প্রসন্ন কুমার জমিদার বাড়ি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
প্রসন্ন কুমার জমিদার বাড়ি
সাধারণ তথ্য
ধরনবাসস্থান
অবস্থানআনোয়ারা উপজেলা
ঠিকানাপরৈকোড়া গ্রাম
শহরআনোয়ারা উপজেলা, চট্টগ্রাম জেলা
দেশবাংলাদেশ
খোলা হয়েছেআনুমানিক ১৮০০ শতকে
স্বত্বাধিকারীপ্রসন্ন কুমার রায় বাহাদুর
কারিগরী বিবরণ
পদার্থইট, সুরকি ও রড

প্রসন্ন কুমার জমিদার বাড়ি বাংলাদেশ এর চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা উপজেলার পরৈকোড়া গ্রামে অবস্থিত এক ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ি[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রায় ১৮০০ শতকে জমিদার প্রসন্ন কুমার রায় এই জমিদার বংশ এবং জমিদার বাড়ির গোড়াপত্তন করেন। তিনি খুবই প্রভাবশালী একজন জমিদার ছিলেন। তিনি ব্রিটিশ সরকারের কাছে রায় বাহাদুর উপাধি পান। তৎকালীন সময়ে বর্তমান আনোয়ারা উপজেলার মধ্যে তিনি তার জমিদার বাড়িতে জেনারেটরের মাধ্যমে রাত্রে বাতি জালাতেন। যা ঐসময় আর কোথাও ছিল না। তিনি খুবই শিক্ষানুরাগী ও প্রজাদরদী জমিদার ছিলেন। তিনি ১৮৯৭ সালে একটি ইংরেজি স্কুল চালু করেন এবং এর জন্য জায়গা দান করেন। এছাড়াও অনেক রাস্তাঘাট, পুকুর ও দিঘী খনন করেন। প্রসন্ন কুমার রায়ের পরে তার ছোট ভাই ক্ষিরোদ রায় এই জমিদারী পরিচালনা করতে থাকেন। তিনি পেশায় একজন ম্যাজিস্ট্রেট ও চট্টগ্রাম জিলা বোর্ডের সচিব ছিলেন। তিনি ঐসময়ে কালারপোল থেকে শান্তিরহাট, বুধপুরা ও কাশিয়াইশ হয়ে নিজ গ্রাম পরৈকোড়া থেকে চানখালীঘাট পর্যন্ত ২৫ মাইল ব্রিক সলিং রাস্তা নির্মাণ করেন। এই জমিদার বংশের শেষ জমিদার ছিলেন অজিত কুমার রায়। তাদের জমিদারী ছিল ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত। এখনো অজিত কুমার রায় ও তার স্ত্রী এখানে বসবাস করতেছেন। তাদের দুই কন্যা রয়েছে। তারা স্বামীর সাথে চট্টগ্রাম শহরে বসবাস করেন।

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

বাড়ির প্রবেশমুখে একটি সুন্দর কারুকার্য খচিত প্রবেশদ্বার তৈরি করা হয়। বসবাসের জন্য একটি ভবন, বৈঠকখানা, বলি কাটার স্থান ও পুকুর ঘাট তৈরি করা হয়।

বর্তমান অবস্থা[সম্পাদনা]

বর্তমানে জমিদার বাড়ির সবকিছুই প্রায় ধ্বংসের মুখে। এখন শুধু ভগ্নধশা প্রবেশদ্বার, বৈঠকখানা, বলি কাটার স্থান ও ভগ্ন অবস্থায় পুকুরের ঘাট পড়ে রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. আবদুল মালেক চৌধুরী (২০১৮-০২-২৮)। "আনোয়ারা পরৈকোড়া প্রসন্ন কুমার জমিদার বাড়ি"সারা আনোয়ারা। ২০১৯-০৭-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১২