বলিভিয়া জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বলিভিয়া
দলের লোগো
ডাকনামলা বের্দে (সবুজ)[১]
অ্যাসোসিয়েশনবলিভীয় ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনকনমেবল (দক্ষিণ আমেরিকা)
প্রধান কোচসেসার ফারিয়াস
অধিনায়কমার্সেলো মার্তিন মরেনো
সর্বাধিক ম্যাচরোনালদ রালদেস (১০২)
শীর্ষ গোলদাতামার্সেলো মার্তিন মরেনো (২১)
মাঠএর্নান্দো সিলেস স্টেডিয়াম
ফিফা কোডBOL
ওয়েবসাইটwww.fbf.com.bo
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮৩ হ্রাস ১ (১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১৮ (জুলাই ১৯৯৭)
সর্বনিম্ন১১৫ (অক্টোবর ২০১১)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৬১ হ্রাস ২ (১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১)[৩]
সর্বোচ্চ২২ (জুন ১৯৯৭[৪])
সর্বনিম্ন৮৬ (জুলাই ১৯৮৯[৪])
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 চিলি ৭–১ বলিভিয়া 
(সান্তিয়াগো, চিলি; ১২ অক্টোবর ১৯২৬)
বৃহত্তম জয়
 বলিভিয়া ৭–০ ভেনেজুয়েলা 
(লা পাস, বলিভিয়া; ২২ আগস্ট ১৯৯৩)
 বলিভিয়া ৯–২ হাইতি 
(লা পাস, বলিভিয়া; ৩ মার্চ ২০০০)
বৃহত্তম পরাজয়
 উরুগুয়ে ৯–০ বলিভিয়া 
(লিমা, পেরু; ৬ নভেম্বর ১৯২৭)
 ব্রাজিল ১০–১ বলিভিয়া 
(সাও পাওলো, ব্রাজিল; ১০ এপ্রিল ১৯৪৯)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ৩ (১৯৩০-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (১৯৩০, ১৯৫০, ১৯৯৪)
কোপা আমেরিকা
অংশগ্রহণ২৮ (১৯২৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৬৩)
কনফেডারেশন্স কাপ
অংশগ্রহণ১ (১৯৯৯-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (১৯৯৯)

বলিভিয়া জাতীয় ফুটবল দল (স্পেনীয়: Selección de fútbol de Bolivia, ইংরেজি: Bolivia national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে বলিভিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম বলিভিয়ার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বলিভীয় ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯২৬ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং একই সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনমেবলের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯২৬ সালের ১২ অক্টোবর তারিখে, বলিভিয়া প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; চিলির সান্তিয়াগোর অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে বলিভিয়া চিলির কাছে ৭–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

৪১,১৪৩ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট এর্নান্দো সিলেস স্টেডিয়ামে লা বের্দে নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় বলিভিয়ার রাজধানী কোচাবাম্বায় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন সেসার ফারিয়াস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন ক্রুজেইরোর আক্রমণভাগের খেলোয়াড় মার্সেলো মার্তিন মরেনো

বলিভিয়া এপর্যন্ত ৩ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে প্রত্যেক বার তারা শুধুমাত্র গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করতে পেরেছে। অন্যদিকে, কোপা আমেরিকায় বলিভিয়া অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ১টি (১৯৬৩) শিরোপা জয়লাভ করেছে। এছাড়াও, বলিভিয়া ১৯৯৯ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে অংশগ্রহণ করেছিল।

রোনালদ রালদেস, মার্কো সান্দি, লুইস ক্রিস্তালদো, মার্সেলো মার্তিন মরেনো এবং হোয়াকিন বোতেরোর মতো খেলোয়াড়গণ বলিভিয়ার জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ১৯৯৭ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে বলিভিয়া তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (১৮তম) অর্জন করে এবং ২০১১ সালের অক্টোবর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১১৫তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে বলিভিয়ার সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ২২তম (যা তারা ১৯৯৭ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৮৬। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮১ হ্রাস  সিরিয়া ১২৯৬.৭৫
৮২ বৃদ্ধি  বেনিন ১২৯০.৮১
৮৩ হ্রাস  বলিভিয়া ১২৮৩.৬৫
৮৪ হ্রাস  উজবেকিস্তান ১২৮২.২৭
৮৫ বৃদ্ধি  জাম্বিয়া ১২৮০.১৯
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[৩]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৫৯ বৃদ্ধি  মিশর ১৬০২
৬০ বৃদ্ধি ১৯  পানামা ১৬০১
৬১ হ্রাস  বলিভিয়া ১৫৮৬
৬২ হ্রাস  ঘানা ১৫৮৪
৬৩ হ্রাস চিত্র:Flag of Honduras (2008 Olympics).svg হন্ডুরাস ১৫৭৮

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ গ্রুপ পর্ব ১২তম আমন্ত্রণের মাধ্যমে উত্তীর্ণ
ইতালি ১৯৩৪ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০ গ্রুপ পর্ব ১৩তম স্বয়ংক্রিয়ভাবে উত্তীর্ণ
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪ অংশগ্রহণ করেনি প্রত্যাখ্যান
সুইডেন ১৯৫৮ উত্তীর্ণ হয়নি
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ ১১
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ ১০ ২৫
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ গ্রুপ পর্ব ২১তম ২২ ১১
ফ্রান্স ১৯৯৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১৬ ১৮ ২১
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ ১৮ ২১ ৩৩
জার্মানি ২০০৬ ১৮ ১২ ২০ ৩৭
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ ১৮ ১১ ২২ ৩৬
ব্রাজিল ২০১৪ ১৬ ১৭ ৩০
রাশিয়া ২০১৮ ১৮ ১২ ১৬ ৩৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট গ্রুপ পর্ব ৩/২১ ২০ ১৫০ ৩৯ ২৯ ৮২ ১৭৭ ২৮৪

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Famous Bolivian Footballers"। Your Spanish Translation। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০১৪ 
  2. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  3. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  4. "World Football Elo Ratings: Bolivia"eloratings.net। World Football Elo Ratings। ২৯ জানুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]