ফারজানা ওয়াহিদ সায়ান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফারজানা ওয়াহিদ সায়ান
জন্মমন্ট্রিল, কানাডা
পেশাসঙ্গীত, আইন পেশা
কার্যকাল১৯৯৮––বর্তমান

ফারজানা ওয়াহিদ সায়ান একজন বাংলাদেশী সঙ্গীতশিল্পী। এক অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার মাধ্যমে সঙ্গীতজগতে তার সরব পদচারণা শুরু হয়।[১] গানের কথা ও ভিন্নধর্মী সুরের কারণে তার গান বিখ্যাত। তাকে সব সময় কালো পোষাকে দেখা যায়।

জন্ম ও বংশ পরিচয়[সম্পাদনা]

সায়ানের পরিবার দীর্ঘদিন ধরে বাংলা সঙ্গীতের সাথে যুক্ত। তার চাচা বিখ্যাত সংগীত শিল্পী ফেরেদৗস ওয়াহিদ, চাচাতো ভাই হাবিব ওয়াহিদ।[১]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

ফারজানা ওয়াহিদ সায়ান আইন বিভাগে মাস্টার্স করছেন। তিনি হিউমান রাইটস নিয়েও পড়াশোনা করেন।

এলবাম[সম্পাদনা]

ফারজানা ওয়াহিদ সায়ানের প্রথম একক এলবাম গানপোকা থেকে বের হয় ২০০৮ সালে।[২] এলবামটির নাম ছিলো ‘সায়ানের গান’। এরপরের বছর ২০টি গান নিয়ে প্রকাশিত হয় দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘আবার তাকিয়ে দেখ’।[২] তার আরো একটি এলবামের নাম হলো "স্বপ্ন আমার হাত ধরো"।

সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি তে[সম্পাদনা]

‘এসব সমস্যা শুধু আইন করে বা পুলিশ দিয়ে রোধ করা সম্ভব নয়। এগুলো থেকে সমাজকে রক্ষা করার জন্য পরিবার থেকেই সচেতনতা তৈরি করতে হবে। জীবনের মানে বোঝাতে হবে। ঘৃণার বিরুদ্ধে, ভালোবাসার পক্ষে কথা বলায় অভ্যস্ত করতে হবে। এ লক্ষ্যেই কাজ করছি আমরা।’

— ফারজানা ওয়াহিদ সায়ান

সায়ান তার গানের মাধ্যমে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে চান। তিনি সামাজিক সতেচনতা বৃদ্ধিতে দুটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করছেন। একটির নাম ‘ভিজ্যুয়ালাইজিং মেন্টাল হেলথ’ (ভিএমএইচ)। তিনজন বন্ধুকে নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি তৈরি করেছেন সায়ান। এই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য হলো সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিত মাধ্যমে মানুষের জীবনকে বিভিন্ন ক্ষতির হাত থেকে বাঁচানো। অপর প্রতিষ্ঠানটি হলো ‘ইনোভেশন ফর ওয়েলবিয়িং ফাউন্ডেশন’ (আইডাব্লিউএফ)। এর প্রতিষ্ঠাতা মনিরা রহমান। এই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য হলো জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক, সম্পর্কচ্ছেদ, আত্মহত্যা রোধসহ নানা বিষয় নিয়ে কাজ করা।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prothom Alo | Most popular bangla daily newspaper"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-০৮ 
  2. "নতুন অ্যালবামের কাজে সায়ান - bdnews24.com"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-০৬  line feed character in |শিরোনাম= at position 30 (সাহায্য)
  3. "সচেতনতা তৈরিতে সায়ান | Kaler Kantho"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-০৬