প্রাচী তেহলান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
প্রাচী তেহলান
Prachitehlan.png
জন্ম
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেত্রী, বাস্কেটবল এবং নেটবল খেলোয়াড়
কর্মজীবন২০০২–বর্তমান
পিতা-মাতা
  • নরেন্দ্র কুমার (পিতা)
  • পুনম তেহলান (মাতা)
পরিবারসাহিক তেহলান (ভাই)
ওয়েবসাইটwww.prachitehlan.com

প্রাচী তেহলান (জন্ম: ২রা অক্টোবর ১৯৯৩) হলেন একটি ভারতীয় নেটবল এবং বাস্কেটবল খেলোয়াড় এবং একজন অভিনেত্রী।[১] প্রাচী ভারতীয় নেটবল দলের সাবেক অধিনায়ক, যিনি ২০১০ সালের কমনওয়েলথ গেমস এবং ২০১০-১১-এ অন্যান্য বড় এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। তার অধিনায়কত্বে, ভারতীয় দল ২০১১ দক্ষিণ এশীয় বীচ গেমসে প্রথম পদক জয়লাভ করেছিল। দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া তাকে "কোর্টের কুইন" উপাধি এবং ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস তাকে "লাস অফ দ্য রিং" উপাধি দিয়েছিল। তিনি ২০১১ সাল হতে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি নেটবল ডেভলপমেন্ট ট্রাস্ট ইন্ডিয়ার মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছেন।

তিনি ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে স্টার প্লাসে প্রচারিত টেলিভিশন ধারাবাহিক দিয়া অর বাতি হাম-এ অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ করেন।[২][৩] তিনি ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত পাঞ্জাবি চলচ্চিত্র অর্জন-এ রোশন প্রিন্সের বিপরীতে নিম্মী চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে তাঁর অভিষেক হয়; এই চলচ্চিত্রটি মন্দীপ সিং পরিচালনা করেছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

প্রাচী তেহলান দিল্লির মন্টফোর্ট সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুল নামে একটি অনুহিত খ্রিস্টান সংখ্যালঘু বিদ্যালয় থেকে তাঁর স্কুল জীবনের পড়াশোনা সম্পন্ন করেছিলেন। তিনি দিল্লির জিসাস অ্যান্ড মেরি কলেজ থেকে বি.কম (অনার্স) বিষয়ে স্নাতক এবং গাজিয়াবাদের ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট টেকনোলজি থেকে মার্কেটিং ম্যানেজমেন্ট বিভাগ হতে পিজি ডিপ্লোমা অর্জন করেছেন। তিনি দিল্লির জিজিএসআইপি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মহারাজা অগ্রসেনসেন ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ-এ ভর্তি হয়েছিলেন; যেখান থেকে তিনি বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এইচআর এবং মার্কেটিং) বিষয়ে স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন।

তিনি সিঙ্গাপুরের ডেভলপমেন্ট ব্যাংক ডেলয়েট, অ্যাকসেন্টার এবং ১৮০০স্পোর্টস.কমের বিভিন্ন প্রকল্পে কাজ করেছেন। তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের যুবকদের প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থানের জন্য দিল্লির আওতাধীন জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কাউন্সিল ইউডিএএএন নামে একটি প্রকল্পে অবদান রাখছেন।

ক্রীড়া কেরিয়ার[সম্পাদনা]

প্রাচী তেহলান স্কুলে থাকাকালীন জাতীয় পর্যায়ে বাস্কেটবল খেলার মাধ্যমে তার ক্রীড়া জীবন শুরু করেছিলেন। ২০০৪ সালে ওড়িশার কটক শহরে তিন বার ভারতীয় দলে অংশ নিতে তাকে নির্বাচন করা হয়েছিল।

অভিনয় ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

শশী সুমিত প্রোডাকশন তার সাথে কাছে একটি অভিনয়ের প্রস্তাব নিয়ে এসেছিলেন এবং ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে স্টার প্লাস চ্যানেলে সর্বাধিক জনপ্রিয় টেলিভিশন ধারাবাহিক দিয়া অর বাতি হাম-এ পার্শ্ব চরিত্রের অভিনয়ের মাধ্যমে টেলিভিশন জগতে অভিষেক করেছেন। উক্ত ধারাবাহিকে তার চরিত্রের জন তিনি ১৫ কেজি (৩৩ পাউন্ড) অর্জন হ্রাস করেছিলেন।[৪] ভারতের নেটবল এবং বাস্কেটবলের মহিলা খেলোয়াড়দের জন্য সুযোগ ও স্পনসরের অভাবের তাঁর খেলাধুলার ক্যারিয়ার আটকে ছিল, এজন্যই তিনি অভিনয় জগতে প্রবেশ করেছিলেন।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prachi Tehlan on women in sports"। Femina। ১২ মে ২০১৬। 
  2. "Netball captain-turned- actress asked to lose 15 kilos for her show"। Times of India। ২৮ জানুয়ারি ২০১৬। 
  3. "Diya Aur Baati star Prachi Tehlan: JMC girls represent true women power"The Times of India। ৯ নভেম্বর ২০১৭। 
  4. "Netball captain-turned- actress asked to lose 15 kilos for her show"। Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  5. "Prachi Tehlan excited to shoot in Rann of Kutch"। Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]