ফরাসি বিপ্লবের কারণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ফরাসি বিপ্লবের অনেকগুলি কারণ ছিল। সেগুলি হল:

  • সাংস্কৃতিক: আলোকিত যুগের দর্শনের মতে রাজতন্ত্র এবং ক্যাথলিক চার্চের কর্তৃত্ব লোপ পায়, এবং প্রথা বা ঐতিহ্যের পরিবর্তনে যুক্তির উপর ভিত্তি করে একটি নতুন সমাজকে উন্নীত করেন।
  • সামাজিক: প্রভাবশালী বুর্জোয়াদের উত্থান। তারা আনুষ্ঠানিকভাবে তৃতীয় এস্টেটের (সাধারণ) অংশ ছিল কিন্তু তারা নিজেদের একটি ভিন্ন দল গড়ে তুলেছিল। তারা পাদরীবর্গ (প্রথম এস্টেট) এবং অভিজাত্যদের (দ্বিতীয় এস্টেট) সঙ্গে রাজনৈতিক সমতার প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিল।
  • আর্থিক: ফ্রান্সের ঋণ, যা মার্কিন স্বাধীনতা যুদ্ধ ফরাসি জড়িত থাকার কারণে বেরে যায়, তা কমাতে ষোড়শ লুই নতুন করারোপণ বাস্তবায়ন করেন এবং অভিজাতদের বিশেষ সুবিধা কমাতে শুরু করেন।
  • রাজনৈতিক: ষোড়শ লুই প্রাদেশিক পরিষদ থেকে শক্তিশালী বিরোধিতার মুখোমুখি হন। এই প্রাদেশিক পরিষদ ছিল রাজকীয় সংস্কার সংক্রান্ত বিশেষ অধিকারপ্রাপ্ত শ্রেণীর প্রতিরোধের অগ্রদূত।
  • অর্থনৈতিক: উদার অর্থনীতিবিদদের দ্বারা সমর্থিত শস্য মার্কেটের নিষ্ক্রিয়তার ফলে রুটির মূল্য বৃদ্ধি পায়। খারাপ ফসলের সময়কালে, খাদ্যের অভাব জনগনকে বিদ্রোহের দিকে ঠেলে দিত।[১][২][৩]

এই সব কারণগুলি একটি বিপ্লবী বায়ুমণ্ডল এবং ষোড়শ লুইএর জন্য একটি জটিল পরিস্থিতি তৈরি করে। সংকট সমাধানের জন্য রাজা ১৭৮৯ সালের মে মাসে এস্টেট-জেনারেলকে ডেকেছিলেন। এটি যখন অচলাবস্থায় এসেছিল, তখন তৃতীয় এস্টেটের প্রতিনিধিরা রাজার ইচ্ছার বিরুদ্ধে একটি জাতীয় পরিষদ গঠন করেছিলেন, যা ফরাসি বিপ্লব শুরু হবার বার্তা দেয়।

বিপ্লবী পরিস্থিতি[সম্পাদনা]

১৭৮০-এর দশকে ফ্রান্সে বিপ্লবী পরিস্থিতি গড়ে ওঠার কেন্দ্রে ছিল রাজা, তথা রাজত্বের ঋণপরিশোধে অক্ষমতা। এই অর্থনৈতিক সংকটের কারণ ছিল সরকারের দ্রুত বেড়ে ওঠা খরচ এবং দুটি মুখ্য যুদ্ধে (সাত বছরের যুদ্ধ এবং মার্কিন স্বাধীনতা যুদ্ধ) অংশগ্রহণ করার ফলে বিপুল খরচ।[৪] এই খরচ রাজ্যের স্বাভাবিক রাজস্ব থেকে পূরণ করা যেতনা। ১৭৮০-এর দশক থেকে বিভিন্ন মন্ত্রীর আর্থিক স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার বিভিন্ন প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছিল।[৫] মধ্যবিত্ত এবং আরো সমৃদ্ধ কৃষকদের উপর করব্যবস্থার প্রচন্ড প্রভাব ছিল, যেহেতু আভিজাত্য মূলত এটি থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে সক্ষম ছিল। ফলস্বরূপ, বিশেষাধিকারের এই অপব্যবহারের সংস্কারের জন্য, ট্যাক্সের ন্যায়সঙ্গত উপায় এবং উন্নত সরকারি কর্মকাণ্ডের জন্য "অবিবেচনাশীল চাহিদা" ছিল।[৬] ডেভিড থমসন যুক্তি দেখান যে বুর্জোয়ারা এবং কৃষকেরা একটি নিখুঁত সমাজের জন্য তাদের চাহিদাগুলোর মধ্যে "কিছু হারানোর ছিল, কেবল কিছু অর্জন করার ছিল না", এবং এই ভয়ও বিপ্লবী অবস্থার একটি প্রধান কারণ ছিল।[৭]

সামাজিক বৈষম্য[সম্পাদনা]

তৃতীয় এস্টেট (সাধারণ) তার পিঠে প্রথম এস্টেট (পাদরীবর্গ) এবং দ্বিতীয় এস্টেট (অভিজাত্য) বহন করছে।

১৭৮০-এর দশকে ফ্রান্সের জনসংখ্যার প্রায় ২৬ মিলিয়ন ছিল, যার মধ্যে ২১ মিলিয়ন কৃষিকাজ করত। নিজের পরিবারকে সমর্থন করার মতো জমি খুব কম জনেরই ছিল। অধিকাংশই বড় খামারগুলিতে অল্প পারিশ্রমিক পেয়ে শ্রমিক হিসাবে অতিরিক্ত কাজ করতে বাধ্য হত। সেখানে আঞ্চলিক পার্থক্য ছিল, কিন্তু এটা বলাই যেতে পারে, ফরাসি কৃষকেরা সাধারণত রাশিয়া বা পোল্যান্ডএর মতো দেশের তুলনায় ভাল ছিল। তবুও, ক্ষুধার দৈনিক সমস্যা ছিল যা বাজে ফসলের বছরগুলিতে বেড়ে যেত এবং অধিকাংশ ফরাসি কৃষক দরিদ্র ছিল।[৮]

সামাজিক বৈষম্যের দ্বারা দারিদ্র্যের মৌলিক সমস্যাটি আরও বেড়েছিল কারণ সমস্ত কৃষককে কর প্রদান করতে হত, যার থেকে আভিজাত্যরা অনাক্রম্যতা দাবি করতে পারত এবং সামন্ততান্ত্রিক বকেয়া একটি স্থানীয় সিজনার বা প্রভুকে দিতে হ্ত। একইভাবে, কৃষকগণদের তাদের স্থানীয় গীর্জাগুলিকে দশমাংশ (টিথেস) দিতে হত যাতে তাদের ক্ষোভ বারত। সবার জানা ছিল যে বেশিরভাগ প্যারিশ যাজকরা দরিদ্র ছিলেন এবং একটি অনুষদ, এবং সাধারণত অনুপস্থিত, মঠাধ্যক্ষ এই কর পেয়ে ধনী হত।[৯] পাদরিদের সংখ্যা প্রায় ১০০,০০০ ছিল কিন্তু তাও তারা ১০% জমির মালিক ছিলেন। ক্যাথলিক চার্চ একটি কঠোর শ্রেণীবিন্যাস বজায় রেখেছিল কারণ অ্যাবটগুলি এবং বিশপগুলি আভিজাত্যের সদস্য ছিল এবং ক্যাননগুলি ধনী বুর্জোয়া পরিবারের সদস্য ছিল । একটি প্রতিষ্ঠান হিসাবে, এটি উভয় ধনী এবং শক্তিশালী ছিল। আভিজাত্যের মতো, তাদের কোন কর তিদে হত না; কেবল প্রতি পাঁচ বছরে তারা রাজ্যকে অনুদান প্রদান করত, যার পরিমাণ তারা নিজেই ঠিক করত। সরকারী নীতির উপরে পাদরীবর্গের ঊর্ধ্বভাগের যথেষ্ট প্রভাব ছিল।[৯]

আভিজাত্যকে কৃষকেরা খুব অপছন্দ করত। ধারাবাহিক ফরাসি রাজারা এবং তাদের মন্ত্রীরা আভিজাত্যদের শক্তি দমন করতে সীমিত সাফল্যের সাথে চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষের চতুর্থাংশের মধ্যে, "অভিজনরা আবার সরকারের উপর তাদের দৃঢ় ক্ষমতা জোরদার করতে শুরু করে"।[১০]

আলোকিত যুগের ধারনা[সম্পাদনা]

ফরাসি নাগরিকদের একটি বৃহৎ সংখ্যা "সমতা" এবং "ব্যক্তির স্বাধীনতা" ধারণাগুলো বুঝতে পেরেছিল। তারা এই ধারণাগুলি পায় ভলতেয়ার, জঁ-জাক রুসো, ডেনিস দিদেরট প্রমুখ আলোকিত যুগের দার্শনিক এবং সামাজিক তত্ত্ববিদদের থেকে।[১১] আমেরিকান বিপ্লব দেখিয়েছিল যে, কীভাবে আলোকিত যুগের ধারণাকে সরকারের কাজে সংগঠিত করা উচিত। কিছু আমেরিকান কূটনীতিক, যেমন বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন এবং টমাস জেফারসন, প্যারিসে বসবাস করেছিলেন, যেখানে তারা ফরাসি বুদ্ধিজীবী শ্রেণীর সদস্যদের সাথে অবাধে সহযোগিতা করেছিলেন। উপরন্তু, আমেরিকার বিপ্লবী এবং ফরাসি সৈন্যদের (যারা উত্তর আমেরিকায় কাজ করে) মধ্যে যোগাযোগের ফলে তারা বিপ্লবী চিন্তাভাবনাকে ফরাসি জনগণের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়।[১২]

উপাদান শক্তি[সম্পাদনা]

১৭৮৭ সালে ফ্রান্স, যদিও কিছু সমস্যা সম্মুখীন হত, তবুও এটি ইউরোপের সবচেয়ে অর্থনৈতিকভাবে সক্ষম রাষ্ট্রগুলির মধ্যে একটি ছিল। ফরাসি জনসংখ্যা ২৮ মিলিয়ন অতিক্রম করেছিল; ইউরোপের ১৭৮ থেকে ১৮৮ মিলিয়নের মধ্যে, শুধুমাত্র রুশ সাম্রাজ্যর অধিক জনসংখ্যা (৩৭ থেকে ৪১ মিলিয়ন) ছিল।[১৩] ফ্রান্স ইউরোপের সবচেয়ে নগন্য দেশগুলির মধ্যে একটি ছিল, প্যারিসের জনসংখ্যা সারা ইউরোপে শধু লন্ডনের থেকেই কম ছিল (প্রায় ৫০০,০০০ বনাম ৮০০,০০০)[১৩] এবং ইউরোপের ৩৫ বড় শহরের মধ্যে ছয়টি ফরাসি ছিল।[১৪][১৫]

অন্যান্য পরিমাপ দিয়েও ফ্রান্সের সহজাত শক্তি নিশ্চিত করা যায়। ইউরোপের প্রায় ৩০ মিলিয়ন পুরুষ কৃষকের মধ্যে ফ্রান্সেরি ৫.৩ মিলিয়ন ছিল।[১৬] চাষের জন্য জমি[১৬], প্রতি ইউনিটে এলাকাতে উৎপাদনশীলতা[১৭], শিল্পায়নের স্তর, এবং গ্রস ন্যাশনাল প্রোডাক্ট [১৮] (রাশিয়া ছাড়া ইউরোপীয় পণ্যের প্রায় ১৪%, ইউরোপের বাইরে স্তরের উপরে ৬% থেকে ১০%[১৯]) - এই সব কিছু ফ্রান্সকে উন্নতির স্কেলে শীর্ষস্থানে অবস্থিত করত। সংক্ষেপে, এটি নিম্ন দেশ (লো কান্ট্রিস) এবং সুইজারল্যান্ডের তুলনায় একটু পিছিয়ে থাকলেও, মাথাপিছু সম্পদে, ফরাসি অর্থনীতির নিছক আকারের ফলে এটি মহাদেশীয় ইউরোপের প্রধান অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়।[২০]

ঋণ[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিক জন শোভলিন বলেছেন, "এটা একটি স্বত: সিদ্ধ সত্য যে, রাষ্ট্রের প্রায় দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার জন্যই ফরাসি বিপ্লব ঘটে।"[২১] জাতীয় ঋণের বোঝার জন্য ফরাসি সরকারের দীর্ঘমেয়াদি আর্থিক সংকট হয়েছিল।[২২] বিপ্লবের আগে, ফরাসি ঋণ ৮ বিলিয়ন থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১২ বিলিয়ন লিভ্রে হয়েছিল। ষোড়শ লুই (যার রাজত্ব ১৭৭৪ সালে শুরু হয়)-এর বিলাসবহুল ব্যয়, এবং তার আরও বেশি অপব্যয়ী পূর্বসূরি, পঞ্চদশ লুই (যিনি ১৭১৫ থেকে ১৭৭৪ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করেছিলেন)-এর ব্যয় ফরাসি রাষ্ট্রকে ঋণের বোঝায় ফেলেছিল। সাত বছরের যুদ্ধ (১৭৫৬-১৭৬৩) এবং মার্কিন স্বাধীনতা যুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের ফলে এই ঋণ আরো ১.৩ বিলিয়ন লিভ্রে বেরে যায়।[২৩]

পঞ্চদশ লুই এবং তার মন্ত্রীরা ব্রিটেনের সাত বছরের যুদ্ধে বিজয় সম্পর্কে গভীরভাবে অসন্তুষ্ট ছিল এবং প্যারিস চুক্তির পরের বছরগুলিতে তারা একটি দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা আঁকতে শুরু করেছিল। তারা একটি বৃহত্তর নৌবাহিনী এবং ব্রিটিশ বিরোধী একটি জোট নির্মাণের পরিকল্পনা করেছিল। এটির উদ্দেশ্য ছিল - প্রতিশোধের একটি যুদ্ধ এবং ফ্রান্স আবার ব্রিটেন থেকে তার উপনিবেশ পুনরুদ্ধার করবে। বাস্তবে, এই পরিকল্পনার ফলে ফ্রান্সের উপর একটি ঋণের বোঝা গড়ে ওঠে।

পঞ্চদশ লুই (অনেকের মতে তার উপপত্নী মারকুইস দে পম্পাদৌর পরামর্শে) দ'আর্নোভিলের দ্বারা পরিকল্পিত আর্থিক নীতি সমর্থন করেছিলেন। বাজেটের ঘাটতি অর্থায়ন করার জন্য, যা ১৭৪৫ সালে ১০০ মিলিয়ন লিভ্রে ছিল, মাচঅট দ'আর্নোভিলে সমস্ত রাজস্বের উপর ৫% ট্যাক্স তৈরি করেন (ভিংতিএম্), একটি পরিমাপ যা বিশিষ্ট শ্রেণির এবং সেইসাথে বাকি জনসংখ্যাকেও প্রভাবিত করে। তবুও, ব্যয়ের পরিমাণ রাজস্বের পরিমাণকে আতিক্রম করত।[২৪]

পরিশেষে, পঞ্চদশ লুই এই আর্থিক সমস্যা অতিক্রম করতে ব্যর্থ হয়, প্রধানত কারণ তিনি দরবার বিবাদকারী পক্ষের সমন্বয় ঘটাতে পারেননি এবং সুসঙ্গত অর্থনৈতিক নীতিতে পৌঁছাতে পারেননি। এর চেয়েও খারাপ, লুই রাজতান্ত্রিক-বিরোধী বাহিনীর উপস্থিতি নিয়ে সচেতন ছিলেন, যারা তার পরিবারের শাসনকে বিপন্ন করতে ছেয়েছিল, লিন্তু তবুও তিনি তাদের থামানোর জন্য কিছু করতে ব্যর্থ হন।[২৫]

নতুন রাজা ষোড়শ লুইএর অধীনে, তার মন্ত্রী, টুরগো এবং মালেশেরবেস দ্বারা আমূল আর্থিক সংস্কার, আভিজাত্যদের বিরক্ত করে এবং তাই এই সংস্কার সংসদের (পার্লমেন্টস) দ্বারা আটকানো হয়।আভিজাত্যরা মনে করত যে রাজার নতুন ট্যাক্স প্রয়োগ করার আইনি অধিকার ছিল না। সুতরাং, ১৭৭৬ সালে, টুরগো বরখাস্ত করা হয় এবং মালেশেরবেস পদত্যাগ করেন। জ্যাক নেকের তাদের প্রতিস্থাপিত করে। তিনি আমেরিকান বিপ্লবকে সমর্থন করেছিলেন এবং ট্যাক্স বৃদ্ধির পরিবর্তে বড় আন্তর্জাতিক ঋণ গ্রহণের নীতিতে অগ্রসর হন।

ফ্রান্স রস্যাম্বো, ল্যাফ্যায়েট ও ডে গ্রাসকে আমেরিকাকে সাহায্য করার জন্য বৃহৎ ভূমি ও নৌবাহিনী সহ পাঠিয়েছিল। ১৭৮১ খ্রিস্টাব্দে ইয়র্কশায়ারের যুদ্ধে প্রধান ব্রিটিশ সেনাকে আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য করার জন্য ফরাসী সাহায্য খুব দরকারি ছিল।[২৬] আমেরিকানরা তাদের স্বাধীনতা অর্জন করে, এবং যুদ্ধ মন্ত্রণালয় ফরাসি সেনাবাহিনী পুনর্নির্মাণ করেছে। তবে, ব্রিটিশরা ১৭৮২ সালে প্রধান ফরাসি নৌবাহিনী ডুবিয়ে দেয় এবং ফ্রান্স প্যারিসের চুক্তি (১৭৮৩) থেকে টোবাগোসেনেগালের উপনিবেশ ছাড়া যুদ্ধ থেকে খুব কম লাভ করেছিল। যুদ্ধের ফলে ১.০৬৬ মিলিয়ন ফরাসি লিভ্রে খরচ হয়, একটি বিশাল সমষ্টি, যা উচ্চ সুদের হার নতুন ঋণ দ্বারা অর্থায়ন ছিল, কিন্তু কোন নতুন কর আরোপ করা হয়না। নেকের জনসাধারণের কাছ থেকে সঙ্কটটি লুকিয়ে দেন এবং বলেন যে সাধারণ খরচ সাধারণ রাজস্বকে ছাড়িয়ে গেছে। তিনি ঋণের কথা উল্লেখ করেননা।[২৭]

নেকেরের ট্যাক্স নীতি যখন শোচনীয়ভাবে ব্যর্থ হ্য, তখন লুই তাকে বরখাস্ত করেন এবং ১৭৮৩ সালে চার্লস আলেকজান্ডার ডে কেলোনের সাথে তাকে স্থানান্তরিত করেন, যিনি জনসাধারণের ব্যয় বৃদ্ধি করে দেশের ঋণের ভার থেকে বেরোনোর পথ "কিনতে" চেষ্টা করেন । এই নীতি ব্যর্থ হয়; অতএব, কেলোন কর্তৃক প্রস্তাবিত একটি বিপ্লবী নতুন রাজস্ব সংস্কারের বিষয়ে আলোচনা করার জন্য ১৭৮৭ সালে লুই অ্যাসেম্বলি অফ নোটেবেলস ডাকেন। যখন অভিজাতবর্গকে ঋণের পরিমাণ বলা হয়, তখন তারা বিস্মিত হয়েছিল; তবে, তাদের বিস্ময় পরিকল্পনার পিছনে প্রচার করতে অনুপ্রাণিত করেনি - তারা এটি প্রত্যাখ্যান করেছিল। ঘটনাগুলির এই নেতিবাচক পরিবর্তন লুইকে বোঝায় যে তিনি পরম রাজত্বের শাসন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছেন এবং তিনি হতাশ হয়ে পড়েন।[২৮]

ব্রিটেনও, এই দ্বন্দ্বগুলির ফলে ব্যাপকভাবে ঋণী হয়েছিল; কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে এটির সাথে মোকাবেলা করার জন্য আরো উন্নত আর্থিক প্রতিষ্ঠান ছিল। ফ্রান্স ব্রিটেনের তুলনায় একটি ধনী দেশ ছিল কিন্তু তার জাতীয় ঋণ ব্রিটিশদের চেয়ে বড় ছিল না। প্রতিটি দেশে, সরকারের বার্ষিক ব্যয়এর অর্ধেক সরকারি ঋণে খরচ হয় ; কেবল সুদের হারেরই পার্থক্য ছিল। ফ্রান্সের সুদের হার ব্রিটেনের সুদের হারের দ্বিগুণ ছিল। তাই অপ্রত্যাশিত জরুরী পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য টাকা উঠানোর ক্ষেত্রে কর আরোপের বেশি মাত্রা এবং কম নমনীয়তা ছিল। (এডেন চুক্তিও দেখুন।)

বিপ্লব-বিরোধী এডমান্ড বার্ক, ১৭৯০ সালে লিখেছিলেন: "জনসাধারণ, কোনও রাজতন্ত্র বা সেনেট দ্বারা প্রতিনিধিত্ব করে, জনসাধারণের সম্পত্তি ছাড়া কোনও কিছু অধিকার করতে পারে না; এবং জনসাধারণের কোনও সার্বজনীন সম্পত্তির মালিকানা থাকা সত্ত্বেও জনসাধারণের উপর বৃহত্তর আকারে এবং অনুপযুক্ত অভিব্যক্তি থেকে তা বের করা যায়।।" যেহেতু আভিজাত্যরা সফলভাবে তাদের অধিকার রক্ষা করতে পেরেছিল, ফ্রান্সের রাজা একটি "ঠিক এবং অনুপাত" কর আরোপ করতে পারেননি। ১৭৮৮ সালে এস্টেট জেনারেলকে অধিবেশনে আহ্বান করার মাধ্যমে এটি আরোপ করার ইচ্ছাটি সরাসরি পরিচালিত হয়।[২৯]

পুরাতন ঋণ প্রদানের বর্তমান আর্থিক সঙ্কট এবং বর্তমান রাজকীয় আদালতের ক্রমবর্ধমান রাজতন্ত্রের সাথে অসন্তোষের কারণে, জাতীয় অস্থিরতা অব্যাহত, এবং ফরাসি বিপ্লব ১৭৮৯ সালে পরিনত হয়েছে।

করারোপণ[সম্পাদনা]

ষোড়শ লুই, তার মন্ত্রীরা, এবং বিস্তৃত ফরাসি আগ্রাসন অত্যন্ত অপ্রচলিত হয়ে উঠেছিল। এটি একটি ফলস্বরূপ যে চাষীরা এবং, কম পরিমাণে, দরিদ্র এবং যারা বুর্জোয়াদের আকাঙ্ক্ষী ছিল, তারা ধনী রাজতন্ত্রকে সমর্থন করার জন্য অভিশপ্ত এবং তাদের ঐশ্বর্যপূর্ণ, প্রায়ই পুষ্টিকর প্রাণবন্ততার সাথে আতঙ্কিতভাবে উচ্চ করের বোঝা চাপিয়ে দিয়েছিল।[৩০]

বাইরের কাস্টমস ট্যারিফের বিষয়ে উল্লেখযোগ্য ঘাটতির সাথে ফ্রান্সে অভ্যন্তরীণভাবে তার কর রাজস্বের অধিকাংশ উত্থাপিত হয়।[৩১] বাণিজ্য অঞ্চলের ট্যাক্স ফ্রান্স অঞ্চলের মধ্যে অভ্যন্তরীণ শুল্ক গঠিত। এটি প্রতিটি আঞ্চলিক সীমানায় করণীয় (কখনও কখনও প্যারিসের মতো) শারীরিক আকারে গঠন করে, এবং এই বাধাগুলি ফ্রান্স একটি সমন্বিত বাজার হিসাবে উন্নয়ন করতে বাধা দেয়। করের সংগ্রহগুলি, যেমন অত্যন্ত অপ্রচলিত লবণ কর, জব্বেল, ব্যক্তিগত সংগ্রাহকদের ("ট্যাক্স কৃষক") সাথে চুক্তি করা হয়েছিল, যারা সব কৃষকের মতো, তাদের জমিদারি বাড়িয়ে তুলতে নিজেদের উদ্বিগ্ন করেছিল। সুতরাং, তারা সংগৃহীত, বেশ বৈধভাবে, প্রয়োজনীয় চেয়ে অনেক বেশী, রাজ্য ট্যাক্স লাঘব করে, এবং বাকি পকেটে। এই অপ্রতিরোধ্য সিস্টেম ফ্রান্সের খরচ করের অবাধ এবং অসম সংগ্রহ নেতৃত্বে। (কৃষক-জেনারেলের ওয়াল, জ্যান চৌন, অক্ট্রোই, ক্লড নিকোলাস লডউক্স এবং ভারতীয় লবণ কর দেখুন।)

হোটেল দে লা গ্যাবেল (হায়স অফ দা সল্ট ট্যাক্স)। এটি আপার নরম্যান্ডির বারনেতে আবস্থিত। এটি ১৭৫০ সালে ব্রিয়েন্ট এবং আংএ-জ্যাক গ্যাব্রিয়েল দ্বারা নির্মিত হয়েছিল।

কৃষকদের এবং আভিজাত্য একইভাবে তাদের আয় এক দশমাংশ দিতে বা গির্জা (দশমাংশ) থেকে উত্পাদন প্রয়োজন ছিল। কৃষকরা রাজ্যে ভূমি কর প্রদান করে (টাওলে),[৩২] ৫% সম্পত্তি কর (ভিংটিমে)। সমস্ত করদাতার অবস্থা (দরিদ্র থেকে রাজকুমার) উপর নির্ভর করে পরিবার (ক্যাপিটেশান) মানুষের সংখ্যা উপর একটি ট্যাক্স দেওয়া। আরও রাজকীয় এবং প্রভু (সেইগনিউরিয়াল) বাধ্যবাধকতা বিভিন্ন উপায়ে অর্থ প্রদান করা হতে পারে: শ্রম (করভি) মধ্যে, ধরনের, বা, কদাচিৎ, মুদ্রা মধ্যে। কৃষকদের তাদের জমিদারদের জন্যও দায়ী ছিল: নগদ (সেন্স), তাদের বার্ষিক উৎপাদন (চেম্বার্ট) এবং উঁচু মানের মিলস, ওয়াইন-প্রেস এবং বকিরের ব্যবহার (ট্যাক্স) সংক্রান্ত করের সাথে সম্পর্কিত একটি অর্থ। বানালাইট)। ভাল সময়, ট্যাক্স বোঝা ছিল; কঠোর সময়ে, তারা বিধ্বংসী ছিল। [উদ্ধরণ প্রয়োজন] শীতকালে কম খরচে ফসলের পর মানুষ মারা যাবে না।

পাবলিক লিডিংয়ের মাধ্যমে ট্যাক্স আদান-প্রদানের ("বেসরকারী") "ফার্মার্ম" করা হয়েছিল।[৩৩] সরকারি কর্মকর্তারা রাজার কাছ থেকে তাদের পদগুলি কিনেছেন, কখনও কখনও বার্ষিক ভিত্তিতে, কখনও কখনও চিরস্থায়ী হয়। প্রায়ই একটি অতিরিক্ত ট্যাক্স, "পল্লেট" নামক একটি অতিরিক্ত ট্যাক্স, একটি অফিসের ধারকদের দ্বারা তাদের অবস্থান আপগ্রেড করার জন্য দেওয়া হয় যা উত্তরাধিকার হিসাবে বরাবর পাস হতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই, এই দপ্তরগুলির হোল্ডারগুলি যতটা সম্ভব কঠিন করদাতাদের দোষী করে নিজেদের ক্ষতিপূরণ দিতে চেয়েছিল। উদাহরণস্বরূপ, একটি সিভিল মামলাতে, বিচারক উভয় দলই ট্রায়ালের খরচ (যা মশলা বলে) বলে দাবী করে;[৩৪] এটি কার্যকরীভাবে, সকলের নাগালের বাইরে থেকে ন্যায়বিচার প্রদান করে কিন্তু ধনী ব্যক্তির কাছে।

এই সিস্টেমটিও উঁচু পদের কর্মচারীদের এবং করদাতাদের কাছ থেকে কর প্রদান করে (একটি সামান্য অব্যাহতি ছাড়ের ভাড়া, ভূমি একটি বিজ্ঞাপন মূল্য ট্যাক্স ব্যতিক্রম)। এভাবে ট্যাক্স বোঝা কৃষকদের, বেতনভোগী, এবং পেশাদার এবং ব্যবসায়িক শ্রেণীতে বিভক্ত হয়ে যায়, তৃতীয় এস্টেট হিসাবেও পরিচিত। এ ছাড়া, শাসকগোষ্ঠীর ক্ষমতার এমনকি ক্ষুদ্রতম পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার জন্য কম-শ্রদ্ধাচার্য walks থেকে মানুষ অবরোধ করা হয়। এটি আরও বিরক্তি সৃষ্টি করে।

সংস্কারের ব্যর্থতা[সম্পাদনা]

পঞ্চদশ লুই (১৭১৫-১৭৭৪) এবং ষোড়শ লুই (১৭৭৪-১৭৯২) এর রাজত্বকালে, বেশ কয়েকজন মন্ত্রী, বিশেষ করে টুরগো ও নেকার, ফরাসি কর ব্যবস্থায় প্রস্তাবিত সংস্কারগুলি যাতে করদাতাদের হিসেবে উত্তমদের অন্তর্ভুক্ত হয়, কিন্তু এই প্রস্তাবগুলি ছিল না নীতিমালা (আপীল প্রাদেশিক আদালত) থেকে প্রতিরোধের কারণে গৃহীত এই আদালতের সদস্যরা রাজার কাছ থেকে তাদের পদগুলি কিনেছেন, পাশাপাশি তাদের বার্ষিক ফি প্রদানের মাধ্যমে পৌরসভার স্থানান্তর করার অধিকার, পল্যাট এই ধরনের আদালতে সদস্যপদ, বা অন্যান্য জনসাধারণের পদে নিয়োগ করা, প্রায়ই উত্তরাধিকারীকে উন্নত করা হয় (রবারের তথাকথিত নোবেলের মতো, যেহেতু পূর্বপুরুষের সামরিক উত্সের উজ্জ্বলতা, তলোয়ারের নোবেলগুলি থেকে আলাদা)। এই দুইটি বিভাগ উগ্রপন্থীরা প্রায়ই বিজয়ের সময়ে, তারা উভয়েই তাদের বিশেষ অধিকার বজায় রাখতে চেয়েছিল।[৩৫]

ট্যাক্স বাড়াতে প্রয়োজন রাজা এবং ঊর্ধ্ব বুর্জোয়াদের সঙ্গে অদ্বিতীয় রাজা, তিনি তার অর্থমন্ত্রী, "ক্রমবর্ধমান পুরুষ" (ফ্রাঙ্কোজ মেগনেটের অন্তর্দৃষ্টিপূর্ণ শব্দটি ব্যবহার করার জন্য), সাধারণত নন-উত্সাহী মূলধারার সাথে নিযুক্ত হন। এই সাধারণ ব্যক্তিরা, টুরগো, চেরিয়েইয়ান দে মালেশেরবেস এবং জ্যাক নেকের করদাতাদের সংস্কারের জন্য এবং নিয়ন্ত্রনের দিকে অন্যান্য পদক্ষেপগুলি যেমন, নেকারের রাজার আদালতের উচ্ছ্বাস হ্রাসের প্রচেষ্টাগুলির জন্য বাধ্যতামূলক। প্রতিটি এক ব্যর্থ হয়েছে এর পরিবর্তে, আমলাতান্ত্রিক ওভারফেটেড বর্জ্যের "পারকিনসন আইন" জঘন্য এবং অন্যান্য অ-সিজোরিয়াল ক্লাসের ক্ষতির সম্মুখীন হয়। এর বিপরীতে, ১৭৮৩ সালে চার্লস আলেকজান্ডার ডি কেলোনকে অর্থমন্ত্রীর নিয়োগ করে চতুর্দশ লুই যুগোপযোগী স্মারক ব্যয় পুনর্বিন্যস্ত করেন। সময় দ্বারা কেলোন আর্থিক পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য ১৭৮৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি সংবাদপত্রের সমাবেশে একত্রিত করে, ফ্রান্স ভার্চুয়াল দেউলিয়া অবস্থা লাভ করে; রাজকীয় আদালত ও সরকারের ব্যয় মেটাতে কেউই রাজস্বের টাকা দিতেন না। ম্যাগনেটের মতে, ঋণ ১.৬৪ বিলিয়ন লিভ্রে ছিল, এবং বার্ষিক ঘাটতি ছিল ১৪০ মিলিয়ন।[৩৬]

কালোন তার প্রধান সমালোচক, এটিএন চার্লস দ্য লমেনি দে ব্রিএন, সেন্স এর আর্চবিশপ দ্বারা সফল হয়েছে, কিন্তু মৌলিক পরিস্থিতি অপরিবর্তিত ছিল: সরকার কোন ক্রেডিট ছিল। এটিকে মোকাবেলা করার জন্য, পরিষদের অধিবেশনে "প্রাদেশিক পরিষদের প্রতিষ্ঠা, ভুট্টা বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ, কর্ণের বিলুপ্তি এবং একটি নতুন স্ট্যাম্প ট্যাক্স" অনুমোদন করা হয়, কিন্তু ২৫ শে মে ১৭৮৭ তারিখে সমাবেশটি বিনা মূল্যে একটি দীর্ঘ মেয়াদী প্রোগ্রাম স্থাপন ছাড়া সাফল্যের সম্ভাবনা।[৩৭]

নিষ্ক্রিয়তা এবং ক্ষুধা[সম্পাদনা]

নিকোলাস দে লা মেয়ারের (১৭০৭)ট্রেইট দে লা পুলিশ
: পুরাতন শাসনে (এ্যানসিয়েন রেজাইম),পুলিশ রুটির মূল্য, গুণ এবং সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ করত।

বিপ্লবের আগে[সম্পাদনা]

পুরাতন শাসনে (এ্যানসিয়েন রেজাইম) ফ্রান্সে, দরিদ্র চাষীদের জন্য রুটি খাদ্যের প্রধান উৎস ছিল এবং রাজা তার প্রজাদের খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজন ছিল, রাজা স্নেহপ্রসন্নভাবে লে প্রিমিয়র বোুলার ডু রয়ুয়েম ("রাজ্যের প্রধান খাবারের দোকান") নামে পরিচিত ছিলেন।[৩৮] এই সময়ের মধ্যে, কেবল আইনকে সমর্থন করার চেয়ে রাজপরিবারের ভূমিকা অনেক বেশি জড়িত ছিল। সমাজে অনেকগুলি ব্যবস্থার উপর পুলিশ দায়িত্ব পালন করে, এমনকি রাস্তার পাশাপাশি, খাদ্য সরবরাহের উপর কঠোর নিয়ন্ত্রণও প্রয়োগ করে।[৩৯] সামাজিক ক্রম বজায় রাখার জন্য, শস্য মজুদ সব সময় এবং সমগ্র জনসংখ্যার জন্য রুটি এবং এর প্রাপ্যতা মান নিশ্চিত করার জন্য কঠোর নিয়ম জমা দেওয়া হয়। শস্য ব্যবসায়ীরা সন্দেহের চোখে দেখেছিল, তাদের "জনগণের সবচেয়ে নিষ্ঠুর শত্রু" বলে অভিহিত হয়েছিল কারণ তারা অন্যান্য পণ্য (যেমন খড় বা চূর্ণ হাড়) দিয়ে আটা মিশ্রিত করার জন্য সন্দেহভাজন ছিল অথবা এই গুরুত্বপূর্ণ পণ্যগুলির মূল্যবৃদ্ধি করার জন্য শস্য সংগ্রহ করতে বলেছিল । পুরাতন শাসন (এ্যানসিয়েন রেজাইম) একটি "নৈতিক অর্থনীতি" যেখানে দুর্বলতা কঠোর প্রবিধান দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়েছে অনুকূল। পুলিশ ময়দার বিশুদ্ধতা নিয়ন্ত্রন করে এবং নিশ্চিত করে যে কেউই মূল্যবৃদ্ধি চালানোর জন্য শস্য আটকাবেন না। অষ্টাদশ শতাব্দীর খাদ্যশস্য সাধারণ ছিল, কিন্তু শস্যের পুলিশ খারাপ ফসলের মুখোমুখি অঞ্চল থেকে রপ্তানি নিষেধ করে এবং অধিক উৎপাদন বাড়ানোর ক্ষেত্রগুলি থেকে শস্য আমদানি করবে। এটি একটি বণিককে তার আটার মূল্যের ডাম্প করতে বাধ্য করে (পরে তাকে প্রচুর পরিমাণে তার ক্ষতির জন্য ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়)।[৪০]

শস্য শিল্পের নিষ্ক্রিয়তাকরণ[সম্পাদনা]

টুরগোর প্রতিকৃতি

আলোকিত যুগে, অর্থনীতির শারীরবৃত্তীয় স্কুল উদিত। ফিজিওোক্রাটস বা অর্থনৈতিক অর্থনীতি যেমনটি তারা নিজেরা বলেছিল, টুরগোকে ষোড়শ লুই এর কন্ট্রোলার-জেনারাল অফ ফিনান্সেসের উপর প্রভাব ফেলেছিল। ভিনসেন্ট ডি গৌরনে শব্দটি সংক্ষেপে কীভাবে সরকারী অর্থনৈতিক নীতিমালার সমালোচনা করা উচিত তা নিয়ে তাদের মতামত: "লেসে ফেয়ার, লেসে প্রান্তার", যার মানে এইমাত্র ছেড়ে দিন এবং এটি "অদৃশ্য হাত" ধারণা হিসাবে পরিচিত হয়। তার লেখার "এলেগেস দে গোর্নি" "লেসে-ফেয়ার" অর্থনৈতিক নীতিসমূহে গার্নারের বিশ্বাসকে পুরোপুরিভাবে সমর্থন করেন টুরগো। তফসিলীভাবে, ১৩ আগস্ট ১৭৭৪ তারিখে টুরগো পুলিশ আইন বিলোপ সাধন করে শস্য মুক্ত বানিজ্য স্থাপন করেন।[৪১]

বিপ্লবের ফলাফল[সম্পাদনা]

১৭৭৫ সালের বসন্তের ফসল আগে, খাদ্যশস্যের ভাণ্ডার শেষ হয়ে গেলেও নতুন ফসল এখনো আসেনি। ১৭৭৫ সালের বসন্তে এই নতুন প্রেক্ষাপটে দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়: টুরগোর আদেশের আগে, প্রতি অঞ্চলে নিজের দুর্ভোগ দেখা দেয়, যাতে কেউ কেউ প্রকৃত দুর্ভিক্ষ ভোগ করতে পারে এবং অন্যরা একেবারে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় এবং স্থিতিশীলতার মাধ্যমে সরবরাহ করতে পারত। একটি রাজকীয় হস্তক্ষেপ অনুরোধ করা হয়েছে, এবং একটি সন্দেহ ছাড়াই, সবচেয়ে প্রভাবিত অঞ্চলের সরবরাহ আশ্বাস নিশ্চিত করা হবে। উদারীকরণের ফলে, শস্য মালিকরা শস্য সংগ্রহ করে ধারণা করতে শুরু করে। তারা খারাপ ফসলের ক্ষেত্রে বিক্রি করার জন্য ভাল ফসলের এলাকায় কেন্দ্রে বিনিয়োগ করতে থাকে, যেখানে মুনাফা বেশি হতে পারে, এর ফলে উল্লেখযোগ্য মূল্য বৃদ্ধি এবং ঘাটতি এবং আরও বেশি লোককে আরও দ্রুত প্রভাবিত করে। শস্য এবং রুটি সরবরাহের পরিবর্তন গুরুতর প্রভাব ফেলেছিল, এবং ব্যাধি সঙ্গে দেখা হয়েছিল। এই দ্বন্দ্ব ১৭৭৫ সালের ফ্লো ওয়ার নামে পরিচিত ছিল। শস্যের প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করে এমন লোকদের কাছ থেকে রিপোর্ট করা হয়েছে যে শস্য ফসল যা সমস্যা এবং কম শস্য প্রাপ্যতা যার ফলে সমস্যা ছিল। শস্যের মূল্যও বেড়ে যায়, এবং কেউ কেউ সামর্থ্য অর্জনের জন্য কঠোর হয়ে ওঠে। একটি শস্য ঘাটতি সংবাদ সংশয়বাদ এবং হতাশা সঙ্গে উচ্চ মূল্য থেকে rose পূরণ ছিল।[৪২] সংস্কারের বিরোধিতাকারীরা রয়টার্স করে এবং শস্যদানাগুলিতে যে শস্য জমা হয়েছিল তা আটক করা হয়। তারা কি তাদের জন্য "ঠিক মূল্য" ছিল অনুভূত প্রস্তাব। এই একটি উপায় যা মানুষ কিছু ক্ষমতা তাদের নিজের হাতে ফিরে দেখানো। এই অনুশীলনটি "করপোরেশন জনসংখ্যা" বা জনপ্রিয় ট্যাক্সেশন নামে পরিচিত ছিল।[৪২]

যদিও শস্যের অভাবের সমস্যাগুলি মোকাবেলা করার জন্য ডকুমেন্টেশন প্রচেষ্টা ছিল, যেমন বিদেশী দেশগুলি থেকে বর্ধিত শুল্ক, "প্যাক্ট দে দুর্ভিক্ষ" এর মাধ্যমে দুর্ভিক্ষটি ইচ্ছাকৃতভাবে লুই একুশে দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল।[৪২] টুরগো দাঙ্গা দমন করে এবং শস্য বাজারে নিয়ন্ত্রণ পুনঃস্থাপন করে। শস্যের মুক্ত বাণিজ্যের ধারণাটি বাতিল হয়ে যায় এবং অর্থনৈতিক পরীক্ষায় সরকার থেকে ভার্জায়সে সরকারকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। ফ্লো ওয়্যারকে ফরাসি বিপ্লবের প্রেক্ষাপটে দেখা যায়।[৪৩]

দুর্ভিক্ষের ভয় তৃতীয় সম্পদের নিম্ন স্তরের জন্য সর্বদাই বর্তমানের ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে এবং দরিদ্রদের ধনী হওয়ার জন্য "প্যাক্ট ডি দুর্ভিক্ষ" এর গুজবগুলি এখনও প্রবল এবং সহজেই বিশ্বাস করে। [৪৪] ১৭৮২ সালের এপ্রিল মাসে রেফিলোলোনের দাঙ্গার কারণে খাদ্যের অভাবের ঘটনাগুলি ঘটেছিল। ১৭৮২ সালের গ্রীষ্মে জনসংখ্যার ক্ষয়ক্ষতির জন্য গমের ফসল ধ্বংস করার লক্ষ্যে একটি চক্রান্তের গুজব ছিল। প্যারিসের নারীদের ক্ষুধা ও হতাশাও ছিল ১৭৮২ সালের অক্টোবরে ভার্সেসে মহিলা মার্চের মূল উৎসাহ, তারা শুধু এক খাবার নয় বরং এই রুটি আবারও প্রশস্ত এবং সস্তা হয়ে উঠবে বলে আশ্বাস দেয়।[৪৫]

বিপ্লবের দুই বছর আগে (১৭৮৮-৮৯) দুর্ভেদ্য ফসল এবং কঠোর শীতকালে সম্ভবত একটি শক্তিশালী এল নিনো চক্রের কারণে[৪৬] আইসল্যান্ডে ১৭৮৩ সালে লকি বিস্ফোরণের ফলে।[৪৭] লিটল আইস এজও চাষের ফসলের চাষের বিকল্পকে প্রভাবিত করে; ইউরোপের অন্যান্য অঞ্চলে, কৃষক কৃষকরা আলাদা ফসল হিসাবে আলু গ্রহণ করেছিলেন। ষোড়শ শতকের মাঝামাঝিতে ফ্রান্সে আলু চালু করা হয়েছিল এবং বিরোধিতা সত্ত্বেও বেশিরভাগ ফ্রান্সে শালগম এবং রুতাবাগাকে ক্ষতবিক্ষত করেছে।[৪৮] অ্যান্টোনি প্যারমেটিয়ার এবং ষোড়শ লুই মত ব্যক্তিদের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা সত্ত্বেও, শস্য এখনও ফ্রান্সে আরো জনপ্রিয় প্রধানতম ফসল। এটি আংশিকভাবে ছিল কারণ আলুকে শস্যের চেয়ে পরিবহন এবং সঞ্চয় করা কঠিন বলে মনে হয়।[৪৯]

স্বচ্ছতা[সম্পাদনা]

এইচ. এফ. হেলমোল্ট যুক্তি দেন যে এই সমস্যাটি বেশি ঋণের জন্য হয়নি। এই সমস্যাটি হয়েছে আলোকিত যুগের নীতি অনুযায়ী ঋণের প্রতিসৃত হওয়ার জন্য এবং তৃতীয় এস্টেটের ঋণদাতাদের (সাধারণ মানুষ যাদের কাছে সরকারের কাগজ ছিল) ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য।

যথাযথভাবে, জনগণের এই বাস্তবতায় অভ্যস্ত হওয়া উচিত ছিল, যে ফরাসি সরকার তার আর্থিক দায়বদ্ধতা পূরণ করবেনা, কারণ রাজা চতুর্থ হেনরির সময় থেকে, অর্থাৎ দুই শতাব্দী ধরে, ফরাসি সরকার তার বাধ্যবাধকতাগুলি ছাপ্পান্ন বার পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছিল। সেই সময় এমন বিপর্যয় ঘোষণা করা হতনা এবং প্রকাশ্যে আলোচনাও করা হতনা। এখন সমস্ত ফ্রান্স, যা দুই প্রজন্মের জন্য যুক্তিবাদী দলের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিল, তারা আর্থিক পরিস্থিতি বিরুদ্ধে উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছিল।[৫০]

সংস্কারবাদী ব্যবস্থা প্রণয়নের জন্য সংসদ (পার্লমেন্টস) ও অভিজাতবর্গের সাথে সংগ্রামের মাধ্যমে পুরাতন শাসন (এ্যানসিয়েন রেজাইম)-এর বিচ্ছিন্নতার পরিমাণ প্রদর্শন করা হয়। কিছু সময়ের মধ্যে, প্রোটেস্ট্যান্টরা তাদের অধিকার ফিরে পায়ে, এবং ষোড়শ লুইকে তার আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে বার্ষিক বিবৃতি প্রকাশের জন্য চাপ দেওয়া হয়। তিনি পাঁচ বছরের মধ্যে এস্টেট-জেনারেলকে পুনর্বিবেচনা করার অঙ্গীকার করেন। যদিও এমন ভান করা হত যে ফ্রান্স একটি পরম রাজতন্ত্রের দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে; তা সত্ত্বেও, এটি স্পষ্ট হয়ে ওঠে যে রাজকীয় সরকার অভিজাতবর্গের অনুমতি ছাড়া তার পছন্দসই পরিবর্তনগুলি সফলভাবে বাস্তবায়ন করতে পারে না। আর্থিক সংকট রাজনৈতিক সংকটে পরিণত হয়েছিল[৫০], এবং এটা নিশ্চিত ছিল যে ফরাসি বিপ্লব ঘটবে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Dorinda Outram, "The Enlightenment", 2013, p.45
  2. John Hardman, "The Life of Louis XVI", 2016
  3. James B. Collins, "The Ancien Régime and the French Revolution", 2002, p.23 : "The Physiocrats denounced government interference in the economy, and sponsored free market ideas. These ideas had some currency in France in the 1760s: the government briefly created a free market in grain and abolished the state monopoly of the West India Company in 1769. The free market in grain led to riots (...) Turgot's deregulation of the grain trade, enacted on the eve of a widespread grain shortage, led to riots so severe they are known as the Flour War."
  4. Peter McPhee (২০১৫)। The French Revolution। Melbourne U.। পৃষ্ঠা 34। 
  5. David Thomson, Europe Since Napoleon (1957) pp. 24–25.
  6. Thomson, pp. 25–26.
  7. Thomson, p. 25.
  8. Hibbert, p. 29.
  9. Hibbert, p. 30.
  10. Hibbert, p. 31.
  11. Vincenzo Ferrone, The Enlightenment: History of an Idea (Princeton UP, 2015).
  12. R.R. Palmer, The age of the Democratic Revolution: a political history of Europe and America, 1760–1800 (2nd ed. 2014) pp. 177–213
  13. Bairoch 1989, পৃ. 941
  14. Bairoch 1989, পৃ. 943
  15. Bernard Lepetit, The Pre-industrial Urban System: France 1740–1840 (Cambridge UP, 1994).
  16. Bairoch 1989, পৃ. 945
  17. Bairoch 1989, পৃ. 946
  18. Bairoch 1989, পৃ. 949
  19. Bairoch 1989, পৃ. 959–963
  20. Ralph W. Greenlaw, ed., The economic origins of the French revolution: poverty or prosperity? (Heath, 1958).
  21. John Shovlin (২০০৭)। The Political Economy of Virtue: Luxury, Patriotism, and the Origins of the French Revolution। Cornell UP। পৃষ্ঠা 9। 
  22. Eugene Nelson White, "The French Revolution and the politics of government finance, 1770–1815." Journal of Economic History 55#2 (1995): 227–55.
  23. Stacy Schiff (২০০৬)। A Great Improvisation: Franklin, France, and the Birth of America। Macmillan। পৃষ্ঠা 5। 
  24. Kenneth N. Jassie, "We Don't Have a King: Popular Protest and the Image of the Illegitimate King in the Reign of Louis XV". Consortium on Revolutionary Europe 1750–1850: Proceedings 1994 23: 211–19. আইএসএসএন 0093-2574
  25. The Great Nation: France from Louis XV to Napoleon, (1715–99), a scholarly bibliography by Colin Jones (2002) pp. 124, 132–33, 147
  26. Jonathan R. Dull, The French Navy, and American Independence: A Study of Arms and Diplomacy, 1774–1787 (1975) আইএসবিএন ০-৬৯১-০৬৯২০-৪
  27. On finance see William Doyle, Oxford History of the French Revolution (1989) pp. 67–74
  28. John Hardman, Louis XVI, Yale university Press, New Haven and London, 1993 p. 126
  29. The French Revolution. Discoverfrance.net. Retrieved on 2011-11-18.
  30. Peter Mathias and Patrick O'Brien, "Taxation in Britain and France, 1715–1810. A comparison of the social and economic incidence of taxes collected for the central governments." Journal of European Economic History 5#3 (1976): 601+.
  31. Jeff Horn, The Path Not Taken: French Industrialization in the Age of Revolution, 1750-1830 MIT 2006 আইএসবিএন ৯৭৮-০২৬২০৮৩৫২-২
  32. The taille was meant to pay for the war effort; nobility was exempted as they considered their physical participation in the war as a "blood tax".
  33. Louis XV introduced a fixed remuneration scheme for tax collectors in 1769.
  34. The épices were no bribes, as they did not go to the judge directly, but to a common fund, and served to pay for the costs incurred by the judges, who had to remunerate their auxiliaries - see Albert N. Hamscher, The Parlement of Paris after the Fronde 1653–1673, p. 66.
  35. Robert D. Harris, Necker: reform statesman of the Ancien Régime (U of California Press, 1979).
  36. Gilbert Faccarello, "Galiani, Necker and Turgot. A debate on economic reform and policy in 18th Century France." History of Economic Thought 1.3 (1994): 519–50.
  37. Eugene Nelson White, "Was there a solution to the Ancien Régime's Financial Dilemma?." Journal of Economic History 49.03 (1989): 545–68.
  38. "Labyrinthe, Numéros 20 à 22", 2005, p. 58
  39. [Andress, David. French Society in Revolution, 1789–1799. France: Manchester University Press, 1999, pp. 16–18]
  40. Steven Kaplan,Jean-Philippe de Tonnac, "La France et son pain: Histoire d'une passion" [১]
  41. Nicolas Bourguinat, "L'État et les violences frumentaires en France sous la Restauration et la Monarchie de Juillet", Ruralia,
  42. Andress 17
  43. Bourguinat, Nicolas। "L'État et les violences frumentaires en France sous la Restauration et la Monarchie de Juillet"Ruralia। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  44. Doyle, p. 121.
  45. Soboul, p. 155.
  46. Richard H. Grove (১৯৯৮)। "Global Impact of the 1789–93 El Niño"। Nature393: 318–19। doi:10.1038/30636 
  47. Wood, C.A., 1992. "The climatic effects of the 1783 Laki eruption" in C. R. Harrington (Ed.), The Year Without a Summer? Canadian Museum of Nature, Ottawa, pp. 58–77
  48. "Histoires de légumes" by M. Pitrat and C. Foury, Institut National de la recherche agronomoique, 2003, p. 167
  49. William L. Langer, "American Foods and Europe's Population Growth 1750–1850" Journal of Social History 8#2 (1975) pp. 51–66. in JSTOR
  50. H. F. Helmolt, History of the World, Volume VII, Dodd Mead 1902, pp. 120–21.

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Andress, David, ed. The Oxford Handbook of the French Revolution (Oxford University Press, 2015). excerpt
  • Bairoch (১৯৮৯)। "L'economie francaise dans le contexte european a la fin du XVLLLe siecle"Revue Economique40 (6): 939–64।  mirror
  • Campbell, Peter, and Peter McPhee. "Rethinking the origins of the French Revolution." in Peter McPhee, ed., A Companion to the French Revolution (2013) pp. 1–23.
  • Campbell, Peter R., ed. The Origins of the French Revolution (2005).
  • Censer, Jack R. "Historians Revisit the Terror—Again." Journal of Social History (2014) 48#2 pp 383–403
  • Doyle, William. Origins of the French Revolution (2001).
  • Hibbert, Christopher (১৯৮০)। The French Revolution। London: Penguin। আইএসবিএন 978-0140049459 
  • Kaiser, Thomas and Dale Van Kley. From Deficit to Deluge: The Origins of the French Revolution (2010)
  • Maza, Sarah. "Politics, culture, and the origins of the French Revolution." Journal of Modern History 61.4 (1989): 704-723. in JSTOR
  • McPhee, Peter. Liberty or Death: The French Revolution (2016)
  • Thomson, David (১৯৫৭)। Europe Since Napoleon। London: Longmans।