বব উলমার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বব উলমার
Bob Woolmer.JPG
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবার্ট অ্যান্ড্রু উলমার
জন্ম(১৯৪৮-০৫-১৪)১৪ মে ১৯৪৮
কানপুর, ইউনাইটেড প্রভিন্স (উত্তর প্রদেশ), ভারত অধিরাজ্য (ভারত)
মৃত্যু১৮ মার্চ ২০০৭(2007-03-18) (বয়স ৫৮)
কিংস্টন, জ্যামাইকা
ডাকনামউলি
উচ্চতা৬ ফুট ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৬৩)
৩১ জুলাই ১৯৭৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট২ জুলাই ১৯৮১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৬)
২৪ আগস্ট ১৯৭২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই২৮ আগস্ট ১৯৭৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬৮-১৯৮৪কেন্ট
১৯৮১-১৯৮২ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স
১৯৭৩-১৯৭৬নাটাল
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৯ ৩৫০ ২৯০
রানের সংখ্যা ১০৫৯ ২১ ১৫৭৭২ ৪০৭৮
ব্যাটিং গড় ৩৩.০৯ ৫.২৫ ৩৩.৫৫ ২০.৩৯
১০০/৫০ ৩/২ ০/০ ৩৪/৭১ ১/১৭
সর্বোচ্চ রান ১৪৯ ২০৩ ১১২*
বল করেছে ৫৪৬ ৩২১ ২৫৮২৩ ১৩৪৭৩
উইকেট ৪২০ ৩৭৪
বোলিং গড় ৭৪.৭৫ ২৮.৮৮ ২৫.৮৭ ২০.৬৪
ইনিংসে ৫ উইকেট ১২
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৮ ৩/৩৩ ৭/৪৭ ৬/৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১০/– ৩/– ২৩৯/১ ৯৮/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৪ এপ্রিল ২০১৩

রবার্ট অ্যান্ড্রু উলমার (ইংরেজি: Bob Woolmer; জন্ম: ১৪ মে, ১৯৪৮ - মৃত্যু: ১৮ মার্চ, ২০০৭) ভারত অধিরাজ্যের কানপুরে জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা, পেশাদার ক্রিকেট কোচ ও পেশাদার ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষ হয়ে ১৯টি টেস্ট ও ৬টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন। পরবর্তীকালে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়ারউইকশায়ারপাকিস্তান দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেন বব উলমার।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ভারতের উত্তর প্রদেশের কানপুরে উলমার জন্মগ্রহণ করেন। ক্লেরেন্স উলমার ছিলেন তার বাবা। রঞ্জি ট্রফিতে তার বাবা খেলতেন। দশ বছর বয়সে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে হানিফ মোহাম্মদের অবিস্মরণীয় ৪৯৯ রানের বিশ্বরেকর্ডের ইনিংসটি দেখেছিলেন উলমার।[১] এর প্রায় ৩৫ বছর পর ওয়ারউইকশায়ারের কোচের দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে হানিফের রানটি অতিক্রমণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানকাউন্টি’র ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা’র অপরাজিত ৫০১ রানের নতুন বিশ্বরেকর্ডীয় ইনিংসটিরও দর্শক ছিলেন তিনি।[১]

১৯৭০-এর দশকে পাকিস্তানী ব্যাটসম্যান মুশতাক মোহাম্মদ রিভার্স সুইপের সাহায্যে নিয়মিতভাবে ব্যাটিং করতেন। তার ভাই হানিফ মোহাম্মদকে মাঝে-মধ্যে রিভার্স সুইপের আবিষ্কারক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কিন্তু বব উলমার এ ধরণের স্ট্রোককে জনপ্রিয় করতে উদ্যোগী ভূমিকা পালন করেন।[২][৩]

দেহাবসান[সম্পাদনা]

১৮ মার্চ, ২০০৭ তারিখে বব উলমার আকস্মিকভাবে জ্যামাইকায় মৃত্যুবরণ করেন। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আয়ারল্যান্ডের কাছে পাকিস্তানের অপ্রত্যাশিত পরাজয়ের অল্প কয়েক ঘন্টা পর এ ঘটনাটি ঘটে। এর পরপরই জ্যামাইকার পুলিশ এ মৃত্যুর তদন্ত করতে শুরু করে। নভেম্বর, ২০০৭ তারিখে জ্যামাইকার বিচারকমণ্ডলী জানান যে, অপর্যাপ্ত প্রামাণ্য দলিলের ফলে এ ঘটনাটি অপরাধ আইন কিংবা স্বাভাবিক কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে রয়েছে।[৪]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

১৯৭৬ সালে তিনি উইজডেন কর্তৃক বর্ষসেরা পাঁচজন ক্রিকেটারের একজনরূপে মনোনীত হন। পাকিস্তানের ক্রিকেটে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার সিতারা-ই-ইমতিয়াজ (মরণোত্তর) পদকে ভূষিত করা হয়।[৫] তার স্মরণে লাহোরের ক্রিকেট একাডেমীর নাম পরিবর্তন করে ‘বব উলমার ন্যাশনাল ইনডোর ক্রিকেট একাডেমী লাহোর’ রাখা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]