পুয়ের্তো রিকো জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পুয়ের্তো রিকো
ডাকনামনীল হারিকেন
অ্যাসোসিয়েশনপুয়ের্তো রিকান ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনকনকাকাফ (উত্তর আমেরিকা)
প্রধান কোচএলগি মোরালেস
অধিনায়কসিডনি রিভেরা
সর্বাধিক ম্যাচআন্দ্রেস কাব্রেরো (৩৫)
শীর্ষ গোলদাতাএক্তর রামোস (১৮)
মাঠহুয়ান রামোন লুব্রিয়েল স্টেডিয়াম
ফিফা কোডPUR
ওয়েবসাইটwww.fedefutbolpr.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৭৮ বৃদ্ধি(৭ এপ্রিল ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ৯৭ (মার্চ ১৯৯৪)
সর্বনিম্ন২০২ (নভেম্বর ২০০৪)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৯০ বৃদ্ধি(২৪ এপ্রিল ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১৭১ (মে ১৯৯৩)
সর্বনিম্ন২০১ (ফেব্রুয়ারি ২০০১, জুলাই ২০০২)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 কিউবা ১–১ পুয়ের্তো রিকো 
(হাভানা, কিউবা; ১২ নভেম্বর ১৯৪০)
বৃহত্তম জয়
 পুয়ের্তো রিকো ৯–০ সেন্ট মার্টিন 
(পর্তোপ্রাঁস, হাইতি; ৯ সেপ্টেম্বর ২০১২)
বৃহত্তম পরাজয়
 নেদারল্যান্ডস এন্টিলস ১৫–০ পুয়ের্তো রিকো 
(কারাকাস, ভেনেজুয়েলা; ১৫ জানুয়ারি ১৯৫৯)

পুয়ের্তো রিকো জাতীয় ফুটবল দল (স্পেনীয়: Selección de fútbol de Puerto Rico, ইংরেজি: Puerto Rico national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে পুয়ের্তো রিকোর প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম পুয়ের্তো রিকোর ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা পুয়ের্তো রিকান ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৬০ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬৪ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা কনকাকাফের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[৩] ১৯৪০ সালের ১২ই নভেম্বর তারিখে, পুয়ের্তো রিকো প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; কিউবার হাভানায় অনুষ্ঠিত পুয়ের্তো রিকো এবং কিউবার মধ্যকার উক্ত ম্যাচটি ১–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

১২,৫০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট হুয়ান রামোন লুব্রিয়েল স্টেডিয়ামে নীল হারিকেন নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় পুয়ের্তো রিকোর রাজধানী সান হুয়ানে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন এলগি মোরালেস এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ পুলিশের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় সিডনি রিভেরা

পুয়ের্তো রিকো এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, কনকাকাফ গোল্ড কাপেও পুয়ের্তো রিকো এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

এক্তর রামোস, আন্দ্রেস কাব্রেরো, জ্যাকি মারেরো, ক্রিস মেগালুদিস এবং ক্রিস্তিয়ান আরিয়েতার মতো খেলোয়াড়গণ পুয়ের্তো রিকোর জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ১৯৯৪ সালের মার্চ মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে পুয়ের্তো রিকো তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৯৭তম) অর্জন করে এবং ২০০৪ সালের নভেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২০২তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে পুয়ের্তো রিকোর সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১৭১তম (যা তারা ১৯৯৩ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ২০১। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৭ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৭৬ হ্রাস  সেন্ট লুসিয়া ৯৫৩.৪৫
১৭৭ অপরিবর্তিত  মলদোভা ৯৪৮.১৬
১৭৮ বৃদ্ধি  পুয়ের্তো রিকো ৯৩৮.৮৬
১৭৯ হ্রাস  চাদ ৯৩৫
১৮০ বৃদ্ধি  মন্টসেরাট ৯৩৩.৬৪
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২৪ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৮৮ অপরিবর্তিত  মরিশাস ১০০৯
১৮৯ অপরিবর্তিত  সোমালিল্যান্ড ১০০২
১৯০ বৃদ্ধি  পুয়ের্তো রিকো ৯৯৬
১৯০ অপরিবর্তিত  পশ্চিম সাহারা ৯৯৬
১৯২ অপরিবর্তিত  গ্রিনল্যান্ড ৯৬৩

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১২
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬ উত্তীর্ণ হয়নি
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২
জার্মানি ২০০৬ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ উত্তীর্ণ হয়নি
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ২৫ ১৪ ২২ ৫৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৭ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২৪ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 
  3. "Jamaica get 1966 soccer tourney"Kingston Gleaner। ২ এপ্রিল ১৯৬৪। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]