ফ্রাঙ্কফুর্ট পুস্তকমেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ফ্রাঙ্কফুট পুস্তকমেলা একটি আন্তর্জাতিক পুস্তক ও প্রকাশনাসংক্রান্ত বাণিজ্য মেলা তথা প্রদর্শনী যা প্রতি বৎসর জার্মানীর ফ্রাঙ্কফুর্ট শহরে অনুষ্ঠিত হয়। এটা মূলত প্রদর্শনী যেখানে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে খুচরা বিকিকিনি হয় না, বরং লেখক, প্রকাশক এবং পুস্তক বিপণনকারীদের আন্তর্জাতিক সম্পর্কজালিকা তৈরীই এ পুস্তকমেলার প্রধান উদ্দেশ্য। ২০০৬ খৃস্টাব্দে শ্রাবণ প্রকাশনী-এর অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে এ মেলায় বাংলাদেশের আনুষ্ঠানিক অংশগ্রহণের সূচনা হয়।

ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় বাংলাদেশের শ্রাবণ প্রকাশনীর স্টল, ২০০৭

২০০৬ সালে ফ্রাঙ্কফুট বইমেলায় ভারত দ্বিতীয় বারের জন্য অতিথি দেশ নির্বাচিত হয়। ভারতই প্রথম দেশ হিসেবে এই মেলায় দুইবার অতিথি দেশ নির্বাচিত হয়। এই মেলার উদ্বোধনী ভাষণে মহাশ্বেতা দেবী রাজ কাপুরের বিখ্যাত চিত্রগীতি "মেরা জুতা হ্যায় জাপানি" থেকে পঙ্‌ক্তি উদ্ধৃত করে একটি আবেগময় ভাষণ দেন:{{cquote | সত্যই এটি এমন এক যুগ যেখানে ‘জুতা’টি (জুতো) জাপানি, ‘পাতলুন’টি (প্যান্ট) ‘ইংলিশস্তানি’ (ব্রিটিশ), ‘টোপি’টি (টুপি) ‘রুসি’ (রাশিয়ান), কিন্তু ‘দিল’... ‘দিল’টি (হৃদয়) সর্বদা ‘হিন্দুস্তানি’ (ভারতীয়)... আমার দেশ, ক্ষয়প্রাপ্ত, ছিন্নভিন্ন, গর্বিত, সুন্দর, উষ্ণ, আর্দ্র, শীতল, ধূলিধূসরিত, উজ্জ্বল ভারত। আমার দেশ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]