প্রথম বিশ্বযুদ্ধে হতাহত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে সামরিক ও বেসামরিক মিলিয়ে মোট ৩ কোটি আশি লাখ মানুষ হতাহত হয়। মানবেতিহাসের অন্যতম ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী এই যুদ্ধে ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষ নিহত হয়, আহতের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি। নিহতদের মধ্যে ১ কোটি দশ লাখ সামরিক বাহিনীর সদস্য ও ৭০ লাখ বেসামরিক মানুষ ছিলো। মিত্রবাহিনীর ৬০ লাখ ও অক্ষ শক্তির ৪০ লাখ সৈন্য মারা যায়। অন্তত বিশ লাখ মানুষ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়, আর নিখোঁজের সংখ্যা আরো ৬০ লাখ। এই নিখোজরা মারা গেছেন বলে ধরা হয়।

এই নিবন্ধটিতে যুদ্ধে বিভিন্ন পক্ষের হতাহতদের সংখ্যার তালিকা দেয়া হয়েছে। যুদ্ধে নিহত সেনাদের দুই তৃতিয়াংশই সম্মুখ সমরে মারা যান, যদিও উনবিংশ শতকের যুদ্ধগুলোতে বেশীর ভাগ মানুষ যুদ্ধের ফলে সৃষ্ঠ রোগের কারণে মারা যেতো। তবে বাকি এক তৃতীয়াংশই মারা যায় ১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারী ও যুদ্ধবন্দী হিসেবে আটক থাকা অবস্থায়।

Classification of casualty statistics[edit source]

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের হতাহতের নির্দিষ্ট পরিসংখ্যান করাটা খুব কঠিন। কোন কোন হিসেবে ৯ কোটি থেকে এই সংখ্যা ১৫ কোটি পর‌্যন্ত পৌছায়। বিভিন্ন সরকারী সুত্র মতে, সরাসরি যুদ্ধের কারণে ৭০ থেকে ৮০ লাখ সেনা মারা যায়। আরও বিশ থেকে ত্রিশ লাখ সেনা সদস্য পরোক্ষ কারণে (রোগ-মহামারী, দূর্ঘটনা, যুদ্ধবন্ধী অবস্থায় মৃত্যু ) মারা যায় বলে বিভিন্ন সুত্রে উল্লেখ করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য হতাহতের সংখ্যা সরকারীভাবে প্রকাশ করে। এই নিবন্ধে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য সহ ফ্রান্স, ইতালী, বেলজিয়াম, জার্মানী, অস্ট্রিয়া ও রাশিয়ার সরকারী তথ্যসুত্রগুলোর সারসংক্ষেপ করে একটি তালিকা করা হয়েছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় কমনওয়েলথ ওয়ার গ্রেইভস কমিশন এক সংশোধিত গবেষণায় যুক্তরাজ্য ও মিত্রদের হতাহতের সংখ্যার পরিসংখ্যানের সংশোধন করেছে, যাতে যুদ্ধক্ষেত্রের বাইরে নিহত সেনা ও তাদের বিভিন্ন কারিগরি সহায়তা প্রদানকারী আফ্রিকা, মধ্য প্রাচ্য ও চীনের বেসামরিক নাগরিকদেরও তালিকাভূক্ত করা হয়।