পাটনাগড় রাজ্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পাটনাগড় রাজ্য
ব্রিটিশ ভারত দেশীয় রাজ্য
১১৯১–১৯৪৮
Patna-Karond-Imperial Gazetteer.jpg
ইম্পেরিয়াল গেজেটিয়ার অব ইন্ডিয়া থেকে প্রাপ্ত পাটনাগড় এবং করোন্দ রাজ্যের মানচিত্র
আয়তন 
• ১৮৯২
৬,৫০৩ বর্গকিলোমিটার (২,৫১১ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা 
• ১৮৯২
২,৫৭,৯৫৯
ইতিহাস 
• প্রতিষ্ঠিত
১১৯১
১৯৪৮
উত্তরসূরী
ভারত
ভারতের দেশীয় রাজ্য কে-ডাব্লু

পাটনা বা পাটনাগড় রাজ্য, ছিলো ব্রিটিশ ভারতের মধ্যপ্রদেশ-এ অবস্থিত একটি দেশীয় রাজ্য৷ রাজ্যটির রাজধানী ছিলো বর্তমান বলাঙ্গির জেলার বলাঙ্গির শহরে৷ এটি ৬,৫০৩ কিমি (২,৫১১ মা) ক্ষেত্রফল জুড়ে বিস্তৃত ছিলো৷ [১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত এই রাজ্যটি ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত ছিলো না বটে কিন্তু ব্রিটিশ ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য এজেন্সির ওড়িশা এজেন্সির অন্তর্ভুক্ত একটি অধিরাজ্য ছিলো৷ ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে ভারতের স্বাধীনতা লাভের পরে পাটনাগড়ের রাজা প্রাথমিকভাবে ঐ বছরই ভারতীয় অধিরাজ্যে যুক্ত হন নি৷ তবে ১৯৪৮ খ্রিস্টাব্দে তারা ভারতে অন্তর্ভুক্তি সিদ্ধান্ত নিলে রাজ্যটিকে পূর্বতন সম্বলপুর জেলার অন্তর্ভুক্ত করা হয় পরে সত্তরের দশকে নতুন বলাঙ্গির জেলা আত্মপ্রকাশ করে৷ জেলাটি মোটামুটিভাবে পাটনাগড় রাজ্যের সীমানাই নির্দেশ করে৷

পাটনাগড়ের শেষ স্বাধীন রাজা রাজেন্দ্র নারায়ণ সিংহদেও রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে যুক্ত করেন ও সফল নেতা হিসাবে ১৯৬৭ খ্রিস্টাব্দের ৮ই মার্চ থেকে ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের ৯ই জানুয়ারী পর্যন্ত ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী পদে আসীন থাকেন৷ [১]

শাসকবর্গ[সম্পাদনা]

পাটনাগড় রাজ্যের শাসকরা চৌহান রাজবংশজ ছিলেন এবং ব্রিটিশদের থেকে নয়টি বন্দুকসালামী রাজ্যের সম্মান পেয়েছিলেন৷ [২]

মহারাজা[সম্পাদনা]

  • ১৬৮৫ - ১৭৬২ রামাই দেও
  • ১৭৬২ - ১৭৬৫ পৃথ্বীরাজ দেও
  • ১৭৬৫ - ১৮২০ প্রথম রামচন্দ্র সিংহদেও
  • ১৮২০ - ১৮৪৮ ভূপাল সিংহদেও
  • ১৮৪৮ - আগস্ট ১৮৬৬ হীরবজ্র সিংহদেও
  • আগস্ট ১৮৬৬ - ১৮৭৮ প্রতাপ সিংহদেও
  • ১৮৭৮ - ১৮৯৫ দ্বিতীয় রামচন্দ্র সিংহদেও
  • ১৮৯৫ - ১৯১০ লাল দলগঞ্জন সিংহদেও
  • ১৯১০ - ১৯২৪ পৃথ্বীরাজ সিংহ
  • ১৯২৪ - ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ রাজেন্দ্র নারায়ণ সিংহদেও (b. 1912 - d. 1975)

স্বাধীনতা-উত্তর রাজবংশজ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Patna (Princely State)"। ২২ মে ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১০ 
  2. "Patna Princely State (9 gun salute)"। ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০১৪