পি. টি. ঊষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পি টি ঊষা
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্মের নামপিলাভুলাকান্দি তেক্কেরাপারাম্বিল উষা[১]
ডাকনামস্বর্ণ কন্যা, পায়োলি এক্সপ্রেস [২]
জাতীয়তাভারতীয়
জন্ম (1964-06-27) ২৭ জুন ১৯৬৪ (বয়স ৫৪)
কুট্টালি, কোঝিকোড়, কেরালা, ভারত[৩]
কার্যকাল১৯৭৬–২০০০[৪]
নিয়োগকারীভারতীয় রেল
উচ্চতা১৭০ সেমি (৫ ফু ৭ ইঞ্চি)
স্বাক্ষর
Signature of P. T. Usha.svg
ক্রীড়া
ক্রীড়াট্র্যাক এন্ড ফিল্ড
ঘটনাসমূহস্প্রিন্ট
সাফল্য ও খেতাব
ব্যক্তিগত সেরা১০০ মিটার: ১১.৩৯ (জাকার্তা ১৯৮৫)
২০০ মিটার: ২৩.০৫ (লক্ষ্ণৌ ১৯৯৯)
৪০০ মিটার: ৫১.৬১ (ক্যানবেরা ১৯৮৫)
৪০০ মিটার হার্ডলস : ৫৫.৪২ জাতীয় রেকর্ড
(লস আঞ্জেলস ১৯৮৪)

পি টি ঊষা (জন্ম: ২৭শে জুন, ১৯৬৪) একজন অবসরপ্রাপ্ত ভারতীয় ট্র্যাক এবং ফিল্ড ক্রীড়াবিদ। ১৯৭৯ সাল থেকে তিনি ভারতীয় অ্যাথলেটিক্সের সাথে যুক্ত আছেন।[৫] তিনি ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে ভারতের সর্বকালের সেরা ক্রীড়াবিদদের মধ্যে অন্যতম। তাঁকে ভারতীয় ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের রাণী বলে অভিহিত করা হয়। [৬]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

ঊষা কেরালার কোঝিকোড় জেলার পায়োলি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ১৯৭৬ সালে কেরালা রাজ্য সরকার মহিলাদের জন্য একটি স্পোর্টস স্কুল শুরু করে এবং ঊষা তাঁর জেলার প্রতিনিধি হিসাবে নির্বাচিত হন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

খেলোয়াড় জীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৬ সালে, এক ক্রীড়া পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে, অ্যাথলেটিক্স কোচ ও এম নাম্বিয়ার প্রথম উষাকে লক্ষ্য করেন। ২০০০ সালে রেডিফ.কম-এর সাথে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, "উষা সম্পর্কে, প্রথম দর্শনে, আমাকে প্রভাবিত করেছিল, তার সুষম আকৃতি এবং দ্রুত হাঁটার শৈলী। আমি জানতাম সে খুব ভাল দৌড়বিদ হতে পারবে।"[৭] সেই বছরেই তিনি ঊষাকে প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করেন। খুব দ্রুত ফলও মিলতে থাকে এবং ১৯৭৮ সালে কোল্লামে জুনিয়রদের আন্তঃ-রাজ্য প্রতিযোগিতায় তিনি ১০০ মিটার, ২০০ মিটার, ৬০ মিটার উল্লঙ্ঘন দৌড় এবং উচ্চ লম্ফে চারটি স্বর্ণ পদক, দীর্ঘ লম্ফএ রৌপ্য পদক এবং ৪ x ১০০ মিটার রিলেতে ব্রোঞ্জ পদক সহ মোট ৬টি পদক জয় করেন।[৮] সে বছরের কেরালা রাজ্য কলেজ মিটে তিনি ১৪টি পদক জয় করেন।[৭] ১৯৭৯ সালের জাতীয় গেম এবং ১৯৮০ সালের জাতীয় আন্তঃ-রাজ্য মিটে অনেক রেকর্ড তৈরি করে একাধিক পদক জয় করেন।তিনি ১৬ বছর বয়সে, ১৯৮০ মস্কো অলিম্পিকে আত্মপ্রকাশ করলেও উল্লেখযোগ্য কিছু করতে পারেননি, ১০০ মিটার দৌড়ের হিটে পঞ্চম হয়ে বাদ পড়েন.[৯]

১৯৮১ সালে বেঙ্গালুরুর সিনিয়র আন্তঃ-রাজ্য মিটে, ১০০ মিটারে ১১.৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে এবং ২৪.৬ সেকেন্ডে ২০০ মিটার দৌড়ে জাতীয় রেকর্ড স্থাপন করেন।[৮] ১৯৮২ সালে নতুন দিল্লি এশিয়ান গেমসে, তিনি ১০০ মিটার এবং ২০০মিটারে রৌপ্যপদক জিতেছিলেন, ১১.৯৫ সেকেন্ড এবং ২৫.৩২ সেকেন্ড সময় নিয়ে। জামশেদপুরে ১৯৮৩ সালের ওপেন ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি আবার ২০০ মিটারে জাতীয় রেকর্ড গড়েন ২৩.৯ সেকেন্ডের এবং ৫৩.৬ সেকেন্ডে ৪০০ মিটারের নতুন জাতীয় রেকর্ড স্থাপন করেন।[৮] একই বছরে মাদিনাত আল-কুয়েতে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপএ তিনি ৪০০ মিটারে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন।.[১০]

১৯৮৪ লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিক[সম্পাদনা]

আমি কখনো অলিম্পিয়ান হতে চাইনি। আমি সব সময় নিজেরই রেকর্ড ভাঙ্গতে চেয়েছিলাম। আমি কাউকে পরাজিত করার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করি নি। [১১]

ঊষার সেরা মুহূর্তটি এসেছিল ১৯৮৪ লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে। তিনি নতুন দিল্লি আন্তঃ রাজ্য মিটে এবং মুম্বাই ওপেন জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে ভাল ফল করেছিলেন।তবে মস্কো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ১০০ ও ২০০ মিটার খারাপ ফলাফল হওয়ায়, তিনি ৪০০ মিটার হার্ডলসে মনোনিবেশ করেন। দিল্লির অলিম্পিক ট্রায়ালে তিনি এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন এম. ডি. বালসাম্মাকে হারিয়ে গেমসের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন।[২] অন্য প্রাক-অলিম্পিক ট্রায়ালে, তিনি ৫৫.৭ সেকেন্ডে আমেরিকান শীর্ষ স্পিন্টার জুডি ব্রাউনকে পরাজিত করেছিলেন। তিনি হিটে ৫৬.৮১ সেকেন্ড এবং সেমিফাইনালে ৫৫.৫৪ সেকেন্ড সময় করে, নতুন কমনওয়েলথ রেকর্ড স্থাপন করেন এবং গেমসের ফাইনালে প্রবেশ করেন। ফাইনালে তিনি চতুর্থ স্থান অধিকার করেন ৫৫.৪২ সেকেন্ড সময় করে এবং ব্রোঞ্জ পদকপজয়ীর কাছে সেকেন্ডের এক শতাংশ সময়ে পরাজিত হন। বলা হয়, অন্য এক প্রতিযোগীর ফলস স্টার্ট এর কারণে তাঁর মনোসংযোগ বিঘ্নিত হয় এবং দ্বিতীয়বার তিনি ধীরে শুরু করেন।[১২]

১৯৮৫ জাকার্তা এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপএ, উষা মোট ছয়টি পদক জিতেছিলেন - পাঁচটি স্বর্ণ এবং একটি ব্রোঞ্জ। তিনি জিতেছেন ১০০ মিটারে ১১.৬৪, ২০০ মিটারে ২৩.০৫, ৪০০ মিটারে ৫২.৬২,যা একটি এশিয়ান রেকর্ড, এবং ৪০০ মিটার হার্ডলসে ৫৬.৬৪ সেকেন্ড সময় করে। এর মধ্যে শেষ দুটো লড়াই ছিল ৩৫ মিনিটের মধ্যে।[১০] তাঁর পঞ্চম স্বর্ণ এসেছিল ৪ x ৪০০ মিটার রিলে এবং একটি চূড়ান্ত ব্রোঞ্জ ৪ x ১০০ মিটার রিলে দৌড়ে। চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে একক ইভেন্টে তিনি সবচেয়ে বেশি স্বর্ণপদক জিতেছিলেন।.[১০] তাঁর জয়ের প্রথম দুটিতে, তিনি তাইওয়ানের চি চেংএর রেকর্ডের সাথে সমতা আনেন। তিনি ১৯৮৫ সালের ক্যানবেরা বিশ্বকাপএর এক সপ্তাহের মধ্যে ৪০০ মিটারে তাঁর ব্যক্তিগত সেরাটি আরও ভাল করে তুললেন, যখন তিনি ৫১.৬১ সেকেন্ডে সপ্তম স্থান অধিকার করেন।[১০] ১৯৮৬ সালের সিওল এশিয়ান গেমসএ তিনি তাঁর জাকার্তা চ্যাম্পিয়নশিপের পারফরম্যান্সের প্রায় প্রতিলিপি করেছিলেন। তিনি ১০০ মিটারে রৌপ্য জিতেছিলেন ১১.৬৭ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে এবং স্বর্ণ পদকজয়ী লিডিয়া ডি ভেগার পিছনে থেকে। ১০০ মিটার সোনা না এলেও, ২০০ মিটারে সোনা এসেছিল যখন ২৩.৪৪ সেকেন্ডে, ৪০০ মিটারে সোনা এসেছিল যখন তিনি ৫২.১৬ সেকেন্ডে এবং ৪ x ৪০০ মি রিলেতে সোনা এসেছিল যখন তাঁর দল ৩: ৩৪.৫৮ মিনিটে দৌড় শেষ করেন। এই তিনটি পার্ফরম্যান্স-ই ছিল গেমসের রেকর্ড ।[৮][১৩] এই গেমসে, ব্রিটিশ অ্যাথলেটিক্স কোচ জিম অ্যালফোর্ড তাঁর সম্পর্কে বলেন, "উষা প্রথম শ্রেণীর ক্রীড়াবিদ, কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী এবং তাঁর দৌড় দেখতে অত্যন্ত ভাল লাগে। তাঁর প্রতিভা রয়েছে। উপযুক্ত ট্রেনিং পেলে, তিনি বিশ্বসেরাদের একজন হতে পারেন।" [১৩]

পরবর্তী পর্যায়ে[সম্পাদনা]

১৯৮৭ সিঙ্গাপুর এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ গ্রহণের পূর্বে, উষা আলফোর্ডের অধীনে লন্ডনে এক মাসের প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তিনি ১০০ মিটারে, ভেগার ০.৩১ সেকেন্ড পিছনে থেকে রৌপ্যপদক জয় করে, চ্যাম্পিয়নশিপে শুরু করেন। ২০০ মিটার রেস থেকে তিনি নাম তুলে নেন, কারণ এই রেসের ৭০ মিনিটের মধ্যেই ৪০০ মিটার হার্ডলস রেস ছিল। তিনি ৫৬.৪৮ সেকেন্ডে ৪০০ মিটার হার্ডলস এবং ৪০০ মিটারে ৫২.৩১ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জয় করেন।[১৪] প্রতিযোগিতায় তিনি আরো দুটি পদক জিতেছেন - ৪ x ১০০ মি রিলে এবং ৪x ৪০০ মি রিলেতে রৌপ্য।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

ঊষা জিতেছেন ১০১টি আন্তর্জাতিক পদক।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তিনি দক্ষিণ রেলওয়েতে অফিসার হিসাবে নিযুক্ত হন। [উল্লেখ প্রয়োজন] ১৯৮৫ সালে তিনিপদ্মশ্রী এবং অর্জুন পুরস্কার পেয়েছিলেন।

বর্তমানে তিনি কেরালায় তাঁর ট্রেনিং একাডেমিতে তরুণ অ্যাথলেটদের প্রশিক্ষণ দেন; তাঁর অন্যতম সফল ছাত্রী, ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকের মহিলাদের ৮০০ মিটারে সেমি ফাইনালে পৌছনো টিন্টু লুকা[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

সাফল্য[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালে সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সএর ইন্সপেক্টর ভি. শ্রীনিভাসনের সঙ্গে উষার বিয়ে হয়। এই দম্পতির একটি ছেলে আছে।[১৭]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

বছর প্রতিযোগিতা ঘটনাস্থল স্থান ঘটনা নোট
১৯৮০ ১৯৮০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক মস্কো, রাশিয়া পঞ্চম (হিট) ১০০ মিটার ১২.২৭
১৯৮২ এশিয়ান গেমস দিল্লী, ভারত দ্বিতীয় ১০০ মিটার ১১.৬৭
দ্বিতীয় ২০০ মিটার ২৪.৩২
১৯৮৩ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ কুয়েত সিটি, কুয়েত দ্বিতীয় ২০০ মিটার ২৪.৬৮
প্রথম ৪০০ মিটার ৫৪.২০
১৯৮৪ ১৯৮৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক লস অ্যাঞ্জেলেস, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চতুর্থ ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৫.৪২ এশিয়ান রেকর্ড
সপ্তম ৪ × ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩২.৪৯
১৯৮৫ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জাকার্তা, ইন্দোনেশিয়া প্রথম ১০০ মিটার ১১.৬৪ এশিয়ান রেকর্ড
প্রথম ২০০ মিটার ২৩.০৫ এশিয়ান রেকর্ড
প্রথম ৪০০ মিটার ৫২.৬২ এশিয়ান রেকর্ড
প্রথম ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৬.৬৪
তৃতীয় ৪ × ১০০ মিটার রিলে ৪৫.২২
প্রথম ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩৪.১০
বিশ্ব কাপ ক্যানবেরা, অস্ট্রেলিয়া সপ্তম ৪০০ মিটার ৫১.৬১ এশিয়ান রেকর্ড
পঞ্চম ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৬.৩৫
অষ্টম ৪ x ৪০০ মিটার রিলেy ৩:৩৭.৫৯
১৯৮৬ ১৯৮৬ এশিয়ান গেমস সিওল, দক্ষিণ কোরিয়া দ্বিতীয় ১০০ মিটার ১১.৬৭
প্রথম ২০০ মিটার ২৩.৪৪ গেমস রেকর্ড
প্রথম 400 metres ৫২.১৬ গেমস রেকর্ড
প্রথম ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৬.০৬ গেমস রেকর্ড
প্রথম ৪ x ৪০০ মিটার রিলেy ৩:৩৪.৫৮ গেমস রেকর্ড
১৯৮৭ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ সিঙ্গাপুর দ্বিতীয় ১০০ মিটার ১১.৭৪
প্রথম ৪০০ মিটার ৫২.৩১
প্রথম ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৬.৪৮
দ্বিতীয় ৪ x ৪০০ মিটার রিলেy ৪৫.৪৯
প্রথম ৪ x ৪০০ মিটার রিলেy ৩:৩৪.৫০
১৯৮৭ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ রোম, ইতালি ডিড নট স্টার্ট[১৯] ৪০০ মিটার
ষষ্ঠ(সেমিফাইনাল) ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৫.৮৯
অষ্টম (হিট) ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩১.৫৫
১৯৮৮ ১৯৮৮ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক সিওল, দক্ষিণ কোরিয়া সপ্তম (হিট) ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৯.৫৫
১৯৮৯ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ দিল্লী, ভারত দ্বিতীয় ১০০ মিটার ১১.৭৪
প্রথম ২০০ মিটার ২৩.২৭
প্রথম ৪০০ মিটার ৫১.৯০
প্রথম ৪০০ মিটার হার্ডলস ৫৬.১৪
দ্বিতীয় ৪ x ১০০ মিটার রিলে ৪৪.৮৭
প্রথম ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩২.৯৫
১৯৯০ ১৯৯০ এশিয়ান গেমস বেজিং, চীন চতুর্থ ২০০ মিটার ২৪.২৯
দ্বিতীয় ৪০০ মিটার ৫২.৮৬
দ্বিতীয় ৪ x ১০০ মিটার রিলে ৪৪.৯৯
দ্বিতীয় ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩৮.৪৫
১৯৯৪ ১৯৯৪ এশিয়ান গেমস হিরোশিমা, জাপান চতুর্থ ২০০ মিটার ২৪.২৯
পঞ্চম ৪ x ১০০ মিটার রিলে
দ্বিতীয় ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩৩.৩৪
১৯৯৬ ১৯৯৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক আটলান্টা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র DSQ[২০] ৪ x ৪০০ মিটার রিলে
১৯৯৮ ১৯৯৮ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ফুকোয়কা, জাপান তৃতীয় ২০০ মিটার ২৩.২৭
তৃতীয় ৪০০ মিটার ৫২.৫৫
প্রথম ৪ x ১০০ মিটার রিলে ৪৪.৪৩
দ্বিতীয় ৪ x ৪০০ মিটার রিলে ৩:৩৪.০৪
১৯৯৮ এশিয়ান গেমস ব্যাংকক, তাইল্যান্ড ষষ্ঠ ৪০০ মিটার ৫৪.৩৭
চতুর্থ ৪ x ১০০ মিটার রিলে ৪৪.৭৭

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

  • অ্যাথলেটিক্সএ ভারতীয় রেকর্ডের তালিকা
  • ভারতীয় মহিলা ক্রীড়াবিদের তালিকা
  • কেরালার অলিম্পিয়ানদের তালিকা

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. P. T. USHA Personal Profile at www.ptusha.org
  2. Rayan, Stan (১ মে ২০১১)। "She set the track ablaze"। The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  3. Nadar, A Ganesh (২২ আগস্ট ১৯৯৮)। ""I'm unstoppable now!""। rediff.com। ১৬ নভেম্বর ২০০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  4. "Indian Track Star P.T. Usha Hangs Up Her Spikes"International Association of Athletics Federations। ২৫ জুলাই ২০০০। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  5. India Best21 (২৩ জুন ২০১৬)। "List of India's best Sportspeople"। IndiaBest21। 
  6. Usha School of Athletics: A giant stride forward ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে
  7. Iype, George (১১ সেপ্টেম্বর ২০০০)। "'If I am wellknown today, it is all because of Usha'"। rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  8. "P. T. Usha: Factfile"। rediff.com। ১১ সেপ্টেম্বর ২০০০। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  9. "India's Olympic moments: Heartbreak for PT Usha by 1/100th of a second"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  10. "P.T. Usha: The gold rush"। India Today। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  11. "I never wanted to be an Olympian: P. T. Usha"India Today। ১১ সেপ্টেম্বর ২০০০। সংগ্রহের তারিখ ৭ জুলাই ২০১৭ 
  12. "Olympics moments: PT Usha misses bronze by a whisker"। Daily News and Analysis। ২১ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  13. Bobb, Dilip (৩১ অক্টোবর ১৯৮৬)। "The golden girl"India Today। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  14. Menon, Amarnath K. (১৫ আগস্ট ১৯৮৭)। "Usha does it again"India Today। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  15. Vijaykumar, C.N.R (১৫ ডিসেম্বর ১৯৯৮)। "After the feast, the famine"। www.rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  16. "National records" (PDF)। ATHLETICS FEDERATION of INDIA। ৩১ ডিসেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০১৩ [অকার্যকর সংযোগ]
  17. "P T Usha: Against all hurdles"। The Times of India। ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০০৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  18. "Calicut University confers D.Litt on Mohanlal, PT Usha"The Times of India। ২৯ জানুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৮ 
  19. P. T. Usha did not start (DNS) in the heats.
  20. P. T. Usha was a reserve member of the team which was disqualified (DSQ).

বাহ্যিক লিঙ্ক[সম্পাদনা]