প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স (ইংরেজিতে "ফার্স্ট এইড বক্‌স্‌" নামে পরিচিত) একটি ছোট বাক্স বা থলি যাতে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য সবরকম জরুরী উপকরণ মজুদ থাকে। প্রয়োজনের সময় প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স সাথে থাকলে খুব দ্রুত ও সহজেই যেকোন দূর্ঘটনার মোকাবেলা করা যায়। বাড়িতে, গাড়িতে এবং কর্মস্থলে প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স থাকা জরুরি। হয়তো কোন এক সময় এই বাক্সটি হতে পারে অসময়ের ভাল বন্ধু।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রবার্ট হুড জনসন একজন আমেরিকান শিল্পপতি। তিনি আমেরিকায় জনসন অ্যান্ড জনসন (বহুজাতিক চিকিৎসা সরঞ্জাম প্রস্তুতকারী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান) প্রতিষ্ঠিত করেন। তিনি তার শ্রমিকদের চিকিৎসার ব্যাপারটি লক্ষ করেন এবং দেখেন যে সাধারণ চিকিৎসার সরঞ্জাম সহজলভ্য হলেও শ্রমিকদের জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা পর্যাপ্ত নয়। তাই তিনি এক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন, যার ফল আজকের জনসন & জনসন। ১৮৮৮ সালে খুব দ্রুত প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স তার কারখানার কর্মচারী ও শ্রমিকদের মাঝে বণ্টন করেন। বাজারেও খুব তাড়াতাড়ি ছড়িয়ে পড়ে প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স। সর্ব প্রথম মেক্সিকো-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধে প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স সেনাদের দেওয়া হয়েছিল। ১৯২০ সালের মধেই গৃহস্থলি স্বাস্থ্য সেবার জন্য প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্স উন্মুক্ত করা হয়।[২][৩]

প্রতীক[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক মান সংস্থা(ISO) কর্তৃক প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সের জন্য একটি প্রতীক নির্ধারণ করেছে। যা সবুজের উপর সাদা 'ক্রুশ' চিহ্ন থাকে। কখনো কখনো প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে সাদার উপর লাল 'ক্রুশ' চিহ্ন থাকে। এই চিহ্ন কেবল মাত্র রেড ক্রিসেন্টরা ব্যবহার করতে পারে, তাছাড়া এই চিহ্ন ব্যবহার অবৈধ। তবে কেবল উত্তর আমেরিকায় জনসন জনসন কোম্পানি এর বৈধতা অর্জন করে ১৮৮৭ সালে। আবার কোথাও ‘স্টার অফ লাইফ’ চিহ্ন ব্যবহার করে প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে। এটা জরুরি চিকিৎসা ব্যবস্থা বুঝায়।

প্রয়োজনীয় উপকরণ[সম্পাদনা]

জীবাণুমুক্ত গজ কাপড়[সম্পাদনা]

ক্ষত হতে রক্ত পড়া বন্ধ করে এবং বাহিক্য জীবাণুর সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে। এটা ক্ষত হতে তরল পদার্থ শুসে নেয় ও ক্ষত স্থান নিরাপদ রাখে।

রোলার ব্যান্ডেজ[সম্পাদনা]

সাধারণত ড্রেসিংকে জায়গা মতো আটকে রাখতে ও ব্যান্ডেজে চাপ দিয়ে রক্তপাত বন্ধ করতে হলে রোলার ব্যান্ডেজ ব্যবহার করা হয়।

কাঁচি ও চিমটা[সম্পাদনা]

ব্যান্ডেজ কাটতে এবং ক্ষতস্থানে চুল বা লোম কাটতে কাঁচির প্রয়োজন হয়। ক্ষতে কাঁচের টুকরা, ময়লা কিমবা কাঁটা উঠাতে চিমটা ব্যবহার হয়।

হাতমোজা[সম্পাদনা]

হাত জীবাণুমুক্ত রাখতে এবং ক্ষতস্থানে হাতের প্রয়োগ করতে হাতমোজার প্রয়োজন হয়।

লিউকোপ্লাস্ট[সম্পাদনা]

ব্যান্ডেজকে ক্ষতের উপর আটকাতে লিউকোপ্লাস্টের দরকার হয়।

পচনরোধক মলম[সম্পাদনা]

ক্ষতস্থান পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করতে জীবাণুনাশক ও পচনরোধক মলম (অ্যান্টিসেপটিক ক্রিম) ব্যবহার করা হয়। যেমন- স্যাভলন, ডেটল, হাইড্রোজেন-পার-অক্সাইড, পভিসেভ ইত্যাদি।

ক্রেপ পট্টি[সম্পাদনা]

হাড় ভেঙে গেলে বা মচকে গেলে ক্রেপ পট্টি (এক ধরনের ভাঁজযুক্ত পট্টি) ব্যবহার করা হয়। এতে উক্ত স্থান নাড়াচাড়া কম হয় যাতে হাড় সরে যাওয়া ও ব্যথা পাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

দগ্ধ মলম[সম্পাদনা]

পোড়া জায়গার ব্যথা কমাতে এবং ঘা শুকাতে দগ্ধ মলম (বার্ন ক্রিম) ব্যবহার করা হয়। যথা- সিলভারজিন ক্রিম। অ্যালোভেরা জেলও পোড়া, চুলকানি ও চামড়ায় র‌্যাশ হলে ব্যবহার করা হয়। ক্যালেন্ডুলা ও আরটিকা ইউরেন্স বার্ন ক্রিম দ্রুত ব্যথা কমায়।

ব্যথার ওষুধ[সম্পাদনা]

প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে ব্যথানাশক ওষুধ থাকা খুব প্রয়োজন। যেমন- প্যারাসিটামল, আইবুপ্রফেন, ডাইক্লোফেনাক ইত্যাদি। ব্যথার ওষুধের সাথে কিছু গ্যাস্ট্রিক (পাকস্থলীর) ওষুধ রাখা ভাল।

অ্যান্টিহিস্টামিন[সম্পাদনা]

হিস্টাসিন, ফেক্সােফেনাডিন ইত্যাদি ওষুধ প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে থাকা জরুরি। অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া, সর্দি, হাঁচি, কাশি, চুলকানি ও পোকামাকড়ের কামড়ের চিকিৎসায় কাজে লাগে।

নিরাপদ পিন[সম্পাদনা]

ব্যান্ডেজ আটকাতে এবং ক্ষতের কাটা বা ময়লা উঠাতে প্রয়োজন হয়।

তাপমান যন্ত্র[সম্পাদনা]

রোগীর দেহের তাপমাত্রা মাপতে ও জ্বরের পরিমাপ করতে তাপমান যন্ত্র ব্যবহার হয়।

রক্তচাপ পরীক্ষণ যন্ত্র[সম্পাদনা]

রোগীর রক্তচাপ মাপতে ব্যবহার করা হয়। সম্ভব হলে রক্তচাপ পরিমাণ যন্ত্র সর্বদা প্রাথমিক চিকিৎসা বাক্সে রাখা উচিত।

লেখার খাতা[সম্পাদনা]

জরুরি ফোন নম্বর ও মন্তব্য লেখার জন্য। বিশেষ করে ডাক্তর ও অ্যাম্বুলেন্স নম্বর রাখার জন্য।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]