বব কটাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বব কটাম
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবার্ট মাইকেল হেনরি কটাম
জন্ম (1944-10-16) ১৬ অক্টোবর ১৯৪৪ (বয়স ৭৫)
ক্লিথর্পস, লিঙ্কনশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম
ভূমিকাবোলার, কোচ
সম্পর্কঅ্যান্ডি কটাম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৪১)
২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট৩০ ডিসেম্বর ১৯৭২ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৮ডেভন
১৯৭২ - ১৯৭৬নর্দাম্পটনশায়ার
১৯৬৪ - ১৯৭৩মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব
১৯৬৩ - ১৯৭১হ্যাম্পশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ২৮৯ ১৩৩
রানের সংখ্যা ২৭ ১,২৭৮ ২৬২
ব্যাটিং গড় ৬.৭৫ ৬.৯৮ ৫.৫৭
১০০/৫০ –/– –/১ –/–
সর্বোচ্চ রান ১৩ ৬২* ২৩*
বল করেছে ৯০৩ ৫৩,০৫৩ ৬,৬০৫
উইকেট ১৪ ১,০১০ ১৮০
বোলিং গড় ২৩.৩৫ ২০.৯১ ২২.৫৫
ইনিংসে ৫ উইকেট ৫৮
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৪/৫০ ৯/২৫ ৪/৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ১৫৩/– ৩৭/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০

রবার্ট মাইকেল হেনরি কটাম (ইংরেজি: Bob Cottam; জন্ম: ১৬ অক্টোবর, ১৯৪৪) লিঙ্কনশায়ারের ক্লিথর্পস এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১] বর্তমানে তিনি কোচের দায়িত্ব পালন করছেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৬৯ থেকে ১৯৭২ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে হ্যাম্পশায়ার, নর্দাম্পটনশায়ার ও ডেভন দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিংয়ে পারদর্শী ছিলেন বব কটাম

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ওয়েম্বলিতে বিদ্যালয় জীবন অতিবাহিত করেন। ১৯৬৩ সাল থেকে ১৯৭৬ সাল পর্যন্ত বব কটামের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ১৯৬৩ সালে হ্যাম্পশায়ারের পক্ষে খেলোয়াড়ী জীবনের সূচনা হয়। নতুন বল হাতে নিয়ে উচ্চতা, অসম্ভব দম ও নিখুঁততার চমৎকার সম্মিলন সবিশেষ লক্ষ্যণীয় ছিল। তিন মৌসুমে শত উইকেট লাভের কৃতিত্ব প্রদর্শন করেছেন। তন্মধ্যে, ১৯৬৫ সালে ল্যাঙ্কাশায়ারের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সেরা ৯/২৫ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান।

১৯৭১ সালে নর্দান্টসে চলে যান। তবে, পেস কমিয়ে ফেলেন ও নিখুঁত সীমারে পরিণত করেন নিজেকে। সুন্দর বোলিং ভঙ্গীমা মনোযোগের সাথে প্রদর্শন করতেন ও নিয়মিতভাবে উইকেট লাভ করতেন। সকল প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশ নিয়ে ২০.৯১ গড়ে সহস্রাধিক উইকেট পেয়েছেন। বল হাতে দক্ষতা প্রকাশ করলেও ব্যাট হাতে নিচেরসারিতে নামতেন। ২৮৯টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে মাত্র একটি অর্ধ-শতরানের সন্ধান পেয়েছেন।

দীর্ঘদেহের অধিকারী ডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলতেন। ক্রিকেট লেখক কলিন বেটম্যানের অভিমত, বাঁক খাওয়ানোর উপযোগী উইকেটে কম পেস নিয়ে বলকে তীক্ষ্ণভাবে সিম কিংবা কাট করানোয় দক্ষ থাকায় বিদেশে তিনি সফলকাম ছিলেন। অংশগ্রহণকৃত চার টেস্টের সবকটিই ভারতীয় উপমহাদেশে দুইবার সফরের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়।[১]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে চারটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন বব কটাম। ২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬৯ তারিখে লাহোরে স্বাগতিক পাকিস্তান দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ৩০ ডিসেম্বর, ১৯৭২ তারিখে কলকাতায় স্বাগতিক ভারত দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

ইংরেজ পরিবেশে তাঁর বোলিং বেশ যুঁতসই থাকলেও ১৯৬৮-৬৯ মৌসুমে কলিন কাউড্রে’র নেতৃত্বে পাকিস্তান ও সিলন এবং টনি লুইসের নেতৃত্বে ভারত ও পাকিস্তান গমন করেন। সেখানে তিনি অবশ্য অগ্নিপরীক্ষার মুখোমুখি হয়েছিলেন। চার টেস্টে অংশ নিয়ে ২৩.৩৫ গড়ে ১৪ উইকেট দখল করেছিলেন তিনি। দূর্ভাগ্যবশতঃ নিজ দেশে কোন টেস্ট খেলার সৌভাগ্য হয়নি তার।[১]

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর কোচিং জগতের দিকে ধাবিত হন। ওয়ারউইকশায়ারের ব্যবস্থাপক ও পরবর্তীতে সমারসেটের ক্রিকেট পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন।[১] এরপর তার পরিবর্তে ডেভিড লয়েড এ দায়িত্ব পান ও ১৯৯৮ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ইংল্যান্ড দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। এ সময়ে বব উইলিসইয়ান বোথামের পর ড্যারেন গফঅ্যান্ডি ক্যাডিকের ন্যায় নতুন বলের সেরা জুটির আবির্ভাব হয়। এছাড়াও, মাইনর কাউন্টি ক্রিকেটে ডেভনের পক্ষে খেলেছেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত তিনি। তার সন্তান অ্যান্ডি কটাম ডার্বিশায়ারসমারসেটের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 43। আইএসবিএন 1-869833-21-X 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]