পূরণবাচক সংখ্যা (ভাষাতত্ত্ব)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

পূরণবাচক/ক্রমবাচক সংখ্যা হল ভাষাতত্ত্বে সেই সমস্ত শব্দ যারা কোনো সমষ্টির বিভিন্ন উপাদানের ক্রমিক অবস্থান বর্ণনা করে।[১] এই অবস্থান নির্ণয়ের মাপকাঠি হতে পারে আয়তন, গুরুত্ব, বয়স প্রভৃতি যে কোনো বিষয়। বাংলায় কতকগুলি নির্দিষ্ট বিশেষণ পদ এই কাজটি করে থাকে, যথা প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ ইত্যাদি।

সংখ্যাবাচক শব্দের সাথে এদের পার্থক্য হল এই যে, এরা উদ্দিষ্ট উপাদানের পরিমাণ নির্দেশ করে না।

বাংলা[সম্পাদনা]

বাংলায় সংখ্যার সাথে নির্দিষ্ট কিছু বিভক্তি যোগ করে পূরণবাচক পদ লেখা যেতে পারে, যেমন ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ১০ম, ১১শ ইত্যাদি। তবে সাধারণত এই পদ্ধতি ৩৮শ (অষ্টাত্রিংশ) এর পরবর্তী সংখ্যাগুলির ক্ষেত্রে প্রচলিত নয়। তারিখ লেখার ক্ষেত্রে পয়লা, দোসরা, তেসরা, চৌঠা, পাঁচই, ছউই প্রভৃতি শব্দগুলি ব্যবহৃত হয়। এই পদ্ধতিতে আঠারোই (১৮ই) এর পর থেকে বাকি পূরণবাচক পদগুলি সংখ্যাবাচক শব্দের সাথে 'শে' যোগ করে নির্ণয় করা হয়ে থাকে।

১ থেকে ১০০ পর্যন্ত সংখ্যা[সম্পাদনা]

সংখ্যা সংখ্যাবাচক পদ সংখ্যা সংখ্যাবাচক পদ সংখ্যা সংখ্যাবাচক পদ
এক ৩৫ পঁয়ত্রিশ ৬৯ ঊনসত্তর
দুই ৩৬ ছত্রিশ ৭০ সত্তর
তিন ৩৭ সাঁইত্রিশ ৭১ একাত্তর
চার ৩৮ আটত্রিশ ৭২ বাহাত্তর
পাঁচ ৩৯ ঊনচল্লিশ ৭৩ তিয়াত্তর
ছয় ৪০ চল্লিশ ৭৪ চুয়াত্তর
সাত ৪১ একচল্লিশ ৭৫ পঁচাত্তর
আট ৪২ বিয়াল্লিশ ৭৬ ছিয়াত্তর
নয় ৪৩ তেতাল্লিশ ৭৭ সাতাত্তর
১০ দশ ৪৪ চুয়াল্লিশ ৭৮ আটাত্তর
১১ এগারো ৪৫ পঁয়তাল্লিশ ৭৯ ঊনআশি
১২ বারো ৪৬ ছেচল্লিশ ৮০ আশি
১৩ তেরো ৪৭ সাতচল্লিশ ৮১ একাশি
১৪ চৌদ্দ ৪৮ আটচল্লিশ ৮২ বিরাশি
১৫ পনেরো ৪৯ ঊনপঞ্চাশ ৮৩ তিরাশি
১৬ ষোল ৫০ পঞ্চাশ ৮৪ চুরাশি
১৭ সতেরো ৫১ একান্ন ৮৫ পঁচাশি
১৮ আঠারো ৫২ বায়ান্ন ৮৬ ছিয়াশি
১৯ উনিশ ৫৩ তিপ্পান্ন ৮৭ সাতাশি
২০ বিশ ৫৪ চুয়ান্ন ৮৮ আটাশি
২১ একুশ ৫৫ পঞ্চান্ন ৮৯ ঊননব্বই
২২ বাইশ ৫৬ ছাপ্পান্ন ৯০ নব্বই
২৩ তেইশ ৫৭ সাতান্ন ৯১ একানব্বই
২৪ চব্বিশ ৫৮ আটান্ন ৯২ বিরানব্বই
২৫ পঁচিশ ৫৯ ঊনষাট ৯৩ তিরানব্বই
২৬ ছাব্বিশ ৬০ ষাট ৯৪ চুরানব্বই
২৭ সাতাশ ৬১ একষট্টি ৯৫ পঁচানব্বই
২৮ আটাশ ৬২ বাষট্টি ৯৬ ছিয়ানব্বই
২৯ ঊনত্রিশ ৬৩ তেষট্টি ৯৭ সাতানব্বই
৩০ ত্রিশ ৬৪ চৌষট্টি ৯৮ আটানব্বই
৩১ একত্রিশ ৬৫ পঁয়ষট্টি ৯৯ নিরানব্বই
৩২ বত্রিশ ৬৬ ছেষট্টি ১০০ একশত
৩৩ তেত্রিশ ৬৭ সাতষট্টি ১০১ একশত এক
৩৪ চৌত্রিশ ৬৮ আটষট্টি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলা ব্যাকরণ ও নির্মিতি অষ্টম শ্রেণি (PDF)। ঢাকা: জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড। ১০ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]