বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড,(বিডিবিএল)
পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি
শিল্পব্যাংকিং, আর্থিক পরিসেবা
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৯, (ঢাকা)
সদরদপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
প্রধান ব্যক্তি
মোহাম্মদ মেজবাউদ্দিন (চেয়ারম্যান)
কাজী আলমগীর (ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও))
পরিষেবাসমূহকমার্শিয়াল ব্যাংকিং
* বৈদেশিক বাণিজ্য
এসএমই ব্যাংকিং
মোট সম্পদ$144.3 million[১]
কর্মীসংখ্যা
৭৯০
স্লোগানTo emerge as the country’s prime Financial Institution for supporting private sector industrial and other projects of great significance to the country’s economic development. Also be active participant in commercial banking by introducing new lines of product and providing excellent services to the customers.
ওয়েবসাইটবাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক। সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০০৯ সালের ১৬ নভেম্বর কোম্পানি আইন ১৯৯৪ অনুসারে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হিসাবে আত্মপ্রকাশ করে। বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক ও বাংলাদেশ শিল্প ঋণ সংস্থাকে একীভূত করে এই ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ব্যাংকটি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জচট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ-এ নিবন্ধিত।সরকারি সিদ্ধান্তের আওতায় বাংলাদেশে শিল্প ব্যাংক (বিএসবি) এবং বাংলাদেশ শিল্প ঋণ সংস্থা (বিএসআরএস)-কে একীভূত করে বিডিবিএল গঠিত এবং রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস এ নিবন্ধিত হয়। রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস থেকে সার্টিফিকেট অব ইনকরপোরেশন এবং বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে লাইসেন্স ও অনুমোদন নিয়ে ২০০৯ সালের নভেম্বর মাসে বিডিবিএল-এর কার্যক্রম শুরু হয়। বিএসবি এবং বিএসআরএস এর পরিসম্পদ ও দায়গ্রহণের ভেন্ডারস এগ্রিমেন্ট ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে সরকার এবং সরকার মনোনীত বিডিবিএল-এর পরিচালনা পর্যদ কর্তৃক স্বাক্ষরিত হয়। ২০১০ সালের ৩ জানুয়ারি নতুন ব্রত আর আদর্শ নিয়ে বিডিবিএল-এর কর্মযাত্রা শুরু। ১৯৯১ সালের ব্যাংকিং কোম্পানি অ্যাক্টের আওতায় যাবতীয় অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক ব্যাংকিং এর কার্যাবলী সম্পাদনে বিডিবিএল-এর কর্মসূচি পরিব্যাপ্ত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সদরদপ্তর

১৯৭২ সালে রাষ্ট্রপতির আদেশে, শিল্পের দ্রুত বিকাশে বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয় ১৯৭২ সালের ৩১ অক্টোবর। একই উদ্দেশ্য নিয়ে বাংলাদেশ শিল্প ঋণ সংস্থা প্রতিষ্ঠা করা হয় ১৯৭২ সালের ৩১ অক্টোবর।[২] ২০০৯ সালের ৩১শে ডিসেম্বর, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড দুটি সংস্থাকে অধিগ্রহণ করে। ২০১০ সালের ০৩ জানুয়ারি, ব্যাংকটি আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে।[৩]

এক নজরে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (বিডিবিএল)

ব্যাংকের নাম:     বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড
লিগ্যাল স্ট্যাটাস:  পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি
প্রতিষ্ঠাকাল:        ২০০৯ সালের ১৬ নভেম্বর
ধরন:               রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক
ঠিকানা:             BDBL ভবন, ৮ রাজউক এভিনিউ, ঢাকা-১০০০
ক্যাটাগরি:           রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক
টেলিফোন নম্বর:   +৮৮০-২ ৯৫৫৫১৫১-৫৯, ৯৫৬০০১৪-১৫.
ফ্যাক্স:               +৮৮০-২ ৯৫৬২০৬১
ই-মেইল:
সুইফট কোড:        BDDBBDDH
সার্ভিস ঘণ্টা:          সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ ঘটিকা পর্যন্ত।
ব্যাংক কোড:          ০৪৭
উৎপত্তি:              লোকাল ব্যাংক
ওয়েব সাইট: http://www.bdbl.com.bd/
সর্বমোট শাখা(সংখ্যায়): ৪৬টি
জোনাল অফিস(সংখ্যায়): ৪টি
সর্বমোট ডিপার্টমেন্ট : ২৬ টি
মোট জনশক্তি (সংখ্যায়) : ৭৯০ জন
অনুমোদিত মূলধন: ১০০০ কোটি
পরিশোধিত মূলধন: ৪০০০ কোটি
রিজার্ভ ফান্ড: ২৪৫৭ কোটি

কার্যক্রম[সম্পাদনা]

বর্তমানে ব্যাংকটি বিভিন্ন ধরনের সেবা দিচ্ছে -

  • কমার্শিয়াল ব্যাংকিং
  • বৈদেশিক বাণিজ্য
  • এসএমই ব্যাংকিং
  • ঋণ বিতরণ কার্যক্রম এ বিডিবিএল এর অবদান: বাংলাদেশ শিল্প ঋণ সংস্থা এবং বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক একীভূত হয়ে বিডিবিএল গঠিত হওয়ায় দেশের ব্যাংকিং খাতে বেসরকারি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত শিল্প প্রতিষ্ঠানসহ ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বাণিজ্যিক ব্যাংক হিসেবে নতুন নতুন সেবা নিয়ে নতুন উদ্যামে কাজ শুরু করে। বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড সরকারি ও বেসরকারি আর্থিক খাতের উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে প্রতিভাত হয়। বিডিবিএল দীর্ঘ ও মধ্য মেয়াদি ঋণ, শিল্প ইউনিটসমূহ কার্যকরী মূলধন প্রদান, সম মূলধন সুবিধা, বাণিজ্যিক ব্যাংক সেবা যথা আমানত যোগান, বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবসা, ঋণপত্র ব্যবস্থাপনা, বিদেশি মুদ্রা প্রত্যাবসন এবং ঋণ গ্রহীতার পক্ষে ঋণ পরিশোধে সহায়কের ভূমিকা পালন করে থাকে। বিডিবিএল একই সাথে শিল্পঋণ বিতরণ, সম মূলধন সরবরাহ কর্মসূচি, পুঁজিবাজারে অংশীদারী ব্যবসা সেবা, ঋণ আদায়ে প্রণোদনা প্রদান কর্মসূচি, পুনর্বাসন কর্মসূচি এবং ঋণ বিনিয়োগে পুঁজির সমাহার ঘটানোয় বিডিবিএল-এর কৌশলগত অগ্রাধিকার হলো (ক) ঐ সমস্ত প্রকল্পে অর্থায়ন যেগুলি প্রকৃতি ও পরিবেশবান্ধব, রূপান্তরযোগ্য জ্বালানি উৎপাদনে সক্ষম শিল্প, বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ও সীমিত গ্যাস ও কার্বন নিঃসরণে সহায়ক শিল্প, কৃষি নির্ভর শিল্প, ছোট বিদ্যুৎ উৎপাদন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, পরিবহন ও অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ; (খ) ঐ সমস্ত শিল্প উদ্যোগে অর্থায়ন করা যেগুলি স্থানীয় কাঁচামাল ব্যবহার এবং উপযুক্ত যোগাযোগ ও সরবরাহ সুযোগ সম্বলিত (গ) প্রকল্পে অর্থায়নের সীমা ২ কোটি থেকে ১৫ কোটির প্রাধিকারের মধ্যে সীমিতকরণ। ১৫ কোটির বেশি হলে সিন্ডিকেট-এর অংশ হিসেবে ঋণদানে অংশগ্রহণ (ঘ) উদ্যোক্তা অনুসন্ধান, শিল্প কারখানা স্থাপনে বিশেষ করে লাভজনক শিল্প বিনিয়োগ ক্ষেত্র নির্বাচনে সহায়তা করা, পরামর্শ প্রদান করা। এই লক্ষ্যে বিডিবিএল পাঁচ বছর মেয়াদি ব্যবসা কৌশল পরিকল্পনা (২০১০-২০১৪) গ্রহণ করেছে যাতে দেশে, শিল্প বিনিয়োগ ক্ষেত্রে একটা নবতর কর্মউদ্যোগ সৃষ্টি এবং দেশে অর্থনৈতিক ও সামাজিক খাতে উন্নতি ত্বরান্বিত হয়। বিডিবিএল-এর কার্যক্রমের মুখ্য খাতসমূহ হলো মেয়াদি ঋণ, মধ্য ও শিল্প মেয়াদি অর্থায়ন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোক্তা ঋণ, বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবসা, মূলধন বাজার সৃজন ইত্যাদি।

প্রযুক্তিগত ব্যাংকিং[সম্পাদনা]

২০০৭ সাল থেকে ব্যাংকিং লেনদেন তথা সামগ্রিক কার্যক্রমকে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য অন-লাইন ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

পরিচালনা পদ্ধতি[সম্পাদনা]

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্যাংকটির সার্বিক কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণ করেন। ব্যবস্থাপনা পরিচালককে মহাব্যবস্থাপক এবং কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কর্মরত বিভাগীয় প্রধানগণ সহায়তা করে থাকেন। ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপকগণ ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নিকট সরাসরি এবং বিভাগীয় প্রধানের নিকট বিষয় সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডের রিপোর্ট করে থাকেন। ব্যাংকটির আর্টিকেল অফ অ্যাসোসিয়েশান এর সেকশন ৯৫ অনুসারে ১০ সদস্যের একটি পরিচালনা পর্ষদ থাকবে যার প্রধান থাকবে চেয়ারম্যান। পরিচালনা পর্ষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হচ্ছে সাবেক সিনিয়র সচিবমোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন।[১]

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড-পরিচালনা পর্ষদ

ক্রমিক পরিচিতি পদ যোগদানের তারিখ
১. জনাব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন

সাবেক সিনিয়র সচিব

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ

চেয়ারম্যান ২৪-০২-২০১৯
২. জনাব মোঃ এখলাছুর রহমান

অতিরিক্ত সচিব

অর্থ বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয়।

পরিচালক


০৬-০১-২০১৯
৩. সালমা নাসরীন এনডিসি

সাবেক অতিরিক্ত সচিব

(পিআরএল ভোগরত)

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ

পরিচালক


০১-১১-২০১৬
৪. জনাব সুভাষ চন্দ্র সরকার

অতিরিক্ত সচিব

স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

পরিচালক


১৪-০১-২০১৯
৫. জনাব আবু হানিফ খান

সাবেক ডিএমডি

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

পরিচালক


১৪-০১-২০১৯
৬. কাজী তারিকুল ইসলাম

সাবেক যুগ্ম-সচিব

পরিচালক ৩০-০৫-২০১৮
৭. জনাব মোঃ আবু ইউসুফ

সাবেক যুগ্মসচিব

পরিচালক ১০-০২-২০১৯
৮. ব্যবস্থাপনা পরিচালক

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিঃ

পরিচালক (পদাধিকার বলে) ২৮-১২-২০১৯

তথ্য সুত্রঃ আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ-অর্থ মন্ত্রণালয়

বিস্তৃতি[সম্পাদনা]

বর্তমানে (জানুয়ারি ২০২০ সর্বশেষ)৪৬টি শাখা(নাটোরের বাগাতিপাড়ার তমালতলা বাজারে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল)এর ৪৬ তম শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে) আছে এবং আরও ১০ টি শাখা খোলার পক্রিয়ারত অবস্থায় রয়েছে।[৪]এছাড়াও ব্যাংকটির নিজস্ব একটি ট্রেনিং ইন্সিটিউট রয়েছে।

অর্জন ও পুরস্কার[সম্পাদনা]

২০১৪ সালে বিডিবিএল দু'টি পুরস্কার অর্জন করেছে (কর্পোরেট সুশাসনের স্বীকৃতিস্বরুপ ICAB এবং ICMAB থেকে সর্বোৎকৃষ্ট বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপনের জন্ যসরকারি ব্যাংক ক্যাটাগরিতে ২য় স্থানে আছে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল)।বিডিবিএল ২০১৫,২০১৬,২০১৭ ও ২০১৮ সালে যথাক্রমে ৫১.৭৩,৩৮.২৩,৫৬.৩২ ও ৭৪.৮৯ কোটি টাকা নীট মুনাফা অর্জন করেছে।ব্যাংকটি ২০১৭ সালে ৪০৭.৭৮ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ করেছে এবং একই সময়ে ৫৭৩.৭১ কোটি টাকা ঋণ আদায় করেছে। বিডিবিএল এ কোন মূলধন ও প্রভিশন ঘাটতি নেই।

সমস্যা সমুহঃ[সম্পাদনা]

·       সীমিত ব্রাঞ্চ নেটওয়ার্ক এর কারনে পর্যাপ্ত গ্রাহক সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছে না;

·       উচ্চ সুদহী আমানতের আধিক্যের কারণে ব্যয় বৃদ্ধি পাওয়ায় কাঙ্ক্ষিত মুনাফা অর্জন সম্ভব হচ্ছে না;

·       পর্যাপ্ত লোকবলের অভাবে ব্যবসা সম্প্রসারণ বাধাগ্রস্থ হচ্ছে;

·       অধিক পরিমাণ শ্ৰেণীকৃত ঋণ

·       রাহক সেবার মান উন্নয়ন ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের সীমাবদ্ধতা;

চ্যালেঞ্জসমুহঃ[সম্পাদনা]

·       প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বৃদ্ধি, স্বচ্ছতা জবাবদিহি জোরদার করা,

·       সুশাসন সংহতকরণ

·       সম্পদের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে রূপকল্প ২০২১ এর যথাযথ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সমনিতভাবে কাজ করা।

অনিয়ম ও সমালোচনা[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New development bank begins operations"। BDnews24.com। ২২ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১০ 
  2. "Development Bank takes off"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১০ 
  3. "Formation of BDBL"। ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৪ 
  4. "Branch"। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]