বিষয়বস্তুতে চলুন

ফারুক অভিনীত চলচ্চিত্রের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
১৯৭১ সালের জলছবি চলচ্চিত্রের দৃশ্যে ফারুককবরী

ফারুক নামে সুপরিচিত আকবর হোসেন পাঠান (১৮ আগস্ট ১৯৪৮ – ১৫ মে ২০২৩) একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা। তিনি ১৯৭১ সালে এইচ আকবর পরিচালিত জলছবি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৭৫ সালে লাঠিয়াল চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। পরবর্তীকালে তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল সুজন সখী, নয়নমনি, সারেং বৌ, গোলাপী এখন ট্রেনে, দিন যায় কথা থাকে, নাগরদোলা, সাহেব, মিয়া ভাই প্রভৃতি।[১] ১৯৯০ সালে চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত মিয়াভাই চলচ্চিত্রের সাফল্যের পর তিনি চলচ্চিত্রাঙ্গনে "মিয়াভাই" নামে পরিচিতি লাভ করেন।

তিনি ২০০৬-২০০৭ বাচসাস পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা এবং ২০১৬ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার লাভ করেন।

চলচ্চিত্রের তালিকা

[সম্পাদনা]
বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম চরিত্র পরিচালক টীকা
১৯৭১ জলছবি এইচ আকবর প্রথম চলচ্চিত্র
১৯৭৩ দুরন্ত দুর্বার মহীউদ্দিন
আবার তোরা মানুষ হ খান আতাউর রহমান
১৯৭৪ চোখের জলে আজিজ আজহার
আলোর মিছিল নারায়ণ ঘোষ মিতা
ত্রিরত্ন প্রমোদ কর
১৯৭৫ লাঠিয়াল দুখু মিয়া নারায়ণ ঘোষ মিতা বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
সুজন সখী সুজন প্রমোদ কর
১৯৭৬ নয়নমনি নয়ন আমজাদ হোসেন
মাটির মায়া তাহের চৌধুরী
সূর্যগ্রহণ আব্দুস সামাদ
১৯৭৭ তৃষ্ণা নারায়ণ ঘোষ মিতা
১৯৭৮ সারেং বৌ কদম সারেং আবদুল্লাহ আল মামুন শহীদুল্লাহ কায়সারের সারেং বৌ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত
গোলাপী এখন ট্রেনে মিলন আমজাদ হোসেন আমজাদ হোসেনের ধ্রুপদী এখন ট্রেনে উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত
১৯৭৯ ঘরজামাই জহিরুল হক
দিন যায় কথা থাকে প্রমোদ কর
নদের চাঁদ শেখ নজরুল ইসলাম
সূর্য সংগ্রাম আব্দুস সামাদ
চোখের মনি নারায়ণ ঘোষ মিতা
প্রিয় বান্ধবী মোতাহের হোসেন
মধুমতি হাসমত
ছোট মা তমিজ উদ্দিন রিজভী
শহর থেকে দূরে দিলীপ সোম
নাগরদোলা বেলাল আহমেদ
১৯৮০ সখী তুমি কার আবদুল্লাহ আল মামুন
কথা দিলাম আকবর কবীর পিন্টু
এতিম শেখ নিয়ামত আলী
জীবন মৃত্যু নারায়ণ ঘোষ মিতা
ভাই ভাই স্বপন সাহা
ছক্কা পাঞ্জা নূর হোসেন বলাই
দোস্তী আজমল হুদা মিঠু
প্রতিজ্ঞা এ জে মিন্টু
১৯৮১ সোনার তরী আজিজুর রহমান
সুখের সংসার নারায়ণ ঘোষ মিতা
মাসুম শেখ নিয়ামত আলী
মাটির পুতুল আব্দুস সামাদ খোকন
জনতা এক্সপ্রেস আজিজুর রহমান
১৯৮২ রেশমী চুড়ি শিবলি সাদিক
তাসের ঘর নারায়ণ ঘোষ মিতা
লাল কাজল মতিন রহমান
চিৎকার মতিন রহমান
যন্তর মন্তর আজিজুর রহমান
১৯৮৩ সিকান্দার নূর হোসেন বলাই
সীমার এইচ. আকবর
ইজ্জত স্বপন সাহা
আশা শেখ নজরুল ইসলাম
আরশিনগর রতন খান আতাউর রহমান
চেনা মুখ জহিরুল হক ফারুক প্রযোজিত
মেহমান আজিজুর রহমান
অন্ধ বধূ সুভাষ দত্ত
হাসু আমার হাসু এইচ. আকবর
১৯৮৪ পুনর্মিলন ইবনে মিজান
মৎস্য কুমারী কাজী কামাল
মান অভিমান নারায়ণ ঘোষ মিতা
মায়ের আঁচল আজিজুর রহমান
১৯৮৫ ফুলেশ্বরী আজিজুর রহমান
সাহেব নারায়ণ ঘোষ মিতা
ঝিনুক মালা আব্দুস সামাদ খোকন
পরীস্থান মোঃ শাহজাহান আকন্দ
১৯৮৬ সুদ আসল নারায়ণ ঘোষ মিতা
১৯৮৭ অবিশ্বাস স্বপন সাহা
১৯৮৮ মশাল বদরুল আলম
কর্তব্য স্বপন সাহা
যাদু মহল স্বপন সাহা
সুখের স্বপ্ন আওকাত হোসেন
শক্তিশালী স্বপন সাহা
বেহুলা লকিন্দর চাষী নজরুল ইসলাম
১৯৮৯ ভুল বিচার অঞ্জন সরকার
বিরাজ বৌ মহিউদ্দিন ফারুক
লায়লা আমার লায়লা এম এ মালেক
কালা খুন দারাশিকো
আদর্শবান আবু মুসা দেবু
আলাল দুলাল ইবনে মিজান
১৯৯০ শিমুল পারুল শিমুল দেলোয়ার জাহান ঝন্টু
জবাব চাই মুজিবর রহমান
শেষ পরিচয় অঞ্জন সরকার
লাখে একটা কাজী কামাল
পালকি দেলোয়ার জাহান ঝন্টু
কিসমত হুমায়ূন কবীর
মিয়া ভাই চাষী নজরুল ইসলাম
দুঃখিনী মা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু
১৯৯১ ভাই ভাবী দেলোয়ার জাহান ঝন্টু
সূর্য সন্তান আয়াত আলী পাটওয়ারী
লটারি আব্দুল লতিফ বাচ্চু
পদ্মা মেঘনা যমুনা হাসু চাষী নজরুল ইসলাম
১৯৯২ ক্ষমতাবান ফজল আহমেদ বেনজির
বদ নসিব শেখ আলাউদ্দিন
বন্ধু আমার আওকাত হোসেন
১৯৯৩ দাঙ্গা ফ্যাসাদ চাষী নজরুল ইসলাম
চরম প্রতিশোধ সুজাউর রহমান
১৯৯৬ জীবন সংসার সাগর আহমেদ জাকির হোসেন রাজু
১৯৯৭ জীবন মানে যুদ্ধ মোস্তাফিজুর রহমান বাবু
১৯৯৮ পৃথিবী তোমার আমার বাদল খন্দকার
এ জীবন তোমার আমার জাকির হোসেন রাজু
এখনো অনেক রাত জাহেদ খান আতাউর রহমান
মানুষ মানুষের জন্য মারুফ হোসেন মিল্টন
২০০১ মনে রেখ আমায় আওলাদ হোসেন ও নাসির উদ্দিন
২০০৬ কোটি টাকার কাবিন তালুকদার সাহেব এফ আই মানিক
২০০৮ ঘরের লক্ষ্মী আজাদী হাসানাত ফিরোজ অভিনীত শেষ চলচ্চিত্র

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. "গ্রামীণ ছবির প্রবাদপুরুষ ফারুক"দৈনিক আমার দেশ। ১৬ জানুয়ারি ২০১১। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০২৩ 

বহিঃসংযোগ

[সম্পাদনা]