ফ্রাঙ্কফোর্ট, কেন্টাকি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Frankfort
State capital and city
The Kentucky State Capitol is one of 45 sites in Frankfort listed on the National Register of Historic Places.
The Kentucky State Capitol is one of 45 sites in Frankfort listed on the National Register of Historic Places.
Location of Frankfort in Franklin County, Kentucky
Location of Frankfort in Franklin County, Kentucky
লুয়া ত্রুটি মডিউল:অবস্থান_মানচিত্ এর 480 নং লাইনে: নির্দিষ্ট অবস্থান মানচিত্রের সংজ্ঞা খুঁজে পাওয়া যায়নি। "মডিউল:অবস্থান মানচিত্র/উপাত্ত/Kentucky" বা "টেমপ্লেট:অবস্থান মানচিত্র Kentucky" দুটির একটিও বিদ্যমান নয়।Location of Frankfort in Franklin County, Kentucky
স্থানাঙ্ক: ৩৮°১২′ উত্তর ৮৪°৫২′ পশ্চিম / ৩৮.২০০° উত্তর ৮৪.৮৬৭° পশ্চিম / 38.200; -84.867স্থানাঙ্ক: ৩৮°১২′ উত্তর ৮৪°৫২′ পশ্চিম / ৩৮.২০০° উত্তর ৮৪.৮৬৭° পশ্চিম / 38.200; -84.867
CountryUnited States
StateKentucky
CountyFranklin
Established1786
IncorporatedFebruary 28, 1835
সরকার
 • ধরনCouncil/Manager
 • MayorWilliam May
আয়তন[১]
 • মোট১৫.০৭ বর্গমাইল (৩৯.০২ বর্গকিমি)
 • স্থলভাগ১৪.৭৭ বর্গমাইল (৩৮.২৫ বর্গকিমি)
 • জলভাগ০.৩০ বর্গমাইল (০.৭৮ বর্গকিমি)
উচ্চতা৫০৯ ফুট (১৫৫ মিটার)
জনসংখ্যা (2010)
 • মোট২৫,৫২৭
 • আনুমানিক (2019)[২]২৭,৭৫৫
 • জনঘনত্ব১,৮৭৯.৫৩/বর্গমাইল (৭২৫.৭১/বর্গকিমি)
সময় অঞ্চলEastern (EST) (ইউটিসি−5)
 • গ্রীষ্মকালীন (দিসস)EDT (ইউটিসি−4)
ZIP Code40601-40604, 40618-40622
এলাকা কোড502
FIPS code21-28900
GNIS feature ID517517
ওয়েবসাইটCity website

ফ্রাঙ্কফোর্ট, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের রাজধানী ও ফ্রাঙ্কলিন কাউন্টির সদর দপ্তর। [৩] ফ্রাঙ্কফোর্ট একটি স্ব-শাসিত শহর। ২০১০ এর আদমশুমারি অনুযায়ী ফ্রাঙ্কফোর্টের জনসংখ্যা ২৫,৫২৭। এটি ফ্রাঙ্কফোর্ট পরিসংখ্যানগত এলাকার প্রধান শহর।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯০০ সালের পূর্বে[সম্পাদনা]

১৭৮০ সালের দিকে সংঘটিত একটি ঘটনা ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরের নামকরণের উৎস। ব্রায়ান স্টেশন (বর্তমান লেক্সিংটন) হতে আগত ইউরোপীয় অভিবাসীরা কেন্টাকি নদীর তীরে একটি ফোর্ড বা অগভীর স্থানে লবণ উৎপাদন করছিলেন। এসময় আদিবাসী আমেরিকানরা তাদের আক্রমণ করে। এসময় অভিবাসীদের নেতা স্টিফেন ফ্রাঙ্ক মৃত্যুবরণ করেন। এ থেকে শহরের নাম হয় "ফ্রাঙ্কস ফোর্ড" এবং ফ্রাঙ্কস ফোর্ড নামটি পরবর্তীতে পাল্টে হয় ফ্রাঙ্কফোর্ট। [৪]

১৭৮৬ সালে জেমস উইলকিলসন কেন্টাকি নদীর উত্তরে ২৬০ একর জমি ক্রয় করেন। এতে পরবর্তীতে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরতলি গড়ে উঠে। তিনি পরবর্তীতে শহরটিকে কেন্টাকি অঙ্গরাজ্যের রাজধানী করায় ভূমিকা রাখেন।

১৭৯২ সালে কেন্টাকি পঞ্চদশ অঙ্গরাজ্য হিসেবে ইউনিয়নে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর ঐ বছরের ২০ জুন রাজধানীর জন্য উপযুক্ত জায়গা নির্বাচনের জন্য পাঁচজন কমিশনারকে বাছাই করা হয়। তারা হলেন - জন অ্যালেন ও জন এডওয়ার্ডস (বুরবো কাউন্টি), হেনরি লি (ম্যাসন কাউন্টি), থমাস কেনেডি (ম্যাডিসন কাউন্টি) ও রবার্ট টড (ফেয়েট কাউন্টি)। ফ্রাঙ্কফোর্ট শহর কেন্টাকির বাকি শহরগুলোকে পরাভূত করে রাজধানীর মর্যাদায় সমাসীন হয়। [৫]

১৭৯৪ সালে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরে ডাকঘর প্রতিষ্ঠিত হয়। ড্যানিয়েল ওয়েইসেগার এর পোস্টমাস্টার ছিলেন।

ভার্জিনিয়ার আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ জন ব্রাউন ১৭৯৬ সালে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরে লিবার্টি হল নামক বাসভবন প্রতিষ্ঠা করেন। কেন্টাকি অঙ্গরাজ্য হিসেবে স্বীকৃতি লাভের পূর্বে তিনি মার্কিন কংগ্রেসে ভার্জিনিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি কংগ্রেসে কেন্টাকিকে রাজ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য বিল উত্থাপন করেন। কেন্টাকি আইনসভা পরবর্তীতে তাঁকে সিনেটর নির্বাচিত করে।[৬]

১৭৯৬ সালে কেন্টাকি বিধানসভা গভর্নরের বাসভবন নির্মাণের জন্য অর্থছাড় করে। ১৭৯৮ সালে বাসভবন নির্মাণের কাজ শেষ হয়। ১৮৫০ সালের ৩ জানুয়ারি সাউথ ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরটি ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরের সাথে যুক্ত করা হয়।

১৮০৮ থেকে ১৮৩০ সাল পর্যন্ত এখানে আর্গাস অব ওয়েস্টার্ন আমেরিকা পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়। [৭]

আমেরিকার গৃহযুদ্ধে ইউনিয়ন সেনাবাহিনী ফ্রাঙ্কফোর্টে "ফোর্ট হিল" নামক দুর্গ নির্মাণ করে। তাদের প্রতিপক্ষ কনফেডারেট সৈন্যরা ১৮৬২ সালে অল্প সময়ের জন্য ফ্রাঙ্কফোর্ট শহর দখল করে রাখে।

১৯০০-বর্তমান[সম্পাদনা]

১৯০০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি কেন্টাকির নবনির্বাচিত গভর্নর উইলিয়াম গোয়েবেল শপথ নিতে ক্যাপিটল ভবনে যাওয়ার সময় নিহত হন। কেন্টাকির সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কালেব পাওয়ারস উক্ত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন। [৮]

ষাটের দশকে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহর দ্রুত উন্নতি লাভ করতে থাকে। এসময় ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরে ক্যাপিটল প্লাজা মার্কেট প্রতিষ্ঠা করা হয়। এটি শহরের অন্যতম নান্দনিক বিক্রয়কেন্দ্রে পরিণত হয়। ২০১৮ সালের ১১ মার্চ এটি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। [৯]

ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরে অনেকগুলো পরিশোধনাগার অবস্থিত। বাফেলো ট্রেস, ক্যাসল কি ও থ্রি বয়েজ ফার্ম তাদের অন্যতম। [১০]

ভূগোল[সম্পাদনা]

ফ্রাঙ্কফোর্ট মধ্য কেন্টাকির ব্লুগ্রাস অঞ্চলে অবস্থিত। কেন্টাকি নদী শহরটিকে দুই ভাগে বিভক্ত করে। নদীর এক পাড়ে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরতলি ও অপর পাড়ে সাউথ ফ্রাঙ্কফোর্ট এলাকা অবস্থিত। এগুলো নিয়ে উপত্যকা গড়ে ওঠেছে, যার এক অংশ "ওয়েস্ট সাইড" ও অপর অংশ "ইস্ট সাইড" নামে পরিচিত।

ফ্রাঙ্কফোর্টের আয়তন ১৪.৬ বর্গমাইল, যার ১৪.৩ বর্গমাইল স্থল ও ০.৩ বর্গমাইল জল।

ফ্রাঙ্কফোর্টে কোনো বাণিজ্যিক বিমানবন্দর নেই।

জলবায়ু[সম্পাদনা]

ফ্রাঙ্কফোর্টের জলবায়ু আর্দ্র উপক্রান্তীয় ধরনের। এ শহরে চারটি ঋতু। শীতকাল সাধারণত ঠাণ্ডা হয় ; এখানে মাঝেমাঝে তুষারপাত হয়। বসন্তকাল সামান্য উষ্ণ হয়,কখনো কখনো এসময় ঝড়-বৃষ্টি হয়। গ্রীষ্মকাল উষ্ণ ও আর্দ্র।

জনমিতি[সম্পাদনা]

ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরের জনসংখ্যা ২৫,৫২৭। শহরটির জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গকিলোমিটারে ৬৭৪.৩ জন। শহরের বাসিন্দাদের ৭৭.১% শ্বেতাঙ্গ, ১৬.৫% কৃষ্ণাঙ্গ, ০.৩% আদিবাসী আমেরিকান ও ১.৪% এশীয়। হিস্পানিক ও লাতিনোরা বাসিন্দাদের ১.৪৮%।

শহরের পরিবারগুলোর গড় আয় ৪৩,৯৪৯ মার্কিন ডলার। পূর্ণবয়স্ক পুরুষ কর্মীদের গড় আয় ৩৭,৪৪৫ ডলার ও নারী কর্মীদের গড় আয় ৩৪,৬১৩ ডলার। শহরের মাথাপিছু আয় ২২,২৯৯ ডলার। ১৯.৮% পরিবার ও ২২.৪% বাসিন্দা দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। এদের মধ্যে ৩৮.৭% বাসিন্দার বয়স ১৮ বছরের নিচে ও ৭.৫% এর বয়স ৬৫ এর বেশি।

বিনোদন[সম্পাদনা]

শহরে নয়টি পার্ক অবস্থিত।[১১] যথা-

  1. ক্যাপিটল ভিউ
  2. কোভ স্প্রিং
  3. ডলি গ্রাহাম
  4. ইস্ট ফ্রাঙ্কফোর্ট
  5. জুনিপার হিল
  6. লেকভিউ
  7. লেসলি মরিস
  8. রিভার ভিউ
  9. হিল পার্ক

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2019 U.S. Gazetteer Files"। United States Census Bureau। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৪, ২০২০ 
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; USCensusEst2019CenPopScriptOnlyDirtyFixDoNotUse নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. https://web.archive.org/web/20110531210815/http://www.naco.org/Counties/Pages/FindACounty.aspx
  4. https://web.archive.org/web/20160718152323/http://www.frankfort.ky.gov/About/About-Frankfort/City-History/city-history.html
  5. http://kentucky.gov/kyhs/hmdb/MarkerSearch.aspx?mode=Subject&subject=134
  6. https://bioguideretro.congress.gov/
  7. http://steveinskeep.com/77-the-argus-of-western-america/
  8. https://books.google.com/books?id=zeY7uCxT0Q4C&pg=PA97
  9. http://www.kentucky.com/news/local/counties/franklin-county/article194640249.html
  10. https://www.bourboncountry.com/plan-your-visit/bourbon-country-regions/frankfort/
  11. http://www.frankfortparksandrec.com/Parks/parks.html