বাংলাদেশি ইংরেজি সাহিত্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বাংলাদেশি ইংরেজি সাহিত্য (ইংরেজি: Bangladeshi English literature; সংক্ষেপে BEL) বলতে বাংলাদেশে এবং প্রবাসে বাংলাদেশি কর্তৃক ইংরেজি ভাষায় রচিত সাহিত্যকে নির্দেশ করে। শিক্ষায়তনিকভাবে একে "ইংরেজি ভাষায় বাংলাদেশি লেখা" (ইংরেজি: Bangladeshi Writing in English; সংক্ষেপে BWE) বলেও অভিহিত করা হয়।[১] প্রাথমিক যুগের বিশিষ্ট ইংরেজি ভাষায় বাঙালি লেখকের মধ্যে রয়েছেন শেখ দীন মুহাম্মদ, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, বেগম রোকেয়া এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। আধুনিককালে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য লেখক হলেন তাহমিমা আনাম, নেয়ামত ইমাম, মনিকা আলী এবং জিয়া হায়দার রহমান

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯০৫ খ্রিষ্টাব্দে বেগম রোকেয়া (১৮৮০ – ১৯৩২) সুলতানা'জ ড্রিম রচনা করেন, যা বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো নারীবাদী বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর উদাহরণ।[২]

সামসময়িক দৃশ্যায়ন[সম্পাদনা]

তাহমিমা আনামের অ্যা গোল্ডেন এইজ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে রচিত। এছাড়াও তাহমিমা আনাম দ্য গুড মুসলিম গ্রন্থের রচয়িতা। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ঔপন্যাসিক জিয়া হায়দার রহমান ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে তার প্রথম উপন্যাস ইন দ্য লাইট অব হোয়াট উই নো প্রকাশ করেন। ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দে গ্রন্থটি সাহিত্যে জেমস ট্যাইট ব্ল্যাক প্রাইজ অর্জন করে। প্রথম বইয়ের জন্যই জিয়া হায়দার সমুজ্জ্বল প্রশংসা এবং অভিনন্দন লাভ করে, দ্য নিউ ইয়র্কার-এর ভাষায় যা "আশ্চর্যজনকভাবে অর্জিত"।[৩] ২০০৩ খ্রিষ্টাব্দে মনিকা আলীর ব্রিক লেন ম্যান বুকার পুরস্কারের জন্য ছোট তালিকাভুক্ত হয়। ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত ফায়েজা হাসানাতের প্রথম ছোটগল্প সংকলন দ্য বার্ড ক্যাচার অ্যান্ড আদার স্টোরিজ-এ লিঙ্গ আকাঙ্ক্ষা, পারিবারিক ভালোবাসা এবং পরিচয় ও পরিবার নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপিত হয়েছে। শাজিয়া ওমরের লাইক অ্যা ডায়মন্ড ইন দ্য স্কাই গ্রন্থে ঢাকার মাদকাসক্ত বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের নেশাচ্ছন্ন ও ধোঁয়াশাময় জীবন পরিস্ফূটিত হয়।[৪] রাশিদ আসকারী "ইংরেজি ভাষায় গল্প লেখার মতো যথেষ্ট শৈল্পিক মেধার প্রদর্শন ঘটান"।[৫] তার ছোটগল্পের সংকলন নাইনটিন সেভেনটি ওয়ান অ্যান্ড আদার স্টোরিস (২০১১) ফরাসি ও হিন্দি ভাষায় অনূদিত হয়েছে।[৬]

সামসময়িক কবিতা[সম্পাদনা]

কায়সার হামিদুল হক বাংলাদেশের ইংরেজি ভাষার অন্যতম প্রধান বিশিষ্ট কবি।

গণমাধ্যম ও সাময়িকী[সম্পাদনা]

বাংলাদেশে ইংরেজি ভাষার গণমাধ্যম বেশ শক্তিশালী। উল্লেখযোগ্য ইংরেজি সংবাদপত্রের মধ্যে অন্যতম হলো দ্য ডেইলি স্টার, নিউ এজ, ঢাকা ট্রিবিউন, দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। এই সংবাদপত্রগুলো নিয়মিত সাহিত্য বিষয়ক ক্রোড়পত্র প্রকাশ করে। উল্লেখযোগ্য সাময়িকীর মধ্যে রয়েছে দ্য স্টার, স্লেট, ঢাকা কুরিয়ারফোরাম ইত্যাদি। বেঙ্গল লাইটস দেশের গুটিকয়েক ইংরেজি সাহিত্য পত্রিকার অন্যতম।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Bangladeshis writing in English"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৮-০৭ 
  2. Anam, Tahmima (২৭ মে ২০১১)। "My hero Rokeya Sakhawat Hossain"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-০৬ 
  3. Wood, James (19 May 2014), "The World As We Know It: Zia Haider Rahman's dazzling début",The New Yorker. Retrieved on 2015-01-20.
  4. "Twinkle, twinkle, little stir | books"। Hindustan Times। ২০০৯-০৯-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-০৬ 
  5. "A Talk with IU VC | daily-sun.com"। ২০১৭-০৩-০৬। ২০১৭-০৩-০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০১ 
  6. "Nineteen seventy one and other stories: a collection of short stories « Dhaka Courier"। ২০১৩-০৫-২৩। ২০১৩-০৫-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০১