ফ্র্যাংক লয়েড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফ্র্যাংক লয়েড
Frank Lloyd, Boxoffice Barometer, 1939.jpg
অনু. ১৯৩৯ সালে লয়েড
স্থানীয় নাম
Frank Lloyd
জন্ম
ফ্র্যাংক উইলিয়াম জর্জ লয়েড[১]

(১৮৮৮-০২-০২)২ ফেব্রুয়ারি ১৮৮৮
মৃত্যু১০ আগস্ট ১৯৬০(1960-08-10) (বয়স ৭৪)
সান্তা মনিকা, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
সমাধিফরেস্ট লন মেমোরিয়াল পার্ক, গ্লেনডেল, ক্যালিফোর্নিয়া
পেশাচলচ্চিত্র পরিচালক, চিত্রনাট্যকার, প্রযোজক, অভিনেতা
কার্যকাল১৯১৩-১৯৫৫
দাম্পত্য সঙ্গীআলমা হেলার (১৯১৩-)
পুরস্কারএকাডেমি পুরস্কার (২ বার)

ফ্র্যাংক উইলিয়াম জর্জ লয়েড (ইংরেজি: Frank William George Lloyd; জন্ম: ২ ফেব্রুয়ারি ১৮৮৮ - ১০ আগস্ট ১৯৬০) ছিলেন একজন স্কটল্যান্ডে জন্মগ্রহণকারী মার্কিন চলচ্চিত্র পরিচালক, চিত্রনাট্যকার, প্রযোজক, এবং অভিনেতা। তিনি নির্বাকসবাক চলচ্চিত্র, দুই ধরনের চলচ্চিত্রেই সফলতা অর্জন করেন।[২] তিনি একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেসের প্রতিষ্ঠাতাদের একজন[৩] এবং ১৯৩৪ থেকে ১৯৩৫ সালে তিনি এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন। তিনি দ্য ডিভাইন লেডি (১৯২৯) ও ক্যাভ্যালকেড (১৯৩৩) চলচ্চিত্র পরিচালনা করে দুইবার শ্রেষ্ঠ পরিচালনার জন্য একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।[৪] এছাড়া তিনি মিউটিনি অন দ্য বাউন্টি (১৯৩৫) চলচ্চিত্রের জন্য অপর একটি একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন

জীবনী[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

লয়েড ১৮৮৮ সালের ২রা ফেব্রুয়ারি স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে জন্মগ্রহণ করেন।[৫] তার মাতা জেন স্কটিশ এবং তার পিতা এডমুন্ড ওয়েলসীয় ছিলেন। তিনি ব্রিটিশ মঞ্চনাটকে অভিনেতা হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯১০ সালে তিনি নির্মাণ প্রকৌশলী হিসেবে কাজ করার জন্য কানাডায় অভিবাসিত হন।[৬] কানাডায় অবস্থানকালে তিনি টেলিগ্রাফ লাইন বসানোর কাজ করতেন এবং মঞ্চে অভিনয় করতেন। মঞ্চে কাজ করতে গিয়ে তার গায়িকা আলমা হেলারের সাথে পরিচিত হন। পরবর্তীতে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের কন্যা আলমা ১৯১৪ সালের ৩রা এপ্রিল জন্মগ্রহণ করে।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

লয়েড ১৯১৩ সালে কানাডা থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চলে যান এবং সেখানে ভডেভিলে অভিনয় শুরু করেন। সেঞ্চুরি থিয়েটারের একজন অভিনেতা তাকে ইউনিভার্সাল স্টুডিওজের প্রতিষ্ঠাতা কার্ল লিমলের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। লিমলে তাকে দুই বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ করেন।[১] ইতোমধ্যে ১৯১৪ সাল থেকে তিনি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ শুরু করেন। এ সময়ে তার নির্মিত কয়েকটি উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল লে মিজেরাবল (১৯১৭), রাইডার্স অব দ্য পার্পল সেজ (১৯১৮), মাদাম এক্স (১৯২০), অলিভার টুইস্ট (১৯২২), ও সি হক (১৯২৪)।[২] তিনি ১৯২৯ সালে নির্বাক দ্য ডিভাইন লেডি, অর্ধ-সবাক উইয়ারি রিভার ও সবাক ড্র্যাগ চলচ্চিত্র পরিচালনা করেন। এই তিনটি চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পরিচালনার জন্য একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং হোরাশিও নেলসন ও এমা হ্যামিলটনের প্রেমের গল্প নিয়ে নির্মিত দ্য ডিভাইন লেডি চলচ্চিত্রের জন্য এই বিভাগে পুরস্কার জয় করেন। তিনি একাডেমি পুরস্কার বিজয়ী প্রথম স্কটল্যান্ডীয় এবং অস্কারের এক আয়োজনে তিনটি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভের রেকর্ড করেন।

তিনি ১৯৩৩ সালে নোয়েল কাওয়ার্ডের গল্প অবলম্বনে মহাকাব্যিক ক্যাভ্যালকেড চলচ্চিত্র পরিচালনা করেন। এতে দুটি ব্রিটিশ পরিবারের উপর কয়েকটি ঐতিহাসিক ঘটনার প্রভাব চিত্রিত হয়েছে। ছবিটি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের জন্য একাডেমি পুরস্কার অর্জন করে এবং লয়েড তার দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ পরিচালনার জন্য একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন। মিউটিনি অন দ্য বাউন্টি (১৯৩৫) চলচ্চিত্রের জন্য তার তৃতীয় একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন, কিন্তু জন ফোর্ডের কাছে পরাজিত হন।[৬]

চলচ্চিত্র শিল্পে অবদানের জন্য ১৯৬০ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি হলিউড ওয়াক অব ফেমে লয়েডের নামাঙ্কিত তারকা খচিত হয়। তারকাটি ৬৬৬৭ হলিউড বলেভার্ডে অবস্থিত।[৭]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

লয়েড কয়েক মাস হৃদরোগ ও ফুসফুসের রোগে ভোগে ১৯৬০ সালের ১০ই আগস্ট ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা মনিকার সেন্ট জন্‌স হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।[৬] তাকে ক্যালিফোর্নিয়ার গ্লেনডেলের ফরেস্ট লন মেমোরিয়াল পার্কে সমাহিত করা হয়।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. পলাক, ডেবরা অ্যান (১২ জানুয়ারি ২০১২)। "Bringing Up Oscar: The Story of the Men and Women Who Founded the Academy" (ইংরেজি ভাষায়)। পেগাসাস বুকস। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৮ – গুগল বুকস-এর মাধ্যমে। 
  2. "Frank Lloyd - American film director"এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৮ 
  3. পলাক, ডেবরা। "The Story of the First Academy Awards" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য মিডিয়াড্রোম। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ আগস্ট ২০১৮ 
  4. "Frank Lloyd: Two-Time Best Director Oscar Winner Q&A"এএলটি ফিল্ম গাইড (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ আগস্ট ১৯৬০। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১৮ 
  5. "Frank W G Lloyd in the 1940 Census"অ্যানসেস্ট্রি.কম (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১৮ 
  6. "Frank Lloyd"লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১৮ 
  7. "Frank Lloyd - Hollywood Walk of Fame"ওয়াক অব ফেম (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০১৮ 
  8. ফাইন্ড এ গ্রেইভে ফ্র্যাংক লয়েড (ইংরেজি)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

অলাভজনক সংস্থার অবস্থান
পূর্বসূরী
জে. থিওডোর রিড
একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেসের সভাপতি
১৯৩৪–১৯৩৫
উত্তরসূরী
ফ্রাঙ্ক ক্যাপ্রা