বিষয়বস্তুতে চলুন

প্রজাপতি পার্ক বাংলাদেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
প্রজাপতি পার্ক বাংলাদেশ
প্রজাপতি পার্কের স্বাগত ফলক
মানচিত্র
অবস্থাননেভাল একাডেমি সড়ক, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২২°১৪′২৬″ উত্তর ৯১°৪৯′০১″ পূর্ব / ২২.২৪০৪৮৫° উত্তর ৯১.৮১৬৮৩৫° পূর্ব / 22.240485; 91.816835
আয়তন৬ একর (২.৪ হেক্টর)

প্রজাপতি পার্ক বা বাটারফ্লাই পার্ক বাংলাদেশের চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গা নেভাল একাডেমি সড়কে অবস্থিত একটি পার্ক। প্রায় ৬ একর (২.৪ হেক্টর) জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত পার্কটিতে আনুমানিক ৬০০ প্রজাতির প্রজাপতি রয়েছে। ধারণা করা হয় পার্কটি ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম প্রজাপতি পার্ক।[১][২][৩]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

দেশের একমাত্র এ প্রজাপতি পার্কে রয়েছে ট্রপিক্যালগার্ডেন, বাটারফ্লাই জোন, বাটারফ্লাই মিউজিয়াম, বাটারফ্লাই রিয়ারিংরুম, কৃত্রিম হ্রদ-ঝর্ণা, ফিশফিডিং জোন ও বাটারফ্লাই ফিডিং জোন।[৩][৪]

পার্কে কয়েক হাজার প্রজাপতি রয়েছে। সাধারণত সকাল ৯টা থেকে ১১টার মধ্যে এবং বিকেলের দিকে পার্ক জুড়ে প্রজাপতি উড়ে বেড়াতে দেয়া যায়। সন্ধ্যার আগে থেকেই প্রজাপতি ঝোপের মধ্যে অবস্থান নিতে শুরু করে তাই সন্ধ্যার পর দেখা যায় না। দর্শনার্থীদের জন্য পার্কটি প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে রাত এগারটা পর্যন্ত খোলা থাকে।[৫]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "প্রজাপতি পার্ক : পরিবেশবান্ধব ও বৈচিত্র্যের সমাহার"দৈনিক পূর্বকোণ। ১১ জুন ২০১৫। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫ 
  2. "প্রজাপতি পার্কে নানা আয়োজন"। দৈনিক প্রথম আলো। ৫ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫ 
  3. "প্রজাপতি পার্ক"। যায় যায় দিন। ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫ 
  4. "প্রজাপতি পার্ক"। দৈনিক যুগান্তর। জানুয়ারি ১৩, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫ 
  5. "চট্টগ্রামে দেশের প্রথম প্রজাপতি পার্ক"। মৃদু ভাষণ। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৫