২ ইতস্তত ভাব; সিদ্ধান্ত নিতে অপারগ; সমতুল্য- ত্রিশঙ্কু অবস্থা, বেড়ার ওপর বসে ইত্যাদি
না আঁচালে বিশ্বাস নেই কার্যসিদ্ধির আগে সাফল্য সম্পর্কে নিশ্চিত না হওয়া
না ঢেঁকি, না কুলো কোন কর্মের নয়; অন্নসংস্থানের কোন উপায় নেই
না বিয়িয়ে কানাইয়ের মা মায়ের কর্তব্যপালনের কষ্টস্বীকার
না রাম না গঙ্গা ধর্মের ধার না ধারা; নির্বাক থাকা
নাই আঁকড়া একগুঁয়ে; সমার্থক বাগধারা- এক বগগা, একরোখা, নাছোড়বান্দা ইত্যাদি
নাই-ঘরে খাঁই অভাবের সংসারে পেটুকপনা; অভাবে পীড়িত
নাক উঁচানো/তোলা১ অবজ্ঞা করা, ঘৃণা করা ( অপরের প্রতি উঁচানো অনুচিত)
নাক উঁচানো/তোলা২ নাক উঁচু কর চলে এমন, উন্নাসিক (নাক তোলা লোকগুলোকে একেবারেই সহ্য করতে পারি না); সমার্থক বাগধারা- নাকুয়া
নাক কাটা১ অপমান করা, ক্ষতি করা
নাককাটা২ নাক কাটা গেছে এমন, নির্লজ্জ, বেহায়া (এমন নাককাটা ছেলে আগে কখনো দেখিনি)
নাক (নিজের) কেটে পড়ের যাত্রা ভঙ্গ করা নিজের ক্ষতি করে পরের ক্ষতি করা
নাক গলানো অনধিকার চর্চা
নাকফোঁড়া বলদ হুকুমের দাস, যে পরের নির্দেশে উঠে-বসে
নাক বরাবর নাকের সিধে/সোজা (নাক নরাবর হাঁটা দাও)
নাক বাঁকানো/সিঁটকানো নাক উঁচানো২-এর অনুরূপ
নাক মলা / নাক-কান মলা আর ভুল হবে না বলে অঙ্গীকার করা; ভুলের প্রায়শিত্ত করে ভবিষতের জন্য সতর্ক হওয়া (নাক-কান মুলছি আর ভুল হবে না)
নাকানিচোবানি / নাকের জলে চোখের জলে অত্যধিক কষ্ট; কাজের অত্যধিক চাপে নিশ্বাসটুকু পর্যন্ত ফেলবার অবকাশ নেই, এমন অবস্থা
নাকারা কোন কাজের নয়, অপদার্থ
নাকাল১ জব্দ (তার পাল্লায় পড়ে খুব নাকাল হয়েছি)
নাকাল২ হয়রান, শ্রান্ত (পায়ে হেঁটে নাকাল হয়ে পড়েছি)
নাকাল৩ বিলক্ষণ শাস্তি (জোচ্চরের পাল্লায় পড়ে নাকালের একশেষ)
নাকুয়া১ উন্নাসিক; নাক উঁচু করে চলে এমন লোক
নাকুয়া২ নাকি সুরে কথা বলে এমন লোক
নাকে কান্না আবদারের কান্না, আসল নয় কান্নার ভাণ
নাকে খত দেওয়া প্রায়শ্চিত্ত করা; ভবিষতে 'এই ভুল আর হবে না' প্রতিজ্ঞা করা
নাকে তেল দিয়ে ঘুমানো পরম নিশ্চিন্তে থাকা
নাকে দড়ি নাকালের একশেষ
নাকেমুখে কথা বাচালতা, বেশি কথা; সমার্থক বাগধারা- চোখেমুখে কথা
নাকেমুখে গোঁজা/ গুঁজে খাওয়া কোনরকমে আহার শেষ করা
নাকের জলে চোখের জলে / নাকানিচোবানি খুব কষ্ট, বিপর্যস্ত (চাকরি হারিয়ে নাকের জলে চোখেওর জলে হচ্ছি)
নাকের ডগায় অতি সন্নিকটে (সশস্ত্র পুলিশের নাকের ডগায় দুস্কৃতিরা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরা করে)
নাকের বদলে নরুণ বেশি ক্ষতি স্বীকার করে অল্প লাভ; প্রাপ্য থেকে ঢের কম পাওয়া
নাখুশ অসন্তুষ্ট (নাখুশ লোক); সমার্থক বাগধারা- নারাজ
নাগপাশ অতি দৃঢ় বন্ধন (সংসারের নাগপাশ বড় কড়া বাঁধন)
নাচনকোঁদন আস্ফালন, লাফালাফি (নেচে কুঁদে নাওরে জাদু মনের সুখে কবে যেতে হবে শিঙে ফুঁকে)
নাচতে এসে/নেমে ঘোমটা কপট/বৃথা লজ্জা (নাচতে নেমে ঘোমটা টেনে লাভ নেই)
নাচা মেতে ওঠা (পরের কথায় নাচে)
নাচাকোঁদা১ হাস্যকর অঙ্গভঙ্গি করা (এত নাচাকোঁদা কিসের?)
নাচাকোঁদা২ অসার জাঁক, বাগাড়ম্বর (তোমার নাচাকোঁদাই সার)
নাচানাচি করা উল্লসিত হওয়া
নাচার উপায় নেই (আমি নাচার আমাকে যেতেই হবে)
নাছোড়বান্দা উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য এঁটুলির মত লেগে থাকে এমন, জেদী, ছেড়ে দেবার পাত্র নয়; সমার্থক বাগধারা- একগুঁয়ে, একরোখা, একবগগা, নেই আঁকড়া ইত্যাদি
নাজেহাল পরিশ্রান্ত, হয়রান, হাল খুব খারাপ (প্রচণ্ড গরমে সবাই নাজেহাল
নাজুক আঘাত সহ্য করতে পা্রে না এমন (নাজুক শরীর)
নাটক/নাটুকেপনা কৃত্রিম ভাবভঙ্গী (অনেক হয়েছে, আর নাটক করতে হবে না)
নাটের গুরু সব অপকর্মের নায়ক (সেইই এই গোলমালের নাটের গুরু)
নাড়া বাঁধা১ সঙ্গীতগুরুর কাছে শিক্ষানবিশী শুরু করা
নাড়া বাঁধা২ ব্যঙ্গে- অসতের চেলা হওয়া
নাড়াবুনে অজ্ঞ,অশিক্ষিত, চাষা, মূর্খ (যত ছিল নাড়াবুনে হল সব কেত্তুনে- প্রবাদ)
নাড়িটেপা ডাক্তার আয়ুর্বেদিক বৈদ্য ('পাড়াতে এসেছে এক নাড়িটেপা ডাক্তার'-রবীন্দ্রনাথ)
নাড়িজ্ঞান১ নাড়ির স্পন্দন অনুভব করে রোগীর প্রকৃত অবস্থা নির্ণয় ক্ষমতা;
নাড়িজ্ঞান২ কোন বিষয়ে সম্যক ধারণা
নাড়ি মরা ক্ষুধা মরা
নাড়িনক্ষত্র আগাগোড়া সমস্ত তথ্য, পুঙ্খানুপঙ্খ তথ্য (তোমার নাড়িনক্ষত্র আমি সব জানি)
নাড়ির টান১ মায়ের মমত্ববোধ; সন্তানের প্রতি মায়ের স্নেহের টান
নাড়ির টান২ জন্মসূত্রে প্রাপ্ত মনের টান (নাড়ির টানে মানুষ দেশে ফেরে)
নাড়ুগোপাল গোলগাল শিশু
নাতোয়ান অভাবীলোক (নাতোয়ানের দুনো ব্যয়- প্রবাদ)
নাথবতী সধবা নারী (নাথবতী অনাধবৎ)
নাদাপেটা হাঁদারাম ভুঁড়িসর্বস্ব অপদার্থ ব্যক্তি
নাদুস-নুদুস মোটাসোটা গোলগাল, হৃষ্টপুষ্ট (নাদুসনুদুস ছেলে)
নান্দীমুখ প্রারম্ভিক অনুষ্ঠান
নান্যপন্থা এছাড়া আর কোন উপায় নেই (নান্যপন্থা বিদ্যতে অয়নায়- বেদের উক্তি)
নাভিশ্বাস মৃত্যুযন্ত্রণা, শেষ অবস্থা
নাম১ অজুহাত (অসুখের নামে ছুটি নিয়েছে)
নাম২ পরিচয় (নামের চোটে গগন ফাটে- প্রবাদ)
নাম৩ শপথ (ঈশ্বরের নামে বলছি আমি কিছুই জানি না)
নাম করা১ বিখ্যাত হওয়া (ছেলে আমার বেশ নাম করেছে)
নাম করা২ উল্লেখ/স্মরণ করা (আজই তোমার নাম করছিলাম)
নাম কাটা তালিকা থেকে নাম বাদ (তালিকা থেকে তোমার নাম কাটা গেছে)
নাম কাটানো দল ছাড়া (আমি নাম কাটিয়ে আদি-দল থেকে নব-দলে গেছি)
নাম জপা বারবার নাম উচ্চারণ করা; ইষ্টনাম নেওয়া
নাম ডোবানো সুনাম নষ্ট করা
নাম ধরা গুরুজনদের নাম ধরে ডাকা
নাম নেওয়া উপাসনা/বন্দনা করা
নাম লেখানো দলভুক্ত হওয়া
নামকা ওয়াস্তে নামমাত্র (নামকা ওয়াস্তে হাজিরা চাই না, আমি চাই কাজ)
নামকাটা সেপাই ছাঁটাই কর্মচারী
নামগন্ধ কোন নিদর্শন (এখানে গোলমালের কোন নামগন্ধ নেই)
নামগান ইষ্টদেবতার কীর্তন (মন্দিরে সারাদিন নামগান হয়)
নামজাদা বিখ্যাত (নামজাদা হলে খাতির পাওয়া যায়)
নামডাক প্রখ্যাতি (সে বেশ নামডাকওয়ালা লোক)
নামধাম পরিচয়ের বিস্তৃত বিবরণ (তোমার নামধাম লিখ দিও)
নামমাত্র অতি সামান্য পরিমাণ, যৎসামান্য
নামসংকীর্তন ঈশ্বরের স্তুতিগান
নামাবলী দেবতার নামাঙ্কিত উত্তরীয় ('হাতে লোটা, মাথে জটা, নামাবলী গায়'- বাউলগীতি)
নামে গোয়ালা কাঁজি ভক্ষণ কাজে নয়, নামেমাত্র সার
নামে নামে জনে জনে, প্রত্যেককে নির্দেশ করে (প্রত্যেকের নামে নামে আসন রাখা আছে)
নামেমাত্র নামত, শুধু নামে, কাজে নয় (তিনি নামেমাত্র সম্পাদক)
নারদ কলহপ্রিয় লোক; কলহসংদঠক, পরস্পরের মধ্যে শত্রুতা সৃষ্টিকারী ধূর্তব্যক্তি
নারদ নারদ ঝগড়া চলতে থাকুক এই কামনায় নারদের নাম উল্লেখ
নারদের ঢেঁকি বিবাদসৃষ্টিকারী ব্যক্তি
নারাজ নাখুশের অনুরূপ
নাস্তা সকালের জলখাবার
নাস্তানাবুদ নাকালের একশেষ, বিপর্যস্ত (সংসারের চাপে পড়ে নাস্তানাবুদ হয়ে গেলাম); সমার্থক বাগধারা- চিঁড়ে-চ্যাপ্টা
নিকম্মার ধাড়ি/ঢেঁকি চূড়ান্ত অলস ব্যক্তি
নিকুচি দফারফা, শেষ (তোমার নিকুচি করে ছাড়বো)
নিঙ্‌ড়ানো শোষণ করা (দুর্বল পেয়ে সবাই তাকে নিঙড়ে নিচ্ছে)
নিজে নিজে আপনি, কারো সাহায্য ছাড়াই (ও নিজে নিজেই উঠে দাঁড়িয়েছে)
নিজের কথাই পাঁচকাহন আত্মপ্রচারসর্বস্ব
নিজের কোলে ঝোল টানা স্বার্থপর হওয়া
নিজের চরকায় তেল দেওয়া অন্যের ব্যাপারে নাক না গলিয়ে নিজের কাজে মন দেওয়া
নিজের ঢাক নিজে পেটা আত্মপ্রচার
নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ নিজের ক্ষতি করে পরের ক্ষতি করা
নিজের পায়ে কুড়ুল/কোপ মারা নিজের সর্বনাশ ডেকে নানা
নিজের পায়ে দাঁড়ানো স্বাবলম্বী হওয়া (নিজের পায়ে দাঁড়াতে শেখো, কারও পরোয়া করতে হবে না)
নিজের মুখে ঝাল খাওয়া সঠিক তথ্য জেনে নিয়ে মন্তব্য করা
নিট/নীট১ আনুসঙ্গিক খরচাখরচ বাদ দিয়ে যা পড়ে থাকে (নীট আয়, নীট লাভ)
নিট/নীট২ মোটমাট যা দাঁড়ায় (এত পরিশ্রমের নীট ফল শূন্য)
নিতল১ গোলাকৃতি বস্তু যার তল নেই)
নিতল২ অতি গভীর স্থান যার তল খুঁজে পাওয়া যায় না)
নিত্যনৈমিত্তিক দৈনন্দিন ও বিশেষ উপলক্ষে করণীয় (সকালে স্নান করা আমার নিত্যনৈমিত্তিক কাজ)
নিদানকাল মৃত্যুকাল, অন্তিম সময় (নিদানকালে হরিনাম- প্রবাদ)
নিদানকালে হরিনাম শেষমুহূর্তে উঠেপড়ে লাগা (পরীক্ষা সামনে তাই নিদানকালে হরিনাম হচ্ছে)
নিদেনপক্ষে কম করে ধরলে (নিদেনপক্ষে হাজার দশেক টাকা লাগবে)
নিধিরাম সর্দার গুণহীন ব্যক্তি (ঢাল নেই তরোয়াল নেই নিধিরাম সর্দার- প্রবাদ)
নিপাট সোজা, সরল, কুটিলতামুক্ত (নিপাট ভালমানুষ)
নিপাতনে সিদ্ধ নিয়মের ব্যতিক্রমে সিদ্ধ
নিবা/নিভা জীবন ফুরিয়ে যাওয়া (দীপ নিভার সময় হয়েছে)
নিমকহারাম/নেমখারাম অকৃতজ্ঞ- যে উপকার পেয়েও উপকার স্বীকার করে না বা নুন খেয়ে গুণ গায় না
নিম খুন প্রায় খুন হয়েছে এমন
নিমরাজী আংশিক/প্রায় রাজী (তাকে নিমরাজী করিয়েছি)
নিমেষ১ পলক পড়ে না এমন (নিমেষ নয়নে চেয়ে আছি)
নিমেষ২ মুহূর্তকাল (নিমেষের মধ্যে ঘটনাটা ঘটে গেল)
নিমিত্তের ভাগী কাজ না করেও সেই কাজের দায়গ্রহণ
নিরানব্বুইয়ের ধাক্কা সঞ্চয়ের প্রবৃত্তি, যা আর শেষ হতে চায় না
নিরুপমা রূপে, গুণে তুলনাহীনা নারী ('হে নিরুপমা, চপলতা আজ যদি কিছু ঘটে করিও ক্ষমা...'- রবীন্দ্রনাথ)
নিরেট মাথা/মূর্খ বুদ্ধিহীন, বোকা
নির্জলা মিথ্যা মিথ্যায় কোন খাদ নেই
নির্দোষ মেঘগর্জন ফাঁকা আওয়াজ/বুলি, বাগাড়ম্বর, বৃথা আস্ফালন
নির্বিষ১ ক্ষতি করে না এমন (নির্বিষ লোক)
নির্বিষ২ দুর্বল (সংসারের ঝঞ্ঝাটে লোকটা নির্বিষ হয়ে পড়েছে)
নির্মক্ষিক জনপ্রাণী নেই এমন নির্জনস্থান; সমার্থক বাগধারা- মাছিটিও নেই
নির্যাস সারমর্ম (বক্ত্যব্যের নির্যাস)
নিশাশেষোন্মেষোন্মুখকমল-

কোরকপমোত্তেজিতহৃদয়সূর্য

রাত্রিশেষে ফোটার জন্য উত্তেজিত পদ্মকুঁড়ির মত পুরুষহৃদয় (বহুবর্ণের একটি বৃহত্তম শব্দ; তুলনীয়- অতলজলদলতলন্যস্তরত্নরাজিবনমহামুল্যপুরুষরত্ন,
নিশপিশ কিছু করার জন্য অস্থিরতাভাব (উত্তম-মধ্যম দেব বলে হাত নিশপিশ করছে)
নিশিদিন সর্বক্ষণ (নিশিদিন ভরসা রাখিস হবেই হবে'-রবীন্দ্রনাথ)
নিশ্চেতনা উপেক্ষা (বিধির নিশ্চেতনায়'-রবীন্দ্রনাথ)
নিসাড়া নিঃশব্দ (নিসাড়ায় কাজ সারা)
নীরব ঘাতক এমন একটি রোগ যার কোন সুস্পষ্ট লক্ষণ বা ইঙ্গিত নেই
নুড়ো জ্বেলে দেওয়া মৃত্যু কামনা করা
নূন খাওয়া অন্ন গ্রহণ করা, উপকার নেওয়া
নূন খেয়ে গুণ গাওয়া উপকারীর ঋণ স্বীকার করা, কৃতজ্ঞ থাকা
নূনের গুঁড়ো অপরিহার্য; সকল কাজের কাজি
নেই আঁকড়া একগুঁয়ে ধরনের লোক, যে কিছুতেই ছাড়তে চায় না; সমার্থক বাগধারা- একগুঁয়ে, একরোখা, একবগগা, নাছোড়বান্দা ইত্যাদি
নেই তাই খান না অলভ্য জিনিস মন্দ
নেকনজর১ সু-অর্থে- অনুকূল/অনুগ্রহ দৃষ্টি (কোন চিন্তা নেই, তুমি মালিকের নেক নজরে আছো)
নেকনজর২ কু-অর্থে- বিষনজর (তুমি মালিকের নেক নজরে পড়েছো, কপালে দুর্ভোগ আছে)
নেচে ওঠা উল্লসিত হওয়া
নেতিয়ে পড়া অবসন্ন হয়ে বসে/শুয়ে পড়া
নেপো চালাক, ধূর্ত, বাটপাড় (যার ধন তার ধন নয় নেপোয় মারে দই- প্রবাদ)
নেপথ্যে দৃষ্টির আড়ালে, সংগোপনে ( আমাদের অজান্তে নেপথ্যে অনেক কিছুই হয়)
নেপো ধূর্ত, বাটপাড়
নেপো মারে দই একের পরিশ্রমের ফল অন্যে ভোগ করে; চালাকে বোকার সম্পত্তি ভোগ করে (যার ধন তার ধন নয়, নেপোয় মারে দই- প্রবাদ)
নেয়াপাতি নরম ও গোলগাল (নেয়াপাতি ভুঁড়ি)
নেহাত১ অতিশয় (নেহাত বোকা বলে কথাটা বলে ফেললো)
নেহাত২ নিতান্তই (নেহাত দরকার পড়লে আমাকে ডেকো); সমার্থক বাগধারা- একান্তপক্ষে, নিদেনপক্ষে
নোনাজল ঢোকানো নিজের ক্ষতি করা
নৈবদ্যের কলা অপরিহার্য, সবখানে উপস্থিত; সমার্থক বাগধারা- সর্বঘটের কাঁঠালীকলা
ন্যাকা অবুঝের ভান করা
ন্যাকা ন্যাকা কথা অবুঝের মত কথা
ন্যাকা চৈতন্য/শশী/ষষ্টী নির্বোধ, হাবাগোবা লোক
ন্যালাখ্যাপা কাণ্ডজ্ঞানহীন, পাগলাটে, বোধবুদ্ধিহীন (একদল বলে নেলাখ্যাপা, অন্যদল বলে সেয়ানা পাগল)
ন্যালাভোলা অসতর্ক, সাদাসিধে বেখেয়ালি লোক, নিতান্ত ভালমানুষ (ন্যালাভোলা ছেলেটাকে নিয়ে সবাই মজা করে); সমার্থক বাগধারা- আলা-ভোলা, নড়েভোলা, ভোলেভালা ইত্যাদি

[