বাংলাদেশের গ্রামীণ খেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

জীবনের ব্যবহার্য উপকরণ থেকেই সংগ্রহ করা হয় খেলাগুলোর সরঞ্জাম। গ্রামে ঢোকার মুখে নির্জন সড়কে কোন বৃক্ষের নিচে দেখা যাবে অখন্ড অবসর উদ্‌যাপন করছে ষোল গুটি খেলতে থাকা দুই তরুণ যুবক, অথবা গ্রামের উপকন্ঠে দিগন্ত বলয় ছোঁয়া বিস্তীর্ণ মাঠের এক কোণে উত্ফুল্ল জটলার ভিতর থেকে কানে আসবে হা-ডু-ডু সুর কিংবা অনর্গল টিনের চাল থেকে গড়িয়ে পড়া গারদের মত শ্রাবণ-ধারার আড়ালে বন্দী তরুণীরা দুধে আলতা হাতে শঙ্খের সাদা ডাঁসা কড়ি খেলছে ......... এই দৃশ্যগুলো বাংলার গ্রাম থেকে কালের নিয়মে ক্রমান্বয়ে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। কৃষি সভ্যতার সমবয়সী এই লোকজ খেলাগুলোর আবেদন কখনও হারিয়ে যাবার নয় - সময়ের পাতা উল্টালেই মনে পড়ে গ্রামীণ খেলা হাজার বছর ধরে উদ্‌যাপিত হয়ে আসা গ্রামীণ সমাজের মানুষ গুলোর বিনোদনের এক বিশাল অধ্যায়। মেয়েদের খেলার সাথে যুক্ত হয়ে থাকা খেলার ছড়া-গান গুলো সাহিত্য মূল্যেও সমৃদ্ধ। এই গানগুলো সংগ্রাম-নিমগ্ন গ্রামীণ সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখের জীবনকে প্রতিফলিত করে।