ফিতাবিহীন পোশাক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
১৯৫৬ সালে নিউইউর্কে ইয়ানিস ইভাঞ্জেলাইডস দ্বারা তৈরিকৃত ফিতাবিহীন পোশাক।

ফিতাবিহীন পোশাক বা স্ট্র‍্যাপলেস ড্রেস এমন একটি পোশাক, যা কাঁধে ফিতা বা অন্য কোনো দৃশ্যমান বস্তু ছাড়াই দেহের উপরিভাগের চারদিকে পরে থাকে। অভ্যন্তরীণ কাঁচুলি (কর্সেট) এবং/বা বক্ষবন্ধনী এটিকে আটকে রাখে এবং এর অবস্থান থেকে সরে না যেতে সাহায্য করে।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক ফিতাবিহীন পোশাকে অভিনেত্রী লিবি হলম্যান (১৯৩০)

১৯৩০ থেকে ১৯৮০ এর দশক[সম্পাদনা]

রিচার্ড মার্টিন এবং হ্যারল্ড কোডার মতে, আধুনিক ফিতাবিহীন পোশাক ১৯৩০-এর দশকে প্রথম প্রদর্শিত হয়েছিল, যেখানে এটি মেইনবোচার এবং ১৯৪০-এর দশকের শেষের দিক থেকে ক্রিশ্চিয়ান ডায়ারের মতো নকশাকারদের দ্বারা জনপ্রিয় হয়েছিল।[১] ১৯৩৮ সালের ১৮ জুলাই লাইফ-এর কলামে দাবি করা হয়েছিল যে, "মূলত ফিতাবিহীন ও হাতাবিহীন সান্ধ্যপোশাক" ১৯৩৭–৩৮ সালে আবিষ্কৃত হয়েছিল।[২] যদিও, এর পূর্বে ১৯৩০ সালে অভিনেত্রী লিবি হলম্যান দ্বারা পোশাকটি চিত্রিত হয়েছিল, যিনি সে বছর একটি ফিতাবিহীন পোশাক পরেছিলেন।[৩] ফিতাবিহীন পোশাকটির সাথে হলম্যান জড়িয়ে যায় এবং নিয়মানুসারে তাকে এটি আবিষ্কার করার কৃতিত্ব দেওয়া হয়,[৪][৫][৬] বা কমপক্ষে এটির প্রথম উচ্চ-নামধারী পরিধানকারীদের মধ্যে একজন হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।[৭]

১৯৩৪ সালে মেইনবোচার কালো সাটিন-শৈলীতে তার প্রথম ফিতাবিহীন গাউন উৎপাদন করেছিলেন, যেটিকে প্রথম ফিতাবিহীন সান্ধ্যপোশাক হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়।[৮] হলম্যান এবং মেইনবোচারের পাশাপাশি ব্রেন্ডা ফ্রেজিয়ারকেও পোশাকটিকে জনপ্রিয় করে তোলার জন্য কৃতিত্ব দেওয়া হয়, যখন তিনি তার অভিষেকের জন্য ফিতাবিহীন পোশাক পরেছিলেন এবং জনপ্রিয়তার সাথে ১৯৩৮ সালের ১৪ নভেম্বর লাইফ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে হাজির হয়েছিলেন।[৯][১০][১১]

গিল্ডা চলচ্চিত্রে রিটা হেওয়ার্থ (১৯৪৬)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Martin, Richard; Koda, Harold (১৯৯৬)। Bare witness। Metropolitan Museum of Art। পৃষ্ঠা 6। আইএসবিএন 9780870998027 
  2. "Underthings for the Strapless Vogue"। ১৮ জুলাই ১৯৩৮: 33। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৩ 
  3. "Libby Holman 1930"। মে ১৯৩০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-২৯ 
  4. Scheper, Jeanne. "Libby Holman." Jewish Women: A Comprehensive Historical Encyclopedia. 1 March 2009. Jewish Women's Archive. (Viewed on March 25, 2013).
  5. Casstevens, Frances H. (২০০৬)। Death in North Carolina's Piedmont : tales of murder, suicide and causes unknown। History Press। পৃষ্ঠা 74। আইএসবিএন 9781596291966 
  6. Bowie, Angie (২০০২)। Bisexuality। Pocket Essentials। পৃষ্ঠা 58। আইএসবিএন 9781903047910 
  7. Waggoner, Susan (২০০১)। Nightclub nights : art, legend and style, 1920-1960। Rizzoli। পৃষ্ঠা 18। আইএসবিএন 9780847823314 
  8. Steele, edited by Valerie (২০১০)। The Berg companion to fashion। Berg। পৃষ্ঠা 492। আইএসবিএন 9781847885920 
  9. Gourley, Catherine (২০০৮)। Rosie and Mrs. America : perceptions of women in the 1930s and 1940s। Twenty-First Century Books। আইএসবিএন 9780822568049 
  10. Ketchum, Richard M. (১৯৮৯)। The borrowed years, 1938-1941 : America on the way to war (1st সংস্করণ)। Random House। আইএসবিএন 9780394560113 
  11. "The Glamour Girl Reached her Peak"। ২৫ নভেম্বর ১৯৪৬। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]