বজ্রঝড়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
মাঠের উপর বজ্রঝড়ের দৃশ্য।

'বজ্রঝড় হচ্ছে এক প্রকার ক্রান্তীয় ঝড় যা বজ্রপাত ও বিদ্যুৎ চমকানো সহযোগে সংঘটিত ভারি বর্ষণ অথবা শিলাবৃষ্টি[১]। বাংলাদেশে মার্চ অথবা এপ্রিল মাসে এবং বর্ষামৌসুমের শেষদিকে অক্টোবর-নভেম্বর মাসে সন্ধ্যার দিকে প্রচন্ড তীব্রতা সহকারে বজ্রঝড় সংঘটিত হয়ে থাকে। গ্রীষ্মের প্রথমভাগে এ ধরনের বজ্রঝড় কালবৈশাখী নামে এবং বর্ষা ঋতুর শেষভাগে আশ্বিনের ঝড় নামে অভিহিত হয়ে থাকে।

সংঘটনের কারণ[সম্পাদনা]

গ্রীষ্মের উষ্ণ ও আর্দ্র দিনে উত্তপ্ত বায়ু হাল্কা হয়ে উপরে উঠতে থাকে এবং দ্রুত ঠান্ডা হয়ে গাঢ় কৃষ্ণ বর্ণের বজ্রমেঘ উৎপন্ন করে। ঝঞ্ঝাপূর্ণ এই মেঘ সচরাচর উল্লম্বভাবে প্রায় ৮ কিমি দীর্ঘ এবং প্রায় ৫ কিমি পর্যন্ত প্রশস্ত হয়ে থাকে। সাধারণত একেকটি পৃথক বজ্রঝড় নিয়ে একটি সম্মিলিত বজ্রঝড়ের সৃষ্টি হয় যা প্রায় ৩০ কিমি পর্যন্ত প্রশস্ত হতে পারে এবং ৫ ঘণ্টারও অধিককাল স্থায়ী হয়। এমনকি একটি একক বজ্রঝড়ও ৫০ কিমি এলাকা জুড়ে বিস্তৃত হয়ে একটি অতিকায় বজ্রঝড়ের রূপ নিতে পারে। এ ধরনের বজ্রঝড়ে প্রচুর শিলাবর্ষণ, শক্তিশালী বাতাস, অধিক বজ্রপাত এবং ঘন ঘন বিদুৎ চমকানোর ঘটনা ঘটে থাকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Weather Glossary – T"। National Weather Service। ২১ এপ্রিল ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৮-২৩ (ইংরেজি)