ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস

ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস (ওয়াইলি: pha dam pa sangs rgyas) (মৃত্যু- ?১১১৭) একাদশ শতাব্দীর একজন প্রখ্যাত বৌদ্ধ পন্ডিত ছিলেন যিনি তিব্বতে ঝি-ব্যেদ সাধনা প্রচার করেন।

জন্ম ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস সম্ভবত একাদশ শতাব্দীতে চরসিংহ প্রদেশের কূপদ্বীপ অঞ্চলে জন্মগ্রহণ করেন। এই স্থানটি দক্ষিণপূর্ব ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যের কোন এক বন্দর এলাকা বলে অনুমান করা হয়। দেব-থের-স্ঙ্গোন-পো গ্রন্থানুসারে তাঁর পিতার নাম বীর্যবর্মণ এবং মাতার নাম ছিল বরসহ। পনেরো বছর বয়সে তাঁর পিতার মৃত্যুর পর বিক্রমশীলা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্ষেমদেব তাঁকে কমলশীল নাম প্রদান করে দীক্ষা দেন। এই সময় তিনি সূত্র, ব্যাকরণ, তন্ত্রমহামুদ্রা সম্বন্ধে শিক্ষালাভ করেন।[১]

তিব্বত ভ্রমণ ও শিক্ষাদান[সম্পাদনা]

ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস তিন থেকে সাত বার তিব্বত ভ্রমণ করেন। তিব্বতীরা তাঁর কৃষ্ণবর্ণের শরীরের জন্য তাঁকে র্গ্যা-গার-নাগ-ছং (ওয়াইলি: rgya gar nag chng) বা কৃষ্ণবর্ণের ভারতীয় বলে অভিহিত করতেন। দেব-থের-স্ঙ্গোন-পো গ্রন্থানুসারে, তৃতীয়বার তিব্বত ভ্রমণকালে গ্ত্সাং অঞ্চলে র্মাং-রা-সের-পো (ওয়াইলি: rmang ra ser po) এবং ক্যো-ব্সোদ-নাম্স-ব্লা-মা (ওয়াইলি: kyo bsod nams bla ma) নামক দুই বৌদ্ধ ভিক্ষুকে ছেদ সাধনা সম্বন্ধে শিক্ষাদান করেন। এই সময় তিনি গ্র্বা-পা-ম্ঙ্গোন-শেস (ওয়াইলি: grwa pa mngon shes) এবং ল্চে-দ্বাল-স্গার-পা (ওয়াইলি: lce dbal sgar pa) নামক দুই বৌদ্ধভিক্ষুকে ঝি-ব্যেদ (ওয়াইলি: zhi byed) সম্বন্ধে শিক্ষাদান করেন। গ্ত্সাং অঞ্চলের দক্ষিণাংশে অবস্থিত দিংরি অঞ্চলে তিনি তাঁর জীবনের বহু সময় অতিবাহিত করেন। তিনি তাঁর ছাত্র ছাত্রীদের প্রতীক ভাষায় শিক্ষাদান করতেন। তিনি নারীদের বৌদ্ধ শিক্ষা দানের জন্যও বিখ্যাত ছিলেন। তাঁর বেশিরভাগ শিক্ষা কুন-দ্গা' নামক তাঁর সর্বাপেক্ষা পুরাতন শিষ্যের মাধ্যমে প্রচারিত হয়। কুন-দ্গা' তাঁর শিক্ষকের প্রতীক ও সাংকেতিক ভাষাকে উদ্ধার করেন ও তাঁর রচনাগুলিকে সম্পাদনা করেন। কিছু তিব্বতী ঐতিহাসিকের মতে, ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস ছেদ সাধনা সম্বন্ধে মা-গ্চিগ-লাব-স্গ্রোন নামক বিখ্যাত তিব্বতী নারী সাধককে শিক্ষাদান করেন, যদিও এই তত্ত্ব সত্য কিনা সেই বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে।[২] যাই হোক না কেন, তিব্বতী বৌদ্ধধর্মে ঝি-ব্যেদ সাধনার প্রধান হিসেবে ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাস ও ছেদ সাধনার প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে মা-গ্চিগ-লাব-স্গ্রোনের নাম অনেক কাল ধরেই জড়িয়ে রয়েছে। ফা-দাম-পা-সাংস-র্গ্যাসের সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য রচনা হল দিং-রি-ব্র্গ্যা-র্ত্সা-মা (ওয়াইলি: ding ri brgya rtsa ma) নামক গ্রন্থটি।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Sorensen, Michelle (মার্চ ২০১১)। "Padampa Sanggye"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters 
  2. Sorensen, Michelle (এপ্রিল ২০১০)। "Machik Labdron"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Martin, Dan. 2005. “The Woman Illusion? Research into the lives of Spiritually Accomplished Women Leaders of the 11th and 12th Centuries.” In Women in Tibet, eds. Janet Gyatso and Hanna Havnevik. New York, NY: Columbia. 49-82.
  • Martin, Dan. 2006. “Padampa Sanggye: A History of Representation of a South Indian Siddha in Tibet.” In Holy Madness: Portrait of Tantric Siddhas, ed. Rob Linrothe. New York, Rubin Museum of Art. 108-123.
  • Martin, Dan. 2008. “The Tingri Hundred.” http://tibeto-logic.blogspot.com/2008/12/tingri-hundred.html
  • Machik Labdron. 2003. Machik's Complete Explanation: Clarifying the Meaning of Chöd: A Complete Explanation of Casting Out the Body as Food (Phung po gzan skyur gyi rnam bshad gcod kyi don gsal byed). Sarah Harding, trans. Ithaca, NY: Snow Lion.
  • Pha dam pa sangs rgyas. 1978/9. The Tradition of Pha Dampa Sangyas: A Treasured Collection of his Teachings Transmitted by T[h]ug[s] sras Kun dga’, ed. Barbara Nimri Aziz, 5 vols. Timphu, Bhutan: Kunsang Tobgey.
  • Dilgo Khyentse: The Hundred Verses of Advice of Padampa Sangye. Translated by Padmakara Translation Group. Published by Shechen Publications, New Delhi, 2002. আইএসবিএন ৮১-৭৪৭২-০৮৮-১ ISBN বৈধ নয় টেমপ্লেট:Please check ISBN
  • Padampa Sangye and Chökyi Senge: Lion of Siddhas: The Life and Teachings of Padampa Sangye translated by David Molk with Lama Tsering Wangdu Rinpoche, Snow Lion Pubn (July 30, 2008), আইএসবিএন ১-৫৫৯৩৯-২৯৯-১ (10), আইএসবিএন ৯৭৮-১-৫৫৯৩৯-২৯৯-০ (13)
  • Roerich, George, trans. 1996. The Blue Annals. Delhi: Motilal Banarsidas.