প্রসবকালীন সহিংসতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

মাতৃত্বকালীন নির্যাতন অথবা প্রসবকালীন সহিংসতা বলতে এই সময় মহিলারা যে অবহেলা, শারীরিক নির্যাতন এবং অসম্মানের শিকার হন তাকে বোঝায়। এই ধরণের ব্যবহার নারী অধিকার লঙ্ঘন হিসাবে গণ্য করা হয়। যা গর্ভবতী মহিলাকে প্রাক-প্রসব যত্ন এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যসেবা পরিষেবাগুলি ব্যবহার করা থেকে বাঁধা প্রদান করে।[১] শিশু প্রসবের সময় অপব্যবহার নারী নির্যাতনের একটি রূপ।

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একটি তদন্ত চালায়। গবেষণায় এটি একটি বিশ্বব্যাপী সমস্যা হিসেবে উঠে এসেছে। চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোতে বাচ্চা প্রসবের সময় গর্ভবতী মা অপমানজনক, অবমাননাকর বা অবহেলাময় চিকিৎসা পেয়ে থাকেন। গর্ভবতী নারী ও স্বাস্থ্য সেবাপ্রদানকারীর মধ্যে যে অবহেলাময় সম্পর্ক এবং অবিশ্বাসের সৃষ্টি হয় তা প্রসবকালীন চিকিৎসায় সহায়তা নেয়ার ক্ষেত্রে বৃহৎ অনিচ্ছার সৃষ্টি করতে পারে। গর্ভাবস্থায় অপমানজনক এবং অবমাননাকর চিকিৎসার অভিজ্ঞতা হতে পারে। প্রসবকালীন সময় একজন মহিলা খুব ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় থাকে এবং এ সময় নিজেকে রক্ষা করার মত অবস্থায় থাকেন না। এই অপব্যবহারের ফলাফল শিশু এবং মায়ের জন্য খুব নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।[২]

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এমন অনেক ঘটনা এবং পরিস্থিতির প্রমাণ পেয়েছেন যেখানে স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলো শারীরিক নির্যাতন, ব্যথানাশক ওষুধ প্রদান না করা, অবমাননা, অপমান, গোপনীয়তার অভাব, তথ্য প্রদানের মাধ্যমে সম্মতিগ্রহণে অনিচ্ছা, জোরপূর্বক নির্বীজন, কেন্দ্রে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে বাঁধা প্রদান, প্রসবের সময় অবহেলা, অনিচ্ছাকৃত চিকিৎসা পদ্ধতি, গোপনীয়তার অভাব, চিকিৎসা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করা এবং অর্থ প্রদানে ব্যার্থ হলে মাকে হাসপাতালে আটক করে রাখা ইত্যাদি। উপরন্তু, সন্তানের জন্মের সময় অবহেলার কারণে সৃষ্ট জীবন হুমকি স্বরূপ জটিলতাগুলো যা যথাযথ সময়ে চিকিৎসার মাধ্যমে ভালো করা সম্ভব হত।[২]

কিছু মহিলা সন্তান প্রসবের সময় অধিক নির্যাতনের শিকার হতে পারেন। অল্প বয়সী, অভিবাসী নারী, এইচআইভি সংক্রামিত নারী, এবং জাতিগত সংখ্যালঘু নারীরা অন্যদের তুলনায় অধিক পরিমাণে নির্যাতনের শিকার হন।[২][৩][৪][৫][৬][৭]

"প্রসবকালীন সহিংসতা" শব্দটি ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলিতে বেশি ব্যবহার করা হয়। এই সব দেশে আইনের মাধ্যমে এই ধরনের আচরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বেশ কিছু দেশে এই ধরণের আইন রয়েছে, যার মাঝে আর্জেন্টিনা, পুর্তো রিকো এবং ভেনেজুয়েলা অন্যতম।[৮]

উদাহরণ[সম্পাদনা]

কথিত আছে ১৯৫০ এবং ১৯৮০ এর দশকে, উত্তর আমেরিকার ধাত্রীবিদ্যা বিশেষজ্ঞ এবং স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞরা দি হাজবেন্ড স্টিচ (স্বামীর জন সেলাই) নামক একটি পদ্ধতি অবলম্বন করত। এই পদ্ধতিতে স্বামীর যৌন আনন্দ বৃদ্ধির জন্য বাচ্চা প্রসবের ফলে যোনিতে যে এপিসিটোমি বা প্রাকৃতিক বিচ্ছিন্নতার সৃষ্টি হতো তা অতিরিক্ত সেলাইয়ের মাধ্যমে প্রতিস্থাপন করাহতো। এর ফলে মহিলারা প্রায়ই দীর্ঘমেয়াদী ব্যথা এবং অস্বস্তি অনুভব করতেন। অবশ্য, উত্তর আমেরিকায় এই ধরনের অভ্যাস খুব একটি বিস্তৃত পেয়েছে বলে কোন প্রমাণ পাওয়া যায় নি[৯][১০], তবে ইপিসোটোমি সম্পর্কিত গবেষণাগুলোতে প্রায়ই বিষয়টি তুলে ধরা হয়, ব্রাজিল অন্যান্য আমেরিকান দেশগুলিতেও।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prevention and elimination of disrespect and abuse during childbirth"। World Health Organization। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৭ 
  2. "The prevention and elimination of disrespect and abuse during facility-based childbirth" (PDF)। World Health organization। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৭ 
  3. Sando, David; Kendall, Tamil; Lyatuu, Goodluck; Ratcliffe, Hannah; McDonald, Kathleen; Mwanyika-Sando, Mary; Emil, Faida; Chalamilla, Guerino; Langer, Ana (১ ডিসেম্বর ২০১৪)। "Disrespect and Abuse During Childbirth in Tanzania: Are Women Living With HIV More Vulnerable?"Journal of Acquired Immune Deficiency Syndromes (1999)67 (Suppl 4): S228–S234। doi:10.1097/QAI.0000000000000378PMID 25436822পিএমসি 4251905অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  4. Okafor, Innocent I.; Ugwu, Emmanuel O.; Obi, Samuel N. (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "Disrespect and abuse during facility-based childbirth in a low-income country"। International Journal of Gynaecology and Obstetrics128 (2): 110–113। doi:10.1016/j.ijgo.2014.08.015PMID 25476154 
  5. Kujawski, Stephanie; Mbaruku, Godfrey; Freedman, Lynn P.; Ramsey, Kate; Moyo, Wema; Kruk, Margaret E. (১ অক্টোবর ২০১৫)। "Association Between Disrespect and Abuse During Childbirth and Women's Confidence in Health Facilities in Tanzania"। Maternal and Child Health Journal19 (10): 2243–2250। doi:10.1007/s10995-015-1743-9PMID 25990843 
  6. Kujawski, Stephanie A.; Freedman, Lynn P.; Ramsey, Kate; Mbaruku, Godfrey; Mbuyita, Selemani; Moyo, Wema; Kruk, Margaret E. (১ জুলাই ২০১৭)। "Community and health system intervention to reduce disrespect and abuse during childbirth in Tanga Region, Tanzania: A comparative before-and-after study"PLOS Medicine14 (7): e1002341। doi:10.1371/journal.pmed.1002341PMID 28700587পিএমসি 5507413অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  7. Bohren, Meghan A। "Continuous support for women during childbirth"। Cochrane Database of Systematic Reviewsdoi:10.1002/14651858.CD003766.pub6 
  8. WHO (২০১৫)। "Sexual and reproductive health: Prevention and elimination of disrespect and abuse during childbirth"who.intWorld Health Organization। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৭ 
    See also:
  9. Dobbeleir, Julie M.L.C.L.; Landuyt, Koenraad Van; Monstrey, Stan J. (মে ২০১১)। "Aesthetic surgery of the female genitalia"Seminars in Plastic SurgeryThieme25 (2): 130–141। doi:10.1055/s-0031-1281482PMID 22547970পিএমসি 3312147অবাধে প্রবেশযোগ্য. 
  10. Northrup, Christiane (২০০৬)। Women's bodies, women's wisdom: creating physical and emotional health and healing। New York: Bantam Books। আইএসবিএন 9780553804836 
  11. Diniz, Simone G.; Chacham, Alessandra S. (২০০৪)। ""The Cut Above" and "the Cut Below'": the abuse of caesareans and episiotomy in São Paulo, Brazil"Reproductive Health Matters, special issue: Sexuality, Rights and Social JusticeTaylor and Francis12 (23): 100–110। doi:10.1016/S0968-8080(04)23112-3.